Breaking News
Mahua Moitra: লোকসভায় খারিজ মহুয়ার সাংসদ পদ, পাশে মমতা, তোপ বিজেপিকে      ED: শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে প্রাক্তন শিক্ষকের বাড়িতে ইডি হানা!      Ragging: যাদবপুরে ফের র‍্যাগিংয়ের অভিযোগ! প্রথম বর্ষের ছাত্রকে ফোন করে দেওয়া হত হুমকি...      Film Festival: শুরু ২৯তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, উদ্বোধনে 'বাদশা' নয় ভাইজান      SSKM: বেড নেই এসএসকেএম-এ! দেড় বছরের শিশুকে ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে      BJP: জাতীয় সঙ্গীত 'অবমাননা' মামলায় জোর ধাক্কা রাজ্যের! বিজেপি বিধায়কদের গ্রেফতারে 'না' হাইকোর্টের      Recruitment Scam: ফের তৃণমূলের দুই কাউন্সিলরের বাড়ি থেকে উদ্ধার নিয়োগ সংক্রান্ত নথি ও অ্যাডমিট কার্ড!      Congress: স্বাধীনতার পর প্রথম তেলেঙ্গানায় সরকার গঠনের পথে কংগ্রেস      Deganga: গুরুতর অভিযোগ! মিড ডে মিলের চাল লুকিয়ে রাখা হচ্ছে স্কুলের শৌচালয়ে      Sujoykrishna: সুজয়কৃষ্ণের ভয়েস স্যাম্পেল টেস্টে 'ঢিলেমি'! এসএসকেএম-এর ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন     

ModiGovernment

Mahua Moitra: আইফোন হ্যাক করতে চায় মোদী সরকার! কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মহুয়া মৈত্রর

মহুয়া মৈত্রর আইফোন হ্যাক করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এমনটাই অভিযোগ করলেন খোদ তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। এমনকি সরাসরি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তাঁর ফোন হ্যাক করার অভিযোগ করলেন তিনি। 'ঘুষ নিয়ে প্রশ্ন’ (Mahua Moitra) বিতর্ক যখন ক্রমশ আরও জটিল হচ্ছে। তখনই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন মহুয়া। মঙ্গলবার সকাল সাডে় ৯ টা নাগাদ টুইট করে জানান, অ্যাপেল থেকে তাঁকে সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে যে, রাষ্ট্রপরিচালিত হ্যাকাররা তাঁর ফোন হ্যাক করার চেষ্টা করছে।

আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার মহুয়া মৈত্র এক্স অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, তাঁর আইফোন হ্যাক করতে চায় কেন্দ্র সরকার। এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন মহুয়া। অ্যাপেল সংস্থা থেকে কিছু সতর্কবার্তা পাঠানো হয়েছে তাঁর ফোনে। যার স্ক্রিনশর্ট তুলে শেয়ার করেছেন তৃণমূল সাংসদ। অ্যাপেল থেকে মহুয়ার আইফোনে আসা সেই সতর্কবার্তায় লেখা রয়েছে 'রাষ্ট্রপরিচালিত হ্যাকাররা আপনাকে ‘টার্গেট’ করেছে। অ্যাপেল আইডির সঙ্গে আপনার যে আইফোনটি যুক্ত করা আছে, সেটি হ্যাক করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আপনি কে, কী করেন— সম্ভবত এ সব দেখে হ্যাকারেরা নির্দিষ্ট করে আপনাকেই ‘টার্গেট’ করেছে। আর তারা যদি তা করতে পারে তাহলে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য, কথোপকথন এমনকি ক্যামেরা এবং মাইক্রোফোনও তাঁদের হাতে চলে যাবে।'

আবার মহুয়া টুইট পোস্টে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক, আদানি এবং প্রধানমন্ত্রীর দফতরকে উল্লেখ করে আরও লিখেছেন, "আপনাদের ভয় দেখে আমার আপনাদের প্রতি করুণা হচ্ছে।" তবে শুধুমাত্র মহুয়া মৈত্রই নন, জানা গিয়েছে, কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরও অ্যাপেলের তরফে এমনই সতর্কবার্তা পেয়েছেন। ফলে তিনিও এই নিয়ে টুইট করেছেন। এছাড়াও একই মেসেজ পেয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী, পবন খেরা, আসাদুদ্দিন ওয়াইসি-এর মত নেতারা। 

a month ago
Modi: ৯ বছর পূর্তি মোদী সরকারের, টুইট করে আবেগঘন বার্তা প্রধানমন্ত্রী মোদীর

