Breaking News
HC: জেলে ১ বছর ৭ মাস! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিচারপ্রক্রিয়া কবে শুরু হবে? ইডির কাছে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের      Sandeshkhali: ''দাদা আমাদের বাঁচান...'', সন্দেশখালির মহিলাদের আর্তি শুনলেন শুভেন্দু      Sandeshkhali: 'মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত', ক্ষোভ প্রকাশ জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সনের      Weather: বিদায়ের পথে শীত! বাড়বে তাপমাত্রা, বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণবঙ্গে      Sandeshkhali: শিবু হাজরার গ্রেফতারিতে মিষ্টি বিলি, আদালতে পেশ, কবে গ্রেফতার সন্দেশখালির 'মাস্টারমাইন্ড'?      Arrest: সন্দেশখালিকাণ্ডে ন্যাজট থেকে গ্রেফতার শিবু হাজরা      Trafficking: ১০ মাস লড়াইয়ের পর মাদক মামলা থেকে মুক্তি বিজেপি নেত্রী পামেলার      Mimi: রাজনীতি আমার জন্য় নয়, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গিয়ে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা মিমির!      Dev: রাজনীতিতে ফিরতেই ফের দেবকে দিল্লিতে ডাক ইডির      Suvendu: সুকান্ত অসুস্থ থাকলেও, সন্দেশখালি কাণ্ডে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়াতে মাঠে শুভেন্দু     

accident

Accident: পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত তিন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী সহ পাঁচ

স্কুটার ও অটোর মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত হল উচ্চমাধ্যমিকের তিন পরীক্ষার্থী সহ পাঁচ জন। তিন পরীক্ষার্থীর অবস্থা গুরুতর। বর্তমানে আহত ওই তিন পড়ুয়া ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এক অটোযাত্রীকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর অটোযাত্রীকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্থির বানেশ্বরপুরে। 

জানা গিয়েছে, জখম পরীক্ষার্থীরা কেসিলি বরকতিয়া হাই মাদ্রাসার পড়ুয়া। তাঁদের পরীক্ষা সিট পড়েছিল বানেশ্বরপুরে। শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষা। এদিন পরীক্ষার শেষে তিন পরীক্ষার্থী স্কুটারে চেপে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় উল্টোদিক থেকে আসা অটোর সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুই ছাত্রী সহ তিন পরীক্ষার্থী ছিটকে পড়েন। তারপর দ্রুত তাঁদেরকে উদ্ধার করে ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। দুই ছাত্রীর অপারেশন প্রয়োজন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

5 days ago
Park Circus: সাতসকালে মা উড়ালপুলে উঠে পড়লেন এক যুবক, বহুক্ষণের প্রচেষ্টায় উদ্ধার

রবিবাসরীয় সকালে মা উড়ালপুলে চাঞ্চল্য। উড়ালপুলে চড়ে বসলেন এক যুবক। বিপজ্জনক ভাবে উড়ালপুলের রেলিংয়ে বসে কখনও আত্যহত্যার চেষ্টা তো কখনও আবার নমাজ পড়লেন যুবক। সাতসকালে অজ্ঞাতপরিচয় ওই যুবকের কাণ্ডকারখানায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহর কলকাতায়। আমরা এর আগে একাধিকবার হাওড়া ব্রিজে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের উঠে পড়ার ঘটনা দেখেছি। সূত্র বলছে, ২০২২ সালের নভেম্বরে হাওড়া ব্রিজের উপর উঠে পড়েছিল মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক সাধি কুমার। ২০২২ সালের জুলাইয়েও হাওড়া ব্রিজে চড়ে বসে বছর ২২-এর মহম্মদ হাবিব। হাওড়া ব্রিজে মাঝেমধ্যেই মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তির উঠে পড়া নতুন কিছু নয় এই শহরে। আবারও সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। ওই যুবকের দাবি, ১৫ লক্ষ টাকা না পাওয়ায় আত্মহত্যার করতে চেয়েছিল সে।

অবশেষে কলকাতা পুলিস, দমকল বাহিনী ও ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আধিকারিকদের সহায়তায় বেশ কিছুক্ষণের প্রচেষ্টায় উড়ালপুল থেকে উদ্ধার করা হয় যুবকটিকে। কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যায়, যে উড়ালপুলে একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে, ২৪ ঘণ্টা মোতায়েন রয়েছে পুলিস কর্মী। প্রশাসনের সেই কড়া নিরাপত্তাকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উড়ালপুলে কীভাবে উঠলেন ওই যুবক? গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে পুলিস তদন্ত।

