Breaking News
HC: জেলে ১ বছর ৭ মাস! পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিচারপ্রক্রিয়া কবে শুরু হবে? ইডির কাছে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের      Sandeshkhali: ''দাদা আমাদের বাঁচান...'', সন্দেশখালির মহিলাদের আর্তি শুনলেন শুভেন্দু      Sandeshkhali: 'মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত', ক্ষোভ প্রকাশ জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সনের      Weather: বিদায়ের পথে শীত! বাড়বে তাপমাত্রা, বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণবঙ্গে      Sandeshkhali: শিবু হাজরার গ্রেফতারিতে মিষ্টি বিলি, আদালতে পেশ, কবে গ্রেফতার সন্দেশখালির 'মাস্টারমাইন্ড'?      Arrest: সন্দেশখালিকাণ্ডে ন্যাজট থেকে গ্রেফতার শিবু হাজরা      Trafficking: ১০ মাস লড়াইয়ের পর মাদক মামলা থেকে মুক্তি বিজেপি নেত্রী পামেলার      Mimi: রাজনীতি আমার জন্য় নয়, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গিয়ে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা মিমির!      Dev: রাজনীতিতে ফিরতেই ফের দেবকে দিল্লিতে ডাক ইডির      Suvendu: সুকান্ত অসুস্থ থাকলেও, সন্দেশখালি কাণ্ডে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়াতে মাঠে শুভেন্দু     

Minor

Rajasthan: প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করতে পাকিস্তানে পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা কিশোরীর! তারপর যা হল...

সীমা, অঞ্জুর পর এবারে এক ভারতীয় কিশোরী (Minor Girl) ভালোবাসার টানে পাড়ি দিচ্ছিলেন পাকিস্তান (Pakistan)। প্রকাশ্যে এসেছে, সেও নাকি তার প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করতে দেশের সীমানা পেরিয়ে পাকিস্তানে (Pakistan) যাচ্ছিলেন, তবে শেষপর্যন্ত যেতে পারেনি সে। কিন্তু পরে তাকে জেরা করতে গিয়ে আরও এক তথ্য বেরিয়ে আসে, যা শুনে হতবাক পুলিস আধিকারিকরা। সূত্রের খবর, রাজস্থানের (Rajasthan) সিকর জেলার এক কিশোরী জয়পুরের বিমানবন্দরে যায় ও সেখানকার টিকিট কাউন্টারে গিয়ে পাকিস্তানের টিকিট কাটতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার কাছে ভিসা ও পাসপোর্ট না থাকায় তাকে পুলিসের কাছে তুলে দেওয়া হয়।

সূত্রের খবর, বাড়ি থেকে পালিয়ে পাকিস্তানে যাচ্ছিল কিশোরী। কিন্তু তার কাছে পাসপোর্ট ও ভিসা না থাকায় তাকে টিকিটই দেওয়া হয়নি। প্রথমে তাকে জয়পুর বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ আটক করে ও পরে তাকে পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এরপর তার বাবা-মাকেও ডেকে পাঠানো হয়। তার বাবা-মা-এর সামনেই পাকিস্তান যাওয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে সে জানায়, সবার দৃষ্টি করতেই সে এমন করেছে। যদিও এই কথা মানতে রাজি নয় পুলিস। ফলে এই কিশোরীর পাকিস্তান যাওয়ার নেপথ্যে কী কারণ, তা তদন্ত চালাচ্ছে পুলিস।

পুলিস সূত্রে খবর, রাজস্থানের সেই কিশোরী বিমানবন্দর থেকে টিকিট নেওয়ার জন্য মিথ্যা গল্পও বানিয়েছিল। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে জানায়, তিন বছর আগে ইসলামাবাদ থেকে ভারতে এসেছিল সে। কাকিমার সঙ্গে থাকে সে। কিন্তু কাকিমার সঙ্গে এখন আর থাকতে না পারায় সে এখন পাকিস্তানে ফিরে যেতে চায়। বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষীরা কিশোরীর কথা শুনে স্তম্ভিত হয়ে যান। কিন্তু তদন্তের পর পুলিস জানতে পারে, কিশোরী ইসলামাবাদের বাসিন্দা নয়, সে রাজস্থানের সিকর জেলার রত্নপুরা গ্রামের।

7 months ago
Cooch Behar: কোচবিহারে নির্যাতিতা নাবালিকার মৃত্যুর প্রতিবাদে সরব রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন

নারীদের যৌন নির্যাতন এবং বিবস্ত্র করে মারধরের ঘটনায় উত্তপ্ত গোটা দেশ। এমনকি ওই প্রত্যেকটি ঘটনায় পুলিসি নিরাপত্তা নিয়ে আঙুল তুলছে সাধারণ মানুষ। একের পর এক এইরকম নৃশংস ঘটনায় বেশ আতঙ্কেও রয়েছেন সাধারণ মানুষ। মণিপুর, বিহার, রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মালদার পাশাপাশি একইভাবে উত্তপ্ত কোচবিহারও। 

চলতি মাসের ১৮ তারিখে এক নাবালিকা স্কুল পড়ুয়াকে অপহরণ করে দুদিন ধরে ক্রমাগত যৌন নির্যাতন করার ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারে (Cooch Behar)। সূত্রের খবর, ঘটনার দিন ওই নাবালিকা (Minor Girl)) স্কুলে যায়। তবে স্কুলে যাওয়ার পর পরই তার পেটে ব্যথা শুরু হয়। আর এরফলে ওই নাবালিকা পড়ুয়া (Dead) স্কুলে ছুটির আবেদন করে স্কুল থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে বের হয়। আর ঠিক সেই সময়ই রাস্তা থেকে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় কিছু দুষ্কৃতী। তারপরেই দুদিন ধরে ওই নাবালিকার উপর যৌন নির্যাতন চলে। নির্যাতিতার পরিবারের দাবি, নাবালিকার পেটে ব্যথা বা ছুটির আবেদন করে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার কথা আগে স্কুলের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি ওই নাবালিকার পরিবারকে। ওই মেয়ে স্কুল থেকে বাড়ি না ফিরলে স্কুলে গিয়ে খোঁজখবর করার পর জানা যায় নাবালিকা পেটে ব্যথা হওয়ার কারণে সে আগেই স্কুল থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। তারপর কিছুক্ষণ খোঁজাখুঁজি করে থানার দারস্থ হয় নাবালিকার পরিবার। থানায় যাওয়ার একদিন পরেই নাবালিকাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিস। চিকিত্সাধীন অবস্থায় চলতি মাসের ২৬ তারিখে হাসপাতালেই শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে ওই নাবালিকা।

তবে এই ঘটনায় তখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার বা আটক করেনি পুলিস। পরে গ্রামবাসীরা ওই অভিযুক্তদের ধরে পুলিসের হাতে তুলে দেন। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মোট ৪ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে পুলিসের এই কাজে সন্তুষ্ট নয় নির্যাতিত ওই নাবালিকার পরিবার। পুলিসের কাজে যথেষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তাঁরা। এমনকি এই ঘটানয় বেশ আতঙ্কেও রয়েছেন তাঁরা। যদিও এই ঘটনায় রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের সদস্যরা ওই নাবালিকার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন। এমনকি এই ঘটনায় নাবালিকার পরিবার, রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের সদস্যরা ও বেশকিছু সংগঠন দোষীদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন।

7 months ago
Child: মিষ্টি খাওয়ার অপরাধে নাবালিকার পিঠে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা, কাঠগড়ায় কাকু-কাকিমা

মিষ্টি খাওয়ার অপরাধে মা বাবা হারা নাবালিকার (Minor Harrasment) পিঠে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দেওয়ার অভিযোগ উঠল কাকু কাকিমার বিরুদ্ধে। এই চরম অমানবিকতার সাক্ষী রইল আরামবাগের (Arambag) গোঘাট। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় গ্রেফতার (Arrest) করা হয়েছে অভিযুক্ত কাকিমাকে। অভিযুক্ত কাকু এখনও পলাতক। পুলিস (Police) সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ওই কাকু কাকিমার নাম সারদামণি চ্যাটার্জী ও চিন্ময় চ্যাটার্জী। 

নাবালিকার মামাবাড়ি সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই নাবালিকা সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী। বেশ কয়েক বছর আগেই সে মা ও বাবাকে হারিয়েছে। তারপর থেকে কাকু ও কাকিমার কাছেই থাকতো সে। অভিযোগ, তখন থেকেই লাগাতার অত্যাচার শুরু করে কাকু ও কাকিমা। এমনকি সময়ে খেতেও দিত না। প্রায়শই মারধর ও ছ্যাঁকা দিতো বলেও অভিযোগ করে নাবালিকার মামাবাড়ি থেকে।  