৩০ মে, মঙ্গলবার ৯ বছর পূর্ণ হল মোদী সরকারের (Modi Government)। আর নবম বর্ষপূর্তিতে সরকারের কাজের প্রশংসা শোনা গেল একাধিক মন্ত্রীদের গলায়। মঙ্গলবার সকালেই দেশবাসীর উদ্দেশে টুইট করে জানালেন, আজ কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের ৯ বছর পূর্তি হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, অতীতে যা যা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা জনগণের ভালোর জন্যই নেওয়া হয়েছে। আগামী দিনেও জনগণের সেবায় তাঁর সরকার নিয়োজিত থাকবে বলে আবেগঘন বার্তায় আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটে লিখেছেন, 'আমরা আজ জাতির সেবায় ৯ বছর পূর্ণ করেছি। বিনয় ও কৃতজ্ঞতায় ভরে গিয়েছে আমার মন। এই সরকারের প্রতিটি সিদ্ধান্ত, প্রতিটি পদক্ষেপ, মানুষের জীবনকে আরও উন্নত করার জন্য নেওয়া হয়েছে। উন্নত ভারত গড়তে আমরা আরও কঠোর পরিশ্রম করে যাব।' ২০১৪ সালে প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হন নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। এরপর ২০১৯ সালের ৩০মে দ্বিতীয়বারের জন্য দেশের প্রধানমন্ত্রী হন তিনি। ফলে দেখতে দেখতে কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের ৯ বছর পূর্ণ হয়ে গেল। ফলে তিনি তাঁর টুইটে বিজেপি সরকারের সাফল্যের কথা তুলে ধরা হয়েছে।

অন্যদিকে, বিজেপি সরকারের ৯ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিজেপির তরফে একাধিক কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। সূত্রের খবর, মোদী সরকারের উন্নয়নমূলক পরিকল্পনা দেশব্যাপী পৌঁছে দেওয়ার জন্য় পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আবার মোদী সরকারের প্রশংসা করেছেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। যোগী আদিত্যনাথ জানিয়েছেন, মোদী সরকারের ফলেই বিশ্বের কাছে দেশের মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে।

6 months ago
Sudan: সুদানে আটক ভারতীয়দের উদ্ধার নৌসেনার, জানুন কী অবস্থা

ফের সুদানে (Sudan) আটক ভারতীয়দের (Indians) উদ্ধার করল বায়ু সেনা। বৃহস্পতিবারও পোর্ট সুদানে থেকে ২৯৭ জন ভারতীয়কে নিয়ে জেড্ডার উদ্দেশে রওনা দিয়েছে ভারতীয় নৌসেনার জাহাজ আইএনএস তেগ। সুদানে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে আকাশ-জলপথে যথাযথ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বিদেশ মন্ত্রক। বুধবারই ২৭৮ জন ভারতীয়কে সুদান বন্দর থেকে জেড্ডায় পৌঁছে দিয়েছিল আইএনএস সুমেধা।

উল্লেখ্য, সুদানে আটকে পড়া ভারতীয়দের উদ্ধার করতে মঙ্গলবার থেকে ‘অপারেশন কাবেরী’ শুরু করেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। জেড্ডায় ফেরা ভারতীয়দের অনেকেই জানিয়েছিলেন, সেনাপ্রধান আবদেল ফতাহ আল-বুরহান এবং আধাসেনা আরএসএফ বাহিনীর প্রধান মহম্মদ হামদান ডাগলো ওরফে হেমেত্তির বাহিনীর লড়াইয়ে মধ্যে পড়ে তাঁদের প্রাণ সংশয়ের কথা। অভিযোগ, মাথায় রাইফেলের নল ঠেকিয়ে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে অনেককেই! খার্তুমের একটি কর্পোরেট সংস্থার এক ভারতীয় কর্মী বলেন, ‘আমাদের অফিসে ঢুকে লুটপাট চালিয়েছে সেনা। প্রায় ৮ ঘণ্টা আমাদের পণবন্দি করে রাখা হয়েছিল।’

গত ১৫ এপ্রিল রাজধানী খার্তুম-সহ সুদানের বিভিন্ন এলাকায় সেনা এবং আধাসামরিক বাহিনী ‘র‌্যাপিড সাপোর্ট ফোর্স’ (আরএসএফ)-এর ক্ষমতার লড়াই শুরু হওয়ার পরে তাঁদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিল নয়াদিল্লি। এই পরিস্থিতিতে নৌসেনার জাহাজ আইএনএস সুমেধা এবং বায়ুসেনার সি-১৩০জে হারকিউলিস বিমানের সাহায্যে তাঁদের ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া শুরু হয় মঙ্গলবার। 


7 months ago


Same Sex: সমকামী বিয়েতে ঘোর আপত্তি জানিয়ে শহুরে এলিটিস্ট তত্ত্ব মোদী সরকারের

বিবাহ (Marriage) অসমকামী প্রতিষ্ঠান, দুই ভিন্ন লিঙ্গের মানুষের মধ্যে বিবাহ ভারতে সামাজিক ভাবে স্বীকৃত। এই স্বীকৃতির অন্যথা হলে হিন্দু আইন এবং অন্য ব্যক্তিগত আইনে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। সমলিঙ্গ বিবাহ (Same sex Marriage) নিয়ে এভাবেই নিজেদের আপত্তি সুপ্রিম কোর্টে তুলে ধরেছে মোদী সরকার (Modi Government)। এই প্রসঙ্গে শহুরে এলিটিস্ট প্রসঙ্গ উত্থাপন করেছে কেন্দ্র। তাদের যুক্তি,  কিছু ‘আরবান এলিটিস্ট’ শ্রেণির মানুষ সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা পেতে সমলিঙ্গ বিবাহকে স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি করছেন। এই বিবাহকে স্বীকৃতি দিলে দেশের প্রতিটি নাগরিকের স্বার্থ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সমলিঙ্গ বিবাহকে স্বীকৃতি জানানোর দাবি ঘিরে সুপ্রিম কোর্টে একাধিক মামলা দায়ের হয়েছে। সব মামলাগুলিকে একছাতার তলায় এনে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের মতামত জানতে চায় সুপ্রিম কোর্ট। এই বিষয়ে আগেই নিজেদের আপত্তির কথা জানায় কেন্দ্র। সোমবারও মোদী সরকার জানায়, এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত আইনবিভাগের, বিচারবিভাগের নয়।

