Breaking News
Congress: স্বাধীনতার পর প্রথম তেলেঙ্গানায় সরকার গঠনের পথে কংগ্রেস      Deganga: গুরুতর অভিযোগ! মিড ডে মিলের চাল লুকিয়ে রাখা হচ্ছে স্কুলের শৌচালয়ে      Sujoykrishna: সুজয়কৃষ্ণের ভয়েস স্যাম্পেল টেস্টে 'ঢিলেমি'! এসএসকেএম-এর ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন      Recruitment Scam: এবারে দেবরাজ চক্রবর্তীর বাড়ি থেকে উদ্ধার নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক নথি!      Jyotipriya: এসএসকেএম-এও নেই স্বস্তি! সিসিটিভি ক্যামেরার নজরাধীন রাখার নির্দেশ আদালতের      CBI: কোথাও বিধায়ক, কাউন্সিলর, কোথাও ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা, রাজ্যজুড়ে ফের সক্রিয় সিবিআই      Mamata Banerjee: 'অনেক বিধায়কের কোটি কোটি টাকা', বিজেপি বিধায়কদের চাঁচাছোলা আক্রমণ মমতার      Amit Shah: লোকসভার আগে বিজেপির শাহী সভা যেন প্রেস্টিজ ফাইট, সভার লাইভ আপডেট      Suvendu: অসম্মানজনক আচরণ! শীতকালীন অধিবেশন থেকে সাসপেন্ড বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু      Fraud: সেনা কর্মীর পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার, বৃদ্ধের ব্যাংক থেকে উধাও দেড় লক্ষ টাকা     

passenger

Kolkata Metro: যাত্রীদের মনোরঞ্জনের জন্য নয়া উদ্যোগ, কার্টুন দেখাবে মেট্রোরেল

যাত্রীদের মনোরঞ্জনের জন্য নয়া উদ্যোগ কলকাতা মেট্রোর। এবার লম্বা পথের যাত্রা আর একঘেয়ে লাগবে না। কারণ যাত্রীদের জন্য এবার মেট্রো কামরাতেই 'টম অ্যান্ড জেরি' কিংবা 'ছোটা ভীম'-এর মতো জনপ্রিয় কার্টুন দেখানোর ব্যবস্থা করল কলকাতা মেট্রো রেল।

শুক্রবার থেকেই এই বিশেষ ব্যবস্থা চালু হয়ে গিয়েছে। মূলত স্কুল পড়ুয়াদের কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। এতদিন মেট্রো রেলের ভেতরের বোর্ডে পরবর্তী স্টেশনের নাম দেখানো হত।

সেই বোর্ডেই এবার থেকে স্টেশনের পাশাপাশি এই সব জনপ্রিয় কার্টুন দেখানো হবে। আপাতত দক্ষিণেশ্বর থেকে কবি সুভাষ পর্যন্ত চলাচল করা নর্থ-সাউথ মেট্রোতেই এই কার্টুন পরিষেবা পাবেন যাত্রীরা।

2 months ago
America: ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে লাইনচ্যুত যাত্রীবাহী ট্রেন, আহত বহু যাত্রী

ফের লাইনচ্যুত যাত্রীবাহী ট্রেন (Passenger Train)। ঘটনায় আহত বহু যাত্রী। তবে এখনও অবধি কোনও প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার (America) ক্যালিফোর্নিয়ায় (California)। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, রেললাইনের উপর ট্রাক এসে পড়েছিল। ফলে ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় ট্রেনের। লাইনচ্যুত হয়ে পড়ে বেশ কয়েকটি কামরা। আরও জানা গিয়েছে, ওই ট্রেনটিতে ২০০ জন যাত্রী ছিল। আহতদের উদ্ধার করে ইতিমধ্যে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। আর যাঁরা ট্রেনের মধ্যে আটকে পড়েছিলেন তাঁদের নিরাপদে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ট্রেনটি লস অ্যাঞ্জেলস থেকে সিয়াটলে যাচ্ছিল। লস অ্যাঞ্জেলস থেকে ৮০ কিলোমিটার দূরে মুরপার্কের কাছে রেললাইনের উপর আচমকাই একটি ট্রাক এসে পড়ে। দ্রুতগতিতে ছুটে আসা ট্রেনটি সেই ট্রাকটিকে ধাক্কা মারার পর লাইনচ্যুত হয়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধারকারী দল দুর্ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। উদ্ধারকারী দলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ট্রেনের কামরাগুলি লাইনচ্যুত হয়েছে। তবে উল্টে যায়নি। উল্টে গেলে অনেক বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। প্রাণহানিও হত যাত্রীদের।

