Breaking News
HC: জেলে ১ বছর ৭ মাস! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিচারপ্রক্রিয়া কবে শুরু হবে? ইডির কাছে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের      Sandeshkhali: ''দাদা আমাদের বাঁচান...'', সন্দেশখালির মহিলাদের আর্তি শুনলেন শুভেন্দু      Sandeshkhali: 'মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত', ক্ষোভ প্রকাশ জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সনের      Weather: বিদায়ের পথে শীত! বাড়বে তাপমাত্রা, বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণবঙ্গে      Sandeshkhali: শিবু হাজরার গ্রেফতারিতে মিষ্টি বিলি, আদালতে পেশ, কবে গ্রেফতার সন্দেশখালির 'মাস্টারমাইন্ড'?      Arrest: সন্দেশখালিকাণ্ডে ন্যাজট থেকে গ্রেফতার শিবু হাজরা      Trafficking: ১০ মাস লড়াইয়ের পর মাদক মামলা থেকে মুক্তি বিজেপি নেত্রী পামেলার      Mimi: রাজনীতি আমার জন্য় নয়, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গিয়ে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা মিমির!      Dev: রাজনীতিতে ফিরতেই ফের দেবকে দিল্লিতে ডাক ইডির      Suvendu: সুকান্ত অসুস্থ থাকলেও, সন্দেশখালি কাণ্ডে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়াতে মাঠে শুভেন্দু     

Shootout

Shootout: ভোররাতে বাড়ি ফেরার সময় তৃণমূলের জয়ী পঞ্চায়েত সদস্যকে গুলি করে খুন, তদন্তে পুলিস

রবিবার ভোররাতে গুলি চলল বসিরহাটে। এদিন, তৃণমূলের দাপুটে নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। বসিরহাটের হাড়োয়া থানার খাসবালান্দা গ্রাম পঞ্চায়েতের সামলা এলাকার ঘটনা।

মৃতের নাম শেখ সাহেব আলী। তৃণমূল কংগ্রেসের কিষান-ক্ষেতমজুর সেলের হাড়োয়া এক নম্বর ব্লক সভাপতি ছিলেন তিনি। একইসঙ্গে খাশবালান্দা গ্রাম পঞ্চায়েতের বিহারী গ্রামের ২৪৩নং বুথের জয়ী পঞ্চায়েত সদস্য ছিলেন শেখ সাহেব। জানা গিয়েছে, বাড়িতে ফেরার সময় গুলিবিদ্ধ হন তিনি।

জানা গিয়েছে, রবিবার ভোররাতে অঞ্চল সভাপতির বাড়ি ফিরছিলেন শেখ সাহেব। বাইকে চেপেই ফিরছিলেন। সামলা বাজার এলাকায় আসতেই তাঁর পথ আটকে দেয় ১০ থেকে ১৫ জন দুষ্কৃতী। ঘিরে ধরে তাঁকে। অভিযোগ, এরপরই তাঁকে লক্ষ্য করে পরপর গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। 

গুলির শব্দ ও তৃণমূল নেতার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। তাঁকে তড়িঘড়ি হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

6 months ago
Noyapara: ফুল কিনতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ এক ব্যক্তি, তদন্তে পুলিস

সকালে পুজোর ফুল কিনতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ (Shootout) হল এক ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে নোয়াপাড়া (Noyapara) থানার অন্তর্গত ২১ নম্বর রেলগেটের সামনে। গুরুতর আহত (Injured) অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে ব্যারাকপুরেরে বিএন হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে ইতিমধ্যেই ব্যারাকপুরের বিএন হাসপাতালে থেকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় নোয়াপাডা় ও বাসুদেবপুর থানার পুলিস (Police) বাহিনী। ঘটনাস্থলে থাকা বাকি দোকানদের কাছ থেকে এই ঘটনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি বলে জানা গিয়েছে। তবে ঘটনাকে ঘিরে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।    

