Breaking News
Abhishek Banerjee: বিজেপি নেত্রীকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগ, প্রশাসনিক পদক্ষেপের দাবি জাতীয় মহিলা কমিশনের      Convocation: যাদবপুরের পর এবার রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়, সমাবর্তনে স্থগিতাদেশ রাজভবনের      Sandeshkhali: স্ত্রীকে কাঁদতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন 'সন্দেশখালির বাঘ'...      High Court: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিল, সুদ সহ বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে জমি দখল তদন্তে সক্রিয় সিবিআই, বয়ান রেকর্ড অভিযোগকারীদের      CBI: শাহজাহান বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ! তদন্তে সিবিআই      Vote: জীবিত অথচ ভোটার তালিকায় মৃত! ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ধূপগুড়ির ১২ জন ভোটার      ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?     

rahul

Maldah: মালদহে একই দিনে রাহুল ও মমতা, জোট সঙ্কটের মধ্যে দেখা হবে?

বাংলায় কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করবে না তৃণমূল। তা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভারত জোড়ো ন্যায় যাত্রা নিয়ে তাঁকে কিছু না জানানোয় কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অসৌজন্যের অভিযোগও তুলেছেন তৃণমূলনেত্রী৷ এমতাবস্থায় একই দিনে মালদহ জেলায় মুখোমুখি হতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাহুল গান্ধী। আগামী ৩১ শে জানুয়ারি ভারত জোড়ো ন্যায় যাত্রা নিয়ে বিহার থেকে মালদহ জেলায় প্রবেশ করবেন রাহুল গান্ধী। আর সেদিনই মালদহ শহরের ডি এস এ ময়দানে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভা। আর একই দিনে দুই দলের শীর্ষ নেতা-নেত্রীদের সভাঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

৩১ শে জানুয়ারি বিহারের কাঠিয়ার থেকে মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর রতুয়া হয়ে ইংরেজ বাজারে আসবেন রাহুল গান্ধী। রাত্রিবাস করবেন মালদহের সুজাপুরে। এরপর ১ তারিখ  মুর্শিদাবাদে পৌঁছবে ন্যায়যাত্রা।

জেলা কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি কালিসাধন রায়ের অভিযোগ, তৃণমূল আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। আর সেই কারণে তাদের কর্মসূচি লন্ডভন্ড করার জন্য ইচ্ছে করে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক সভা রাখা হয়েছে। পুলিস প্রশাসনকে ব্যতিব্যস্ত করে তোলাই উদ্দেশ্য। পাল্টা জেলা তৃণমূলের সহ-সভাপতি শুভময় বসু বলেন, এই রাজ্যে কংগ্রেস বিষময় রাজনীতি করছে। রাহুল গান্ধী কর্মসূচি করবে, মুখ্যমন্ত্রী নিজস্ব প্রশাসনিক সভা করবে। সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক তৃণমূল থেকে সরে যাচ্ছে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে তৃণমূল, আর সেই কারণেই কংগ্রেসের কর্মসূচির দিন ইচ্ছে করে প্রশাসনিক সভা রাখা হয়েছে। কটাক্ষ বিজেপি দক্ষিণ মালদহ সাংগঠনিক জেলা সাধারণ সম্পাদক অম্লান ভাদুরির।

বরাবরই মালদহ জেলা ছিল কংগ্রেসের শক্তঘাঁটি। ২০১৮ সালে কংগ্রেসের কাছ থেকে মালদহ জেলা পরিষদ ছিনিয়ে নেয় তৃণমূল। ২০১৯ সালে কংগ্রেসের হাতছাড়া হয়ে উত্তর মালদহ লোকসভা কেন্দ্র জিতে যায় বিজেপির খগেন মুর্মু। দক্ষিণ মালদহ লোকসভা কেন্দ্রে মাত্র ৮ হাজার ভোটে জয়ী হন কংগ্রেসের আবু হাশেম খান চৌধুরী।

২০২১ সালে জেলার বারটি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে আটটিতে জয়লাভ করে তৃণমূল, চারটি যায় বিজেপির দখলে। নিজেদের শক্ত ঘাঁটিতে শূণ্য হাতে ফিরতে হয় কংগ্রেসকে। আর সেই হারানো মাটি উদ্ধার করতে রাহুল গান্ধীর এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে এমনই কংগ্রেস সূত্রে খবর। সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক ধরে রাখতে তৎপর তৃণমল।

5 months ago
Bharat Nyay Yatra: এবারে মণিপুর থেকে মুম্বই! 'ভারত জোড়ো যাত্রা'র পর 'ভারত ন্যায় যাত্রা'য় রাহুল, কবে শুরু?

