Breaking News
Modi: কৃষ্ণনগরে ভাষণ শুরু করেই ক্ষমা প্রার্থানা প্রধানমন্ত্রীর, তৃণমূলকে তীব্র তুলধনা...      Modi: 'রামমোহনের আত্মা সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে', আরামবাগ থেকে মমতাকে তোপ মোদীর      Suspend: গ্রেফতারির পরেই তৃণমূল থেকে ছয় বছরের জন্য সাসপেন্ড সন্দেশখালির 'বেতাজ বাদশা' শাহজাহান      Sandeshkhali: নিরাপদ সর্দারকে নিঃশর্তে জামিন দিয়ে রাজ্য পুলিসকে তিরস্কার বিচারপতির      Sheikh Shahjahan: ঘর ভাঙচুর, টাকা লুঠ! শেখ শাহজাহানের বিরুদ্ধে নতুন এফআইআর সন্দেশখালি থানায়      Sandeshkhali: অজিত মাইতিকে তাড়া গ্রামবাসীদের, সাড়ে ৪ ঘণ্টা পর অবশেষে আটক পুলিসের      Ajit Maity: উত্তপ্ত সন্দেশখালি! অজিত মাইতির গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভ মহিলাদের, বাঁচতে সিভিকের বাড়িতে আশ্রয়      Sandeshkhali: সন্দেশখালি ঢুকতে বাধা, ভোজেরহাটেই দিল্লির ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে আটকাল পুলিস      Sandeshkhali: একই যাত্রায় পৃথক ফল! ১৪৪ যুক্ত এলাকায় নির্বিঘ্নে ঘুরছেন পার্থ-সুজিত, বাধাপ্রাপ্ত মীনাক্ষী      Sandeshkhali: ভোটের আগে উত্তপ্ত সন্দেশখালি, বিশেষ নজর নির্বাচন কমিশনের     

HomeMade

Cooking: বাড়িতে বানান সুস্বাদু চিকেন ডাকবাংলো

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: বাড়িতে দুপুর বা রাতের মেনুতে বানিয়ে ফেলতে পারেন সুস্বাদু চিকেন ডাকবাংলো। এই পদটিতে চিকিনের সঙ্গে ডিমও থাকে। ভাত, রুটি, পরোটা, লুচি, পোলাও সহযোগে চিকেন ডাকবাংলো খেতে খুবই উপাদেয়। নিজের হাতে রান্না করে বাড়ির লোকেদের খাইয়ে খুশি করতে পারেন।

চিকেন ডাকবাংলো তৈরির পদ্ধতি--

এক কেজি হাড় সমেত চিকেনের দশ থেকে বারোটা খণ্ড করে নিন। চিকেনের খণ্ডগুলো জলে ধুয়ে পরিস্কার করে জল মুছে নিন। কড়া আঁচে বসিয়ে পঞ্চাশ গ্রাম সর্ষের তেল গরম করে তার মধ্যে একটা বড় দারচিনির স্টিক, পাঁচটা ছোট এলাচ, ছয়টা লবঙ্গ ফোড়ন দিন। এবার দুটো বড় সাইজের পেঁয়াজের স্লাইজ দিয়ে আন্দাজ মত নুন দিয়ে হাল্কা বাদামি করে ভেজে নিন। এবার এক টেবিল চামচ রসুনবাটা ও দুই টেবিল চামচ আদা বাটা দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে ভেজে নিন। এবার চারটে মাঝারি টমেটো কুচি দিয়ে নেড়ে ক্রমাগত কষতে থাকুন যতক্ষণ না টমেটো গলে যাচ্ছে। টমেটো গলে গেলে এক চা চামচ চিনি, প্রয়োজন মত নুন দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। দুই চা  চামচ শুকনো লঙ্কার গুড় , এক চা চামচ হলুদ গুড় ও আন্দাজ মত জল দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে কোষে নিন।

এবার ভাতের হাতার এক হাতা ফেটানো টক দই দিয়ে খুব ভাল করে নেড়ে কোষে নিন। তেল ছাড়তে শুরু করলে চিকেন এর খণ্ডগুলো দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিভু আঁচে ক্রমাগত নেড়ে মিনিট পাঁচেক কষে নিন। এবার সামান্য জল দিয়ে আরও কয়েক মিনিট কষুন যতক্ষণ না তেল ছাড়ছে। তেল ছাড়তে শুরু করলে ওর মধ্যে চার বাটি বা আন্দাজ মত জল দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে ঢাকনা বন্ধ করে নিভু আঁচে দশ-পনেরো মিনিট রান্না করুন।

মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলে চিকেনের খন্ডগুলো নেড়ে দেবেন। চিকেন সিদ্ধ হয়ে গেলে উপর থেকে এক টেবিল চামচ ঘি  ও এক চা চামচ গরম মশলার গুঁড়ো ছড়িয়ে দিয়ে নেড়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। দশ থেকে বারোটা সিদ্ধ করা মুরগির ডিমের খোসা ছাড়িয়ে নিন। ফ্রাইংপ্যান আঁচে বসিয়ে আন্দাজ মত সরষের তেল গরম করে লাল করে ভেজে নিন। হয়ে গেলে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। ভাজা ডিমগুলো রান্না করা চিকেনের উপর ছড়িয়ে দিয়ে দিন। গরম গরম পরিবেশন করুন রুটি, পরোটা, লুচি, পোলাও বা ভাত সহযোগে।

11 months ago
Chicken: বাড়িতে বানান আর্জেন্টিনার বিখ্যাত চিকেন চিমিচুরি

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: এই শীতের মরসুমে বিকেল বেলায় গরম চা বা কফি সহযোগে  সুস্বাদু স্ন্যাক্স খাবার মজাই আলাদা। আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্সের রোমাঞ্চকর বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখার হ্যাং ওভার এখনও সবার পুরপুরি কাটেনি, তাই বিশ্বকাপজয়ী দেশ আর্জেন্টিনার  একটি বিখ্যাত চিকেনের স্ন্যাক্সের রেসিপি জানাবো। খাদ্য রসিকরা তো বটেই আর্জেন্টিনার ফুটবল দলের সমর্থক ও মেসিপ্রেমিরা হয়তো এই পদটি বানিয়ে খেয়ে আনন্দ পেতে পারেন।

চিকেন চিমিচুরি তৈরিরপদ্ধতি  ---  এক কেজি ড্রেসড চিকেন স্কিন সমেত ( স্কিন সমেত চিকেন না পেলে স্কিন ছাড়া চিকেনে করতে পারেন)।  চিকেনের দশটা খণ্ড করে নিন। জলে ধুয়ে পরিস্কার করে পরিষ্কার ন্যাকরার সাহায্যে জল মুছে নিন। একটি পাত্রে বড় এক আঁটি ধনে পাতা কুচি, বড় এক আঁটি পারসলি পাতা কুচি, ( পারসলি পাতা না পেলে পুদিনা পাতা কুচি ব্যাবহার করতে পারেন।) দশটি রসুনের কুচি, এক টেবিল চামচ চিলি ফ্লেক্স , এক টেবিল চামচ ওরিগ্যানো , এক চা চামচ কালো গোল মরিচের গুঁড়ো, চার টেবিল চামচ রেড ওয়াইন ভিনিগার (রেড ওয়াইন ভিনিগার না থাকলে অ্যাপল ভিনিগার  বা রেড ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন)।

চার টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল, আন্দাজমতো নুন নিয়ে ভাল করে নেড়ে মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার এই মিশ্রণটি এক ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিন। এক ঘন্টা বাদে ফ্রিজ থেকে বার করে এই মিশ্রণের থেকে দুই টেবিল চামচ মিশ্রণ আলাদা তুলে রাখুন। বাকি মিশ্রণটা মিক্সিতে দিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই মিশ্রণের পেস্টটা চিকেনের খণ্ডগুলোর গায়ে হাতের সাহায্যে খুব ভাল করে মাখিয়ে নিন। মিশ্রণ মাখানো চিকেনের খণ্ডগুলো এক ঘন্টা আলাদা করে রেখে দিন।

