Breaking News
ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?      Sarabjit Singh: ভারতীয় বন্দি সরবজিৎ সিং-এর হত্যাকারী সরফরাজকে গুলি করে খুন লাহোরে      BJP: ইস্তেহার প্রকাশ বিজেপির, 'এক দেশ এবং এক ভোট' লাগু করার প্রতিশ্রুতি      Fire: দমদমে ঝুপড়িতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড, ঘটনাস্থলে দমকলের একাধিক ইঞ্জিন      Bengaluru Blast: বেঙ্গালুরু ক্যাফে বিস্ফোরণকাণ্ডে কাঁথি থেকে দুই সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল এনআইএ      Sheikh Shahjahan: 'সিবিআই হলে ভালই হবে', হঠাৎ ভোলবদল শেখ শাহজাহানের      CBI: সন্দেশখালিকাণ্ডে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের...      NIA: ভূপতিনগর বিস্ফোরণকাণ্ডে এবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ NIA     

কলকাতা

Garden Reach: গার্ডেনরিচে ব্যবসায়ী আমির খানের বাড়ি থেকে উদ্ধার ১৭ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা

শনিবার অভিযুক্ত নাসের খানের ছেলে আমির খানের (Amir Khan) গার্ডেনরিচের (Garden Reach) বাড়িতে অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৭ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেন ইডি (ED)। এই টাকা কোথা থেকে এসেছে। এর উৎস কী? উত্তর অধরাই।  অভিযোগ, মোবাইল গেমিং অ্যাপ (Mobile Gaming App) প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত আমির খান। তিনি এখনও নিখোঁজ। শনিবার তাঁর পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন ইডি কর্তারা।

এদিন রাতেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমিরের ভাইকে আটক করে সিজিও কমপ্লেক্সের ইডি দফতরে নিয়ে আসা হয়। ২০১৯-২০ সালে অনলাইন গেমিং অ্যাপ 'ই নাগেটস' তৈরি করেছিলেন। জানা গিয়েছে, বেআইনিভাবে সেই অ্যাপ তৈরি করা হয়েছিল।

ইডি সূত্রে খবর, ২০২১ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে পার্ক স্ট্রিট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয় আমির খানের বিরুদ্ধে। সেই সূত্র ধরেই এদিনের এই হানা বলে খবর। অভিযোগ ছিল, একটি অনলাইন গেমিং অ্যাপ লঞ্চ করা হয়। সেই অ্যাপে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক খেলা রয়েছে। অল্প কিছু টাকা ইনভেস্ট করে সেই গেম খেললে প্রচুর টাকা জিততে পারা যাবে। পাশাপাশি সেখান থেকে প্রচুর রিওয়ার্ড পাওয়া যাবে এমনই প্রলোভন দেখানো হয়েছিল। প্রচুর মানুষ সেই গেমে টাকা ইনভেস্টও করেছিল। এমনকি ওই গেম থেকে টাকা পেয়েও ছিলেন অনেকেই।

কিন্তু হঠাৎ করে একদিন সেই গেমিং অ্যাপ বন্ধ হয়ে যায়। যাঁরা যাঁরা এই মোবাইল গেমিং অ্যাপের মধ্যে টাকা ইনভেস্ট করেছিলেন, তাঁরা তাঁদের টাকা আর পাননি। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কোম্পানিরা পার্ক স্ট্রিট থানায় ফেব্রুয়ারি মাসে ২০২১ সালে অভিযোগ করে। মোট পাঁচটি থানায় অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে কলকাতা পুলিস (police)।

2 years ago
Garden Reach: ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে উদ্ধার টাকার পাহাড়, খাটের নিচে কোটি কোটি টাকা

ফের শহর কলকাতায় (Kolkata) ইডির হানা। শনিবার শহরের মোট ৬ টি জায়গায় হানা দেয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (Enforcement Directorate)। এরপরই উদ্ধার হয় এক ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে সাত কোটি টাকারও বেশি। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত নাসের খানের ছেলে আমির খান। গার্ডেনরিচের (Garden Reach) বাসিন্দা এই নাসের খান। তিনি পরিবহণ ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত এমনটাই জানা গিয়েছে। ৮ টি মেশিনে চলছে টাকা গোনার কাজ।

ইডি সূত্রে খবর, ২০২১ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে পার্ক স্ট্রিট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয় আমির খান নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। সেই সূত্র ধরেই এদিনের এই হানা বলে খবর। অভিযোগ, একটি অনলাইন গেমিং অ্যাপ লঞ্চ করা হয়। সেই অ্যাপে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক খেলা রয়েছে। অল্প কিছু টাকা ইনভেস্ট করে সেই গেম খেললে প্রচুর টাকা জিততে পারা যাবে। পাশাপাশি সেখান থেকে প্রচুর রিওয়ার্ড পাওয়া যাবে এমনই প্রলোভন দেখানো হয়েছল। প্রচুর মানুষ সেই গেমে টাকা ইনভেস্টও করেছিল। এমনকি ওই গেম থেকে টাকা পেয়েও ছিলেন অনেকেই।