সূত্রের খবর, ওই নাবালিকাকে মঙ্গলবার সারাদিন কিছু খেতে দেওয়া হয়নি। তাই খিদে সহ্য করতে না পেরে বুধবার ফ্রিজ থেকে একটি মিষ্টি বের করে খায় সে। সেই অপরাধেই খুন্তিকে আগুনে গরম করে ওই নাবালিকার পিঠে ছ্যাঁকা দেয় অভিযুক্ত কাকিমা। এমনকি এই ঘটনা যাতে কেউ বুঝতে না পারে তার জন্যে নাবালিকাকে টাইট পোশাক পরিয়ে স্কুলে পাঠায়। কিন্তু স্কুলের শিক্ষিকারা তার যন্ত্রনার কথা বুঝতে পেরে তাকে জিজ্ঞাসা করে। তার পরেই উঠে আসে এই পুরো ঘটনা।

7 months ago


MadhyaPradesh: ৪০ ঘণ্টা পার! এবারে বোরওয়েল থেকে আড়াই বছরের খুদের উদ্ধারে নামানো হবে রোবট

পেরিয়ে গিয়েছে ৪০ ঘণ্টা। এখনও ৩০০ ফুট গভীর বোরওয়েল (Borewell) থেকে উদ্ধার করা যায়নি আড়াই বছরের শিশুটিকে (Minor)। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মধ্যপ্রদেশের (MadhyaPradesh) সেহোর জেলার মুগাভালি গ্রামে এক চাষের ক্ষেতের বোরওয়েলে পড়ে যায় খুদেটি। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে উদ্ধারকার্য। কিন্তু প্রায় দু'দিন হতে চললেও শিশুটিকে উদ্ধার করা যায়নি। জানা গিয়েছে, প্রথমে শিশুটি ২০ ফুট গভীরে আটকে ছিল, কিন্তু পরে সে পিছলে ৫০ ফুট গভীরে চলে যায়। এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে সেরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ চৌহান। এবারে তিনি জানিয়েছেন, শিশুটিকে উদ্ধার করতে সাহায্য নেওয়া হবে রোবটের (Robot)।

জানা গিয়েছে, গত মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মুগাভালি গ্রামের এক চাষের ক্ষেতে খেলছিল আড়াই বছরের শিশুটি। হঠাৎ পাশে থাকা বোরওয়েলে পড়ে যায় সে। সেহোর জেলার কালেক্টর জানিয়েছেন, শিশুটি প্রথমে ৩০০ ফুট বোরওয়েলের ২০ ফুটে আটকে যায়, এরপর আরও নীচে ৫০ ফুট গভীরে চলে যায় সে। এই ঘটনার পরই সেখানে উপস্থিত হয়েছে সেনা জওয়ান, এনডিআরএফ ও এসডিআরএফ।

মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের নিজের জেলা এটি। ফলে এই বিষয়ে তিনি ওয়াকিবহাল। ফলে এই ঘটনার পরই শিশুটিকে নিরাপদে বের করার জন্য উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন তিনি। তাঁর তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, উদ্ধারকার্যে রাজ্যের থেকে সমস্ত সহায়তা করা হবে।

9 months ago
Indore: পুতুল-চকোলেটের বায়না করতেই মেয়েকে খুন বাবার! গ্রেফতার 'মাদকাসক্ত' বাবা

চকোলেট, পুতুলের বায়না করতেই প্রাণ গেল এক ৮ বছরের নাবালিকার (Minor Girl)। জানা গিয়েছে, এই নাবালিকা তার বাবার কাছে চকোলেট ও পুতুলের জন্য বায়না করছিল। আর এরপরেই বিরক্ত হয়ে মেয়েকে গত শনিবার খুন করে 'মাদকাসক্ত' বাবা বলে অভিযোগ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের (MadhyaPradesh) ইন্দোরে (Indore)। যদিও পরে অভিযুক্ত ব্যক্তি নিজের অপরাধ স্বীকার করে নেয়। নিজের মেয়েকে খুন করার অভিযোগে তাকে সোমবার গ্রেফতারও করা হয়েছে বলে খবর।

সূত্রের খবর, প্রায়ই নাবালিকা চকোলেটের জন্য বায়না করত। কিন্তু তার রোজ এই বায়না নিতে পারেনি তার বাবা। তাই বিরক্ত হয়ে মাদকের নেশায় মেয়েকে খুন করেছে বলে খবর। পুলিস সূত্রে খবর, জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন অভিযুক্ত নিজেই তার মেয়েকে খুন করার কথা স্বীকার করেছে। সে জানিয়েছে, একটি নির্মীয়মান বহুতলে নিয়ে গিয়ে পাথর ও টাইলস দিয়ে মাথায় একাধিকবার মেরে মেয়েকে খুন করেছে। আর্থিক অনটনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল সে, কিন্তু তার মেয়ে চকোলেট, পুতুল ও জামার জন্য বায়না করেই চলেছিল। ফলে সে এই ঝামেলা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যই তার মেয়েকে খুন করে বলে জানিয়েছে অভিযুক্ত ব্যক্তি।