ইতিমধ্যে এই মামলা শুনতে পাঁচ সদস্যের সাংবিধান বেঞ্চ গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। দেশের প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় ছাড়াও বেঞ্চ সদস্য বিচারপতি এসকে কৌল, বিচারপতি রবীন্দ্র ভাট, বিচারপতি হিমা কোহলি এবং বিচারপতি পিএস নরসিমহা। আগামী মঙ্গলবার মামলাটি শুনবে সুপ্রিম কোর্ট।

8 months ago
Abhishek: বঞ্চনা নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ অভিষেকের, 'হিসাব দিয়ে টাকা নাও', পাল্টা বিজেপি

বুধবার অভিষেক বন্দোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) শহীদ মিনারে কেন্দ্রের (Central) বঞ্চনা ও জনবিরোধী নীতি নিয়ে একটি প্রতিবাদ সভা করেন। সেখানে তিনি বিজেপিকে (BJP) তির্যক আক্রমণ করেন। রাহুল গান্ধীর সাংসদ পদ বাতিলকে জড়িয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সাংসদ পদ বাতিলের দাবি করেন। পাশাপাশি অভিষেক কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন, কেন্দ্র সরকার বাংলার বহু টাকা আটকে রেখেছে, এছাড়া তিনি বুধবার কেন্দ্রীয় এজেন্সির অপব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। যদিও অভিষেকের বক্তব্যকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা।

শহীদ মিনারের সভা থেকে রাহুল গান্ধীর প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রীর সদস্যপদ কেড়ে নেওয়ার দাবি করে বুধবারের সভায় অভিষেক বলেন, 'যদি সামান্য বক্তব্যের জন্য রাহুল গান্ধীর সদস্যপদ যায়, তবে মোদির কেন যাবে না, তিনি তো রাজ্যে ২০২১ সালে নির্বাচনী প্রচারে এসে, 'দিদি, ও দিদি' এভাবে ডেকে মহিলাদের ব্যঙ্গ করেছেন, তবে ওনার বেলায় আলাদা নিয়ম কেন?' সিএন-ডিজিটালের পক্ষ থেকে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহাকে যোগাযোগ করা হলে, তিনি বলেন, 'ওনাকে দিদি বলব না তো কি পিসি বলব, অভিষেকের পিসি হতে পারেন উনি কিন্তু আমাদের দিদিই। মোদীজি যেটা ডেকেছে সেটা ঠিকই বলেছে।' এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, 'আসলে সব দুর্নীতিগ্রস্তদের এক হতে হবে, তৃণমূল দুর্নীতিতে কোনঠাসা, সে জন্যই এতদিন বিরোধিতা করতে এখন এক হতে চাইছে।' 

বুধবারের সভামঞ্চ থেকে অভিষেক দাবি করেন, বিপুল অংকের টাকা কেন্দ্রের কাছে বকেয়া, প্রায় ১ লক্ষ ১৫ হাজার কোটি টাকা, পাশাপাশি আবাস-যোজনার টাকা, ১০০ দিনের কাজ সমস্ত কিছুর টাকা আটকে রেখেছে, যার ফলে পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কয়েক লক্ষ সাধারণ মানুষ।' এ প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, ' টাকা জনগণের, জনগনের টাকা দেখভালের দায়িত্ব মোদির, যদি দেখা যায় টাকা মাঝপথে তৃণমূলের পকেটে যাচ্ছে তাহলেও কেন দেবে, কিছু করার দরকার নেই দিদির দূত, প্রোগ্রামটি দেখুন, দেখবেন মানুষ কীভাবে অভিযোগ করছে, দিদির দূতেরা বলে দেবে কী চরম দুর্নীতি হয়েছে, যে কারণে দিদির দূত প্রোগ্রাম বন্ধ।' 

তিনি বুধবার এ প্রসঙ্গে আরও বলেন, 'কেন্দ্রীয় সরকার তো টাকা দেবে বলে হিসাব চেয়েছিল, সরকার সৎ হলে হিসাব দিলো না কেন, কোন টাকা কীভাবে ব্যবহার করেছে, এর হিসাব দিচ্ছে না কেন, তারমানে চুরি করেছে, তাই কেন্দ্রীয় সরকার বলেছে হিসাব দাও টাকা নাও, হিসাব নেই টাকা নেই।' 