'ভারত জোড়ো যাত্রা'র পর এবারে কংগ্রেসের নয়া উদ্যোগ 'ভারত ন্যায় যাত্রা'। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগেই ফের এক কর্মসূচি নিলেন রাহুল গান্ধী। এবার তার নাম 'ভারত ন্যায় যাত্রা'। জানা গিয়েছে, আগামী ১৪ জানুয়ারি থেকে ২০ মার্চ পর্যন্ত চলবে কংগ্রেসের 'ভারত ন্যায় যাত্রা'। ৬ হাজার ২০০ কিমি পথ হাঁটবেন রাহুল, অতিক্রম করবেন ১৪টি রাজ্য। এবার উত্তর-পূর্বের মণিপুর থেকে মহারাষ্ট্রের মুম্বই পর্যন্ত হাঁটবেন রাহুল। বাংলাকেও ছুঁয়ে যাবেন রাহুল, এমনটাই সূত্রের খবর।

কংগ্রেসের তরফ থেকে বলা হয়েছে, 'ভারত ন্যায় যাত্রা' শুরু করতে চলেছেন রাহুল গান্ধী। আগামী ১৪ জানুয়ারি থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত চলবে কংগ্রেসের এই কর্মসূচি।  এই যাত্রা মোট ৬ হাজার ২০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করবে। যে রাজ্যগুলির মধ্যে দিয়ে এই যাত্রা হবে, সেগুলি হল নাগাল্যান্ড, অসম, মেঘালয়, বিহার, ওড়িশা, ছত্তিসগড়, উত্তর প্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, গুজরাত হয়ে এটি শেষ হবে মহারাষ্ট্রে৷ বাংলাকেও ছুঁয়ে যাবেন রাহুল, এমনটাই জানা গিয়েছে। ১৪ জানুয়ারি মণিপুরে এই যাত্রার সূচনা করবেন কংগ্রেসের সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে। বাস থাকবে এই যাত্রায়, মাঝে মাঝে কিছুটা পথ হেঁটে পেরনো হবে।

কংগ্রেস নেতা কেসি বেণুগোপাল সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন, ২১ ডিসেম্বর কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির তরফে রাহুল গান্ধীকে একটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল, ভারতের পূর্ব থেকে পশ্চিম পর্যন্ত পদযাত্রা করতে পারেন রাহুল গান্ধী। রাহুল গান্ধী CWC-এর এই পরামর্শ মেনে নিয়েছেন। AICC সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ১৪ জানুয়ারি থেকে ২০ মার্চ পর্যন্ত 'ভারত ন্যায় যাত্রা' চলবে।

6 months ago
Rahul Dravid: আদ্যোপান্ত ভদ্রলোক দ্রাবিড়

প্রসূন গুপ্তঃ ক্রিকেট ভদ্রলোকের খেলা বলে একটি কথা কথিত আছ। একসময় ওয়েস্ট ইন্ডিসের ফাস্ট বোলার চার্লি গ্রিফিথের বাউন্সার মাথায় লেগে তৎকালীন অধিনায়ক নরি কন্ট্রাক্টরের মাথার খুলির একটি অংশ উড়ে যায়। তাঁকে তৎক্ষণাৎ হাসপাতালে ভর্তি করার পরে প্রথম রক্ত দিতে আসেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক স্যার ফ্রাঙ্ক ওরেল। এর বহু বছর পরে ওরেলের মৃত্যুর পরে কলকাতায় তাঁর স্মৃতিতে রক্তদান দিবস পালন করা হলে প্রথম রক্ত দেন কন্ট্রাক্টর।

