C A L C U T T A   N E W S

আন্তর্জাতিকআরও পড়ুন

own plane: যে শহরের বাসিন্দারা অফিসে যান নিজের বিমানে চড়ে

শহরে বসবাসরত প্রত্যেকেই বিমান এর মালিক। বাড়ির সামনে গাড়ির পরিবর্তে বিমান। অফিসে যান বিমানে চড়ে। সপ্তাহান্তের ছুটি কাটাতেও বেড়িয়ে পড়েন বিমান  নিয়েই। এই শহরে অলিগলি, ছোট-বড় রাস্তা বলে কিছুই নেই। আছে রানওয়ে। নাম ‘বোয়িং রোড’।

আর পাঁচটা শহরে বাস-ট্যাক্সি বা ব্যক্তিগত গাড়ি যেভাবে চলে, এ শহরে বিমানও সেই ভাবেই চলে। গাড়ির গ্যারাজের মতোই বিমান রাখার জায়গা বা হ্যাঙ্গার রয়েছে ঘরে ঘরে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত এই শহরটির নাম ক্যামেরন পার্ক। সবাই একে ফ্লাই-ইন রেসিডেন্সিয়াল কমিউনিটি হিসেবেই চিনে। সোজা কথায় এটি একটি এয়ারপার্ক। একসময় নাম ছিলো ক্যামেরন পার্ক এয়ারপোর্ট। শহরের প্রতিটি পরিবারেরই কোনও না কোনও সদস্য একসময় পাইলট বা বিমানচালক ছিলেন। 

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে যে ছবি ধরা পড়েছে, তা হল শহরকে দুইভাগে ভাগ করেছে একটি রানওয়ে। বিমান অনায়াসে সেখানে ওঠানামা করতে পারে।

ক্যামেরন পার্কে স্কুল, বাজার, হাসপাতাল, এমনকি শপিংমলও রয়েছে। তবে বিশ্বে এমন ফ্লাই-ইন কমিউনিটি রয়েছে ৬৪০টি। তার মধ্যে ৬১০টিই যুক্তরাষ্ট্রে।


Russia: করোনায় আক্রান্ত রুশ প্রেসিডেন্টের একাধিক কর্মী,আইসোলেশনে পুতিন
Breaking News:নবম-দশম শ্রেণিতে থাকবে না বিজ্ঞান,মানবিক,বাণিজ্য বিভাগ
৫৪৪ দিন বাদে স্কুল খুললো বাংলাদেশে
৭ দেশের গুপ্তচর বৈঠকে বাদ ভারত
9/11 Anniversary: সন্ত্রাসের বিশ বছর, আমেরিকার টুইন টাওয়ার গুড়িয়ে দিয়েছিল জঙ্গিরা
Afghanistan:পাঞ্জশিরে পাকিস্তান সেনাবাহিনী (SSG) বিপর্যয়ের মুখে!
Taliban:আফগানিস্তানের মাটিতে পাকিস্তানের সামরিক বিমান
Afghanistan: ক্ষমতায় এসেই মহিলাদের ওপর ১৭টি নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দিল তালিবান
বাকি মাত্র আর দিন
Durga Puja: পুজোতে ছুটি কাটাতে আকর্ষণীয় প্যাকেজ আনল NBSTC

সামনেই বাঙালিদের শ্রেষ্ঠ উৎসব। তবে পুজোতে অনেকেই বেরিয়ে পরে তার পছন্দের জায়গায়। সারাবছর কাজের মধ্যে থাকায়। তাই একটু পুজোর ছুটি কাটাতে বেরিয়ে পরে ভ্রমণ পিপাসুরা। এবার গরুবাথান থেকে ঝালং, চিলাপাতা থেকে ফুন্ট শেলিং। পুজোয় পাহাড়, জঙ্গলের সৌন্দর্য ঘুরিয়ে দেখাবে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম (এনবিএসটিসি)। রকি আইল্যান্ড, লাভা, রিকিসুম, ডেলো কোথায় নিয়ে যাবে না! টুক করে নিগমের ওয়েবসাইটে ঢুকে শুধু প্যাকেজ সিলেক্ট করে বুকিং করে নিতে হবে। আর তারপরই নিশ্চিন্তে বাসে বসে আঁকাবাঁকা পথে দিয়ে প্রকৃতির শোভা দেখতে দেখতে চলে যাওয়া যাবে পাহাড়ের নানা পর্যটনস্থলে। এদিকে পাহাড়ি পথে অনেকেই বেড়াতে পছন্দ করে।