Breaking News
HC: জেলে ১ বছর ৭ মাস! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিচারপ্রক্রিয়া কবে শুরু হবে? ইডির কাছে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের      Sandeshkhali: ''দাদা আমাদের বাঁচান...'', সন্দেশখালির মহিলাদের আর্তি শুনলেন শুভেন্দু      Sandeshkhali: 'মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত', ক্ষোভ প্রকাশ জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সনের      Weather: বিদায়ের পথে শীত! বাড়বে তাপমাত্রা, বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণবঙ্গে      Sandeshkhali: শিবু হাজরার গ্রেফতারিতে মিষ্টি বিলি, আদালতে পেশ, কবে গ্রেফতার সন্দেশখালির 'মাস্টারমাইন্ড'?      Arrest: সন্দেশখালিকাণ্ডে ন্যাজট থেকে গ্রেফতার শিবু হাজরা      Trafficking: ১০ মাস লড়াইয়ের পর মাদক মামলা থেকে মুক্তি বিজেপি নেত্রী পামেলার      Mimi: রাজনীতি আমার জন্য় নয়, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গিয়ে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা মিমির!      Dev: রাজনীতিতে ফিরতেই ফের দেবকে দিল্লিতে ডাক ইডির      Suvendu: সুকান্ত অসুস্থ থাকলেও, সন্দেশখালি কাণ্ডে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়াতে মাঠে শুভেন্দু     

Minor

Suicide: বহুতল থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা ইউটিউবার কিশোরীর, চাঞ্চল্য সোদপুরে

আবাসনের ৫ তলা থেকে মরণ ঝাঁপ! গুরুতর জখম (injured) অবস্থায় হাসপাতালে (hospital) ভর্তি করা হয় কিশোরীকে। ঘটনাটি সোদপুর (Sodepur) পিয়ারলেস নগর আবাসনের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ওই আবাসন চত্বরে। কেন এমন সিদ্ধান্ত ওই কিশোরীর তদন্তে খড়দহ থানার পুলিস (police)।

জানা গিয়েছে, সোদপুর পিয়ারলেস নগরে এ-৮(A8) নম্বর আবাসনের ৫ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই কিশোরী। ঘটনার পর পরিবারের লোকজন আহত কিশোরীকে প্রথমে সাগর দত্ত হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কিশোরীকে কলকাতার আরজিকর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পরিবার সূত্রে খবর, আহত কিশোরী একজন ইউটিউবার। ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবাসন চত্বরে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে খড়দহ থানার পুলিস। কী কারণে কিশোরী ৫ তলা আবাসন থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করল, তার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। 

one year ago
Rajasthan: হিংস্র না নির্মমতা, নাবালিকাকে খাবারের লোভ দেখিয়ে অপহরণ, যৌন নিগ্রহ এবং খুন

কতটা নৃশংস হলে এমনটা করা যায়? হিংস্র মানসিকতার মানুষের থেকে রেহাই পেল না ন’বছরের নাবালিকাও (Girl Murder)। প্রথমে খাবারের লোভ দেখিয়ে অপহরণ, তারপর যৌন নিগ্রহ (sexual harassment)। শেষে শ্বাসরোধ করে খুন। এখানেই থামেনি অভিযুক্ত ব্যক্তি। মৃত্যু নিশ্চিত করতে ইট দিয়ে থেঁতলে দিল নাবালিকার শরীর। এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের (Rajasthan) শ্রী গঙ্গানগর জেলায়।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ ছিল নাবালিকা। মৃতার বাবা দিনমজুরের কাজ করতেন এবং পরিবারের একমাত্র সন্তান ছিল ওই নাবালিকা। থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর থেকেই তদন্ত শুরু করে দেয় পুলিস। বুধবার বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে নাবালিকার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিস।

বুধবার পুলিস সুপার আনন্দ শর্মা বলেন, ‘‘ স্থানীয়দের অনেক জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা গিয়েছে মঙ্গলবার ওই নাবালিকাকে এক ব্যক্তির সঙ্গে শেষ দেখা গিয়েছিল। এমনকি অনেকে দেখেছিলেন ওই মেয়েটিকে খাবার কিনে দিচ্ছিলেন দোকান থেকে। মৃতাকে লোভ দেখিয়ে অপহরণ করা হয়েছিল বলে প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে অনুমান করা হচ্ছে।’’