বুধবারের সভা থেকে অভিষেক কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার বিরুদ্ধেও আঙুল তোলেন, তিনি বলেন, 'গত ২২ মাসে আমাদের রাজ্যে ২১টি ঘটনা সিবিআই-ইডি তদন্ত করছে, বিজেপি চক্রান্ত করে এসব করাচ্ছে, মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে।' পাশাপাশি অভিষেক বুধবার বলেন, 'সব চেষ্টা করে দেখুন, আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতি প্রমাণ করতে পারলে, শহীদ মিনারে মৃত্যুবরন করব।' অভিষেকের এই বক্তব্যকেও কটাক্ষ করে রাহুল সিনহা বলেন, 'ও তো অনেক বার এসব বড় বড় কথা বলেছে, ওকে মৃত্যুবরন করতে হবে না, ওকে কারাবরণ করতে হবে।' তিনি আরও বলেন, 'এখানে যে বিজেপির নাম করছে, কেন্দ্রের ক্ষমতা নেই ইডি-সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়ার। যদি কোনও প্রমাণ থাকে আদালতে দিক, সব তদন্ত কোর্টের নির্দেশেই হচ্ছে।'

8 months ago


Rahul: সাংসদ পদ খুইয়েই রাহুলের মুখে প্রবল মোদী-বিরোধিতা, কী বললেন কং নেতা

প্রসূন গুপ্ত: শনিবার কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় অফিস থেকে রাহুল গান্ধী তাঁর সাংসদপদ চলে যাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন। সারা দেশের উৎসাহ ছিল, নিজের সমর্থনে রাহুল গান্ধী কী বলেন। যদিও শুক্রবার লোকসভা থেকে তাঁর সাংসদ পদ চলে যাওয়ার পর সবকটি বিরোধী দল থেকেই প্রতিবাদ উঠেছিল। সেই তালিকায় নাম আছে চিরকাল কংগ্রেস-বিরোধী হিসেবে পরিচিত আপ পার্টি বা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সেই তালিকায় রয়েছে ইদানিং কংগ্রেসের সঙ্গে শীতল সম্পর্কে যাওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের। এরাও পৃথক ভাবে হলেও এই ঘটনার প্রতিবাদ করেন। এদিকে এক মানহানির মামলায় সুরাতের এক আদালত রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে, দুই বছরের জেল।

শনিবার অবশেষে সংবাদ মাধ্যমে মুখ খুললেন রাহুল গান্ধী। রাহুল জানান, 'তিনি লোকসভায় থাকলে নরেন্দ্র মোদীর নাকি সমস্যা হচ্ছিলো।' আদানি কাণ্ডেও মোদী সরকারকে খোঁচা দেন কংগ্রেস নেতা। তিনি জানান, 'মোদী বলে তিনি মাত্র দুজন ব্যক্তির নাম করেছিলেন, নীরব ও ললিতের। চোর মানেই কি মোদী? তাঁর বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা হচ্ছে।' সাংবাদিকদের তরফে প্রশ্ন আসে, কেন উচ্চ আদালত থেকে নিম্ন আদালতে এই মামলা ফিরে যায় এবং তাঁকে কেন সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হয়?

রাহুল জানান, 'আদালতের বিরুদ্ধে তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না। এ বিষয়ে তাঁদের দলের আইনজীবীরা যা বলার বলবেন।' তাঁর মুখে এদিন একটি কথাই বারবার এসেছে, তা উদ্যোগপতি আদানিকে নিয়ে। তিনি বলেন, 'কে এই আদানি? তাঁর নাম আগে কোনওদিন শোনা যায়নি। প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণে উঠে এসেছেন তিনি। কেন আদানির বিমানে মোদী সফর করেছিলেন?' সেই ছবি রাহুল গান্ধী লোকসভায় পেশ করেছিলেন, দাবি তাঁর। সংসদে তাঁর আরও বেশ কিছু বলার ছিল। কিন্তু মোদী তাঁকে সেই সুযোগ দিলেন না। এভাবেও খোঁচা দেন রাহুল গান্ধী।

রাহুল বলেন, 'এই ঘটনায় বিরোধীদের শক্তিবৃদ্ধি হবেই। সম্মিলিত হবে বিরোধীরা।' তিনি জানান, 'তাঁকে লোকসভায় ঢুকতে না দিলে বা জেলে পাঠালেও মুখ বন্ধ হবে না।'

9 months ago
Loksabha: রাহুলের সাংসদ পদ খারিজে কি পালের হাওয়া কংগ্রেসের দিকে?

প্রসূন গুপ্ত: সময়টি সম্ভবত ২০১৯, কোনও একটি সভায় নিজের ভাষণে রাহুল গান্ধী বলেন যে, 'সব চোরেদের নাম কেন মোদী মোদী মোদী?' আক্রমণের কেন্দ্রে কে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে কি? এর আগেও গান্ধী পরিবার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষে নরেন্দ্র মোদীকে ব্যক্তি আক্রমণ করেছে। 'চৌকিদার চোর হ্যায়' স্লোগান তুলে হাওয়া গরম করতে চেয়েছেন রাহুল গান্ধী। একইভাবে সোনিয়া গান্ধী 'মৌত কি সওদাগর' বলে খোঁচা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীকে। এটা কি পরোক্ষে নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ নয়? প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি শিবির।

