Breaking News
Weather: ফের চড়বে পারদ, কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা, কতদিন চলবে জানুন...      Sandeshkhali: স্ত্রীকে কাঁদতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন 'সন্দেশখালির বাঘ'...      High Court: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিল, সুদ সহ বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে জমি দখল তদন্তে সক্রিয় সিবিআই, বয়ান রেকর্ড অভিযোগকারীদের      CBI: শাহজাহান বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ! তদন্তে সিবিআই      Vote: জীবিত অথচ ভোটার তালিকায় মৃত! ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ধূপগুড়ির ১২ জন ভোটার      ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?      Sarabjit Singh: ভারতীয় বন্দি সরবজিৎ সিং-এর হত্যাকারী সরফরাজকে গুলি করে খুন লাহোরে     

NarendraModi

PM Modi: তৃণমূল মানেই দুর্নীতি-লুট! ভোট প্রচারে সন্দেশখালির পর ভূপতিনগর নিয়ে সরব মোদী

এবারের লোকসভা ভোটে বাংলায় ইস্যুগুলির মধ্যে একেবারে প্রথমে রয়েছে শাসক তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ। এদিন জলপাইগুড়ির ধূপগুড়িতে ভোট প্রচারে এসে দুর্নীতি ইস্যুতে তৃণমূলকে নিশানা করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। পাশাপাশি তিনি এদিনও বাজেয়াপ্ত হওয়া টাকা গরিবদের হাতে ফেরানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখে এদিনও উঠে এসেছে সন্দেশখালি প্রসঙ্গ। আর বাংলায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ওপরে হামলার প্রসঙ্গ। তিনি বলেছেন, সন্দেশখালিতে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ওপরে হামলা সারা দেশ দেখেছে। তিনি বলেছেন, এখানে এমন পরিস্থিতি যে আদালতকে সব ব্যাপারেই হস্তক্ষেপ করতে হচ্ছে।

এক সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয়বার বাংলা এসে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেন্দ্র গরিবদের জন্য টাকা পাঠাচ্ছে আর তৃণমূল সেই টাকা লুট হচ্ছে। তিনি বলেন, তৃণমূলের ছোট নেতাও বড় বাংলোয় থাকেন। কিন্তু চা-বাগানের দিকে তাদের কোনও নজর নেই। বাংলার চা-শিল্প দেশের মধ্যে সব থেকে পিছিয়ে।

গত পাঁচ জানুয়ারি সন্দেশখালিতে ইডির ওপরে হামলার পরে ছয় এপ্রিল ভূপতিনগরে এনআইএ-র ওপরে হামলা হয়েছে। দুটি ঘটনাতেই অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেছেন, সারা দেশ কেন্দ্রীয় এজেন্সির ওপরে হামলার ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। এদিনের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ, তোলাবাজদের বাঁচাতে তৎপর তৃণমূল। সেই জন্য তারা কেন্দ্রীয় এজেন্সির তদন্তে বাধা দিচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর মুখে এদিন উঠে এসেছে রাজ্যের রেশন ও নিয়োগ দুর্নীতি প্রসঙ্গও। প্রধাননমন্ত্রীর অভিযোগ রাজ্যের সর্বত্র সিন্ডিকেট রাজ কায়েম হয়েছে। তবে সব কিছুর মধ্যে থেকেও প্রধানমন্ত্রী এদিন দুর্নীতির বিরুদ্ধে তাঁর গ্যারান্টির কথা বলেছেন। তিনি আশ্বস্ত করেছেন কেউ ছাড় পাবে না। পাশাপাশি তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, জুন মাস থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় এজেন্সির তদন্তে আরও গতি আসবে।

বাংলায় কেন্দ্রের উন্নয়নে ব্রেক কষছে তৃণমূল, এমন মন্তব্যও করেন তিনি। কেন্দ্রীয় প্রকল্প রাজ্যে চালু করতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

এদিনও প্রধানমন্ত্রীর মুখে শোনা গিয়েছে দুর্নীতিতে বাজেয়াপ্ত হওয়া টাকা ফেরানোর প্রতিশ্রুতির কথা। তিনি বলেছেন, বাংলায় দুর্নীতির মাধ্যমে যারা টাকা জমিয়েছিল, তাদের তিন হাজার কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তিনি এব্যাপারে কথা বলছেন। ওই টাকা তিনি বাংলার গরিবদের দিনে চান বলে জানিয়েছেন।

