Breaking News
Abhishek Banerjee: বিজেপি নেত্রীকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগ, প্রশাসনিক পদক্ষেপের দাবি জাতীয় মহিলা কমিশনের      Convocation: যাদবপুরের পর এবার রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়, সমাবর্তনে স্থগিতাদেশ রাজভবনের      Sandeshkhali: স্ত্রীকে কাঁদতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন 'সন্দেশখালির বাঘ'...      High Court: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিল, সুদ সহ বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে জমি দখল তদন্তে সক্রিয় সিবিআই, বয়ান রেকর্ড অভিযোগকারীদের      CBI: শাহজাহান বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ! তদন্তে সিবিআই      Vote: জীবিত অথচ ভোটার তালিকায় মৃত! ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ধূপগুড়ির ১২ জন ভোটার      ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?     

Ganga

Electric: পানের বরোজে কাজের সময় তড়িদাহত ৫, গঙ্গাসাগরে মৃত এক

কারেন্ট শক খেয়ে মৃত্যু (Death) হয়েছে এক জনের, গুরুতর আহত ৫। দক্ষিণ ২৪ পরগনা (South 24 Parganas) জেলার গঙ্গাসাগর হাজী মোড়ের ঘটনা। পানের বরোজে কাজ করতে গিয়ে জিআই-এর তারে হঠাত্ বিদ্যুত আসায় শক খেয়েই এই দুর্ঘটনা। ঘটনাস্থলে গঙ্গাসাগর কোস্টাল থানার (Gangasagar Coastal Police) পুলিস। আহতদের উদ্ধার করে পুলিস গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ায় চিকিত্সক এক জনকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা গিয়েছে, পানের বরোজে জল দেওয়ার জন্য মোটরের কারেন্টের তার পড়েছিল, সেখান থেকেই এই দুর্ঘটনা।   

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার গঙ্গাসাগরের হাজী মোড়ের কাছে প্রদীপ প্রামানিকের পানের বরোজে কাজ করতে গিয়েছিলেন  ৮ জন। সেখানেই বরোজের জিআই তারের উপর মোটরের তার লাগানো ছিল। সেই তারেই হঠাত্ করে কারেন্ট চলে আসে। এরপরই লোহার রোডে হাত দিলে সেখানেই একে একে কারেন্ট শক খায় পাঁচ জন। শক খাওয়ার ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এক জনের। স্থানীয়রা আরও জানায়, এরপর চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে স্থানীয় বাসিন্দারাই ওই পাঁচজনকে উদ্ধার করে এবং পুলিসে খবর দেয়। পুলিস ইতিমধ্যেই মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কাকদ্বীপ মর্গে পাঠিয়েছে।

one year ago
Deganga: সাতসকালে ক্ষেতে নগ্ন দেহ উদ্ধারে চাঞ্চল্য, শরীরে-গলায় দাগ দেখে সন্দেহ

এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির নগ্ন দেহ(Death Body) উদ্ধার। দেহটি উদ্ধার করল দেগঙ্গা থানার(Deganga Police) পুলিস। ঘটনাটি ঘটেছে দেগঙ্গার উত্তরবরুনী এলাকার(North 24 Parganas) পৃথীবা রোডের পাশে এক নির্জন এলাকায়। মঙ্গলবার সকালে গলায় ফাঁস লাগা অবস্থায় উদ্ধার হয় দেহটি। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য এলাকায়। জানা গিয়েছে, স্থানীয় চাষীরা ৪৫ বছরের এক অজ্ঞাতপরিচয় ব‍্যক্তির মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। ওই মৃত ব্যক্তির শরীরে গলায় কালশিটে দাগ লক্ষ্য করেন স্থানীয়রা। এমনকি ওই ব্যক্তির গায়ে ছিল না কোনও পোশাক, দাবি স্থানীয়দের। 

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকালে চাষের জমিতে সবজি তুলতে এসে নগ্ন অবস্থায় এই দেহটি পড়ে থাকতে দেখে তাঁরা। পরে দেগঙ্গা থানায় খবর দেয় তাঁরা। স্থানীয়দের অনুমান, ওই ব‍্যক্তিকে খুন করে এখানে ফেলে পালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। এমনকি এই এলাকায় একাধিক মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনা আগেও ঘটেছে, অভিযোগ স্থানীয়দের। তাই এই এলাকায় পুলিসি নজরদারি বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা।

