Breaking News
Senior Citizen: কেউ আতঙ্কে, কেউ আবার দিব্যি আছেন, শহর কলকাতায় কেমন আছেন একাকী বয়স্করা?      cctv: ঘুমের ব্যাঘাত হওয়ায় মারধর! সিসিটিভি ফুটেজ দেখে গ্রেফতার বৃদ্ধার পরিচারিকা      Mamata: 'বাংলায় বিনিয়োগ করলে...' দুবাইয়ের মঞ্চ থেকে বিনিয়কারীদের পথ দেখালেন মমতা      Parineeti-Raghav:শনিবার সকাল ১০টা বাজতেই শুরু হল পরিণীতি-রাঘবের বিয়ের অনুষ্ঠান      Manish: শর্ত সাপেক্ষে জামিন পেলেন অনুব্রতর হিসেব রক্ষক মনীশ কোঠারি      Summon: পুর-নিয়োগ দুর্নীতিতে আরও ৩৪ পুর-কর্মীকে তলব, চাপে মদনের পুরসভা কামারহাটি      Anubrata: পিছল ইডির করা মামলা, মেয়ের মত অনুব্রতরও পুজো কাটতে চলেছে তিহারে      Court: আদালতে কিছুটা স্বস্তি রাজ্যের, সমবায় দুর্নীতির তদন্ত সিবিআইয়ে আস্থা সার্কিট বেঞ্চের      Nipah virus: নিপা আতঙ্ক এবার বাংলাতেও, বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি কেরল ফেরত পরিযায়ী শ্রমিক      Abhishek: ফের আদালতে ধাক্কা অভিষেকের, লিপস অ্যান্ড বাউন্ডস মামলায় মিলল না বাড়তি সময়     

kolkata

Senior Citizen: কেউ আতঙ্কে, কেউ আবার দিব্যি আছেন, শহর কলকাতায় কেমন আছেন একাকী বয়স্করা?

মণি ভট্টাচার্য: কালের নিয়মে বয়স বাড়লে কমজুরি হয়ে যায় মানুষ। আর এটাই হয়ত সুযোগ। অপমানিত হতে হয়, লাঞ্চিত হতে হয়, কখনও কখনও খুন হতে হয় পরিচারিকা, গাড়িচালক, কিংবা কোনও প্রোমোটারের হাতে। মূলত যারা শহর কলকাতায়, কিংবা কলকাতা লাগোয়া শহরতলি এলাকা গুলিতে একাকী থাকেন। হ্যাX, পরপর দুটো খুন, একটি বাগুইহাটিতে অন্যটি দমদম নাগেরবাজারে। পৃথক দুটি ঘটনাতেই একাকী বৃদ্ধ-বৃদ্ধার খুনে প্রশ্ন উঠছে শহরে তাদের নিরাপত্তা নিয়ে। শহরে, কতটা নিরাপদ একাকী বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা। খোঁজ নিলো সিএন-ডিজিটাল।


শনিবার দু'টি পৃথক প্রবীণদের খুনের ঘটনায় কোথাও পরিচারিকা কিংবা কোথাও গাড়ির চালকের গ্রেফতারি চিন্তা বাড়িয়েছে প্রবীণদের। সূত্রের খবর, বাগুইহাটিতে সত্তরোর্ধ্ব এক বৃদ্ধার মৃত্যুতে পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমে, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ওই বৃদ্ধার এক পরিচারিকাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযোগ ঘুমের সমস্যা হওয়ায় ওই বৃদ্ধাকে মারধর করতেন পরিচারিকা। পাশাপাশি, দমদমের নাগেরবাজারে গাড়ি চেয়ে না পাওয়ায়, একাকী এক বৃদ্ধ কল্যাণ ভট্টাচার্যকে খুন করে তাঁর গাড়িচালক। ওই বৃদ্ধর মৃতদেহ উদ্ধার হতেই তদন্তে নেমে পুলিশ ওই গাড়ি চালককে গ্রেফতার করে।

খোঁজ নিতেই জানা গেল, কোথাও কেউ কেউ আছেন নিশ্চিন্তে, কিংবা কোথাও আছেন আতঙ্কে। কলকাতা লাগোয়া উত্তর দমদমের এক প্রবীণ হেমন্ত সুর আতঙ্কে থাকেন, একাকী জেনে যদি কখনও কেউ তাঁর ক্ষতি করার চেষ্টা করেন। কিংবা যদি তিনি শারীরিক ভাবে সমস্যায় পড়েন? তাঁর একমাত্র ছেলে কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন, হেমন্ত বাবু শনিবার সিএন-ডিজিটালকে বলেন, 'আতঙ্ক তো একটু হয়ই, মাঝে একদিন হুমকিও এসেছিল, সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে জানিয়েছি।' শহরের বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের হাল-হকিকত খোঁজ নিতেই জানা গেল রাজ্য পুলিশের তরফে প্রবীণদের সুরক্ষা সংক্রান্ত কোনও ব্যাবস্থা এখনও নেই। সে ক্ষেত্রে আলাদা ভাবে লোকাল পুলিশ ছাড়া কোনও সুরক্ষা তাঁদের দেওয়া হয় না। যদিও কলকাতা পুলিশ সূত্রের খবর, বয়স্কদের সুরক্ষার্থে একটি বেসরকারি এনজিও দ্যা বেঙ্গলের সঙ্গে যৌথ ভাবে 'প্রণাম' নামের একটি বিভাগ চালু করেন কলকাতা পুলিশ।