উল্লেখ্য, যাত্রীদের নিজেদের গতব্যস্থলে পৌঁছানোর জন্য বিকল্প ব্যবস্থা করে দিয়েছে প্রশাসন। আহতদের চিকিৎসা চলছে। আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন সকল যাত্রী।

5 months ago
Flight: বিমানে সিটের পাশেই প্রস্রাব-মলত্য়াগ-থুতু! গ্রেফতার বিমানযাত্রী

ফের মাঝ আকাশে ধুন্ধুমার কাণ্ড। এবারে বিমানের (Flight) শৌচালয়ে নয়, সিটের পাশেই মলত্যাগ, প্রস্রাব ও থুতু ফেলার অভিযোগ উঠল এক বিমানযাত্রীর বিরুদ্ধে। ২৪ জুন মুম্বই (Mumbai) থেকে দিল্লিগামী (Delhi) বিমানে এমন ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনার পরই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিস (Police)।

পুলিস সূত্রে খবর, ২৪ জুন মুম্বই থেকে দিল্লিগামী বিমানে উঠেছিলেন রাম সিং নামের এক ব্যক্তি। এয়ার ইন্ডিয়া সংস্থার এআইসি ৮৬৬ বিমানের ১৭এফ-এ তার সিট ছিল। অভিযোগ অনুযায়ী, সে সিটের ৯ নম্বরের লাইনে গিয়ে এইসব অভব্য কাণ্ড ঘটিয়েছেন। এরপর তার এইসব কাণ্ড বিমানকর্মীর চোখে পড়তেই তাকে অন্যান্য যাত্রীদের থেকে তাকে সরিয়ে রাখা হয়। এরপর এই বিষয়ে বিমানচালককেও সতর্ক করা হয়। রাম সিং-এর এমন কাণ্ডে স্বাভাবিকভাবেই বিরক্ত হয়ে পড়েন অন্যান্য যাত্রীরা। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন বিমান সেবিকারা।

এরপর বিমান দিল্লি বিমানবন্দরে অবতরণের পরই তাকে পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ২৯৪ ও ৫১০ ধারার অধীনে মামলা রুজু করা হয়েছে। এরপর এয়ার ইন্ডিয়ার তরফেও একটি বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে, সংস্থা এমন ধরনের আচরণ কখনও মেনে নেয় না। তারা অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে।

5 months ago


Bus: উত্তরপ্রদেশে ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনা! আহত ৩০ জন যাত্রী

ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনা। ঘটনায় আহত অন্তত ৩০ জন বাসযাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে  উত্তরপ্রদেশের এটাওয়াহতে আগরা-লখনউ এক্সপ্রেসওয়ের উপর। জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের শ্রাবস্তি থেকে বাসটি গুজরাতের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল। এরপর এটাওয়ার কাছে আগরা-লখনউ এক্সপ্রেসওয়ের উপরে আচমকাই বাসটি উল্টে যায়। ঘটনায় আহত হন অন্তত ৩০ জন বাসযাত্রী।

পুলিসের প্রাথমিক অনুমান, চালক ঘুমিয়ে পড়াতেই এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। সার্কল অফিসার নগেন্দ্রকুমার চৌবে সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘শ্রাবস্তি থেকে গুজরাতের দিকে যাচ্ছিল বাসটি। সেই বাসে ৮০ জন যাত্রী ছিলেন। তবে কারও আঘাতই গুরুতর নয়। আহত সকলকেই সাইফাই মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করানো হয়েছে। খুব সম্ভবত বাসের চালক ঘুমিয়ে পড়েছিলেন সেই কারণেই দুর্ঘটনা।’

তবে কী কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। সত্যিই চালক ঘুমিয়ে পড়েছিলেন কি? তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।


5 months ago
Uber: অফলাইনে যেতে রাজি না হওয়ায় যাত্রীকে ধাক্কা-মারধর অটো চালকের

সারা ভারতে একসময় ব্যক্তিগত পরিবহন মাধ্যমের অন্যতম ছিল ট্যাক্সি। মানুষ ইচ্ছেমতো যাতায়াত করত। তবে হঠাৎ করেই সিন্ডিকেট শুরু হয় ট্যাক্সি পরিবহন ব্যবস্থায়। যত ইচ্ছে দর বাড়াতে থাকেন ট্যাক্সি চালকেরা। এমন সময় হঠাৎ করেই ভারতে জনপ্রিয়তা পায় উবের নামক একটি পরিবহন সংস্থা। ট্যাক্সির তুলনায় দামে কম, কিন্তু মানে ভালো ব্যবস্থা ছিল এই সংস্থার পরিবহনে। চার জনের, ছয় জনের বসার মতো গাড়ি, বাইক তো আগে থেকেই ছিল, হালফিলে টোটো এবং অটোও পাওয়া যায়।