প্রশ্নের মুখে শহর কলকাতার নিরাপত্তা। ব্রিজে চড়ে বসছে যুবক। রাজপথে ক্রমশ বাড়ছে দুর্ঘটনাও।তবুও নীরব প্রশাসনের মুখে কুলুপ। কবে হুঁশ ফিরবে সরকারের অপেক্ষা গোটা রাজ্য।

a week ago
Park Circus: সাতসকালে মা উড়ালপুলে উঠে পড়লেন এক যুবক, বহুক্ষণের প্রচেষ্টায় উদ্ধার

রবিবাসরীয় সকালে মা উড়ালপুলে চাঞ্চল্য। উড়ালপুলে চড়ে বসলেন এক যুবক। বিপজ্জনক ভাবে উড়ালপুলের রেলিংয়ে বসে কখনও আত্যহত্যার চেষ্টা তো কখনও আবার নমাজ পড়লেন যুবক। সাতসকালে অজ্ঞাতপরিচয় ওই যুবকের কাণ্ডকারখানায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহর কলকাতায়। আমরা এর আগে একাধিকবার হাওড়া ব্রিজে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের উঠে পড়ার ঘটনা দেখেছি। সূত্র বলছে, ২০২২ সালের নভেম্বরে হাওড়া ব্রিজের উপর উঠে পড়েছিল মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক সাধি কুমার। ২০২২ সালের জুলাইয়েও হাওড়া ব্রিজে চড়ে বসে বছর ২২-এর মহম্মদ হাবিব। হাওড়া ব্রিজে মাঝেমধ্যেই মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তির উঠে পড়া নতুন কিছু নয় এই শহরে। আবারও সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। ওই যুবকের দাবি, ১৫ লক্ষ টাকা না পাওয়ায় আত্মহত্যার করতে চেয়েছিল সে।

অবশেষে কলকাতা পুলিস, দমকল বাহিনী ও ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আধিকারিকদের সহায়তায় বেশ কিছুক্ষণের প্রচেষ্টায় উড়ালপুল থেকে উদ্ধার করা হয় যুবকটিকে। কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যায়, যে উড়ালপুলে একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে, ২৪ ঘণ্টা মোতায়েন রয়েছে পুলিস কর্মী। প্রশাসনের সেই কড়া নিরাপত্তাকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উড়ালপুলে কীভাবে উঠলেন ওই যুবক? গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে পুলিস তদন্ত।

প্রশ্নের মুখে শহর কলকাতার নিরাপত্তা। ব্রিজে চড়ে বসছে যুবক। রাজপথে ক্রমশ বাড়ছে দুর্ঘটনাও।তবুও নীরব প্রশাসনের মুখে কুলুপ। কবে হুঁশ ফিরবে সরকারের অপেক্ষা গোটা রাজ্য।

a week ago


Accident: ঠাকুরপুকুরে বহুতল থেকে পড়ে মৃত্যু কিশোরীর

শহরের বুকে অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পড়ে মৃত্যু হল এক ছাত্রীর। পুলিস সূত্রে খবর, ঠাকুরপুকুর জোকার ডায়মন্ড হারবার রোডের পাশে অন্তরা অ্যাপার্টমেন্ট। এই অন্তরা অ্যাপার্টমেন্টের ১০ তলা থেকেই শনিবার সকালে পড়ে মৃত্যু ১৮ বছরের ওই কিশোরীর।

জানা গিয়েছে, ওই কিশোরী একাদশ শ্রেণীতে পাঠরত ছিলেন। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান সম্ভবত আত্মহত্যা করেছে ওই ছাত্রী। বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে সুইসাইড নোট। পারিবারিক তরফে কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ঠাকুরপুকুর থানার পুলিস।

2 weeks ago
Accident: স্কুল থেকে নাতিকে নিয়ে ফিরছিলেন দাদু, লরির ধাক্কায় মৃত্যু বৃদ্ধের