আজকের পেশাদারি ক্রিকেটে বইয়ে লেখা ভদ্রলোক পাওয়া কঠিন। আজ প্রতিটি দল জিততে চায়। এই জয়ের জন্য খেলোয়াড়রা মাঠে ভদ্রতার সীমা ছাড়িয়ে যান। অবিশ্যি তার জন্য সব ক্রিকেটারই ভদ্রতা পালন করেন না এমনটা নিশ্চয় বলা যাবে না। তবে দু'তিন দশকের মধ্যে রাহুল দ্রাবিড় সম্বন্ধে দৃঢ়ভাবে বলা যায় তিনি আদ্যন্ত ভদ্রলোক ছিলেন। খেলার সময়ে তো বটেই কোচ হিসাবেও। সৌরভ-রাহুল একসাথে টেস্ট ম্যাচ শুরু করলেও সচিন নেতৃত্ব ছেড়ে দিলে সৌরভকে ভারতের অধিনায়ক করা হয়। সৌরভের অধীনে রাহুল ৫ বছরের বেশি ম্যাচ খেলেছেন এবং জীবনের সেরা খেলা তখনই দেখা গিয়েছে। বহু ম্যাচ রাহুল একার দায়িত্বে ভারতকে জিতিয়েছেন। দলের সবচাইতে নির্ভরযোগ্য ব্যাটার হওয়া সত্ত্বেও সচিনের ব্যাটিংয়ের কাছে পিছনের সারিতে রয়ে গিয়েছিলেন। তাঁর অধিনায়কত্বে ভারত খুব খারাপ সময় কাটিয়েছে, তাই নিজ দায়িত্বে নেতৃত্ব ছেড়ে দিতেও দ্বিধা করেননি। এক সময় এক প্রকার তাঁকে বিদায় দিতে বোর্ড উঠে পরে লাগলে তিনি নিজেই খেলা ছেড়ে দেন এবং বিশেষ কোনও ম্যাচ খেলার দরকারও বোধ করেননি।

সম্প্রতি তিনি ভারতের কোচ হয়েছিলেন বন্ধু সৌরভের অনুরোধে। ভারত যথেষ্ট ভালো পারফর্ম করে সম্প্রতি এশিয়া কাপ জিতেছে। বিশ্বকাপ না পেলেও ভারতই এখন বিশ্বের সেরা দল। সেই তিনি ভারতের কোচিং ছেড়ে দিলেন। এবারে উচ্চ শিক্ষিত রাহুল দ্রাবিড় কি করবেন? এতদিন গ্ল্যামার জগতে থেকে এবারে নিশ্চয় নতুন করে কর্পোরেট দুনিয়াতে চাকরি করবেন না। নাহ তেমনটির দরকার হবে না। তাঁর পাশে দাঁড়ালেন কলকাতার শিল্পপতি সঞ্জীব গোয়েঙ্কা। এবারে সঞ্জীবের আইপিএল দল লখনউ সুপার জায়ান্টের মেন্টর হলেন রাহুল। ফের মাঠেই নামবেন তিনি। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে শেষ পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, ভারতীয় দলের কোচিংয়ে ফেরাতে চান রাহুল দ্রাবিড়কে।

7 months ago


Rahul Gandhi: ভোটের দিনই এক্স-এ প্রচার! রাহুলের বিরুদ্ধে জাতীয় নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের বিজেপির

আজ, শনিবার রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচন (Rajasthan Assembly Election 2023)। কড়া নিরাপত্তা বলয়ে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। কিন্তু তার মাঝেই জাতীয় নির্বাচন কমিশনে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) বিরুদ্ধে চিঠি দিয়ে অভিযোগ দায়ের করল কেন্দ্রীয় বিজেপি। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের দেওয়া নিয়ম লঙ্ঘন করার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। ভোটের দিনই প্রচার করে ভারতের নির্বাচন বিধি ভঙ্গ করার অভিযোগে তাঁর এক্স অ্যাকাউন্টও সাসপেন্ড করারও দাবি বিজেপির।

রাহুল গান্ধীর এক সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। জানা গিয়েছে, ভোট শুরুর ঠিক আগে এক্স প্ল্য়াটফর্মে একটি পোস্টে রাজস্থানে দলের জনমুখী প্রকল্প ঘোষণার কথা তুলে ধরে রাজস্থানের ভোটারদের সরাসরি কংগ্রেসকে ভোট দেওয়ার কথা লেখেন সাংসদ রাহুল গান্ধী। ভারতের নির্বাচন বিধি ভঙ্গ করে পোস্ট করেছেন বলে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি।