আরও জানা গিয়েছে, মৃত নাবালিকার মা কয়েকবছর আগেই তাদের ছেড়ে চলে যায়। তারপর থেকে তার বাবার সঙ্গে থাকত ছোট্ট মেয়েটি। আরও জানা গিয়েছে, ধৃতের কাছ থেকে ভোটার কার্ড পাওয়া গিয়েছে। তবে রেশন কার্ড মেলেনি বলে ইন্দোর পুলিসের এক আধিকারিক জানিয়েছেন।

9 months ago


MP: মাকে মারধর করেন বাবা! গ্রেফতারির দাবি নিয়ে পুলিস স্টেশনে হাজির দুই নাবালিকা

নিজের বাবাকে গ্রেফতার (Arrest) করার দাবিতে পুলিস স্টেশনে গিয়ে হাজির দুই নাবালিকা। একজনের বয়স প্রায় ৫ ও আরেকজনের ৭। কিন্তু কী এমন কারণ, যার জন্য এই দুই শিশু পুলিস স্টেশনে। তাদের দেখে রীতিমতো হতবাক স্টেশনের কর্মরত পুলিসরা। জানা গিয়েছে, নাবালিকাদের দাবি, তাদের বাবা তাদের মায়ের উপর অত্যাচার করেন ও মারধর করেন। ফলে তাদের মায়ের তরফে একটি চিঠি নিয়ে এসেছে স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করার জন্য। ঘটনাটি মধ্যপ্রদেশের (MadhyaPradesh) গোয়ালিওরের।

সূত্রের খবর, গোয়ালিওরের ভিতরওয়ার পুলিস স্টেশনে কর্মরত ছিলেন প্রতীপ শর্মা। তখন হঠাৎ দুই নাবালিকাকে স্টেশনে ঢুকতে দেখা যায়। তাদের হাতে একটি চিঠিও ছিল। তাদের দেখতে পেয়েই প্রতীপ শর্মা জিজ্ঞাসাবাদ করেন ও বলেন তারা যাতে ভয় না পায়। এরপরেই একে একে সব ঘটনা বলে দুই মেয়ে। তারা সেই চিঠি দিয়ে বলে, তাদের বাবা তাদের মাকে মারধর করেন। ফলে তাদের বাবাকে যেন গ্রেফতার করা হয়।

নাবালিকাদের অভিযোগ শোনার পরই প্রতীশ শর্মা তাদের বাড়ি যান ও তাদের বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করেন। সেই দম্পতিকে ভালোভাবে বুঝিয়ে বলেন যে, তাঁরা যাতে পরবর্তীতে আর কোনও ঝগড়া না করেন। কারণ এতে সন্তানদের উপর খারাপ প্রভাব পড়ে।

9 months ago
BSF: পুলিস ও চাইল্ড লাইনের পর এবার বিএসএফের তৎপরতায় বানচাল হল নাবালিকার বিয়ে

সীমান্তের গ্রামে নাবালিকার (Minor) বিয়ে (Marriage) রুখলো বিএসএফ (BSF)। পুলিস ও চাইল্ড লাইনের পর এবার বিএসএফের তৎপরতায় বানচাল হল নাবালিকার বিয়ে। ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করে বাদুড়িয়া থানা পুলিসের (Police) হাতে তুলে দেওয়া হয়। পাত্র সহ মেয়েটির বাবা সহদেব বারিক ও পাত্রের বাবা জগন্নাথ মণ্ডলকে আটক করে বাদুড়িয়া থানার পুলিস। পুলিস নাবালিকাকে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটিতে পাঠায়।   

জানা গিয়েছে, বসিরহাটের বাদুড়িয়া থানার আটুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা বছর ২৬-এর সোমনাথ মণ্ডলের সঙ্গে দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুরের বাসিন্দা সহদেব বারিক ও চম্পা বারিকের নাবালিকা কন‍্যার বিয়ের আসর বসেছিল পাত্রের বাড়িতেই। বিএসএফের ১৫৩ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা ১০৯৮-এ ফোন করে চাইল্ড লাইন, বাদুড়িয়া থানার পুলিস ও দুই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তারপর এই দল নিয়ে তারা হানা দেয় বিয়ের আসরে। আর বন্ধ করে নাবালিকার বিয়ে। 

