Breaking News
BJP: ইস্তেহার প্রকাশ বিজেপির, 'এক দেশ এবং এক ভোট' লাগু করার প্রতিশ্রুতি      Fire: দমদমে ঝুপড়িতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড, ঘটনাস্থলে দমকলের একাধিক ইঞ্জিন      Bengaluru Blast: বেঙ্গালুরু ক্যাফে বিস্ফোরণকাণ্ডে কাঁথি থেকে দুই সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল এনআইএ      Sheikh Shahjahan: 'সিবিআই হলে ভালই হবে', হঠাৎ ভোলবদল শেখ শাহজাহানের      CBI: সন্দেশখালিকাণ্ডে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের...      NIA: ভূপতিনগর বিস্ফোরণকাণ্ডে এবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ NIA      ED: অবশেষে ইডির স্ক্যানারে চন্দ্রনাথের 'মোবাইল-হিস্ট্রি', খুলতে পারে নিয়োগ দুর্নীতি রহস্যের জট      PM Modi: তৃণমূল মানেই দুর্নীতি-লুট! ভোট প্রচারে সন্দেশখালির পর ভূপতিনগর নিয়ে সরব মোদী      NIA: ভূপতিনগর বিস্ফোরণকাণ্ডে গ্রেফতার আরও ২ , কেন্দ্রীয় এজেন্সির উপর হামলার ঘটনায় উদ্বিগ্ন কমিশন      Sheikh Shahjahan: বিজেপির 'দালাল'রা তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যে বলছে, দাবি শেখ শাহজাহানের     

StrayDog

Korea:শেল্টারে ক্ষুধার্ত রেখে কয়েক হাজার কুকুরকে খুনের অভিযোগে কাঠগড়ায় ব্যক্তি

অনেক পশুপ্রেমী রয়েছেন, যাঁরা পথকুকুরদের (stray dog) খাবার খাওয়ান। আবার অনেকে অসুস্থ পথকুকুরদের সেবা-শুশ্রুষা করেন। তেমনই এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে দেখাশোনার নামে কুকুরদের আটকে রেখে না খাইয়ে মারার (Murder) অভিযোগ উঠল। এক হাজার কুকুরের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর কাছ থেকে। ঘটনাটি দক্ষিণ কোরিয়ার (South Korea)।

কোরিয়ান-এর এক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, পথকুকুরের দেখাশোনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল এক ব্যক্তিকে। এর জন্য তাঁকে ন্যায্য মূল্যও দেওয়া হত। ২০২০ সালে থেকে এই দেখাশোনার কাজ করা শুরু করেন। কিন্তু অভিযোগ, কুকুরগুলিকে একটি ঘরে আটকে রেখে দিতেন, খাবার দিতেন না। ঠিক মতো চিকিৎসাও করানো হত না। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে এক ব্যক্তির মাধ্যমে। তাঁর কুকুর হারিয়ে যাওয়ায় তিনি বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করতে শুরু করেন। এরপর তিনি ওই ‘ডগ শেল্টারে’ খোঁজ করতে যান। সেখানে গিয়ে আঁতকে ওঠেন ওই ব্যক্তি।

তিনি দেখেন, খাঁচার ভিতরে কুকুরের মৃতদেহগুলি পড়ে। কিছু কুকুরের দেহ ঘরের এক জায়গায় স্তূপ করে রাখা। এরপরই পুলিসে খবর দেন তিনি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিস। প্রাথমিক ভাবে পুলিসের ধারণা, কুকুরগুলিকে দীর্ঘ দিন না খাইয়ে রাখায় অনাহারে মৃত্যু হয়েছে। ৪টি কুকুরকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিস। সেগুলি চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

one year ago
Dog: ফের কুকুরের আক্রমণে মৃত্যু, এবার হায়দরাবাদে পথকুকুরের কামড়ে মৃত খুদে