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিস জানায়, ঘটনায় আহত ওই ব্যক্তির নাম রবিন দাস। তিনি পেশায় একজন ব্যবসায়ী। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি ২১ নম্বর রেলগেটের সামেনে ফুল কিনতে যায়। ঠিক তখনই দুইজন দুষ্কৃতী বাজারে আসে এবং ওই ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে দুই রাউণ্ড গুলি করে। প্রথম গুলিটি না লাগলেও দ্বিতীয় নম্বর গুলিটি রবিন দাসের পিঠে লাগে। তারপরেই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় ওই দুই দুষ্কৃতী। পুলিসের দাবি, ওই এলাকার সিসিটিভি ক্যামেরা থেকে ঘটনার সময়কার ফুটেজ গুলি সংগ্রহ করা হয়েছে। এমনকি ওই ফুটেজে দুই অভিযুক্তকেও দেখা গিয়েছে। ইতিমধ্যেই ওই দুই অভিযুক্তর খোঁজে তাল্লাশিও করা হচ্ছে।

7 months ago
Laketown: ব্যক্তিগত কারণে খুন লেকটাউনের দমকল কর্মী! গ্রেফতার অভিযুক্ত ৫ সহ অস্ত্র সরবরাহকারী

লেকটাউনে (Laketown) দমকল কর্মী স্নেহাশীষ রায়কে গুলি (Shootout) করে খুন (Death) করার ঘটনায় নয়া মোড়। এই খুনের ঘটনায় ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে মূল অভিযুক্ত সাগর হালদার সহ ৪ জনকে। এমনকি অভিযুক্তদের অস্ত্র সরবরাহ করার অপরাধে গ্রেফতার করা হয়েছে সঞ্জু মণ্ডল নামের এক ব্যক্তিকে। পুলিস (Police) সূত্রে জানা গিয়েছে, মূলত ব্যক্তিগত কারণেই পরিকল্পনা মাফিক খুন করা হয়েছে ওই দমকল কর্মীকে। এই ঘটনায় জড়িত অভিযুক্তদের নাম সাগর হালদার, তন্ময় পাল, আকাশ মল্লিক, আয়ুষ শর্মা এবং আফরাজ আনসারি। খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র ও পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।  

এই ঘটনায় বিধান নগরের ডিসি বিশপ সরকার জানান, ধৃত সাগর হালদারের সঙ্গে মৃত স্নেহাশীষ রায়ের একটি যৌথ লটারির ব্যবসা ছিল। তবে ব্যবসাটি কোনওকারণে বন্ধ হয়ে যায়, যার ফলে সাগরের মনে হয়েছিল এই ব্যবসা বন্ধ হওয়ার পিছনে স্নেহাশীষ দায়ী। এছাড়াও সাগর একবার নিজের স্ত্রী ও স্নেহাশীষকে একসঙ্গে দেখে ফেলে। যার জন্যে তার সন্দেহ হয়েছিল স্নেহাশীষ ও তার স্ত্রীর মধ্যে কোনও ধরনের সম্পর্ক রয়েছে। আর মূলত এই দুটি কারণেই সাগর স্নেহাশীষকে খুন করার পরিকল্পনা করে। 

পুলিস আরও জানায়, সাগরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে এই খুনের কথা স্বীকার করে। এমনকি সে নিজেই বলে, ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরেই সে দমকল কর্মীকে খুন করেছে। স্নেহাশীষকে খুন করার জন্য সাগর তন্ময় পালকে সুপারিশ করে। তন্ময় পাল ৭০ হাজার টাকার বিনিময়ে সুপারি দিয়েছিল আকাশ মল্লিককে। পরে আকাশ মল্লিক কিলারদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। আর তারপরেই খুন করা হয় ওই দমকল কর্মীকে, প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে এমনটাই জানাচ্ছেন পুলিস।