এক ঘন্টা বাদে নন স্টিকি ফ্রাইংপ্যান আঁচে বসিয়ে তিন টেবিল চামচ অলিভ অয়েল বা সাদা তেল ( তেল প্যানের মধ্যে চারিদিকে ছড়িয়ে দিন)  গরম করে মিশ্রণ মাখানো চিকেনের খণ্ডগুলো দিয়ে মাঝারি আঁচে টঙ বা  চিমটের  সাহায্যে উল্টে পাল্টে গ্রিল করুন বা ভেজে নিন। চিকেন সম্পূর্ন পেকে গেলে আঁচে থেকে নামিয়ে চিকেনের খণ্ডগুলোর উপরে চামচের সাহায্যে আলাদা করে রাখা ধনে পাতা, পারসলি পাতা , রসুন ও অন্যান্য মশলার মিশ্রণ টা অল্প করে ছড়িয়ে দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

one year ago
Cook: মায়েদের হাতের তৈরি ফ্রায়েড রাইসই সবচেয়ে সেরা

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: বহু বিখ্যাত হোটেল রেস্তোরাঁতে অনেক রকমের ফ্রায়েড রাইস পাওয়া যায়। সেগুলি স্বাদে গন্ধে খুবই ভাল। খেতেও বেশ ভালো লাগে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু ছোটবেলায় মায়েদের হাতের গোবিন্দ ভোগ চাল দিয়ে তৈরি মিষ্টি মিষ্টি ফ্রায়েড রাইসের এক আলাদা আকর্ষন রয়েছে। গাজর, ক্যাপসিকাম, কাজু বাদাম, কিসমিস সহযোগে তৈরি এই ফ্রায়েড রাইস অবশ্যই ব্যাকরণগত ভাবে আসল চিনে ফ্রায়েড রাইস এর সাথে মেলে না , তবুও এর স্বাদে এক আলাদা জাদু আছে, যা ছেলেবেলা থেকে বড় বেলা সবসময়ই খেতে ভালো লাগে।

ফ্রায়েড রাইস তৈরির পদ্ধতি --- পাঁচশো গ্রাম গোবিন্দভোগ চাল জলে ভাল করে ধুয়ে পরিস্কার করে নিন। আন্দাজমতো জলে আধ ঘণ্টা গোবিন্দভোগ চাল ভিজিয়ে রাখুন । দুশো গ্রাম গাজর কুচি , একশো গ্রাম বিনস কুচি জলে ধুয়ে পরিস্কার করে আঁচে বসিয়ে হালকা একটু ভাপিয়ে নিন। হয়ে গেলে জল ঝরিয়ে আলাদা করে রেখে দিন। আধঘণ্টা বাদে গোবিন্দ ভোগ চাল আঁচে বসিয়ে  ১/৩ অংশ সিদ্ধ করে নিন। হয়ে গেলে জল ঝরিয়ে একটা বড় থালা বা ট্রে-র মধ্যে বিছিয়ে পাখার তলায় রেখে দিন। কড়া  আঁচে বসিয়ে তিন টেবিল চামচ সাদা তেল ও এক টেবিল চামচ ঘি গরম করে ওর মধ্যে দুটো দারচিনির স্টিক, চারটে ছোট এলাচ, ছটা লবঙ্গ ফোরন দিন। এবার একটা মাঝারি ক্যাপসিকাম কুচি দিয়ে নেড়ে ভেজে নিন। এবার ভাপানো গাজর ও বিনস কুচি দিয়ে নেড়ে ভাল করে ভেজে নিন। আন্দাজ মতো নুন ও গোল মরিচের গুড় দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন।  এক মুঠো কাজু বাদাম ও এক মুঠো কিসমিস দিয়ে নেড়ে ভেজে নিন। এবার ১/৩ অংশ সিদ্ধ করা গোবিন্দভোগ চালের ভাতটা ওর মধ্যে দিয়ে নেড়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। ক্রমাগত নেড়ে ভাজুন। দুই  থেকে তিন টেবিল চামচ চিনি দিয়ে খুব ভাল করে নেড়ে মিশিয়ে নিন। সব শেষে হাফ চা চামচ গরম মশলার গুড় ও বড় এক চিমটে জয়িত্রি , জায়ফলের গুড় দিয়ে নেড়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এক টেবিল চামচ ঘি ছড়িয়ে দিয়ে নেড়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। একবার চেখে দেখে নিন, নুন, মিষ্টি ঠিক থাকলে আচ থেকে নামিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন চিকেন বা মটন কষা বা কাতলা মাছের দম সহযোগে।

one year ago


Cooking: বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু চিকেন কুলফি কাবাব

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: কাবাব (Kebab) খেতে কে না ভালোবাসে। বিশেষ করে বিকেলে বা সন্ধ্যায় সুস্বাদু কাবাব খাবার মজাই আলাদা। বাড়িতে তন্দুর বা ওভেন না থাকলেও নিশ্চিন্তে বানিয়ে ফেলা যাবে এই কাবাব। বাড়িতে হঠাৎ অতিথি এসে গেলে তাদের এই সুস্বাদু কাবাব তৈরি করে পরিবেশন করতে পারেন।