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিস জানিয়েছে, প্রথমে কাপড়ের টুকরো দিয়ে ওই নাবালিকার শ্বাসরোধ করা হয়। পরে ইট দিয়ে থেঁতলে দেওয়া হয় শরীর। তবে অনুমান, খুনের আগের  যৌন নির্যাতনও করা হয়েছিল। ময়নাতদন্তের পরই তা নিশ্চিত হয় যাবে বলে জানা যায়। নাবালিকার বাড়ি থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে একটি ফাঁকা জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয় নাবালিকার দেহ।

ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। অভিযুক্তকে খুঁজতে স্থানীয়দের সঙ্গেও কথা বলছে পুলিসের তদন্তকারী দল।

one year ago
Blast: মিনাখাঁর পর কুলপি, প্লাস্টিক মোড়া বোমাকে বল ভেবে খেলতে গিয়ে জখম দুই নাবালক

মিনাখাঁয় নয় বছরের শিশুকন্যার মৃত্যুর পর এবার কুলপি। বোমা বিস্ফোরণে আহত এবার (injured) দুই নাবালক। ঘটনাটি কুলপি (Kulpi) থানার ছামনামনি এলাকার। পঞ্চায়েত ভোটের আগেই একের পর এক বোমা (bomb) বিস্ফোরণের ঘটনায় রাজ্যজুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, ক্ষোভ জমছে স্থানীয়দের মনেও।

ছামনামনি এলাকার একটা পোল দিয়ে রায়দিঘি, কোম্পানিরঠেক, ঘোড়াদল এলাকার মানুষ যাতায়াত করেন। সেখানেই বসেছিল চার নাবালক। এরপর হঠাত্ই বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে এলাকা। স্থানীয়রা বিকট শব্দের উৎস খুঁজে ছুটে এসে দেখেন দু'জন নাবালক জখম হয়েছে। প্রথমে তাদের নিয়ে যাওয়া হয় কুলপি গ্রামীণ হাসপাতালে (hospital)। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়েও দেওয়া হয় তাদের। ঘটনাস্থলে ইতিমধ্যেই কুলপি থানার পুলিস (police) মোতায়েন রয়েছে। তবে এই ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবসী। নিরাপত্তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। ঘটনার পর থেকেই থমথমে এলাকা।

জানা যায়, ওই পোলের তলায় প্লাস্টিকে মোড়া অবস্থায় গোলাকার কিছু পড়ে থাকতে দেখে ৩ নাবালক। পরে প্লাস্টিকের মোড়া সেই বোমাকে তুলে এনে বল ভেবে ছুড়ে ফেলতেই বিস্ফোরণ। ঘটনায় আহত ওই দু'জন। অন্যদিকে, বোমা উদ্ধারের ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে কুলপি থানার পুলিস। পাশাপাশি এলাকা থেকে ৫টি তাজা বোমা ও একটি লোডেড আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিস।

one year ago


Theft: চোখের ভুল, দরজা দিয়ে পালাতে গিয়ে সোজা দেওয়ালে গিয়ে ধাক্কা! বমাল ধৃত চোর

চোরের উপর বাটপারি। তবে এই বাটপারি আর কেউ নয়, যে দরজা দিয়ে পালানোর কথা ভেবেছিল চোর, সেই দরজা করেছে। শুনে একটি হাসি পেলেও, এমনটাই হয়েছে এক চোরের সঙ্গে। একটি ব্যাগের শোরুমে ঢুকেছিল এক কিশোর। সেখানে গিয়ে অনেক্ষণ ধরে ঘাঁটাঘাঁটি করতে থাকে। এরপর সবচেয়ে দামি ব্যাগটি খুঁজে বের করে সেটা নিয়ে পালানোর পরিকল্পনা করে। সেই মতো পালানোর রাস্তায় দেখে রাখে। কিন্তু সেটাই যে তার জন্য ফাঁদ ছিল, তা হয়তো ভ্রূণাক্ষরেও টের পায়নি। ব্যাগ নিয়ে ছুটে পালতে গিয়ে কাচের দরজায় ধাক্কা খায় কিশোর চোরটি। ছিটকে পড়ে দূরে। তখনই শোরুমের নিরাপত্তারক্ষীরা এসে ধরে ফেলেন। ঘটনাটি ঘটেছে ওয়াশিংটনের বেলভিউয়ের একটি শোরুমে।

একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, কিশোর ১৫ লাখের একটি ব্যাগ চুরি করে নিয়ে পালাতে গিয়েছিল। কিন্তু দরজা ভেবে যে দিক দিয়ে বেরোনোর চেষ্টা করেছিল, সে দিকটা পুরোটাই কাচে ঘেরা ছিল। দরজা ছিল তার ঠিক পাশেই। কিন্তু চোখের ভুলে দেওয়ালকে দরজা ভেবে দৌড়ে গিয়ে সজোরে ধাক্কা খেয়ে মেঝেতে আছড়ে পড়ে। তারপরই হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় সে। এই ঘটনায় রীতিমত হৈচৈ পড়ে গিয়েছে।

one year ago
Cooch Behar: স্নান করতে নেমে তোর্সার জলে তলিয়ে গেল দুই কিশোরী, তৎপরতায় চলছে উদ্ধারকাজ

তোর্সা নদীতে (Torsa River) স্নান করতে গিয়ে তলিয়ে গেল দুই কিশোরী। ঘটনাটি সোমবার সকালে কোচবিহার (Cooch Behar) পুন্ডিবাড়ি থানা অন্তর্গত টাকাগাছ কারিশাল এলাকার। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিস (police), সিভিল ডিফেন্স ও বিপর্যয়ের মোকাবিলার দল। তাদের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে ডুবুরি নামিয়ে তল্লাসি চালানো হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সোমবার চারজন তোর্সা নদীতে জল ভরতে ও স্নান করতে আসে। সেই সময় সোনালী দাস (১২) ও  ঋত্বিকা রায় (১৩) দুজন আচমকা বেশি জলে চলে যায়। আর সেই সময়ই ঘটে বিপত্তি। নদীতে তলিয়ে যায় ওই দুই কিশোরী। এরপর প্রথমে স্থানীয়রাই নদীতে নেমে তাদের খোঁজাখুঁজি করেন। তবে খোঁজ না পাওয়া তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় পুলিস ও সিভিল ডিফেন্সকে। ইতিমধ্যে সিভিল ডিফেন্স কর্মীরা নদীতে নেমে তল্লাসি চালাচ্ছে। ঘটনায় চাপা চাঞ্চল্য এলাকায়।

জানা গিয়েছে, প্রতিদিন ওই দু'জন জল ভরতে আসে। এদিনও একইভাবে জল ভরে স্নান করতে নামে তারা, তখনই এই দুর্ঘটনা। দুপুর পেরিয়ে বিকেল ৫টা হলেও সেই দু'জনের খোঁজ না পাওয়ায় স্পষ্টতই এলাকায় শোকের ছায়া। এই প্রসঙ্গে নিখোঁজ এক কিশোরীর বাবা জানান, পৌনে ১২টা নাগাদ ফোন পেয়ে কাজ থেকে তড়িঘড়ি চলে আসি। নদীপাড়ে এসে দেখি ভিড় জমে।

এলাকার উপপ্রধান জানান, খুব দুঃখজনক। প্রতি বছর তোর্সা নদীতে তলিয়ে যায়। এবার দুটো ছোট বাচ্চা তলিয়ে যাওয়ার ঘটনা খুব দুঃখজনক। ঘটনার খবর পেয়ে আমি এবং স্থানীয় থানার পুলিস তৎপরতার সঙ্গে ঘটনাস্থলে আসি।  

one year ago


Narendrapur: নরেন্দ্রপুর বোমা-কাণ্ডে গ্রেফতার ৭, দুষ্কৃতীদের দেখে ফেলাতেই কি এই সন্ত্রাস?

নরেন্দ্রপুর বোমাবাজি (Narendrpur Incident)-কাণ্ডে গ্রেফতার ৭। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির (IPC)  একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। ইতিমধ্যে রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন এই ঘটনায় জেলা পুলিসের রিপোর্ট তলব করেছে। ঘটনার একদিন পরেও নরেন্দ্রপুরের দাসপাড়া শান্তিপার্ক এলাকায় আতঙ্ক। অবিলম্বে অভিশপ্ত মাঠে দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্য এবং অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ হোক। শিশুদের (Minor Injured) উপর যারা অত্যাচার করেছে তাদের উপযুক্ত শাস্তি হোক।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে শান্তিপার্ক এলাকার শুনশান মাঠে যখন ওই ৫ বাচ্চা খেলছিল, তখন ৪-৫ জন বাইকে আসে। তারা মাঠের একটা টিনের শেড দেওয়া ঘরের তালা ভাঙার চেষ্টা করে। নাবালকদের উৎসুক মুখ তালা ভাঙার কারণ জিজ্ঞাসা করলেই হুমকির মুখে পড়তে হয়। ওই ৫ নাবালক দেখে ফেলে ঘরের ভিতর বোমা মজুত করা। তখনই একটা বোমা তাদের দিকে ছোড়া হয়। সেটা লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে, আরও একটা বোমা ছোড়া হয়। দ্বিতীয় বোমার স্প্লিন্টারের ঘায়ে রক্তাক্ত ওই পাঁচ নাবালক। শুক্রবার তাদের বাঘাযতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ওই পাঁচ নাবালককে।

