Breaking News
Congress: স্বাধীনতার পর প্রথম তেলেঙ্গানায় সরকার গঠনের পথে কংগ্রেস      Deganga: গুরুতর অভিযোগ! মিড ডে মিলের চাল লুকিয়ে রাখা হচ্ছে স্কুলের শৌচালয়ে      Sujoykrishna: সুজয়কৃষ্ণের ভয়েস স্যাম্পেল টেস্টে 'ঢিলেমি'! এসএসকেএম-এর ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন      Recruitment Scam: এবারে দেবরাজ চক্রবর্তীর বাড়ি থেকে উদ্ধার নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক নথি!      Jyotipriya: এসএসকেএম-এও নেই স্বস্তি! সিসিটিভি ক্যামেরার নজরাধীন রাখার নির্দেশ আদালতের      CBI: কোথাও বিধায়ক, কাউন্সিলর, কোথাও ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা, রাজ্যজুড়ে ফের সক্রিয় সিবিআই      Mamata Banerjee: 'অনেক বিধায়কের কোটি কোটি টাকা', বিজেপি বিধায়কদের চাঁচাছোলা আক্রমণ মমতার      Amit Shah: লোকসভার আগে বিজেপির শাহী সভা যেন প্রেস্টিজ ফাইট, সভার লাইভ আপডেট      Suvendu: অসম্মানজনক আচরণ! শীতকালীন অধিবেশন থেকে সাসপেন্ড বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু      Fraud: সেনা কর্মীর পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার, বৃদ্ধের ব্যাংক থেকে উধাও দেড় লক্ষ টাকা     

elections

Election: পঞ্চায়েত নির্বাচনী হিংসায় ঠিক কত জনের মৃত্যু, কত জন ক্ষতিপূরণ পেল জানতে চায় কোর্ট

পঞ্চায়েত নির্বাচনে মারপিঠ, খুন, মনোনয়ন জমা দিতে না দেওয়া, ভোট লুঠ সহ বিভিন্ন অভিযোগ ওঠে রাজ্য সরকার অর্থাৎ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তা নিয়ে অল্প বিস্তর হাইকোর্টে মামলাও দায়ের হয়েছে। এবার পঞ্চায়েত নির্বাচনী সংক্রান্ত মামলায় ফের রাজ্য সরকারের উপর অসন্তুষ্ট হাইকোর্ট। সূত্রের খবর, পঞ্চায়েত নির্বাচনের মামলায় রাজ্যের ক্ষতিপূরণে খুশি নয় কলকাতা হাইকোর্ট। সূত্রের খবর, রাজ্যের পেশ করা তথ্যের উপর অসন্তুষ্ট হয়ে আরও তথ্য জানতে চায় আদালত।

সূত্রের খবর, পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের পেশ করা তথ্যের পরেও আদালত জানতে চায়, পঞ্চায়েত নির্বাচনে মৃত ব্যক্তির সংখ্যা কত! এছাড়া হোম গার্ডের চাকরি দেওয়া সকল ব্যক্তির নাম, যাদেরকে ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছিল তাদের নাম, নির্বাচনী হিংসায় আহতদের সংখ্যা কত? তাদের কত টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে?

সূত্রের খবর, পঞ্চায়েত নির্বাচনী সংক্রান্ত মামলায় বিরোধীদের তরফে আদালত প্রমাণ পেয়েছে পঞ্চায়েত নির্বাচনে হিংসায় ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু শুধুমাত্র ৭ জনকে ক্ষতিপূরণ ও চাকরি দেওয়া হয়েছে।  ২ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়ছে কয়েক জনকে। বাকিদের কেন কিছু পায় নি। কেন বাকিদের কিছু দেওয়া হয়নি? আহত কতজন? কি ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে?জানতে চায় আদালত।২৬ নির্বাচন কমিশন কে জানাতে হবে সব তথ্য।

3 months ago
Mamata:পঞ্চায়েত নির্বাচনী সন্ত্রাস নিয়ে তৃণমূলকে তুলোধনা মোদির, পাল্টা কটাক্ষ মমতার

পঞ্চায়েত নির্বাচন (Panchayat Elections) নিয়ে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলতেই প্রধানমন্ত্রীকে পাল্টা দিলেন তৃণমূল সুপ্রিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বিজেপি আমলে একাধিক দুর্নীতি নিয়ে তোপ দাগেন তিনি। পাশাপাশি বিরোধী জোট নিয়ে প্রমাণ ছাড়াই একাধিক ভুল মন্তব্য করছেন বলেও অভিযোগ তাঁর। 