তবে দিন দিন জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে এই পরিবহন সংস্থা। প্রত্যেকদিনই ভুরি ভুরি অভিযোগ আসে এই পরিষেবা গ্রাহকদের থেকে। সম্প্রতি একেবারে ভিডিও সহ দেখা গিয়েছে কীভাবে যাত্রীকে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। সম্প্রতি ব্যাঙ্গালুরুতে এক ব্যক্তি উবের অটো বুক করেছিলেন। চালক এসে তাঁকে বলেন, তিনি অফলাইনে যাবেন এবং একমাত্র নগদেই তিনি ভাড়া নেবেন। যাত্রী এই প্রস্তাবে রাজি না হলে চালক ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। প্রথমে ওই যাত্রীকে অটো দিয়ে ধাক্কা মারে ওই চালক। পরে ওই যাত্রীর ফোন ছিনিয়ে নিতে চান। এই পুরো ঘটনা ধরা পড়েছে ঘটনাস্থলের কাছে থাকা একটি সিসিটিভি ক্যামেরায়।

সেই ফুটেজের ভিডিও এক ব্যক্তি সামাজিক মাধ্যমে আপলোড করেছেন। সেই ভিডিও অবশ্য নজরে এসেছে উবের সংস্থার। তাঁরা ওই যাত্রীকে যোগাযোগ করতে বলেছেন এবং উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন।


6 months ago


Express: টাকার চাপে উড়িষ্যা থেকে ফিরতে সংকটে যাত্রীরা!

প্রসূন গুপ্তঃ করমণ্ডল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার পরে ওই ট্রেনের নিহত ও আহত যাত্রীদের সামাল দিতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে প্রশাসনকে। তেমনই পুরী বা উড়িষ্যার অন্য প্রান্তের ভ্রমণকারীরাও মহা সংকটে। আসলে যে কোনও দুর্ঘটনার পরে একদল মানুষ লুঠপাঠে নামে, তা সে যেখানেই হোক না কেন। ব্যতিক্রম নয় উড়িষ্যাও। প্রশাসনিক দিক থেকে কোনও কালেই উড়িষ্যা তেমন সুনাম অর্জন করতে পারে নি। যদিও সিবিআই রেল দুর্ঘটনার তদন্তে নেমেই জানিয়েছে, এটির সঙ্গে অন্তর্ঘাতের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রশ্ন থাকে, অন্তর্ঘাত যদি হয়েই থাকে তবে প্রাথমিক ভাবে ধরে নেওয়া যায় যে স্থানীয় মানুষ বিশেষ করে রেলের সিগন্যাল ম্যান জড়িত রয়েছে।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ কিছুটা দায়িত্ব নিয়ে নিয়েছেন উদ্ধার কাজে। মঙ্গলবার তিনি আচমকাই উপস্থিত হয়েছিলেন কটকে। গিয়েছিলেন হাসপাতালেও। এবারে তাঁর ফর্মুলার রেড লাইট নিয়ে বেশ কিছুটা একমত কেন্দ্রের অনেকেই। কাজেই ভাবার বিষয়। অন্যদিকে, মমতা অনেক আহতকে রাজ্যে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এবারে প্রশ্ন উঠেছে, পুরী বা উড়িষ্যার অন্য প্রান্তে এমন অনেকেই রয়েছে যাঁরা বাড়ি ফিরতে পারছেন না টাকার অভাবে। ট্রেন নেই, কাজেই ভরসা করতে হচ্ছে উড়িষ্যা পরিবহনের উপর। এখানেই এক প্রকার চাপ দিয়ে দিয়ে টাকা তুলছে ওই বাসগুলি। যেখানে ভাড়া ১০০০ -১২০০ টাকা, সেখানে কলকাতায় আসার জন্য দর দেওয়া হচ্ছে তিন থেকে সাড়ে সাত হাজার টাকা। অনেকেই বাসে জায়গা না পেয়ে হোটেলে ফিরত যাচ্ছে, কিন্তু এবারে হোটেলওয়ালারাও দর বাড়িয়ে দিচ্ছে। অসহায় অবস্থা। প্রশাসনের কানে যেতে তারা কিছুটা তৎপর হয়েছে। পরিবহনের ইন্সপেক্টররা বার্তা দিয়েছে অতিরিক্ত ভাড়া নিলে ২৫ হাজার টাকা অবধি জরিমানা হতে পারে। করোনাকালে এমনটিই হয়েছিল। এই ধরনের কুকীর্তি গ্রহণযোগ্য নয়, কাজেই ফের শরণাপন্ন হতে হচ্ছে যাত্রীদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। বাংলার দিদি কি করেন সেটাই দেখার।