চিকেন কুলফি কাবাব তৈরির পদ্ধতি---একটা পাত্রে ৩৫০ গ্রাম বোনলেস চিকেন কিমা (মিহি করে বাটা), এক টেবিল চামচ রসুন কুচি, এক টেবিল চামচ আদা কুচি, এক চা চামচ কাঁচালঙ্কা কুচি, এক চিমটে জয়িত্রির গুঁড়ো, হাফ চা চামচ ছোট এলাচের গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ পেস্তা কুচি, আন্দাজমতো নুন, এক চিমটে জাফরান দিয়ে হাতের সাহায্যে চটকে ভালো করে মেখে নিন। এবার ওর মধ্যে ছোট এক মুঠো ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিয়ে ভালো করে হাতের সাহায্যে মেখে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার এই চিকেনের মাখা মিশ্রণটা ফ্রিজে ঢুকিয়ে এক ঘন্টা রেখে দিন। এক ঘন্টা বাদে ফ্রিজ থেকে বার করে চিকেনের মাখা মিশ্রণের লেচি পাকিয়ে স্টিক বা শাসলিক স্টিকের মাথায় লাগিয়ে নিন। নন স্টিকি ফ্রায়িংপ্যান আঁচে বসিয়ে এক টেবিল চামচ দেশি ঘি গরম করে হাতের সাহায্যে প্যানটা ঘুরিয়ে গলা ঘিটা সর্বত্র ছড়িয়ে নিন।

এবার চিকেনের মিশ্রণ লাগানো স্টিকগুলো প্যানে দিয়ে নিভু আঁচে একেক পিঠ দুই থেকে তিন মিনিট ভেজে নিয়ে উল্টে অপর পিঠ ভেজে নিন। উপর থেকে এক টেবিল চামচ মাখন ছড়িয়ে দিন। চিকেন সম্পূর্ণ পেকে গেলে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। স্যালাড ও পুদিনা পাতার চাটনি সহযোগে গরম গরম পরিবেশন করুন।

2 years ago
Cooking: পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া সুস্বাদু পনির? রইল তারই রেসিপি

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: যাঁরা পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া বিশুদ্ধ নিরামিষ খাবার পছন্দ করেন, তাঁরা পনিরের এই পদটি রান্না করে পরিবারের সবাইকে খাইয়ে ও নিজে খেয়ে দেখতে পারেন। অনেকের ধারণা রয়েছে যে পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া সুস্বাদু পনিরের পদ রান্না করা সম্ভব নয়। এই পদটি রান্না করলে সেই ভুল ভেঙে যেতে পারে। তাই চাইলে পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া এই পনিরের পদটি বানিয়ে ফেলুন।

পেঁয়াজ, রসুন ছাড়া পনির তৈরির পদ্ধতি---পাঁচশো গ্রাম পনির চৌকো চৌকো খণ্ড করে কেটে নিন। একটি পাত্রে দুই টেবিল চামচ আদা বাটা, দুই টেবিল চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা বাটা, এক টেবিল চামচ ধনে ও জিরের গুঁড়ো, হাফ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো, এক চা চামচ কস্তুরি মেথির গুঁড়ো, এক চিমটে বিট নুন, এক টেবিল চামচ সাদা তেল ও আন্দাজমতো নুন দিয়ে হাতের সাহায্যে ভালো করে মেখে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার পনিরের খণ্ডগুলো ওর মধ্যে দিয়ে হাতের সাহায্যে মিশ্রণগুলো পনিরের খণ্ডগুলোর গায়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। মিশ্রণ মাখানো পনিরের খণ্ডগুলো এক ঘন্টা আলাদা করে রেখে দিন। এক ঘন্টা বাদে নন স্টিকি ফ্রাইংপ্যান আঁচে বসিয়ে এক টেবিল চামচ সাদা তেল ও দুই টেবিল চামচ দেশি ঘি গরম করে মিশ্রণ মাখানো পনিরের খণ্ডগুলো দিয়ে চিমটে বা স্লাইজারের সাহায্যে উল্টেপাল্টে ভালো করে ভেজে নিন। হয়ে গেলে তুলে তেল ঝরিয়ে আলাদা করে রাখুন।