পুলিস ইতিমধ্যেই মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছে। এমনকি মৃত ব‍্যক্তির নাম পরিচয় জানার চেষ্টা করছে পুলিস।

one year ago
Gangasagar: সব তীর্থ বারবার..., মকর স্নানের আগে বাবুঘাট-গঙ্গা সাগরের পথে পুন্যার্থীদের ঢল

সব তীর্থ বারবার গঙ্গাসাগর (Gangasagar Mela) একবার। এই আপ্তবাক্যকে স্মরণ করেই গঙ্গাসাগরের উদ্দেশে বাবুঘাট (Babughat Kolkata) থেকে পুন্যার্থীদের ঢল। গত কয়েকদিন ধরেই বাবুঘাটে গঙ্গা সাগর ট্রানজিটের জন্য তৈরি অস্থায়ী ক্যাম্পে (Transit camp) দলে দলে ভিড় জমাতে শুরু করেছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সাধু-সন্ত, পুন্যার্থী এবং পর্যটকরা। মূলত শুক্রবার থেকে তাঁরা একে একে গঙ্গা সাগরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন। চূড়ান্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে তাঁদের জন্য বরাদ্দ থাকা বাসে তুলে দেওয়া হয়। থাকছে নদী পারাপারের জন্য ভেসেলের ব্যবস্থা। সেখানেও রয়েছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা।


মকর সংক্রান্তির পুণ্য তিথিতে সাগর সঙ্গমে স্নানের আগে দলে দলে পুন্যার্থীদের শুক্রবার বাবুঘাটে গঙ্গাস্নান করতে দেখা গিয়েছে। এই স্নান সেরেই গঙ্গা সাগরের উদ্দেশে রওয়ানা দিয়েছেন দেশ-বিদেশের তীর্থযাত্রীরা। কিছু পুন্যার্থী গঙ্গা সাগর না গিয়ে মকর সংক্রান্তির পুণ্য লগ্নে গঙ্গা স্নান সারতেও বাবুঘাটে দলে দলে ভিড় জমিয়েছেন। কেউ আবার সারছেন গঙ্গা পুজো। সংক্রান্তির দিন দুয়েক আগে কলকাতায় গঙ্গা সাগরের ট্রানজিট পয়েন্ট বাবুঘাটে এই মুহূর্তে সাজো সাজো রব।

বাবুঘাটে অস্থায়ী ক্যাম্পে খাবার পরিষেবা দেওয়ার দায়িত্ব নেওয়া এক সংস্থা জানিয়েছে, দিনে দু'বার ফ্রি তে তাঁরা সাধু-সন্ত, পুন্যার্থীদের খাবার পরিবেশন করছে। তাদের শিবিরে চা-জল খাবার ছাড়াও রয়েছে মেডিসিনের ব্যবস্থা।

one year ago


Ganga: বিশ্বের দীর্ঘতম জলপথে ভাসবে প্রমোদতরী 'গঙ্গা বিলাস'! বারানসী থেকে যাত্রার সূচনায় মোদী

বারানসী থেকে বাংলাদেশ (Varanasi-Bangladesh) হয়ে ডিব্রুগড়, দীর্ঘ ৩২০০ কিমি এই জলপথে ভাসবে প্রমোদতরী। আর নিজের লোকসভা কেন্দ্র থেকে এই যাত্রার শুভ সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। ৩২ জন সুইস নাগরিককে নিয়ে শুক্রবার 'গঙ্গা বিলাস' ভাসে বারানসীর গঙ্গায় (Ganga Cruise)। ভার্চুয়াল মাধ্যমে বারানসীর মুকুটে এই নতুন পালক জুড়ে দেন নরেন্দ্র মোদী। এই অনুষ্ঠানের বক্তৃতায় মোদী বলেন, 'গঙ্গা বিলাস ভারতের পর্যটনকে নতুন যুগে পৌঁছে দিল।' জানা গিয়েছে, নদীপথে দীর্ঘ এই যাত্রাপথ বিশ্বের আর কোথাও নেই।