দিনদিন বাড়ছে পথ দুর্ঘটনার সংখ্যা। সাইকেলে করে স্কুল থেকে নাতিকে নিয়ে ফিরছিলেন দাদু। মহেশতলা বজবজ ট্রাঙ্ক রোডের রামপুর কালীমন্দিরের কাছে ১৬ চাকার লরি পিছন থেকে এসে ধাক্কা মারে সাইকেলে থাকা দাদু এবং তাঁর নাতিকে। ওই বৃদ্ধ এবং শিশু দুজনেই সাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে রাস্তায়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের মিলিত প্রচেষ্টাতেই দু'জনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, চিকিৎসকরা বছর ৬২-এর পরিতোষ দেবনাথকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। শিশুটি আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গোটা ঘটনায় পুলিসের সক্রিয়তা চোখে পড়ল না মহেশতলায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা লরির চালককে আটক করে রাখে। পরে পুলিস সেখানে এসে চালককে ধরে নিয়ে গেলেন থানায়। অর্থাৎ পথ দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে পুলিসমন্ত্রীর জমানায় এখন দুর্ঘটনা ঘটলে পুলিসের আগে স্থানীয় মানুষকে সক্রিয় হতে হচ্ছে। তারপর খবর পেলে ঘুম ভাঙছে পুলিসের। এদিকে নিমেষে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা, পুলিসি সক্রিয়তার অভাবে এমনভাবেই কোথাও নাতিরা হারিয়ে ফেলছে দাদুকে, কোথাও বাবা-মা, সন্তানকে। নিমেষে চলে যাচ্ছে এমন অনেক পরিতোষ দেবনাথের মত প্রাণ।

3 weeks ago


Accident: জাতীয় সড়কে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্য়ু এক পুলিস কর্মীর, চাঞ্চল্য় বীরভূমে

পথ দুর্ঘটনায় মৃত্য়ু হল এক পুলিস কর্মীর। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বেসরকারি বাসের ধাক্কায় পুলিসের বাইকে। বৃহস্পতিবার দুপুরে দুর্ঘটনাটি ঘটে বীরভূমের ১৪ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর রামপুরহাট কুঠি গ্রাম মোড়ের কাছে। জানা গিয়েছে, মৃত পুলিস কর্মীর নাম বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য। তিনি মুরারই থানায় কর্মরত। ঘটনাস্থলে রামপুরহাট থানার পুলিস গিয়ে ওই মৃত পুলিস কর্মীকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জাতীয় সড়কের কাছেই রয়েছে পশু হাট। এদিন দুপুরে সেই হাট থেকে কতগুলি গরু আসছিলো। আর সেই সময় গরুগুলিকে বাঁচাতে রামপুরহাট থেকে নলহাটি মুখি একটি বেসরকারি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একই দিকে যাওয়া বাইক আরহী অর্থাৎ পুলিসের বাইকে ধাক্কা মারে। বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মৃত্য়ু হয় ওই বাইক আরহী পুলিস কর্মীর। স্থানীয়দের অভিযোগ, গরুর হাটের জন্যই প্রায় দুর্ঘটনা ঘটে। 

4 weeks ago
Accident: পুরুলিয়ায় মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু সাইকেল আরোহীর, বিক্ষোভ স্থানীয়দের

সাতসকালে মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক সাইকেল আরোহীর। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ঘাতক গাড়িটি। অন্য়দিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়া রঘুনাথপুর ঝাড়ুখামার মোড় সংলগ্ন এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে রঘুনাথপুর থানার পুলিস গিয়ে পরিস্থিতির সামাল দেয় এবং মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর থানার অন্তর্গত ঝাড়ুখামার মোড়ের কাছে একটি সাইকেল আরোহীকে সজোরে ধাক্কা মারে একটি দ্রুতগামী গাড়ি। এরপর গাড়ির ধাক্কায় ছিটকে গিয়ে পড়ে ওই সাইকেল আরোহী। গুরুতর জখম হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্য়ু হয় তাঁর। আর তারপরেই ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে পুরুলিয়া বড়াকরগামী রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা।

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই ব্যক্তির (সাইকেল আরোহী) নাম দুগাই মণ্ডল (৫৮)। বাড়ি রঘুনাথপুর থানার অন্তর্গত আগইবাড়ি গ্রামে। বাড়িতে তাঁর এক ছেলে, এক মেয়ে ও অসুস্থ  স্ত্রী রয়েছেন। এখন তাঁর পরিবারের ভরণপোষণ কী ভাবে হবে সেই চিন্তায় পরিবারের সদস্যরা।

a month ago
Death: টোটোর ধাক্কায় মৃত্য়ু প্রাথমিকের পড়ুয়ার, উত্তেজিত নদিয়ার জলকর মথুরাপুর

