Breaking News
Tapas Roy: তৃণমূল ছাড়লেন তাপস রায়, বরাহনগরের বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা বর্ষীয়ান নেতার      Resign: হঠাৎ অবসর বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের, 'রাজনীতি যোগ' জল্পনা তুঙ্গে      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে ফের ফ্য়াক্ট ফাইন্ডিং টিম, শুনবে মহিলা ও বাসিন্দাদের কষ্টের কথা      BJP: প্রথম দফায় ১৯৫ প্রার্থীর নাম ঘোষণা বিজেপির, বাংলার ২০ জনের নাম তালিকায়      Modi: 'রামমোহনের আত্মা সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে', আরামবাগ থেকে মমতাকে তোপ মোদীর      Suspend: গ্রেফতারির পরেই তৃণমূল থেকে ছয় বছরের জন্য সাসপেন্ড সন্দেশখালির 'বেতাজ বাদশা' শাহজাহান      Sandeshkhali: নিরাপদ সর্দারকে নিঃশর্তে জামিন দিয়ে রাজ্য পুলিসকে তিরস্কার বিচারপতির      Sheikh Shahjahan: ঘর ভাঙচুর, টাকা লুঠ! শেখ শাহজাহানের বিরুদ্ধে নতুন এফআইআর সন্দেশখালি থানায়      Sandeshkhali: অজিত মাইতিকে তাড়া গ্রামবাসীদের, সাড়ে ৪ ঘণ্টা পর অবশেষে আটক পুলিসের      Ajit Maity: উত্তপ্ত সন্দেশখালি! অজিত মাইতির গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভ মহিলাদের, বাঁচতে সিভিকের বাড়িতে আশ্রয়     

Sh

Durga puja: মায়ের বোধনের আগেই দেবীর গয়না চুরি, চাঞ্চল্য শান্তিপুরে রায় বাড়ির পুজোয়

আজ মহাষষ্ঠী। শহর ও শহরতলির রাস্তায় ইতিমধ্যেই জমজমাটি ভাব। তবে এরই মধ্যে ঘটে গেল দুঃসাহসিক চুরির (theft) ঘটনা। দুর্গা প্রতিমার গা থেকে গয়না চুরি হয়ে যায় পুজোর আগেই। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় নদিয়া (Nadia) শান্তিপুর ৮ নম্বর ওয়ার্ডে দত্তপাড়ায়।

জানা যায়, দত্তপাড়ার রায় বাড়ির এই পুজো বহু প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী। আজ মহাষষ্ঠীর দিনই বাড়ির প্রতিমার গায়ের থেকে গয়না চুরি ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। খবর দেওয়া হয় শান্তিপুর থানায়। খবর পেয়ে পুলিস (police) ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভোর রাতে ঘুম থেকে উঠে দেখা যায় প্রতিমার গায়ে কোনও সোনা বা রূপোর গহনা নেই। সোনার টিপ, ত্রিনয়ন, নথ সহ একাধিক জিনিস খোয়া গিয়েছে। তবে আজ সকালে এমন ঘটনার সম্মুখীন হতে হবে তাঁদের, তার জন্য প্রস্তুত ছিলেন না পরিবারের কেউ।  

one year ago
Bank: উৎসবের মাস অক্টোবর, এই মাসেই শারদ উৎসব, দীপাবলি! জানুন ব্যাঙ্ক বন্ধের সূচি

অক্টোবরের (October) ব্যাঙ্কের ছুটির তালিকা প্রকাশ করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া বা আরবিআই (RBI)। এই তালিকা অনুসারে, ৩১ দিনের এই মাসে ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে মোট ২১ দিন। এর মধ্যে চারটি রবিবার এবং দুটি শনিবার (দ্বিতীয় ও চতুর্থ) অন্তর্ভুক্ত। দেশে অক্টোবর মানেই উৎসবের মাস। প্রথমে শারদ উৎসব (festival Month), তারপর কালীপুজো এবং দীপাবলিজুড়ে আনন্দে মাতোয়ারা থাকার মাস। যদিও এই ২১ দিনের হিসেব আঞ্চলিক উৎসবভিত্তিক। যেদিন যেদিন যে রাজ্যে উৎসব, সেদিন সেদিন সেভাবে বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক। শুধুমাত্র জাতীয় ছুটির দিনগুলোতে গোটা দেশে বন্ধ থাকছে ব্যাঙ্ক।

এই মাসেই রয়েছে কয়েকটি আঞ্চলিক উৎসব। ফলে সেই দিনগুলো ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ব্যাঙ্ক  বন্ধ থাকছে। এবার দেখুন কবে কবে ব্যাঙ্ক বন্ধ-- ২,৯,১৬,২৩,৩০ অক্টোবর রবিবার। ২ অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী জাতীয় ছুটি। কিন্তু রবিবার পড়ায় এবার পৃথকভাবে ধরা হচ্ছে না সেই ছুটি। দ্বিতীয় ও চতুর্থ শনিবারের হিসেব ধরলে ৮ অক্টোবর এবং ২২ অক্টোবর ব্যাঙ্ক বন্ধ।