জানা গিয়েছে, এই পথে ভারত এবং বাংলাদেশ মিলিয়ে মোট ২৭টি নদী এবং ৫০টি পর্যটনক্ষেত্রকে মিলিয়ে দেবে। এই প্রমোদতরী ছুঁয়ে যাবে বিশ্বের বৃহত্তম নদী-দ্বীপ মাজুলি, বৌদ্ধতীর্থ সারনাথ, সুন্দরবন ও কাজিরাঙা জাতীয় উদ্যানের মতো দর্শনীয় স্থান।

one year ago
Deganga: বিধায়কের প্রতিশ্রুতি সার! দেগঙ্গার গ্রামে ৮ কিমি বেহাল রাস্তায় নিত্য দুর্ঘটনা

৮ কিলোমিটার রাস্তা (road), বেহাল দশা। প্রায়দিনই ঘটে চলেছে দুর্ঘটনা (accident)। অভিযোগ, পঞ্চায়েত প্রশাসনকে বলেও হয়নি কোনও কাজ। একাধিকবার বিধায়ক প্রতিশ্রুতি দিলেও রাস্তার অবস্থা এখনও বেহাল। ঘটনাস্থল উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গা (Deganga)। কবে মিটবে সমস্যা, কবে মিলবে যাতায়াতের যোগ্য রাস্তা? জানেন না স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, দেগঙ্গা ব্লকের কলসুর থেকে বক্সিরহাটি যাওয়ার রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। পিচ, পাথর উঠে রাস্তার কঙ্কালসার অবস্থা। প্রায়দিনই ঘটে চলেছে দুর্ঘটনা। যাতায়াতের সমস্যায় স্কুলপড়ুয়া থেকে নিত্য পথচলতি মানুষ। স্থানীয়দের অভিযোগ, পঞ্চায়েত প্রশাসনকে বলেও হয়নি রাস্তা মেরামতির কোনও কাজ। স্থানীয় বিধায়ক বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও হয়নি রাস্তা মেরামতি।

তবে এবিষয়ে লেগেছে রাজনৈতিক রং। দেগঙ্গা পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি তুষারকান্তি দাস জানান, পঞ্চায়েত ভোটের আগে রাস্তাটির মেরামতির কাজ শেষ হবে। অন্যদিকে, বেহাল রাস্তা নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্বকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি নেত্রী দীপিকা চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, শাসক দল নিজেদের দুর্নীতি ঢাকতে ব্যস্ত। সাধারণ মানুষের চাহিদা দেখার সুযোগ নেই।

one year ago


Mela: 'গঙ্গাসাগর মেলায় একটা বাতাসা দিয়েও কেন্দ্র সাহায্য করে না', সাগরে এসে সরব মমতা

গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। বুধবার ডুমুরজলা হেলিপ্যাড গ্রাউন্ড থেকে হেলিকপ্টারে গঙ্গাসাগর (Gangasagar Mela) উড়ে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুপুর দেড়টা নাগাদ তিনি হেলিপ্যাড আসেন এবং গঙ্গাসাগরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সাগরে পৌঁছে তিনি মেলা প্রস্তুতি খতিয়ে দেখার পাশাপাশি উপস্থিত জেলা প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেন। পুজো দেন কপিল মুনির আশ্রমে। ৮-১৭ জানুয়ারি চলবে এই মেলা। 


এদিন তিনি গঙ্গাসাগরে দাঁড়িয়ে বলেন: ৬৫ লক্ষ টাকা খরচ করে আধুনিক গেস্ট হাউস তৈরি করা হয়েছে, বিদেশিরা এসে থাকতে পারবে

গঙ্গাসাগর মেলার তীর্থ কর মুকুব করে দিয়েছি, প্রত্যেকের জন্য ৫ লক্ষ টাকা জীবন বীমা করা হয়েছে।

কুম্ভ মেলার সঙ্গে রেলপথ, আকাশপথ কানেক্টেড। কিন্তু গঙ্গাসাগর মেলায় জল পেরিয়ে যেতে-আসতে হয়, কঠিন কাজ