উল্লেখ্য, ভয়াবহ দুর্ঘটনার পাঁচ দিন পর বুধবার থেকে আবার চলবে করমণ্ডল এক্সপ্রেস। বুধবার বিকেল সওয়া তিনটে নাগাদ শালিমার থেকে ছাড়বে করমণ্ডল এক্সপ্রেস।

6 months ago
Accident: 'অসংরক্ষিত মৃত যাত্রীদের কি হবে'? প্রশ্ন রাজ্যের দুই মন্ত্রীর

জ্ঞানেশ্বরীর ভয়াবহতাকেও হার মানাল করমণ্ডলের বীভৎসতা! যেদিকে দু-চোখ যায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে শুধুই মৃতদেহের সারি। এখনও চলছে উদ্ধারকাজ। রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, এখনও অবধি মৃতের সংখ্যা ২৭৫। আহত প্রায় হাজার জন। বিভিন্ন রাজ্যের সরকার সহ রেলমন্ত্রকের তরফেও ঘোষণা করা হয়েছে আর্থিক সাহায্য। কিন্তু প্রশ্ন? অসংরক্ষিত মৃত যাত্রীদের সহায়তা কোথায়? এই নিয়ে মুখ খুললেন রাজ্যের সেচ ও জলপথ মন্ত্রী পার্থ ভৌমিক এবং পরিবহন মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী

পার্থ ভৌমিক বলেন, মর্মান্তিক। বেশ কয়েক ঘণ্টা কেটে যাওয়ার পরেও যেন দুঃস্বপ্নের মধ্যে রয়েছি। বাংলা থেকে করমণ্ডল এক্সপ্রেস ছেড়েছিলো। কাজেই জানা দরকার অবশ্যই কোন কোন যাত্রী আহত হলেন বা প্রয়াত হলেন। এখানে বাঙালি, অবাঙালির প্রশ্ন আসছেই না। কিন্তু যা আসছে সমস্ত যাত্রীই হাওড়া থেকেই ট্রেনে উঠেছিলেন। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই অকুস্থলে গিয়েছিলেন শনিবার। তিনি বরাবরই দায়িত্বশীল। তিনি গিয়ে তাঁর অভিজ্ঞতা থেকে উপদেশ দিয়ে এসেছেন। তাঁর এবং আমাদের সকলেরই দায়িত্ব যাঁরা নিহত হলেন বা আহত তাঁদের ঠিকানা বের করা। কিন্তু রেল সংস্থা এখনও পর্যন্ত আমাদের পরিষ্কার তথ্য দিতে পারে নি। একটি প্রশ্ন থেকেই যায়, যাঁরা অসংরক্ষিত কামরায় ছিলেন এবং মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের নাম ঠিকানা বের করা তো প্রায় অসম্ভব বিষয়। এদের পরিবার সরকারি অর্থ সাহায্য পাবে কি করে আমার মাথায় আসছে না। প্রধানমন্ত্রী তো সমস্ত অর্থনৈতিক লেনদেনে এখন আঁধার কার্ড বা প্যান কার্ড বাধ্যতামূলক করেছেন, তাহলে ট্রেনের অসংরক্ষিত কামরার যাত্রীদের টিকিট কাটার সময়ে তা ব্যবহার করা হচ্ছে না কেন? সেটি করলে তো সকলের নাম ঠিকানা বের হয়ে যেত। ভাববেন কি আগামী দিনে?

এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে পরিবহন মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী বলতে গিয়ে প্রথমেই বলেন,  এখনও পর্যন্ত ভয়ঙ্কর ঘোর আমরা কাটিয়ে উঠতে পারি নি। আমি রাজ্যের পরিবহন দায়িত্বে আছি। কাজেই গত দু'দিন ধরে অসংখ্য ফোন আসছে, দাদা কি হলো। প্রথমত, আমি মনে করি এটি সম্পূর্ণ রেলের গাফিলতি, তা সেটি সিগন্যালের ত্রুটি হোক কিংবা অন্য কিছু। মেনে নিতেই হবে ভারতবর্ষের সবচাইতে বড় বিপর্যয় ঘটলো এই করমণ্ডলের দুর্ঘটনায়। প্রধানমন্ত্রী যদিও বলেছেন, ত্রুটি যারা করেছে তারা শাস্তি পাবে। কিন্তু উচ্চ পর্যায়ের কতৃপক্ষ কি এর দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে পারে? একদিকে রেল নিয়ে স্বপ্ন দেখানো হচ্ছে, তখন লাইনের সমস্যা নাকি সিগনালের, মানুষ শুনবে কেন? আমাদের মুখ্যমন্ত্রী নিজে উপস্থিত ছিলেন দুর্ঘটনা হওয়ার পর। ঘুরে দেখেছেন। একটি এক্সপার্ট দলকে পাঠানো হয়েছে। বাকি তো দুর্ভাগ্যের।