ফের পথকুকুরের (Stray Dog) হামলায় মৃত এক খুদে। এবার ঘটনাস্থল হায়দরাবাদ (Hyderabad Incident)। জানা গিয়েছে, রাস্তায় বেরোতেই তিনটে কুকুর ঘিরে ধরে বছর পাঁচেকের প্রদীপকে। কুকুর দেখে ভয় পেয়ে ছোটা শুরু করে সে। কিন্তু কুকুরগুলি তার পিছু নেয়। প্রথমে একটি কুকুর তার পোশাক টেনে ধরে। প্রদীপ তাড়ানোর চেষ্টা করলে আরও দু’টি কুকুর এসে খুদের পোশাক ধরে টান দেয়। তাতেই টাল সামলাতে না পেরে রাস্তায় পড়ে যায় সে। তারপর প্রদীপের শরীরের নানা জায়গায় কামড় বসাতে থাকে কুকুরগুলি। শিশুটি নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করেও কুকুরের আক্রমণ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারেনি। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। ভয়ঙ্কর সেই দৃশ্য ধরা পড়ে সিসি ক্যামেরায়।

হায়দরাবাদের অম্বরপেটের এই ঘটনায় পুলিস সূত্রে খবর, প্রদীপের বাবা অম্বরপেটের এক আবাসনে নিরাপত্তারক্ষীর কাজ করেন। রবিবার ছেলে প্রদীপকে নিজের সঙ্গে কর্মস্থলে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেসময় এই ঘটনা। আবাসনের সামনের রাস্তায় হাঁটছিল প্রদীপ। তাকে দেখে তিনটি কুকুর ছুটে আসে। কুকরগুলিকে দেখে এ দিক-ও দিক ছোটাছুটি শুরু করে প্রদীপ। তখনই একটি কুকুর তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। আর তাতেই রাস্তায় পড়ে যায় সে। তখন বাকি কুকুরগুলি প্রদীপের জামা টানতে শুরু করে। রাস্তা থেকে উঠে পড়েছিল প্রদীপ। কুকুরগুলিকে তাড়ানোর চেষ্টা করে। কিন্তু ব্যর্থ হয়।

one year ago
Child: পথকুকুরের হামলায় শিশুর মৃত্যু, সাহারানপুরে উত্তেজনা! স্থানীয়রা প্রসাশনে দ্বারস্থ

ফের পথকুকুরের (stray dogs) হামলায় (attacked) প্রাণ গেল শিশুর। শনিবার সন্ধ্যায় উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) সাহারানপুরের গাঙ্গোহ থানার অন্তর্গত বিলাসপুর গ্রামের ঘটনা। মৃত্যু (Death) হল ৭ বছরের ছেলের। নিজের বাড়ির কাছে একটি মাঠে খেলছিল কানহা নামে ওই শিশুটি। কানহা তখন খেলায় মত্ত। হঠাৎ সেখানে এক দল কুকুরের আবির্ভাব। আচমকা কানহার উপর হামলে পড়ে কুকুরের সেই দল। হামলার সময় পালানোর সুযোগ পায়নি শিশুটি।

চার দিক থেকে ঘিরে ফেলে হামলা চালায় কুকুরের দল। চিৎকার করতে থাকে বাঁচার জন্য। স্থানীয়রা যতক্ষণে শুনতে পান, ততক্ষণে তার মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কান্না শুনে স্থানীয়রা সাহায্য করতে ছুটে আসেন। কুকুরগুলিকে ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে কানহাকে উদ্ধার করেন এবং বাড়িতে নিয়ে যান। ছেলের এই অবস্থা দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন বাবা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা।

খবর দেওয়া হয় থানায়। পুলিসের কাছে স্থানীয়রা অভিযোগ জানান, রাস্তার কুকুরের উৎপাত অনেক দিন ধরেই বেড়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে জানিয়েও লাভ হয়নি। এমনকি কয়েকটি কুকুর অসুস্থ হয়েছে। সেই কুকুরগুলির চিকিৎসার ব্যবস্থাও করেনি। শিশুটির মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট নকুর রম্য আর। কুকুর নিয়ে পদক্ষেপ করার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

one year ago


Delhi: কুকুরদের খাওয়ানোর জের, মহিলাকে শ্লীলতাহানির হুমকি! অভিযুক্তদের মধ্যে এক নাবালক