টোটোর ধাক্কায় প্রাণ গেল খুদের। শরীরের ওপর দিয়ে চলে যায় টোটো। গুরুতর চোট লাগে মাথায়। ঘটনাস্থলে গিয়ে টোটো চালককে আটক করেছে পুলিস। বুধবার দুর্ঘটনাটি ঘটে নদিয়ার জলকর মথুরাপুর ঘোষপাড়ায়। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। 

জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মতোই ঘুম থেকে উঠে স্কুলে যাওয়ার জন্য তৈরি হয়েছিল বছর ছয়ের রনি ঘোষ। প্রথম শ্রেণির পড়ুয়া সে। কিন্তু কে জানত, খুদের জন্য অপেক্ষা করছে মৃত্যু। রাস্তার পাশে বসে থাকাটাই যেন কাল হল তার। নদিয়ার জলকর মথুরাপুর ঘোষপাড়ায় দ্রুতগতির টোটোর ধাক্কায় অকালে প্রাণ যায় ওই খুদের। শিশুটির শরীরের ওপর দিয়ে চলে যায় টোটোটি এবং উল্টে যায় ঘটনাস্থলে। ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে রনি। 

এরপর গুরুতর জখম অবস্থায় রনিকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন। অন্যদিকে, ঘটনাস্থলে গিয়ে টোটো চালককে আটক করে ভীমপুর থানার পুলিস। প্রসঙ্গত, গত বছরই বেহালা চৌরাস্তার পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় বড়িষা হাই স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণির পড়ুয়া সৌরনীল সরকার। আর কত মৃত্যু হলে গতি কমবে? আর কত প্রাণ ঝরলে সচেতন হবে চালকেরা? উঠছে একাধিক প্রশ্ন 

a month ago


Jalpaiguri: পথ কুকুরকে বাঁচাতে গিয়ে বাইক দুর্ঘটনায় মৃত্য়ু পুলিস আধিকারিকের, শোকাহত পুলিস মহল

বর্তমান সমাজে যেখানে মানুষে মানুষে চলছে লড়াই, প্রায়ই শোনা যায় খুনের ঘটনা। সেখানে একটি পথ কুকুরকে বাঁচাতে গিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল এক পুলিস আধিকারিকের। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়িতে। জানা গিয়েছে, মৃত সাব ইন্সপেক্টর-এর নাম করুণাকান্তি রায়। বাড়ি জলপাইগুড়ির রাজগঞ্জের টোটাগছ এলাকায়। তিনি জলপাইগুড়ি পুলিসের মনিটরিং সেলের অফিসার ইনচার্জ-এর দায়িত্বে ছিলেন। 

জানা গিয়েছে, এদিন করুণাকান্তি রায় তাঁর বাইক নিয়ে বাড়ি থেকে জলপাইগুড়ির পুলিস লাইনে যাচ্ছিলেন প্যারেড রাউণ্ডে যোগ দিতে। সেই সময় জলপাইগুড়ির হাসপাতাল পাড়ায় একটি পথকুকুর তাঁর বাইকের সামনে চলে আসে। সেই পথ কুকুরটিকে বাঁচাতে গিয়ে তিনি বাইকের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ডিভাইডারে ধাক্কা মারে। এর ফলে গুরুতর জখম হন তিনি। 

এরপর স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পাওয়া মাত্রই কোতোয়ালি থানার পুলিস দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই ইন্সপেক্টরকে উদ্ধার করে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসক তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পুলিস মহলে।

a month ago
Accident: ছেলেকে স্কুলে পৌঁছে বাড়ি ফেরার পথে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, লরিতে পিষ্ট মা ও গুরুতর আহত বাবা

সাতসকালে ঘটে গেল মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা। ঘটনায় মৃত স্ত্রী এবং গুরুতর আহত স্বামী। প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে উঠেছে একাধিক প্রশ্ন।মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে বনগাঁ ছয়ঘড়িয়ায়। পরিবার সূত্রে খবর, মৃত মহিলার নাম শ্রাবণী পাল ও আহত ব্য়ক্তির নাম সৌমেন পাল। বনগাঁ শিমুল তলার বাসিন্দা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিস গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মতো এদিন সকালেও ছেলেকে স্কুলে পৌঁছে বাইকে করে বাড়ি ফিরছিলেন ওই দম্পতি। সেই সময় ছয়ঘড়িয়া এলাকায় যশোর রোডের উপরে পিছন থেকে আসা একটি দ্রুতগামী লরি পিষে দেয় শ্রাবণী পালকে (স্ত্রী)। এবং গুরুতর আহত অবস্থায় বনগাঁ মহাকুমা হাসপাতালে ভর্তি সৌমেন পাল (স্বামী)। এই ঘটনা নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, এর আগেও একাধিকবার বনগাঁ এই এলাকায় পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে অনেকে, কিন্তু তারপরেও হুঁশ ফেরেনি প্রশাসনের।

a month ago


Accident: পিকনিক করে বাড়ি ফেরার পথে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা বিষ্ণুপুরের জাতীয় সড়কে, মৃত ১ আহত ২