বিয়ের আসর থেকেই তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে পাত্র সহ মেয়েটির বাবা সহদেব বারিক ও পাত্রের বাবা জগন্নাথ মণ্ডলকে। ধৃতদের জেরা করছে বাদুড়িয়া থানার পুলিস। রাজ্য সরকারের নাবালিকা বিয়ের রুখতে একাধিক প্রকল্প থাকতেও কেন ১৮ বছর আগেই তার বিয়ে দেওয়া হচ্ছিল? এরকম নানান প্রশ্ন ইতিমধ্যেই উঠতে শুরু করেছে। 

10 months ago
Internet: বন্ধ ইন্টারনেট, পরপর মৃত্যুতে থমথমে কালিয়াগঞ্জ

কালিয়াগঞ্জে নাবালিকাকে (Minor) যৌন নিগ্রহ করে খুনের অভিযোগে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি (Politics)। রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চেয়েছে হাইকোর্ট। পাশাপাশি ময়নাতদন্তের ফুটেজ সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। এবার কালিয়াগঞ্জের ঘটনায় বড় পদক্ষেপ নিল প্রশাসন। বৃহস্পতিবার কালিয়াগঞ্জের (Kaliyaganj) কিছু জায়গায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিগত কিছুদিন ধরেই উত্তপ্ত কালিয়াগঞ্জ। সোশ্যাল মিডিয়ায় নাবালিকা মৃত্যু নিয়ে একাধিক তথ্য ছড়িয়ে পড়ছে। প্রশাসনের দাবি, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্য ভুয়ো বা প্ররোচনামূলক তথ্য ছড়াতে পারে সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে। সূত্রের খবর, পরিস্থিতি যাতে আরও খারাপ না হয় সেই জন্যই আগামী কয়েকদিন প্রশাসনের তরফে এই অঞ্চলে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ফোন, এসএমএস বা খবরের কাগজ পৌঁছনো নিয়ে কোনও বিধিনিষেধ থাকছে না। কালিয়াগঞ্জের মানুষ ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। খবরের কাগজও পৌঁছাবে। শুধু ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন না।

প্রসঙ্গত, কালিয়াগঞ্জে নাবালিকার রহস্যমৃত্যুকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে পড়ে। মঙ্গলবার দোষীদের শাস্তির দাবিতে ফের আন্দোলনে নামেন স্থানীয়রা। ক্ষিপ্ত জনতা পুলিশের গাড়ি, বাইকে আগুন ধরিয়ে দেয়। মারধর করা হয় পুলিশ, সিভিক ভলান্টিয়ারদেরও। কালিয়াগঞ্জের ঘটনায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এই ঘটনার নেপথ্যে বিজেপির ভূমিকা আছে বলে মনে করছেন। তাঁর দাবি, বিহার থেকে লোক এনে এই অশান্তি করা হয়েছিল। মহিলা পুলিশ কর্মীদের গায়ে হাত দিয়েছে। পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারি সম্পত্তিও নষ্ঠ করা হয়েছে। এই গোটা বিষয়টি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

10 months ago


Court: কালিয়াগঞ্জ কাণ্ডে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের

নাবালিকাকে (Minor) যৌন নিগ্রহ করে খুনের অভিযোগের মামলায় রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চাইল হাইকোর্ট (High Court)। মঙ্গলবারের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে হবে রাজ্যকে। শুধু তাই নয়, ময়নাতদন্তের ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণ করে রাখার নির্দেশও দেন বিচারপতির রাজাশেখর মান্থা (Rajshekhar Mantha)। প্রসঙ্গত, সিবিআই তদন্তের দাবি নিয়ে বুধবার হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন মৃতার বাবা। বৃহস্পতিবার সেই মামলার শুনানিতে মামলাকরার পক্ষের আইনজীবী আদালতে জানান, ২০ এপ্রিল নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহ করে খুন করা হয়। পুলিস তাঁর দেহ নৃশংসভাবে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে গেছে। এমনকী ময়নাতদন্তের রিপোর্টও পরিবারকে দেওয়া হয়নি। এরপর রাজ্য পুলিসের উপর কোনও ভরসা নেই।

পাল্টা রাজ্য সরকার, পরিবারের বিরুদ্ধে তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছে আদালতে। পাশাপাশি রাজ্য জানায়, ২০ তারিখ থেকে এক যুবক ও এক নাবালিকা নিখোঁজ হয়। অভিযোগ পাওয়ার পরই পুলিশ অনুসন্ধান শুরু করে। পরের দিন সকালে একটা পুকুরের পাড়ে নাবালিকার দেহ পাওয়ার খবর পাওয়া যায়। অপহরণ, যৌন নিগ্রহ করে খুনের অভিযোগ করা হয়। পুলিস ময়নাতদন্তের জন্য দেহ নিয়ে যেতে চাইলে বাধা দেওয়ার চেষ্টা হয়। পরিবার কোনওরকম সাহায্য করেনি। দেহ রেখে বিক্ষোভ শুরু হয়।