একটি প্রশ্ন থেকেই যায়। আজ কেন্দ্রীয় সরকার বা মোদী সরকার বিভিন্ন ক্ষেত্রে আঁধার কার্ড এবং প্যান কার্ডের লিঙ্ক চালু করেছে। আমার প্রশ্ন অসংরক্ষিত যাত্রীদের কি হবে? আজ যদি জেনারেল টিকিটেও ওই লিঙ্ক চালু থাকতো, তবে ওই অসহায় মানুষ, যাঁরা বেঁচে নেই, তাঁদের পরিবার কি এই অর্থ সাহায্য থেকে বঞ্চিত হতো না। বিভিন্ন রেল দফতরের মাধ্যমে জানতে পারলাম, আমার প্রস্তাবটি নাকি অবশ্যই গ্রহণযোগ্য। কিন্তু রেল বোর্ডকে জানাবে কে? মানে বেড়ালের গলায় ঘন্টি বাঁধার লোক নেই। সুপার এক্সপ্রেস ইত্যাদি চালু হবে শুনছি। রেলের এই হালত থাকলে লাভ কি?

6 months ago
Flight: মাঝ আকাশে অশালীন আচরণ, বিমান সেবিকাকে শারীরিক হেনস্থা করার অভিযোগ এক যাত্রীর বিরুদ্ধে

ফের বিমানে বিপত্তি। মাঝ আকাশে বিমানের (Flight) মধ্যে পুরুষ যাত্রীর (Passenger) মারধরের শিকার হলেন একজন বিমান সেবিকা (crew member)। অভিযোগ, সোমবার গোয়া থেকে দিল্লিগামী এআই৮৮২ বিমানে এক যাত্রী বিমান সেবিকার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ছাড়াও একজনকে শারীরিকভাবে হেনস্থাও করা হয় বলে অভিযোগ। অবতরণের পর তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনাটি এয়ার ইন্ডিয়া (Air India) সংস্থা বিমানের।

সূত্রের খবর, গত ২৯ মে এয়ার ইন্ডিয়া বিমানের এক যাত্রীর বিরুদ্ধে অশালীন আচরণের অভিযোগ উঠেছে। এয়ার ইন্ডিয়ার মুখপাত্র একটি বিবৃতি প্রকাশ করে জানায়, মাঝ আকাশে বিমান সেবিকাদের সঙ্গে অভব্য ভাষায় কথা বলেন ওই যাত্রী। শুধু তাই নয়, এক বিমান সেবিকাকে অশ্লীলভাবে স্পর্শও করার চেষ্টাও করেন তিনি। আরও জানানো হয়েছে, দিল্লি বিমানবন্দরে অবতরণের সময়েও অভিযুক্ত যাত্রী অপ্রীতিকর, আক্রমণাত্মক আচরণ চালিয়ে যান। পরে দিল্লি বিমানবন্দরে অবতরণের পরেই সেই যাত্রীকে নিরাপত্তা কর্মীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

এর আগেও একাধিকবার কখনও যাত্রীর ধূমপান, আবার কখনও বিমান সেবিকাদের সঙ্গে অশালীন আচরণ, সহ-যাত্রীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, বিমানের সিটে প্রস্রাব নানা কাণ্ড ঘটে গিয়েছে আকাশ পথে। অভিযুক্তরা নিজেদের অপরাধের জন্যে উপযুক্ত শাস্তিও পেয়েছেন। কিন্তু তবুও একই রকমের ঘটনার বারবার পুনরাবৃত্তি।

6 months ago


Air India: মাঝআকাশে বিমানে তীব্র ঝাকুনি, দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচল বিমান

বিমান চলাকালীন মাঝ আকাশে তীব্র ঝাঁকুনিতে আহত বেশ কিছু যাত্রী (Passenger)। গন্তব্যে পৌঁছনোর পর তাঁদের চিকিৎসার (Treatment) ব্যবস্থা করা হয়। জানা গিয়েছে, দিল্লি থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার (Air India) ওই বিমান (Airplane) সিডনির উদ্দেশে যাত্রা করেছিল।