কলকাতা শহরে একাকী প্রবীণদের উপর বারবার আক্রমণ, খুনের ঘটনাগুলি সামনে আসতেই, এই ঘটনাগুলি পাকাপাকি ভাবে মেটাতে চালু হয় এই 'প্রণাম' বিভাগ। কলকাতা পুলিশ সূত্রেই খবর, 'প্রণাম' বিভাগের তরফে শহরের একাকী বৃদ্ধ বা বৃদ্ধাদের তরফে তিন ধরণের সহায়তা করা হয়। আইনি সাহায্য, নিরাপত্তা সংক্রান্ত সাহায্য, এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সাহায্য। শহরের যাঁরা ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধ, যাঁরা একা, তাঁরাই এই 'প্রণাম'-এর অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন। কলকাতা পুলিশ সূত্রে আরও খবর, কলকাতা পুলিশের অন্তর্গত ৭২ টি থানা এলাকায় বর্তমানে প্রায় ২৩ হাজার একাকী বৃদ্ধ-বৃদ্ধা এই প্রণামের মাধ্যমে কলকাতা পুলিশের সুবিধা, সুরক্ষা পেয়ে থাকেন।


কলকাতা পুলিশের 'প্রণাম'-এর এক সদস্য, শহর কলকাতায় একাকী বৃদ্ধ স্বপন কুমার ঘোষ শনিবার সিএন-ডিজিটালকে বলেন, 'কোনও সমস্যা হয় না। সব সময় 'প্রণাম'-এর পুলিশের সদস্যরা পাশে থাকেন। অসুস্থ হয়ে গেলে হাসপাতালেও নিয়ে যান। সপ্তাহে একবার করে দেখা করেন, রোজ একবার খোঁজ নেন।' ওদিকে 'প্রণাম'-এর অপর এক সদস্য মিনা ঘোষ শনিবার সিএন-ডিজিটালকে বলেন,'কলকাতায় একা আছি, এটা কখনও মনেই হয় না। মাঝে মাঝে বিনোদনের জন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও নিয়ে যান তারা।'


এ বিষয়ে কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার গোতম মোহন চক্রবর্তী ও দ্যা বেঙ্গল এনজিওর কর্ণধার সন্দীপ ভুতোড়িয়া ২০০৯ সালে এই 'প্রণাম' প্রকল্পটি শুরু করেন। এদিন প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার গোতম মোহন চক্রবর্তী সিএন-ডিজিটালকে জানান, এই 'প্রণাম' শহর কলকাতার একাকী মানুষের ভরসা হয়ে উঠেছে। পাশাপাশি শনিবার দ্যা বেঙ্গল এনজিওর তরফে জয়েন্ট কনভেনর এশা দত্ত বলেন, 'শহরে একাকী বৃদ্ধের সহযোগিতায় সবসময় প্রণাম ভরসা হয়েই থাকবে, এছাড়া রোজ হেল্পলাইন নম্বরের মাধ্যমে ফোন পেয়ে কমপক্ষে ১৫ জন বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের সহযোগিতা করা হয়। যারা এখনও প্রণামের সদস্য নয়।' 'প্রণাম'- এর হেল্প লাইন নম্বর ০৩৩ ২৪১৯ ০৭৪০।'

10 hours ago
Dengue: শহর কলকাতায় মাথাচাড়া দিচ্ছে ডেঙ্গি, উর্দ্ধগামী সংক্রমণে কপালে চিন্তার ভাঁজ পুরকর্তাদের

শহর কলকাতায় মাথাচাড়া দিচ্ছে ডেঙ্গি। সংক্রমণের নিরিখে পঞ্চম স্থান থেকে তৃতীয় স্থান দখল করেছে শহর। দিনদিন বাড়ছে  সংক্রমণের সংখ্যা, উঠে আসছে মৃত্যুর খবরও। এই পরিস্থিতেই কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, পুরসভার তরফ থেকে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষের সতর্ক হওয়া দরকার। 

তবে সত্যিই কী তাই ? সাধারণ মানুষ সতর্ক নয়? পুরসভার পক্ষ থেকে আদৌও কী নেওয়া হয় সবরকম ব্যবস্থা? কলকাতা পুরসভা দফতরের ঢিল ছোঁড়া দুরত্বে অবস্থিত নিউ মার্কেটের ছবি তো বলছে অন্য কথা। নিউমার্কেটের যত্রতত্র জমে রয়েছে ময়লা, হাই ড্রেনের মুখ বন্ধ হয়ে বিভিন্ন জায়গায় জমা হয়েছে জল।সৌর্ন্দায়নের জন্য যে গাছ গুলি লাগানো হয়েছিল তার পাশেই পড়ে রয়েছে ডাবের খোলা, জলের গ্লাস, যেগুলিতে বাসা বেঁধেছে মশার লার্ভা। এই সবকিছু দেখে স্পষ্ট বোঝা যায় বহুদিন ধরে জমা হয়েছে এই আর্বজনা।