পথকুকুরদের (Stray Dog) খাওয়ানোর জেরে এক মহিলাকে শ্লীলতাহানির হুমকি দেওয়ার চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠলো রাজধানী দিল্লিতে (Delhi Incident)। হেনস্থার পাশাপাশি শ্লীলতাহানির (Eve Teasing) হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন ওই মহিলা। গত কয়েকদিনে প্রায় ২ বার অভিযুক্তরা তাঁকে হুমকি দেয় বলে অভিযোগ ওঠে কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি দিল্লির দক্ষিণ-পশ্চিমের বাবা হরিদাস নগর এলাকার। গত ২২ জানুয়ারি ওই মহিলাকে প্রথম হুমকি দেন কয়েকজন। তিনি রোজ সকালে পোষ্যকে নিয়ে হাঁটতে যান।

এছাড়া তিনি রাস্তার কুকুরদের খাবার খেতেও দেন। মহিলা জানান, তাকে হুমকি দেওয়া হয় তিনি যাতে এই কাজ থেকে বিরত থাকেন। পুলিস জানান, প্রতিবেশীরাই তাঁকে হেনস্থা করার জন্য ওই ৩ জনকে পাঠিয়েছিলেন। পুলিস মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে। তবে ধৃতদের মধ্যে একজন নাবালক বাকি দু'জন ওই মহিলার পড়শি। গত শুক্রবার ফের হেনস্থা করার অভিযোগ তোলে ওই মহিলা।

পূর্বের দায়ের করা অভিযোগে ওই মহিলা যাতে কোনও জবানবন্দি না দেন, সেই নিয়ে ফের হুমকির মুখে পড়েন ওই মহিলা। এদিকে, কুকুর আক্রমণের ঘটনা একাধিক জায়গায় ঘটছে। নয়ডার আবাসনে ১ বছরের শিশুকে কামড়ানোর ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এক শিশুর।

সুরাতে এক বালিকাকে মুখে কামড়ে গালের মাংস ছিঁড়ে নেয় একটি কুকুর। গাজিয়াবাদে লিফটের মধ্যে এক শিশুকে কামড়ায় পোষ্য কুকুর। যার ফলে হইচই পড়েছে।

one year ago
Run Over: পথ কুকুরকে খাবার দেওয়ার সময় চণ্ডীগড়ে তরুণীকে গাড়ির ধাক্কা, মাথায় সেলাই নিয়ে চিকিৎসাধীন

পথকুকুরকে খাওয়াতে গিয়ে গুরুতর জখম (Injured) হলেন বছর ২৫-এর এক তরুণী। কুকুরের আক্রমণে তিনি আহত হননি, বরং দ্রুতগতিতে আসা একটি গাড়ি চাপা দিয়ে পালায়। খানিকটা দিল্লির হিট অ্যান্ড রান কাণ্ডের মতো। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা রবিবার রাতে ঘটেছে চণ্ডীগড়ে (Chandigarh)।

পুলিস সূত্রে খবর, তেজস্বিতা নামে ওই তরুণী রাত প্রায় সাড়ে ১১টা নাগাদ পথকুকুরদের খাওয়াতে বেরোন। রাস্তার এক পাশে দাঁড়িয়ে নিচু হয়ে খাবার দিচ্ছিলেন তিনি। সে সময় দ্রুতগতিতে ছুটে আসে একটি গাড়ি। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তেজস্বিতাকে ধাক্কা মেরে বেরিয়ে যান চালক। আহত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে ছটফট করতে থাকেন আর কুকুরদের চিৎকারে এক পথচারীর নজর পড়েন তেজস্বিতা। তিনি দেখেন, ওই আলো-আঁধারি রাস্তার পাশে পড়ে রয়েছে এক তরুণী।

সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুলিসে খবর দেন। পুলিসের টহলদারি ভ্যান এসে তেজস্বিতাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। খবর দেওয়া হয় তাঁর পরিবারকেও। জানা গিয়েছে, তাঁর মাথার দু’পাশে সেলাই পড়েছে। তবে জ্ঞান রয়েছে এবং কথাও বলতে পারছেন।

তেজস্বিতার বাবা ওজস্বী কৌশল এই ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ বের করে সেক্টর ৬১ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্ত চালককে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিস। ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

one year ago


Gujrat: সুরাতে কুকুরের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত নাবালিকা! বাঁচাতে এলে মাকেও আক্রমণ