এই ঘটনার পিছনে এবং বেপরোয়া দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যের পিছনে কোনও প্রভাবশালী যোগ রয়েছে কিনা, খতিয়ে দেখতে পুলিসকে আর্জি জানান স্থানীয়রা।

one year ago
Narendrapur: এবার নরেন্দ্রপুর! মাঠে খেলতে যাওয়া নাবালকদের লক্ষ্য করে বোমাবাজি, জখম ৫

কাকিনাড়ার পর এবার নরেন্দ্রপুর (Naredrapur Inicdent)। দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যে বোমাবাজিতে (Bomb Hurled) আহত পাঁচ নাবালক। জানা গিয়েছে, নরেন্দ্রপুর থানা এলাকার দাসপাড়ায় দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমার আঘাতে আহত ৫ নাবালক (Minor Injured)। তাঁদের বয়স ১০-১২ বছর। ওই পাঁচ নাবালক এলাকারই একটি মাঠে খেলতে গিয়েছিল। সেই সময় ওই মাঠে উপস্থিত দুষ্কৃতীরা তাদের মাঠ ছাড়তে বলে। কথা না শুনলে ওদের লক্ষ্য করে দুটি বোমা ছোড়া হয়। একটি বোমা না ফাটলেও, আরও একটি বোমার আঘাতে পায়ে চোট পান ওই পাঁচ জন।

রক্তাক্ত অবস্থায় তারা পালিয়ে বাড়ি চলে আসে এবং পরিবারকে সব জানায়। বাড়িতেই তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয় পরে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এদিকে, এই খবর চাউর হতেই ঘটনাস্থলে পৌছয় নরেন্দ্রপুর থানা পুলিস। যদিও তার আগেই চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থল থেকে পুলিস একটি ড্রাম এবং বাইক উদ্ধার করেছে। যেহেতু এই বোমাবাজির ঘটনায় আক্রান্ত নাবালক, তাই স্পষ্টতই এলাকায় উত্তেজনা। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিসবাহিনী। 

এই বোমাবাজির ঘটনায় আহত এক নাবালকের বাবা জানান, আমি ছেলের উপর হওয়া অত্যাচারের ন্যায়বিচার ছাই। বাচ্চাদের সঙ্গে ওদের কী শত্রুতা জানি না। তিনি জানান, বাচ্চাদের হুমকি দেওয়া হয়েছে, মাঠে আবার দেখা গেলে লাশ ফেলে দেবে। তবে ঠিক কারা এই ঘটনার পিছনে, সে বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি তিনি।

one year ago
Marriage: কালিয়াগঞ্জে ছাদনাতলায় পৌঁছে কিশোরীর বিয়ে আটকাল চাইল্ড লাইন এবং ব্লক প্রশাসন

এবার এক কিশোরীর বিয়ে (marriage) আটকালো চাইন্ড লাইন ও ব্লক প্রশাসন। তাঁদের এমন উদ্যোগে খুশি এলাকাবাসী। ঘটনাটি মঙ্গলবার রাতে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ (Kaliaganj) ব্লকের মালগাঁও গ্রাম পঞ্চায়েতের। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বিয়ের রাতেই নবম শ্রেনীর কিশোরীর বিয়ে আটকে দিয়ে স্থানীয়দের বাহবা কুড়িয়েছে চাইন্ড লাইন (child line) ও ব্লক প্রশাসন।

জানা যায়, মালগাঁও গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীন বেউরঝাড়ি এলাকায় এক নাবালিকার বিয়ে হচ্ছে। সেই সূত্রের খবরের ভিত্তিতে চাইল্ড লাইন ও পুলিস প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে নাবালিকার বাড়িয়ে হাজির হয় চাইন্ড লাইনের সদস্যরা। নাবালিকার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। কেন নাবালিকার বিয়ে দিচ্ছেন?