একজন ব্যবসায়ীর দাবি, পুরসভার কর্মীরা ভালো ভাবে কাজ করে না। সামনেই দুর্গাপুজো। আর পুজো মানেই কেনাকাটা করতে মানুষের ঢল নামবে এই বাজারে ।তবে দুর্গাপুজোর আগে ডেঙ্গি রোধে মার্কেটের এই বেহাল দশা ভাবাচ্ছে ব্যবসায়ীদের। ডায়মন্ড হারবার থেকে আসা একজন ক্রেতা বলেন নিউমার্কেটের এই পরিস্থিতিতে আতঙ্কে রয়েছেন তাঁরা।

ডেঙ্গিতে শহরের হাল দেখতে ইতিমধ্যেই রাস্তায় নেমেছেন ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ। পরিস্থিতি বেহাল দেখলেই ধমক  দিচ্ছেন পুরকর্মীদের।তবে তাঁর দফতরের সামনের এই অবস্থা কেন নজরে পড়ল না।পুরসভার কর্মীদেরও যে গাফিলতির অভিযোগ উঠে আসছে, তা কেন জানতে পারছেনা পুরসভার আধিকারিকরা। তবে কী ডেঙ্গি তৎপরতার নামে শুধুই চলছে পিঠ বাঁচানোর লড়াই? সাধারণ মানুষ সতর্ক নয়, এই দায় চাপিয়ে কী সত্যিই নিজেদের গাফিলতির ছবি মুছে ফেলতে পারে পুরসভা? প্রশ্নগুলো থেকেই যাচ্ছে।

13 hours ago
Dengue: চিকিৎসাকেন্দ্রই পরিণত ডেঙ্গির আঁতুড়ঘরে! পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে হাসপাতাল পরিদর্শনে অতীন ঘোষ

চলতি বছরে বর্ষার শুরু থেকেই রাজ্যে উর্ধ্বমুখী ডেঙ্গির (Dengue) গ্রাফ। ফিরে এসেছে গত বছরে ডেঙ্গির সেই ভয়াবহতা। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর হারও। পুরসভা, স্বাস্থ্য দফতরের তরফে একাধিক গাইডলাইন, বিজ্ঞপ্তি, সতর্কবার্তা প্রচারের পরও রাজ্যে বেলাগাম ডেঙ্গির সংক্রমণ। এমনকি খোদ চিকিৎসাকেন্দ্রই পরিণত হয়েছে ডেঙ্গির আঁতুড়ঘরে। একদিনেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ডেঙ্গিতে মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার পর্যন্ত কলকাতা ও সল্টলেকে দু'জন, আসানসোলে তিন জন এবং খড়্গপুর ও ঘাটালে একজন মারা গিয়েছেন। ফলে ডেঙ্গির মৃত্যু সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগে রাজ্য সরকার। অন্যদিকে শুক্রবার হাসপাতাল পরিদর্শনে এসে হতবাক ডেপুটি মেয়র (Deputy Mayor) অতীন ঘোষও (Atin Ghosh)। কড়া বার্তা দিলেন পুরকর্মীদের।

শহর কলকাতার বুকে মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের আনাচে কানাচে জমে রয়েছে আবর্জনা। নেই হাসপাতাল চত্বরের পর্যাপ্ত রক্ষণাবেক্ষণ। জমা জলে জন্ম নিচ্ছে ডেঙ্গি মশা। কার্যত হাসপাতালের অন্দরের বেহাল দশায় ডেঙ্গি আতঙ্কে তটস্থ রোগী থেকে রোগীর পরিবার। আবার আর জি কর হাসপাতালের চিত্রটাও অনেকটা তাই। আর জি কর হাসপাতালের সামনের ওপেন ড্রেনে জমে রয়েছে জল। ড্রেনের ফাঁকা অংশ নোংরা আবর্জনায় ভর্তি। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনেও পড়ে রয়েছে নোংরা আবর্জনা। যা পরিষ্কার করা হয়নি।

ডেপুটি মেয়রের তরফে হাসপাতালের পরিস্থিতি বদলের আশ্বাস মিললেও বাস্তবে তা কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে সাধারণ মানুষের মনে। প্রশ্ন উঠছে, কলকাতার একাধিক হাসপাতালেও ডেঙ্গির পরিবেশ বহাল রয়েছে। যাদবপুরের কেপিসি হাসপাতাল ডেঙ্গির জন্য অনুকূল। তাই ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ যখন বিভিন্ন হাসপাতাল পরিদর্শন করছেন, তাহলে শহরের অন্যান্য হাসপাতালগুলোর এই পরিস্থিতি বদলাবে কবে?