কিন্তু হঠাৎ করে একদিন সেই গেমিং অ্যাপ বন্ধ হয়ে যায়। যারা যারা এই মোবাইল গেমিং অ্যাপের মধ্যে টাকা ইনভেস্ট করেছিলেন তাঁরা তাঁদের টাকা আর পাননি। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যাঙ্ক কোম্পানিরা পার্ক স্ট্রিট থানায় ফেব্রুয়ারি মাসে ২০২১ সালে অভিযোগ করে। মোট পাঁচটি থানায় অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে কলকাতা পুলিস (police)।

2 years ago
Weather update: সপ্তাহান্তে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস

সপ্তাহের শেষে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ। আগামী ২৪ ঘণ্টায় আরও শক্তিশালী হবে নিম্নচাপ। রবিবার থেকেই দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস। উপকূলবর্তী জেলা সহ বেশ কিছু জেলায় ভারী বৃষ্টির সতর্কতা। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে হাওয়া দফতর সূত্রে খবর।

সকাল ৬টায় আবহাওয়া  দফতর সুত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে জেলায় বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ছাড়িয়েছে ৮৬ শতাংশ। ১১ কিমি বেগে বইছে জেলার বাতাস। সাতসকালেই ২৮ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে উত্তরের তাপমাত্রা। আজ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে জেলায়। সেই ক্ষেত্রে বজ্রবিদ্যুত সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে জেলার কিছু অংশে। তবে বেলা গড়ালে গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়বে আর্দ্রতাজনিত অস্বতি। তাই প্যাচপ্যাচে ঘামের সাক্ষী থাকতে পারে জেলা। শনিতে থাকছে ভারী বৃষ্টিপাতের সঙ্কেত, আজ আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তিতে ভুগতে পারে উত্তরবঙ্গ। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ খুবই বেশি।

হাওয়া দফতর সুত্রে খবরে আরও জানা গিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জেলা দার্জিলিং ও মালদাতে আজ সারাদিন মেঘলা আকাশ মাঝেমাঝে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিও হবে। ১৯ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকবে তাপমাত্রা। দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব বর্ধমান, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়া জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। পাশাপাশি ঝোড়ো হাওয়াও বইতে পারে।

রবি এবং সোমবার তুলনামূলক বেশি বৃষ্টি হতে পারে পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে। বিশেষত, সোমবার ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে ওই দুই জেলায়। কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে।

2 years ago


Satyendra: বাগুইআটি-কাণ্ডে হাওড়া স্টেশনের ওয়েটিং রুমে থাকত সত্যেন্দ্র, অনলাইন টিকিট কাটতে গিয়ে বিপদ

বাগুইআটি-কাণ্ডে (Baguiati Case) হাওড়া স্টেশন চত্বর থেকে ধৃত সত্যেন্দ্র চৌধুরীকে জেরা করে একাধিক তথ্য হাতে পেয়েছে সিআইডি (CID)। সূত্রের খবর, খুনের ঘটনার পর থেকে হাওড়া স্টেশনের (Howrah Station) ওয়েটিং রুমে রাত কাটাত সত্যেন্দ্র। সকালে আশপাশে ঘুরে বেড়াতো। টাকা দিয়ে ওয়েটিং রুম ভাড়া করে সেখানেই থাকত সে। পাশাপাশি জেরায় সত্যেন্দ্র জানিয়েছে, বাইক কেনার জন্য নেওয়া ৫০ হাজার টাকা ফেরৎ যাতে দিতে না হয়, তাই এই খুন। অতনু বারবার ৫০ হাজার টাকা চাওয়ায় এই খুন। এমনটাই দাবি অভিযুক্তের। যদিও এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে চায় সিআইডি। পাশাপাশি অন্য কোনও মোটিভ রয়েছে কিনা, খতিয়ে দেখবে তদন্তকারীরা।

এদিকে, হাওড়া স্টেশনে বাইরের রিজার্ভেশন কাউন্টার থেকে টিকিট কাটতে গিয়েই বিপদে পড়েন সত্যেন্দ্র। তাঁকে গ্রেফতার করে কোমরে দড়ি পরিয়ে গাড়িতে তোলা হয়। জানা গিয়েছে, শুক্রবার স্টেশনের বাইরে রেলওয়ে অনুমোদিত টিকিট বুকিং কাউন্টার থেকে মুম্বইয়ের ট্রেনের খোঁজখবর শুরু করে সত্যেন্দ্র। টিকিটও কাটা শুরু করে দোকান মালিক। কিন্তু হঠাৎ কারেন্ট চলে যাওয়ায় গোটা প্রক্রিয়া থমকে যায়। আর তাতেই সুবিধা পেয়ে যান স্টেশন চত্বরে সাদা পোশাকে ওঁত পেতে থাকা পুলিস।

টিকিট কাউন্টারের সামনে কারেন্ট আসার অপেক্ষায় থাকা সত্যেন্দ্রকে দু'দিক থেকে ঘিরে গ্রেফতার করে পুলিস। যদিও প্রথমে আশপাশে থাকা ব্যক্তিরা বিষয়টি বুঝে উঠতে পারেনি। কিন্তু পরে সাদা পোশাকের পুলিস নিজেদের পরিচয় দেওয়ায় তাঁরা বুঝতে পারে কে এই সত্যেন্দ্র। অপরদিকে, এদিন বারাসাত আদালত সত্যেন্দ্রকে ১৪ দিনের পুলিস হেফজাওত দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইপিসির ৩০২, ২০১, ৩৬৪-এ এবং ১২০-বি ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে।