নাবালিকার দেহ টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার ভিডিও সামনে এসেছিল। যা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় রাজ্য রাজনীতিতে। পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসতে থাকেন স্থানীয়রা। এই ঘটনা প্রসঙ্গে এদিন আদালতে রাজ্যের আইনজীবী বলেন, কিছু দূরে গিয়ে দেহ কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা হয়। উত্তেজিত জনতার থেকে দেহ প্রায় ছিনিয়ে আনতে হয়। যদি দেহ পুড়ে যায়, তথ্য প্রমাণ নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে এই ভাবে দেহ নিয়ে যাওয়ায় চার জনকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। রাজ্যের তরফে আরও জানানো হয়, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে দেখা গেছে নাবালিকার শরীরে বিষ ছিল। তবে যৌন নিগ্রহের কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এদিনের শুনানি শেষে বিচারপতি মান্থা বলেন, 'তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা করতে হবে রাজ্য পুলিশকে।'

আদালত আরও জানায়, এখনই দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে না। তবে প্রথমবারের ময়নাতদন্তের ভিডিও ফুটেজ সংরক্ষণ করে রাখতে হবে। প্রয়োজনে সেটা আদালতে জমা দিতে হবে। পাশাপাশি, জাতীয় শিশু সুরক্ষা কমিশন ও পরিবারকে ময়নাতদন্তের রিপোর্টের কপি দিতে হবে। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২ মে।


10 months ago
Malda: এবার কালিয়াচক, চাষের জমি থেকে উদ্ধার নাবালিকার মৃতদেহ

কালিয়াগঞ্জের (Kaliaganj) পর কালিয়াচকে (Kaliachak), ফের শিশু নিগ্রহের ঘটনা ঘটলো। অভিযোগ ওই কিশোরীকে (Minor) যৌন নিগ্রহের পর খুন করা হয়েছে। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার মালদহের কালিয়াচকের উজিরপুর গ্রামে চাষের জমি থেকে উদ্ধার এক নাবালিকার মৃতদেহ। যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। পুলিস এসে ওই নাবালিকার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। 

সূত্রের খবর, স্থানীয়রা প্রথমে ওই যুবতীকে চাষের জমিতে অর্ধনগ্ন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে, খবর দেওয়া হয় পুলিসকে। খবর পেয়ে ওই নাবালিকার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিস। গ্রামের স্থানীয়দের অভিযোগ, শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। অবিলম্বে দোষীদের শাস্তির দাবী জানাচ্ছেন গ্রামবাসীরা। এছাড়া ওই যুবতী স্থানীয় নন বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, কে বা কারা তাকে বাইরে থেকে নিয়ে এসে এখানে গণধর্ষণ করে শ্বাসরোধ করে খুন করেছ্‌ তা জানা যায়নি। যদিও মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে কালিয়াচক থানার পুলিস।

কালিয়াগঞ্জের পর কালিয়াচকে শিশু নিগ্রহের ঘটনা। রাজ্যে পরপর শিশু নিগ্রহের ঘটনায় বিরোধীরা আঙ্গুল তুলেছে প্রশাসন ও সরকারের দিকে। দোষীদের শাস্তির দাবিতে সোচ্চার গ্রামবাসীরা। যদিও এ ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি স্থানীয়দের। 

10 months ago


kaliaganj: কালিয়াগঞ্জের কিশোরীকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় গ্রেফতার দুই অভিযুক্ত

কালিয়াগঞ্জের (Kaliaganj) কিশোরীকে (Minor) যৌন নিগ্রহের ঘটনায় গ্রেফতার (Arrest) দুই অভিযুক্ত। গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কালিয়াগঞ্জ এলাকা। এর পরেই ওই দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। শুক্রবার কালিয়াগঞ্জে একটি খালের ধার থেকে ১৪ বছরের কিশোরীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে ছুটে যায় মৃতার পরিবারের লোকজন। মৃতার পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগ, প্রথমে কিশোরীকে যৌন নিগ্রহ ও তারপরে খুন করা হয়েছে। অভিযোগ ওঠে স্থানীয় একটি গ্রামের যুবক জাভেদ আলীর বিরুদ্ধে। তারপরেই অভিযুক্তকে গ্রেফতারের দাবিতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কালিয়াগঞ্জ। অবরোধ-বিক্ষোভ দেখাতে থাকে স্থানীয়রা। তারপরে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়ন করা হয়। সূত্রের খবর পুলিশ বাহিনীকে ওই বিক্ষোভ অবরোধ তুলতে লাঠিচার্জ করতে হয়।