যদিও এই আক্রমণে হিতে বিপরীত হয়েছিল। বিপুল ভোটে জিতে ক্ষমতায় এসেছিলেন নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি। মাঝখান থেকে ২০১৯-র ভোটে আমেঠি থেকে রাহুল হেরে যান। সকলেই বলেছিল, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ রাহুলের ভুল ছিল। কিন্তু ২০১৯-র করা মন্তব্যে এবার ফ্যাসাদে সোনিয়া-তনয়। মানহানির মামলায় তাঁকে অপরাধী সাব্যস্ত করে জেলের সাজা শুনিয়েছে আদালত। যদিও এক মাসের জন্য এই সাজা কার্যকর না করার নির্দেশ রয়েছে।

কিন্তু সংশোধিত জনপ্রতিনিধিত্ব আইন তাঁর বিপরীতে গিয়েছে। দু'বছরের জন্য জেলের সাজা মাথার উপর খাঁড়ার মতো ঝোলায় খারিজ হয়েছে রাহুল গান্ধীর সাংসদ পদ। এমনই বিজ্ঞপ্তি শুক্রবার জারি করেছে লোকসভার সচিবালয়। এই সংশোধিত জন প্রতিনিধিত্ব আইন নিয়ে এই রাহুলই এক দশক আগে সরব হয়েছিলেন। সংবাদ মাধ্যমের সামনে তাঁর অর্ডিন্যান্সের পেপার ছিঁড়ে ফেলার দৃশ্য এখনও অনেকের মনে সজাগ।

তবে আলোচনা প্রবল, আইনি পথে হেঁটে সংসদের নেওয়া এই সিদ্ধান্ত কি রাহুলের পক্ষে যাবে? মোদী সরকারের প্রতিষ্ঠান বিরোধিতাকে কাজে লাগিয়ে কি পালের হাওয়া নিজের দিকে টানতে পারবেন সোনিয়া তনয়। কারণ এই মুহূর্তে আদানি-কাণ্ডে সংসদে জেপিসি চেয়ে এককাট্টা বিজেপি-বিরোধী শিবির। নেতৃত্বে কংগ্রেস। পর্যবেক্ষকরা বলছেন রাহুলে উদ্যোগে হওয়া ভারত জোড়ো আন্দোলন কিছুটা হলেও কংগ্রেসের রক্তক্ষরণ বন্ধ করেছে। এই আবহে আইনি মতে রাহুলের সাংসদপদ খারিজকে রাজনৈতিকরন করতে পারবে হাত শিবির? খারগে, থারুর, জয়রাম রমেশরা শুনতে পাচ্ছেন?

যদিও একটি অংশ দাবি করছে, রাহুলের সাংসদ পদ খারিজে 'জাতীয় হিরো' হয়ে যেতে পারেন সোনিয়া তনয়। ইতিমধ্যে কংগ্রেসের প্রবল বিরোধী আপ পার্টির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল রাহুলের পাশে। প্রতিবাদ এসেছে প্রায় প্রতিটি বিরোধী দলের থেকে বাকি মমতা। তিনিও কি মূল স্রোতের বাইরে থাকবেন? অন্তত একটা ট্যুইট করে গান্ধী পরিবারের পাশে থাকবেন?

9 months ago
Mamata: বাংলাকে মোদী সরকারের বঞ্চনা, প্রতিবাদে দু'দিন ধরনায় বসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

মোদী সরকারের বঞ্চনার প্রতিবাদে ধরনায় বসবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা (Mamata) বন্দোপাধ্যায়। মঙ্গলবার ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী (CM Nabin Pattanayak) নবীন পট্টনায়েকের সঙ্গে দেখা করতে ওড়িশা উড়ে যান মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য ছাড়ার আগে কলকাতা বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, বিভিন্ন খাতে বাংলাকে (West bengal) বঞ্চনার প্রতিবাদে কলকাতার আম্বেদকর মূর্তির সামনে ধরনা দেবেন। মঙ্গলবার তিনি স্পষ্টভাবে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হন। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, 'এ মাসের ২৯ ও ৩০ তারিখ আম্বেদকরের মূর্তির সামনে ধরনায় বসবেন। ২৯ তারিখ বেলা ১২টা থেকে ধরনা শুরু হবে এবং ৩০ তারিখ রাতে ধরনা শেষ হবে। তারপরে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।'

এদিন মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন , 'বাজেটে রাজ্যকে ১০০ দিনের ১ টাকাও দেয়নি। এমনকি বিজেপি সরকার আবাসনেও টাকা দেয়নি, রাস্তার টাকাও আটকে রেখেছে।' তিনি বারবার এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়েও কোনও লাভই হয়নি বলে দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দোপাধ্যায় এদিন বলেন, 'আমি কেন্দ্রের কাছে ১ লক্ষ ১৫ হাজার কোটি টাকা পাই, সেই টাকাও দিচ্ছে না কেন্দ্র, পাশাপাশি গ্রাম সড়ক যোজনায় নিজেদের টাকা দিয়ে অনেক রাস্তা করে দিয়েছি, সেই টাকাও আটকে রেখেছে কেন্দ্র। এমনকি ৫৫ লক্ষ আবাসনের টাকাও আটকে রেখেছে কেন্দ্র।' এসব বঞ্চনার অভিযোগ এনে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে বাংলার বিরুদ্ধে এমন বঞ্চনা করা হচ্ছে।' এদিন ইডি ও সিবিআইকে নিয়ে বিজেপিকে ঠেস মেরে তিনি বলেন, 'বিজেপি ইডি-সিবিআইয়ের সভাপতি হিসেবে কাজ করছে।' 

তিনি বিজেপিকে তীর বিঁধে বলেন , 'এভাবে দেশ চলতে পারে না, আমি চিরদিন বাংলার গরিব মানুষদের জন্য লড়াই করে এসেছি, তারপরেও কেবল বাংলাকে বঞ্চনা করছে বিজেপি, তারই প্রতিবাদে ধরনায় বসব।'

9 months ago


DA: মার্চেই কেন্দ্রের আরও একদফা ডিএ ঘোষণা, কত বাড়তে পারে মহার্ঘ ভাতা?

