Breaking News
Modi: কৃষ্ণনগরে ভাষণ শুরু করেই ক্ষমা প্রার্থানা প্রধানমন্ত্রীর, তৃণমূলকে তীব্র তুলধনা...      Modi: 'রামমোহনের আত্মা সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে', আরামবাগ থেকে মমতাকে তোপ মোদীর      Suspend: গ্রেফতারির পরেই তৃণমূল থেকে ছয় বছরের জন্য সাসপেন্ড সন্দেশখালির 'বেতাজ বাদশা' শাহজাহান      Sandeshkhali: নিরাপদ সর্দারকে নিঃশর্তে জামিন দিয়ে রাজ্য পুলিসকে তিরস্কার বিচারপতির      Sheikh Shahjahan: ঘর ভাঙচুর, টাকা লুঠ! শেখ শাহজাহানের বিরুদ্ধে নতুন এফআইআর সন্দেশখালি থানায়      Sandeshkhali: অজিত মাইতিকে তাড়া গ্রামবাসীদের, সাড়ে ৪ ঘণ্টা পর অবশেষে আটক পুলিসের      Ajit Maity: উত্তপ্ত সন্দেশখালি! অজিত মাইতির গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভ মহিলাদের, বাঁচতে সিভিকের বাড়িতে আশ্রয়      Sandeshkhali: সন্দেশখালি ঢুকতে বাধা, ভোজেরহাটেই দিল্লির ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে আটকাল পুলিস      Sandeshkhali: একই যাত্রায় পৃথক ফল! ১৪৪ যুক্ত এলাকায় নির্বিঘ্নে ঘুরছেন পার্থ-সুজিত, বাধাপ্রাপ্ত মীনাক্ষী      Sandeshkhali: ভোটের আগে উত্তপ্ত সন্দেশখালি, বিশেষ নজর নির্বাচন কমিশনের     

rain

Rain: প্রবল বর্ষণ, ভূমিধসে দেশজুড়ে মৃত ৩১, আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস

কোথাও প্রবল বৃষ্টি (Heavy Rain), কোথাও আবার জলের স্রোতে ভেসে গেল ব্রিজ। প্রবল বৃষ্টিতে কার্যত বানভাসি (Flood) দশা হিমাচল প্রদেশ (Himachal Pradesh), ঝাড়খণ্ড (Jharkhand), ওড়িশা (Odisha), উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) বিস্তীর্ণ এলাকায়। মেঘভাঙা বৃষ্টিতে কার্যত ধস, প্লাবন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। যার জেরে মৃত্যু (Death) হয়েছে মোট ৩১ জনের। আহত বেশ কয়েকজন, নিখোঁজ আরও অনেকে।

হিমাচল ছাড়াও উত্তরাখণ্ড, জম্মু ও কাশ্মীর, ওড়িশা এবং ঝাড়খণ্ডে ভূমিধস এবং আকস্মিক বন্যায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) আগামী দিনে আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়ে জানিয়েছে, পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে চলেছে।

শুক্রবার থেকে ভারী বর্ষণের জেরে হিমাচল প্রদেশে কমপক্ষে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে রয়েছে একটি পরিবারের আট জন। জখম হয়েছেন আরও ১০ জন। মান্ডি জেলায় ছ’জনের খোঁজ পাওয়া যায়নি।

প্রবল বৃষ্টিতে উত্তরাখণ্ডে চার জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ হয়েছেন আরও ১০ জন। বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে নদীর জল। একাধিক গ্রাম থেকে বাসিন্দাদের নিরাপদে সরানো হয়েছে। ওড়িশায় বৃষ্টি বিপর্যয়ে চার জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গিয়েছে।

দুর্যোগ ঝাড়খণ্ডেও। প্রবল বর্ষণে ভেঙে পড়েছে একাধিক গাছ, বিদ্যুতের খুঁটি। একাধিক জেলার নিচু এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। পশ্চিম সিংভূমে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, পশ্চিম মধ্যপ্রদেশ ও পূর্ব রাজস্থানে রবিবার অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করেছে আবহাওয়া দফতর।

2 years ago
Russia: গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে নিহত মেয়ে, বাঁচলেন ইউক্রেন যুদ্ধের মূল চক্রী

