Breaking News
Abhishek Banerjee: বিজেপি নেত্রীকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগ, প্রশাসনিক পদক্ষেপের দাবি জাতীয় মহিলা কমিশনের      Convocation: যাদবপুরের পর এবার রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়, সমাবর্তনে স্থগিতাদেশ রাজভবনের      Sandeshkhali: স্ত্রীকে কাঁদতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন 'সন্দেশখালির বাঘ'...      High Court: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিল, সুদ সহ বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে জমি দখল তদন্তে সক্রিয় সিবিআই, বয়ান রেকর্ড অভিযোগকারীদের      CBI: শাহজাহান বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ! তদন্তে সিবিআই      Vote: জীবিত অথচ ভোটার তালিকায় মৃত! ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ধূপগুড়ির ১২ জন ভোটার      ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?     

জীবনধারা

Health Tips: রাতে কি সত্যিই শাক খাওয়া উচিৎ নয়? আদৌ কি শরীরের ক্ষতি করে

ভিটামিন, খনিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভাণ্ডার হল বিভিন্ন ধরনের শাক। দিনে পর্যাপ্ত পরিমাণে শাক খেলে যে কী কী উপকারিতা পাওয়া যায়, তা প্রায় অনেকেরই জানা। শাকে রয়েছে আয়রন যা রক্তে হিমোগ্লোবিন এবং লোহিত রক্ত কণিকা বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়াও শাকে থাকা ফাইবার ওজন কমাতে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। ফলে শাক উপকারিতা তো সবারই কম-বেশি জানা। কিন্তু অনেকেই মনে করেন, রাতের খাবারে শাক খেতে নেই। এমনটা কি সত্যি?

বিশেষজ্ঞদের মতে, শাক রাতের খাবারে খাওয়া উচিত নয়, এ কথা একেবারেই সত্য নয়। রাতের খাবারে শাক খেতেই পারেন আপনারা। কিন্তু খুব বেশি রাতে যদি ডিনার করার কথা ভেবে থাকেন, তবে সেক্ষেত্রে শাক এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ শাক হজম করতে অনেকটা সময় লাগে। রাতে হজম প্রক্রিয়া এমনিই ধীরে হয়ে যায়। তাই বেশি রাতে শাক খেলে গ্যাস-অম্বল-বুকজ্বালার মতো হজমের সমস্যা হতে পারে। তবে যদি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার দু-তিন ঘণ্টা আগে ডিনার করেন, সেক্ষেত্রে শাক অনায়াসেই রাখতে পারেন। তখন হজমেরও কোনও সমস্যা দেখা যাবে না।

7 months ago
Hair Care: বারবার চুল আঁচড়ানোর অভ্যেস! এই বিপদগুলো ডেকে আনছেন না তো

চুল (Hair Care) নিয়ে অনেকেই চিন্তায় থাকেন। দিনরাত চুলের পরিচর্যা করছেন, ঘনঘন চুল আঁচড়াচ্ছেন, কিন্তু তাতেও চুল ঝরেই যাচ্ছে। তবে কি চুল ঘন ঘন আঁচড়ানোর জন্য চুল ঝরে যাচ্ছে? হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন, চুল একাধিকবার আঁচড়ানোর জন্যও চুল ঝরে যাওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ। অনেকেরই ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে যে, চুল একাধিকবার আঁচড়ে নিলেই চুল ভালো থাকবে। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি একেবারেই ভুল ধারণা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনে দুবারের বেশি চুল আঁচড়ানোর কোনও দরকার নেই। সকালে ঘুম থেকে উঠে, আর রাতে শোয়ার আগে আঁচড়ালেই যথেষ্ট। ভেজা চুল আঁচড়ানোর সময় খুব সাবধান থাকতে হবে, ভেজা চুলের গোঁড়া আলগা থাকে। তাই চুল ঝরার সম্ভাবনা বেশি, আগে তলার দিক আঁচড়ে নিয়ে তারপর গোড়া আঁচড়াতে হবে। তবে ভেজা চুল না আঁচড়ানোই বেশি শ্রেয়।

7 months ago
Glowing Skin: পুজোর বাকি ৭ দিন, তার মধ্যেই ত্বকের জৌলুস বাড়াতে চান? মেনে চলুন এই নিয়ম