উত্তরপ্রদেশের(Uttar Pradesh) গাজিয়াবাদের পর এবার গুজরাটের(Gujrat) সুরাতে কুকুরের আক্রমণে আহত নাবালিকা। এক কামড়ে নাবালিকার গাল থেকে মাংস খাবলে নেয় কুকুরটি। সিসিটিভি ফুটেজের ভিডিওয় দেখা গিয়েছে, নাবালিকা যখন তাঁর বাড়ির বাইরে খেলছিল তখন এই ঘটনাটি ঘটেছে। পথ কুকুরটির আক্রমণে রাস্তায় পড়ে যায় ওই নাবালিকা, কামড় বসায় তাঁর গালে। সেই মুহূর্তে আহত মেয়েটির চিৎকার শুনে তাঁর মা বাইরে এসে তাঁকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে সারমেয়টি (Dog) তাঁকেও আক্রমণ করে। এরপর সেই জায়গা থেকে পালিয়ে যান মা ও মেয়ে। পরক্ষণেই অন্য এক মহিলার উপরেও আক্রমণ করে সারমেয়টি।

আহত নাবালিকা স্থানীয় হাসপাতালে (Hospital) নিয়ে যাওয়া হলে মেয়েটির মুখে অনেকগুলি সেলাই পড়তে পারে বলে আশঙ্কাপ্রকাশ করেন চিকিৎসকরা। সম্প্রতি বিহারের বেগুসরাই জেলায় প্রায় ২৪টি পথ কুকুরকে গুলি করে মারা হয়েছে। কুকুরের আক্রমণের জেরেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

one year ago
Dogs: পথকুকুরের কামড়ে মৃত্যু, আতঙ্কে স্থানীয়রা, বেগুসরাইয়ে ৩০টি কুকুরকে হত্যা

নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকল গোটা দেশ। ইতিমধ্যে ৩০টি পথকুকুরকে গুলি করে হত্যার ঘটনা সামনে আসতেই নিন্দার ঝড় নেটদুনিয়ায়। এই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের বেগুসরাইয়ে। অভিযোগ, বাসিন্দাদের উপর পথকুকুরদের আক্রমণ রুখতে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। সেই মতো পাটনায় জেলা প্রশাসন এবং বন ও পরিবেশ দফতর একটি শুটার দল গঠন করেছে কুকুর হত্যার জন্য।

সরকারি আধিকারিকরা জানিয়েছেন, বেগুসরাই জেলার বাচ্ছওয়ারা ব্লকের বিভিন্ন গ্রামে পথকুকুরদের হামলার মুখে পড়ছেন বাসিন্দারা। বিপথগামী কুকুরের আতঙ্কের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুটারের দলটি পাটনা থেকে এসে মঙ্গলবার এবং বুধবার মিলিয়ে ৩০টি 'হিংস্র পথকুকুর' চিহ্নিত করে হত্যা করেছে প্রশাসন।

শক্তি কুমার নামে বন ও পরিবেশ দফতরের একজন শিকারী, তাঁর দলের সদস্যদের নিয়ে বাচওয়াদা, কাদরাবাদ, আরবা, ভিখমচক এবং রানি পঞ্চায়েতের বাহিয়ারে পৌঁছে হিংস্র কুকুরগুলিকে মারেন। স্থানীয় মানুষজনও এই কাজকে সমর্থন করছেন বলে জানা গিয়েছে।

রিপোর্ট অনুসারে, পথকুকুরদের আক্রমণের মুখে পড়ছেন বিশেষত মহিলারা। কুকুরের কামড়ে মৃত্যু হয়েছে ওই এলাকার প্রায় ১০ জন মহিলার। হিংস্র কুকুরদের হাত থেকে বাঁচাতে এলাকায় এ ধরনের প্রচার চালানো উচিত বলে মনে করছেন গ্রামবাসী।