নাবালিকার বিয়ে দিলে কী ধরণের ক্ষতি হতে পারে, তা পরিবারের লোকদের বোঝানো হয়। কন্যা সন্তানদের সুবিধায় রাজ্য সরকারের রুপশ্রী, কন্যাশ্রী প্রকল্পগুলির সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হয় কিশোরীর পরিবারকে। এরপর তাঁরা মুচলেকা দেন মেয়ের ১৮ বছর না হলে বিয়ে দিবেন না। এরপরেই ব্লক প্রশাসন এবং চাইল্ড লাইনের উপস্থিতিতে বিয়ে বন্ধ করে পরিবার। 

one year ago


Nadia: ফের হাঁসখালিতে ধর্ষণ, এবার পড়শি বৃদ্ধের লালসার শিকার এক নাবালিকা

ফের নদিয়ার (Nadia) হাঁসখালিতে (Hanskhali) নাবালিকাকে ধর্ষণ (Rape)। অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার (Arrested) পড়শি এক বৃদ্ধ। ধৃতের নাম নবকুমার বিশ্বাস। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত শাসকদলের একজন সক্রিয় কর্মী। ওই নাবালিকার পরিবারের আরও অভিযোগ, টাকার টোপ দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন শাসকদলের কর্মীরা।

ঘটনাটি ৭ অক্টোবর রাতের। জানা গিয়েছে, ওই  নাবালিকার বাড়ির কেউ একজন অভিযুক্তর বাড়িতে টিভি দেখতে গিয়েছিলেন। সেই সময় নাবালিকা তাঁকে ডাকতে যায়। নবকুমার অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে ওই নাবালিকাকে বাড়ির পিছনে অন্ধকার গলিতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেন। এমনটাই অভিযোগ নির্যাতিতার পরিবারের। এমনকি কাউকে এ কথা জানালে গলা টিপে মেরে ফেলবেন বলেও হুমকি দেন। সে ভয়ে এতদিন চুপ ছিল নাবালিকা। কিন্তু নাবালিকার শারীরিক ব্যথা অনুভব হতেই জানাজানি হয় বিষয়টি।

এরপরই পাড়ার অন্যরা ও নাবালিকার মা, গোটা পরিবার থানার দ্বারস্থ হন। নাবালিকার পরিবারের তরফে প্রতিবেশী ওই বৃদ্ধের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।  অভিযোগের ভিত্তিতে হাঁসখালি থানার পুলিস নবকুমারকে গ্রেফতার করে। এদিকে এই ঘটনায় ফের একবার রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়েছে।

ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার ওই নাবালিকার বাড়িতে যান রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। বিজেপির নাদিয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার মহিলা মোর্চার প্রতিনিধি দলও এদিন নাবালিকার বাড়িতে যায়।

কিশোরীর পরিবার অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবিতে অনড়। অর্থের প্রলোভনের কাছে মাথা নত করেননি। সূত্রের খবর, কিশোরীর পরিবার বিজেপি দলের সঙ্গে যুক্ত।

one year ago
Jangipara: জাঙ্গিপাড়ায় নাবালিকা দেহ উদ্ধারে অবশেষে গ্রেফতার ৪, সাইকেল খুঁজতে ড্রোনের ব্যবহার

জাঙ্গিপাড়ায় (Jangipara) নিখোঁজ নাবালিকার দেহ (body) উদ্ধারের পর সোমবার আশেপাশের বিভিন্ন জলাশয়ে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীদের নামিয়ে তল্লাশি চালানো হয়। নাবালিকার সঙ্গে থাকা সাইকেলের সন্ধান পেতেই এই তল্লাশি অভিযান। পাশাপাশি ড্রোনের সাহায্য এলাকার বিভিন্ন জায়গা তল্লাশি চালায় পুলিস (police)। পুলিস সূত্রে খবর, নাবালিকার পূর্ব পরিচিত ছিল অভিযুক্তরা। যে মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করত সেই ফোনের টাওয়ার লোকেশন সঙ্গে একই জায়গায় ছিল অভিযুক্তদের ফোন। তার থেকে সন্দেহ হয় হুগলি জেলা পুলিসের। এরপরই গভীর রাতে টাওয়ার লোকেশন দেখে বিভিন্ন জায়গায় অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি অভিযান (search operation) শুরু করে জাঙ্গিপাড়া থানার পুলিস এবং হুগলি গ্রামীণ পুলিসের অতিরিক্ত পুলিস সুপার লাল্টু হালদার। এরপরই ৪ অভিযুক্তকে খেজুরিয়া থেকে আটক করা হয়। জেরার পর রবিবার সকালে গ্রেফতার (arrest) করা হয়। জানা গিয়েছে, ধৃতদের মধ্যে একজন নাবালক। 