2 years ago
Baguiati: ১৪ দিন পর সেই বিধাননগর পুলিসের জালে সত্যেন্দ্র, বানচাল ভিনরাজ্যে পালানোর ছক

বাগুইআটি (Baguiati) জোড়া খুন কাণ্ডে শেষমেষ সিআইডি (CID) গ্রেফতার করে মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র চৌধুরীকে। হাওড়া (Howrah) এলাকা থেকে শুক্রবার সকাল ৯ টা নাগাদ তাকে গ্রেফতার (arrest) করা হয়। হাওড়া স্টেশন থেকে ট্রেন ধরে ভিন রাজ্যে পালানোর চেষ্টা করছিল বলে পুলিস সূত্রে খবর। পুলিসের (police) অনুমান, সম্ভবত নিজের দেশের বাড়িতে গা ঢাকা দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল সত্যেন্দ্রর। কিন্তু তার আগেই তাকে গ্রেফতার করে বিধাননগর কমিশনারেটের গোয়েন্দা বিভাগের আধিকারিকরা। বারবার সিম বদলিয়েও শেষরক্ষা হয়নি। আর্থিক সাহায্য চেয়ে নানা ঘনিষ্ঠদের ফোন করা শুরু করে সে। অবশেষে এদিন সকালে সাদা পোশাকের পুলিস হাওড়া স্টেশন থেকে ধরে সত্যেন্দ্রকে। তাঁকে নিয়ে আসা হয় বিধান নগর কমিশনারেটে। 

পুলিস সূত্রে খবর, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে সিআইডির অধিকারিকেরা। এই ঘটনায় প্রথম থেকেই পুলিসের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন মৃত দুই ছাত্রের পরিবার। মুখ্যমন্ত্রী থেকে রাজ্যে মন্ত্রীরা পুলিসের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল। এরপর তদন্তভার যায় সিআইডির হাতে। তারপরেই এদিন বিধাননগরের গোয়েন্দা বিভাগ মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্রকে গ্রেফতার করা হয়।প্রসঙ্গত, বাগুইআটি জোড়া অপহরণ এবং খুনের ঘটনায় মঙ্গলবারই রিপোর্ট তলব করেছিলেন ডিজি। প্রাথমিক তদন্তে বাগুইআটি থানার গাফিলতির প্রমাণ মিলেছিল, পাশাপাশি আইসি বাগুইআটির গাফিলতিরও প্রমাণ মিলেছিল। ইতিমধ্যেই তদন্ত চলাকালীন আইসি বাগুইআটিকে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দীর্ঘকালীন ছুটি বা ক্লোজ করা হতে পারে আইসি বাগুইহাটি কল্লোল ঘোষকে এমনটাই পুলিস সূত্রে খবর।

এদিকে, সত্যেন্দ্র ধরা পড়তেই তাঁর ফাঁসির দাবিতে সরব নিহত দুই ছাত্রের পরিবার। কোনওভাবেই যাতে জামিন না পায় বাগুইআটি জোড়া খুন-কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত। সংবাদ মাধ্যমে সেই দাবি করেন অতনুর বাবা। 

2 years ago


Dengue: ছড়াচ্ছে ডেঙ্গি, হাওড়ায় মৃত্যু হল ৬ মাসের শিশুর, কলকাতায় মৃত্যু মহিলার

ফের ডেঙ্গিতে মৃত্যু বেলুড়ের জয় বিবি রোডে। মৃত্যু হয়েছে ছয় মাসের শিশুর। গত ২ তারিখ তাকে ভর্তি করা হয় কলকাতার মেডিকেল কলেজে। গত রাতে তার মৃত্যু হয়। ওই এলাকায় গত মঙ্গলবার এক যুবকের মৃত্যু হয়েছিল ডেঙ্গিতে।

অর্থাৎ ফের ডেঙ্গি ছড়াল হাওড়া শহরাঞ্চলে। ডেঙ্গিতে চারজনের মৃত্যু হল। গতকাল বালি রবীন্দ্রভবনে ডেঙ্গি নিয়ে বৈঠক করেছিলেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। ডেঙ্গি প্রতিরোধে উপযুক্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ নিয়ে সভা হয়।

অন্যদিকে শহরে ফের মৃত্যু এক ডেঙ্গি আক্রান্তের। মৌমিতা মুখার্জি হালতুর কায়স্থপাড়ার বাসিন্দা। সোমবার জ্বর নিয়ে যাদবপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। আজ সকালে তাঁর ক্যার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়। ছোট ছেলেও ডেঙ্গি আক্রান্ত হয় এবং আজ বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রকে।

2 years ago
Weather Update: নিম্নচাপের জেরে পুজোর মুখে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, জেনে নিন কোন কোন জেলায়?