বিজেপি অভিযোগ করেছে, রাজস্থান নির্বাচনের প্রচারপর্বের জন্য যে সময় বেঁধে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন, তা লঙ্ঘন করেই আজ তাঁর দলের হয়ে প্রচার করা হয়েছে। তাই কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে জনপ্রতিনিধিত্ব আইন ১৯৫১ লঙ্ঘনের অভিযোগে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বিজেপি।

7 months ago
Rahul Gandhi: 'অপয়া' মন্তব্যের জের! রাহুলকে 'ফিউজ টিউবলাইট' বলে কটাক্ষ বিজেপির

এর আগেও একাধিকবার কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে (Rahul Gandhi) সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে কটাক্ষ করেছে গেরুয়া শিবির। এবারে ফের তাঁকে কড়া জবাব দিল বিজেপি। বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের পরাজয়ের নেপথ্যে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, এমনটাই দাবি করেছিলেন রাহুল গান্ধী। শুধু তাই নয়, তাঁকে 'অপয়া' তকমাও দিয়েছিলেন। এবারে এই মন্তব্যের কড়া জবাব দিল বিজেপি। এবারে রাহুলকে 'টিউবলাইট' (Tubelight) বলে আখ্যা দিল গেরুয়া শিবির।

শুক্রবার বিজেপ তাদের এক্স হ্যান্ডেলে সলমান খানের এক ছবির পোস্টার পোস্ট করেন, তবে সেখানে সলমানের বদলে মুখ রয়েছে রাহুল গান্ধীর। ছবিতে লেখা 'ইন অ্যান্ড অ্যাজ টিউবলাইট'। শুধু তাই নয়, পোস্টারে আবার লেখাও রয়েছে, 'মেড ইন চায়না'। পোস্টের ক্যাপশনে আবার লেখা,'ফিউজ টিউবলাইট'।

বিশ্বকাপে ভারতের হারের পর থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে দোষারোপ করে চলেছেন রাহুল গান্ধী। অপয়া মন্তব্য করতেই তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও নেয় নির্বাচন কমিশন। কংগ্রেস নেতাকে নোটিস পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। আর এর পর বিজেপির তরফ থেকেই তাঁকে এই ছবি পোস্ট করে কটাক্ষ করতে দেখা গেল।

7 months ago


Rahul: ফাইনালে ব্যর্থতার ৩ কারণ, কি জানালেন কোচ রাহুল!

২০০৩ সালে বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে হারতে হয়েছিল ভারতকে৷ তখন ক্রিকেটার হিসাবে টিমে ছিলেন রাহুল দ্রাবিড়। ২০২৩ বিশ্বকাপেও ফাইনালে হারল টিম ইন্ডিয়া। এবার তিনি কোচ। আগামী বিশ্বকাপ ২০২৭ সালে। ততদিন পর্যন্ত কি ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচ থাকবেন তিনি? থমথমে মুখে সাংবাদিক বৈঠকে এই প্রশ্নের উত্তর দিলেন রাহুল।

দ্রাবিড়ের কথায়, তাঁর সমস্ত মনোযোগ ছিল টুর্নামেন্টের দিকে। সবে বিশ্বকাপ শেষ হল। ২০২৭ সালের বিশ্বকাপ এখনও অনেক দূরে। তার আগে অনেক জল বয়ে যাবে। ভবিষ্যতে কী করবেন এখনও ভাবার সময় পাননি। রাহুল জানিয়েছেন, বর্তমান টিম ইন্ডিয়ার সঙ্গে কাজ করতে পেরে তিনি গর্বিত। ক্রিকেটার থেকে সাপোর্ট স্টাফ- সকলেই নিজেদের উজাড় করে দিয়েছেন। খুব ভাল লেগেছে সকলের সঙ্গে কাজ করে।

গোটা টুর্নামেন্টে দাপটে খেলেও কেন ফাইনালে ভরাডুবি হল, তার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন দ্রাবিড়। তাঁর মতে, ভারত ৩০-৪০ রান কম করেছি। ২৮০-২৯০ রান করতে পারলে লড়াই হত। দ্রাবিড়ের কথায়, "অস্ট্রেলিয়া খুব ভাল বল করেছে। আমাদের বাউন্ডারি মারতে দেয়নি। রোহিত আউট হওয়ার পর বিরাট কোহলি এবং লোকেশ রাহুল ইনিংস গড়ার চেষ্টা করছিল। আমাদের দুর্ভাগ্য যে বিরাট-রাহুল আউট হয়ে যায়। ট্রেভিস হেড এবং মার্নাস লাবুশেনের মতো ওরা শেষ পর্যন্ত থাকতে পারলে আমরাও বড় রান তুলতে পারতাম।"