7 months ago


Chaos: ভোট পরবর্তী হিংসা গোটা রাজ্য জুড়ে, চলছে পুলিসের লাঠি চার্জ

ভোট পরবর্তী হিংসা বেশ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে গোটা রাজ্য জুড়ে। পুননির্বাচনের দাবিতে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে, দলীয় পতাকা নিয়ে রাস্তা অবরোধ ও বোমাবাজি করা হচ্ছে ক্রমাগত। প্রায় বেশিরভাগ বুথেই শুরু হয়েছে সেই বিক্ষোভ। পঞ্চায়েত নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণের পর থেকেই শুরু হয়েছে এই ঘটনা। শনিবার ভোট শেষ হয়ে গেলেও হিংসা, মারামারি, বোমাবাজি এখনও বন্ধ হয়নি। শনিবার দিনভর বুথে বুথে চলেছে ব্যালট লুঠ, ছাপ্পা ভোট ও মারধর। তবে এখনও সেই ঘটনা অব্যাহত রয়েছে পঞ্চায়েত এলাকাগুলিতে। 

আমডাঙা, নন্দকুমার, দিনহাটা, সালার সহ বেশকিছু পঞ্চায়েত এলাকা অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে পরিণত হয়েছে। তৃণমূল সিপিআইএম-এর সংঘর্ষে জেলায় জেলায় শুরু হয়েছে বোমাবাজি। যদিও পুলিস বাহিনীকে দেখা গিয়েছে এই ঘটনায় লাঠি চার্জ করতে। বিক্ষোভকারীদের আটক করে তাঁদের লাঠি দিয়ে ব্যাপক মারধর করছে পুলিস। তাতেও পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যাচ্ছে না, এমনটাই দেখা যাচ্ছে। 

তবে নির্বাচনের দিন অর্থাত্ শনিবার পুলিসের সক্রিয়তা তেমন লক্ষ্য করা যায়নি। যার ফলে মৃত্যু হয়েছে অনেক কর্মী সমর্থকদের। বোমের আঘাতে, গুলির আঘাতে আহতও হয়েছেন অনেকে। তবে আজা সেই দিকে পুলিসের ততপরতা অনেকখানি লক্ষ্য করছে রাজ্যবাসী।   

8 months ago
Cooch Behar: দফায় দফায় বোমাবাজি,গুলি, ছাপ্পা, হিংসায়-মৃত্যুতে পাল্লা দিয়ে উত্তপ্ত কোচবিহার

অর্ধেক নির্বাচন সম্পূর্ণ। আর এই নির্বাচনের মধ্যেই জেলায় জেলায় শুরু হয়েছে মারধর, ছাপ্পা ভোট, ব্যালট বক্সে আগুন লাগিয়ে দেওয়া, গুলি, বোমাবাজির মত ঘটনা। নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ হওয়ার পর থেকেই রাজ্যের জেলায়গুলিতে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিত তৈরি হয়েছিল। তারপরেই মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে বোমাবাজি, মারধর শুরু হয়েছিল। সব মিলিয়ে এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আহত-নিহতও হয়েছেন বহু। ঠিক একইভাবে কোচবিহারের প্রত্যেক বুথেই শুরু হয়েছে অশান্তি। তবে কোচবিহারের দিনাহাটতে এই নির্বাচন নিয়ে একটু বেশিই উত্তাপ তৈরি হয়েছে। দিনহাটার ভিলেজ ওয়ান গ্রাম পঞ্চায়েতের কালীরপাট স্কুলে বিজেপি কর্মীকে গুলির অভিযোগ উঠেছে শাসক দলের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় চিরঞ্জিত কাজী, রাধিকা বর্মন নামের দুই বিজেপি কর্মী গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। তাঁদের মধ্যে ইতি মধ্যেই চিরঞ্জিত কাজীর মৃত্যু হয়েছে। এখনও অবধি রাজ্যে ভোট ঘোষণা হবার পরে কোচবিহারে মোট ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ অর্থাৎ নির্বাচনের দিনে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

অন্যদিকে, কোচবিহার দক্ষিণ বিধানসভা ফলিমারি গ্রাম ৪/৩৮ নম্বর বুথ কেন্দ্রে বোমাবাজি। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ভোট কেন্দ্রের বাইরে বিজেপির এজেন্ট মাধব বিশ্বাস নামের ওই ব্যক্তিকে গুলি করে খুন করা হয়েছে, এমনটাই অভিযোগ উঠছে শাসক দলের বিরুদ্ধে। দিনহাটা নিউ গীতালদাহ এলাকায় চলল গুলি আহত ৩ জন বিজেপি কর্মী। এই ঘটনার পরেই ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ নজরুল শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে। ভোট কেন্দ্র ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন ভোট কর্মীরা৷ কোচবিহারের বেশ কিছু জায়গায় ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ করা হয়েছে। কোচবিহারের মাথাভাঙা ১, ২ এবং ১৯৭ নম্বর বুথে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া। কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবিতে তুফানগঞ্জ ১ নম্বর ব্লকের বলরামপুর ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের নন্দী ছেচুড়া ৮/২১৭ বুথে ভোট বয়কট।