ভয়াবহ গাড়ি বোমা (Car Bomb) বিস্ফোরণে নিহত পুতিন (Vladimir Putin) ঘনিষ্ঠ এক গোয়েন্দা কর্তার মেয়ে। জানা গিয়েছে, মৃতার নাম দারিয়া দুগিন। ইউক্রেন যুদ্ধের (Ukraine War) মাস্টারমাইন্ড আলেকজেন্ডার দুগিনের মেয়ে দারিয়া। স্পষ্টতই এই নাশকতার পিছনে ইউক্রেনীয় জঙ্গিদের হাত দেখছে মস্কো। প্রাথমিক তদন্তে রুশ পুলিস জানতে পেরেছে, মস্কোর অদূরে জাতীয় সড়কের এক ধারে পার্ক ছিল দারিয়ার গাড়ি। রাতের দিকে এক অনুষ্ঠানবাড়ি থেকে ফিরে সেই গাড়িতে উঠতেই ভয়াবহ বিস্ফোরণ। বিস্ফোরণের তীব্রতায় সেই গাড়ি-সহ পাশের একটা ট্রাকেও আগুন ধরে যায়।

পুলিসের সন্দেহ, দারিয়া নয় বরং তাঁর বাবা আলেকজেন্ডার ছিলেন এই নাশকতার লক্ষ্য। কিছু সময়ের গরমিলে প্রাণ হারান দারিয়া দুগিন।

আন্তর্জাতিক গোয়েন্দাদের কাছে অ্যালেকজান্ডার পুতিনের মাথা হিসেবে পরিচিত। ইউক্রেন যুদ্ধ-সহ রাশিয়ার পড়শি দেশগুলোকে ধমকে চমকে রাখা। প্রতি ক্ষেত্রেই রুশ সেনাকে পরিকল্পনা ছকে দেন আলেকজেন্ডার। পুতিন-ঘনিষ্ঠদের দাবি, আলেকজান্ডারকে খুনের এই হামলা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়েছে। পাল্টা জবাব দেবে রাশিয়া। অধুনা রুশ নিয়ন্ত্রিত ডনেৎস্কের গণপ্রজাতন্ত্রের প্রধান তথা পুতিন-ঘনিষ্ঠ ডেনিস পুশিলিনের দাবি, ইউক্রেনীয় জঙ্গিরাই আলেকজান্ডারের মেয়েকে খুন করেছে।

2 years ago
Weather Update: ফের আবহাওয়ায় বড় পরিবর্তন! সরছে নিম্নচাপের ঘনঘটা

ইতিমধ্যেই এরাজ্যে নিম্নচাপের (Low pressure) প্রভাব পড়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় দিঘার কাছ দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal) অতিক্রম করে গিয়েছে এই নিম্নচাপ। এটি পরবর্তী সময়ে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার ওপরে দিয়ে পশ্চিম উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়। তবে এবার আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ২৪ ঘণ্টায় এই নিম্নচাপ উত্তর ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড এবং ছত্তিশগড়ের ওপরে থাকবে এবং তা আরও দুর্বল হয়ে পড়বে। নিম্নচাপের জেরে অগাস্টে পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত হলেও, এখনও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি রয়ে গিয়েছে।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ রবিবার সকালের মধ্যে দমকা হাওয়ার দাপট থাকবে না আর। এছাড়াও রাজ্যের পশ্চিমের জেলাগুলিতেও বৃষ্টির পরিমাণ কমবে। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে আপাতত হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে আগামী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ ২১ অগাস্ট রবিবার সকালের মধ্যে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গের কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ ২২ অগাস্ট সোমবার সকালের মধ্যেও উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই জানানো হয়েছে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, কলকাতা ও আশপাশের এলাকায় পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় আকাশ মেঘলা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। দু-এক পশলা বৃষ্টি অথবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩০ ও ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। এদিন কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

2 years ago


Shimla: হিমাচলের পরিস্থিতিও ভয়াবহ, বৃষ্টি, হড়পা বানের সঙ্গে ধস, মৃত ৬

প্রবল বর্ষণ (Heavy Rain) এবং হড়পা বানে (Flash Flood) ইতিমধ্যেই বিপর্যস্ত জম্মু-কাশ্মীরের কাটরা, যার জেরে বন্ধ করে দিতে হয়েছে বৈষ্ণোদেবী যাত্রা। এবার ভয়াবহ বিপর্যয়ের খবর মিলল হিমাচল প্রদেশে (Himachal Pradesh)। সেখানে একইসঙ্গে বৃষ্টি, হড়পা বান এবং ধসের জেরে ৬ জনের মৃত্যু (Death) হয়েছে। আরও ১৩ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। হরিমপুর জেলায় হড়পা বানে ২২ জন আটকে পড়েছিলেন। তাঁদের অবশ্য উদ্ধার (Rescue) করা সম্ভব হয়েছে।

মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর। তিনি জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলিতে জোরকদমে উদ্ধারকার্য চালানো হচ্ছে। 

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতদের মধ্যে তিনজন চম্বা জেলার। সেখানে হঠাত্ করে ধস (Landslide) নামায় বেশ কিছু বাড়ি মাটিতে মিশে যায়। তারই একটি বাড়ি চাপা পড়ে তিনজনের মৃত্যু হয়। ধসের সঙ্গে প্রবল বৃষ্টি হতে থাকায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ভোর সাড়ে ৪ টে নাগাদ। অনেকেই তখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। তার মাঝেই এই বিপর্যয়। ফলে কেউই নিজেদের জীবন রক্ষা করার সুযোগটুকু পাননি। দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটেছে মান্ডিতে। সেখানে ভূমিধস, হড়পা বান এবং প্রবল বৃষ্টিতে একটি মেয়ের মৃত্যু হয়। কিন্তু আরও ১৩ জনের হদিশ নেই। তাদের মৃত্যু হয়েছে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্টেট ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট দফতর সূত্রে খবর, শুক্রবার রাতে বাড়ি থেকে অন্তত আধ কিলোমিটার দূরে ওই মেয়েটির দেহ খুঁজে পাওয়া যায়। কিন্তু তারই পরিবারের আরও পাঁচজনের কোনও খোঁজ নেই। তাদের সম্ভবত ভাসিয়ে বহু দূরে কোথাও নিয়ে গিয়ে ফেলা হয়েছে। আতঙ্কে বহু মানুষ নিজেদের বাড়ি ছেড়ে নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন।

গোহার ব্লকের কাষান গ্রামে ধসের জেরে চাপা পড়ে আরও ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা। মাটি সরানোর পরই প্রকৃত পরিস্থিতি বোঝা যাবে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর।

একের পর এক ধস এবং হড়পা বানের ফলে একাধিক রাস্তা যান চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। অজস্র গাড়িও ধসে ক্ষতিগ্রস্ত। বহু মানুষ কার্যত গৃহবন্দি। ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে স্কুলগুলিতেও।         

2 years ago
Katra: প্রবল বৃষ্টির সঙ্গে হড়পা বান, বন্ধ হয়ে গেল বৈষ্ণোদেবী যাত্রা

মুষলধারে বৃষ্টি (Heavy Rain)। সঙ্গে হড়পা বান (Flash Flood)। এই দুইয়ের দাপটে বিপর্যস্ত জম্মু ও কাশ্মীর। আর এর জেরে পুণ্যার্থীরা পড়েছেন সমস্যায়। বিশেষত রিয়াসি জেলার কাটরায় (Katra) এর জেরে বৈষ্ণোদেবী (Vaishnodevi) মন্দিরে পুণ্যার্থীদের যাতায়াত সাময়িক বন্ধ হয়ে গেল।

শুক্রবার রাতে আচমকাই জলের স্রোত শুরু হয়ে যাওয়ার মন্দির কর্তৃপক্ষ উপরে ওঠা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন। একমাত্র নিচের দিকে আসা চালু রাখা হয়। ফলে অনেকে মাঝপথ থেকেই ফিরে আসতে বাধ্য হন।

অন্যদিকে, ওই সময় মন্দির চত্বরেও ছিলেন প্রচুর পুণ্যার্থী। বৃষ্টির দাপট সন্ধ্যা থেকে শুরু হলেও তা চলে মাঝরাত অবধি। ফলে শুধু হেঁটে যাওয়া পুণ্যার্থীদের জন্যই নয়, ব্যাটারিচালিত গাড়ির যাতায়াতও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