রাহুল দ্রাবিড়ের জমানায় ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং এই বছরের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পর এক দিনের বিশ্বকাপেও নক আউট পর্বে হারতে হল ভারতকে। ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের পরাজয়ের পরে রবি শাস্ত্রীর জায়গায় কোচের দায়িত্ব নেন রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু তাঁর হাত ধরেও এল না আইসিসি ট্রফি।

7 months ago
Rahul: আত্মতুষ্টি একদম নয়, দলকে সতর্ক করল কোচ রাহুল

নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে জিতে অধিনায়ক রোহিত শর্মা আত্মবিশ্বাসী। কিন্তু সিঁদুরে মেঘ দেখছেন টিমের হেড কোচ রাহুল দ্রাবিড়। এদিন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের টানা ৮টি ম্যাচের রেকর্ড ভেঙে নবম ম্যাচ জিতে নিল টিম ইন্ডিয়া। রাহুল দ্রাবিড় কিন্তু জানালেন, রবিবারের ম্যাচ না জিতলে সবই বৃথা।

দ্রাবিড়ের মতে, টানা ৯টি ম্যাচ জিতেছে ভারত। কিন্তু বুধবার নকআউট। ওয়াংখেড়েতে সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারাতে না পারলে, এতদিনের পরিশ্রম কয়েক লহমায় নষ্ট হয়ে যাবে। দ্রাবিড়ের  পাখির চোখ রবিবার। তার আগে আত্মতুষ্টিতে ভুগতে রাজি নন তিনি।

১৯৯৯ বিশ্বকাপে সর্বাধিক রান স্কোরার ছিল রাহুল দ্রাবিড়। দ্রাবিড়ের ঘরের মাঠ চিন্নাস্বামীতে এদিন বেশ কয়েকটি সেই ম্যাচের ছবি ডিসপ্লে বোর্ডে ভেসে ওঠে। এরপরই ক্যামেরায় ধরা পড়ে দ্রাবিড়ের মুখ। চিন্নাস্বামীর দর্শকদের উদ্দেশ্যে হাত নাড়েন দ্রাবিড়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় দ্রাবিড়ের সেই প্রতিক্রিয়া।

7 months ago
Rahul Gandhi: প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পুরোটাই বিনামূল্যে! ভোটমুখী ছত্তিশগড়ে প্রতিশ্রুতি রাহুল গান্ধীর

মাস পেরোলেই ছত্তিশগড়ে (Chhattisgarh) বিধানসভা নির্বাচন। ফলে ভোটমুখী ছত্তিশগড়ে গিয়ে এক বড়সড় প্রতিশ্রুতি দিলেন রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। সে রাজ্যে কৃষকদের ঋণ মকুব করে দেওয়ার পাশাপাশি পড়ুয়াদের স্কুল ও কলেজে বিনামূল্যে শিক্ষা ব্যবস্থারও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। তিনি জানিয়েছেন, পড়ুয়াদের প্রাথমিক থেকে স্নাতকোত্তর পর্যন্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে।

শনিবার ছত্তিশগড়ের কঙ্কের জেলার ভানুপ্রতাপপুর বিধানসভায় নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, "আমরা একটা বড় পদক্ষেপ করতে চলেছি। একে কেজি টু পিজি বলা হচ্ছে। এই উদ্যোগে কিন্ডারগার্ডেন থেকে স্নাতকোত্তর অবধি সমস্ত সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্যে শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। লেখাপড়ার জন্য এক টাকাও দিতে হবে না।"

রাহুল গান্ধী আরও বলেন, কংগ্রেস ফের ক্ষমতায় এলে কৃষকদের ঋণ মকুব করে দেওয়া হবে। কেন্দ্রের শাসকদলকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, "প্রধানমন্ত্রী মোদী সকলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা করে দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কিন্তু আজ পর্যন্ত কিছু করেননি। আমি আপনাদের কাছে কোনও মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেব না। আমি যা বলি, তা করিও।"