ফের বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে প্রবল নিম্নচাপ, ৫ জেলায় রয়েছে ভারি বৃষ্টির সম্ভবনা। আজ সকাল থেকে রোদ ঝলমলে আকাশ থাকবে, এমনটাই হাওয়া দফতর সূত্রে খবর। আরও জানা যায়, আজও তাপমাত্রার তেমন কোনও হেরফের হবে না। স্বভাবতই বোঝা যাচ্ছে, এখনই মিলবে না গরম থেকে রেহাই। তবে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে একটি ঘুর্ণাবর্ত, যার জেরে দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায় রয়েছে প্রবল নিম্নচাপের সম্ভাবনা। পাশাপাশি আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায় রয়েছে।

এদিকে আবার উত্তরবঙ্গের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা গিয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উত্তরবঙ্গের প্রায় সবকটি জেলাতেই হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা  রয়েছে। এছাড়া তেমনভাবে কোথাও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনার পূর্বাভাস নেই। আবহওয়া দফজত সূত্রে জানা যাচ্ছে, ১০ ই সেপ্টেম্বর শনিবার সকালের মধ্যে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ বেশ কিছু জায়গায় যেমন- দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ আরও বেশ কয়েকটি জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

শনিবার সকালের মধ্যে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবার কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে।

2 years ago
Hatibagan: হাতিবাগান সর্বজনীনের পুজোয় এবার লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, প্রতিমাশিল্পী সনাতন দিন্দা

উত্তর কলকাতার প্রাচীন দুর্গাপুজোর মধ্য অন্যতম হাতিবাগান সর্বজনীন। সেই পুজো এবার ৮৮ বছরে পা দিল। তাদের ভাবনায় এবার লক্ষ্মীর ভাণ্ডার। বাঁশের চটা, প্লাস্টার অফ প্যারিসের ওপর বেস করে তারা তাদের মণ্ডপ তৈরি করছেন। মণ্ডপ জুড়ে থাকবে পটচিত্র।

হাতিবাগান সর্বজনীনের ভাবনার সঙ্গে সাযু্জ্য রেখে হাতিবাগান সর্বজনীন তাদের প্রতিমা তৈরি করছে। এবার তাদের প্রতিমা রূপ নিচ্ছে শিল্পী সনাতন দিন্দার হাতে। পুজো দর্শকদের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে। আশাবাদী ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

উত্তর কলকাতার যে সব পুজোগুলি পুজো প্রেমিক বঙ্গবাসীদের কাছে অন্যতম ডেস্টিনেশন হয়ে উঠেছে। তাদের মধ্যে উপরের সারিতে অবশ্যই থাকবে হাতিবাগান সর্বজনীনের নাম। এখন দেখার এবারে তাদের ভাবনা জনমানসে কতটা প্রভাব ফেলে

2 years ago


Forensic: বাগুইআটি-কাণ্ডে দিনভর তৎপর সিআইডি, ভাঙরে আটক এক সন্দেহভাজন

বাগুইআটি জোড়া খুন-কাণ্ডে তৎপর সিআইডি (CID)। বুধবার রাতে ভাঙর থানায় গিয়ে বাসন্তী হাইওয়ের সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV Footage) সংগ্রহ করে সিআইডির তিন সদস্যের দল। আর বৃহস্পতিবার দুপুরে কাশিপুর থানায় যায় সিআইডির দুই সদস্যের দল। কাশিপুর থানারও সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখেন তারা। পাশাপাশি ভাঙর এলাকার একজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ গোয়েন্দাদের।

জানা গিয়েছে, বাগুইআটি জোড়া খুন-কাণ্ডে গ্রেফতার শাহিল ও সোহেল। দু'জনেই আটঘরা চিনার পার্ক এলাকায় ঘর ভাড়া নিয়ে থাকত। এদের মধ্যে একজনের বাড়ি ভাঙরের সোনপুর এলাকায়। সে নাম পরিচয় পরিবর্তন করে আটঘরায় ঘর ভাড়া নিয়েছিল বেশ কিছুদিন ধরে। এমনটাই প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা।

আটক সেই ব্যক্তিকে কাশিপুর থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদের করে সিআইডি। এই অপহরণ খুনের ঘটনায় বেশ কিছু তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে তার নাম উঠে এসেছে গোয়েন্দাদের সন্দেহের তালিকায়।

এদিকে, এদিন দুপুরে বাগুইআটি থানায় গিয়ে অপরাধে ব্যবহার করা গাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহ করে সিআইডির ফরেন্সিক বিভাগ। ডিপার্টমেন্টের ফিজিক্স ও বায়োলজি বিশেষজ্ঞরা গাড়িটির দীর্ঘ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। এছাড়াও গাড়ির বিভিন্ন অংশ মার্ক করেন বিশেষজ্ঞরা।

অপরিদকে, বাগুইহাটি জোড়া ছাত্র খুনের ঘটনায় সাসপেন্ড এস আই প্রীতম সিং, যিনি এই কেসের আইও ছিলেন তাঁকে এদিন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা গাড়ির সামনে নিয়ে আসেন। এই মামলার প্রাক্তন আইও হিসেবে তাঁর থেকে কিছু তথ্য জানতে চান সিআইডির ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা।

2 years ago
Puja: 'পুরস্কারস্বরূপ ২৪০ কোটি টাকা', পুজো অনুদান মামলায় হাইকোর্টকে বিজ্ঞপ্তি দেখালো রাজ্য