2 weeks ago
Narendra Modi: মোদীই ভরসা বিজেপির

প্রসূন গুপ্তঃ ২০২৪-এর লোকসভা ভোটটি খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। নরেন্দ্র মোদীর স্লোগান, ইস বার ৪০০ পার। চাট্টিখানি ব্যাপার নয়, ৫৪৩ আসন বিশিষ্ট লোকসভা একক শক্তিতে ৪০০ পার একবারই হয়েছিল। ১৯৮৪/৮৫ তে রাজীব গান্ধীর নেতৃত্বে। এছাড়া ৩৫০ পার করেছেন জওহরলাল নেহেরু এবং ইন্দিরা গান্ধী। এখনও পর্যন্ত সেরা ফল নরেন্দ্র মোদীর ৩০৩, যা কিনা গত লোকসভায় আসন পেয়েছিলেন। প্রথমত নেহেরু, ইন্দিরা বা রাজীব পেরেছিলেন কারণ সারা ভারতে কংগ্রেসের ভোটার ছিল এবং যস্মিন রাজ্যে যদাচার ফর্মুলাতে এই জয় পেয়েছিলেন তাঁরা। পক্ষান্তরে মূলত হিন্দি এবং পশ্চিমী সংস্কৃতিতে অভ্যস্ত বিজেপি কিন্তু দক্ষিণে কর্ণাটক ছাড়া কোথাও সংগঠন করতেই পারেনি। বলতে গেলে পূর্ব ভারতেও কিন্তু একক শক্তি একমাত্র অসম ও ত্রিপুরা ছাড়া কোথায়? আজ অবধি বিহারেও একক শক্তি গড়ে তুলতে পারেনি কেন্দ্রীয় বিজেপি।

দেখা গিয়েছে, ২০১৯-এ রাজস্থান, গুজরাত, হরিয়ানা, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, ছত্রিশগড়, ঝাড়খন্ড, কর্ণাটক এবং ঝাড়খণ্ডে বিজেপি ধূলিস্যাৎ করে দিয়েছিল বিরোধীদের। কোথাও শূন্য কোথাও একটি বা দুটি আসনের বেশি বিরোধীদের বাক্সে আসেনি কিছুই। এছাড়া উত্তরপ্রদেশে ৮০ তে ৬২+, এনডিএ ৪ , বিহারে জোট নিয়ে ৪০ এ ৩৯ এবং মহারাষ্ট্রে গোটা পাঁচেক আসন ছাড়া ৪৩ টি আসন জয় করেছিল বিজেপি এবং তাদের ভীষণ কাছের জোট। এখানেই এবং অসম, ত্রিপুরা, উড়িষ্যা ইত্যাদি রাজ্য ধরে সব মিলিয়ে ২৫০টির বেশি আসন পেয়েছিলো বিজেপি+ জোট। পরে দক্ষিণ ভারত-পূর্ব ভারত, পশ্চিমবঙ্গ ইত্যাদি নিয়ে বিজেপি একা ৩০৩ এবং জোট সহ ৩৫০-র উপর আসন পেয়েছিলো। স্বাভাবিক ভাবেই বিজেপির সেরা ফল বলেই গণ্য করেছে বিশেষজ্ঞ মহল।

এবারে তার থেকে বেশি আসনের জায়গা কোথায়? অন্দরের খবর মহারাষ্ট্র, বিহার, ঝাড়খন্ড, কর্ণাটক, দিল্লি এবং হারিয়ানাতে আসন কমছে বিজেপির। উত্তরপ্রদেশ দাঁড়িয়ে আছে যোগী আদিত্যনাথের জনপ্রিয়তার উপর। কাজেই কোথাও মোদীর জনপ্রিয়তাকে ফের তুলে ধরে একক সংখ্যাগরিষ্টতা ধরে রাখতে মরিয়া বিজেপি। তাই যে ভাবেই হোক পশ্চিমবঙ্গের ২৫/২৬ আসন  টার্গেট করেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। কাজটি কিন্তু বেশ জটিল।

3 weeks ago
Election: ফের একবার বঙ্গ সফরে প্রধানমন্ত্রী, লোকসভা নির্বাচনী প্রচারে কোচবিহার আসবেন নরেন্দ্র মোদী

বেজে গিয়েছে লোকসভা ভোটের দামামা। সাত দফায় লোকসভা ভোটের নির্বাচন হতে চলেছে। আগামী ১৯ এপ্রিল থেকে ১ জুন পর্যন্ত চলবে ভোটগণনা পর্ব। প্রথম দফায় কোচবিহারে লোকসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আগামী সপ্তাহে নির্বাচনী প্রচারে দেখা যাবে নেতা মন্ত্রীদের। আগামী ৪ এপ্রিল কোচবিহারে লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিকের আমন্ত্রণে নির্বাচনী প্রচারে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। 

সূত্রের খবর, আগামী ৪ এপ্রিল কোচবিহার রাসমেলা ময়দানে নির্বাচনী প্রচার সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার আগেই রাসমেলা মাঠ পরিদর্শন করে কোথায় কী হবে সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখা শুরু করেছেন বিজেপি নেতৃত্বরা। নরেন্দ্র মোদির নির্বাচনী প্রচারে আসার চূড়ান্ত দিনক্ষণ ঘোষণা হতেই রবিবার কোচবিহার রাসমেলা ময়দান পরিদর্শনে গেলেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিদর্শক মঙ্গল পান্ডে, কোচবিহার বিজেপি জেলা সভাপতি তথা বিধায়ক সুকুমার রায়, বিধায়ক নিখিল রঞ্জন দে সহ অন্যান্য বিজেপি নেতৃত্বরা। 