পরিস্থিতির মোকাবিলায় নামানো হয় পুলিস এবং সেন্ট্রাল রিজার্ভ ফোর্স। পরিস্থিতির উপর সবসময় কড়া নজর রাখা হচ্ছে। শ্রী মাতা বৈষ্ণোদেবী বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এর জেরে এখনও পর্যন্ত কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর নেই। পুণ্যার্থীরা যাতে কোনওভাবে বিভ্রান্ত না হন, তার জন্য প্রতিনিয়ত মাইকে পরিস্থিতির কথা জানানো হচ্ছে। সতর্ক করা হয়েছে মেডিক্যাল এবং ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট টিমকে।

তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফের যাত্রী শুরু করা হবে, এমনটাই আশ্বাস মিলেছে।

2 years ago


Weather Update: ফের নিম্নচাপ, আজ থেকে বঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা

সারা দিন অস্বস্তিকর আবহাওয়া (Weather) থাকলেও বৃহস্পতিবার রাতের হাল্কা বৃষ্টিতে খানিকটা স্বস্তি পেলেন কলকাতাবাসী (Kolkata)। ফের একবার চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত। আজ,শুক্রবার নতুন করে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে উত্তর- পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে। আর এর জেরে ভারী বৃষ্টির (Rain) সম্ভাবনাও রয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal)। অর্থাৎ ফের একবার দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আজ, শুক্রবার জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ারে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তী ২৪  ঘণ্টা অর্থাৎ ২০ অগাস্ট শনিবার সকালের মধ্যে ওই তিন জেলার কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আগামী দু'দিনের তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া দফতরের তরফে আরও বলা হয়েছে, আজ, শুক্রবার সকালের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান এবং নদিয়ার কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে। বাকি জেলাগুলিতে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা অর্থাৎ ২০ অগাস্ট শনিবার সকালের মধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান এবং পূর্ব বর্ধমানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। তবে এর মধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে তুলনামূলক বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হতে পারে। উত্তরবঙ্গের মতো দক্ষিণবঙ্গেও আগামী দুদিনে তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো হ্রাস পেতে পারে বলে আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, কলকাতার আকাশ মেঘলা থাকবে। বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুৎসহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩৩ ও ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৮৮ শতাংশ।

2 years ago
Weather: নিম্নচাপের জেরে দক্ষিণবঙ্গে ফের ভারী বৃষ্টি!

নতুন করে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ। দক্ষিণ মায়ানমারে অবস্থান করছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। যা ঘনীভূত হয়ে নিম্নচাপে (Weather Update) পরিণত হবে। এই নিম্নচাপটি বাংলাদেশ ঘেঁষে পশ্চিমবঙ্গের দিকে আসার সম্ভাবনা রয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর এমনই পূর্বাভাস দিয়েছে। তার জেরে ফের বঙ্গে (North Bengal) বর্ষণের (Rain) সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, আজ, বৃহস্পতিবার থেকে ২০ অগাস্ট পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) জেলাগুলির বেশিরভাগ জায়গায় কোথাও ভারী আবার কোথাও হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া দফতরের তরফে ভারী বৃষ্টির সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, আজ বৃহস্পতিবার উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেগিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, ঝাড়গ্রাম, কলকাতা, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান জেলার কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। একই কারণে ১৯ অগাস্ট শুক্রবার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান জেলার কোনও কোনও জায়গায়। এই সময়ের মধ্যে অর্থাৎ ১৯ অগাস্ট নাগাদ উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারের কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

উত্তরবঙ্গেও বাড়ছে গরমের দাপট। আগামী ২ দিন উত্তরবঙ্গের কয়েকটি জায়গায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নতুন নিম্নচাপের জন্য গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, ঝাড়খন্ড, ছত্তিসগড় এবং মধ্যপ্রদেশে কোথাও ভারী কোথাও অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। পূর্ব ও উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে বৃষ্টি বাড়বে আগামী কয়েকদিন।

2 years ago
Viral Video: সাধের স্কুটির উপর বসে ক্রেনে শূন্যে ঝুলছেন চালক, কেন জানেন?