১০ হাজার কোটি টাকা খরচে মুড়িগঙ্গা ব্রিজ করার চেষ্টা হচ্ছে

পাশাপাশি এদিন তিনি গঙ্গাসাগর মেলাকে জাতীয় মেলা ঘোষণার দাবি কেন্দ্রকে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, জাতীয় মেলা ঘোষণার ক্ষেত্রে কোনও সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা নেই। তাঁর অভিযোগ, 'কুম্ভ মেলায কেন্দ্রীয় সাহায্য পায়। কিন্তু গঙ্গাসাগর মেলায় একটা বাতাসা দিয়েও সাহায্য করে না কেন্দ্র।' মুখ্যমন্ত্রীর দাবি,'পরিকাঠামো তৈরি হয়ে গেল। এবারে এখান থেকে হেলিকপ্টার চলবে। বেসরকারি সংস্থাও হেলিকপ্টারও চালাতে পারে।'


জানা গিয়েছে, এবার মেলায় প্রায় এক কোটি পুন্যার্থীর সমাগমের সম্ভাবনা।

one year ago
Deganga: মাঝরাতেই গায়েব লক্ষাধিক টাকার গরু! সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তদন্তে পুলিস

বিগত কয়েক মাস ধরেই গরু পাচার মামলা (Cow smuggling case) নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। এরই মধ্যে দেগঙ্গায় (Deganga) রাতের অন্ধকারে লক্ষাধিক টাকা মূল্যের তিনটি গরু চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য। চুরির দৃশ্য বন্দী সিসিটিভি (CCTV) ফুটেজে। ঘটনার পরই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। তদন্তে নেমেছে পুলিস (police)।

স্থানীয় সূত্রে খবর, দেগঙ্গার কুমরুলী এলাকায় শুক্রবার গভীর রাতে এক ব‍্যক্তির গোয়াল ঘড়ে রাখা তিনটি গরু চুরি করে দুষ্কৃতীরা। চুরির দৃশ্য বন্দী হয় সিসি টিভিতে। তাতে দেখা যায়, তিনটি গরুকে নিয়ে এক দুষ্কৃতী হেঁটে যাচ্ছে। সঙ্গে রয়েছে একটি বাছুর। কিন্তু বাছুরটিকে ফেলে তিনটি গরু নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। ওই বাড়ির কর্তা মোরশেদ আলী জানান, শুক্রবার রাতে সাড়ে এগারোটা নাগাদ গরুদের খেতে দিয়ে তিনি শুয়ে পড়েন। শনিবার সকালে উঠে দেখেন তিনটি গরু উধাও। ফেলে গিয়েছে সদ‍্য জন্মগ্ৰহন করা দুটি বাছুর।

খবর চাউর হতেই চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। ঘটনার পরই দেগঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মোরশেদ আলী। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

one year ago
Deganga: পাঁচদিন নিখোঁজ থাকার পর বাড়ির বারান্দা থেকে উদ্ধার বৃদ্ধের মৃতদেহ, চাঞ্চল্য

সাত সকালে ফের এক বৃদ্ধের মৃতদেহ (Deadbody) উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘ ৫দিন নিখোঁজ থাকার পর শুক্রবার উদ্ধার হয় তাঁর মৃতদেহ। ঘটনাস্থল দেগঙ্গা (Deganga) থানার বেড়াচাঁপা এলাকা। খবর পেয়েই পুলিস (police) পৌঁছে মৃতদেহ নিয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, মৃত বৃদ্ধ বছর ৭০ এর জয়দেব সওদাগার। তিনি গত ৫দিন ধরেই নিখোঁজ (missing) ছিলেন। শুক্রবার সকালে পচা দূর্গন্ধ বার হতেই এলাকার মানুষের সন্দেহ হয়। গেট দিয়ে উঁকি মেরে দেখেন বারান্দায় পড়ে রয়েছে বৃদ্ধার মৃতদেহ। পুলিসকে খবর দিলে পুলিস তালা ভেঙে পচগলা দেহটি উদ্ধার করে। স্থানীয়রা আরও জানান, বেড়াচাঁপা এলাকায় বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াতেন তিনি। সেই সময় স্থানীয় এক ব‍্যক্তি তাঁর ফাঁকা বাড়িতে ওই বৃদ্ধকে থাকতেন দেন। তবে মৃত বৃদ্ধের বাড়ি হাড়োয়া থানার আটপুকুর এলাকায়। গত ৬ বছর আগে বেড়াচাঁপা এলাকায় আসেন তিনি। পুলিস ইতিমধ্যেই মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

one year ago


Suicide: সাইলেন্ট মোবাইল, কানে হেডফোন! দেগঙ্গায় উদ্ধার মেধাবী ছাত্রীর ঝুলন্ত দেহ