বিজেপির ক্ষেত্রীয় পঞ্চায়েতিরাজ পরিষদের পূর্বাঞ্চলীয় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে এরাজ্যের সদ্যোসমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে মুখ খোলেন তিনি। শসক দলের বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দাগেন। কিন্তু তার ঘণ্টা খানেকের মধ্যে অডিও বার্তায় পাল্টা জবাব দেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়।  

তিনি অভিযোগ করেন, টিম ইন্ডিয়া প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী যা ইচ্ছে বলে যাচ্ছেন। মমতার আরও অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী চাইছেন দেশের সাধারণ মানুষ দুর্ভোগে থাকুক, গরিব মানুষ মারা যাক। একই সঙ্গে মোদী জমানার দুর্নীতির কথাও উল্লেখ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পি এম কেয়ার ফান্ড, রাফাল চুক্তি সহ একাধিক ক্ষেত্রে দুর্নীতি হয়ে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

4 months ago
Modi:'ভোট লুঠ করে জিতেছে তৃণমূল,' পঞ্চায়েত নির্বাচনে হিংসা নিয়ে সরব প্রধানমন্ত্রী মোদী

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat Elections) হিংসার (violence) ঘটনা নিয়ে ফের মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM)। কোলাঘাটে বিজেপির পঞ্চায়েতি রাজ সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভাষণ দেন তিনি। সেখানেই বাংলার গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী। 

শনিবারের ওই ভার্চুয়াল সভায় প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ভোটে জয়ের পর প্রাণঘাতী হামলা চালাচ্ছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। ভোট লুঠ করা হয়েছে। পাশাপাশি, বিরোধীরা যাতে প্রার্থী না দিতে পারে তার জন্য তড়িঘড়ি ভোটের দিন ঘোষণা করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ তাঁর। রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যে রক্তের খেলা চলেছে তা গোটা দেশ দেখেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

ভোট গণণা প্রসঙ্গ টেনে এনেও তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী। তার অভিযোগ, গণনা কেন্দ্রে কোনও বিজেপি প্রতিনিধিকে বসতে দেওয়া হয়নি। শাসক দলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করার পাশাপাশি দলের কর্মীদের পরিশ্রমের জন্য কুর্নিশ জানান তিনি। এবিষয়ে তাঁর বক্তব্য, পশ্চিমবঙ্গের পুরনো বৈভব ফেরানোর চেষ্টা করছে দলের কর্মী ও সমর্থকরা। 

আদিবাসী সমাজের পাশে দাঁড়িয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। কটাক্ষের সুরে তাঁর বক্তব্য, 'ওখানে আমাদের আদিবাসী ভাইবোনকে কী ভাবে অত্যাচারিত হতে হয় তা আমাদের জানা আছে। এই পরিস্থিতির মধ্যেও অনেক বিজেপি প্রতিনিধিরা জয়ী হয়েছেন। আমি সেই সব প্রতিনিধিদের অনেক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।'

4 months ago


Attack: বিজেপি প্রার্থীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে

পঞ্চায়েত নির্বাচন (Panchayat Elections) পর্ব শেষ হয়ে গেলেও রাজ্য়জুড়ে অশান্তি কিন্তু এখনও অব্য়হত রয়েছে। বিজেপির পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, হবিবপুর পঞ্চায়েত সমিতির ২৮ নম্বর আসনের প্রার্থী সুদীপ্ত বসুকে তৃণমূলে যোগদান করানোর জন্য তুলে নিয়ে যায় কিছু তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের (Malda) হবিবপুর এলাকায়। 

অভিযোগ, সুদীপ্তকে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য রীতিমতো চাপ দেওয়া হয়। অভিযোগ, তাঁকে একটি অপরিচিত জায়গায় তুলে নিয়ে যায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তারপরেই বিজেপি কর্মী সমর্থক ও তাঁর পরিবারের চেষ্টায় তাঁকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। তবে এই বিষয়ে থানায় এখনও পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ করা হয়নি বিজেপির তরফে। 

অন্যদিকে তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপির জয়ী প্রার্থী ইচ্ছা করেই তৃণমূলে যোগদান করতে এসেছিল। পাশাপাশি পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি করার অপরাধে প্রাণ হালদার নামে এক বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে দীঘা সুকান্ত পল্লী ২০৪ নম্বর বুথে৷ আহত কর্মী বর্তমানে বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন৷ 