আন্তর্জাতিক এক সংবাদসংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, যান্ত্রিক গোলযোগের কোনও কারণেই মাঝ আকাশে বিমানটি হঠাৎ কেঁপে ওঠেছে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রবল ঝাঁকুনির ফলে যাত্রীরা তাঁদের আসন থেকে ছিটকে পড়েন। ফলে অনেকেই আহত হয়ে পড়ে। এর পর সিডনিতে নামার পর আহত যাত্রীদের তড়িঘড়ি চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয় বিমানবন্দরেই। কোনও যাত্রীকে হাসপাতালে পাঠাতে হয়নি বলে দাবি সংবাদমাধ্যম সূত্রে।

সূত্রের খবর, বিমানের ৭ জন যাত্রী আহত হন। তাঁদের বিমানের মধ্যে চিকিৎসক এবং বিমানকর্মীরা প্রাথমিক চিকিৎসা পরিষেবা দেন। কারও চোটই তেমন গুরুতর নয় বলে মনে করা হচ্ছে। তবে মাঝ আকাশে বিমানে ঝাঁকুনির ফলে যাত্রীরা বেশ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

7 months ago
Usa: মাটি ছেড়ে আকাশে উড়তেই অগ্নিকান্ড বিমানে! আতঙ্ক জনপদে, তারপর যা হলো...

মাটি থেকে আকাশে ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই আগুন (Fire) ধরল বিমানে। সঙ্গে সঙ্গে জরুরি অবতরণ করল সেই বিমান(Plane)। ওহায়োর এই ঘটনায় পাইলটের (Pilot) যথা সময়ের নেওয়া সিদ্ধান্তে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন বহু যাত্রী (Passenger)। বিমানে আগুন ধরার এই ঘটনার ভিডিও ইতিমধ্যে ভাইরাল সমাজ মাধ্যমে।

রবিবার, সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে বিমানটি উড়েছিল ওহায়োর জন গ্লেন কলম্বিয়াস ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট থেকে রওনা হয়েছিল ফিনিক্সের উদ্দেশে। বিমানটি যখন ওহায়োর আপার অ্যারিংটনের আকাশে তখন অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। সবেমাত্র বিমানবন্দর থেকে আকাশে উড়তেই বিমানটিতে আগুন জ্বলতে দেখা যায় মাটি থেকেই। আপার অ্যারিংটনের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বিমানের ডানার নীচের ইঞ্জিনের জায়গা থেকে আগুনের গোলা ছিটকে বেরোচ্ছিল। ঘটনাটি দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তাঁরা। বিমান দুর্ঘটনার আশঙ্কায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়েন মানুষ। ঘটনাটির ভিডিয়ো অনেকে রেকর্ডিংও করেছেন। সেই ভিডিয়োই ভাইরাল হয়েছে। 

বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে, বিমানটি অবতরণের সঙ্গে সঙ্গেই বিমানবন্দর কর্মীরা আগুন নেভানোর ব্যবস্থা করেন। যদিও আগুন লাগার কারণে বিমানটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে নিরাপদে নামিয়ে আনা হয় যাত্রীদেরও।

7 months ago


Uber: মোবাইলে চার্জ কম থাকলে ভাড়া বাড়াছে জনপ্রিয় অ্যাপক্যাব, অভিযোগ যাত্রীদের

বর্তমানে অ্য়াপক্য়াবের (Uber) আনাগোনা বাকি যানবাহনের থেকে অনেক বেশি। একসময় হদুল ট্যাক্সির (Taxi) চল থাকলেও এখন কিন্তু অ্য়াপক্য়াবের চাহিদা আরও বেশি। এমনকি মানুষের তা গ্রহণযোগ্য়তাও বেশি। সেই সুযোগ বুঝে যাত্রীদের (Passenger) পকেটে কোপ বসায় অ্যাপক্যাব সংস্থাগুলি। চলতি পথে তাড়াহুড়োর সময়ে প্রয়োজনে যদিও সে সব কথা না ভেবে, বেশি টাকা দিয়েই সেই পরিষেবা নিতে হয়। তবে এ বার অভিযোগ উঠল ‘উবর’ অ্যাপক্যাবের সংস্থার বিরুদ্ধে। অভিযোগ, ফোনের ব্যাটারি কম থাকলে নাকি পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকছে উবরের ভাড়া। 