এই খুনের ঘটনায় হতবাক নাবালিকার পরিবার থেকে শুরু করে গোটা এলাকাবাসী। এদিকে, গ্রামবাসীদের দাবী মেনে শনিবার সন্ধ্যার পর স্নিফার ডগ নিয়ে এসে তল্লাশি চালানো হয়, পুকুরে জালও ফেলা হয়। পরিবার ও পুলিস সূত্রে জানা যায়, নাবালিকা যেদিন নিখোঁজ হয় তার সঙ্গে একটি সাইকেলও ছিল। সেই সাইকেলটি খুঁজে বার করার জন্যই পুলিসের পক্ষ থেকে তল্লাশি চলে। পাশাপাশি তদন্তে সূত্র খুঁজতেও চেষ্টা চালানো হয়। তবে নাবালিকার সাইকেলটি খুঁজে পাওয়া যায়নি।

হুগলি গ্রামীণ পুলিস সুপার আমনদীপ জানিয়েছেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে মৃত্যুর কারণ। ঘটনাটি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। কেউ দোষী হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে পুলিসের অনুমান, অভিযুক্তরা নাবালিকার পূর্ব পরিচিত। 

one year ago


Asansol: ৪৮ ঘণ্টা পর ইসিএল-র চানক থেকে উদ্ধার নাবালিকার দেহ, সুড়ঙ্গের ভাঁজে খেই হারিয়েছিল উদ্ধারকাজ

অবশেষে ৪৮ ঘণ্টা পর উদ্ধার হল পুনমের মৃতদেহ (deadbody)। এনডিআরএফ (NDRF), রাজ্য পুলিস (police) এবং ইসিএল (ECL)-র তৎপরতায় উদ্ধার হয় তার মৃতদেহ। জানা যায়, চানোকের জলের নিচে গাছের ভাঁজে আটকে ছিল পুনমের দেহ। তাকে খুঁজে পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছিল সকলেই। অবশেষে মৃতার মায়ের আর্তনাদ সার্থক হল। উদ্ধার হল মেয়ের দেহ।

প্রসঙ্গত, আসানসোলের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাল্লা বজরঙ্গিতলা এলাকার ইসিএল-এর চানোকে শনিবার সকাল ১১টা নাগাদ ঝাঁপ দিয়েছিল নাবালিকা পুনম। প্রথম অবস্থায় রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে দড়ি ও কাঁটা দিয়ে পুনমকে খোঁজার চেষ্টা করা হয়। সেই সময় প্রশাসনের বিরুদ্ধে সময় নষ্টের অভিযোগ ওঠে। এরপর ইসিএল-এর পক্ষ থেকে রবিবার ১১টা নাগাদ আনা হয় হাইড্রা এবং ডুলি। আসে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট, মাইনিং রেসকিউ টিম। চেষ্টা চালানো হয়, কিন্তু খোঁজ মেলে না পুনমের। রবিবার সন্ধ্যায় আসে এনডিআরএফ-র ১২ জনের দল। সোমবার ভোর থেকে শুরু হয় চেষ্টা। এনডিআরএফ-এর ৩ সদস্য অক্সিজেন নিয়ে বারবার নামে। কিন্তু তাঁরাও ব্যর্থ হন।

এনডিআরএফ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, চানোকে জলের নিচে কিছু দূর যাওয়ার পর রয়েছে সুড়ঙ্গ। যেখান থেকে তীব্র গতিতে জল প্রবাহিত হচ্ছে। জলের বেগ পা টেনে নিয়ে যাচ্ছে। জানা গিয়েছে, ইস্টার্ন কোলফিল্ড লিমিটেডের এই চানোকে রয়েছে কম করে দু'টি সুড়ঙ্গ। যেখান থেকে তীব্র বেগে জল বইছে। ফলে পুনমের দেহ সেই জলে ভেসে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল বলেই মনে করছিলেন তাঁরা। সম্পুর্ণ চানোক খুঁজে পাওয়া যায়নি পুনমের দেহ। এছাড়াও, ব্রিটিশ আমলে এই চানোকের মাটির নিচে রাস্তা কোথায় তার কোনও ম্যাপ নেই বলেও জানান তাঁরা। এরপর বিফল হয়ে এলাকা থেকে বিদায় নেয় এনডিআরএফ।

সোমবার সকাল থেকে শুধুই মায়ের চিৎকার আর বাবার আর্তনাদ ছাড়া কিছুই যেন শোনা যাচ্ছে না এলাকায়। 

one year ago
Crime: কিশোরীর যৌন নিগ্রহে অভিযুক্ত প্রেমিক এবং তাঁর মা! অভিযোগ দায়েরের পরই পলাতক