পাশাপাশি যেহেতু এই মাসেই শারদোৎসব এবং কালীপুজো সঙ্গে রয়েছে দীপাবলি। এই হিসেব ধরেও আঞ্চলিক এবং জাতীয়স্তরে ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকছে সেই দিনগুলোতে।

one year ago
Bail: কয়লা-কাণ্ডে শর্তাধীনে কলকাতা হাইকোর্টে জামিন বিকাশ মিশ্রর, জমা রাখতে হবে পাসপোর্ট

কয়লা পাচার-কাণ্ডে শর্তাধীনে জামিন পেলেন বিকাশ মিশ্র। শুক্রবার ৫০ হাজার টাকা ব্যক্তিগত বন্ডে তাঁকে জামিন দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চ জামিন শর্তে জানিয়েছে, এখনই দেশ ছাড়তে পারবে না বিকাশ। জমা রাখতে হবে পাসপোর্ট। কলকাতা পুরসভা এলাকায় তাঁকে থাকতে হবে। কয়লা পাচার মামলার শুনানি আসানসোলের বিশেষ আদালতে চলাকালীন তাঁকে হাজির থাকতে হবে। অসুস্থতার প্রয়োজনে কোথাও যেতে হলে জানাতে হবে সিবিআইকে।

যদিও বিকাশের জামিন আবেদনের বিরোধিতায় সিবিআই আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছিল, জামিন পেলে দাদার মতোই দেশ ছেড়ে পালাতে পারে বিকাশ। বিনয় মিশ্রের ব্যবসার সব হিসেব দেখতেন বিকাশ মিশ্র। এদিকে, কয়লা পাচার-কাণ্ডে আরও তৎপর হবে ইডি। পুজোর পরে কোমর বেঁধে নামছে এই কেন্দ্রীয় সংস্থা। ডাকা হতে পারে মন্ত্রী মলয় ঘটকের ভাই অভিজিৎ ঘটক এবং অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলকে। সম্প্রতি রাজ্যে একাধিক আইপিএসকে কয়লা কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি। সেই সূত্রে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এই তলবের সম্ভাবনা এমনটাই সূত্রের খবর।

one year ago


Murshidabad: চাকরি পেতে ৭ লক্ষ টাকা দিয়েও কর্মহীন, আত্মঘাতী টেট উত্তীর্ণ প্রতারিত যুবক

চাকরির (job) নামে লক্ষ লক্ষ টাকা (money) প্রতারণা। অবশেষে বাধ্য হয়ে কীটনাশক খেয়ে আত্মঘাতী (suicide) এক টেট (TET) উত্তীর্ণ যুবক। আত্মঘাতী যুবক মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) লালগোলার সারপাখিয়া এলাকার বাসিন্দা। তাঁর এমন সিদ্ধান্তে হতবাক পরিবার সহ স্থানীয়রা। শোকের ছায়া পরিবারে।

পরিবার সূত্রে খবর, আব্দুর রহমান নামের টেট উত্তীর্ণ যুবক সাড়ে ৭ লক্ষ টাকা প্রাইমারী চাকরির জন্য দেন। টাকা দিয়েও চাকরি না পাওয়ায় প্রতারিত হয়ে গত মঙ্গলবার মাঠে কীটনাশক খেয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। পরিবারের লোকজন পুলিসকে খবর না দিয়েই কবরস্থ করে দেয় তাঁর দেহ। সেই মৃতদেহ আদালতের নির্দেশে শুক্রবার কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্ত করা হয় লালবাগ মহকুমা হাসপাতালের মর্গে।

পরিবারের অভিযোগ এবং মৃতের কাছ থেকে পাওয়া সুইসাইড নোটের ভিত্তিতে লালগোলা থানার পুলিস রেহেসান সেখ নামের সাগরদীঘির এক যুবককে গ্রেফতার করে। আদালতের নির্দেশে ধৃতকে ১০ দিনের পুলিসি হেফাজতে নিয়েছে লালগোলা থানার পুলিস। 

one year ago
CBI: নিয়োগ দুর্নীতি-কাণ্ডে এবার সিবিআই চার্জশিটেও পার্থর নাম, রয়েছেন কল্যাণময়-শান্তিপ্রসাদও