মর্মান্তিক ঘটনা, দেগঙ্গায় মেধাবী ছাত্রীর (student) রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য। ঘটনাস্থলে দেগঙ্গা থানার পুলিস (police) গিয়ে মৃতদেহটি (deadbody) উদ্ধার করে বিশ্বনাথ গ্ৰামীণ হাসপাতালে (hospital) নিয়ে আসে। তবে সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত (death) ঘোষণা করেন। মেধাবী ছাত্রীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া পরিবারে। কেন এমন সিদ্ধান্ত বলতে পারছেন না পরিবারের কেউই।

মৃত ছাত্রীর বাড়ি দেগঙ্গার খেজুরডাঙা গ্ৰামে। বছর ১৭-র ওই ছাত্রী রায়পুর-নিরামিষা হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়া। গত পরশু পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ বেরিয়েছে। পরিবারের সদস্যদের দাবি, পরীক্ষায় সে ভালো রেজাল্ট করে একাদশ শ্রেণি উত্তীর্ণ হয়েছে। মৃতা ছাত্রীর মা জানান, মঙ্গলবার রাতে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে স্বাভাবিকভাবে খাওয়া দাওয়া করে সে। এরপর মাকে জানায় সে পড়তে বসবে।

রাতভর সে তার নিজের ঘরেই ছিল। কিন্তু বুধবার ভোরে ডাকাডাকি করেও দরজা না খোলায় পরিবারের সদস্যদের সন্দেহ হয়। দরজা ভেঙে চোখে পড়ে ওড়ানা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে নিজের ঘরের মধ্যেই ঝুলছে সে। কানে হেডফোন এবং তার মোবাইল ফোন সাইলেন্ট। যা ঘিরে ক্রমশ বাড়ছে রহস্য।

পরিবারের সঙ্গে কোনও অশান্তি-ঝামেলা হয়নি। তবুও কী কারণে তার এই পদক্ষেপ বুঝতে পারছেন না পরিবারের সদস্যরা। তদন্তে দেগঙ্গা থানার পুলিস। অন্যদিকে, স্কুলের মধ্যেই আত্মহত্যা চেষ্টা করে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর। ঘটনাটি বারাসাত কালীকৃষ্ণ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে। বুধবার সে তার ভূগোল পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর দোতলার বারান্দার থেকে ঝাপ দেয়। স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মানসিক অবসাদে ভুগছিল এই ছাত্রী। পারিবারিক অশান্তির কারণে ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। ঘটনার পরই স্কুল কর্তৃপক্ষ পুলিসকে খবর দিলে পুলিস এসে ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সঠিক কী কারণে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে সে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিস।

স্কুল সূত্রে খবর, এই মেধাবী ছাত্রী বরাবরই ক্লাসে প্রথম হয়। তবে বেশ কিছুদিন ধরে তার চালচরণে অসংগতি বুঝতে পেরেছিলেন শিক্ষিকারা। এছাড়াও, সে জীবন বিজ্ঞান পরীক্ষার খাতায় উল্লেখ করেছিল শেষ পরীক্ষায় আত্মহত্যার আভাস। এরপরেই স্কুল কর্তৃপক্ষ থেকে তার পরিবারের সদস্যদের ডেকে পাঠানো হয়। বুধবার তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কথা বলার কথা ছিল। তবে তার আগেই এই ঘটনা। হাসপাতাল সূত্রে খবর, প্রাথমিক চিকিৎসার পর স্থিতিশীল রয়েছে ওই ছাত্রী।

one year ago
Nimtala: দাহ করতে গিয়ে দুর্ঘটনা, নিমতলায় গঙ্গার বানে তলিয়ে মৃত এক, নিখোঁজ দুই