16 hours ago


Weather: শনিবারও ভিজবে শহর কলকাতা, দুই বঙ্গে চলবে বৃষ্টিপাত

কখনও ঝিরঝির কখনও ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি। শনিবার সকাল থেকেই শহরজুড়ে অবিরাম বৃষ্টি হয়ে চলেছে। কলকাতার এই টানা বৃষ্টির নেই কোনও বিরাম। আবার মাঝেমধ্যে বৃষ্টি বন্ধ হলেও ভ্যাপসা গরমে নাজেহাল হচ্ছে কলকাতাবাসী। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী শনিবার সারাদিন কলাকাতা সহ দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া ও পূর্ব মেদিনীপুরে দফায় দফায় চলবে বৃষ্টি। বৃষ্টির জেরে তাপমাত্রার কিছুটা কমলেও আপতত কিন্তু বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই নেই। এদিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকতে পারে। 

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, বঙ্গোপসাগরে তৈরী হওয়া নিম্নচাপটি শক্তি হারিয়ে ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হয়েছে। সেটি বঙ্গোপসাগর থেকে ঝাড়খন্ডের দিকে সরে গিয়েছে। এর আবহাওয়া পশ্চিমের দিকে বইবে। এবং সেই এখনই থামবে না বৃষ্টি। আরও তিন দিন পর্যন্ত হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত বজায় থাকবে। 

দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও রয়েছে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। দার্জিলিং, কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি, কোচবিহারে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ভারী বৃষ্টির জেরে উপরের জেলাগুলিতে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। 


18 hours ago
Cinema: সিনেমার আবির্ভাব কলকাতায় কিভাবে!

সৌমেন সুর: ১৮৯৬ সাল। কলকাতার হাতিবাগান অঞ্চলে বাঙালি বাবুদের ভিড়। কি নেই হাতিবাগানে! নাটক, কবিগান, তরজা আরো কত কি! সেই সময় গিরিশচন্দ্র ঘোষ স্টার, তাঁর নাটকের জন্য। শুধু গিরিশচন্দ্র নয়, পাশাপাশি রসরাজ অমৃতলালের নাটক। চারদিকে গুঞ্জন। কোন নাটক কেমন, কাদের অভিনয় ভালো হচ্ছে, এমনি সব আলোচনায় মুখর উত্তর কলকাতা। একদিন স্টার থিয়েটারে স্টিফেন সাহেব এসে হাজির। তার কাঁধে ঢাউস একটা ব্যাগ দেখে কৌতুহল সবার। ওই মত্ত ব্যাগে কি এমন গুপ্তধন লুকিয়ে আছে সেটা দেখতে চাই উৎসুক সবাই। জানা গেল ওই ব্যাগের যন্ত্রে জীবন্ত ছবি ধরা আছে। যা দেখে সবাই অবাক হয়ে যাবে।

শুরু হলো বায়োস্কোপ উত্তরের কলকাতায়। স্টার থিয়েটারে নাটকের ফাঁকে ফাঁকে অনেকদিন ধরে বায়োস্কোপ দেখানো হয়েছিল। কিন্তু প্রচারে যত চমকেই থাকুক না কেন, স্টিফেন সাহেব যে বায়োস্কোপের প্রথম প্রদর্শক, এই প্রমাণ মেলেনি। তবে টিফিনের আগে কলকাতায় ফাদার লাঁফো প্রথম বায়োস্কোপ প্রদর্শন করেন। তিনি অধ্যাপক ছিলেন। সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে পড়াতেন। কয়েকজন ছাত্রকে তিনি দেখিয়েছিলেন প্রথম জীবন্ত ছবি। তার প্রচারের তেমন কিছুই ছিল না। তাই তাঁর আয়োজন প্রসার লাভ করতে পারেনি। তবে জীবন্ত ছবি দেখানোর ব্যাপারে দাবিদার প্রথম তিনিই। অর্থাৎ স্টিফেনের আগে। একদিন স্টিফেন সব সরঞ্জাম নিয়ে ফিরে যান নিজের দেশে। একটা ভরা শূন্যস্থানে হঠাৎ চমক দেখা দিলো। হীরালাল সেন জীবন্ত ছবি নিয়ে চলচ্চিত্র তৈরীর কথা ভাবছেন। কিন্তু ক্যামেরা তেমন কোথায়! একদিন একটা বিজ্ঞাপন হীরালালকে উচ্ছ্বসিত করলো। একটা বিদেশি কোম্পানি বায়োস্কোপ ক্যামেরা বিক্রি করবে। অনেক কষ্টে টাকা-পয়সা জোগাড় করে, বিদেশ থেকে সেই ক্যামেরা নিয়ে এলেন। হীরালালের মনের এই খিদে তৈরি হয়েছিল স্টিফেনের কর্মকান্ড দেখে।