তবে প্রশ্ন হচ্ছে? একেবারে গুলি করে হত্যা করার পিছনে কতটা যুক্তিকতা রয়েছে? তাদের না মেরে পশুলয়ে রেখে চিকিৎসা করানো উচিত বলে বলছেন পশুপ্রেমীরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, গ্রামবাসীরা মৃত পশুর দেহ উন্মুক্ত স্থানে ফেলে রাখছেন। যার জেরে সেগুলি খাচ্ছে কুকুররা। সে কারণেই হিংস্র হচ্ছে তারা।

one year ago
Dog: কেরলের মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে পথকুকুরের কামড়, জখম এক কিশোরী-সহ ৭

পথকুকুরদের হামলায় অতিষ্ঠ কয়েকজন নানাভাবে বিহিত চান। পথকুকুরদের কামড়ানোর ঘটনা নিয়ে মামলাও কম হয়নি। একাধিক জায়গায় মালিককে কড়া জরিমানার মুখে পড়তে হয়েছে। এবার ফের কেরলে পথকুকুরের আক্রমণে আহত হলেন ৭ জন। আহতদের মধ্যে রয়েছে ১২ বছরের এক কিশোরী। ঘটনাটি ঘটেছে নতুন বছরের শুরুতে রবিবার কোল্লামে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সেখানকার এক মন্দিরের সামনে কুকুরদের আক্রমণের মুখে পড়েন ৭ জন। ৩১ শে ডিসেম্বর ও ১লা জানুয়ারি এই দু’দিন কোল্লামের শ্রীধর্ম শাস্তা মন্দিরে ভক্তদের ঢল নেমেছিল। পুলিস জানিয়েছে, রবিবার বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ মন্দিরের সামনে ওই পুণ্যার্থীদের উপর চড়াও হয় কুকুরটি। ওই ৭ জন ভক্ত অন্য রাজ্যের বাসিন্দা। ১২ বছরের কিশোরী-সহ বাকি ভক্তদের কুলাথুপুজা সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়। মেয়েটির নাম অভিরামি। আহতদের মধ্যে দুজনের আঘাত গুরুতর। তাঁদের পুনালুর তালুক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়া ভক্তদের দিকে যখন কুকুরটি ছুটে যায়। তখন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিসকর্মীরা পুণ্যার্থীদের বাঁচাতে ছুটে যান। উল্টে তাঁদের দিকেও তাড়া করে পথকুকুর।

one year ago


Bankura: গর্ভেই মৃত সন্তান! সংক্রমণে ধুঁকতে থাকা পথকুকুরকে বাঁচালেন দুই পশু চিকিৎসক

নিজেরা উদ্যোগ নিয়েই অস্ত্রোপচার করে পথকুকুরের (street dog) মৃত্যু রুখলেন দুই পশু চিকিৎসক। এমন ঘটনার সাক্ষী থাকল বাঁকুড়াবাসী। প্রসঙ্গত, পেটে থাকা অবস্থাতেই মৃত্যু হয় দুটি বাচ্চার। মৃত সেই বাচ্চার শরীর থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছিল মা কুকুরের ইউটেরাসে। যন্ত্রনায় ছটফট করতে থাকা সেই মা পথ কুকুরকে দেখে এগিয়ে আসেন দুই পশু চিকিৎসক (Veterinarian)। শেষ পর্যন্ত নিজেদের উদ্যোগে অস্ত্রোপচার করে সেই পথ কুকুরকে বাঁচানোর চেষ্টা চালালেন দুই পশু চিকিৎসক ও এক পশু প্রেমী (animal lover)। আপাতত সুস্থই রয়েছে সেই মা কুকুর।

বাঁকুড়ার (Bankura) মাচানতলায় বেশ কিছুদিন ধরেই একটি মা কুকুরকে অসুস্থ অবস্থায় ঘুরে বেড়াতে দেখছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিষয়টি নজর এড়ায়নি বাঁকুড়ার এক সারমেয় প্রেমী মধুমিতা দাস ও স্থানীয় প্রাণীবন্ধু শুভাশিষ তেওয়ারির। কুকুরটিকে দেখেই শুভাশিষ বাবু বুঝতে পারেন মা কুকুরটির পেটে থাকা বাচ্চার মৃত্যু হয়েছে।