শনিবার, রাতে আহত ওই কর্মীর সঙ্গে বনগাঁ মহাকুমা হাসপাতালে দেখা করতে আসেন বিজেপি বিধায়ক স্বপন মজুমদার সহ বিজেপি নেতারা৷ প্রাণ বলেন "গ্রামে বিজেপি জিতেছে সেই আক্রোশে তাঁকে চায়ের দোকান থেকে ডেকে নিয়ে স্কুলের পিছনে ধরে মারধর করেছে তৃণমূলের দু তিনজন।

5 months ago
Bomb: স্কুলের মাঠ থেকে উদ্ধার ২টি বোমা, ঘটনায় চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে মালদহে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat Elections) ভয়ঙ্কর তাণ্ডবের স্মৃতি এখনও রয়েছে বিদ্যালয়ের ভিতরে। শুক্রবার, মালদহের (Maldah) খরবার গোপালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উদ্ধার (rescue) হয় দুটি বোমা (bomb)। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে খরবা ফাঁড়ির পুলিস। এই বোমা উদ্ধারকাণ্ডে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িযেছে গোটা স্কুল চত্বর এলাকায়।  

 পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন খরবার গোপালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের কোণ থেকে উদ্ধার হয়েছে দুটি বোমা। এছাড়াও শৌচালয় থেকে পাওয়া গিয়েছে  বাঁশের লাঠি। ভাঙন ধরেছে দেওয়ালে। এমনকি স্কুলের ক্লাসরমের ভিতরে থাকা পাখাগুলিও বাঁকানো অবস্থায় রয়েছে। তবে স্কুলে আরও বোমা থাকতে পারে বলে এমনটাই অনুমান করা হচ্ছে। এরপর খবর দেওয়া হয়েছে বম্ব স্কোয়াডকে। 

আপাতত বন্ধ রয়েছে স্কুলের পাঠ্যক্রম ব্যবস্থা। তবে এই বোমা উদ্ধারের ঘটনাকে ঘিরে স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা ক্ষুব্ধ রয়েছেন। তাঁদের একটাই দাবি, দিন দিন রাজনৈতিক হিংসার প্রভাব যেন বেড়েই চলেছে। যার ফলে সমস্যায় পড়ছে স্কুল পড়ুয়া থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ। 

5 months ago


Nadia: ভোটগণনা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থীদের বার করে দেওয়ার অভিযোগে পথ অবরোধ, বিক্ষোভ...

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) ফলাফলের দিন ভয়াবহ পরিস্থিতি হয়ে উঠেছিল হরিণঘাটা (Haringhata) বিরোধী অঞ্চল। ভোটগণনার দিন হরিণঘাটা ব্লক উন্নয়ন আধিকারিকের কার্যালয় সংলগ্ন মহাবিদ্যালয়ে গণনা চলাকালীন বিজেপি প্রার্থীদের বার করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগে ভোটগণনার দিন হরিণঘাটার বিরোধী ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের মাঝখানে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ (demonstration) দেখান বিজেপি সমর্থকেরা।

মঙ্গলবার, সন্ধে ন'টা থেকে পথ অবরোধ শুরু হয়। অবশেষে অবরোধ ওঠে রাত ১টা ১০ মিনিট নাগাদ। অভিযোগ, বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বের বাড়িতে ভাঙচুর চালায় দুষ্কৃতীরা। অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। এর পরেই উত্তেজিত জনতা রাস্তা অবরোধের পর ফের তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক নেতৃত্বের বাড়ি ভাঙচুর চালায় বলে জানা গিয়েছে। সমগ্র ঘটনাটি ঘটে কেন্দ্রীয় বাহিনী ও রাজ্য পুলিসের উপস্থিতিতে। তবে এলাকায় দফায় দফায় অশান্তির রূপ দেখে অনুমান করা যাচ্ছে এই অশান্তি চলবে বেশ কয়েকদিন।

সম্প্রতি ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় চাকদহ বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক বঙ্কিম ঘোষ দেখতে পান রাস্তার মাঝখানে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেছে বিজেপি সমর্থকরা। এর পরেই তিনি কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং এই বিষয়টি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, রাজ্যের অধিকাংশ পঞ্চায়েত বিজেপির দখলে এসেছিল। গণনায় জিতে যাওয়ার পরেই শাসক দল প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে তা বারবার রিকাউন্টিং করে তারা দখলে নিচ্ছে। অধিকাংশ জায়গায় দেখা গিয়েছে প্রার্থীদের মারধর করে গণনা কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছে শাসকদলের দুষ্কৃতীরা। 