ইডির (ED) পর এবার এসএসসি নিয়োগ (SSC) দুর্নীতি-কাণ্ডে চার্জশিট জমা দিল সিবিআই (CBI)। পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee), কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়-সহ ১৬ জনের নাম আছে চার্জশিটে। কেন্দ্রীয় সংস্থার চার্জশিটে অভিযুক্ত হিসেবে নাম আছে শান্তিপ্রসাদ সিনহা, অশোক সাহার নামও। এই দুর্নীতি-কাণ্ডের তদন্তে নেমে যে এফআইআর করে সিবিআই, সেই এফআইআর-র ৫ জনের নাম চার্জশিটে (Charge Sheet) উল্লেখ করেছে সিবিআই। জানা গিয়েছে, সেই এফআইআর-এ নাম ছিল না পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে ৫ দিনের জন্য পার্থর সিবিআই হেফাজত পেয়েছে সিবিআই। এসএসসি গ্রুপ-সি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এই চার্জশিট বলে সিবিআই সূত্রের খবর। নিয়োগ দুর্নীতি-কাণ্ডের তদন্তে নেমে ৫১ দিনের মাথায় এই চার্জশিট জমা দিল সিবিআই। ষড়যন্ত্র, প্রতারণা এবং জালিয়াতি ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে চার্জশিটে। 

জানা গিয়েছে, সিবিআই এফআইআর-এ নাম থাকা পাঁচ জনের মধ্যে ইতিমধ্যে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে কেন্দ্রীয় সংস্থা। তাঁদেরকে জেরায় আরও ১০ জনের নাম উঠে এসেছে। এদিকে, ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত জেলেই থাকছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়া প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর জামিনের আবেদন খারিজ করেছে আদালত। একইভাবে জেলে পাঠানো হয়েছে নিয়োগ দুর্নীতি-কাণ্ডে অন্যত্ম অভিযুক্ত অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। এই দু'জনকে ইডি, তাদের প্রথম চার্জশিটে অভিযুক্ত দেখিয়েছে।

তাদের দাবি, 'নিয়োগ দুর্নীতি-কাণ্ড ১০০ কোটি টাকার বেশি কেলেঙ্কারি। পার্থ-অর্পিতার নামে একাধিক সম্পত্তির হদিশ মিলেছে। পার্থকে নমিনি করে তৈরি বিমার হদিশ পেয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য কয়েক কোটি টাকা।'

one year ago


Death: দোলনায় চড়তে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রের, শোকের ছায়া অশোকনগরে

মহাপঞ্চমীতে ঘটে গেল মর্মান্তিক ঘটনা। দোলনায় চড়তে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু (death) এক ৯ বছরের শিশুর। দুর্গাপুজোয় (durga puja) এমন মর্মান্তিক ঘটনায় শোকাহত শিশুটির পরিবার সহ এলাকাবাসীরা। ঘটনাটি উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর (Ashokanagar) এলাকার।

পরিবার সূত্রে খবর, শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে একটি বাড়িতে কাপড় দিয়ে দোলনা বানিয়ে নয় বছরের শিশু সুদীপ পাইক তাতে চড়েছিল। তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র ছিল সে। পরবর্তীতে ওই বাড়ির অন্য এক শিশু আচমকাই দেখতে পায় গলায় ফাঁস লাগা অবস্থায় সে পড়ে রয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে সে তার মাকে জানালে, তিনি অন্যান্য লোকজনকে ডেকে নিয়ে আসেন। এরপর শিশুটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় অশোকনগর হাসপাতালে। কিন্তু সেখানে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

পরিবার সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, শিশুটির বাড়ি বিরা এলাকায়, তবে মামার বাড়িতেই থাকতো সে মায়ের সঙ্গে। মর্মান্তিক এই ঘটনার পর অশোকনগর থানার পক্ষ থেকে অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে। শুক্রবার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় বারাসাত হাসপাতালে।

one year ago
AICC: কংগ্রেস সভাপতি হওয়ার দৌড়ে তাবড় নাম, কিন্তু গান্ধী পরিবারের হাত কার মাথায়? উঠছে প্রশ্ন

প্রসূন গুপ্ত: এআইসিসি বা সর্বভারতীয় কংগ্রেস দল আজও কি আদি ও অকৃত্রিম? সম্ভবত এর উত্তর অন্তত রাহুল গান্ধীর কাছে নেই। যে দলের সভাপতি থেকে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন রাহুলের প্রপিতামহ জওহরলাল নেহেরু এবং তাঁর পদাঙ্ক অনুসরণ করে ইন্দিরা গান্ধী, রাজীব গান্ধীও দায়িত্বে এসেছিলেন। তাঁরাও প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী না হলেও দলের সভানেত্রীর দায়িত্ব নিয়ে সফল হয়েছিলেন ইন্দিরার পুত্রবধূ সোনিয়াও। কিন্তু সুরতাল কেটে গেলো রাহুলের জমানায়। ক্রমশই ভঙ্গুর হতে চলা শতাব্দীপ্রাচীন দলের দায়িত্ব নেবে কে। রাহুল জানিয়েছেন, এবার গান্ধী পরিবারের কেউ প্রধান পদে যাচ্ছেন না।