পুজোর (Durga Puja) আর মাত্র ৭ দিন বাকি, ফলে হাতে মাত্র আর এক সপ্তাহ। আর এর মধ্যেই ফিরে পেতে চান হারিয়ে যাওয়া জেল্লা? কিন্তু কী করে সম্ভব, এই নিয়ে চিন্তায় তো! তবে এই নিয়ে আর ভেবে লাভ নেই। আজ থেকেই শুরু করুন ত্বকের যত্ন। ত্বকের যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি মেনে চলতে হবে কিছু নিয়মও।

ত্বক পরিচর্যার প্রাথমিক তিনটে ধাপ হল ক্লিনজিং, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং। আর এর কথা প্রায় সবারই জানা। কিন্তু প্রতিদিন মেনে চলে না কেউই। কিন্তু এবারে এই অভ্যাসই পরিবর্তন করতে হবে। এই সাতদিন নিয়মিত ত্বকের ক্লিনজিং, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং করা শুরু করুন। প্রথমে নিজের পছন্দ মতো ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এর পর গোলাপজল, গ্রিন টি, হোয়াইট ভিনিগারের মতো প্রাকৃতিক টোনার ব্যবহার করতে পারেন। তার পর ভালো কোনও ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। ত্বক পরিষ্কার করার পর একটা প্রাকৃতিক ফেস প্যাকও লাগাতে পারেন। তা করতে পারলে আরও ভালো হয় ত্বকের জন্য।

তবে শুধু বাইরে থেকে যত্ন নিলেই হবে না, এই কদিন শাক-সবজি, ফল পর্যাপ্ত পরিমাণে খাওয়া উচিত। পর্যাপ্ত জল পান করা উচিত, ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য। আর পর্যাপ্ত ঘুমও দরকার। প্রথম দিন থেকে সপ্তম দিনের রুটিন এভাবেই নিয়মিত মেনে চলুন। আর সাত দিনের মাথায় দেখুন ম্যাজিক।

8 months ago


Tea: বারবার ফোটানো চা খাচ্ছেন? শরীরের কী কী ক্ষতি হতে পারে জানেন?

চা (Tea), বাঙালিদের কাছে কোনও সাধারণ পানীয় নয়, এটি একটি 'ইমোশন'। চা খেতে কে না ভালোবাসে? যাঁরা আসল চা-প্রেমী তাঁরা গরম-শীত, যখন-তখন খেতে পছন্দ করেন। অনেকের আবার দিনের শুরুটা হয় এক কাপ চা দিয়েই। সারাদিনে যে কত কাপ চা পান করেন, এর হিসেবে অনেকেরই থাকে না। অনেকে আবার একবার চা করে রেখে তা বার বার ফুটিয়ে পান করে থাকেন। আবার অনেকেই বেশিক্ষণ ধরে ফোটানো চা খেতে পছন্দ করেন। তবে এখানেই ভুলটা করছেন আপনারা। চা বারবার ফুটিয়ে খাওয়া উচিত কিনা সে ব্যাপারে জানেন কি? বা বেশিক্ষণ ধরে চা ফোটালে তা শরীরের কী কী ক্ষতি করতে পারে, তা সম্পর্কে অনেকেই অবগত নন। তবে এবারে জেনে নিন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, চা বারবার ফুটিয়ে খাওয়া উচিৎ নয়। কারণ এতে চায়ে ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বাড়তে থাকে। ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যাও আরও বাড়ে যখন আপনি দুধ চা বানিয়ে রাখেন। এছাড়াও চা-কে আরও বিষাক্ত করে তোলে চিনি। আবার চায়ের গুণাগুণও নষ্ট হয়ে যায়। বারবার গরম করা চা পান করলে চোখের গ্লুকোমা ও স্নায়ুতে প্রভাব ফেলে। আবার হজমশক্তির উপর প্রভাব ফেলে ডায়রিয়া, পেটের নানা সমস্যার সৃষ্টি করে।

আবার বেশিক্ষণ ধরেও চা ফোটানো উচিত নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, বেশিক্ষণ ধরে চা ফোটালে চায়ের মধ্যে থাকা ক্যাফিন ও ট্যানিন নামের দুটি উৎসেচক নষ্ট হয়ে যায়। এতে চায়ের স্বাদ তেতো হয়ে যায়। আর তা শরীরের পক্ষেও ভালো না। এই চা পান করলে খাদ্যনালীতে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, এক থেকে দু'মিনিটের বেশি চা ফোটানো ঠিক নয়।