শব দাহ করতে গিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা নিমতলা শ্মশানঘাটে (Nimtala Burning Ghat)। গঙ্গার বানে (Flash Flood in Ganga) তলিয়ে গিয়েছিলেন ৩ জন। একজনের দেহ উদ্ধার মঙ্গলবার সকালে। বাকি দু'জনের খোঁজে তল্লাশি চলছে। বেলেঘাটা থেকে নিমতলায় দেহ দাহ করতে যায় একটি দল। রাত ১১টা ১৫ নাগাদ বান আসার পর সবাই উঠে এলেও ৮ জন উঠছিলেন না। জানা গিয়েছে, বানের পূর্বাভাস নিয়ে ঘাটের কর্তব্যরত পুলিস তাঁদের বাধা দিলেও, সেই বাধা তোয়াক্কা না করে ৮ জন পাড়ে বসে ছিলেন। স্রোতে ৮ জন তলিয়ে গেলেও, ৫ জন লোহার রড ধরে বেঁচে যান। তিন জন তলিয়ে যান। তাঁদের খোঁজ শুরু করে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই ডুবুরি নামিয়ে চলে তল্লাশি। তবে সকাল ১১টা নাগাদ একজনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ তিন জনের মধ্যে কার দেহ উদ্ধার? সেই শনাক্তকরণের কাজ চলছে। জানা গিয়েছে, মৃত এবং নিখোঁজ যুবকদের প্রত্যেকের বয়স ২৮-৩২ বছর। স্থানীয়দের দাবি, পুলিস এসে আগেই জানিয়ে গিয়েছিল ১০টার পর বান আসবে কেউ পাড়ে বসবেন না। প্রশাসনের তরফে বান আসার খবর ঘোষণা করতেও তোয়াক্কা করেনি ওই আট জন। জল বাড়তে থাকায় কেউ দুর্ঘটনার সময় গঙ্গায় নামতে সাহস পায়নি। এমনটাই সংবাদ মাধ্যমকে জানান এক প্রত্যক্ষদর্শী।

2 years ago


Dengue: ষষ্ঠীর দিনে দুঃসংবাদ! দেগঙ্গায় ডেঙ্গি আক্রান্ত গৃহবধূর মৃত্যু

ফের উদ্বেগ বাড়িছে ডেঙ্গি (Dengue) সংক্রমণ, পাশাপাশি মৃত্যু (death) সংখ্যাও বাড়ছে। উত্তর ২৪ পরগণার দেগঙ্গায় (Deganga) ফের ডেঙ্গি আক্রান্ত গৃহবধূর মৃত্যু। ষষ্ঠীতেই বিষাদের সুর এলাকায়। বন্ধ বাড়ির উঠানে বারোয়ারি দুর্গাপুজো। কান্নায় ভেঙে পড়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

জানা যায়, মৃতা সুলেখা কর্মকার দেগঙ্গার বাসিন্দা। বয়স আনুমানিক ৪৬ বছর।পরিবার সূত্রে খব‍র, গত মঙ্গলবার জ্বর আসে ওই গৃহবধূর। এরপরই পরিবারের সদস্যরা তাঁকে নিয়ে যান বিশ্বনাথ পুর গ্ৰামীণ হাসপাতালে। তবে সেখানে তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে স্থানান্তর করা হয় বারাসাত জেলা হাসপাতালে। কিন্তু শুক্রবার তাঁর অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হয়ে ওঠে। তড়িঘড়ি গৃহবধূকে স্থানান্তর করা হয় আরজিকর মেডিক্যাল কলেজে। কিন্তু সেখানেই নিয়ে যাওয়ার পথেই মারা যান সুলেখা। সুলেখার মৃত‍্যুতে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়। নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

প্রসঙ্গত, বিশেষজ্ঞরা আগেই সতর্ক করেছিলেন এই ডেঙ্গির প্রভাব আরও বাড়বে পুজোর পর। ঠাণ্ডা না পড়া পর্যন্ত ডেঙ্গি থেকে বাঁচতে মেনে চলতে হবে পুরসভার সমস্ত গাইড লাইন। পুরকর্তা এবং কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম আগেই জানিয়ে ছিলেন, ডেঙ্গি  প্রতিরোধে একমাত্র পথ হল সচেতনতা। মানুষ সচেতন না হলে, ডেঙ্গি কমবে না।