এমনকি গোটা কোচবিহার বিহার জুড়ে ব্যালট বক্স চুরি করার অভিযোগ উঠছে শাসক দলের বিরুদ্ধে। মূলত ছাপ্পা ভোট দিয়ে শাসক দলকে জয়ী করতেই এমন ঘটনা ঘটাচ্ছে শাসক দল, এমনটাই অভিযোগ। তবে এই ঘটনার প্রতিবাদ করেছে বিরোধী দলের কর্মীরা। এত গুলি, বোমাবাজি, মারধরের পরেও বুথের বাইরে দেখা মিলছে না কেন্দ্রীয় বাহিনীর। সব মিলিয়ে বেশ এখন উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে কোচবিহার।

8 months ago


Texas: টেক্সাসের শপিং মলে হামলা, মৃত ৯, পুলিসের গুলিতে মৃত্যু বন্দুকবাজ যুবকের

টেক্সাস (Texas Mall) মলে বন্দুকবাজের (Shootout) হামলা। হামলায় আহত মোট ১৬ জন। যার মধ্যে মৃত্যু (Death) হয়েছে ৯ জনের। মৃতদের মধ্যে রয়েছে ৫ বছরের একটি শিশুও। আহতদের সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছিল পুলিস (Police)। যদিও পুলিসের গুলিতে মৃত্যু হয় ওই বন্দুকবাজের। ঘটনাটি ঘটেছে টেক্সাসের অ্যালেনের অ্যালেন প্রিমিয়াম আউটলেট মলে।

সূত্রের খবর, এই ঘটনাটি শনিবার ঘটে। ঘটনার সময় ওই শপিং মলে বেশ ভালোই ভিড় হয়েছিল। সবাই শপিং করতে ব্যস্ত ছিলেন সেসময়। সেই সময়ই আচমকা এক বন্দুকবাজ গুলি চালাতে শুরু করেন। কিছুক্ষণ এই গুলিবর্ষণ চলার পর মলে উপস্থিত থাকা পুলিস কর্মীরাও ওই বন্দুকবাজের দিকে গুলি চালাতে থাকেন। এমনকি শপিং মলের মধ্যে পুলিসের গুলিতেই মৃত্যু হয় ওই বন্দুকবাজ যুবকের।   

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে খবর, বন্দুকবাজ যুবক একাই ওই মলে গুলিবর্ষণ করছিল। তবে এর পিছনে আর অন্য কেউ জড়িয়ে আছে কিনা তাঁর তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।  

10 months ago
Shootout: ভরদুপুরে শুটআউট শহর কলকাতা লাগোয়া এলাকায়, সাক্ষী দিয়ে ফেরার পথে গুলিবিদ্ধ যুবক

ভরদুপুরে বজবজে (BudgeBudge) শুট আউট (Shootout)। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত ব্যক্তি এসএসকেএমে (SSKM) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুলিস জানিয়েছে আহত ওই ব্যক্তির নাম শেখ আলতাব উদ্দিন। পুলিস আরও জানিয়েছে, আহত ওই ব্যক্তি পুরোনো একটি মামলায় আলিপুর কোর্ট থেকে সাক্ষী দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন।

সূত্রের খবর, ট্রেনে বজবজে ফিরে সেখান থেকে বাইকে ওঠেন ওই ব্যাক্তি। অভিযোগ বাইক লক্ষ্য করে গুলি চালায় শোভরাজ গাজী নামে এক যুবক। গুলি লেগে জখম হন আলতাব। আদালত থেকে বেরিয়ে আলিপুর কোর্টের সাক্ষী দিয়ে ফেরছিলেন তিনি। অভিযুক্ত সোভরাজ গাজীর খোঁজে চলেছি তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিস।