প্রশাসন দেখেও নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। অন্যদিকে কেন্দ্রীয় বাহিনীকেও কাজে লাগানো হয়নি বলে অভিযোগ।

5 months ago
Rajiva: নির্বাচন ও পুনঃনির্বাচন সর্বত্রই দেরি, প্রশ্ন উঠছে রাজীব সিনহার শৃঙ্খলা নিয়ে

পুনর্নির্বাচনের (re-election) দিনেও দেরিতে অফিসে পৌঁছলেন রাজ্যের নির্বাচন কমিশনার রাজীব সিনহা (Rajiva Sinha)। পঞ্চায়েত ভোটেও দেরি, আবার পুনর্নির্বাচনের দিনেও দেরি করলেন তিনি। ফলত, পঞ্চায়েত নির্বাচনে (Panchayat elections) রাজ্য কমিশনারের ভূমিকা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। 

পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে এখনও গোটা রাজ্যজুড়ে চলছে অশান্তির ঝড়। শনিবার, পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিনেও ঘড়ি দেখে অফিসের সময় অনুযায়ী সকাল ১০টা ১ নাগাদ অফিসে পৌঁছেছিলেন রাজীব সিনহা। সকাল ৭ টা থেকে ভোট পর্ব শুরু হলেও তিন ঘন্টা কেটে যাওয়ার পরে ভোট দফতরে দেখা মিলল রাজ্য কমিশনারের। যেখানে ভোটগ্রহন পর্ব শুরুর আগেই ভোট দফতরে উপস্থিত থাকা উচিত ছিল। সেখানে তিনি দেরিতে অফিস পৌঁছলেন। ভোটের দিনে একাধিক জায়গাতে বোমাবাজি, গুলি, ভোট লুট হওয়ার মতো ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে গোটা রাজ্য। 

সোমবার, ফের পুনর্নির্বাচনের দিনেও অফিসে আসতে দেরি করলেন রাজীব সিনহা। এদিনও সকাল ১০ টার পর অফিসে আসলেন তিনি। গাড়ি থেকে নামতেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন রাজীব সিনহা। তবে কোনও প্রশ্নের জবাব দিলেন না রাজ্য নির্বাচন কমিশনার। এর ফলে স্বাভাবিকভাবে রাজ্য কমিশনারের দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। 

ইতিমধ্যে পুনর্নির্বাচনের ৬৯৬ টি বুথে ভোট হচ্ছে। ভোট পর্বের দিন থেকে রাজ্য়ে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেই বিষয়ে রাজীব সিনহা তেমন কোনও মন্তব্য করেন নি। 

5 months ago
Birbhum: ভোট পরবর্তী হিংসায় ঘর ছাড়া প্রায় ৪০০ বিজেপি কর্মী, অভিযোগের তীর পুলিসের দিকে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) পরেও পুলিসি সন্ত্রাসের অভিযোগ বিজেপি সমর্থকদের। গতকাল অর্থাৎ শনিবার পঞ্চায়েত ভোটে পুলিসের (police) উপস্থিতিতে ব্যালট (ballot) ছিনতাই থেকে ব্যালটে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো ঘটনা ঘটেছে বীরভূমে (Birbhum)। কিছু কিছু জায়গায় প্রতিবাদ করেন বিরোধীরা। আর প্রতিবাদ করায় পুলিস তাঁদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। এমনকি বাড়ির মহিলাদেরও হুমকি দিতে বাদ রাখছেন না। এছাড়াও জিনিসপত্র ভাঙচুর, বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়ারও মতো বিজেপি কর্মীরা অভিযোগ আনেন পুলিসের বিরুদ্ধে। পুলিস তাঁদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। এমনকি বাড়ির মহিলাদেরও হুমকি দিতে বাদ রাখছেন না। এছাড়াও জিনিসপত্র ভাঙচুর, বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়ারও মতো অভিযোগ ওঠে পুলিসের বিরুদ্ধে। আর সেই ভয়ে বাড়ি ছাড়া সেই সব বিজেপি কর্মীরা। ইতিমধ্যে বীরভূম জেলার প্রায় চারশো বিজেপি কর্মী সমর্থকরা ঘড় ছাড়া হয়েছেন।