শখে কেনা জিনিসের প্রতি সকলেরই টান থাকে। আর সেটা যদি হয় গাড়ি (Car), বাইক (Bike) বা স্কুটি (scooter), তাহলে তো কথাই নেই। নো-পার্কিং জোনে (No-Parking Zone) রাখায় ক্রেনে করে অন্যত্র সরিয়ে দেওয়া হচ্ছিল স্কুটিটি। আর তা জানতে পেরে ছুটে আসেন স্কুটির মালিক। ততক্ষণে ক্রেনের দড়িতে বেঁধে ফেলা হয়েছে স্কুটিটি। উপায় না দেখে স্কুটির উপরেই বসে পড়লেন তিনি। তাঁকে সহ ক্রেন স্কুটিটি তুলে নিল। এমন ভিডিও ইতিমধ্যে ভাইরাল (Viral Video) নেটপাড়ায়।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাধের স্কুটির উপর বসে রয়েছেন ওই ব্যক্তি। তাঁকে গাড়ি থেকে নেমে যেতে অনুরোধ করছেন কর্তব্যরত কর্মীরা। কিন্তু তিনি নাছোড়বান্দা। তাঁর প্রিয় স্কুটি ছাড়তে কিছুতেই রাজি নন। বাধ্য হয়ে মালিকসমেত স্কুটিকে তুলে নেয় ক্রেন। স্কুটির হ্যান্ডেল ধরে তার উপরেই বসে শূন্যে ঝুলতে থাকেন ওই ব্যক্তি।

View this post on Instagram

A post shared by Hum Nagpurkar (@humnagpurkar)

এমন দৃশ্য দেখে হতচকিত পথচারীরা। পাশপাশি ভিডিও শেয়ার হতেই আসে কমেন্টের ঝড়। জানা গিয়েছে, ঘটনাটি মহারাষ্ট্রের নাগপুরের সদর বাজারের। ইনস্টাগ্রামে হামনাগপুরকর নামে অ্যাকাউন্টে ভিডিয়োটি শেয়ার করা হয়েছে।

2 years ago


Weather Update: ফের বঙ্গে নিম্নচাপ! এখনই নেই বৃষ্টির থেকে রেহাই

রাজ্যের কোথাও বুধবার ভারী বৃষ্টির (rain) সম্ভাবনা থাকছে না। স্বাভাবিকভাবেই তাপমাত্রা (temperature) বৃদ্ধির সঙ্গেই আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে দক্ষিণবঙ্গে (South bengal)। তবে রাজ্যের দু-এক জায়গায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হতে পারে। এরই মধ্যে আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা যায়, আগামী ১৯ অগাস্ট, শুক্রবার ফের উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ (low pressure) তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে আগামী ২০ ও ২১ অগাস্ট পূর্ব ও মধ্য ভারতের কোনও কোনও জায়গায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ বুধবার সকালের মধ্যে সবকটি জেলারই কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে তুলনামূলক বৃষ্টির পরিমাণ কিছুটা বাড়বে। এরপরের ২৪ ঘণ্টা অর্থাৎ শুক্রবার, ফের নিম্নচাপের জেরে ভারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর সহ ঝাড়গ্রামে।

অন্যদিকে উত্রবঙ্গের ক্ষেত্রে, পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা অর্থাৎ ১৮ অগাস্ট বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে উত্তরবঙ্গের কোথাও ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। আপাতত  দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তাপমাত্রার পরিবর্তনের কোনও সম্ভাবনা নেই উত্তরবঙ্গের কোথাও।

পূর্বাভাস অনুযায়ী, কলকাতা ও আশপাশের এলাকার পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় আকাশ কোনও কোনও সময় মেঘলা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। সঙ্গে বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতেপারে ৩১ ও ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে।

2 years ago
Toto: রাতের অন্ধকারে নতুন টোটোর নম্বর দেওয়ার অভিযোগে অবস্থান-বিক্ষোভ, উত্তেজনা চাকদহে

রাতের অন্ধকারে নতুন টোটোর (toto) নম্বর দেওয়ার অভিযোগে চাকদহ (Chakdah) থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ টোটো চালকদের৷ সোমবার সকাল থেকে বৃষ্টির (rain) মধ্যেই চাকদহ শহরের শতাধিক টোটো চালক চাকদহ থানার মোড়ে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন৷

তাঁদের অভিযোগ, রবিবার রাতের অন্ধকারে টাকার বিনিময়ে, চাকদহ শহর আইএনটিটিইউসির (INTTUC) সভাপতি তিমির সরকার নতুন করে টোটো নম্বর দিয়েছেন। এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে চাকদহ থানার (Police station) মোড় উত্তাল হয়ে ওঠে টোটো চালকের অবস্থান-বিক্ষোভে। পরে পুলিসের (police) হস্তক্ষেপে রাস্তা ছেড়ে রাস্তার দুপাশে দাঁড়িয়ে থেকে প্রতিবাদ দেখান তাঁরা৷ 