ভিন রাজ্য থেকে কাজের সূত্রে ভোপালে (Bhopal) গিয়েছিলেন কিশোরী। সেখানে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থার (Event management company) কাজের সঙ্গে যুক্ত হন তিনি। আর ওই সংস্থায় কাজ করতে গিয়ে আলাপ হয় বছর ২২-এর অভিষেক কুরলির সঙ্গে। তৈরি হয় প্রেমের সম্পর্ক। তবে পুরোটাই যে একটা ফাঁদ ছিল তা বুঝতে পারেন তিনি। অভিষেক তাঁকে ধর্ষণ (Rape) করে বলে অভিযোগ করেন ওই কিশোরী। কেবল তা নয়, এর সঙ্গে প্রেমিকের মা-ও জড়িত রয়েছে বলে পুলিসকে জানান কিশোরী।

ওই নির্যাতিতার অভিযোগ, অভিযুক্ত প্রেমিকের মা রজনী বাধ্য করেছেন অন্য পুরুষের সঙ্গে তাঁকে সহবাস করতে। অভিষেক তাঁকে সম্পর্কে নিয়ে এসে তাঁর উপর যৌন নিপীড়ন করতেন। এমনকি তাঁর ফোন চুরি করে আপত্তিকর অবস্থার বেশ কিছু ছবিও তুলেছিলেন অভিষেক। এরপর সেগুলি নেটমাধ্যমে প্রকাশ করে দেন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

মহারাষ্ট্রের নাগপুরের জারিপাটকার বাসিন্দা ওই নির্যাতিতা কিশোরী। গত রবিবার স্থানীয় থানায় তিনি অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত মা ও ছেলে। পুলিস দুজনের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে।

one year ago
Nabanna: সংখ্যালঘুদের জন্য স্বল্প সুদে ঋণ, কোথায় দাঁড়িয়ে দেখতে সার্ভে করবে নবান্ন

আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া সংখ্যালঘুদের (Minority) স্বনির্ভর করে তোলার লক্ষে স্বল্প সুদে ঋণ (Loan Schemes) প্রকল্পের সুযোগ প্রাপকদের কাছে পৌঁছচ্ছে?  এই প্রশ্ন খতিয়ে দেখতে রাজ্য সরকার (Mamata Government) সমীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সংখ্যালঘু প্রভাবিত মোট ছ'টি জেলার বিশেষজ্ঞ সংস্থাকে দিয়ে এই সমীক্ষা চালানো হবে।

রাজ্যের সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৯-২০ এবং ২০-২১ আর্থিক বছরে যে বা যারা রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণী উন্নয়ন এবং বিত্তনিগমের কাছ থেকে স্বনিযুক্তি  প্রকল্পের জন্য ঋণ পেয়েছেন তাদের মধ্যেই এই সমীক্ষা চালানো হবে। ঋণ পাওয়ার পর  তাঁদের আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতির কী পরিবর্তন ঘটেছে, তা খতিয়ে দেখতে বাড়ি বাড়ি সমীক্ষক দল পাঠানো হবে।

ছ'টি জেলায় অন্তত একহাজার জন সুবিধা প্রাপকের সঙ্গে সরাসরি কথা বলে ছবি ও নথিপত্র-সহ সেই সংক্রান্ত তথ্য সমীক্ষকরা দফতরের কাছে জমা দেবেন। তার ভিত্তিতে এই প্রকল্পের ভবিষ্যত রূপরেখা স্থির করা হবে।

এদিকে, চলতি খারিফ মরশুমে এপর্যন্ত রাজ্যের ৫৩ লক্ষের বেশি কৃষক বাংলা শস্যবিমা প্রকল্পের আওতায় এসেছেন। গত বছরের তুলনায় তা প্রায় ৮ লক্ষেরও বেশি। রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার জানিয়েছেন ধানের জন্য শস্যবিমার আবেদন করার সময়সীমা আজ শেষ হচ্ছে। ভুট্টার বিমা করার সময়সীমা শেষ হয়ছে ৩১ জুলাই। চূড়ান্ত পরিসংখ্যানে মোট বিমাকারীর সংখ্যা আরও  বাড়তে পারে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ খরিফ মরশুমে ধান ও ভুট্টা এই দু’টি ফসলের জন্য রাজ্য সরকারের শস্যবিমা প্রকল্পের সুযোগ মেলে। এই প্রকল্পের প্রিমিয়ামের সম্পূর্ন খরচ রাজ্য সরকার বহন করে।

one year ago


Acid: অ্যাসিড হামলায় গুরুতর দগ্ধ কিশোরীকে দিল্লি এইমসে রেফার

ফের অ্যাসিড হামলা (Acid attack)। ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) চাতরা জেলার (Chatra district) ১৭ বছরের একটি মেয়ে অ্যাসিড হামলায় গুরুতর জখম হয়েছিল। বুধবার উন্নত চিকিৎসার জন্য অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস (AIIMS) নয়াদিল্লিতে (New Delhi) রেফার করা হয়। আকাশপথে ওই আক্রান্ত কিশোরীকে রাঁচি থেকে দিল্লি নিয়ে আসা হয়।