চলতি মাসে প্রধানমন্ত্রী দুদিনের জন্য় বাংলা সফরে এসেছিলেন। লোকসভা নির্বাচনের সময়সীমা ঘোষণার আগে আরামবাগ, কৃষ্ণনগর, বারাসত জনসভা করেছেন নরেন্দ্র মোদি। 

3 weeks ago


Sandeshkhali: "শক্তি স্বরূপা" সম্বোধন প্রধানমন্ত্রীর, বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী রেখা পাত্রকে ফোন মোদীর

রেখা পাত্র। সন্দেশখালির প্রতিবাদী মুখ। বর্তমানে বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী। রেখার মেসেজ পেয়ে খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ফোন করলেন রেখাকে। 'শক্তি স্বরূপা' বলে সম্বোধন করে বলেন রেখার সাহসিকতার জন্যই সন্দেশখালির ত্রাস এখন গরাদের ওপারে।

সন্দেশখালির মা, বোনেদের পাশে থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জানান রেখা। রেখার নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার পর সন্দেশখালির মানুষের কী প্রতিক্রিয়া তা রেখার কাছে জানতে চান প্রধানমন্ত্রী। রেখা জানান, সন্দেশখালিতে যে কয়েকজন তৃণমূলের সমর্থন করছিল,  রেখা প্রার্থী হওয়ার পর তাঁঁরা বিরোধীতা করেছিলেন। তাঁরাও এখন মেনে নিয়েছেন। তাঁরা তাঁকে জানিয়েছেন, তৃণমূলের উস্কানিতেই তাঁরা এসব করেছেন। তাঁরা যা করেছেন, সে সবের জন্য তাঁরা ক্ষমাও চেয়েছেন।’

রেখা প্রধানমত্রীকে আরও জানিয়েছেন, কীভাবে ২০১১ সালের পর থেকে সন্দেশখালির মানুষ ভোটে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। এবার যেন তারা নিরাপত্তার সঙ্গে ভোটে অংশগ্রহণ করতে পারেন সেটা দেখার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান রেখা। প্রধানমন্ত্রী রেখাকে আশ্বস্ত করে বলেন, রেখার কথা নিশ্চয় নির্বাচন কমিশনের কানে পৌঁছবে। সন্দেশখালির মানুষের পাশে থাকবে কমিশন, যাতে তারা নিরপেক্ষভাবে ভোট দিতে পারে।

রেখা প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, সন্দেশখালির সকল মানুষের জন্য তিনি কাজ করতে চান। এমনকি যাঁরা বিরোধীতা করেছেন তাঁদের জন্যও। প্রধানমন্ত্রী এ কথা শোনার পর খুশি হন, রেখাকে বলেন, বিজেপি সঠিক প্রার্থী বাছাই করেছে। একদিন দেশ রেখার এই ভাবনার জন্য গর্বিত হবে।

রেখা বলেছেন, 'সন্দেশখালিতে মা-বোনেদের অত্যাচারের পাশাপাশি পুরুষদের উপরেও আক্রমণ হচ্ছে। মারধর করা হয়। কিন্তু তাঁরাও আমার ভাই। তাঁদের সুরক্ষার জন্যও আমি লড়াই করব।'

রাজনীতির অভিজ্ঞতা না থাকা রেখা, খেটে খাওয়া কষ্টে দিন কাটানো রেখা, সন্দেশখালির উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে, কন্যাসন্তানকে কোলে নিয়ে মিছিলে হাঁটা রেখা। তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহান, উত্তম সর্দার, শিবপ্রসাদ হাজরাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে গর্জে ওঠা রেখার আত্মবিশ্বাস মুগ্ধ করে প্রধানমন্ত্রীকে। প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বাস রেখা নির্বাচনে জয়লাভ করে দিল্লিতে পৌঁছবেই।

4 weeks ago
Metro: কলকাতা মেট্রোর ঐতিহাসিক দিন! গঙ্গার তলা দিয়ে চালু হলো মেট্রো

অবশেষে প্রতীক্ষার অবসান। শুক্রবার, সকাল থেকে দেশে প্রথমবারের মতো গঙ্গা নদীর তলদেশ দিয়ে চালু হলো মেট্রো। সাধারণ যাত্রীদের জন্য খুলে গেল মেট্রো পরিষেবা। গত ৬ মার্চ কলকাতা সফরে এসে এসপ্ল্যানেড থেকে হাওড়া-ময়দান পর্যন্ত মেট্রো রেল পরিষেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জানা গিয়েছে, এই রুটে প্রতিদিন সকাল ৭টায় ছাড়বে প্রথম মেট্রো। অন্যদিকে শেষ মেট্রো ছাড়বে রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে। প্রতি সপ্তাহের সোম থেকে শনিবার পর্যন্ত ১২ থেকে ১৫ মিনিটের ব্যবধানে ওই রুটে চলবে মেট্রো। রবিবার সারাদিনই বন্ধ থাকবে মেট্রো পরিষেবা। এই রুটে রয়েছে ৪টি স্টেশন, হাওড়া-ময়দান, হাওড়া, মহাকরণ এবং এসপ্ল্যানেড।