8 months ago
Tea: যখন তখন 'চা' খান? এখনই সতর্ক হন

চা ছাড়া অনেকেরই দিন গুজরান হয় না। সকালে খালি পেটে চা খাওয়া দিয়ে শুরু করে, চা (Tea) খেয়েই দিন শেষ হয় অনেকের। অনেকের আবার চা খাওয়ার অভ্যাস এমন জায়গায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে, যে ভাত পাতেও চা খেয়ে থাকেন। কিন্তু সব কিছুর জন্যই নির্দিষ্ট সময় থাকে। চিকিৎসকেরা বলে থাকেন সঠিক সময়ে সঠিক কাজ করা ভালো। তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে জেনে নিন, দিনের কোন সময়ে চা খাবেন।

চিকিৎসকেরা বলছেন, চা আপনার খেতে ভালো লাগতেই পারে। কিন্তু সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে চা খাওয়া একেবারেই ভালো অভ্যাস নয়। আপনি যদি খালি পেটে চা খেতে অভ্যস্ত হয়ে থাকেন, তাহলে এই খারাপ অভ্যাস নিয়ে আপনার চিন্তিত হওয়া উচিৎ। চা-এর স্বভাব অ্যাসিডিক। তাই খালি পেটে খেলে অ্যাসিড ব্যালেন্স বিঘ্নিত হতে পারে। এছাড়াও চেয়ে থাকে 'থিওফাইলিন'। যা শরীর শুকনো করে দিতে পারে।

চা খাওয়ার সবথেকে ভালো সময় খাবার খাওয়ার ১ ঘন্টা বা ২ ঘন্টা আগে বা পরে। আপনি সকালেও চা খেতে পারেন। কিন্তু খেয়াল রাখবেন, খালি পেটে খাবেন না। আগে কিছু একটু খেয়ে নিয়ে তারপরেই খাবেন। তবে চিকিৎসকেরা বলছেন, বিকেলে অনেকেই জলখাবারের সঙ্গে চা খেয়ে থাকেন। এই অপশনটি ভালো। তবে রাতে ঘুমোনোর আগে চা না খাওয়ায় ভালো। এই অভ্যাস ঘুমে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে।

8 months ago


Shoe Bite: পুজোর নতুন জুতোয় পায়ে ফোসকা পড়ার আশঙ্কা? সুরাহা পেতে জেনে নিন এই টোটকাগুলো

পুজোর আর মাত্র ১০ দিন বাকি, অনেকেরই শপিং কমপ্লিট, আবার কারোর এখনও কিছুই হয়তো কেনা হয়নি। তবে পুজোয় জামা-কাপড় কেনা হলেও যতক্ষণ ড্রেসের সঙ্গে ম্যাচ করে জুতো না কেনা হয়, ততক্ষণ যেন শপিং সম্পূর্ণ হয় না। কিন্তু নতুন জুতো (Shoe) মানেই তো, পায়ে ফোসকা (Shoe Bite)। ফলে পুজোর আনন্দের যেন 'পথের কাঁটা' হয়ে দাঁড়ায় এই নতুন জুতোই। কিন্তু আর চিন্তা নেই, এবারে কিছু ঘরোয়া উপায়েই মিলবে এর সুরাহা।

নতুন জুতো পরার আগেই আপনি যদি জুতোতে খানিকটা নারকেল তেল লাগিয়ে রাখেন, তাহলে জুতোর চামড়া নরম হয়ে যায়। ফলে পায়ে ফোসকা পরার আশঙ্কা কমে যায়।

এছাড়াও নতুন জুতো পরার আগের দিন সারা রাত তার ভিতরে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে রাখতে পারেন। এতেই জুতোর চামড়া নরম হয়ে যায়।

যদি ফোসকা পড়েও যায় তবে অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে রাখতে পারেন। এতে পায়ের ফোসকা খুব তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যাবে।

পায়ের ফোসকা জায়গায় নারকেল তেলও লাগাতে পারেন। এটি জ্বালাভাব কমাতে দারুণ কার্যকর৷

এছাড়াও ফোসকা জায়গায় মধু দিতে পারেন।  এতে জ্বালাভাব কমে, তাড়াতাড়ি ক্ষত সারে, দ্রুত দাগও মিলিয়ে যায়।

8 months ago
Water: খাওয়ার আগে না পরে, শরীর সুস্থ রাখতে কখন জল পান করা উচিৎ?