10 months ago
Kaliaganj: কিশোরীকে যৌন নিগ্রহ-খুনের অভিযোগ, মৃতদেহ আটকে বিক্ষোভ পরিবারের

এক কিশোরীকে প্রথমে যৌন নিগ্রহ ও পরে খুনের অভিযোগ (Complain) উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ থানার অন্তর্গত পালইবাড়ি এলাকায়। পুলিস (Police) জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে ওই কিশোরীর (Minor) মৃতদেহ উদ্ধারের পর চাঞ্চল্য ছড়ায় ওই এলাকায়। ওই কিশোরীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে বলে সূত্রের খবর, ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিস। 

সূত্রের খবর, ওই মৃতার বাড়ি কালিয়াগঞ্জের গাঙ্গোয়া এলাকায়। মৃত কিশোরীর পরিবারের তরফে যৌন নিগ্রহ ও খুনের অভিযোগ আনা হয়েছে পাশের গ্রামেরই এক যুবকের বিরুদ্ধে। সূত্রের খবর, অভিযুক্ত ওই যুবকের বাড়ি পাশের গ্রাম কালুডাঙ্গায়। শুক্রবার ওই কিশোরীর দেহ উদ্ধারের পর রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিস এলে, দেহ উদ্ধারে পুলিসকে বাধা দেওয়া হয়। সূত্রের খবর, মৃতদেহ আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে মৃতার পরিবারও।  

মৃতার পরিবারের সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার থেকে নিখোঁজ ছিল ওই কিশোরী। সকালবেলা পালইবাড়ি এলাকায় একটি জলাশয়ের ধারে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় মৃতার পরিবারের লোকেরা। খবর দেওয়া হয় পুলিসকে। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে কালিয়াগঞ্জ থানার বিশাল পুলিসবাহিনী। এ ঘটনায় এখনও কোনও অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেনি পুলিস, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

10 months ago
Newtown: দুই ভাড়াটিয়ার মধ্যে বিবাদ কুপিয়ে খুন প্রতিবেশী শিশুকে!

দুই ভাড়াটিয়ার মধ্যে বিবাদ (Dispute), কুপিয়ে খুন প্রতিবেশী (Neighbor) শিশুকে (Minor)। মৃত শিশুকে বাঁচাতে এসে গুরুতর জখম শিশুর মা ও প্রতিবেশী এক মহিলা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইকোপার্ক থানার শুলংগুড়ি ঘোষপাড়া এলাকার ঘটনা। পুলিস জানিয়েছে মৃত শিশুর নাম দিবাংশু প্যাটেল (৭)। বৃহস্পতিবার ওই এলাকায় দুই ভাড়াটিয়ার মধ্যে অশান্তি চলছিল, সেসময় ওই শিশুর প্রতিবেশী এক ব্যক্তি, শিশুটিকে বারবার কুপিয়ে খুন করে। পুলিস জানিয়েছে, অভিযুক্ত ঘাতক লক্ষণ কুমার পলাতক। তার খোঁজ চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিস। সূত্রের খবর, ওই শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে যখন হয়েছেন শিশুর মা সহ, এক প্রতিবেশী মহিলা। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দু'জনেই স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

10 months ago


Tiljala: তিলজলা খুনে তান্ত্রিক রহস্য নেই, খুনের কারণ বিকৃত যৌন লালসা: লালবাজার

ভেবেছিলাম অন্যের নির্দেশে খুন করেছি বললে সাজা কম হবে।' তিলজলা (Tiljala) শিশু (Minor) খুনে পুলিসের (Police) জেরায় এমনিই দাবি অভিযুক্ত আলোক কুমার সাউয়ের। কোনও তান্ত্রিকের নির্দেশে নয়, বরং নিজের বিকৃত যৌন লালসা মেটাতেই তিলজলার সাত বছরের শিশুকন্যাকে নিগ্রহ করে খুন করেছিল অভিযুক্ত অলোক কুমার। লালবাজারের দাবি, জেরায় প্রথমে তান্ত্রিকের গল্প ফাঁদলেও পরে সে দাবি করেছে যে, নিজের বিকৃত যৌন চাহিদার কথা ঢাকতেই ওই কথা বলেছিল। তার ধারণা ছিল, এর জেরে তার শাস্তি কম হবে। কিন্তু গোয়েন্দাদের লাগাতার জেরার মুখে সে স্বীকার করেছে যে, খুনের পিছনে রয়েছে তার বিকৃত যৌন লালসা।