বিজেপি সমর্থকদের অভিযোগ, শাসকের মদতে পুলিস তাঁদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। তৃণমূলের ভয়ে নয় পুলিসের ভয়েই বাড়ি ছেড়ে পালাতে হচ্ছে। সেই সব ঘড় ছাড়া বিজেপি কর্মীরা আশ্রয় নিয়েছেন সিঊরি বিজেপি জেলা কার্যালয়ে। ময়ূরেশ্বর বিধানসভার বিভিন্ন বুথে পুলিসের সাহায্যে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিরা ভোট লুঠ ও ছাপ্পা দেওয়ার চেষ্টা করেন। তারই প্রতিরোধ করে বিজেপিরা। এই আক্রোশে পুলিসকে দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ। 

গতকাল দেখা গিয়েছিল ময়ূরেশ্বর থানার বড়বাবু বুথের কাছে থাকা বিজেপি কর্মীদের অকথ্য় ভাষায় বের করে দিচ্ছেন। তার ভাইরাল ছবিও রয়েছে সিএনের হাতে। কীভাবে তৃণমূল কর্মীরা হাতে লাঠি নিয়ে বিজেপির এক এজেন্টকে হুমকি দিচ্ছে সেই ভাইরাল ভিডিও দেখা গিয়েছে। শাসকের পাশাপাশি পুলিসও বিরোধীদের হুমকি দিচ্ছে, তারই জেরে এত গুলো বিজেপি কর্মী ঘড় ছাড়া বলে দাবি।

5 months ago


Nandakumar: পুননির্বাচনের দাবিতে পথ অবরোধ! টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন বিজেপি সমর্থকদের

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat Elections) পরের দিনও রাজ্যজুড়ে চলছে অশান্তি। রবিবার, পূর্ব মেদিনীপুরের (East Medinipur) নন্দকুমার ব্লকের শ্রীকৃষ্ণপুরে ডি সি আর সি সেন্টারের ভিতরে বাক্স বদল ও ব্যালট পাল্টানোর অভিযোগ তুলে বিরোধীরা পথ অবরোধ শুরু করে। রাস্তার উপর টায়ার জ্বালিয়ে এবং বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেট করে পথ অবরোধ করেন বিজেপি সমর্থকরা। এই অবরোধে ব্যাপক যানজট তৈরী হয়েছে। অবরোধ তুলতে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছয় বিশাল পুলিসবাহিনী (police)। ইতিমধ্য়ে, পুলিসি তৎপরতায় দুই জন বিজেপি সমর্থককে আটক করা হয়েছে।  

মূলত বিজেপি সমর্থকদের অভিযোগ, আগামীকাল অর্থাৎ শনিবার পঞ্চায়েত ভোটের দিন তৃণমূলের পক্ষ থেকে অফুরন্ত ভোট ছাপ্পা ও ব্য়ালট বক্স ভাঙা হয়েছে। ফলে পুনরায় যাতে ভোট নির্বাচন হয় তারই জন্য়ে নন্দকুমার বিধানসভায় শ্রীকৃষ্ণপুরে রাজ্য়সড়কে এদিন সকাল থেকে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বলে এমনটাই জানিয়েছে বিরোধীরা। রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে পথ অবরোধ করেছিল সেই কারণে পুলিস ও র‍্যাফ নামিয়ে ছত্রভঙ্গ করা হয়েছে। এমনকি ব্য়স্ততম রাস্তায় অবরোধের কারণে যে যানজট তৈরী হয়েছিল তা স্বাভাবিক হতে থাকে। 

তবে বিজেপি সমর্থকদের দাবি, ফের পুননির্বাচনের জন্য়। এই ঘটনায় ব্য়াপক উত্তেজনা তৈরী হয়েছে গোটা এলাকাজুড়ে।

5 months ago
Arrest: পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রকাশ্যে বন্দুকবাজি! পুলিসের হাতে ধৃত ২

পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ভয় দেখানো ও গুলি (shot) চালানোর অভিযোগে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত সহ এক দুষ্কৃতী। ওই দুই অভিযুক্তকে  গ্রেফতার (arrest) করল খড়দহ থানার পুলিস। শনিবার পঞ্চায়েত ভোটের দিন এক যুবককে দেখা যায় প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বিপক্ষকে হামলা করেছে, সংবাদমাধ্যমে ক্যামেরায় ধরা পড়ে সেই চিত্র। ব্যারাকপুর (barrackpur) মোহনপুর পঞ্চায়েত এলাকার এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠে রাজ্যবাসী সহ বিরোধীরা। পুলিস সূত্রে খবর, ওই ঘটনায় মূল অভিযুক্তের নাম ধীরাজ হেলা ও নূর হাসান। অভিযুক্তরা টিটাগড় থানার অন্তর্গত মুচিপাড়া এলাকার বাসিন্দা। এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। 