তবে গঙ্গার তলদেশ দিয়ে এই নতুন মেট্রো রুটে খুব কম সময়ে যাতায়াতে, সুবিধা হয়েছে সাধারণ মানুষের। আর তাই সকাল থেকেই স্টেশনে লক্ষ্য করা গেল প্রচুর উচ্ছ্বসিত  মানুষের ভিড়। কেউ কেউ এই ঐতিহাসিক বিষয়ের প্রথমবার সাক্ষী থাকার জন্য ভোর ৪টে  থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কেটেছেন। একটি টিকিটের মাধ্যমে তিন লাইনের মধ্যে ইন্টারচেঞ্জ করে সফর করা যাবে৷ তাই একটি লাইন থেকে অন্য লাইনে সফর করতে হলে আলাদা আলাদা টিকিট কাটার প্রয়োজন নেই। তবে এই ঐতিহাসিক মেট্রো সফর ঘিরে সাধারণ মানুষের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতো।

এছাড়াও শুক্রবার মেট্রো পরিদর্শনে এলেন হাওড়ার বিজেপির প্রার্থী ডক্টর রথীন চক্রবর্তী। এই ঐতিহাসিক পদক্ষেপের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি।

সব মিলিয়ে কলকাতা মেট্রো তথা সমগ্র দেশবাসীর কাছে এই মুহূর্ত গর্বের বলেই মনে করছেন প্রত্যেকে। দেশে প্রথম কোনও নদীর নিচ দিয়ে যাত্রী নিয়ে ছুটল মেট্রো। আর এই মুহূর্তের সাক্ষী থাকল সমগ্র বাংলা তথা দেশবাসী।

a month ago


Express: ভোটের মুখে মোদীর মাস্টারস্ট্রোক! মোদীর হাত ধরে ১০ টি বন্দে ভারত, বাংলায় আরও ১টি

দুয়ারে কড়া নাড়ছে ২৪-এর লোকসভা নির্বাচন। আর ঠিকই নির্বাচনের মুখেই মোদীর মাস্টারস্ট্রোক! মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গুজরাতের আহমেদাবাদ থেকে রেল প্রকল্পে ১০টি নতুন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনের সূচনা করেন। বন্দে ভারত উদ্বোধনের পাশাপাশি দেশ জুড়ে ৮৫ হাজার কোটি টাকার মোট ৬ হাজার রেল প্রকল্পের শিলান্যাস করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

তবে নতুন বন্দে ভারত ট্রেনগুলির মধ্যে একটি ট্রেন পেয়েছে বাংলাও। সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি থেকে পাটনা পর্যন্ত চলবে এই বন্দে ভারত। এছাড়াও মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী যে ট্রেনগুলির উদ্বোধন করেন তার মধ্যে রয়েছে- রাঁচি-বারাণসী, খাজুরাহো-নিজামুদ্দিন (দিল্লি), পুরী-বিশাখাপত্তনম, আহমেদাবাদ-মুম্বই সেন্ট্রাল, পাটনা-লখনউ , লখনউ-দেরাদুন, মাইসুরু-এমজিআর সেন্ট্রাল (চেন্নাই), কালাবুরাগি-স্যর এম বিশ্বেশ্বর টার্মিনাল বেঙ্গালুরু এবং বিশাখাপত্তনম-সেকেন্দরাবাদ পর্যন্ত। 

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী রেল প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জানালেন, রেলের মাধ্যমেই গোটা দেশকে জুড়ে রাখার পরিকল্পনা রয়েছে। মঙ্গলবার আহমেদাবাদে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। মোদীর রেল প্রকল্পের উদ্বোধন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আম জনতার কথা ভেবে তাদের প্রাধান্য দিয়ে তাদের চাহিদার কথা ভেবে রেল কে নিয়ে অনেক কিছু করলেন এবং ভাবলেন। 

তবে মঙ্গলবার রেল প্রকল্প ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী পেট্রোকেমিক্যাল প্রকল্পের শিলান্যাস করেন। বন্দে ভারত থেকে শুরু করে মালবাহী ট্রেনএবং দেশের বিভিন্ন জায়গায় ‘প্রধানমন্ত্রী ভারতীয় জনৌষধি কেন্দ্র’ উদ্বোধন হলো প্রধানমন্ত্রী মোদীর হাত ধরেই। আসন্ন লোকসভা নির্বাচন।  তার মধ্যে মোদী-ম্যাজিক ভোটবাক্সে কতটা প্রভাব ফেলে সেটাই  এখন দেখার। 

a month ago
PM Modi: 'তৃণমূলের তো ভাইপোর চিন্তা,' শিলিগুড়ির সভা থেকে একযোগে তৃণমূলকে বিঁধলেন প্রধানমন্ত্রী ও অভিজিৎ