লরির সঙ্গে ছোটো গাড়ির সংঘর্ষ। দুর্ঘটনায় মৃত গাড়ির চালক ও আহত আরও দুইজন। ঘটনাটি ঘটেছে বিষ্ণুপুরের ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে। জানা গিয়েছে, মৃত ব্য়ক্তির দীপক কুমার জানা (৪০)। বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানা এলাকায়। বর্তমানে আহত দুইজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

জানা যায়, পশ্চিম মেদিনীপুর থেকে একটি ছোট গাড়ি করে চালকসহ মোট ছয় জনা বাঁকুড়া এসেছিল পিকনিক করতে। শুশুনিয়া পাহাড় থেকে মুকুটমনিপুর পিকনিক করে বিষ্ণুপুর হয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরে ফিরছিলেন তাঁরা। ঠিক তখনই বাঁকাদহ চেকপোস্ট সংলগ্ন এলাকায় ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের সামনের দিক থেকে আসা একটি পণ্য বোঝাই লরির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনায় দুমড়ে মুচড়ে যায় ছোট গাড়িটি। রাস্তার পাশে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায় পণ্য বোঝাই লরিটি। 

এরপর তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে স্থানীয় বাসিন্দারা এবং বিষ্ণুপুর থানার পুলিস আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে যায় বিষ্ণুপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ছোট গাড়িচালক ৪২ বছরের দীপক কুমার জানাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আর আহত ২ ব্যক্তির অবস্থার অবনতি দেখে পাঠানো অন্যত্র। সমগ্র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

a month ago
Accident: ভাইকে স্কুল ছেড়ে বাড়ি ফেরার পথে প্রিজন ভ্য়ানে পিষে মৃত্য়ু নাবালক দাদার, উত্তেজিত টিটাগড়

পুলিসের প্রিজন ভ্যানের ধাক্কায় মৃত্য়ু হল এক নাবালকের। বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে টিটাগড় থানা এলাকায়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয়রা টিটাগর থানার সামনে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সাগর দত্ত হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম সুজল হেলা (১৭)। টিটাগড় পুরসভার অন্তর্গত ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের হেলা পাড়ার বাসিন্দা। এদিন সকালে ৯ টা নাগাদ সে তার ভাইকে স্কুলে পৌঁছতে গিয়েছিল। সেখান থেকে স্কুটি করে বাড়ি ফেরার সময় একটি দ্রুতগামী প্রিজন ভ্য়ান তাকে ওভারটেক করতে গিয়ে তার ওপরেই উঠে যায়। এরপর প্রিজন ভ্য়ানের ধাক্কায় পিষে ঘটনাস্থলেই মৃত্য়ু হয় তার। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, কোনও ট্রাফিক পুলিস না থাকার কারণেই আজকের এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। যার ফলে রাস্তা আটকে শুরু হয় স্থানীয়দের বিক্ষোভ। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় টিটাগর পুরসভার পুরপ্রধান কমলেশ সাউ। তিনি নিহতের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন। 

a month ago
Accident: মদ্য়পের তাণ্ডব! পরপর তিন থেকে চারটি গাড়িতে ধাক্কা, আহত ভ্য়ান চালক

ফের শহর কলকাতায় ঘটে গেল গাড়ি দুর্ঘটনা। আহত ভ্য়ান চালক। অভিযোগ, মদ্য়প অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে ধাক্কা মারেন ভ্যান চালককে। ঘটনার পর আটক করা হয় অভিযুক্ত গাড়ি চালককে। বুধবার সকাল ছয়টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে সেন্ট্রাল অ্য়াভিনিউতে। জানা গিয়েছে, আহত ভ্য়ান চালকের নাম মোহাম্মদ আলী। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