বকেয়া ডিএ বা মহার্ঘ ভাতার দাবিতে প্রায় দেড় মাসের বেশি সময় আন্দোলনে (DA Agitation) রাজ্যের সরকারি কর্মীরা। ইতিমধ্যে পালিত হয়েছে কর্মবিরতি, ধর্মঘট। সুপ্রিম কোর্টে বাংলার ডিএ (DA Row) মামলার ভবিষ্যৎ বিচারাধীন। এই পরিস্থিতিতে চলতি মাসেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য একপ্রস্থ ডিএ ঘোষণা করবে মোদী সরকার (Modi Government)। অন্তত ৪% হারে ঘোষিত হতে পারে কেন্দ্রীয় ডিএ।

হিসাব অনুযায়ী, এই ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা বৃদ্ধির ফলে চলতি মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সরকারি কর্মীদের বেতনবৃদ্ধি যেমন হবে, তেমন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মী বা তাঁদের পেনশনভোগী স্বজনরাও এই বর্ধিত ডিএ-র সুবিধা পেতে পারেন।

এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিতে কেন্দ্রীয় সরকার বছরে দু’বার কর্মচারীদের বর্ধিত হারে ডিএ বা মহার্ঘভাতা ঘোষণা করে। প্রথম দফায় জানুয়ারি মাসে এবং দ্বিতীয় দফায় জুলাই মাসে ডিএ ঘোষণা হয়।

9 months ago
Same sex: সমলিঙ্গ বিবাহ নিয়ে কেন্দ্রের আপত্তি, মামলা গেল সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চে

দেশে সমলিঙ্গের বিবাহে (Same Sex Marriage) আইনি স্বীকৃতি মামলা এবার ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে (Constitutional Bench) পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ১৮ এপ্রিল ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হবে। সোমবার এই মামলাকে আদালত ‘মৌলিক গুরুত্বের’ বিষয় বলে উল্লেখ করে। ভারতেও সমলিঙ্গের বিবাহে আইনি স্বীকৃতি দেওয়ার আর্জি জানিয়ে শীর্ষ আদালতে আবেদনপত্র জমা পড়েছে। 

তবে এই বিষয় নিয়ে শীর্ষ আদালত কেন্দ্র সরকারের মতামত জানতে চেয়েছিল। তবে কেন্দ্রের তরফে হলফনামা দিয়ে সমলিঙ্গের বিবাহে আপত্তির কথা জানিয়েছে কেন্দ্র। সমলিঙ্গে বিবাহ আইনি স্বীকৃতি পেলে সামাজিক বুনোট নষ্ট হবে বলে আশঙ্কা করেছে কেন্দ্র। তারপরই এই মামলা সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে পাঠানো হয়েছে। আদালত জানিয়েছে, এই নিয়ে যে সিদ্ধান্তই নেওয়া হোক না কেন, তা সমাজে বিরাট প্রভাব ফেলবে।   

২০১৮ সালে সমকামিতা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরই সমলিঙ্গের বিবাহে আইনি স্বীকৃতির দাবি জোরালো হয়। যদিও কেন্দ্রের তরফে এ নিয়ে আপত্তির কথা জানানো হয়েছে।

9 months ago


CM Mamata: 'কাল তো কেন্দ্রে সরকার পড়ে যাচ্ছিল', হঠাৎ কেন এই দাবি মমতার?

'কাল তো প্রায় সরকার পড়ে যাচ্ছিল', বর্ধমানের সভা থেকে কেন্দ্রীয় সরকারকে এভাবেই কড়া আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। ঘটনাচক্রে হিন্ডেনবার্গের রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর থেকে গত কয়েক দিন ধরে নামছে আদানি গোষ্ঠীর শেয়ার দর। খানিকটা সেই প্রসঙ্গে এভাবে পরোক্ষে খোঁচা মুখ্যমন্ত্রীর।  

এই পরিস্থিতিতেই বৃহস্পতিবার বর্ধমানের সভায় ওই মন্তব্য করেন মমতা। অবশ্য কোন গোষ্ঠীর নাম উচ্চারণ করেননি মুখ্যমন্ত্রী। সভায় তিনি গ্যাসের দামের কথা টেনে বলেন,'গ্যাসের দাম বাড়ালো চার-পাঁচশো টাকা, কমালো চার টাকা। জানেন ওই চারেই হবে ওদের হার, এক দুই তিন চার বিজেপির হবে হার। কাল তো প্রায় সরকার পড়ে যাচ্ছিল। কেন পড়ে যাচ্ছিল? শেয়ার বাজারে ধস নেমেছিল। ৬-৮ জনকে ফোনে রিকোয়েস্ট করেছে, কাউকে ২০ হাজার কোটি টাকা দাও। কাউকে বলেছে ৩০ হাজার কোটি টাকা দাও। কাউকে বলেছে ১০ হাজার কোটি টাকা দাও। এই দিয়ে সরকার চলে যদি পরিকল্পনা না থাকে?"