তবে দায়িত্ব যেই পাক না কেন গুঞ্জনে তিনি অবশ্যই গান্ধী পরিবারের অনুগত। বিজেপির আবার বলছে রিমোট কন্ট্রোল প্রেসিডেন্ট। এবার বহুযুগ বাদে কংগ্রেসের বা এআইসিসির ভোট হতে চলেছে ব্যালটের মাধ্যমে বলে সংবাদ। যদিও কংগ্রেসের তাবড় নেতাদের অনেকেই দল ছেড়ে দিয়েছেন, যথা কপিল সিবাল, গুলাম নবী আজাদ, আনন্দ শর্মা ইত্যাদি। আগেই ছেড়েছিলেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। ফলে উপযুক্ত অর্থাৎ সর্বভারতীয় মুখ যাঁরা ছিলেন তাঁদের কাউকেই হয়তো সভাপতির আসনে আসীন হতে দেখা যাবে না।

ইতিমধ্যে বেশ কয়েকজনের নাম উঠে আসছে, যাঁরা ভোটযুদ্ধে লড়তে প্রস্তুত। এসেছে রাজীব ঘনিষ্ঠ কমলনাথের নাম, এসেছে শশী থারুরের নাম। তিনি আবার মনোনয়নও জমা করেছেন। আছেন মধ্য প্রদেশের পারক্তন মুখমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং। ভোট যদি ঠিকঠাক হয়, তবে সমস্যা নেই। কিন্তু একটা থেকেই যাচ্ছে।

শশী থারুর শিক্ষিত মার্জিত এবং সুবক্তা। সাদা চোখে দেখলে তাঁর থেকে উপযুক্ত আর কেউ হতে পারে না। বিপদ সেখানেই, বেশি জনপ্রিয় মুখ কি গান্ধীদের পছন্দ হবে, লক্ষ টাকার প্রশ্ন। শোনা যাচ্ছে রাজ্যসভায় কংগ্রেসের নেতা মালিকার্জুন খাড়গেকে সভাপতি করার জন্য মুখিয়ে রাহুল। খাড়গের বয়স হয়েছে ৮০। এই বয়সে কি আদপেই তিনি এই সুবিশাল দলের মাথা হতে পারবেন? ২০২৪ এর নির্বাচনে নূন্যতম ভালো ফল করতে গেলে যে এমন একটা মুখ দরকার যাকে গ্রাম ভারত চেনে, গো-বলয় বা হিন্দি বলয়ে যার গ্রহণযোগ্যতা আছে। তেমনটি আছে কি কেউ?

one year ago
Shitalakuchi: অবশেষে বাড়ি ফিরলেন শীতলকুচির বিজেপি কর্মীরা

পূজার আগে জেল (jail) থেকে বাড়ি ফিরলেন শীতলকুচির (Shitalakuchi) বিজেপি কর্মীরা। প্রসঙ্গত, গত ১১ সেপ্টেম্বর "চোর ধরো জেল ভরো"-কে সামনে রেখে শীতলকুচিতে বিজেপি (bjp) মিছিলের আয়োজন করে। সেই মিছিলে তৃণমূলের দিকে বোমাবাজি করার অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা তৃণমূল এলাকায় সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি। তবে এদিনের ওই ঘটনায় ৬১ জন বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার (arrest) করে পুলিস (police)। গ্রেফতার হওয়া বিজেপি কর্মীর মধ্যে বৃহস্পতিবার মাথাভাঙা মহকুমা সংশোধনাগারে ১১ জনের মধ্যে ৭ জন বিজেপি কর্মী ও নেতৃত্বকে জামিনে ছাড়া হয়।

অন্যদিকে বাকি ৪৮ জন বিজেপি কর্মী ও নেতৃত্ব এদিন রাতে কোচবিহারে সংশোধনাগারে থেকে ছাড়া পান। সংশোধনাগার থেকে জামিনে বের হবার পর বিজেপি নেতৃত্বরা কর্মীদের ফুলের মালা পরিয়ে বরণ করে নেন। মিষ্টিমুখ করে স্বাগত জানান বিজেপি জেলা নেতৃত্ব থেকে শুরু করে বিধায়ক কর্মীরা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলা বিজেপির সভাপতি সুকুমার রায় শীতলকুচি বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক বরেনচন্দ্র বর্মন।