ঘটনা আসলে পৌঁছেছে বিশাল পুলিস বাহিনী। স্থানীয় ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে পুলিস। সিসিটিভি ফুটেজ দেখেই ওই বাইকের নাম্বার জোগাড় করে অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিস।

10 months ago
shootout: শক্তিগড় খুনের ১ মাসের মধ্যে ফের জাতীয় সড়কে খুন বিজেপি নেতা

শক্তিগড়ে কয়লা ব্যবসায়ী রাজু ঝা (Raju Jha) খুনের স্মৃতি এখনও টাটকা। জাতীয় সড়কের ওপর গাড়ির মধ্যে গুলি খুন করা হয় তাঁকে। সেই খুনের কিনারা এখনও হয়নি। তার মাঝেই শনিবার দিনেদুপুরে আসানসোলে একইভাবে খুন করা হল জামুড়িয়ার (Jamuria) এক বিজেপি নেতাকে (Asansol Shootout)। নিজের গাড়ি মধ্যেই আততায়ীর গুলিতে মৃত্যু হয় তাঁর। স্থানীয়দের নজরে প্রথম আসে ঘটনাটি। দেখেন, একটি চার চাকার গাড়ির চালকের আসনে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন রাজেন্দ্র সাউ, ঘটনাটি ঘটেছে জামুড়িয়া থানার অন্তর্গত ২ নম্বর জাতীয় সড়ক চান্দা মোড়ের কাছে। শনিবার দুপুরে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন রাস্তার পাশে একটি স্করপিও গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে। সেই গাড়ির ভেতরেই পড়ে রয়েছেন রাজেন্দ্র।

তৎক্ষণাৎ পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকরা। ওই ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করে আসানসোলে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। রানীসাইরের বাসিন্দা রাজেন্দ্র স্থানীয় এক রেশন দোকানের মালিক। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, ব্যবসা সংক্রান্ত কোনও কারণে তাঁর উপর হামলা করা হয়েছে। তবে এর পিছনে রাজনৈতিক কোনও কারণ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখতে শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

10 months ago


Titagarh: ভরদুপুরে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন তৃণমূলকর্মী, ব্যবসায়িক শত্রুতা?

কলকাতার অদূরে ভরদুপুরে শুটআউটের (Shootout) ঘটনা ঘটল। ওই গুলিতে নিহত হলেন এক তৃণমূল (TMC) কর্মী। পুলিস জানিয়েছে, শনিবার দুপুরে টিটাগড় (Titagarh) এলাকার ঘটনা। নিহত তৃণমূলকর্মীর নাম  আনোয়ার আলি। পুলিস (Police) জানিয়েছে, দুপুরে বাইকে করে আসা দুই দুষ্কৃতী আনোয়ারকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে এসে তড়িঘড়ি তাঁকে ব্যারাকপুর বিএন বসু হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হওয়ায় কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয় তাঁকে। কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় আনোয়ারের।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার দুপুরে নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরছিলেন আনোয়ার আলি। আলি হায়দার রোড ধরে যাওয়ার সময় মোটরবাইকে আসা দুই দুষ্কৃতী খুব কাছ থেকে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। মুখে গুলি লাগে আনোয়ার আলির। ভরদুপুরে জনবহল এলাকায় এমন কাণ্ডে হকচকিয়ে যান স্থানীয় মানুষজন। ততক্ষণে রাস্তার উপরেই লুটিয়ে পড়েছেন ওই গুলিবিদ্ধ তৃণমূল নেতা। স্থানীয় মানুষজন ছুটে এসে তাঁকে ব্যারাকপুরের বি এন বসু হাসপাতালে নিয়ে যান। ডাক্তাররা প্রাথমিক চিকিৎসার পর কলকাতার কোনও হাসপাতালে রেফার করেন তাঁকে। এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক টিটাগড়ে। সাইবার ক্যাফে,মানি লেন্ডিং এবং আরও কয়েকটি ব্যবসা করতেন আনোয়ার আলি। পুলিসের সন্দেহ সুদের কারবার নিয়েই ঝামেলার জেরেই খুন হয়েছেন আনোয়ার।

