একুশের কড়চাআরও পড়ুন

মমতার জোট

বহিরাগত ইস্যুতে প্রচারে জোর বাড়িয়েছে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। মূলত অবাঙালি বিজেপি নেতাদের ওই ভাষাতেই আক্রমণ করেছে তৃণমূলের ছোটবড় নেতারা। কিন্তু এরপরও দেখা যাচ্ছে দেশের বিজেপি বিরোধী দলগুলি কংগ্রেস-সিপিএমকে ব্রাত্য করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই সমর্থন করতে এগিয়ে আসছে। বঙ্গ নির্বাচনে মমতার দলকে প্রথমে সমর্থন জানিয়েছিলেন সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব। এরপর বামেদের ব্রিগেড জনসভার দিন কলকাতায় আসা সত্বেও আরজেডি সুপ্রিমো তেজস্বী যাদব নবান্নে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে দেখা করেন। এবং তাঁর দলকে সমর্থন জানিয়ে হিন্দিভাষীদের কাছে তৃণমূলকেই সমর্থন করার অনুরোধ করেন।


এরআগে এনসিপি-র শারদ পাওয়ারও মমতাকে সমর্থন জানিয়ে দিয়েছিলেন। কৃষক আন্দোলনে মমতার সমর্থনের সম্মানে অকালি দল নেতারাও নবান্নে এসে বৈঠক করেন তৃণমূল সুপ্রিমোর সঙ্গে। অকালি দলও এবারের ভোটে তৃণমূলকে সমর্থন করে বাংলায় বসবাসকারী পাঞ্জাবীদের আহ্বান জানান। বৃহস্পতিবার শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে তৃণমূলকে সমর্থন জানালেন। শুধু তাই নয়, শিবসেনার তরফে জানিয়ে দেওয়া হল, বঙ্গ ভোটে শিবসেনা কোনও প্রার্থী দেবে না। তৃণমূলকেই তাঁরা সমর্থন করবে। শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউথ বঙ্গে আসবেন প্রচারে।


লক্ষণীয় বিষয় এই দলগুলির কেউই কোনও কেন্দ্রে প্রার্থী দিচ্ছে না | কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে কংগ্রেস ও বামেরা তাদের জোটে থাকা সত্বেও তৃণমূলকে সমর্থন কেন? সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, কোনও ভাবেই তাঁরা বিজেপিকে ক্ষমতায় আসতে দিতে নারাজ। কংগ্রেস প্রধান শক্তি না হওয়াতে তাঁদের জোটকে আমল দিতে চাইছে না অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি। এমনকি ডিএমকেও তৃণমূলের পাশে থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। সময়ে বুঝে এই দলগুলির প্রতিনিধিরা বাংলায় এসে অবাঙালি এলাকাগুলিতে প্রচারও করবে।   


বাংলার রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে কমিশনকে রিপোর্ট কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের, পরিস্থিতি ভয়াবহ
কলকাতায় ‘লিড’ বজায় রাখতে জরুরী বৈঠকে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব
বিজেপির প্রার্থী হচ্ছেন তৃণমূল থেকে আগত প্রায় সকলেই
পেট্রল পাম্প এবং করোনা টিকার সার্টিফিকেটে মোদির ছবি সরানোর নির্দেশ
বিজেপিতে ‘মহাগুরু’ মিঠুন?
রাজনীতিতে না সৌরভের, 'জানতাম' বললেন অশোক ভট্টাচার্য
আজই কী বিজেপির প্রথম প্রার্থী তালিকা?
আক্রমণ করলে ছেড়ে কথা বলব না, হুঁশিয়ারি শিশির অধিকারীর

খেলাধুলাআরও পড়ুন

ফের ঘূর্ণি পিচের পুর্বাভাস

আগের দুটি ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘূর্ণি পিচ বানিয়ে জয় পেয়েছিল ভারত। যদিও আহমেদাবাদ টেস্টের পর সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল বিশ্বজুড়ে। স্যার ভিভ রিচার্ডসকেও বক্তব্য রাখতে দেখা গিয়েছিল, অবশ্য তিনি ভারতের পক্ষেই রায় দিয়েছেন। কিন্তু আইসিসি-র একটা নিয়ম আছে, কোনও মাঠ যদি খেলার অনুপযুক্ত হয় এবং কোনও বিদেশি দল যদি প্রতিবাদ করে তবে ওই মাঠ ভবিষ্যতে খেলার মাঠ হিসাবে ব্ল্যাক লিস্টেড অবধি হতে পারে। জানা যাচ্ছে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড নাকি এই অভিযোগ জমা করেছে। তার ফল কি হবে তা এখনও জানেনা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।


এরমধ্যেই ভারতের সহ অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানে ইঙ্গিত দিলেন, যে ফের ঘূর্ণি পিচেই খেলা হবে। আগের টেস্টে রোহিত শর্মা ছাড়া কেউই রান পাননি। মাত্র দুই দিনেই শেষ হয়েছিল আস্ত টেস্ট ম্যাচ। ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে পিচ নিয়ে কোনও কথা বলেনি। রহস্যময় কারণ আইপিএল-এ খেলা, যা কিনা সারা জীবনের রোজগার দিতে পারে তিনটি সিজন খেললেই। অতএব মুখে কুলুপ।     