সুস্থ থাকতে রোজ পর্যাপ্ত পরিমাণে জল (Water) পান করা উচিৎ। জল আমাদের জীবন, জল ছাড়া এক মুহূর্তও চলা অসম্ভব, তা সবারই জানা। জল শরীরকে হাইড্রেটেড রাখার পাশাপাশি খাবার হজম করা থেকে শুরু করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক ক্রিয়াকলাপে সাহায্য করে জল। তবে জল খাওয়ার কী কী উপকারিতা রয়েছে, তা কমবেশি সবার জানা থাকলেও অনেকেরই মনে সন্দেহ রয়েছে যে কখন জল পান করা উচিৎ। খাওয়ার আগে না পরে, ঠিক কখন জল পান করলে তা শরীরের জন্য লাভজনক হবে।

পুষ্টিবিদরা জানিয়েছেন, খাওয়ার ঠিক ৩০ মিনিট আগে বা খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পরে জল পান করা উচিৎ। খাবার খেতে খেতে জল পান না করাই ভালো বলে পরামর্শ পুষ্টিবিদদের। তাঁরা জানিয়েছেন, খেতে খেতে জল খেলে খাবার হজম হতে অনেক দেরি হয়। তাই খাওয়ার আগে এবং খেয়ে ওঠার কিছুক্ষণ পর জল খান। বিশেষত, যাঁদের ওজন বেশি তাঁদের খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট আগেই জল পান করা উচিৎ। আবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পর জল খেলে হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্য সহ একাধিক পেটের অসুখ এড়িয়ে চলা সম্ভব।

8 months ago
Dates: স্বাস্থ্য সচেতন হলে প্রত্যেকদিন খেজুর রাখুন খাদ্য তালিকায়

ফল যে শরীরের জন্য উপকারী তা কে না জানে। কিন্তু অন্যান্য ফলের উপস্থিতিতে খেজুরের (Dates) গ্রহণযোগ্যতা একটু কম। বিভিন্ন পুজোর প্রসাদের থালা ছাড়া, খেজুর বিশেষ দেখতে পাওয়া যায় না। দেখতে ছোট বলে বোধহয়, সাধারণ মানুষ এর উপকারিতাকেও নগন্য করে দেখেন। কিন্তু সময় এসেছে ভাবনা বদলানোর। আপনি যদি নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন হন, তাহলে অবশ্যই ভরসা রাখুন খেজুরে। এই ফলের উপকারিতা জানেন কী?

খেজুর শুকনো ফল হওয়ায়, তাজা ফলের তুলনায় এই ফলে ক্যালোরি বেশি থাকে। এছাড়াও খেজুরে রয়েছে ভিটামিন ও মিনারেলস। মাত্র ১০০ গ্রাম খেজুরে থাকে ক্যালোরি, কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, প্রোটিন, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, কোপার, ম্যাঙ্গানিজ ও আয়রন এবং ভিটামিন বি সিক্স। যা কোষ্ঠ কাঠিন্য ও উচ্চ রক্তচাপের মতো সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়।

খেজুরে অনেক রকমের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা বেশ কিছু ক্রনিক সমস্যা কমাতে সাহায্য করে। প্রত্যেকদিন খেজুর খেলে হার্টের সমস্যা কমে. এছাড়া ক্যান্সার অ্যালজাইমার ও ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়। এমনকি প্রত্যেকদিন খেজুর খেলে প্রসব যন্ত্রনাও নাকি কমে অনেকটা। এছাড়া হাড় শক্তি করতে হলেও প্রত্যেকদিন খেজুর খান।

8 months ago


Skin: পুজোর আগেই ত্বকের হারানো জেল্লা ফিরে পান মাত্র একটি উপায়ে

হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন, তারপরেই দুর্গা পুজো। এই চারটে দিন সকলেই নিজেকে সুন্দর দেখাতে চান। এদিকে রোজ রান্নাঘরের গরম কিংবা অফিস যাওয়ার পথের ধুলো ময়লা রোদে ত্বকের (Skin) অবস্থা খারাপ হয়ে গিয়েছে অনেকের। শুধুমাত্র ফেস ওয়াশ কিংবা ময়েশ্চরাইজারে কিন্তু ত্বকের ঔজ্জ্বল্য (Brightness) ফিরবে না। আপনার ড্যামেজড ত্বকের চাই একটু বাড়তি যত্ন। তাই সময় থাকতেই শুরু করুন ভিটামিন সি-এর ব্যবহার।