সেখান থেকেই মা কুকুরের শরীরে ছড়িয়েছে সংক্রমণ। এরপর পশুপ্রেমী মধুমিতা দেবীর উদ্যোগে দ্রুত খবর দেওয়া হয় পশু চিকিৎসক তাপস বিশ্বাসকে। তড়িঘড়ি মাচানতলা এলাকার মানুষের কাছে টেবিল চেয়ে খোলা আকাশের নিচে তৈরি করে ফেলা হয় অস্থায়ী অপারেশান থিয়েটার। সেখানে মা কুকুরটির শরীরে অস্ত্রোপচার করে চিকিৎসকরা বের করে আনেন মৃত শাবকগুলিকে। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় কেটে বাদ দিতে হয় ইউটেরাসও।

অস্ত্রোপচারের পর কিছুক্ষণ স্যালাইন ও অন্য ইঞ্জেকশান চালাতেই চাঙা হয়ে ওঠে মা কুকুরটি। কুকুরটির শরীরে অস্ত্রোপচার সফল হওয়ায় খুশি পশুপ্রেমী থেকে দুই পশু চিকিৎসকও। 

one year ago
Stray Dog: রোগীদের পাশেই ফাঁকা বেডে শুয়ে পথকুকুর, কাঠগড়ায় মান্দালিয়া জেলা হাসপাতাল

হাসপাতালের রোগীদের বিছানায় শুয়ে পথকুকুর (Stray Dog)। দেখে মনে হচ্ছে তারও চিকিৎসা চলছে অন্যান্য রোগীদের মতো। হাসপাতালের (Hospital) ওই রুমে একটি ফাঁকা বিছানায় আরাম করে শুয়ে রয়েছে পথকুকুরটি। আর তার আশেপাশের বেডে রয়েছেন রোগীরা। হাসপাতালের এমন গাফিলতির চিত্র ধরা পড়ল উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) আজমগড়ের মান্দালিয়া জেলা হাসপাতালে।

ওই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও ওই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি সিএন পোর্টাল। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, হাসপাতালের জেনারেল ওয়ার্ডের বিছানায় বিন্দাস শুয়ে রয়েছে একটি পথকুকুর। পাশে চলছে অন্য রোগীদের চিকিৎসা। আর তা নিয়ে কোনও হেলদোল নেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই বিক্ষোভ দেখান রোগীর পরিজনেরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে চিকিৎসা নিয়ে গাফিলতির অভিযোগ তোলেন।

উল্লেখ্য, মান্দালিয়া জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে এর আগেও অভিযোগ উঠেছিল। এর আগের ঘটনা আরও ভয়ংকর। হাসপাতালের মধ্যেই এক মৃত রোগীর দেহাংশ মুখে নিয়ে ঘুরতে দেখা গিয়েছিল কুকুরকে। সেই ভিডিও ঝড়ের বেগে ভাইরাল হয়েছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে নোটিশও পাঠানো হয়েছিল।

সেই সময় কর্তৃপক্ষ আশ্বাস দিয়েছিলেন যে, এই ঘটনা আর ঘটবে না। তবে সাম্প্রতিক ভাইরাল হওয়া ভিডিও থেকে স্পষ্ট, হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ এখনও কড়া কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। এই ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনও মন্তব্য করেননি।

one year ago


stray dog: 'প্রকাশ্য স্থানে পথকুকুরদের খাওয়ানো যাবে না', নির্দেশ বম্বে হাইকোর্টের

পথকুকরদের (stray dog) আক্রমণে (Attacked) আতঙ্কিত নাগপুরবাসী। ক্রমাগত বেড়ে যাচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বম্বে হাইকোর্ট (Bombay High Court) বৃহস্পতিবার নির্দেশ দিয়েছে যে, "কোনও নাগরিকের প্রকাশ্য স্থানে অথবা বাগান ইত্যাদি জায়গায় পথ কুকুরদের খাওয়ানো বা খাওয়ানোর চেষ্টা করা উচিত নয়।"

বিচারপতি এস বি শুক্রে এবং এএল পানসারের বেঞ্চ নাগপুর মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের (এনএমসি) মিউনিসিপ্যাল ​​কমিশনারকে আরও নির্দেশ দিয়েছে যে, এই ধরনের পথকুকুরদের নিজের বাড়ি ছাড়া অন্য কোনও জায়গায় খাবার দেওয়া যাবে না।