8 months ago


Rahul: রাবণের রূপে রাহুল! কংগ্রেস নেতা রাহুলের মিম শেয়ার বিজেপির

রাবণ মানেই দশটি মাথা, দশানন বলা হয় তাঁকে। কিন্তু, এবার সেই অবতারেই দেখা গেল কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে। সম্প্রতি, সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা পোস্টার ঘোরাফেরা করছে। যেখানে, বড় বড় ইংরেজি অক্ষরে লেখা রাবণ। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, রাহুল গান্ধীকে, একেবারে দশাননের আদলে। তাহলে কি রাজনীতি ছেড়ে এবার অভিনয় জগতে রাহুল গান্ধী। না, সেসব কিছুই নয়। বিষয়টা খোলসা করে বলা যাক।

পোস্টারটি ভাল করে দেখলেই বিষয়টা জলের মতো পরিষ্কার হয়ে যাবে। এটা আসলে পোস্টার নয়, মিম। যা এক্স হ্যান্ডেলে শেয়ার করেছে বিজেপি। মিমটি শেয়ার করে রাহুল গান্ধীকে এযুগের রাবণ বলে কটাক্ষ করেছে গেরুয়া শিবির। ছবিটি এডিট করে রাহুল গান্ধীর মুখ বসানো হয়েছে, সেইসঙ্গে লেখা প্রোডাকশনে কংগ্রেস পার্টি। ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ভারত বড় বিপদে রয়েছে। একইসঙ্গে লেখা,  ক্যাপশনে লেখা, নব যুগের রাবণ এসেছে। ধর্মবিরোধী। রাম বিরোধী। তাঁর উদ্দেশ্য ভারতকে ধ্বংস করা।

8 months ago
Rahul Gandhi: কুলির পর এবারে কাঠমিস্ত্রির অবতারে রাহুল গান্ধী, হাতে করাত নিয়ে কাঠলেন কাঠও!

কুলির পর এবারে অন্য রূপে ধরা দিলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। একাধিকবার তাঁকে জনসংযোগ করতে সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিলেমিশে যেতে দেখা গিয়েছে। এবারেও ব্যতিক্রমী কিছু হল না। এর আগেরবার দেখা গিয়েছিল, ট্রেনের জেনারেল কামরায় চড়তে, আর এবারে বৃহস্পতিবার তিনি পৌঁছে গেলেন দিল্লির কীর্তিনগরের এক আসবাবের দোকানে। কুলির পর এবারে ছুতোরের ভূমিকায় দেখা গেল রাহুলকে।

বৃহস্পতিবার দিল্লির কীর্তিনগরের এক আসবাবের দোকানে পৌঁছে গিয়েছিলেন সোনিয়া-পুত্র। সেখানে গিয়েই হাতে তুলে নেন করাত। সেটা দিয়ে তাঁকে কাঠ কাটতেও দেখা গেল। এছাড়াও কাঠমিস্ত্রিদের সঙ্গে তাঁকে কথা বলতে দেখা গেল। সেখানে গিয়ে তাঁদের সঙ্গে সময় কাটিয়ে, তাঁদের সঙ্গে কাজ করে তাঁদের মধ্যে একজন হয়ে ওঠার চেষ্টা করলেন।

রাহুল গান্ধী নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে তাঁর কিছু ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, 'আজ আমি কীর্তিনগরে এশিয়ার বৃহত্তম আসবাবের বাজারে গিয়েছিলাম। সেখানে ছুতোর ভাইদের সঙ্গে দেখা করি। শুধু পরিশ্রমীই নন, এই কর্মীরা ভালো শিল্পীও বটে। নিজেদের হাতের জাদুতে সৌন্দর্যের জন্ম দেয়। অনেকক্ষণ কথা বললাম। তাঁদের কাজ শেখা এবং করার চেষ্টাও করলাম।'

9 months ago


Rahul: ছত্তিশগড়ে গিয়ে গ্রামীণ আবাস ন্যায় যোজনা অনুষ্ঠানে রাহুল, উদ্বোধন একাধিক যোজনার

সোমবার ছত্তিশগড় সফরে গিয়ে একাধিক কর্মসূচিতে অংশ নিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। মুখ্যমন্ত্রী গ্রামীণ আবাস ন্যায় যোজনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সাধারণ মানুষদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি।