বিজেপি কোচবিহার জেলা সভাপতি সুকুমার রায়ের অভিযোগ, "শান্তিপূর্ণ মিছিলে তৃণমূল বোমাবাজি করে অশান্তি করে। সেই সময় শীতলকুচি থানায় আশ্রয় নেওয়া ৬১ জন বিজেপি কর্মীকে বেআইনিভাবে পুলিস গ্রেফতার করে। তৃণমূলের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তাঁরা লড়াই চালিয়ে যাবেন। এই ঘটনার পর কর্মীরা আরও বেশি শক্তি নিয়ে আগামীদিনে লড়াই করবে।"

পাশাপাশি তিনি আরও অভিযোগ করেন, "আমাদের ৬ জন কর্মী জামিন পাওয়ার পরও পুলিস অন্য কেসে তাঁদের নাম জড়িয়ে থানায় রেখে দেওয়া হয়েছে। এ বিচার চাই।"

one year ago


Murder: বাগুইআটি, বীরভূমের পর এবার মুর্শিদাবাদে মুক্তিপণ দাবি করে খুন,পুলিসের ভূমিকায় প্রশ্ন

বাগুইআটি ও বীরভূমের পর এবার মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) বহরমপুরে (Baharampur) মুক্তিপণ দাবি করে খুন (Murder)। বুধবার সন্ধ্যেবেলায় বাপ্পা মণ্ডলকে দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে মাঝ রাস্তায় পথ আটকায় এক দুষ্কৃতী। এরপর নিজের বাইকে তুলে নিয়ে যায় বাপ্পা মণ্ডলকে (Bappa Mandal)। আর বাপ্পা মণ্ডলের মোটরবাইকটি অন্য একজন নিয়ে যায় বলে দেখা গিয়েছে সিসিটিভিতে (CCTv)।

বাপ্পা মণ্ডলের বাবা জানান, এরপর রাতে তাঁর কাছে পাঁচ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে একটি ফোন আসে। যদিও তিনি কোনওভাবে দেড় লক্ষ টাকা জোগাড় করতে পেরেছিলেন। আর অনেক বলার পর দুষ্কৃতীরা দেড় লক্ষ টাকা নিতে রাজি হয়ে যায়। এবং সেই টাকা কোথায় নিয়ে আসবে তাও বলে।

কিন্তু বাপ্পা মণ্ডলের পরিবারের লোকেরা ইতিমধ্যে পুলিসকে খবর দেন। বাপ্পার বাবা সেই টাকা নিয়ে যাওয়ার সময় কয়েকজন পুলিস ফোর্স সঙ্গে যায়। আর তা জানতে পেরে অপহরণকারীরা বাপ্পা মণ্ডলকে খুন করে। অপহরণেরসঙ্গে সঙ্গে সঙ্গে পুলিসকে জানানো হলেও বাপ্পার প্রাণ রক্ষা করতে পারেনি বলে অভিযোগ।

আজ, শুক্রবার তিন দিন হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত কোনও দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিস। সন্দেহভাজন কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হলেও মূল চক্রীকে ও তার সাগরেদদের এখনও গ্রেফতার করা হয়নি। এর ফলে এলাকাবাসীরা বৃহস্পতিবার বিকেল বেলায় মৃতদেহকে সামনে রেখে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান দোষীদের কঠোরতম শাস্তির দাবিতে।

one year ago
Congress: সভাপতি ভোটে লড়ছেন না গেহলট, থারুরের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উঠে এলেন দিগ্বিজয় সিং

কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচনের (Congress President Election) দৌড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট (Ashok Gehlot)। সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বৈঠকের পর নিজের সিদ্ধান্তের কথা সংবাদ মাধ্যমকে জানান গেহলট (Rajasthan CM)। সূত্রের খবর, হাইকমান্ডের চাপের কাছে মাথা নত করেই ভোটযুদ্ধ থেকে সরে যান রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রিত্ব এবং কংগ্রেস সভাপতি; দুই পদে থাকতে চেয়ে গান্ধী পরিবারের কাছে দরবার শুরু করেন গেহলট। কিন্তু রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) স্পষ্ট জানিয়ে দেন, এক ব্যক্তি, এক পদ নীতি মেনে গেহলটকে মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়তে হবে। যদি তিনি কংগ্রেস সভাপতি পদে নির্বাচিত হন। সেক্ষেত্রে সচিন পাইলটকে করা হবে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী।

এই তোরজোড় শুরু হতেই বাধা দেন গেহলট। জানা গিয়েছে, নিজের শিবিরের বিধায়কদের উসকে পরোক্ষে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন মরু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। গেহলট ছাড়া কাউকে তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মানবেন না। এই দাবি জোরালো হতেই পদক্ষেপ করে হাইকমান্ড। সোনিয়া গান্ধীর দূত হিসেবে পাঠানো হয় অজয় মাকেনকে। তাঁর এই পদ আঁকড়ে রাখা মনোভাবকে ভালো চোখে দেখছেন না সোনিয়া এবং রাহুল গান্ধী। মাকেনের তরফে এই বার্তা যেতেই নড়েচড়ে বসেন গেহলট। সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করতে বুধবার রাতেই দিল্লি পৌঁছে যান তিনি। তারপরেই ভোটে না লড়ার সিদ্ধান্ত।