২০ অক্টোবর বেঞ্চ আরও বলেছে, যদি কোনও ব্যক্তি পথকুকুরদের খাওয়াতে আগ্রহী হন, সেক্ষেত্রে ওই পথকুকুরদের দত্তক নিতে হবে। তার আগে পুর  কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আইনি  পথে কাগজপত্র সই করতে হবে। এরপর নিজের বাড়ি নিয়ে গিয়ে হোক বা কোনও কুকুরের আশ্রয়কেন্দ্রে তাকে রেখে যত্ন নিতে পারেন বা খাওয়াতে পারেন।

আদালত নাগপুর মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের কমিশনারকেও নির্দেশ দিয়েছে যে, কুকুর খাওয়ানোর নিজস্ব জায়গা বা কুকুরের আশ্রয়কেন্দ্র বা অন্য কোনও অনুমোদিত জায়গা ছাড়া কোনও জায়গায় রাস্তার কুকুরদের খাওয়ানো যাবে না। সে বিষয়ে যেন নজর রাখে কর্পোরেশন। এমনকি কমিশনার এই নির্দেশাবলী লঙ্ঘনের জন্য উপযুক্ত জরিমানাও ধার্য করা হবে।  আর সেই জরিমানা ২০০টাকারও বেশি হতে পারে।

বেঞ্চ আরও বলেছে যে, "এখন ব্যবস্থা নেওয়ার সময় এসেছে।" যদিও, আদালত বলেছে যে, এই পদক্ষেপ একেবারে কুকুরের আক্রমণ থেকে বাঁচানো যাবে তা নয়, তবে বিপদ থেকে কিছুটা রেহাই মিলতে পারে। আক্রমণকারী কুকুরকে নির্দেশিত পদ্ধতি অনুসারে ট্রেনিং দিতে হবে। তাদের একটি মনিটরিং কমিটির কাছে হস্তান্তর করতে হবে। এভাবে, পুলিস কমিশনার এবং পুলিস সুপার, নাগপুর (গ্রামীণ) কেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে,  "বিপথগামী কুকুর থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য তাদের নিজ নিজ এলাকায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে।"

পথ কুকুরের জন্মনিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্দেশ্যে ১৭ কোটি টাকার তহবিল বরাদ্দ করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। আদালত বরাদ্দ মঞ্জুর করে অবিলম্বে এ অর্থ ছাড়ের নির্দেশ দিয়েছে। জন্মনিয়ন্ত্রনের ক্ষেত্রে কুকুরদের অন্ডকোষ বা ডিম্বাশয় অপসারণের কথা বলেছে। ও বলা হয়েছে, অস্ত্রোপচারের পর ওই কুকুরদের যাবতীয় যত্ন নিতে হবে।

one year ago
Madhya Pradesh: ফের পথ কুকুরের আক্রমণ! মৃত্যু ৫ বছরের মেয়ের

ফের পথকুকুরের (stray dogs) আক্রমণে (attacked) মৃত্যু (Death) পাঁচ বছরের এক শিশু কন্যার (girl)। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) খারগোনে। সোনিয়া নামের ওই কিশোরীকে ঘাড়ে ও শরীরের অন্যান্য অংশে আক্রমণ করে কুকুর। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে মারা যায় সোনিয়া।

বেদিয়া থানার অন্তর্গত বাকাওয়া গ্রামের বাসিন্দা কিশোরী। শুক্রবার বিকেলে পাশের একটি দোকান থেকে মুদি সামগ্রী কিনতে যাওয়ার সময় রাস্তায়র প্রায় ৬টি  কুকুরের আক্রমণের শিকার হয় ওই কিশোরী। তার বাবা পেশায় একজন শ্রমিক, কিছু কাজের জন্য বাইরে ছিলেন। তখনই এ ঘটনা ঘটে। কান্না শুনে স্থানীয়রা সাহায্য করতে ছুটে আসেন। এবং কুকুর গুলিকে ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে সোনিয়াকে উদ্ধার করেন।

এরপর স্থানীয়রাই তাকে বেদিয়ার একটি সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পরে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  কিন্তু আঘাত এতটাই গুরুতর ছিল শেষ রক্ষা হয়নি কিশোরীর। 


one year ago