কড়া আঁচে বসিয়ে দুই টেবিল চামচ দেশি ঘি গরম করে দুটো দারচিনির স্টিক, ছটা ছোট এলাচ, ছটা লবঙ্গ ও এক চা চামচ গোটা সাদা জিরে ফোরন দিন। দুই টেবিল চামচ আদা, জিরে বাটা, দুই টেবিল চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা বাটা, চারটে কাঁচা লঙ্কা কুচি দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এবার আন্দাজমতো জল দিয়ে নেড়ে কিছুক্ষণ কষে নিন। এবার আড়াইশো গ্রাম ফেটানো টক দই, এক কাপ কাজু ও চারমগজ বাটা, হাফ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো, এক চা চামচ চিনি ও আন্দাজমতো নুন দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এবার আন্দাজমতো জল দিয়ে নিভু আঁচে ক্রমাগত নেড়ে মিনিট দশেক রান্না করুন। তেল ছাড়লে ওর মধ্যে ভাজা পনিরের খণ্ডগুলো দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এবার ওর মধ্যে এক চা চামচ কস্তুরি মেথির গুঁড়ো, হাফ চা চামচ গরম মশলার গুঁড়ো ছড়িয়ে দিয়ে মিনিট দুয়েক রান্না করুন। এবার এক টেবিল চামচ ক্রিম, এক টেবিল চামচ মাখন ও এক টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। পরোটা বা রুটি সহযোগে পরিবেশন করুন।

2 years ago


Cooking: বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন বিউলির ডালের বড়ার নারকেলি তেলঝাল

শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়: যাঁরা নিয়মিত নিরামিষ খাবার (Vegeterian Food) খেয়ে থাকেন বা যাঁরা সপ্তাহে দুই-এক দিন নিরামিষ খাবার খান, তাঁরা একটু ভিন্নধর্মী (Different Taste) নিরামিষ পদ বাড়িতে তৈরি করতে চাইলে বিউলির ডালের এই পদটি রান্না করে বাড়ির লোকেদের খাওয়াতে পারেন।                                          

বিউলির ডালের বড়ার নারকেলি তেলঝাল তৈরির পদ্ধতি---চারশো গ্রাম বিউলির ডাল জলে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। এবার এক রাত্রি জলে ভিজিয়ে রাখুন। এক রাত্রি ভেজানো বিউলির ডাল গ্রাইন্ডারে নিয়ে তার মধ্যে দুই ইঞ্চি আদার স্লাইস, বড় এক মুঠো নারকেল কোরা, এক চা চামচ চিনি ও আন্দাজমতো নুন দিয়ে বেটে একটা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। ডাল বাটার মিশ্রণটা একটা পাত্রে তুলে রাখুন।

কড়া আঁচে বসিয়ে তার মধ্যে আন্দাজমতো সর্ষের তেল গরম করে ডাল বাটার মিশ্রণ দিয়ে উল্টেপাল্টে গোল গোল বড়া ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে তুলে তেল ঝরিয়ে আলাদা করে রাখুন। অন্য একটি কড়া আঁচে বসিয়ে তিন টেবিল চামচ সর্ষের তেল গরম করে এক চা চামচ কালো জিরা ও দুটো কাঁচালঙ্কা ভেঙে ফোরন দিন। এক টেবিল চামচ আদাবাটা দিয়ে নেড়ে ভেজে নিন। এবার ওর মধ্যে দেড় টেবিল চামচ ধনে, জিরের গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো, এক চা চামচ হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এবার ওর মধ্যে তিন টেবিল চামচ কালো সর্ষেবাটা, এক কাপ টমেটো, কাঁচালঙ্কা বাটা, এক টেবিল চামচ চিনি ও আন্দাজমতো নুন দিয়ে ভালো করে নেড়ে মেশান। কিছুক্ষণ কষে নিন। এবার বড় তিন মুঠো নারকেল কোরা দিন। দুই কাপ জল দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এক টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিন। এবার ওর মধ্যে ডালের মিশ্রণের ভাজা বড়াগুলো দিয়ে নিভু আঁচে তিন থেকে চার মিনিট রান্না করুন। রান্না হয়ে গেলে আঁচ বন্ধ করে মিনিট দুয়েক রেখে দিন। হয়ে গেলে উপর থেকে দুই মুঠো নারকেল কোরা, দুই টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি ও চারটে কাঁচালঙ্কা কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন  করুন।

2 years ago