শিলিগুড়ির সভা থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি মঞ্চে উপস্থিত থাকা কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি তথা অধুনা বিজেপি নেতা অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ও তৃণমূলকে ‘দুর্নীতিপরায়ণ’ বলে আক্রমণ করেন।

ভাইপোর কথা তুলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধলেন নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী বলেন,'দেশবাসীকে বিনামূল্যে রেশন দিচ্ছে কেন্দ্র। অথচ এই বঙ্গে রেশন দুর্নীতিতেই জেলে খাদ্যমন্ত্রী। তাই রেশন নিয়েও এখানে দুর্নীতি হয়েছে।' এই সভায় তিনি ‘ভাইপো’ নিয়ে তৃণমূলকে আক্রমণ করেছেন। তাঁর মন্তব্য, 'তৃণমূল ভাইপোকে নিয়ে ব্যস্ত।'

অন্যদিকে, বিজেপিতে যোগদানের পর মোদীর সঙ্গে এটাই প্রথম সাক্ষাৎকার অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়-এর। সকাল থেকে আলাদাই আনন্দ ও উচ্ছ্বাস দেখা গিয়েছিল তাঁর মধ্যে। সেই ইচ্ছেই পূরণ হল শিলিগুড়ির সভামঞ্চে। কাছাকাছি বসার সুযোগও পেয়েছেন। হাত বাড়িয়ে দেন অভিজিতের দিকে। আর তিনি প্রধানমন্ত্রীর হাত দু’হাতে ধরে নিজের কপালে ছোঁয়ান। আর একেবারে সভার শেষে মোদীর কাছ থেকে সাহসের শংসাপত্রও পেলেন কলকাতা হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি।

একদিকে তৃণমূল যখন তাদের ১ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি পাওনা আদায়ে মরিয়া, তখন শিলিগুড়িতে আজ নরেন্দ্র মোদী বলে গেলেন, তৃণমূল সরকার ২৫ লাখ ভুয়ো জবকার্ড তৈরি করে সাধারণ মানুষের টাকা সরিয়ে নিয়েছে। মানুষকে উজ্জ্বলা যোজনা থেকে বঞ্চিত করেছে।

2 months ago
Siliguri: শিলিগুড়িতে সভা প্রধানমন্ত্রীর, মঞ্চে উপস্থিত থাকবেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, কী বার্তা দেবেন মোদী?

লোকসভা ভোটের দামামা বেজে গিয়েছে। কোমর বেঁধে ময়দানে নেমেছে বিজেপি, তৃণমূল। তৃতীয় দফায় সভা করতে বঙ্গে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ, শনিবার বিকেলে শিলিগুড়িতে সভা করছেন তিনি। সেখানে উপস্থিত থাকছেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি তথা অধুনা বিজেপি নেতা অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, এমনটাই দলীয় সূত্রে খবর।

জানা গিয়েছে, শনিবার সকাল ১১টা ১৫ নাগাদ বাগডোগরায় নেমেছেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। উত্তরবঙ্গের বিজেপি নেতা শঙ্কর ঘোষ তাঁকে বিমানবন্দর থেকে নিয়ে যান। লোকসভা নির্বাচনের মুখে উত্তরবঙ্গের প্রথম সভাটি শিলিগুড়ি দিয়ে শুরু করেছেন তিনি। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ সংলগ্ন কাওয়াখালি মাঠে বিকেল তিনটেয় ওই সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর সফরকে ঘিরে শিলিগুড়ি শহর সংলগ্ন এলাকার বিভিন্ন জায়গায় নিয়ন্ত্রিণ করা হচ্ছে যান চলাচল।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দুপুরে বিচারপতির পদ থেকে ইস্তফা দিলেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তারপরই ৭ই মার্চ সুকান্ত মজুমদার ও শুভেন্দুর উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগদান করেন। বিজেপিতে যাওয়ার পর এটাই প্রথম মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ হতে চলেছে প্রাক্তন বিচারপতির।

2 months ago


Narendra Modi: 'ঝোলা নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছিলাম...' বারাসতের সভামঞ্চে মোদীর জীবনের অজানা গল্প

চা বিক্রেতা থেকে দেশের প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদীর জীবনের উত্থান গল্প হার মানাবে কোনও হিট সিনেমার চিত্রনাট্যকেও। লোকসভা নির্বাচনের আগে আজ, বুধবার বারাসতে সভা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি শোনালেন তাঁর জীবনের অজানা কিছু অধ্যায়।