এদিকে, বৃহস্পতিবার কংগ্রেস সভাপতি পদে নির্বাচনে মনোনয়ন তোলেন শশী থারুর এবং দিগ্বিজয় সিং। অশোক গেহলট দৌড় থেকে ছিটকে যেতেই স্বচ্ছ নির্বাচনের স্বার্থে মধ্য প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে এগিয়ে দেয় গান্ধী পরিবার। যদিও দিগ্বিজয়কে প্রতিদ্বন্দ্বী নয়, বরং সহকর্মী হিসেবে স্বচ্ছ লড়াইয়ের অংশীদার হিসেবে দেখছেন শশী থারুর।

one year ago


Baharampur: বাগুইআটির ছায়া বহরমপুরে, অপরহরণ করে মুক্তিপণ চেয়ে খুন তরুণকে

ফের অপহরণ (Kidnapping) করে খুনের (murder) ঘটনায় চাঞ্চল্য। এবার ঘটনাস্থল বহরমপুর (Baharampur) থানার অন্তর্গত উত্তরপাড়া এলাকা। জানা যায়, মৃতের নাম বাপ্পা মণ্ডল, বয়স ২৪ বছর। তিনি বুধবার সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ দোকান থেকে বেরিয়ে যান দুই বন্ধুর সঙ্গে। এরপর রাত ৮টা নাগাদ পাঁচ লক্ষ টাকার মুক্তিপণ চেয়ে ফোন আসে মৃতের বাবার কাছে।

পরিবার সূত্রে খবর, মৃত বাপ্পার মোবাইল ব্যবহার করেছিলেন অপহরণকারীরা। বহরমপুর থানা পুলিসে খবর দেওয়া হয় তড়িঘড়ি। এরপর পুলিসকে জানিয়ে সেই টাকা দিতে যায় পরিবারের সদস্যরা। রাত ১১টা নাগাদ মুক্তিপণ নিয়ে বেলডাঙা পৌঁছলে অপহরণকারী চালাকি করছিস বলে ফোনটি কেটে দেয়। পাশাপাশি ফোন সুইচ অফ করে দেয়। আর এরপরই এই মর্মান্তিক খবর। বৃহস্পতিবার সকালে বহরমপুর থানার অন্তর্গত ফতেপুর অঞ্চলে নতুন নির্মিত রাস্তার পাশ থেকে ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ পাওয়া যায়।

one year ago
plane: আকাশে এবার ইলেকট্রিক বিমান। ইজরায়েলি সংস্থার তৈরি বিমানের ট্রায়াল রান ওয়াশিংটনে

এবার আপনিও উড়ে যেতে পারেন বিদ্যুৎচালিত যাত্রিবাহী বিমানে (plane) করে। যদিও এখনও যাত্রী কবে তোলা হবে সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। যাত্রী ছাড়াই মঙ্গলবার সকালে ওয়াশিংটনের (Washington) গ্র্যান্ট কাউন্টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর (Grant County International Airport) থেকে বিদ্যুৎচালিত ওই বিমান যাত্রা করে। আট মিনিটের ছোট্ট একটি ট্রিপ ছিল উদ্বোধনের দিন।

অ্যালিস নামের এই বিমানটি তৈরি করেছে ইজ়রায়েলের বিমান সংস্থা অ্যাভিয়েশন এয়ারক্রাফ্ট। এদিন প্রথম যাত্রায় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩,৫০০ ফুট উপরে উঠেছিল। সংস্থার প্রেসিডেন্ট তথা সিইও গ্রেগরি ডেভিস এই যাত্রাকে ‘ঐতিহাসিক’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

ওই সংস্থা জানিয়েছে, মাত্র আধ ঘণ্টায় চার্জ দেওয়া যাবে বিমানটি। একেবারে গাড়ি বা মোবাইল ফোনের মতো দ্রুতগতিতে সম্ভব চার্জ দেওয়া। আর আকাশে থাকার সময়সীমা মাত্র এক ঘণ্টা। আর ওই বিমানে আসন সংখ্যা নয়জনের। গতি, ঘণ্টা প্রতি প্রায় ৪৪০ নটিক্যাল মাইল। প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২৫০ নটস বা ২৮৭ মাইল গতিবেগে এগোতে পারে অ্যালিস।

one year ago
Sukanta: অভিষেকের বিরুদ্ধে এফআইআর নিচ্ছে না পুলিস, মামলা দায়ের সুকান্ত মজুমদারের