কলকাতায় সরানো হতে পারে ভারত-ইংল্যান্ড ওয়ান ডে সিরিজ
আহমেদাবাদের পিচ নিয়ে সমালোচনার ঝড়
অল্পের জন্য এবার কোপা আমেরিকায় খেলা হল না ভারতের!
এর নাম ক্রিকেট ?
বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নামকরণ হল নরেন্দ্র মোদির নামে
ভুলে ভরা টিম, হেরেই চলেছে এসসি ইস্টবেঙ্গল
মোতেরাতে প্রস্তুত ভারতীয় ক্রিকেট দল
আজ জিতলেই AFC চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটিকে-মোহনবাগান

লাইফস্টাইলআরও পড়ুন

প্যারাডাইস সন্দেশ

ব্রিটিশ যুগ থেকে এই সেদিনও বাঙালির প্রিয় মিষ্টি বলতে ছিল প্যারাডাইস সন্দেশ। যা কিনা আভিজাত্যের ঐতিহ্য হিসেবেই পরিচিত ছিল। কবে আবিষ্কার হয়েছিল বা কে করেছিল তা নিয়ে বিস্তর তর্ক হাতে পারে। কিন্তু এর স্বাদের সত্যিই বিকল্প কোনও নেই। শোনা যায়, কলকাতার এক তথাকথিত রায়বাহাদুরের বাড়িতে আমন্ত্রণ ছিল তৎকালীন বাংলার বড়লাটের। খাওয়ার বিষয়ে সাহেবের বক্তব্য ছিল যে তিনি ‘ইন্ডিয়ান খানা’ খাবেন। সে তো গেলো প্রাথমিক বিষয়। সাহেবের জন্য মুরগি-মাটন, গোল রুটি ছিল, কিন্তু ভারতীয় মিষ্টির কি হবে? তখন রায়বাহাদুর নিজেই গেলেন বিখ্যাত এক মিষ্টির দোকানে, তাঁদের মিষ্টির ফরমায়েশ দিলেন। সব শুনে ওই দোকানের মালিক রায়বাহাদুরকে বললেন ঘাবড়াবেন না, আমি বিষয়টি দেখছি।


এরপর ছানার কাঁচাগোল্লার সাথে কাজু, পেস্তা,খোয়া ক্ষীর ইত্যাদি দিয়ে বেশ বড় মাপেন একটি সন্দেশ তৈরী করে দিলেন। সাথে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছিল কেকের ভ্যানিলা। অসাধারণ স্বাদ হয়েছিল সেই সন্দেশের, সাহেব তো খেয়ে খুব খুশি। তিনি রায়বাহাদুরকে মিস্টিটির তারিফ করে বলেছিলেন, ‘ওহ ইটস প্যারাডাইস’। পরে সেটাই প্রচলিত হয়ে গেল, বাজারে চলে এল নতুন সন্দেশ ‘প্যারাডাইস সন্দেস’। আজও পাওয়া যেতে পারে হয়তো এই বিশেষ সন্দেশ। কিন্তু এক পিসের দাম ৭০ থেকে ৭৫ টাকা .... কে খাবে ?  


6 days ago

ভিডিও খবর

যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদ করায় পড়ুয়াকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে
রাজ্য | 2 hours ago
ফের বিস্ফোরক শিশির অধিকারী
রাজ্য | 2 hours ago
পরিবহণ ভবনে বিক্ষোভ বাসমালিকদের
কলকাতা | 2 hours ago
নির্বাচনী বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চলল সবুজ সাথীর সাইকেল বিলি
রাজ্য | 3 hours ago
সরকারি নির্ধারিত মজুরি না পেয়ে পথ অবরোধ ইটভাটার শ্রমিকদের
রাজ্য | 3 hours ago
ফের প্রশ্নের মুখে রাজ্যের চিকিৎসাব্যবস্থা
রাজ্য | 3 hours ago
নিজেদের অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে এবার পথে বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন মানুষরা
রাজ্য | 3 hours ago
জোটের জটে দেরি বাম-তালিকায়
কলকাতা | 3 hours ago
আদিবাসী উন্নয়নে আছে নানা প্রকল্প, কিন্তু নেই তার বাস্তবায়ন
রাজ্য | 3 hours ago
রসিকার রহস্যমৃত্যুতে অবশেষে নড়েচড়ে বসল লালবাজার
কলকাতা | 3 hours ago
প্রথম দফার নির্বাচনের দিন নিয়ে আপত্তি পর্যটন ব্যবসায়ীদের
কলকাতা | 4 hours ago
বিজেপির প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে দিল্লিতে কৈলাশ, মুকুল, দিলীপ সহ ১৬ জন শীর্ষ নেতৃত্ব
দেশ | 4 hours ago