এক যাত্রীর করা অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসতেই দেখা গিয়েছে, শুধু ওই যাত্রীটি নয়, অভিযোগের তালিকার সংখ্য়া রয়েছে দীর্ঘ। ব্রাসেল্‌স শহরের সমস্ত ট্যাক্সি অফিস থেকে সংগ্রহ করা তথ্য থেকে জানা গিয়েছে, এক যাত্রীর কাছে থাকা অ্যাপল সংস্থার দু’টি আইফোনের একটিতে ৮৪ শতাংশ এবং অন্যটিতে ১২ শতাংশ চার্জ ছিল। একই গন্তব্যের উদ্দেশে চার্জ কম থাকা ফোন থেকে বুক করা উবরের ভাড়া এবং চার্জ বেশি থাকা ফোন থেকে বুক করা উবরের ভাড়া ভিন্ন। ফোনের ব্যাটারি কম থাকার সঙ্গে ভাড়া কম বা বেড়ে যাওয়ারও কোনও সম্পর্ক নেই। যদিও দু’টি আলাদা ফোন থেকে বুক করা আলাদা দু’টি উবর, একই জায়গায় গেলেও তার ভাড়া ভিন্ন হতে পারে। কারণ, তা নির্ভর করে ক্য়াবের চালকের উপর।

8 months ago
Flight: মাঝ আকাশে বিমানের জরুরি দরজার সামনে মদ্যপ ব্যক্তি! মাতালের কীর্তিতে আতঙ্ক

টেনে হিঁচড়ে বিমানের(Flight) দরজা খোলার চেষ্টা এক মত্ত ব্যক্তির। ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লি-বেঙ্গালুরু (Delhi-Bengaluru Flight) ইন্ডিগোর একটি বিমানে। ঘটনার জেরে বেশ আতঙ্কিত বিমানের বাকি যাত্রীরা। শুক্রবার সকাল ৭টা ৫৬ মিনিটে দিল্লি থেকে বেঙ্গালুরুগামী বিমানে এই ঘটনা ঘটে। ওই যাত্রী মত্ত অবস্থায় ছিলেন, দাবি বিমান সংস্থার। বিমানটি অবতরণের পর ওই যাত্রীর বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন বিমান কর্তৃপক্ষ। জানা গিয়েছে, বিমানটি মাঝ আকাশে থাকাকালীনই এই ঘটনা ঘটান এক ব্যক্তি। প্রথমে ওই ব্যক্তি নিজের আসন ছেড়ে টলমল করতে করতে এগিয়ে যান। টলমল পায়েই একেবারে জরুরি দরজার কাছে পৌঁছে গেলেন ওই যাত্রী। তারপরই তিনি জোর করে বিমানের দরজা খোলার চেষ্টা করেন। এই দেখে বিমানে উপস্থিত বিমানকর্মীরা তাঁকে ধরে নিয়ে গিয়ে আসনে বসান। 

বিমান সংস্থা সূত্রে খবর, বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরে বিমান অবতরণের পর ওই মত্ত যাত্রীটিকে সিআইএসএফ (CISF) আধিকারিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ওই যাত্রীর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে, এমনটাই জানাচ্ছে বিমান সংস্থা। 

8 months ago
Gold: বৈদ্যুতিক মোটরে লুকিয়ে সোনা পাচারের চেষ্টা! যা দেখে স্তম্ভিত শুল্ক আধিকারিকেরা

প্রকাশ্যে এল সোনা পাচারের (Gold Smuggling) অভিনব কৌশল। বৈদ্যুতিক মোটরের ভিতরে লুকিয়ে সোনা পাচারের চেষ্টা করছিল পাচারকারী। ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাই-এর বিমানবন্দরে (Chennai Airport)। বাজেয়াপ্ত করা হয় সোনা। তাল পাকানো অবস্থায় প্রায় ২ কেজি সোনা উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে যার বাজারে মূল্য ৯৬ লক্ষ টাকা। ইতিমধ্যে ওই অভিযুক্ত যাত্রীকে গ্রেফতার (Arrest) করেছে পুলিস। 

সোনা উদ্ধারের ঠিক এমনই এক ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সমাজমাধ্যমে। ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে, দুইজন ব্যক্তি মিলে ওই বৈদ্যুতিক মোটরটি ভাঙার চেষ্টা করছেন। অনেকক্ষণ চেষ্টার পর অবশেষে মোটরটি ভাঙা সম্ভব হয়। মোটরটির ভিতর থেকে উদ্ধার হয় তাল পাকানো সোনা। 