মুখ্যমন্ত্রীর এহেন দাবিকে নস্যাৎ করেছে বিজেপি। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানান, 'উনার (পড়ুন মুখ্যমন্ত্রী) কথা কেউ বিশ্বাস করেন না। অসমাপিকা ক্রিয়ার মতো কথা বললে হবে না। সরকার পড়ে যাচ্ছিল, কোন নথি বা তথ্যের ভিত্তিতে একথা বলা হচ্ছে?'


10 months ago
Woman: দ্বিতীয় মোদী সরকারের শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট, মহিলা-প্রবীণদের সঞ্চয়ে কেন্দ্রের বিশেষ সুবিধা

২০২৪-র সাধারণ নির্বাচনকে (General Election 2024) মাথায় রেখে দ্বিতীয় মোদী সরকারের (Modi Government) শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী। বাজেট বিশ্লেষণে বসে এই দাবি করছেন অর্থনীতিবিদরা। বুধবারের বাজেট (Union Budget 2023) ঘোষণায় মহিলা এবং প্রবীণদের জন্য ব্যাঙ্ক এবং পোস্ট অফিসে সঞ্চয়ে বেশ কিছু ছাড় ঘোষণা করেন নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitharaman)। তাঁদের সামাজিক সঞ্চয়ে বিশেষ সুবিধা দিতেই এই ছাড়ের ঘোষণা বলে জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

এদিন বাজেট ঘোষণায় মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী। স্বল্প সঞ্চয়ের এই প্রকল্পে ২ লক্ষ টাকা দু’বছরের জন্য রাখলে ৭.৫ শতাংশ পর্যন্ত সুদ পাবেন মহিলারা। অন্যদিকে, প্রবীণ নাগরিকদের আরও বেশি করে আর্থিকভাবে সাবলম্বি করতে ঘোষণা রয়েছে এই বাজেটে। বিশেষ সঞ্চয়ের ক্ষেত্রেও ছাড়ের কথা ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী। আগে যেখানে ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সঞ্চয় করতে পারতেন প্রবীণ নাগরিকরা, এবার সেই ঊর্ধ্বসীমা বেড়ে করা হয়েছে ৩০ লক্ষ টাকা। পোস্ট অফিসে মান্থলি ইনকাম স্কিমে (এমআইএস) সিঙ্গল অ্যাকাউন্টে সাড়ে ৪ লক্ষ টাকার পরিবর্তে ৯ লক্ষ টাকা রাখা যাবে। এদিন জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

পাশাপাশি যৌথ বা জয়েন্ট অ্যাকাউন্টেও ছাড়ের ঘোষণা রয়েছে। আগে যেখানে ৯ লক্ষ টাকা রাখা যেত, এখন থেকে সেই সঞ্চয়ের ঊর্ধ্বসীমা বাড়িয়ে ১৫ লক্ষ টাকা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

10 months ago
Budget: আগামি এক বছরে দেশে আর্থিকবৃদ্ধির আশা ক্ষীণ, সমীক্ষা রিপোর্টে আশঙ্কা প্রকাশ অর্থমন্ত্রীর

ভারতে (India) আগামী এক বছরেও আশা নেই অর্থনীতির গতিবৃদ্ধির (Economic growth)। আশঙ্কা গত তিন অর্থবর্ষের মধ্যে আগামী বছরে অর্থবৃদ্ধির হার আরও নীচে নামতে পারে, এমনই পূর্বাভাস দিল আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্ট (Financial survey report)। করোনা অতিমারি (Corona epidemic) এবং ইউক্রেন যুদ্ধের (Ukraine war) জেরে মূল্যবৃদ্ধির হার (Inflation rate) ৬.৮ শতাংশে পৌঁছনোর প্রভাব পড়বে জাতীয় অর্থনীতিতে, এমনটা কিন্তু স্পষ্ট আর্থিক সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী। বুধবার দ্বিতীয় মোদী সরকারের শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন লোকসভায় আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্ট পেশ করেন। রিপোর্টে পূর্বাভাস, আগামী (২০২৩-২৪) অর্থবর্ষে দেশের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন (জিডিপি) বৃদ্ধির হার ৬ শতাংশ থেকে প্রায় ৬.৮ শতাংশ হতে পারে। আনুমানিক গড় বৃদ্ধির হার হতে পারে প্রায় ৬.৫ শতাংশ। অর্থাৎ, গত তিনটি অর্থবর্ষের মধ্যে বৃদ্ধির হার সর্বনিম্নে নেমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বুধবার আগামী (২০২৩-২৪) অর্থবর্ষের বাজেট প্রস্তাব সংসদে পেশ করা হবে।