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্যারাকপুর মোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত পূর্বাশা এলাকায় নির্দল প্রার্থীকে মারধরের ঘটনা ও প্রকাশ্যে গুলি চালানোর ঘটনা সামনে আসতেই, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে খড়দহ থানার পুলিস মূল অভিযুক্ত ধীরাজ হেলা ও নূর হাসানকে খড়দহ রাসখোলা ঘাট থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ  গ্রেফতার করেছে। পুলিস জানিয়েছে, ওই ঘটনার পর দুই অভিযুক্ত খড়দহ রাসখোলা ঘাট থেকে নৌকা পার হয়ে কোন্নগরে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিল। তবে তার আগেই পুলিস অভিযানে নেমে তাদেরকে ধরে ফেলে। 

5 months ago


Bomb: পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগের দিনও উদ্ধার বালতি ভর্তি তাজা বোমা, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ

রাত পোহলেই পঞ্চায়েত ভোট (Panchayat elections)। আর পঞ্চায়েত নির্বাচনের একদিন আগে উদ্ধার (rescue) কয়েকটি বালতি ভর্তি তাজা বোমা (bomb)। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে দুবরাজপুরের মামুদপুর গ্রাম এলাকায়। বোমাগুলি উদ্ধার করল বীরভূমের (Birbhum) দুবরাজপুর থানার পুলিস। খবর দেওয়া হয়েছে সিআইডি বোম ডিস্পোজাল টিমকে। বোমা উদ্ধারকে কেন্দ্র করে বোমাতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। 

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গোপন জায়গায় পুঁতে রাখা বিপুল পরিমাণ তাজা বোমাগুলি উদ্ধার করা হয়েছে। পঞ্চায়েত ভোটে এই বোমাগুলি ব্যবহার হত কিনা তা খতিয়ে দেখছে দুবরাজপুর থানার পুলিস। পাশাপাশি কোচবিহার, দেগঙ্গায় তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে। কোচবিহার গুড়িয়াহাটি-১ নম্বর অঞ্চলের ৮/১৩০ নম্বর বুথ সাহেব কলোনি এলাকায় বিজেপি কর্মী মিলন সূত্রধরের বাড়ির সামনে দুটি তাজা বোমা পরে থাকাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য। অভিযোগ, এদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে ওই বিজেপি কর্মী তাঁর বাড়ির সামনে দুটি তাজা বোমা পড়ে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে কোচবিহার কোতওয়ালী থানার পুলিস ঘটনাস্থলে এসে বোমা উদ্ধার করে নিয়ে যায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিস অনেক দেরিতে আসে। তাঁদের দাবি কেন্দ্র বাহিনী ছাড়া তাঁরা ভোট দিতে যাবেন না। 

অন্য়দিকে, রাতভর দেগঙ্গার বিভিন্ন জায়গায় বোমাবাজি এবং অশান্তি হয়। এদিন সকালে দেগঙ্গার মুরারিডাঙ্গা এলাকায় রাস্তার পাশে পাট বাগানে পড়ে থাকতে দেখা যায় তিনটি তাজা বোমা। খবর দেওয়া হয় দেগঙ্গা থানার পুলিসকে। স্থানীয় সূত্রে খবর, ঘাস কাটতে গিয়ে তাঁরা দেখেন পাট ক্ষেতের পাশেই তিনটি তাজা পড়ে রয়েছে। ভোটের ২৪ ঘণ্টা আগে ভোটকেন্দ্রের উল্টোদিকে রাস্তার পাশে একটি ব্যাগের ভেতর থেকে তিনটি তাজা বোমা উদ্ধার। বোমা ছাড়াও বোমা তৈরীর বেশ কিছু সরঞ্জাম ছিল ব্যাগের ভেতরে জানা গিয়েছে পুলিস সূত্রে। তবে এই নিয়ে ক্যামেরার সামনে স্থানীয় বাসিন্দারা কেউ মুখ খুলতে নারাজ। ভোটের আগে একের পর এক জায়গা থেকে বোমা উদ্ধারকে কেন্দ্র করে ব্য়াপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্য়ে। 