এদিন বিজেপির মহিলা মোর্চা আয়োজিত নারী বন্দন দিবসের মুখ্য অতিথি হিসাবে বারাসতের সভায় উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী। নারীশক্তি সম্মান সমাবেশের মঞ্চ থেকেই বিরোধীদের তোলা তাঁর পরিবার নিয়ে যেমন সব কটাক্ষের জবাব দিলেন। তেমনই আবেগতাড়িত হয়ে নিজের জীবনের কথা বলতে শোনা গেল তাঁকে। মোদী বলেন, 'আজকে আপনাদের সামনে আমি একটা সত্যি কথা বলছি, যা আগে কখনও আমি কোথাও বলিনি। আমি সংঘের প্রচারক হিসাবে জীবন কাটিয়েছি। আমি খুব ছোটো বয়সে ঘর থেকে একটা ঝোলা নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছিলাম। পরিব্রাজকের জীবন বেছে নিয়েছিলাম। পরিবার ছেড়ে দেশের কোণায় কোণায় ঘুরে বেড়াচ্ছিলাম। কিছু খোঁজার চেষ্টা করছিলাম।'

জীবনের কঠিনতম সময়গুলির কথা উল্লেখ করতে গিয়ে মোদী বলেন, 'আমার কাছে কখনও এক পয়সাও ছিল না। মাথার উপর ছাদ ছিল না। শুধু আমার কাঁধে ঝোলা ছিল। কিন্তু আপনারা জেনে খুশি হবেন, কোনও না কোনও মা-বাবা, কোনও বোন, আমাকে প্রশ্নটা করেই ফেলত, বাবা তুমি কি কিছু খেয়েছো? আমি একদিনও অভুক্ত থাকিনি। আমি আজ বলছি, সালের পর সাল আমি পরিবার ছেড়ে ছিলাম। তাই আমি বলি, এটাই আমার পরিবার।'

2 months ago
Barasat: ‘সন্দেশখালির ঝড় গোটা বাংলায় উঠবে’, বারাসত থেকে তৃণমূলকে তোপ মোদীর

দুয়ারে কড়া নাড়ছে লোকসভা ভোট। যদিও নির্বাচন কমিশন এখনও নির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা করেনি। তবে চলতি মাসের শুরু থেকে বঙ্গে প্রচারে নেমেছে বিজেপি। আরামবাগ, কৃষ্ণনগরের সভা থেকে সন্দেশখালিকাণ্ডে তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বুধবার বারাসতের 'নারীশক্তি সম্মান সমাবেশ' সভামঞ্চ থেকে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণের মাত্রা আরও বাড়ল প্রধানমন্ত্রীর। সন্দেশখালির ঝড় গোটা বাংলায় উঠবে, এমনটাই বললেন তিনি।

বুধবারও মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধনে কলকাতায় এসেছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে মেট্রো প্রকল্প উদ্বোধনের পর তিনি বারাসতে আসেন। আর এদিন মোদীর সভায় উপস্থিত হন সন্দেশখালির মহিলারা। সন্দেশখালি প্রসঙ্গে কী বলেন সেদিকেই মুখিয়ে ছিলেন সকলে। আর কাউকে নিরাশ না করে তৃণমূলকে তীব্র তোপ দাগলেন তিনি।

মোদি বললেন, “বাংলার মা বোনেদের সঙ্গে ঘোর পাপ করেছে তৃণমূল। সন্দেশখালিতে যা হয়েছে তাতে যে কারও মাথা নিচু হয়ে যাবে। এই ঘটনা মাথা নত করে দেয়। কিন্তু আপনাদের সঙ্গে যা হয়েছে তাতে এই সরকারের কিছু এসে যায় না। হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টেও ধাক্কা খেয়েছে রাজ্য। এসব কিছু সত্ত্বেও সব জায়গায় মা-বোনেদের উপর অত্যাচার করছেন তৃণমূল নেতারা। আর ওই নেতাদের উপর ভরসা রয়েছে দলের। কিন্তু বাংলার মা-বোনেদের উপর ওদের ভরসা নেই। ওরা দুষ্কৃতীদের বাঁচানোর চেষ্টা করে সবসময়।” এর পরই মোদি বলেন, “পুরো বাংলায় সন্দেশখালির ঝড় উঠবে”, মন্তব্য মোদির।

সন্দেশখালির মতোই বিভিন্ন প্রান্তের মহিলাদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর ডাক দেন তিনি।

2 months ago


Modi: কৃষ্ণনগরে ভাষণ শুরু করেই ক্ষমা প্রার্থানা প্রধানমন্ত্রীর, তৃণমূলকে তীব্র তুলধনা...

লোকসভা ভোটের প্রচারের দ্বিতীয় দিনে কৃষ্ণনগরে জনসমুদ্র প্রধানমন্ত্রীর সভায়। যা দেখে উচ্ছ্বসিত নরেন্দ্র মোদী সহ বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। ভাষণের শুরুতেই মোদী সভায় উপস্থিত সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। কারণ, শনিবার কৃষ্ণনগরের যে গভর্নমেন্ট কলেজের ময়দানে মোদীর সভার আয়োজন করা হয়েছিল, তা ছোটো হয়ে গিয়েছে। তিনি সবাইকে যে যেখানে রয়েছেন, সেখানেই উপস্থিত থেকে ভাষণ শুনতে অনুরোধ করেন। 