ত্বকের একেবারে ভিতরের স্তর পর্যন্ত যায় ভিটামিন সি সিরাম। তাই ত্বকে ঔজ্জ্বল্য আসে একেবারে ভিতর থেকে। রোদের আলো, স্ট্রেস, ময়লা, অতি বেগুনি রশ্মির প্রভাব ত্বককে ভিতর থেকে নষ্ট করে দেয়। ফলে ত্বকের ঔজ্জ্বল্যও ঝিমিয়ে পড়ে। বাইরে থেকে শুধু মেকআপের সাহায্য না নিয়ে যদি প্রাকৃতিকভাবে চেহারায় জেল্লা আনতে চান তাহলে প্রত্যেকদিনের স্কিন কেয়ার রুটিনে রাখুন ভিটামিন সি।

আজকাল অনলাইনে কিংবা দোকানে নানা রকম ভিটামিন সি সিরাম উপলব্ধ থাকে। আপনার ড্ৰাই স্কিন, অয়েলি স্কিন কিংবা কম্বিনেশন স্কিনের আবহাওয়া বুঝে কিনে ফেলুন সঠিক সিরাম। এরপর দিনে এবং রাতে, ফেসওয়াশ দিয়ে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন। তারপরে প্রথমে টোনার লাগিয়ে, মুখ শুকিয়ে নিয়ে ভিটামিন সি সিরাম লাগান। এরপর ময়েশ্চরাইজার ব্যবহার করুন। কয়েক দিন এই রুটিন মেনে চললেন হাতেনাতে ফল পাবেন।

8 months ago
Skin Care: পুজোর আগে ত্বকের জেল্লা ফেরাতে চান? এই ফুলের জাদুতেই পাবেন উজ্জ্বল-কোমল ত্বক

পুজোর আর এক মাসও নেই। ফলে ত্বকের প্রতি হতে হবে বিশেষ যত্নবান। পুজোতে গ্ল্যামারাস দেখতে দরকার উজ্জ্বল, কোমল ত্বকের। কিন্তু দামী দামী ক্রিম ব্যবহার করেও পাচ্ছেন না মন মতো ত্বক। তবে এবারে নজর দিন প্রাকৃতিক সাম্গ্রীতে। জানা গিয়েছে, এমন এক ফুল রয়েছে, যা ত্বকের বলিরেখা থেকে শুরু করে ব্রণ, শুষ্কতা, কালো ছোপ খুব সহজেই দূর করতে পারে। আর সেটি হল জবা ফুল। জবা ফুল যেমন চুলের জন্য উপকারী তেমনই ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও কার্যকরী।

জবা ফুলে থাকে অ্যাসকরবিক অ্যাসিড ও ভিটামিন সি। যার গুণে ত্বক হয় উজ্জ্বল। জবা ফুলের নির্যাসে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট যা ত্বককে রক্ষা করে। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকেও রক্ষা করে এই ফুল। জবা ফুলে উপস্থিত ভিটামিন সি ত্বকে কোলাজেনের উৎপাদন বৃদ্ধি করে। যার ফলে ত্বকের জেল্লা ফিরে আসে। এছাড়াও ত্বকের ক্ষত সাড়াতেও কার্যকরী জবা ফুল।

8 months ago


Breakfast: ব্রেকফাস্ট করার সময় নেই? সাবধান, শরীরে এই বিপদগুলো ডেকে আনছেন না তো

সকালে অফিসে যাওয়ার তাড়াহুড়ো, ব্যস্ততা, কাজের চাপ ইত্যাদির মাঝে ব্রেকফাস্ট বা জলখাবার খাওয়া হয় না। অনেকে আবার ইচ্ছে করেও স্কিপ করে যান ব্রেকফাস্ট। আর এভাবে এক-দু'দিন না, দিনের পর দিন অনিয়ম চললে আপনার অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। জানেন কি, এতে শরীরের কী কী ক্ষতি হতে পারে! তাই সময় থাকতেই সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। বিশেষজ্ঞদের মতে, কোনও মতেই বাদ দেওয়া উচিত নয় সকালের খাবার বা ব্রেকফাস্ট (Breakfast)।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে, ব্রেকফাস্ট না করলে ওজন বাড়তে থাকে। কাজে উৎসাহ থাকে না। সারাদিন ক্লান্তি থাকে শরীরে। এছাড়াও বিপাক ঠিকমতো হয় না, ডায়াবিটিসের আশঙ্কাও বহুগুণ বেড়ে যায়। যাঁরা হার্টের রোগী অর্থাৎ যাঁদের হৃদরোগ রয়েছে, তাঁরা সকালের জলখাবার না খেলে তাঁদের হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোকের প্রবণতা বেড়ে যায়। উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাও দেখা যায়। সকালে জলখাবার না খেয়ে দীর্ঘক্ষণ খালি পেটে থাকলে, মাথা ব্যথা শুরু হয়ে যায়। যাঁদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে, তাঁদের আরও বেশি কষ্ট হয়। এছাড়াও শরীরে ভিটামিন, প্রোটিনের অভাব দেখা দেয়। তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, সুস্থ থাকতে হলে কখনই স্কিপ করা উচিত নয় জলখাবার।