10 months ago
Saktigarh: সন্ধ্যার জনবহুল শক্তিগড়ে শুটআউট, পরপর গুলিতে মৃত এক

শক্তিগড়ে শুটআউটের ঘটনা, মৃত এক, আশঙ্কাজনক এক। জানা গিয়েছে, কয়লা ব্যবসায়ীকে লক্ষ্য করে গুলি। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় দু'জনকেই। কিন্তু অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে মৃত্যু হয়েছে কয়লা ব্যবসায়ী রাজু ঝায়ের। তাঁর সঙ্গী আরও একজন চিকিৎসাধীন। দু'জনকে লক্ষ্য করে প্রায় ছয় রাউন্ড গুলি চলে। শক্তিগড়ের ল্যাংচা হাবের সামনে গাড়ি থেকে ঝালমুড়ি কিনতে নামলেই এই হামলা। পূর্ব বর্ধমানের জনবহুল ল্যাংচা হাব এলাকায় কয়লা ব্যবসায়ীর দিকে এই গুলি চালনার ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্ক। জানা গিয়েছে, দু'জনকে লক্ষ্য করে পরপর গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা।

পূর্ব বর্ধমানের বিশাল পুলিস বাহিনী এলাকায়। আততায়ীর খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিস। হামলার পর কলকাতার দিকে রওয়ানা দেয় দুষ্কৃতীরা বলেই সূত্রের খবর। জানা গিয়েছে, ঘটনাস্থলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে কাঁচের টুকরো এবং রক্ত। পূর্ব বর্ধমানের সীমান্ত এলাকাজুড়ে চলছে পুলিসি তল্লাশি। এই হামলার নেপথ্যে পুরনো শত্রুতা কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিস। খবর গিয়েছে রাজু ঝায়ের পরিবারের কাছে। দুষ্কৃতীর সন্ধানে চলছে পুলিসের নাকা চেকিং।

11 months ago


Jagaddal: থানার ঢিল ছোড়া দূরত্বে ছুটির সকালে টিএমসি কর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি-বোমা

রবিবার সাতসকালে জগদ্দল (Shootout at Jagaddal) থানার ৩০ মিটারের মধ্যে স্থানীয় ব্যবসায়ী তথা তৃণমূল (TMC Worker) কর্মীকে গুলি-বোমা ছুড়ে খুনের চেষ্টা। রবিবার সকালে ভাটপাড়া পালঘাট রোডে এক সাইবার কাফে ব্যবসায়ীকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। তাঁকে প্রাণে মারতেই বোমাও ছোড়ে দুষ্কৃতীরা বলে এমনটাই অভিযোগ। জানা গিয়েছে, সকালবেলা বাজারে বেড়িয়েছিলেন ব্যবসায়ী অশোক সাউ। পাঁচজন দুষ্কৃতী তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে, বোমাবাজিও করা হয়েছে। যদিও গুলিটি তাঁর পিঠ ঘেষে বেড়িয়ে যায়। অল্পের জন্য রেহাই পায় অশোক। পুলিস ঘটনাস্থল থেকে গুলির খোল এবং কার্তুজ উদ্ধার করেছে।

আক্রান্তর অভিযোগের তির আরমান নামে একজনের দিকে। অশোক সাউ  জানান, 'আমি তৃণমুলের ১২ নম্বর ওয়ার্ড প্রেসিডেন্ট। আরমানের লোকজনই আমাকে গুলি করেছে।'

এই ঘটনায় ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, 'অশোক সাউয়ের সঙ্গে তিন বছর ধরে দলের কোনও যোগ নেই। আকাশ নামে এক ক্রিমিনালকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন আশোক সাউ।' তাঁর অভিযোগ, 'ক্রিমিনালদের রাজনীতিতে জায়গা দিলে এরকম বোমা-গুলির ঘটনা আরও ঘটবে!'