নাবালিকার উপর ৫-ই অগাস্ট অ্যাসিড আক্রমণ হয়েছিল। এরপর রাঁচির রাজেন্দ্র ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে (RIMS) চিকিৎসাধীন ছিল মেয়েটি। রাজ্য সরকার-চালিত  ওই হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ড মেয়েটির বিভিন্ন রিপোর্ট পরীক্ষা-নীরিক্ষা করার পর মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে এইমস হাসপাতালে রেফার করা হয় বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।

মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের মেয়ে ও তার পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সরকার ইতিমধ্যেই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সহায়তা হিসাবে ১ লক্ষ টাকা প্রদান করেছে।

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বান্না গুপ্তার একটি পোস্ট ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রী  বলেছেন, মেয়েটিকে নয়াদিল্লির AIIMS ট্রমা সেন্টারের বার্ন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, "ভগবানের কাছে প্রার্থনা করছি যেন সুস্থ হয়ে দ্রুত ফিরে আসেন।"

হামলায় আহত মেয়েটির মা বলেন, তাঁদের গ্রাম ঢেবো থেকে আড়াই কিলোমিটার দূরে বসবাসকারী অভিযুক্তের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত। গত দুই-তিন মাস ধরে সে তাঁর মেয়েকে উক্ত্যক্ত করছিল। ইতিমধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এবং আইনি প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন চতরা জেলা প্রশাসক আবু ইমরান।

one year ago
Hooghly: নাবালিকা ছাত্রীদের যৌন নিগ্রহ স্কুলশিক্ষকের, মুখ খুললেই সেপ্টিক ট্যাঙ্কে ফেলে দেওয়ার হুমকি

নাবালিকা ছাত্রীদের যৌন নিগ্রহে (Sexual Abuse) কাঠগড়ায় এক শিক্ষক (School Teacher)। হুগলির (Hooghly) জিরাটের এক প্রাথমিক স্কুলের এই ঘটনায় গ্রেফতার অভিযুক্ত। তাঁকে জেরা করে সত্যি জানতে চাইছে হুগলি গ্রামীণ পুলিস। জানা গিয়েছে, জিরাটের আশুতোষ নগর এক নম্বর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক অরুণ কুমার দত্তের দিকেই অভিযোগের আঙুল নাবালিকা ছাত্রীদের।

নিগৃহীতা ছাত্রীদের পরিবার জানায়, দীর্ঘদিন ধরে অভিযুক্ত শিক্ষক টিফিনের পর ছোট ছোট মেয়েগুলোকে ভয় দেখিয়ে নিগ্রহ করতেন। কাউকে বলে দিলে ফল খারাপ হবে, সেপটিক ট্যাঙ্কে ফেলে দেওয়া হবে, নিল ডাউন করে রাখা হবে এমন হুমকিও তাদের দেওয়া হত। আতঙ্কে কয়েকদিন ধরে একাধিক ছাত্রী হঠাৎ করে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। বাড়ি থেকে কী হয়েছে জানতে চাওয়া হলে, প্রথমে চুপ থাকলেও, পরে মায়েদের সব খুলে বলে তারা।

এরপরেই নিগৃহীতা ছাত্রীদের পরিবার এবং আত্মীয়রা স্কুলে এসে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। অভিযুক্ত শিক্ষকের গ্রেফতারের দাবিতে সরব হন তাঁরা। ঘটনা জানাজানি হতেই ছুটে আসেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যরা। খবর যায় বলাগড় থানায়। বিক্ষোভকারীদের শান্ত করতে ওই শিক্ষককে প্রথমে আটক এবং পরে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে, ছাত্রীদের পরিবারের দাবি, এই ধরনের কুকর্মের সঙ্গে যে যুক্ত তাঁর চরম শাস্তি হোক। সমাজ গঠনের কারিগররাই যখন এই ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছেন, তাহলে কী ভরসায়  তাঁরা সন্তানদের স্কুলে পাঠাবেন। এই ঘটনা জানাজানি হতে স্কুলের মিডে ডে মিলের কর্মীরাও হতবাক। তাঁদের বক্তব্য, এই স্কুলে দীর্ঘদিন কাজ করলেও এই ধরনের অভিযোগ এই প্রথম।

2 years ago