আমি হলে মাথায় গুলি করতাম। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) এই মন্তব্য ঘিরে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল ছিল তুঙ্গে। বিজেপি অভিযোগ করেছিল ট্রিগার হ্যাপি পুলিস বানাতে চাইছে তৃণমূল (TMC)। এবার এই মন্তব্যের বিরোধিতায় তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে এফআইআর করতে চেয়ে ব্যাঙ্কশাল আদালতের দ্বারস্থ সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumder)। তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি ধারায় মামলা বিজেপির (BJP) বঙ্গ সভাপতির। জোড়াসাঁকো থানা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এফআইআর নিচ্ছে না। এই অভিযোগ জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ সুকান্ত। ১৫৬(৩) সিআরপিসি ধারায় আবেদন সুকান্ত মজুমদারের।

বিজেপি সভাপতির আইনজীবী জানান, এই ধারায় আবেদনকারীর ভূমিকা প্রধান। যখন কোনও থানা অভিযোগ নেয় না, তখন এই ধারায় আদালতের কাছে আবেদন করতে পারেন কোনও ব্যক্তি। তাঁর মন্তব্য, 'নবান্ন অভিযানের আয়োজন হয়েছিল রাজ্য সরকারের দুর্নীতির বিরোধিতায়। সেই অভিযানে পুলিসি পরিস্থিতি সামলানোর নাম করে যা ইচ্ছে করেছে। লাঠিচার্জ, টিয়ার গ্যাস-সহ পুলিসি অত্যাচারের শিকার বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। বিজেপি কর্মীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। এখনো অনেকে অসুস্থ।'

সুকান্ত আইনজীবীর দাবি, 'অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন গুলি করে মারতাম। এটা ফৌজদারি মামলা। পুলিস ব্যবস্থা না নিলে, মানুষ কোথায় যাবে? তাই এফআইআর করার অনুমতি পেতে এই মামলা।' বিচারকের প্রশ্ন, 'আবেদন পত্রে যা দেখছি এটা নবান্ন অভিযান সংক্রান্ত তাই তো? ইনি কে? (সুকান্ত মজুমদার এর দিকে তাকিয়ে)?'

বিজেপির বঙ্গ সভাপতির আইনজীবীর জবাব, 'উনি বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।' এরপরেই সুকান্ত মজুমদারের আবেদনের বিরোধিতা করে সরকারি আইনজীবী। তিনি জানান, ওটা নবান্ন অভিযান ছিল না। পুলিসকে মারা হলো। সরকারি গাড়ি জ্বালানো হলো। রাস্তা বন্ধ করে মানুষের অসুবিধা করা হলো।

যদিও অভিষেকের মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে বঙ্গ বিজেপি সভাপতির অভিযোগ, 'পুলিসকে দিয়ে বিজেপি কর্মীদের মারধর করানো হয়েছে। পুলিসি এই অত্যাচারের মাস্টারমাইন্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।' দু'পক্ষের এই সওয়াল-জবাব শেষে রায়দান স্থগিত রেখেছে ব্যাঙ্কশাল আদালত। 

রাজ্য বিজেপির সভাপতির এই পদক্ষেপকে খোঁচা দিয়েছে তৃণমূল। দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, 'সায়ন্তন বসুর মন্তব্য কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বলব বুক লক্ষ্য করে গুলি করুন, বিজেপির ট্রেনি রাজ্য সভাপতি ভুলে গেলেন? অনুরাগ ঠাকুরের গোলি মারো...ভুলে গেলেন? ভোটের সময় উত্তেজক ছবির সংলাপ মারবো এখানে লাশ পড়বে শ্মশানে ভুলে গেলেন? অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তুল্যমূল্য বিচার করে স্পষ্ট বলেছেন, পুলিস যেভাবে সংযম দেখিয়েছে, আমি হলে এই করতাম। পুলিস মার খেয়েও গুলি চালায়নি। বাম জমানায় শরিক দলকেও গুলি করা হয়েছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তো সংযমকে হাইলাইট করেছে।'

one year ago


Team: শিয়রে টি-২০ বিশ্বকাপ, কিন্তু কোথায় দাঁড়িয়ে ভারতের প্রথম একাদশ?