এ বিষয়ে চাকদড় শহর আইএনটিটিইউসির সভাপতি তিমির সরকারকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, কোনও টোটো নতুন করে অনুমোদন দেওয়া হয়নি। ১০ জনকে আইএনটিটিউসির পরিচয় পত্র দেওয়া হয়েছে। পরিচয় পত্র দেওয়াকে কেন্দ্র করে অর্থের যদি কোনও অভিযোগ করে, তাহলে যাদেরকে পরিচয় পত্র দেওয়া হয়েছে তাঁদেরকে প্রশ্ন করলেই বেরিয়ে আসবে অর্থ নেওয়া হয়েছে কিনা৷ পুরোটাই ভুয়ো এবং ফেক অভিযোগ তুলছেন টোটোচালকেরা, প্রতিক্রিয়া তিমির বাবুর৷ তবে তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর দায়িত্ব পাওয়ার আগেই শহরে ৪০০-৫০০ টোটো ছিল। এরপর সেখান থেকে শহর জুড়ে শুরু হয়েছে যানজট। নেই হাঁটার রাস্তাটুকুও। তবে তিনি দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই নতুন করে টোটো না কেনার অনুরোধ করে গিয়েছেন। বর্তমানে যারা বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন, তাঁদের স্বার্থে আঘাত পড়েছে হয়ত কোনও কারণে তাই এই ধরনের কাজ, এমনটাই জানান তিনি। 

যদিও টোটো চালকরা প্রশাসনের কাছে দাবি তুলেছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত নতুন টোটো নম্বর তুলে না নেওয়া হচ্ছে, ততক্ষণ তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন৷

2 years ago


Weather Update: স্বাধীনতা দিবসে সকাল থেকেই দুর্যোগের ঘনঘটা!

আজ স্বাধীনতা দিবস (Independence Day)। তবে সকাল থেকেই বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির দেখা মিলেছে দক্ষিণবঙ্গে (South Bengal)। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ১৫ অগাস্ট থেকে ১৮ অগাস্টের মধ্যে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি (Rain) হতে পারে, এমনটাই পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের। অর্থাৎ আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে মধ্য-ভারতে এবং দেশের উত্তর-পশ্চিমে বর্ষার দেখা মিলবে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। মূলত, উত্তর বঙ্গোসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপ (low pressure) অতিগভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে তা পশ্চিম-উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। 

আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা যায়, একটি নিম্নচাপ উত্তর-পূর্ব এবং সংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম আরব সাগরে অবস্থান করছে। এছাড়াও সঙ্গে একটি ঘূর্ণাবর্তও রয়েছে। যার জেরেই মূলত নিম্মচাপের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। পূর্বাভাস অনুযায়ী, আজ, ১৫ অগাস্ট দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাগুলিতে হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। বর্ষা আসলেও দক্ষিণবঙ্গে ছিল বৃষ্টির ঘাটতি। যার ফলে সমস্যা দেখা দিয়েছিল কৃষি ক্ষেত্রে। তবে এবার দক্ষিণবঙ্গে কৃষিকাজের জন্য এই বৃষ্টি পর্যাপ্ত বলেই মনে করছে কৃষক মহল। এছাড়াও এই নিম্নচাপের সব থেকে বেশি প্রভাব পড়ছে ওড়িশায়।

তবে ১৫ অগাস্ট বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই ধীরে ধীরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমবে দক্ষিণবঙ্গে।

অন্যদিকে, আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে মৎস্যজীবীদের প্রতি লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে। বলা হয়েছে, মৎস্যজীবীরা যেন ১৪ ও ১৫ অগাস্ট সমুদ্রে মাছ ধরতে না যান। 

নিম্নচাপের প্রভাব পড়েছে শহর কলকাতাতেও। রবিবার বিকেল থেকেই বদলে গিয়েছে আবহাওয়া। মেঘের আনাগোনা বেড়েছে আকাশে। গতকাল হালকা বর্ষণও হয়েছে শহরে। রবিবার যে আবহাওয়ার বদল হবে তা আগেই জানয়েছিল হাওয়া অফিস। নিম্নচাপের জেরে সোমবার সকাল থেকে দফায় দফায় বর্ষণে ভিজছে শহর।