রাজ্যের ঘোষিত পুজো অনুদানের (Puja Donation) বিরোধিতায় করা মামলায় রায়দান স্থগিত রেখেছে কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে এই সংক্রান্ত দায়ের সব মামলার শুনানি হয়েছে। রাজ্যের পক্ষে এদিন আদালতে দাখিল করা হয়েছে পুজো কমিটিগুলোকে ৬০ হাজার টাকা অনুদানের সরকারি বিজ্ঞপ্তি (Notification)। সেই বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুদানকে 'পুরস্কার হিসেবে অনুদান' প্রদান হিসেবে দেখানো হয়েছে। এবং এই সংক্রান্ত বরাদ্দ হয়েছে প্রয়োজনীয় অর্থ। সেটাও কোর্টকে জানিয়েছে মমতার সরকার।

এরপরেই এই বরাদ্দ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মামলাকারীদের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য।তাঁর সওয়াল, 'যে শহরে ভিন্ন ধর্ম এবং ভাষাভাষী মানুষের বাস, সেখানে নির্দিষ্ট একটি সম্প্রদায়ের জন্য সরকার আর্থিক সাহায্য করতে পারে না। এটা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং সংবিধান বিরোধী। রাজ্যের মানুষের করের টাকা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এভাবে একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মধ্যে টাকা বিলি করতে পারেন না। ২০২০সালে করোনা অতিমারীর জন্য পুজো কমিটিগুলোকে ৫০হাজার টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছিল। তবে সেটা করোনা অতিমারীর জনসচেতনতা-সহ মাস্ক এবং স্যানিটাইজার বিলি করতে।' 

আদালতকে স্মরণ করিয়ে দিতে বিকাশবাবু জানান, রাজ্যের মানুষের করের টাকায় ইমামদের দান-খয়রাতি জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও আদালতের হস্তক্ষেপের কারণে সেটা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সেখানেও একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষকে আর্থিক সুবিধা দিতে চেয়েছিল রাজ্য।

যুক্তি তুলে ধরে তাঁর সওয়াল, 'যেখানে বিভিন্ন ভাষাভাষী এবং বিভিন্ন ধর্মের মানুষের বসবাস। সেখানে একটি নির্দিষ্ট ধর্মের বা সম্প্রদায়ের মধ্যে অর্থ বিলি করা হলে সমাজে তাঁর বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ তৈরি হয় যা অনুমোদন করে না সংবিধান।'

এরপরেই রাজ্যের এজি তথা এডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় জানান, ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেয়েছে দুর্গাপুজো। শুধুমাত্র কলকাতার পুজার  জন্য নয়। ফলে মামলাকারীদের শুধু  কলকাতা প্রসঙ্গ উল্লেখ করলে, সেটা সঠিক নয়। রাজ্যকে এই পুজোর স্বীকৃতি কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকও দিয়েছে। পুলিস-প্রশাসনের সঙ্গে সাধারণ মানুষের সংযোগবৃদ্ধির কাজ, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য প্রচার এবং প্রসার, ট্যুরিজমের প্রসার এই পুরো বিষয়টি জনস্বার্থে গৃহীত। রাজ্যের ঐতিহ্যকে সংরক্ষণ ও তার প্রচার করাই উদ্দেশ্য। এটাকে জনস্বার্থ ছাড়া আর কী বলা যেতে পারে? রাজ্য সরকার মনে করছে এই মামলার কোন গ্রহণযোগ্যতা নেই।

তাঁর আরও যুক্তি, 'দুর্গাপুজো শুধু এ রাজ্যের জন্য নয়, সারা দেশের মানুষের কাছে আজ তাৎপর্যপূর্ণ। আজ শুধু পুজো বলা যায় না। এই দুর্গাপূজার মধ্যে দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তাও বহন করে। যে কারণে লক্ষ নয়, কোটি কোটি মানুষ আজ শারদীয়া দুর্গা উৎসবে মেতে ওঠেন।'

এই সওয়াল-জবাব শেষে, মামলাকারীদের উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, 'আপনারা কি কোন পরামর্শ দেবেন? সরকার যদি এই টাকা দেন ক্লাবগুলোকে দেয়, তাহলে ক্লাবগুলো কোন কোন খাতে এই অর্থ ব্যবহার করবে। অ্যাডভোকেট জেনারেলের উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, আগে যে টাকা দেওয়া হয়েছিল ক্লাবগুলোকে তার কোন হিসেব আছে? যে তারা কীভাবে, কোথায় খরচ করেছেন? এজি পাল্টা জানান, রাজ্য বাজেটের অডিট করা হয়। যদিও এই টাকা সরাসরি ক্লাবকর্তাদের হাতে দেওয়া হয় না। পুলিসের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হয় টাকা, কোর্টকে জানায় রাজ্য।

এরপরেই দীর্ঘ সওয়াল-জবাব শেষে শুনানির পর রায়দান স্থগিত রেখেছে আদালত। 

2 years ago


Reaction: 'দেবযানীর মায়ের চিঠি ভিত্তিহীন', বিবৃতি সিআইডির, প্রশাসনের বিরুদ্ধে সুর চড়া সুজন-শুভেন্দুর

দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের (Debjani Mukherjee) করা অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর মায়ের লেখা চিঠি ভিত্তিহীন এবং মিথ্যা। রীতিমতো বিবৃতি দিয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ে দিল সিআইডি। সেই বিবৃতিতে উল্লেখ, সিআইডি (CID) একটি তদন্তকারী সংস্থা, আইনের মধ্যে থেকেই কাজ করে এবং আগামি দিনের করবে। জয়নগর থানায় দায়ের হওয়া একটা মামলার প্রেক্ষিতে বয়ান রেকর্ড করতে ২৩ অগাস্ট দমদম জেলে (Dumdum Jail) গিয়েছিলেন সিআইডির একজন তদন্তকারী অফিসার। তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন জেলের মহিলা পুলিস এবং সংশোধনাগারের অন্য কর্মীরা। আদালতের নির্দেশে দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের বয়ান রেকর্ড করেন সিআইডির আইও বা তদন্তকারী অফিসার।

তাই দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের মায়ের আনা অভিযোগ খণ্ডন করছে সিআইডি এবং সংবাদ মাধ্যমকে অনুরোধ ধরনের মিথ্যা প্রচারে কান না দিতে। তবে দেবযানীর এবং তাঁর মায়ের লেখা চিঠিতে দুই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের নাম উল্লেখ রয়েছে। যাদের বিরুদ্ধে সুদীপ্ত সেনের থেকে টাকা নেওয়ার বয়ান লিখতে চাপ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। সেই দু'জনের মধ্যে অন্যতম সুজন চক্রবর্তীর মন্তব্য, 'কাজ করবে না, সিআইডিকে দিয়ে আকাজ করাবে রাজ্য প্রশাসন।' সিপিএম নেতা জানান, যে কোনও তদন্তের মুখোমুখি হতে আমরা প্রস্তুত। ৮ বছর ধরে একজন জেলবন্দি, তাঁকে দিয়ে এখন বয়ান লেখাতে চাপ দেওয়া হচ্ছে। একুশের ভোটের আগেও একটা চিঠি লেখানো হয়েছিল, সেখানে আমার নাম, বিমান বসুর নাম ছিল এই কাণ্ডের তদন্ত হোক। কোন অফিসার, কোন তৃণমূল নেতার অঙ্গুলিহহেলনে এই কাজ করেছে সেটাও তদন্তের আওতায় আনা হোক। এভাবেই দেবযানী মুখোপাধ্যায় এবং তাঁর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে রাজ্য প্রশাসন এবং শাসক দলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন সুজন চক্রবর্তী।

পাশাপাশি রয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী, যার নামও উল্লেখ মা-মেয়ের চিঠিতে। শুভেন্দুর ট্যুইট, 'অপমান, সম্পূর্ণ অপমান। একসময়ের মর্যাদাপূর্ণ সংস্থা সিআইডি এখন বাংলার পিসি-ভাইপোর বেতনভুক দ্বাররক্ষী হয়ে উঠছে। বিরোধী দলের নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা বিবৃতি দেওয়ার জন্য বিচারাধীন বন্দিকে ভয় দেখিয়ে বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের স্বার্থরক্ষায় অপরাধে লিপ্ত হচ্ছে সিআইডি।'

2 years ago
CID: 'শুভেন্দু-সুজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা বয়ান লিখতে চাপ সিআইডির', বিস্ফোরক চিঠি দেবযানীর মায়ের

সারদা-কাণ্ডে এবার রাজ্যের সিআইডির (Bengal CID) বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ আনলেন অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায় (Debjani Mukherjee)। রীতিমতো হাইকোর্টকে চিঠি লিখে তিনি বিহিত চেয়েছেন। সিআইডি ২৩ অগাস্ট দমদম জেলে এসে তাঁকে চাপ দিয়েছে। এবং বয়ানে লিখতে বলেছে শুভেন্দু অধিকারী এবং সুজন চক্রবর্তী(Suvendu-Sujan) সারদার (Sharada Case) থেকে ৬ কোটি টাকা করে নিয়েছে। কলকাতা হাইকোর্টকে ৪ সেপ্টেম্বর পাঠানো দেবযানীর চিঠিতে উল্লেখ, '২৩ অগাস্ট সিআইডি জেরার নামে দমদমে জেলে এসে কিছু প্রশ্ন করেছে। শেষে তাঁরা জানতে চেয়েছে আমি কি জানতাম রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী সুদীপ্ত সেনের ছয় কোটি টাকা নিয়েছেন। কিন্তু আমি তাঁদের বলি এই তথ্য আমার জানা নেই। আপনারা বরং ওই দু'জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করুন। এরপরেই ওরা আমাকে বলে যেহেতু আমি অপরাধ প্রমাণের আগে ৮ বছর জেল খেটে নিয়েছি, তাই আমাকে সারদা-কাণ্ডের গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী করে দিতে পারেন।'