প্রসূন গুপ্ত: মহেন্দ্র সিং ধোনি চলে যাওয়ার পরে ভারতীয় ক্রিকেট দল কেমন একটা ছন্নছারা ভাবে চলছে। রবি শাস্ত্রীর আমলে আইসিসির কোনও বড় ট্রফি নেই। বিরাট কোহলি অধিনায়ক হওয়ার পরে তাঁর মধ্যে সৌরভ গাঙ্গুলির আগ্রাসন দেখা গেলেও নিজের ফর্ম হারিয়ে গত দু-আড়াই বছর বড় রানের বাইরে। নেতৃত্ব ছেড়েও ফর্মে ফিরতে পারছিলেন না বিরাট। তবে এশিয়া কাপ এবং সাম্প্রতিক অস্ট্রেলিয়া সিরিজে বড় রান তাঁকে হয়তো কিছুটা অক্সিজেন দিয়েছে। অন্যদিকে ভারতীয় দলে প্রতিদিনই কেউ না কেউ ভালো খেলে দিলেও ধারাবাহিকতার অভাব। বিশেষ করে ডেথ ওভার বোলিংয়ে শামি, বুমরাহর অভাব দেখা যাচ্ছে। ব্যাটিংয়ে কেএল রাহুল অফ ফর্ম, কোনওদিন রান পাচ্ছেন রোহিত, কোনওদিন ফ্লপ।

এভাবেই ব্যাটিং চলছে, তবে এর মধ্যে ধারাবাহিক ভালো খেলছেন সূর্যকুমার যাদব| বুধবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দুর্দান্ত খেলে রেকর্ড করলেন সূর্য। টি-২০ বিশ্বকাপের একটু স্বস্তিতে টিম ইন্ডিয়া। অন্যদিকে বোলিংয়ের অবস্থা তথৈবচ। ভুবনেশ্বর কুমারের মতো প্রতিভাবান বোলারের অফ ফর্ম ভাবাচ্ছে দ্রাবিড়দের। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ম্যাচে আর্ষদীপের বোলিং কিছুটা কমিয়েছে দুশ্চিন্তা।  ঠিক কোন রহস্যে ফাস্ট বোলার মহম্মদ শামিকে দলের বাইরে রাখা হয়েছে কেউ জানে না। আসলে ভারতীয় ক্রিকেট দল নিয়ে বড্ড বেশি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। মিডল অর্ডার থেকে টেল এন্ড, বিশেষ করে উইকেট কিপিং, সব জায়গাতেই চলছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা। ধারাবাহিক অফ ফর্মে থাকা ঋষভ পন্থ যেমন জায়গা পাচ্ছে। তেমনই জায়গা পাচ্ছেন দীনেশ কার্তিক।

গত তিন মাসে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ভারতের ফল আশানুরূপ হলেও, আইসিসি টুর্নামেন্টে তীরে এসে তরী ডোবার ইতিহাস ভারতের সেই ২০১৪ থেকে।  এদিকে, আসন্ন টি-২০ বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়াতে। সেখানে ভারত প্রতিকূল পিচে খেলবে। সেখানে গ্রিনটপ বা দ্রুতগামী বোলারদের উপযুক্ত উইকেটই অপেক্ষা করবে। এই মুহূর্তে আর্ষদীপের বল সুইং করেছে। চোটের কবলে জসপ্রীত বুমরা। এই মুহূর্তে দরকার উইকেট টেকার মহম্মদ শামিকে। প্রশ্ন উঠেছে মহম্মদ সিরাজকে নিয়েও। তিনি এত আশা জাগানোর পর কোথায়? প্রশ্ন উইকেটের পিছনে কে থাকবে পন্থ নাকি কার্তিক? এসব নিয়ে ভারতের এখনই ভাবা দরকার।

one year ago
Maldah: 'বিরোধীদের বুথে থাকতে দেওয়া হবে না', কর্মীসভা থেকে হুংকার তৃণমূল নেতার

আবারও বিস্ফোরক মন্তব্য মালদহ জেলা তৃণমূলের (Trinamool) সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সীর (Abdur Rahim Bakshi)। "বিরোধীদের বুথে থাকতে দেওয়া হবে না মুখে শুধু তৃণমূলই থাকবে আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে," হুংকার দলীয় কর্মীসভা থেকে।

জানা যায়, মালদহ (Maldah) রতুয়া ২ নম্বর ব্লকের শ্রীপুরে আয়োজিত এক কর্মী সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। বলেন, "অনেক সহ্য করেছি, আর নয়। আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে বুথে কোনও বিরোধীরা থাকবে না। তাদের থাকতে দেওয়া হবে না। শুধু তৃণমূল থাকবে, তৃণমূল জিতবে। আব্দুর রহিম বলছি।" তাঁর এই হুংকারকে ঘিরে সরগরম জেলার রাজনৈতিক মহল।

তিনদিন আগেই মালদহর গাজলে বিরোধীদের হাত উপড়ে ফেলা, পা ভেঙে দেওয়ার হুংকার দিয়েছিলেন তিনি। তার রেষ কাটছে না কাটতে আবার তাঁর হুংকার। "চোরের মায়ের বড় গলা। এই চোরেদের জায়গা জেল। বাংলার মানুষ এদের সঠিক জায়গা দেখিয়ে দেবে।"  পাল্টা হুংকার উত্তর মালদহের বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মুর (Khagen Murmu)।

one year ago