বিমানবন্দরের আধিকারিকরা দেখেন ওই যাত্রীর ব্যাগে একটি বৈদ্যুতিক মোটর রয়েছে। যা দেখে কখনই বোঝা সম্ভব নয় ওই মোটরে করে সোনা পাচারের কাজ চলছে। সোনা পাচার করতেই ওই মোটরটি ব্যবহার করা হচ্ছে। ওই যাত্রীকে জিজ্ঞাসা করা হয় কেন মোটরটি নিয়ে যাচ্ছেন তিনি এবং তিনি কী কাজে ব্যবহার করবেন এই মোটরটিকে। জেরার ওই যাত্রীর কথায় অসঙ্গতি লক্ষ্য করেন বিমান আধিকারিকরা। তখনই আধিকারিকদের সন্দেহ হয়, মোটরের মধ্যে কিছু একটা রয়েছে। তারপরই তাঁরা ওই যাত্রীর থেকে মোটরটি নিয়ে ভেঙে দেখার চেষ্টা করেন। মোটরটি ভাঙতেই সোনা বেরিয়ে আসে। পাচারকারীর এই অভিনব কৌশল দেখে স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলেন শুল্ক আধিকারিকেরাও।

8 months ago


Fire: বচসা চলাকালীন চলন্ত ট্রেনের মধ্যে সহযাত্রীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দিলেন অভিযুক্ত, মৃত ৩

ট্রেনের (Train) মধ্যে এক সহযাত্রীর গায়ে আগুন (Fire) লাগিয়ে দেয় অপর এক সহযাত্রী বলে অভিযোগ। আগুন লাগার ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু (Death) হয়েছে তিন যাত্রীর। গুরুতর আহত (Injured) হয়েছেন আরও ন’জন যাত্রী। আলপ্পুজা-কন্নুর এগজিকিউটিভ এক্সপ্রেস ট্রেনেই এই ঘটনাটি ঘটে। ট্রেনটি কেরলের (Kerala) কোজিকোড়ের কাছে থাকাকালীনই এই ঘটনা। ট্রেন থামানোর সঙ্গে সঙ্গেই আহত যাত্রীদের নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। জানা গিয়েছে, ঘটনার চার ঘণ্টা পর রেললাইন থেকে তিন যাত্রীকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদের মধ্যে এক শিশুও রয়েছে। 

যাত্রীদের দাবি, রবিবার রাতে ঘটে এই ঘটনাটি। এলাথুর রেলস্টেশনে ঢোকার সময় থেকে ডি১ কোচে যাত্রীদের মধ্যে বচসা শুরু হয়। পরে বচসা চলাকালীনই সহযাত্রীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন অভিযুক্ত। আগুন মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ায় এক যাত্রী ট্রেনের অ্যালার্ম চেন টানেন। চেন টানার পরই আগুন গায়ে নিয়েই তিন জন যাত্রী ট্রেন থেকে লাফিয়ে পড়েন। যাত্রীরা আরও জানান, ট্রেন থামার পরই অভিযুক্তও পালিয়ে যান।  

পুলিস সূত্রে খবর, অভিযুক্তের খোঁজে তদন্তে শুরু হয়েছে। ট্রেনের সিসিটিভি ফুটেজও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এমনকি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও গ্রহণ করা হবে, আশ্বাস পুলিসের।

8 months ago
Maoist: যাত্রীদের বাস থেকে নামিয়ে আগুন ধরিয়ে দিল মাওবাদীরা, অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি পুলিসের

যাত্রীদের বাস (Bus) থেকে নামিয়ে, আগুন (Fire) ধরিয়ে দিল মাওবাদীরা। ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের (Chhattisgarh) দন্তেওয়াড়ারায়। মাওবাদীদের খোঁজে পুলিস (Police)।

দন্তেওয়াড়ার পুলিস সুপার আরকে বর্মণ জানান, শনিবার সকালে নারায়নপুর টাউন থেকে দন্তেওয়াড়ার দিকে যাচ্ছিল ওই বাসটি। মালেওয়াহি এবং বোদলি পুলিস শিবিরের মাঝে বেসরকারি ওই যাত্রীবাহী বাসটিকে দাঁড় করায় মাওবাদীরা। তারা বাসের সকল যাত্রীদের বাস থেকে নামতে বলেন। তারপর বাসটিতে আগুন লাগিয়ে দেয়। বাসে আগুন ধরানোর এই খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে পুলিস এসে পৌঁছয় ঘটনাস্থলে।

পুলিস সূত্রে খবর, চব্বিশ জনের মতো মাওবাদী ছিল সেই দলে। তাদের অনেকেরই হাতে অস্ত্র ছিলো। তবে কোনও যাত্রীর উপর আক্রমণ কিংবা হামলা চালায়নি তারা। এমনকি অতিরিক্ত পুলিস সুপার জানিয়েছেন, কোনো যাত্রীর কোনোরকম ক্ষতি হয়নি।ইতিমধ্য়ে মাওবাদীদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছেন পুলিস। যাত্রীদের নিরাপত্তার সঙ্গে তাঁদের গন্তব্যে পাঠানো হয়েছে।

8 months ago