এরপর প্রধানমন্ত্রী কৃষ্ণ নাম নিয়ে শুরু করেন বক্তৃতা। তৃণমূলকে তীব্র কটাক্ষ করেন তিনি। নরেন্দ্র মোদী বলেন, 'তৃণমূল মানে দুর্নীতিবাজ, পরিবারতন্ত্র, বিশ্বাসঘাতক'। বাংলাকে গরিব করে রাখতে চায়। সেই কারণেই তৃণমূল সরকার দরিদ্রদের জন্য় প্রকল্প চালু করতে দিচ্ছে না। এই তৃণমূলকে ভোটের মাধ্য়মে শিক্ষা দিতে হবে। এমনকি তৃণমূল বাংলার মানুষকে নিরাশ করছে। এতদিন রাজ্য় সরকার চায়নি সন্দেশখালির দোষী গ্রেফতার হোক। তৃণমূল সন্দেশখালির মায়েদের আর্তি শোনেনি। কিন্তু সন্দেশখালির পাশে দাঁড়িয়েছে বিজেপি। তাই তৃণমূল অপরাধীকে ধরতে বাধ্য় হয়েছে। সন্দেশখালি প্রসঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে এমনটাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

এমনকি মোদীর গলায় শোনা যায় বাংলাও। তিনি বাংলায় বলেন, মোদীর গ্যারান্টি মানে, সেই গ্যারান্টি পূর্ণ হওয়ার গ্যারান্টি। তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গকে প্রথম এইমসের গ্যারান্টি দিয়েছিলাম। তা হয়েছে। কল্যাণীতে এইমস তৈরি হওয়ায় তৃণমূল সরকার মুশকিলে পড়েছে। তৃণমূল সরকার এই বড় হাসপাতাল পরিবেশগত অনুমতি দিতে বাধা দিচ্ছে। তিনি আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গে চালু করতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেছেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে।


2 months ago
Narendra Modi: ভোটপ্রচারে কৃষ্ণনগরে প্রধানমন্ত্রী, সভাস্থল ঘিরে কড়া নিরাপত্তা

আরামবাগের পর কৃষ্ণনগরে প্রধাুনমন্ত্রী। শনিবার সকাল ১০ টা নাগাদ নদিয়ার কৃষ্ণনগর গভর্নমেন্ট কলেজ ময়দানে পৌঁছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সিসিটিভি ক্য়ামেরায় মোড়া রয়েছে গোটা সভা। এদিন সভার পাশাপাশি পাশের মাঠে একটি প্রশাসনিক সভার আয়োজন রয়েছে সেখান থেকে বেশ কিছু প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। মোদীর সভা ঘিরে উদ্দীপনা তুঙ্গে কর্মী-সমর্থকদের। সভাস্থল ঘিরে কড়া নিরাপত্তা। 

2 months ago
Modi: 'রামমোহনের আত্মা সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে', আরামবাগ থেকে মমতাকে তোপ মোদীর

রাজ্য়ে লোকসভা ভোটের আগেই প্রচারে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার আরামবাগের সভাস্থল থেকে একাধিক সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধনের পাশাপাশি সভায় বক্তব্য় রাখলেন প্রধানমন্ত্রী। বিপুল মানুষের উপস্থিতি দেখে কার্যত উচ্ছ্বসিত হয়ে হাত জোড় করে ধন্য়বাদ জানান মোদী। সন্দেশখালি প্রসঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যের দুর্নীতি থেকে নারী নির্যাতন এমনই একাধিক অভিযোগের বিরুদ্ধে সুর চড়াতে দেখা গেল প্রধানমন্ত্রীকে। 

ভাষণের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী যেমন রামমোহনকে স্মরণ করলেন, তেমনি কুর্নিশ জানালেন নারীশক্তিকে। আরামবাগের সভাস্থল থেকে এদিন প্রধানমন্ত্রী রাজ্য়বাসীর উদ্দেশ্য়ে বলেন, সন্দেশখালির ঘটনা দেখে দুঃখিত গোটা দেশ। “রামমোহন রায়ের মতো মহান সমাজ সংস্কারক মহিলাদের উন্নতির জন্য জীবন উৎসর্গ করেন। নারীমুক্তির মূর্ত প্রতীক রামমোহন। তাঁর রাজ্যেরই সন্দেশখালির মহিলাদের সঙ্গে যা হয়েছে, তা দেখে গোটা দেশ কষ্ট পাচ্ছে, ক্ষুব্ধ। রামমোহনের আত্মা যেখানেই থাক, সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে।”

এদিন আরামবাগে সভা শেষ করে রাজভবনে পৌঁছন প্রধানমন্ত্রী। আজ সেখানেই তিনি রাত্রিযাপন করবেন। সূত্রের খবর, আজ, শুক্রবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ হতে পারে প্রধানমন্ত্রীর। সেখানেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক হতে পারে মুখ্যমন্ত্রীর।

2 months ago


Modi: লোকসভা ভোটের দামামা বাজিয়ে রাজ্য়ে প্রধানমন্ত্রী, বাংলায় প্রার্থী ঘোষণা বিজেপির? জল্পনা