2 years ago
Weather: বড়সড় পরিবর্তন বঙ্গের আবহাওয়ায়, ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা

উত্তরবঙ্গের একটানা বৃষ্টি (rain) হলেও দক্ষিণবঙ্গে (South Bengal) বৃষ্টির ঘাটতি থেকেই গিয়েছিল। তবে গত কয়েকদিনে বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ (low pressure) সৃষ্টি হওয়ায় বৃষ্টির দেখা মিলেছিল শহর কলকাতা (Kolkata) সহ পার্শ্ববর্তী এলাকায়। কিন্তু সেই নিম্নচাপও শক্তি হারায়। এবার ফের একটি নিম্নচাপ শক্তি বৃদ্ধি করছে বলেই হাওয়া অফিস সূত্রে খবর। এই নিম্নচাপ উত্তর বঙ্গোপসাগরে মূলত শক্তি বৃদ্ধি করছে। ইতিমধ্যেই শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে ঘূর্ণাবর্তটি। ফলে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়ায় আসছে বড়সড় পরিবর্তন, এমনটাই পূর্বাভাস। আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, শনিবার থেকে বদলাতে শুরু করবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া। রবিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া একেবারে বদলে যাবে।

আবহাওয়া অফিসে (Meteorological Office) সূত্রে খবর, উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে ইতিমধ্যেই বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে। এরমধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বৃষ্টি হবে বেশি। বৃষ্টি হবে পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতেও। শনিবার বিকেল থেকেই কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে যাবে। তবে রবিবার সেই বৃষ্টির মাত্রা আরও বাড়বে।

এছাড়াও আরও পূর্বাভাস, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত নিম্নচাপ শক্তি বাড়িয়েছে শনিবারই। বর্তমানে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। যার ফলে ওড়িশা ও বাংলার উপকূলবর্তী এলাকায় ব্যাপক বৃষ্টি হবে। রবিবার সেই বৃষ্টির দাপট বাড়বে। তবে ভারী বৃষ্টির সঙ্গেই ঝোড়ো হাওয়া বইবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইবে উপকূলবর্তী এলাকায়। যার জেরে ইতিমধ্য়েই সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে আলিপুর হাওয়া অফিসের তরফে। সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে মৎস্যজীবীদের। সৈকতে নামতে নিষেধ করা হয়েছে পর্যটকদের। সোমবার পর্যন্ত এই সতর্কতা জারি করা হয়েছে। যাঁরা সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছেন, তাঁদের শনিবারের মধ্যেই ফিরে আসার বার্তা দেওয়া হয়েছিল আগেই।

2 years ago
Weather Update: ফের ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গে

আবহাওয়া দফতর সূত্রে আগেই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল, গত কয়েকদিনে যে নিম্নচাপের প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হয়েছিল, তা ধীরে ধীরে কমবে। অর্থাৎ ক্রমশই শক্তি হারিয়ে ফেলবে এই নিম্নচাপ। আর শুক্রবার থেকে তাই হচ্ছে।আর এই নিম্নচাপের (Low Pressure) প্রভাব কমতেই দক্ষিণবঙ্গের (South Bengal) জেলাগুলিতে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তির পরিবেশের দেখা মিসছে। তবে আবহাওয়া (Weather) দফতরের পূর্বাভাস, ফের একটি নিম্নচাপ সক্রিয় হতে চলেছে উত্তর বঙ্গোপসাগরে (Bay of Bengal)। যার জেরে মূলত, শনিবার থেকে সোমবারের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায় ভারী বৃষ্টির (Heavy Rain) সম্ভাবনা থাকছে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হতে চলেছে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় তা আরও শক্তিশালী হবে বলেই মনে করছে আবহাওয়া দফতর। তবে তা পশ্চিম-উত্তর-পশ্চিম দিকে সরে যাবে। এর প্রভাবে ১৩ থেকে ১৫ অগাস্টের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের কোনও কোনও জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। কোনও কোনও জেলায় হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টিও হতে পারে। তবে মূলত এই নিম্নচাপের প্রভাবে রবিবার ১৪ অগাস্ট পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এই সময়ে দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলিরকোথাও কোথাও হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এই বৃষ্টির সঙ্গেই বইতে পারে দমকা হাওয়াও।