8 months ago
Dengue: ডেঙ্গির মশা চিনবেন কীভাবে?

শহর ও রাজ্য জুড়ে ডেঙ্গির (Dengue) দাপট। ইতিমধ্যেই কয়েক হাজার মানুষ ডেঙ্গি জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুর হারও বেড়ে চলেছে। কিন্তু সতর্ক হবেন কীভাবে! কীভাবে চিনবেন ডেঙ্গি মশা (Dengue Mosquito)। প্রায় সবারই জানা, এডিস ইজিপ্টাই (Aedes Aegypti) নামে এক বিশেষ প্রজাতির মশা এই রোগের বাহক। জেনে নিন, কেমন দেখতে হয় এই মশা।

কেমন হয় ডেঙ্গি মশা? 

এডিস ইজিপ্টি মশা, অর্থাৎ ডেঙ্গির মশা গাঢ় কালো রঙের হয়। পায়ে থাকে সাদা সাদা দাগ। সাধারণ মশার থেকে আকারে ছোট হয় এডিস ইজিপ্টাই। দৈর্ঘ্য মাত্র ৪ থেকে ৭ মিলিমিটার। স্ত্রী মশারা পুরুষদের তুলনায় লম্বা হয়। এরা খুব বেশি উড়তে পারে না।

কখন দাপট বাড়ে ডেঙ্গি মশার?

ডেঙ্গির মশা বেশিরভাগই দিনের বেলায় কামড়ায়। দিনের বেলায় এই মশা সবথেকে বেশি সক্রিয় থাকে। সূর্য ওঠার দু'ঘণ্টা পর থেকেই দাপট বাড়ায় ডেঙ্গির মশা। ডেঙ্গির মশার বিপদ দিনেই বেশি বলে জানিয়েছে বিশেষজ্ঞ মহলও। সূর্যাস্তের এক ঘণ্টা আগে থেকেই ক্ষমতা কমে এই মশার। তাই দুপুরে সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গির মশার উপদ্রব।

8 months ago
Health Tips: অফিসে লিফট ব্যবহার করেন না সিঁড়ি? রোগমুক্ত থাকতে কী করবেন, জানুন

সুস্থ থাকতে তো আমরা সবাই চাই। কিন্তু শুধু চাইলেই তো আর হয় না, তার জন্য কয়েকটি নিয়ম মানাও জরুরি। সেই সব নিয়মের মধ্যে প্রধান হল স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া এবং নিয়মিত ওয়ার্ক আউট করা। তবে এখনকার দিনের ব্যস্ত জীবনে আলাদা করে ওয়ার্ক আউটের জন্য সময় আমরা অনেকেই বের করতে পারি না। আর এই ব্যস্ততার মধ্যেই অনেক ভুল কাজ করে থাকি আমরা, যার প্রভাব আমাদের শরীরের ওপর পড়ে। সময় বাঁচাতে আমরা অনেকেই সিঁড়ির বদলে লিফট বা এসক্যালেটরই ব্যবহার করি। কিন্তু এখানেই সবথেকে বড় ভুল করছি আমরা। কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে, ফিট হতে গেলে লিফট বা এসক্যালেটরের অভ্যাস ভুলে সিঁড়ি ভাঙা শুরু করা উচিত। জেনে নিন সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করলে শরীরে কী কী প্রভাব পড়তে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত সিঁড়ি ওঠার অভ্যাস থাকলে হৃদরোগের সম্ভাবনা কমে যায়। এছাড়া সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করলে উচ্চরক্তচাপ এবং ডায়াবিটিসের সম্ভাবনাও কমে। এছাড়াও সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করার সময় সারা শরীরে রক্তের সরবরাহ বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে হার্টের কর্মক্ষমতাও বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই কার্ডিওভাসকুলার রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে পায়। আবার সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করলে বোন ডেনসিটির উন্নতি ঘটতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হাড় শক্ত হতে শুরু করে। সেই সঙ্গে আর্থ্রাইটিসের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