রাজ্যে লোকসভা ভোটের দামামা বাজিয়ে আজ, শুক্রবার থেকেই প্রচারে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিন বছর বাদে বঙ্গ সফরে প্রধানমন্ত্রী। এদিন আরামবাগের সভাস্থল থেকে একাধিক সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধনের পাশাপাশি সভায় বক্তব্য় রাখবেন প্রধানমন্ত্রী। আগামীকাল কৃষ্ণনগরে সভা করবেন তিনি। তারপরে আবার ৮ তারিখে উত্তর ২৪ পরগনার বারাসতে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী, এমনটাই সূত্রের খবর।

অন্ডালের কাজী নজরুল ইসলাম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী নামেন সকাল ১০.২০ মিনিটে। প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে বিজেপি নেতাদের পাশাপাশি বিমানবন্দরে হাজির হন রাজ্যের আইন মন্ত্রী মলয় ঘটক। এখনও ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করেনি নির্বাচন কমিশন। কিন্তু তার আগেই বিজেপি ভোটের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত লোকসভা ভোটে আরামবাগে ভাল ফল করেছিল বিজেপি। মাত্র ১২ ভোটে হারতে হয়েছিল গেরুয়া শিবিরকে। সেকারণে আরামবাগে এবার ঘর গোছাতে তৈরি বিজেপি। আগামীকাল, শনিবার আবার কৃষ্ণনগরে সভা করবেন তিনি। কৃষ্ণনগর কেন্দ্রটিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ বিজেপির কাছে। এই কেন্দ্রে গতবার ভাল ভোট পেয়েছিল বিজেপি। সেকারণে এবার আগে থেকেই মোদীর সভা করে ভোট ব্যাঙ্ক সুরক্ষিত করে রাখতে চাইছে গেরুয়া শিবির। আজ রাজভবনে রাত্রিবাস করবেন প্রধানমন্ত্রী নরন্দ্র মোদী। এই প্রথম প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর রাজভবনে রাত্রিবাস করবেন তিনি। সেখান থেকে আগামীকাল সকালে তিনি চলে যাবেন কৃষ্ণনগরে সভা করতে। সেখান থেকে বিহারের গয়ায় কপ্টারে উড়ে যাবেন তিনি। মোদীর পর পর দুটি সভা ঘিরে বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ।

আজ আরামবাগের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী মোদী সন্দেশখালি নিয়ে কোনও বার্তা দেন কিনা সেদিকে তাকিয়ে রয়েছে রাজনৈতিক মহল। এদিকে আজই আবার রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। ১০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আসতে চলেছে রাজ্যে। কলকাতায় বেথুন স্কুলে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

2 months ago
Modi: ভোট আবহে রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী, থাকবেন রাজভবনে

ভোট ঘোষণা হয়নি, তার আগেই বঙ্গ সফর করে জনসভা প্রধানমন্ত্রীর। প্রাক্-নির্বাচনী এই জনসভায় পয়লা এবং দোসরা মার্চ আরামবাগ এবং কৃষ্ণনগরে গুচ্ছ কর্মসূচি নরেন্দ্র মোদীর। এবারই প্রথম রাজনৈতিক কাজে বাংলায় রাত্রিবাস প্রধানমন্ত্রীর। পয়লা মার্চ রাজভবনে রাত্রিযাপন করে দোসরা মার্চ কৃষ্ণনগরের জনসভা শেষে রাজ্য ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী। রাজভবনে রাত্রিবাসকালে বিজেপির কোনও প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত্ করবে কি, সেই প্রশ্ন উঠছে। দুই দিনের জনসভায় বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের কাছে কী বার্তা রাখবেন নরেন্দ্র মোদী, সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে ওয়াকিবহাল মহল।

রামকৃষ্ণ মিশনের অনুষ্ঠানে এর আগে বাংলায় রাত্রিবাস করেন প্রধানমন্ত্রী। এবার রাজনৈতিক কর্মসূচিই পাখির চোখ নরেন্দ্র মোদীর, এমনটাই সূত্রের খবর। বাংলায় যে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি চলছে, সে আবহে আসতে বাধ্য হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী, এমনটাই দাবি বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষের। বাংলার মহিলাদের পাশে থাকতে বঙ্গ সফরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী, মন্তব্য দিলীপ ঘোষের।

এদিকে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে রাজ্যের প্রচারের জন্য এলো বিশেষ গাড়ি। এই গাড়ি করেই নির্বাচনী রোড শো করবেন প্রধানমন্ত্রী। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মত, পয়লা মার্চেই বঙ্গ বিজেপির জন্য নির্বাচনী রোড ম্যাপ তৈরি করে দেবেন প্রধানমন্ত্রী। লোকসভা ভোটের আগে বাংলার শাসক দল তৃণমূলকে আক্রমণে কী রণকৌশল বিজেপির, পথ কি বাতলে দেবেন নরেন্দ্র মোদী? 

2 months ago