স্থানীয় বিধায়ক সোমনাথ শ্যাম বলেছেন, 'যারা করেছেন তাঁরা দুষ্কৃতী। পুলিস প্রশাসন প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তদন্ত করে দোষীদের নিশ্চয় সাজা দেওয়া হবে।' এদিন স্থানীয় সাংসদের মন্তব্যকে ঘুরিয়ে কটাক্ষ করেন বিধায়ক। এই মন্তব্যে তদন্ত প্রভাবিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি। পাশাপাশি আক্রান্ত অশোক সাউ তৃণমূল কর্মী বলে স্বীকার করেছেন বিধায়ক সোমনাথ শ্যাম। তবে এই ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসকে পাল্টা কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি। অভিযোগ, 'বারুদের স্তুপের উপর দাঁড়িয়ে ব্যারাকপুর কমিশনারেট। শাসক সাংসদ বনাম শাসক বিধায়কের এলাকা দখলের লড়াই।'

এক স্থানীয় জানান, 'আমাদের এলাকায় এই ঘটনা প্রথম। ভবিষ্যতে এমন না হওয়াই ভালো। যার উপর হামলা হয়েছে তাঁকে চিনি। ও প্রতিদিন তিন-চার জনের সঙ্গে চা খেতে যান।'

12 months ago
Shootout: কেতুগ্রামে সাতসকালেই খুন তৃণমূলকর্মী, বালি ব্যবসার ভাগ-বাটোয়ারার জের?

সাত সকালেই শুটআউটের (Shootout) ঘটনায় চাঞ্চল্য কেতুগ্রামে (Ketugram)। সকাল ১০টা নাগাদ কেতুগ্রামের দু'নম্বর ব্লকের রতনপুরের কাছে দুলাল শেখ নামে এক ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া গুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু (death) হয় দুলাল শেখের। স্থানীয় সূত্র মারফত্ খবর মৃত ওই ব্যক্তি একজন তৃণমূল কর্মী। খুনের (murder) ঘটনার পরই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ছে। শোকের ছায়া পরিবারে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার মোটর বাইকে করে দুলাল শেখ যাচ্ছিলেন গন্তব্যে। সেই সময় তাঁকে লক্ষ্য করে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। এই মুহূর্তে এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের না করা হলেও মৃতের ছেলের দাবি, বাবা তৃণমূল কর্মী ছিলেন। বর্তমানে বালির ব্যবসা করতেন।

তবে বিজেপির পক্ষ থেকেও কটাক্ষের সুর তোলা হয়েছে। এই ঘটনার নেপথ্য কে বা কারা রয়েছে, বালির ভাগ বাটোয়ারা নাকি গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে এই নির্মম পরিণতি তার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। পুলিস সূত্রে খবর, মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে আনা হবে তারপরেই বোঝা যাবে কী কারণে এই মৃত্যু।

এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে। স্থানীয়দের মতে, মঙ্গলকোট ও কেতুগ্রামে অজয় নদীর বালির ঘাটে ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে একাধিক খুন হয়েছে। স্থানীয়দের অনুমান, সেরকমই কিছু ঘটেছে। তবে ঘটনার তদন্তে কেতুগ্রাম থানার পুলিস। 

one year ago
Murder: পারিবারিক অশান্তির জের, পঞ্জাবে স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী লেফটানেন্ট কর্নেল

পারিবারিক অশান্তির (Domestic dispute) জেরে স্ত্রীকে খুন ভারতীয় সেনার লেফটানেন্ট কর্নেলের (Army Officer)। পরে নিজেও আত্মঘাতী (Suicide) হন ওই সেনাকর্তা। রবিবার রাতের এই ঘটনা পাঞ্জাবের ফিরোজপুরের। সোমবার ভারতীয় সেনা সূত্রে জানিয়েছে এই মর্মান্তিক খবর। সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, পঞ্জাবের ফিরোজপুরে কর্মরত ছিলেন ভারতীয় সেনার লেফটানেন্ট কর্নেল। বিয়ের পর থেকে প্রায়শই ওই দম্পতির মধ্যে বচসা লেগে থাকতো। এমনকি এই কারণের জন্য নাকি দম্পতি নিয়মিত কাউন্সেলিং করাতেন। রবিবার রাতেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। এরপরই অশান্তির জেরে নিজের স্ত্রীকে খুন করেন সেনা আধিকারিক। পরে গুলি চালিয়ে নিজেও আত্মঘাতী হন বলেই অনুমান করছে পুলিস।

ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিস ও ভারতীয় সেনা লেফটেনেন্ট কর্নেলের ঘর থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে। ওই নোটে স্ত্রীকে খুনের কথা উল্লেখ করেছেন ভারতীয় সেনার লেফটেনেন্ট কর্ণেল। উদ্ধার করা হয়েছে দম্পতির দেহ। যদিও মৃত সেনা আধিকারিকের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

one year ago


Shootout: ক্লাস চলাকালীন বন্দুক হাতে শিশুপড়ুয়া, শিক্ষিকাকে গুলি! আতঙ্ক ভার্জিনিয়ায়

বন্দুক নিয়ে স্কুলে প্রবেশ ছ’বছরের পড়ুয়ার। এরপর শ্রেণিকক্ষের মধ্যে ঢুকে শিক্ষিকাকে গুলি (Shootout) অভিযুক্ত পড়ুয়ার (Student)। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার মার্কিন মুলুকের ভার্জিনিয়ায় (Virginia)। ঘটনায় গুরুতর জখম গুলিবিদ্ধ ৩০ বছরের ওই স্কুলশিক্ষিকা (School Teacher)।

পুলিস সূত্রে খবর, রিচনেক এলিমেন্টারি স্কুলের এই ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া কোনও ছাত্র আহত হয়নি। স্থানীয় পুলিস প্রধান স্টিভ ড্রিউ একটি সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, "এটি কোনও দুর্ঘটনা নয়। অভিযুক্ত ছাত্র উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবেই ওই শিক্ষিকাকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে।"

শহরের স্কুল সুপারিনটেনডেন্ট জর্জ পার্কার বলেছেন, "আমি হতবাক এবং হতাশ। কী করে একজন স্কুলপড়ুয়ার হাতে আগ্নেয়াস্ত্র এলো তা ভাবাচ্ছে নাগরিক সমাজকে। বন্দুক যাতে কোনওভাবে ছাত্রের হাতে না ওঠে সে বিষয়ে নজর দিতে হবে।" বন্দুক ভায়োলেন্স আর্কাইভ ডাটাবেস অনুসারে, গত বছর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক ৪৪ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে গুলিতে। এর মধ্যে বড় অংশই খুন। এ ছাড়া রয়েছে দুর্ঘটনা এবং আত্মহত্যা। গত মে মাসে টেক্সাসে একটি স্কুলে বন্দুকবাজের হামলায় ১৯ জন পড়ুয়া এবং ২ শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছিল।

one year ago
Shootout: ফের শুটআউট শিলিগুড়িতে! গুলিবিদ্ধ পুলিস কর্মী

রাজ্যে ফের শুটআউটের (Shootout) ঘটনা। এবার এক পুলিস (police) কর্মীকেই লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ার ঘটনা। গুলিবিদ্ধ হন ওই পুলিস কর্মী। বর্তমানে তিনি একটি বেসরকারি হাসপাতালে (hospital) চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি শিলিগুড়ি (Siliguri) মেট্রোপলিটন পুলিসের প্রধাননগর থানা এলাকার। জখম হয়েছেন প্রধাননগর থানার সাব ইন্সপেক্টর। মঙ্গলবার অভিযানে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন তিনি।  ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিস মহলে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

পুলিস সূত্রে খবর, সোমবার বিকেলে গোপন সূত্রের খবর মারফৎ প্রধাননগর থানার পুলিস জানতে পারে দাগাপুর এলাকায় এক যুবকের ফ্ল্যাটে আগ্নেয়াস্ত্র মজুত রয়েছে। সেই খবর পেতেই অভিযানে নামে প্রধাননগর থানার পুলিস। সূত্রের খবর, অভিযান চলাকালীন ওই যুবক পুলিসকে লক্ষ্য করে আচমকাই গুলি চালায়। ঘটনায় জখম হন সাব ইন্সপেক্টর রবীন্দ্রনাথ সরকার। সামগ্রিক ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

one year ago