5 months ago
Attack: বিজেপি সমর্থিত প্রার্থীর স্বামীকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে, উত্তপ্ত সবং

প়ঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) একদিন আগে ফের উত্তপ্ত সবং। বিজেপি সমর্থিত নির্দল প্রার্থীর স্বামীকে বেধড়ক মারধর করে হাত-পা ভেঙে দেওয়া অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর (West Medinipur) জেলার সবং থানার ১২ নং বুড়াল অঞ্চলের কেরুর এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে সবং থানার বিশাল পুলিস (police) বাহিনী। এই ঘটনায় ব্য়াপক চাঞ্চল্য় ও আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। 

উত্তর বুথের বিজেপি সমর্থিত নির্দল প্রার্থী সোনালী সিং ঘোড়াই জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ১১টা নাগাদ কোলাঘাট থেকে তাঁর স্বামী অরুণ ঘোড়াই গাড়ি নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় কেরুর এলাকায় তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি তপন হাজরার নেতৃত্বে থাকা তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হাতে বোমা, বন্দুক, লাঠি, রড, নিয়ে তাঁর স্বামীর পথ আটকায়। তার পর তাঁকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধর করা হয় এবং তাঁর হাত-পা ভেঙে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে এই ঘটনার খবর পেয়ে তাঁকে উদ্ধার করে সবং গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে বলে জানা গিয়েছে। 

ইতিমধ্যে এই ঘটনার পর কেরুর এলাকা থমথম রয়েছে। এই ঘটনায় সবং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস আধিকারিকরা। অন্যদিকে অঞ্চল সভাপতি তপন হাজরা এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, 'আমাদের কোনও সমর্থক মেরেছে বলে আমার জানা নেই।' এই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যে বলে তিনি জানিয়েছেন।

5 months ago
Bomb: সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন, জেলায় জেলায় বোমা-অস্ত্র উদ্ধার, ছড়াচ্ছে চাঞ্চল্য

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) আগে একাধিক জেলায় জেলায় উদ্ধার (rescue) হচ্ছে বোমা (bomb)। আর এই বোমা উদ্ধারকে ঘিরে বোমাতঙ্ক ছড়িয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। ভোটের সামনেই ফের উদ্ধার ব্যাগ ভর্তি তাজা বোমা। বুধবার, শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ক্যানিং লাইনে তালদি স্টেশন সংলগ্ন ডাউন লাইনের পাশ থেকে উদ্ধার ব্যাগ ভর্তি তাজা বোমা। বোমা উদ্ধারের জন্য সিআইডি বম্ব স্কোয়াডকে খবর দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে রেল পুলিস ও ক্যানিং থানার পুলিস তদন্ত শুরু করেছে। বোমা উদ্ধারের পর গোটা এলাকাকে ঘিরে রেখেছে পুলিস।

পাশাপাশি মাথাভাঙ্গা ১ নং ব্লকের হাজরাহাট দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের ২২৭ নং বুথ পূর্ব খাটের বাড়ি এলাকায় কংগ্রেস প্রার্থীর অস্থায়ী টেন্টের সামনে থেকে দুটি তাজা বোমা উদ্ধার হয়। বোমার উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়তেই ওই এলাকায় ভিড় জমান স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিস ঘটনাস্থলে এসে বোমা দুটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। সহ সভাপতি হাসি মালিকের দাবি, এই এলাকা যথেষ্ঠ শান্তিপূর্ণ। আগে এরকম কোনও চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেনি। তবে নির্বাচনের আগে এলাকায় আতঙ্ক ছড়াতে দুষ্কৃতীরা রাতের অন্ধকারে এখানে বোমা রেখে গিয়েছে বলে জানান তিনি। 

এছাড়াও ভাঙড় দু'নম্বর ব্লকের চালতা বেড়িয়া গ্রাম থেকে এক আইএসএফ কর্মীকে গ্রেফতার করছে কাশিপুর থানার পুলিস। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি ধারালো অস্ত্র। সেক্ষেত্রে, তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে পুলিসকে জানানো হয়েছে, অবিলম্বে এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদেরকে পুলিস খুঁজে বের করুক। কি কারণে এলাকায় বোমা বা অস্ত্র রাখা হচ্ছে তা জানতে পুলিস এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। 