এক গোয়েন্দাকর্তা জানান, ধৃত অভিযুক্ত বিকৃতকাম। সেই কারণেই প্রতিবেশীর নাবালিকা মেয়েকে জোর করে ফ্ল্যাটে নিয়ে গিয়ে যৌন নির্যাতন করার পরে খুন করেছিল সে। পুলিসি জেরায় প্রথম থেকে তান্ত্রিকের কথা বললেও অলোকের বক্তব্যে একাধিক অসঙ্গতি ছিল। সে এক তান্ত্রিকের কথা বলেছিল। পুলিস সূত্রের খবর, তদন্তে নেমে ধৃতকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হলেও কাউকেই সে শনাক্ত করতে পারেনি। পরে স্বীকার করে, পুলিসকে বিভ্রান্ত করতে ও সাজা কমাতেই তান্ত্রিকের গল্প ফেঁদেছি।

লালবাজার জানিয়েছে, ২৬ মার্চ ময়লা ফেলতে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়ে যায় ওই শিশুটি। অভিযোগ, তিলজলা থানার পুলিস নিখোঁজ ডায়েরিকে প্রথমে গুরুত্ব দেয়নি। পরে ওই আবাসনে তল্লাশি শুরু হলে তেতলার ফ্ল্যাট থেকে বস্তাবন্দি দেহ উদ্ধার হয়। তদন্তে জানা যায়, ময়লা ফেলে ফ্ল্যাটে ফেরার সময়ে অলোক শিশুটির হাত ধরে টেনে নিজের ঘরে নিয়ে যায় এবং খুন করে। অভিযোগ, তার উপরে যৌন নির্যাতনও চালায় সে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে তিলজলা। পুলিসের গাড়িতে ভাঙচুর ও আগুন লাগানো হয়। ঘটনার তদন্তে কলকাতায় আসেন জাতীয় শিশু অধিকার সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান প্রিয়ঙ্ক কানুনগো। শুক্রবার ওই তদন্ত নিয়ে প্রকাশ্যেই বিরোধ বাধে জাতীয় এবং রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সনদের মধ্যে। এর মধ্যেই তদন্তকারীদের সঙ্গে কথা বলার পরে প্রিয়ঙ্ক অভিযোগ করেন, সেখানে ক্যামেরায় সব রেকর্ড করা হচ্ছিল বলে তিনি আপত্তি জানালে তিলজলা থানার তৎকালীন ওসি বিশ্বক মুখোপাধ্যায় তাঁকে মারধর করেন। তিনি লিখিত অভিযোগ করলে লালবাজার ওসির বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে এবং তাঁকে সরিয়ে দেয়। লালবাজার জানিয়েছে, ওই ঘটনার তদন্ত করছে গোয়েন্দা বিভাগ। তদন্তে অভিযোগকারী এবং অভিযুক্তকে ডেকে পাঠানো ছাড়াও ক্যামেরার ছবি খতিয়ে দেখা হবে।

11 months ago
Baharampur: স্কুলে বেরিয়ে নিখোঁজ ১১, বহরমপুরের হোমে শোরগোল

একইসঙ্গে স্কুলে বেরিয়ে নিখোঁজ (Missing) ১১ জন নাবালক (Minor)। বৃহস্পতিবার বহরমপুর (Baharampur) থানা এলাকার ঘটনা। সূত্রের খবর, তাঁরা প্রত্যেকেই স্থানীয় একটি হোমে থাকত। অভিযোগ বৃহস্পতিবার, বহরমপুরে কাজী নজরুল ইসলাম হোম থেকে বেরিয়ে ১১ জন ছাত্র স্কুলে যায়। জানা যায়, স্কুল ছুটি হলেও তাঁরা হোমে ফেরেনি। এই নিয়েই চিন্তিত হোম কর্তৃপক্ষ। পুলিস জানিয়েছে, হোমের তরফে লিখিতভাবে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। তারপরেই ওই ১১ জন নিখোঁজ নাবালকের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিস। কী কারণে তাঁরা হোম ফেরেনি, তা নিয়ে হোম কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিস।  

সূত্রের আরও খবর, ইতিমধ্যেই হোম কর্তৃপক্ষ সকল অভিভাবকদেরকে ডেকে পাঠিয়েছে, জেলা প্রশাসক রাজশ্রী মৈত্র, হোম কর্তৃপক্ষের সাথে দেখা করতে আসবেন বলা জানা গেছে।

11 months ago