8 months ago


Nipah Virus: বাংলাতেও ছড়াচ্ছে নিপা ভাইরাস! এর উপসর্গ কী কী, জানুন

রাজ্যে যখন ডেঙ্গি-ম্যালেরিয়ার (Dengue-Malaria) বাড়বাড়ন্ত, তখন নতুন করে আতঙ্কের সৃষ্টি করছে নিপা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই কেরলে নিপা ভাইরাসে (Nipah Virus) আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। এর পর বাংলাতেও একজনের নিপা ভাইরাসে সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে তিনি নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তার এখনও রিপোর্ট আসেনি। এদিকে নিপা ভাইরাসে সংক্রমণের হার বেড়েই চলেছে। তবে অনেকেরই অজানা, কী এই ভাইরাস, এর উপসর্গ কী কী, আর কীভাবে এই ভাইরাস ছড়ায়?

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নিপা ভাইরাসের যে স্ট্রেনটি সংক্রমণ ছড়াচ্ছে, তা বাংলাদেশি ভ্যারিয়েন্ট। এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রামক ক্ষমতা কম হলেও, মৃত্যু হার অনেক বেশি। মূলত ফলাহারী বাদুড় বা ‘ফ্রুট ব্যাটস’-এর মাধ্যমে মূলত এর সংক্রমণ ঘটে। অনেক সময় খেজুর গাছে রসের হাঁড়িতে মুখ দেয় বাদুড়। সেই রস খেলে মানুষের শরীরেও নিপা ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে বলে মনে করা হয়।

এই রোগে আক্রান্ত হলে হঠাৎ জ্বর আসতে পারে। সঙ্গে হতে পারে মাথা ব্যাথা, পেশিতে টান, ক্লান্তি, বমি ও শ্বাসকষ্ট। মাত্র সাত থেকে দশ দিনের মধ্যে কোনও রোগী কোমায় চলে যেতে পারেন। সংক্রমণ গুরুতর আকার ধারণ করলে এনসেফালাইটিস বা মস্তিষ্কে ফোলাভাব সৃষ্টি হতে পারে। নিপার উপসর্গ ধরা দিতে ৪ থেকে ১৪ দিন সময় লাগে। তাই এই উপসর্গ দেখা দিলে চিকিৎসকের সঙ্গে দ্রুত যোগাযোগ করা উচিত।

8 months ago
Tea-Biscuit: সকালে ঘুম থেকে উঠেই খাচ্ছেন চা-বিস্কুট? শরীরে এই বিপদগুলো ডেকে আনছেন না তো

বাঙালিদের সকালে ঘুম থেকে উঠতেই তাঁদের দরকার চা-বিস্কুটের (Tea-Biscuit)। বাঙালি ছাড়াও এমন অনেকেই আছেন, যাঁরা সকালের শুরু চায়ের কাপে চুমুক ও বিস্কুটে কামড় দিয়েই শুরু করেন। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন, সকালের শুরু চা ও বিস্কুট দিয়ে শুরু করাটা কি স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হচ্ছে? তবে অনেকে আবার এও জানেন না যে, সকাল সকাল চা-বিস্কুট শরীরের ক্ষতি পারে। তবে এবারে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, চা-বিস্কুট খাওয়া কেন শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, আসলে বিস্কুটে সুগারের মাত্রা অত্যন্ত বেশি থাকে। সুগারের অত্যধিক প্রভাব ত্বকের ওপর প্রভাব ফেলে। আর তার ছাপ ফুটে ওঠে ত্বকে। এছাড়াও রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ায় শরীরে ডায়াবেটিসের মত রোগ-ব্যাধি বাসা বাঁধে। এছাড়াও এক গবেষণায় জানা গিয়েছে, চা-বিস্কুট দিয়ে সকাল শুরু করলেই শরীরের স্ট্রোক, হৃদরোগ এমনকি স্থূলতার ঝুঁকিও বেড়ে যায়। ফলে সকালে ঘুম থেকে উঠেই চা-বিস্কুট না খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

8 months ago