চললো সাধনা। ১৮৯৮ সাল। দেশের সামনে একটা তাৎপর্যময় সময়। হীরালাল ও তার দাদা মতিলাল সেনের উদ্যোগে তৈরি হলো রয়্যাল বায়োস্কোপ কোম্পানি। ১৯০০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে উক্ত ব্যানারে ছবি দেখালেন। ১৯০১ সালের ৯ই ফেব্রুয়ারি প্রথম প্রদর্শিত হয় হীরালাল সেনের ক্যামেরায় বঙ্কিমচন্দ্রের 'সীতারাম' উপন্যাস, এরপর গিরিশচন্দ্রের ' মনের মতন', ক্ষীরোদ প্রসাদের 'আলিবাবা'। সবটাই নির্বাচিত অংশ। ১৯০৪ সালে অনেক মেহনত করার পর হীরালাল সেন দু ঘন্টার একটি কাহিনী চিত্র তৈরি করেন। এরপর ১৯১৭ সালে হীরালাল সেন মারা যান। এর কয়েক মাস আগে দাদা সাহেব ফালকে তৈরি করেন ' সত্যবাদী রাজা হরিশচন্দ্র। এটিই প্রথম ভারতীয় কাহিনীচিত্র। এর পরিবেশক ছিল ম্যাডান কোমকোম্পানি তবে ১৯১৯ সালে তৈরি হয় প্রথম পূর্ণাঙ্গ কাহিনী চিত্র বাংলায় - ' বিল্বমঙ্গল'। এটি নির্বাক কাহিনীচিত্র ছিল। এভাবেই অনেক সাধনার মধ্যে দিয়ে কলকাতায় সিনেমার আবির্ভাবে সূচনা হয়।

yesterday


Ronaldinho: দুর্গাপুজোয় শহরবাসীর জন্য চমক, কলকাতায় আসছেন ফুটবল তারকা রোনাল্ডিনহো

এবারের দুর্গাপুজোয় বড় চমক। কারণ কলকাতায় (Kolkata) পা ফেলতে চলেছেন বিশ্বকাপজয়ী ফুটবল তারকা রোনাল্ডিনহো গাউচো (Ronaldinho Gaucho)। তবে কেবলই কলকাতা ভ্রমণ নয়, তিনি আসছেন বাঙালির ঐতিহ্য দুর্গাপুজো প্রত্যক্ষ করতে। এমনকি নিজের হাতে ফিতে কেটেই পুজো উদ্বোধন করবেন তিনি। নরেন্দ্রপুর গ্রীনপার্ক সর্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটি এখন তাঁরই অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন। জনপ্রিয় এই পুজোর মণ্ডপেও রয়েছে বিশ্বকাপের ছোঁয়া।

প্রত্যেকবারই এই পুজো মণ্ডপে নতুনত্বের ছোঁয়া থাকে। কখনও তাজমহল, কখনও প্যারিসের আইফেল টাওয়ার নেমে এসেছিল গ্রীনপার্ক সর্বজনীন দুর্গোৎসবের থিমে।  এইবার আরও একটু চমক বাড়িয়ে কাতারের লুসেইল স্টেডিয়ামের আদলে তৈরী হচ্ছে পুজো মণ্ডপ। এর উচ্চতা হবে ৩৫ ফুট। রয়েছে আরও একটি চমক। মণ্ডপে ৪৫ ফুটের মেসির মূর্তি বসবে। ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি তুঙ্গে। শিল্পীরা দিনরাত মণ্ডপের নির্মাণকার্য চালাচ্ছেন। সেই পুজোর উদ্বোধনে চমক থাকবে না, তা হয়!

এই পুজোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন ক্রীড়া জগতের উদ্যোগপতি শতদ্রু দত্ত। এই থিম ভাবনা তাঁরই মস্তিষ্কপ্রসূত। এমনকি রোনাল্ডিনহোকে শহরে আনার পরিকল্পনাও তাঁর। এর আগে তাঁর ডাকে শহরে এসেছিলেন পেলে, মারাদোনা, কাফু। সম্প্রতি আর্জেন্টিনার তারকা ফুটবলার এমিলিয়ানো মার্টিনেজ তাঁর ডাকে কলকাতায় এসেছিলেন। সব ঠিক থাকলে এবার কলকাতাবাসীর কাছাকাছি আসতে চলেছেন রোনাল্ডিনহো। পুজোর আগে ১৬ ও ১৭ সেপ্টেম্বর কলকাতায় থাকবেন ফুটবল তারকা। এরপর বাংলাদেশে আরেকটি পুজো উদ্বোধন করে ফিরে যাবেন।

3 days ago
Weather: নিম্নচাপের ফলে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, কেমন থাকবে আজকের আবহাওয়া

সকাল থেকে মুখভার আকাশের। পুজোর আগেই বৃষ্টিতে নাজেহাল কলকাতাবাসীর। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই হয়ে চলেছে মুষলধারে বৃষ্টি। যার জেরে তাপমাত্রা অনেকটা কম। এদিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলাতে দু এক পশলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। 

আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বঙ্গোসাগর এবং ওড়িশা উপকূলের উপরে একটি নিম্নচাপ অবস্থান করেছে। ধীরে ধীরে তা উত্তর-পশ্চিম দিকে সরে যাবে। বঙ্গোপসাগরে তৈরী হওয়া এই নিম্নচাপের কারণে আগামী কয়েকদিন বঙ্গে চলবে বৃষ্টিপাত। যার কারণে রাজ্য়ে বেশ কয়েকটি জেলায় জারি করা হয়েছে কমলা সতর্কবার্তা। নিম্নচাপের জেরে উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, ঝাড়গ্রাম, মূর্শিদাবাদ, বর্ধমান, নদিয়া জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। নিম্নচাপের জন্য় হাওয়া অফিসের তরফে সমুদ্র উপকূলবর্তী অঞ্চলে মত্স্য়জীবীদের মাছ ধরতে নিষেধাজ্ঞা করা হয়েছে। 

দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও পড়বে নিম্নচাপের প্রভাব। বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার দার্জিলিং, কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি জেলায় বজ্রবিদুত্ সহ ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার পর্যন্ত চলতে পারে বৃষ্টিপাত।

3 days ago
Airport: জানলার কাঁচে ফাটল, কলকাতা বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ মুম্বইগামী বিমানের

মুম্বইগামী বিমানের (Flight) জরুরি অবতরণ (Emergency Landing) কলকাতা বিমানবন্দরে (Kolkata Airport)। বিমানের জানলার কাঁচে চিড় দেখা গিয়েছে বলে বিমানবন্দর সূত্রে খবর।

সূত্রের খবর, স্পাইসজেটের বিমান এস জি ৫১৫ বুধবার সকাল ৬:১৭ মিনিট নাগাদ কলকাতা থেকে ১৭৬ জন যাত্রী ও ৬ জন কেবিন ক্রু নিয়ে মুম্বইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। কলকাতার আকাশে থাকাকালীনই বিমানের জানলার কাঁচে ফাটল দেখতে পায় কেবিন ক্রু। তৎক্ষণাৎ পাইলটের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। পাইলট দ্রুততার সঙ্গে কলকাতা বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে যোগাযোগ করে অবতরণের অনুমতি চান। সেইমতো এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের অনুমতিতে ৭ঃ৪৫ মিনিট নাগাদ বিমানটি কলকাতা বিমানবন্দরে নিরাপদে অবতরণ করে। যাত্রীদের নিচে নামিয়ে নিয়ে আসা হয়। সমস্ত যাত্রীরাই সুরক্ষিত। বিমানের মেরামতির কাজ চলছে।

4 days ago


Kasba: ময়লা ফেলাকে কেন্দ্র করে গুলি কসবায়, ফের রাতের শহরে আতঙ্ক

ফের চলল শহরে গুলি। ময়লা ফেলাকে কেন্দ্র করে গুলি চলার অভিযোগ কসবার বৈকুণ্ঠ ঘোষ রোডে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে কসবা থানার পুলিস। স্থানীয় সূত্রে খবর, অভিযুক্ত সৌমিত মণ্ডল প্রায় প্রতিদিনিই এলাকার একটি ক্লাবের সামনে ময়লা ফেল যেত। তাতে বহুবার বারণ করা হলেও তিনি কথা শোনেননি। মঙ্গলবার রাতে ময়লা ফেলতে আসলে তাঁকে বাধা দেন স্থানীয়রা। তখন তিনি বন্দুক নিয়ে এসে চড়াও হন।

স্থানীয়দের দাবি ওই ব্যক্তি বেশ প্রভাবশালী ছিলেন এলাকায়। অভিযোগ যে গাড়ি তিনি ব্যবহার করেন, তাতে প্রেস ও পুলিসের স্টিকার রয়েছে একসঙ্গে। এ নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। এলাকার মহিলাদের গালাগালি, পরিচারিকাকে পয়সা না দেওয়া এমন অনেক ধরনের কুকর্ম করতেন তিনি। তবে প্রতিবাদ জানালেই ভয় দেখাতেন বন্ধুকে দেখিয়ে, এমনই অভিযোগ স্থানীয়দের। মঙ্গলবার রাতে অভিযুক্ত একজনকে লক্ষ্য করে দু রাউণ্ড গুলি চালান, তবে লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায় কেউ আহত হয়নি এমনিই দাবি স্থানীয়দের। কেন সামান্য বিষয়ে  গুলি চালালেন অভিযুক্ত! অভিযুক্তের স্ত্রীকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, তিনি এ বিষয়ে জানেননা।

ঘচনার পর থেকেই উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এলাকায়। অভিযুক্তের সমস্ত গাড়ি বাঙচুর করেন স্থানীয়রা। তবে এই ঘটনায় ফের একবার প্রশ্নের মুুখে প্রশাসনের ভূমিকা।  এর আগেও বহুবার স্থানীয়রা অভিযোগ জানালেও কেন নেওয়া হয়নি কোনও ব্যবস্থা! গাড়িতে কেনই বা একসঙ্গে পুলিস ও সংবাদ মাধ্যমের স্টিকার। এ বিষয়ে কেন কোনও ব্যাবস্থা নেয়নি পুলিস। তবে সবকিছুর মাঝেই কী লুকিয়ে রয়েছে কোনও প্রভাবশালীর তথ্য?