2 years ago
Ganga: সামশেরগঞ্জে গঙ্গা গিলছে গ্রাম, লোটা-কম্বল নিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে বাসিন্দারা

ফের ভয়াবহ গঙ্গা (ganga) ভাঙন। উত্তরবঙ্গ এবং পশ্চিমবঙ্গ সংলগ্ন ঝাড়খণ্ড ও বিহারে অত্যাধিক বৃষ্টিপাতের (rain) ফলে গঙ্গায় জল বাড়তে থাকে। আর এরফলেই নদী ভাঙনের মুখে পড়ল মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) সামশেরগঞ্জ থানার বিস্তীর্ণ এলাকা। মঙ্গলবার সামশেরগঞ্জের প্রতাপগঞ্জ এলাকায় ভয়াবহ গঙ্গা ভাঙন শুরু হয়। ভাঙনে গঙ্গা গর্ভে তলিয়ে গিয়েছে বেশ কিছু বাড়িঘর। তলিয়ে গিয়েছে বেশ কয়েক বিঘা জমিও। আশঙ্কায় বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র পালাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। নতুন করে গঙ্গা ভাঙন নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, আপাতত যার যা সামগ্রী আছে তা নিয়ে কোনওরকমে পালানোর চেষ্টা করছেন স্থানীয়রা। অবিলম্বে গঙ্গা ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী সমাধানের দাবিতে সরব হয়েছেন সাধারণ মানুষ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, "গত কয়েকদিন ধরেই আমাদের এলাকায় গঙ্গা নদীতে জলস্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। তার মধ্যে আজ ভোর রাত থেকে আমরা দেখতে পেলাম কাঁকুড়িয়া থেকে ধুলিয়ান যাওয়ার রাস্তারও বিভিন্ন অংশে ভাঙন শুরু হয়েছে। এর মধ্যে মরুর ইট ভাটার কাছে প্রতাপগঞ্জে ইতিমধ্যেই চারটি বাড়ি জলে ডুবে গিয়েছে। আরও ১০-১২ টি বাড়ি যে কোনও সময় জলে তলিয়ে যেতে পারে।"  এই ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত বহ পরিবার আপাতত প্রতাপগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছেন।

অন্যদিকে একই অবস্থা জলপাইগুড়িতেও। জলপাইগুড়ির কালীঝোড়ায় ধস এবং পাহাড়ে প্রবল বৃষ্টির ফলে তিস্তা ব্যারেজের জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। আজ রাত ১২ টার পর থেকে জল ছাড়বে বলেই জানা গিয়েছে। এর ফলে তিস্তা নদীর জল বাড়বে এবং সংলগ্ন জনবসতি জল ঢুকে এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।

2 years ago
Deganga: ফের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর বাড়িতে ঘুমের ওষুধ ষ্প্রে করে দুঃসাহসিক চুরি

ফের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর (Anganwadi workers) বাড়িতে দুঃসাহসিক চুরি (theft)। ঘরের মধ্যে ঘুমের ওষুধ ষ্প্রে করে লক্ষাধিক টাকার দুঃসাহসিক চুরির অভিযোগ উঠল। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল দেগঙ্গার (Deganga) চাকলা পুকুর আটি এলাকায়।

অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী  ফরিদা বেগম ও তাঁর ছেলের দাবি, সোমবার  রাত ১২টা নাগাদ তাঁরা ঘুমিয়ে পড়েন। মঙ্গলবার সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখেন মূল গেটের তালা ভাঙা, দুটি ঘরের জিনিসপত্র লন্ডভন্ড। ভাঙা আলমারি ও শোকেসের তালা, উধাও সোনার অলঙ্কার (Gold ornaments) সহ নগদ টাকা। ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৪ লাখ টাকা।

তাঁদের অভিযোগ, ঘুমের ওষুধ ষ্প্রে করে তাঁদের বাড়ি থেকে চুরি করেছে দুষ্কৃতীরা। ইতিমধ্যে দেগঙ্গা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা। অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

2 years ago