5 months ago


Ashoknagar: নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত সিপিআইএম সমর্থক, অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) প্রচারে বেরিয়ে তৃণমূলের হাতে বেধড়ক মার খেলেন সিপিআইএম কর্মী সমর্থকরা। ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর (Ashokanagar) থানার দীঘরা মালিকবেড়িয়া পঞ্চায়েতের ট্যাংরা এলাকায়। এই ঘটনায় চার জন সিপিআইএম কর্মী সমর্থক আহত (injure) হয়েছেন বলে খবর। আহতদের বারাসাত হাসপাতালে (hospital) ভর্তি করানো হয়। পঞ্চায়েতের নির্বাচনী প্রচারের প্রায় শেষ সময়ে এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার সকালে উত্তর ২৪ পরগনার জেলা পরিষদের ২১ নম্বর সংসদের প্রার্থী বিলকিস বিবি ট্যাংরা এলাকাতে ভোট প্রচার বেরিয়েছিলেন। ঠিক সেই সময় তৃণমূলের একটি বাইক মিছিল যাচ্ছিল। অভিযোগ, সিপিএম সমর্থকদের প্রচার করতে দেখে তৃণমূলের কর্মীরা বাইক মিছিল থেকে বেরিয়ে হামলা চালায়। আচমকাই বাঁশ, লাঠি দিয়ে বেধারক মারধর করতে শুরু করে। এর ফলে চার জন সিপিএম কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের বারাসাত হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তাঁদের মধ্যে একজন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসাপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আর বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। 

সিপিআইএমের তরফে অভিযোগ, সিপিআইএম সমর্থক আতিয়ার রহমানকে বেধড়ক মারধর করে এবং তাঁর মাথায় বাঁশ দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে বারাসাত হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। এই ঘটনায় আরও তিনজন আহত হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ২১ নম্বর জেলা পরিষদের সিপিএম প্রার্থী বিলকিস খাতুন।

5 months ago
Bdn: নির্বাচনের প্রচারে বেড়িয়ে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন বিধায়ক

পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat elections) প্রচারে বেড়িয়ে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন বিধায়ক (MLA)। ভোগান্তি কাকে বলে বোঝাতে বিধায়ক কে কাঁদা রাস্তায় জোর করে হাঁটালেন গ্রামবাসীরা। কথায় বলে ঠ্যালায় পড়লেই নাকি বিড়ালও গাছে ওঠে, কিন্তু এই ঠ্যালায় যে কোনো দিন স্বয়ং বিধায়ককেই পড়তে হবে তা মনে হয় স্বপ্নেও ভাবেন নি ভাতারের বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী।

শনিবার সকালে ভাতারের নিত্যনন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কালুত্তকে পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থী আব্দুল রউফের সমর্থনে প্রচারে বের হোন ভাতারের বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী। প্রচার শুরু করতেই গ্রামবাসীরা, প্রার্থী ও বিধায়ককে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। এবং তাঁদের ভোগান্তির কথা তুলে ধরেন। সেখানেই কার্যত গ্রামবাসীদের সঙ্গে তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়তে দেখা যায় প্রার্থীকে। শুধু তাই নয় এরপর গ্রামবাসীরা নিজেদের নিত্যদিনের দুর্ভোগের চিত্র তুলে ধরতে বিধায়ককে কাঁদা রাস্তায় হাঁটতে বাধ্য করেন। গ্রামবাসীদের একটাই দাবি, ভোট দিই, ভোট নেন, রাস্তা কই?

বিধায়ক মনগোবিন্দ অধিকারী জানিয়েছেন, গ্রামের মেয়েরা এসে রাস্তা খারাপের কথা জানিয়েছেন। তিনিও আরও বলেছেন তৃণমূলের লোক দেখলেই বিক্ষোভ করতে পারেন। সিপিআইএম কিংবা বিজেপির লোককে মানুষ বিক্ষোভ দেখাতে পারে না। কারণ, তাঁরা জানে তৃণমূলের লোক কথা শুনবে। এই কারণে তিনি গ্রামবাসীদে আশ্বাস দেন আগামী দু,মাসের মধ্যেই রাস্তা ঠিক করে দেবেন। 

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে গ্রামের রাস্তার হাল খারাপ। বিভিন্ন স্তরে বারংবার জানিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি। তাই এদিন বিধায়ক আসতেই রাস্তার দাবী জানানো হয়। 

5 months ago