4 days ago
Weather: বৃষ্টিতে ভিজে চলেছে শহর কলকাতা, জেনে নিন কেমন থাকবে বাংলার আবহাওয়া

সকাল থেকেই বৃষ্টিতে (Rain) ভাসছে কলকাতা (Kolkata) সহ আশেপাশের এলাকা। নেই রোদের দেখা। আলিপুর আবহাওয়া দফতর (Weather Update) জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের ওপরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সঙ্গে একটি ঘূর্ণাবর্তও রয়েছে। এরফলেই উপকূল ও পশ্চিমের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, বুধবার উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও কালিম্পং-এ ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ি ও কালিম্পং-এ অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের বাকি ছয় জেলায়। পাশাপাশি বুধবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃহস্পতিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর ছাড়াও পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম ও মুর্শিদাবাদে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, কলকাতা ও আশপাশের এলাকায় আকাশ সাধারণভাবে মেঘলা থাকবে। কয়েক পশলা বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩১ ও ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার যা ছিল ২৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আপেক্ষিক আর্দ্রতা সর্বোচ্চ ৯২ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৭১ শতাংশ।

সকাল থেকেই বৃষ্টিতে (Rain) ভাসছে কলকাতা (Kolkata) সহ আশেপাশের এলাকা। নেই রোদের দেখা। আলিপুর আবহাওয়া দফতর (Weather Update) জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের ওপরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সঙ্গে একটি ঘূর্ণাবর্তও রয়েছে। এরফলেই উপকূল ও পশ্চিমের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।


আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, বুধবার উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও কালিম্পং-এ ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ি ও কালিম্পং-এ অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গের বাকি ছয় জেলায়। পাশাপাশি বুধবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃহস্পতিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর ছাড়াও পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম ও মুর্শিদাবাদে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।


হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, কলকাতা ও আশপাশের এলাকায় আকাশ সাধারণভাবে মেঘলা থাকবে। কয়েক পশলা বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩১ ও ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার যা ছিল ২৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আপেক্ষিক আর্দ্রতা সর্বোচ্চ ৯২ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৭১ শতাংশ।


4 days ago


Biometric: কিভাবে করবেন বায়োমেট্রিক লক! জানাল কলকাতা পুলিস

বায়োমেট্রিক তথ্য চুরি করে লাখ লাখ টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠছে মাঝে মধ্যেই। কয়েক মিনিটের মধ্যে প্রতারকরা ফাঁকা করে দিচ্ছে ব্যাঙ্ক অ্য়াকাউন্ট। এমনকি ফোনেও আসছে না OTP।

সম্প্রতি কলকাতার পুলিসের তরফের বেশ কয়েকটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেগুলি মেনে চললে প্রতারণার ঘটনা কমবে বলেই আশা করছেন সাইবার বিশেষজ্ঞরা। তার মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ হল দ্রুত বায়োমেট্রিক লক করা। এছাড়াও আনমাস্কড আধার নম্বর দেওয়ার ক্ষেত্রেও নিষেধ করা হয়েছে পুলিসের তররফে। প্রয়োজনে পুরো আধার নম্বর না দিয়ে শেষ চারটি ডিজিট দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে পুলিস।

কীভাবে বায়োমেট্রিক লক করবেন?

আপনার নিজের স্মার্টফোন থেকেই আধারের বায়োমেট্রিক লক করতে পারবেন। তার জন্য এম আধার (mAadhaar) অথবা উমাঙ্গ অ্য়াপ ডাউনলোড করতে হবে।

-প্রথমে নিজের মোবাইল নম্বর দিয়ে লগইন করুন।

-এররপর সেখানে Lock/Unlock biometric অপশন আসবে।

-ওই অপশনে ক্লিক করুন।

-সেখানে নিজের আধার নম্বর দিতে হবে। এরপর রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে OTP আসবে।

-সেই OTP দেওয়ার পর আধারের বায়োমেট্রিক লক হবে।

সম্প্রতি একাধিক এই সংক্রান্ত অভিযোগ আসার পর কলকাতা পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতারণার ঘটনা ঘটার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করুন। এবং ব্যাঙ্কের স্টেটমেন্ট নিয়ে রাখুন।

এছাড়াও কলকাতা পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে ভেজা বা তৈলাক্ত হাতে বায়োমেট্রিক ছাপ দেবেন না। এবং সঠিক কারণ না জেনে কোথাও বায়োমেট্রিক দেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

6 days ago
Dengue: পুজোর মুখে রাজ্যে উদ্বেগজনক ডেঙ্গি পরিস্থিতি, আক্রান্তের সংখ্যা পেরলো ২৪ হাজার

পুজোর মুখে রাজ্যে (Bengal) উদ্বেগ বাড়াচ্ছে ডেঙ্গি (Dengue) পরিস্থিতি। জুন মাস থেকেই রাজ্যে ডেঙ্গির গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। যা স্বাভাবিকভাবেই চিন্তার কারণ রাজ্যবাসী ও স্বাস্থ্য দফতরের কাছে।

স্বাস্থ্যভবন সূত্রে খবর, এখনও অবধি রাজ্যে ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছে ২৪ হাজার ৭০৯ জন। জুন মাস থেকে বেড়েছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। জুন মাসেও ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬২৪ জন। জুলাই মাসে এক লাফে সেই সংখ্যা ৩৭৭৮ জন। আর অগাস্ট মাস নাগাদ ১৫ হাজার ৬৭২ জন ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়। কেবল কলকাতা পুরসভা এলাকায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা ১৫০০ জন।

অসমর্থিত সূত্রে, রাজ্যে ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩১ জনের। তবে সরকারি মতে, মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। পুজোর আগে পুরসভার এলাকাগুলিতে জঞ্জাল পরিষ্কারের উদ্যোগ নিয়েছে বিভিন্ন পুরসভাগুলো।