মূলত গ্রামীণ পরিবারগুলির জন্য উপযুক্ত বাড়ি তৈরির জন্য আর্থিক সহায়তা দিতেই এই প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ৫০০জন আবেদনকারীকে বাড়ি তৈরির জন্য ১ লাখ টাকা করে দেবে ছত্তিশগড় সরকার। এবিষয়ে ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল আগেই জানিয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত অতি দ্রুত অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারগুলিকে বাড়ি তৈরির সহায়তা করা। তবে কেন্দ্রের তরফে কোনও সহায়তা না এলে রাজ্য সরকারই তাদের সহায়তা করবে।

এছাড়াও একাধিক যোজনার উদ্বোধন করেন রাহুল গান্ধি। গ্রামীণ মানুষদের সহায়তায় ওই প্রকল্পগুলি তৈরি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

9 months ago
Rahul Gandhi: ভিড়ে ঠাসা ট্রেনের জেনারেল কামরায় রাহুল গান্ধী, জমিয়ে আড্ডা দিলেন যাত্রীদের সঙ্গে!

কখনও সবজি মান্ডিতে বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন, কখনও মোটর মেকানিকের দোকানে গিয়ে যন্ত্রপাতি নিয়ে গাড়ি সারাতে বসেছেন, আবার কখনও বাইক নিয়ে লাদাখে গিয়ে সেখানকার জনগণের সঙ্গে মিশে গিয়েছেন। হ্যাঁ, কথা বলা হচ্ছে, কংগ্রেস (Congress) সাংসদ রাহুল গান্ধীকে (Rahul Gandhi) নিয়ে। 'ভারত জোড়ো যাত্রা' দিয়ে শুরু, এর পর থেকে তাঁকে একাধিক জায়গায় গিয়ে জনগণের সঙ্গে মিশে যেতে দেখা গিয়েছে। আর এবারে সরাসরি উঠে পড়লেন ট্রেনের (Train) জেনারেল কামরায়। শুধু ট্রেনে চাপেননি, ট্রেন যাত্রীদের সঙ্গে পাশাপাশি বসে কথাও বলেছেন রাহুল। তাঁর ছবি কংগ্রেসের তরফে শেয়ার করতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

সূত্রের খবর,দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে রাহুল গান্ধী বর্তমানে ছত্তিশগড়ে। কংগ্রেস শাসিত ছত্তিশগড়ে 'আওয়াস ন্যায় সম্মেলন' উদ্বোধনের পর সোমবার ছত্তিশগড়ের বিলাসপুর থেকেই বিলাসপুর-ইটওয়ারি ইন্টারসিটি ট্রেনে সওয়ার হয়ে রাজধানী রায়পুর যান রাহুল গান্ধী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল-সহ রাজ্য কংগ্রেসের ইন-চার্জ কুমারী সেলজা ও রাজ্য ইউনিট চিফ দীপক বৈজ।

কংগ্রেসের তরফে যে ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, সেখানে দেখা গিয়েছে, ভিড়ে ঠাসা ট্রেনের জেনারেল কামরায় উঠে পড়েছেন রাহুল। এর পর তাঁকে যাত্রীদের সঙ্গে একই আসনে বসে যেতে দেখা যায়। যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলতে, এমনকি তাঁদের অটোগ্রাফ দিতেও দেখা যায়। আবার ট্রেনের যে কামরায় রাহুল ছিলেন, সেখানে রাজনন্দগাঁওয়ের কয়েকজন মহিলা হকি খেলোয়াড়ও ছিলেন। ফলে তাঁরাও ক্রীড়াক্ষেত্রে তাঁদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে কংগ্রেস সাংসদের সঙ্গে কথা বলেন। এককথায় রাহুল গান্ধীকে ফের জনগণের সঙ্গে সাধারণ মানুষের মতো মিশে যেতে দেখা যায়।

9 months ago
Rahul: আনন্দবিহার রেল স্টেশনে কুলির ভূমিকায় সাংসদ রাহুল, মাথায় তুললেন ট্রলি ব্যাগ

গায়ে লাল জামা। মাথায় নীল ট্রলি। দিল্লির সকালে এ এক অন্যরকম ছবি। আনন্দ বিহার বাস স্ট্যান্ডে হাজির হয়ে কুলিদের কাজ করলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। এদিন সকালেই বাসস্ট্যান্ডে হাজির হন তিনি। মন দিয়ে শোনেন তাঁদের কথা। তারপর নিজের মাথায় নিয়ে নেন ট্রলির বোঝ। এই ভিডিও এখন ভাইরাল।

সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তার আগে ফের জনসংযোগে মন দিয়েছেন রাহুল। রাজনৈতিক মহলের মতে, এও এক নয়া অবতার। তিনি যে মানুষের মধ্যে রয়েছেন, তা বোঝাতেই রাহুলের এই প্রচার।

যদিও এই ভিডিও দেখার পরেই কটাক্ষ করেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবির থেকে দাবি, জনসংযোগ ভাল, তবে তা ভোটবাক্সে কতটা প্রভাব ফেলবে, তা কিন্তু এখনই বলা যাচ্ছে না।

9 months ago


India: বিরাট, রাহুলের জোড়া সেঞ্চুরি, পাকিস্তানের সামনে পাহাড় সমান রানের টার্গেট দিল ভারত

বৃষ্টি ভেজা কলম্বো স্বস্তি দিল দুই রাহুলকে। মাঠের ভিতরে চোট সারিয়ে দলে ফিরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শতরান করলেন লোকেশ রাহুল। আর তাঁর এই সেঞ্চুরিতে স্বস্তি ফিরে পেলেন ভারতীয় দলের কোচ রাহুল দ্রাবিড়। কারণ, চার নম্বর নিয়ে খানিকটা উদ্বেগ মনে হল কাটল। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে গতকাল খেলা শুরু হলেও রিজার্ভ ডে অবধি খেলা গড়ায়। এরপর সেখান থেকেই খেলা শুরু হলে রাহুল ও বিরাটের ব্যাটে সেঞ্চুরি আসে। ৫০ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ২ উইকেট হারিয়ে ৩৫৬ রান।

শ্রেয়সের পিঠে ব্যথার কারণে এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দলে ফিরেছিলেন লোকেশ রাহুল। আইপিএলে চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন। কিন্তু বাইশ গজে তিনি যেখানে শেষ করেছিলেন, প্রেমাদাসায় যেন সেখান থেকেই শুরু করলেন। সঙ্গী বিরাট কোহলিকে নিয়ে বিশ্বকাপের আগে ব্যাটে শান দিয়ে নিলেন।

দীর্ঘ অপেক্ষার পর এশিয়া কাপে শুরু হয় ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। খারাপ খবর পাক শিবিরের কাছে, চোটের কারণে এই ম্যাচে আর মাঠে নামতে পারবেন না পেসার হ্যারিস রউফ।মোটের উপর ভারতের প্রথম ইনিংসের পাহাড় সমান রানের সামনে খেলতে নেমে, পাকিস্তান কিভাবে ৩৫৭ রান তাড়া করবে সেটাই দেখার।

9 months ago
Rahul Gandhi: 'ভারতমাতা অসংসদীয় শব্দ', এবারে অধীররঞ্জনের পাশে দাঁড়িয়েই মন্তব্য করলেন রাহুল

'ভারতমাতা অসংসদীয় শব্দ', এই নিয়ে ফের বিতর্ক তুঙ্গে। কারণ আবারও একই কথা বলতে শোনা গেল কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীকে। রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর 'ভারতমাতা' নিয়ে একই বিতর্কিত মন্তব্য করে বিতর্কে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। তবে এদিন লোকসভার বিরোধী দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরীর পাশে দাঁড়িয়েই এই মন্তব্য করেন রাহুল।

কিছুদিন আগেই মণিপুর ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিল বিরোধীরা। যা নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে লোকসভা। লোকসভায় বক্তৃতা দিতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে তোপ দেগে 'ভারতমাতা' প্রসঙ্গে কড়া আক্রমণ করেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। তাঁর সেই মন্তব্য বিবৃতি থেকে ছেঁটে দেওয়া হয়। তার এক দিন পর ফের বর্তমানে দেশে ভারতমাতা 'অসংসদীয় শব্দ' বলে কটাক্ষ করেন তিনি।

আর সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের একই মন্তব্য করতে দেখা গেল কংগ্রেস সাংসদ রাহুলের গলায়। এই বক্তব্যের পরেই দেশজুড়ে উঠেছে নিন্দার ঝড়। কড়া আক্রমণ জানিয়েছে গেরুয়া শিবির।

9 months ago