প্রত্য়ক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানান, এদিন সকাল ছটা নাগাদ মোহাম্মদ আলী পার্কের দিক থেকে সেন্ট্রাল অ্য়াভিনিউ-এর দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। সেই সময় একটি বিলাসবহুল গাড়ি রাস্তায় চলতে চলতে প্রায় তিন থেকে চারটি গাড়িকে ধাক্কা মারে। অভিযোগ, রীতিমতো মদ্য়প অবস্থায় ছিলেন ওই গাড়ির চালক। শেষমেষ সেন্ট্রাল অ্য়াভিনিউ এর মুখে এসে ওই বিলাসবহুল গাড়িটি ধাক্কা মারে ভ্য়ান চালককে। ঘটনায় গুরুতর আহত হন ভ্যান চালক। এরপর তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে মেডিক্য়াল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এবং অভিযুক্ত ওই গাড়ির চালককে জোড়াসাঁকো থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। পাশাপাশি তার শরীরে অ্যালকোহলের পরিমাণ পরীক্ষা করার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। ঘাতক গাড়িটিকে নিয়ে যাওয়া হয় জোড়াসাঁকো থানায়।

পুলিস সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই গাড়ি চালককে যখন গাড়ি থেকে নামানো হয় তখন সে মদ্য়প অবস্থায় থাকায় দাঁড়ানোর মতো ক্ষমতা ছিল না তার। এরপর গাড়ি থেকে নেমে অভিযুক্ত গাড়ি চালক ট্রাফিক পুলিসের উপর রীতিমতো অকথ্য় ভাষা এবং অভব্য় আচরণ শুরু করেছিল বলে অভিযোগ। এই গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। 

a month ago


Accident: সাতসকালে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, পাথর বোঝাই গাড়ি চাকায় পিষে মৃত্য়ু এক ব্যক্তির

সাতসকালে ঘটে গেল মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা। বেপরোয়া পাথর বোঝাই গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। ঘটনার পর থেকে পলাতক ঘাতক লড়ি সহ অভিযুক্ত। ঘটনায় চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে ঝাড়গ্রাম শহরে। জানা গিয়েছে, মৃত ব্য়ক্তির নাম শশাঙ্ক পাত্র। বাড়ি ঝাড়গ্রাম শহরের সত্যবান পল্লীতে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ঝাড়গ্রাম থানার পুলিস গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পুলিসি মর্গে পাঠায়। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে গুটি বোঝাই করা ট্রাক ওই ব্যক্তিকে ধাক্কা মেরে বেরিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকেই এলাকায় তৈরি হয় ব্যাপক উত্তেজনা। এরপর খবর দেওয়া হয় ঝাড়গ্রাম থানার পুলিসকে। ঘটনাস্থলে পুলিস যাওয়ার পর যানচলাচল ফের স্বাভাবিক হয়। যদিও এখনও পর্যন্ত ঘাতক গাড়িটিকে ধরা সম্ভব হয়নি। তবে ইতিমধ্য়ে অভিযুক্ত গাড়ির চালকের খোঁজ শুরু করেছে পুলিস। 

2 months ago
Accident: বেপরোয়া গাড়ি, বর্ষবরণের রাতে দুর্ঘটনা, মৃত পুলিস কর্মী

রবিবার বর্ষবরণের রাতে  পুরুলিয়ার রাঘবপুর মোড়ে যান নিয়ন্ত্রণের কাজ করছিলেন পুরুলিয়ার ডিএসপি (ট্র্যাফিক) পদমর্যাদার এক আধিকারিক সহ পাঁচ পুলিস কর্মী। আচমকাই  একটি গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুলিস কর্মীদের ধাক্কা মারলে ভয়ানক দুর্ঘটনাটি ঘটে। বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় বাবলু গড়াই নামে এক পুলিস কর্মীর।  ঘটনায় গুরুতর জখম ডিএসপি পদমর্যাদার এক আধিকারিক সহ আরও চার পুলিস কর্মী। 

সোমবার তৃণমূল প্রতিষ্ঠা দিবস সেরে ফির ছিলেন পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি নিবেদিতা মাহাতো, সহ অন্যান তৃণমূলের নেতা কর্মীরা। তাঁদের উদ্যোগেই আহতদের উদ্ধার করে পুরুলিয়ার দেবেন মাহাতো গভর্নমেন্ট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। 

জখম অবস্থায় বাবলু গড়াই নামে ওই পুলিস কর্মীকে সংকটজনক অবস্থায় দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষ রক্ষা হয়নি। মৃত পুলিস কর্মী পুরুলিয়ার বেলগুমা পুলিস লাইনে কর্মরত ছিলেন। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুরুলিয়া সদর থানার পুলিস।


2 months ago