তিনি হাইকোর্টের উদ্দেশে চিঠিতে আরও লিখেছেন, 'আমি ওদের আমার কেস ডিটেইলস সম্বন্ধে জানতে চাইলে ওরা জানিয়েছিল এডিজি সিআইডির সঙ্গে কথা বলে আমার আইনজীবীর কাছে পাঠাবে। আমার বিরুদ্ধে শারদা সংক্রান্ত মোট ১১টি মামলা রয়েছে। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট জারি করেনি। তবে ওরা আবার সেই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে জেলে আসবেন।' 

হাইকোর্টের উদ্দেশে দেবযানীর আবেদন, 'পুরো বিষয়টা মহামান্য আদালতের কাছে রাখলাম। আশা করব কোর্ট যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন। যাতে আমি জেলের বাইরে বেরোতে পারি।'

দেবযানীর এই চিঠির মধ্যেই তাঁর মা শর্বাণী মুখোপাধ্যায় পৃথক একটি চিঠি পাঠিয়েছে সিবিআইকে। সেই চিঠিতে তিনি বিশেষ করে সিআইডি অফিসার অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়কে মেয়ের উপর মানসিক চাপ তৈরি করার জন্য কাঠগড়ায় তুলেছেন। শর্বাণী মুখোপাধ্যায় লেখেন, '২৩ অগাস্ট দমদম জেলে এসে ওসি সিট ভবানী ভবন ইনস্পেক্টর অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় আমার মেয়েকে মিথ্যা বয়ান লেখাতে চাপ দিয়েছেন। রাজ্যের বর্তমান বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের সামনেই সুদীপ্ত সেনের থেকে ৬ কোটি টাকা নিয়েছেন। এই বয়ান না লিখলে আমার মেয়েকে আরও ৯টি মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে এই হুমকিও দেওয়া হয়েছে।' 


সিবিআইকে লেখা চিঠিতে দেবযানীর মা জানান, আমার মেয়ে শঙ্কিত। ৫ সেপ্টেম্বর ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলার সময় তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে মেয়ে আমায় একটি চিঠি পাঠায়। সেই চিঠির প্রতিলিপি আমার এই চিঠির সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হল। আমার মেয়ের বক্তব্য তিনি শুভেন্দু অধিকারী বা সুজন চক্রবর্তীর সঙ্গে কোনওদিন সাক্ষাৎ করেনি। তাও শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মিথ্যা বয়ান না লিখলে আমার মেয়েকে আরও মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।' 

2 years ago
Baguiati Murder: বাগুইআটির জোড়া খুনের তদন্তে ভাঙড়ে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করল সিআইডি

বাগুইআটি জোড়াখুনের (Baguiati Murder) তদন্তে ভাঙড়ে সিআইডি টিম। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ভাঙড়ের বাসন্তী হাইওয়ের (Bhangar Basanti Highway) সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV FOOTAGE) সংগ্রহ করতে যায় সিআইডি। বেশ কিছু সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেন সিআইডি আধিকারিকরা। 

সিআইডি (CID) আধিকারিকদের হাতে ক্ষমতা যাওয়ার আগে পর্যন্ত পুলিস আধিকারিকরা তাদের কাজ সঠিকভাবে করতে পারেননি। পুলিস আধিকারিকরা শত চেষ্টা করেও অতনুদের বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেননি। সিআইডি আধিকারিকদের চার জনের দল ইতিমধ্যেই চলে এসেছিলেন বাগুইআটি থানায় এর পর পুলিসের আধিকারিকদের সাথে কথোপ কথনের পর সিআইডি আধিকারিকরা তদন্তের জন্য বিভিন্ন জায়গায় যাবেন।

যে গাড়িটি করে সেই দিন নিয়ে যাওয়া হয় রাজারহাট ও পরবর্তীকালে বাসন্তী হাইওয়েতে, সেই গাড়িটিরও তদন্ত হবে। সিআইডি আধিকারিকদের হাতে গোটা তদন্তের ভার যাওয়ার পর তারা অতনুদের বাড়িতে আসবেন। গোটা বিষয়টা তদন্ত করবেন। এমনটাই সিআইডি আধিকারিকরা জানিয়েছেন। 

বাগুইআটির ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। ঘটনার পুরো তদন্ত সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখছেন। সম্পূর্ণ তদন্তের পর আসল অপরাধীকে ধরতে হবে ও যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা হবে, এমনটাই বক্তব্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বুধবার এই মন্তব্য করেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বাগুইআটির ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক।এই ঘটনায় পুলিসি গাফিলতির একটা অভিযোগ উঠছিল। সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান,'পুলিস-সহ থানার আধিকারিকের আরও সক্রিয় হওয়া দরকার ছিল। প্রয়োজনে সিআইডির সাহায্য নেওয়া যেতে পারতো। মুখ্যমন্ত্রী এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন। পরিবারের পাশে রাজ্য সরকার আছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেদনাহত। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে উপযুক্ত সাজা দেওয়া হবে। এই নির্দেশ ডিজিকে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।' পাশাপাশি তিনি জানান, আইসিকে ক্লোজ করে সিআইডি-কে তদন্তভার দেওয়া হয়েছে। এদিন বিকেলের দিকে দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন সিআইডির প্রতিনিধি দল। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন বিধাননগরের সিপি সুপ্রতীম সরকার।