অর্থনীতিবিদদের একাংশের মতে, মূল্যবৃদ্ধির হার ৬.৮ শতাংশে পৌঁছনোর প্রভাব পড়বে জাতীয় অর্থনীতিতে। মূলত, করোনা অতিমারির পাশাপাশি রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরেই এই প্রভাব। প্রসঙ্গত, বর্তমান অর্থবর্ষে (২০২২-২৩) আর্থিকবৃদ্ধির হার ৭ শতাংশ এবং গত অর্থবর্ষে (২০২১-২২) আর্থিক বৃদ্ধির হার ছিল ৮.৭ শতাংশ।

এদিন সংসদের যৌথ অধিবেশনে সেন্ট্রাল হলে এক নতুন ভারত তৈরির বার্তা দেন রাষ্ট্রপতি। তিনি বলেন, '২০৪৭ সালের মধ্যে দারিদ্রমুক্ত ভারত গড়বে এই সরকার। গত ৯ বছরে একাধিক ক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক কাজের মাধ্যেমে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতি হিসাবে উঠে এসেছে ভারত।' এমনকি,দরিদ্রদের পাশাপাশি মধ্যবিত্তদের উন্নতির উপরও মঙ্গলবার জোর দিয়েছেন দেশের সংবিধান প্রধান।

10 months ago


Strike: শনিবার থেকে টানা চার দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ? ধর্মঘট নিয়ে নতুন কী সিদ্ধান্ত কর্মী সংগঠনের

৩০ এবং ৩১ তারিখের ব্যাঙ্ক ধর্মঘট স্থগিত। মুম্বইয়ে লেবার কমিশনের সঙ্গে বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাঙ্ক কর্মচারী সংগঠন। একাধিক দাবি পূরণে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণে সোম এবং মঙ্গলবারের প্রস্তাবিত ধর্মঘট স্থগিত রাখা হয়েছে। এমনটাই সূত্রের খবর।  জানা গিয়েছিল, একাধিক দাবিতে আগামী ৩০-৩১ জানুয়ারি ব্যাংক ধর্মঘট (Bank Strike) ডাকা হয়েছিল। একাধিক দাবি নিয়ে শুক্রবার বৈঠকে বসেন সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক কর্মচারী সংগঠন। ব্যাংক কর্মচারীদের একাধিক দাবি আদায়ে এর আগেও একাধিকবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কর্মচারী সংগঠনগুলি (Bank Employee Federation)। কেন্দ্রের তরফে সব দাবি না মানা হলে, আগামী দিনে ফের ধর্মঘটের পথেই হাঁটছিল ব্যাংক কর্মচারী সংগঠনগুলি।

জানা গিয়েছে, সরকারের উপর চাপ তৈরিতে ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন (ইউএফবিইউ) ৩০ জানুয়ারি থেকে ৪৮ ঘণ্টার ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। জানা গিয়েছে, ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের দাবি গুলির মধ্যে অন্যতম: পাঁচ দিনের ব্যাঙ্কিং, পেনশন আপডেট, জাতীয় পেনশন সিস্টেম (এনপিএস) বাতিল করা, মজুরি সংশোধন, সব ক্যাডারে পর্যাপ্ত নিয়োগ ইত্যাদি।

10 months ago
Bank: শনিবার থেকে আগামি চার দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ! টানা ধর্মঘটের পথে কর্মী সংগঠন

একাধিক দাবিতে আগামী ৩০-৩১ জানুয়ারি ব্যাংক ধর্মঘটের (Bank Strike) সম্ভাবনা। একাধিক দাবি নিয়ে শুক্রবার বৈঠকে বসছেন সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক কর্মচারী সংগঠন। ব্যাংক কর্মচারীদের একাধিক দাবি আদায়ে এর আগেও একাধিকবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কর্মচারী সংগঠনগুলি (Bank Employee Federation)। কেন্দ্রের তরফে সব দাবি না মানা হলে, আগামী দিনে ফের ধর্মঘটের পথেই হাটছে ব্যাংক কর্মচারী সংগঠনগুলি।

জানা গিয়েছে, সরকারের উপর চাপ তৈরিতে ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন (ইউএফবিইউ) ৩০ জানুয়ারি থেকে ৪৮ ঘণ্টার ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া সূত্রে খবর, দু'দিন ব্যাপী ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের কারণে তাদের শাখায় ব্যাঙ্কিং পরিষেবা প্রভাবিত হতে পারে৷ জানা গিয়েছে, ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাঙ্ক ইউনিয়নের দাবি গুলির মধ্যে অন্যতম: পাঁচ দিনের ব্যাঙ্কিং, পেনশন আপডেট, জাতীয় পেনশন সিস্টেম (এনপিএস) বাতিল করা, মজুরি সংশোধন, সব ক্যাডারে পর্যাপ্ত নিয়োগ ইত্যাদি। 

এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, মাসের চতুর্থ শনিবার ২৮ তারিখ, ২৯ তারিখ রবিবার ব্যাঙ্ক বন্ধ। ৩০ এবং ৩১ জানুয়ারি ব্যাঙ্ক ধর্মঘট কার্যকর হলে ফের সেই বুধবার অর্থাৎ পয়লা ফেব্রুয়ারি গ্রাহকরা ব্যাঙ্কিং পরিষেবা পাবেন। ফলে টানা চার দিন বড়সড় আর্থিক সমস্যার মুখে পড়তে পারেন সাধারণ মানুষ।

10 months ago