অন্যদিকে শনিবার সকালের মধ্যে উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস না থাকলেও শনিবার এবং রবিবার দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বাকি জেলাগুলিতেও হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।

কলকাতায় মূলত মেঘলা আকাশ থাকবে। সঙ্গেই বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৯.৬ ডিগ্রির আশেপাশে ঘুরবে। 

2 years ago


Weather Update: বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, জেনে নিন বাংলার জেলাগুলির আবহাওয়া

চলতি মরশুমে সেভাবে বৃষ্টিপাত (Rain) পায়নি দক্ষিণবঙ্গবাসী (South Bengal)। অবশেষে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপের জেরে স্বস্তি ফিরেছে কিছুটা। তবে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস (Weather Update) দিলেও তার দেখা মেলেনি। মাঝারি থেকে হালকা বৃষ্টিতে ভিজেছে দক্ষিণবঙ্গ।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আজ,শুক্রবার পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর এবং বাঁকুড়ার কোনও কোনও জায়গায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়াও বাকি জেলাগুলির কোথাও কোথাও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। আপাতত তাপমাত্রার পরিবর্তনেরও কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফে।

অন্যদিকে, ১৩ অগাস্ট শনিবার সকালের উত্তরবঙ্গের কোথাও ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। তবে সবকটি জেলারই কোথাও না কোথাও হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী দিন পাঁচেকে তাপমাত্রার হেরফের হওয়ারও কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, কলকাতা ও আশপাশের এলাকার পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় আকাশ মেধলা থাকবে। সঙ্গে কয়েক পশলা বৃষ্টি কিংবা বজ্রবিদ্যুতের সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ৩১ ও ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। এদিন কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৯৫ শতাংশ।

2 years ago
Death: ফের বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু এক ছাত্রীর

মর্মান্তিক মৃত্যু (Death)। দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় গত দুদিনে শুরু হয়েছে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি (rain)। আর তাতেই ঘটে গেল অঘটন। হাওড়ার (Howrah) জগৎবল্লভপুর থানা এলাকার নরেন্দ্রপুর পশ্চিম পাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় এক নাবালিকার।

পুলিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম তৃষা ধক। বয়স ১৩ বছর। মঙ্গলবার  বাড়ির সামনে একটি বিদ্যুতের খুটি থেকে তড়িতাহত হয় ওই নাবালিকা। তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ায় আমতা হাসপাতালে (hospital)। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় জগৎবল্লভপুর থানার পুলিস (police)। ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রামের মানুষ। তাঁদের অভিযোগ, বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে যে আর্থিং এর তার রয়েছে, সেটি দীর্ঘদিন মাটিতেই পড়েছিল।  গ্রামের মানুষের আরও অভিযোগ, বিদ্যুৎ দফতরের লোকেদের জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। 

পুলিস সূত্রে আরও জানা যায়, এই ঘটনার পর রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থার পক্ষ থেকে কর্মীরা গিয়ে সেখানে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় এবং বিদ্যুতের খুঁটিতে যে সমস্যা ছিল তা ঠিক করে দেওয়া হয়।

এপ্রসঙ্গে জগৎবল্লভপুর বিধানসভার বিধায়ক জগৎবল্লভপুরের বিধায়ক সীতানাথ ঘোষ জানিয়েছেন, এটি একটি দুর্ঘটনা এবং দুঃখজনক ঘটনা। তবে রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন পর্ষদের কর্মীরা প্রতিনিয়তই এলাকায় বিভিন্ন অঞ্চলে নজরদারির সঙ্গে মেরামতের কাজ চালু রাখেন। সেই সঙ্গে বিভিন্ন অঞ্চলের জনপ্রতিনিধি যারা আছেন তাঁরাও নজরদারি রাখেন।

তবে গ্রামেগঞ্জে গাছপালার সংখ্যা বেশি থাকার কারণে সামান্য ঝড়, বৃষ্টিতে গাছের ডালপালা তারের ওপরে পরে অনেক সময়ে তার ছিঁড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটে। গাছের ডালপালা ছাঁটা হলেও একদিকের কাজ শেষ হয়তো অন্য দিকে বেড়ে যায়। এটা একটি সমস্যা।

2 years ago