2 years ago


Political: 'বাগুইআটির ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর', জানালেন ফিরহাদ, শুভেন্দুর পাল্টা পুলিসকে তোপ

বাগুইহাটির (Baguiati Murder) ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। বুধবার এই মন্তব্য করেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Minister Firhad Hakim)। এই ঘটনায় পুলিসি (Police) গাফিলতির একটা অভিযোগ উঠছে, সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান, 'পুলিস-সহ থানার আধিকারিককে আরও সক্রিয় হওয়া দরকার ছিল। প্রয়োজনে সিআইডির সাহায্য নেওয়া যেতে পারতো। মুখ্যমন্ত্রী এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন। পরিবারের পাশে রাজ্য সরকার আছে। মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata) বেদনাহত। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে উপযুক্ত সাজা দেওয়া হবে। এই নির্দেশ ডিজিকে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।' পাশাপাশি তিনি জানান, আইসিকে ক্লোজ করে সিআইডি-কে তদন্তভার দেওয়া হয়েছে।  এদিন বিকেলের দিকে দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে যায় সিআইডির প্রতিনিধি দল। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন বিধাননগরের সিপি সুপ্রতীম সরকার। 

এদিকে, বুধবার বাগুইহাটি থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই ঘটনায় তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণের নিশানা বানান। বিরোধী দলনেতা বলেন, 'মিথ্যা না বলে মুখ্যমন্ত্রী জল গ্রহণ করেন না। একুশের বিধানসভা ভোট উনি জেহাদি এবং পুলিসের সাহায্যে জিতেছেন। পুলিসের এখন একটাই কাজ ভাইপো আর পিসির যাত্রাপথ সুন্দর করতে দড়ি দিয়ে রাস্তা ঘেরা।'

বাগুইআটি থানার আইসিকে তীব্র কটাক্ষ করে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'একুশের ভোট জিততে এই থানার আইসিকে বদলি করিয়ে আনা হয়েছিল। ২৫ লক্ষ টাকা দিয়ে পোস্টিং পেয়েছে কল্লোল।'

পাশাপাশি এদিন অভিষেক নস্করের বাড়িতে যান মন্ত্রী সুজিত বসু। তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এই ঘটনায় যারাই দোষী তাঁরাই শাস্তি পাবে। কেউ ভুল করলে খতিয়ে দেখা হবে। এমনকি থানায় গিয়ে ফল পায়নি অভিষেকের পরিবার। এদিন এই অভিযোগ কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন সুজিত বসু। অপরদিকে এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যে মুখ্যসচিব সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, 'বাগুইআটি-কাণ্ডে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘটনায় বাগুইআটি থানার আইসির পাশাপাশি আইও প্রীতম সিংকে সাসাপেন্ড করা হয়েছে।'

ঠিক কী বললেন ফিরহাদ হাকিম, শুভেন্দু এবং সুজিত বসু

2 years ago
Nabanna: বাগুইআটি-কাণ্ডে নবান্নে ক্ষোভপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর, 'ন্যূনতম সমন্বয় নেই কেন', ডিজিকে প্রশ্ন

বুধবার নবান্নে (Nabanna) মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) একটি প্রশাসনিক বৈঠক করেন। এদিনের বৈঠকে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন দফতরের সচিব-সহ সিনিয়র আধিকারিকরা। এছাড়াও বিএলআরও-রাও এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি পুজোর পরেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষণা হতে পারে। তার আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বৈঠক অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ, এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

এদিন নবান্নের পর্যালোচনামূলক বৈঠক থেকে কড়া বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, "কোনও অভিযোগই যেন ফাইল চাপা হয়ে পড়ে না থাকে। সচিবালয়ে কোনও অভিযোগ এলে ৭ দিনের মধ্যে করতে হবে নিষ্পত্তি। সচিবালয়ের পাশাপাশি পঞ্চায়েত বা জেলা পরিষদ স্তরেও কোনও অভিযোগ এলে তা সমাধান করতে হবে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই।" এদিন রিভিউ বৈঠকের শুরুতেই আইন শৃঙ্খলা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে বাগুইহাটির ঘটনা নিয়ে ডিজিকে ডেকে ক্ষোভ উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রী। কেন ১৩ দিন দেহ পড়ে থাকল? সমন্বয়ের অভাব হল কেন? কমিশনারকে জিজ্ঞাস করলেন মুখ্যমন্ত্রী। ডিজির ওপরেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি ডিজি-র উদ্দেশ্যে বলেন, "বেআইনি কিছু সহ্য করব না। ৭ দিন সময় দিলাম সমন্বয় ফিরিয়ে আনার জন্য যা করার করুন।" অন্যদিকে নিয়োগ নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রীদের সতর্ক করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, "স্থায়ী হোক বা অস্থায়ী, সরকারি নিয়ম মেনে অনুমতি নিয়েই নিয়োগ করতে হবে। অনুমতি ছাড়া কোনও নিয়োগ নয়।" নিয়োগের আগে প্রতিটি দফতরের নির্দিষ্ট কমিটির থেকে অনুমতি নিতে হবে বলেও কড়া বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুকেই বিশেষ করে সতর্ক করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ 

2 years ago