6 days ago
Weather: নেই ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, জেনে নিন বিশ্বকর্মা পুজোয় কেমন থাকবে বঙ্গের আবহাওয়া

রবিবারও রোদ ঝলমলে আকাশ। নেই বৃষ্টির (Rain) দেখা। আবারও অস্বস্তিকর গরমে রাজ্যবাসী। বিশ্বকর্মা পুজো ও গণেশ চতুর্থীতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে (Weather Update)। বঙ্গোপসাগরে সম্ভাব্য ঘূর্ণাবর্তের জেরেই এই পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা। আপাতত কোনও ভারী বৃষ্টির (Heavy Rain) পূর্বাভাস নেই।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, সোমবারেও সবকটি জেলাতেই হালকা বৃষ্টি হতে পারে। কোনও জেলাতেই ভারী বৃষ্টির কোনও পূর্বাভাস নেই, আগেকার কয়েকদিনের মতোই। আগামী ২৪ ঘন্টায় তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও, তারপরে তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পাবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। দক্ষিণবঙ্গের সব জেলায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা। সোমবার সবকটি জেলায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। আপাতত ভারী বৃষ্টির কোনও পূর্বাভাস নেই। আগামী ২৪ ঘণ্টায় তাপমাত্রা আরও কিছুটা বাড়লেও, তারপরে তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পাবে।

হাওয়া অফিস সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, কলকাতা ও আশপাশের এলাকার আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩৪ ও ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। রবিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। শনিবার যা ছিল ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আপেক্ষিক আর্দ্রতা সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৫ শতাংশ।

7 days ago


HIDCO: সোনাঝুড়ির হাট এবার থেকে কলকাতায়, নতুন উদ্যোগ হিডকোর

সপ্তাহান্ত এলেই মন উড়ু উড়ু? মনে হয় পাড়ি জমাই শান্তিনিকেতনে (Santiniketan)? দেখে আসি সোনাঝুরির হাট (Sonajhuri Hat)? খানিকটা হেঁটে আসি খোয়াইয়ের পথ ধরে? বীরভূমের (Birbhum) গ্রামীণ শিল্পীদের অসামান্য সব সৃষ্টি নিয়ে এসে ইচ্ছে করে ঘর সাজাতে? কিন্তু সময় মেলে না? কলকাতা থেকে অতখানি দূরে পাড়ি দেওয়ার সাধ থাকলেও সাধ্য থাকে না সব সময়?

আর চিন্তা নেই৷ সোনাঝুরির হাটে যেতে এখন আর বোলপুর, শান্তিনিকেতনে যেতে হবে না৷ সোনাঝুরির হাটই এখন উঠে এসেছে কলকাতায়। খোদ নিউটাউনে। লালমাটি নেই, তবে ইঁট, কাঠ, কংক্রিটের জঙ্গলে একটুকরো গ্রামবাংলা।

নিউটাউনের কমিউনিটি জোনেই এখন লালমাটির সোনাঝুরির হাট। উদ্যোক্তা হিডকো। একদম বোলপুর-শান্তিনিকেতনের মতোই। হরেক শিল্প সম্ভার, জিভে জল আনা বোলপুরের স্থানীয় খাবার, সঙ্গে আরও অনেক কিছু। অভিনব উদ্যোগ, সন্দেহ নেই৷ প্রতি সপ্তাহের শুক্র, শনি এবং রবিবার। সবমিলিয়ে যাকে বলে উইকেন্ড জমজমাট। একবার সময় করে ঘুরেই আসুন না৷

7 days ago
Tram: পেট পুজোর সঙ্গে এসি ট্রামে চড়ে ঠাকুর দেখুন কলকাতায়, নতুন উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটি দিন। তারপরেই মা আসবেন। ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। কুমোরটুলিতে চলছে মূর্তি তৈরির কাজ, মণ্ডপ শিল্পীদের ব্যস্ততাও তুঙ্গে। পাশাপাশি পুজো উপলক্ষ্যে একাধিক নতুন পরিকল্পনা নিয়ে এসেছে রাজ্য সরকারও।

ঠাকুর দেখার জন্য বিশেষ প্যাকেজ আনতে চলেছে রাজ্য সরকার। শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠক করে পরিবহনমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী জানিয়েছেন, এসি ট্রামের মাধ্যমে ঠাকুর দেখা তার সঙ্গে পেট পুজোরও ব্যবস্থা থাকবে। শ্যামবাজার থেকে শুরু হয়ে বালিগঞ্জ পর্যন্ত চলবে ওই ট্রাম। জনপ্রতি ৬০০ টাকা করে খরচ করলেই ঠাকুর দেখা এবং তারসঙ্গে চা-কফি, স্ন্যাকস এবং দুপুরের খাবার পাওয়া যাবে।

পররিবহনমন্ত্রী আররও জানিয়েছেন,চলতি বছররেও সারারাত বাস চালানো হবে। ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে কারোর যাতে সমস্যা না হয় তার জন্যই এই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি পুজোর শপিংয়েরর জন্যও অতিরিক্ত বাস চালানোর হবে।

7 days ago