Breaking News
Abhishek Banerjee: বিজেপি নেত্রীকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগ, প্রশাসনিক পদক্ষেপের দাবি জাতীয় মহিলা কমিশনের      Convocation: যাদবপুরের পর এবার রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়, সমাবর্তনে স্থগিতাদেশ রাজভবনের      Sandeshkhali: স্ত্রীকে কাঁদতে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়লেন 'সন্দেশখালির বাঘ'...      High Court: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিল, সুদ সহ বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের      Sandeshkhali: সন্দেশখালিতে জমি দখল তদন্তে সক্রিয় সিবিআই, বয়ান রেকর্ড অভিযোগকারীদের      CBI: শাহজাহান বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ! তদন্তে সিবিআই      Vote: জীবিত অথচ ভোটার তালিকায় মৃত! ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত ধূপগুড়ির ১২ জন ভোটার      ED: মিলে গেল কালীঘাটের কাকুর কণ্ঠস্বর, শ্রীঘই হাইকোর্টে রিপোর্ট পেশ ইডির      Ram Navami: রামনবমীর আনন্দে মেতেছে অযোধ্যা, রামলালার কপালে প্রথম সূর্যতিলক      Train: দমদমে ২১ দিনের ট্রাফিক ব্লক, বাতিল একগুচ্ছ ট্রেন, প্রভাবিত কোন কোন রুট?     

Exam

Joint Entrance: লোকসভা ভোটপর্বের মধ্যেই রাজ্যে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা, দিনক্ষণ জানাল বোর্ড

লোকসভা ভোট চলাকালীন ২৮শে এপ্রিল শুরু হতে চলেছে রাজ্য জয়েন্ট পরীক্ষা। আরও একটি উল্লেখযোগ্য তথ্য সামনে এসেছে। গত বছরের তুলনায় প্রায় ১৮ হাজার পরীক্ষার্থী বেড়ে ২০২৪-২৫ শিক্ষাবর্ষে রাজ্য জয়েন্ট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১লক্ষ ৪২হাজার ৬৯২জন। অন্যদিকে, ১৯শে এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে দিল্লির কুর্সি দখলের লড়াই। দেশের সবথেকে বড় নির্বাচন প্রক্রিয়ার মধ্যে কী করে সুষ্ঠুভাবে জয়েন্ট পরীক্ষা সম্পন্ন হবে তা নিয়ে উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন পরীক্ষার্থীরা। এবিষয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছেন এএসএফএইচএম-এর রাজ্য সাধারণ সম্পাদক চন্দন মাইতি।

হিংসা এবং সন্ত্রাসমুক্ত ভোট করাতে ১লা মার্চ রাজ্যে এসেছে ১৫০ কোম্পানি আধা সামরিক বাহিনী। তাদের রাখা হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় গুলিতে। ফলে শিকেয় উঠেছে ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনা। এছাড়া নির্বাচন কমিশনের পূর্ব নির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী, ভোটপর্বে মোট ৯২০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আসার কথা। ৪৭দিন ধরে নির্বাচন প্রক্রিয়া চলাকালীন এই বিপুল সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখতে আরও বেশি শিক্ষাভবনের প্রয়োজন রয়েছে। পাশাপাশি, রাজ্য জয়েন্ট-এর পরীক্ষার জন্যেও শিক্ষাকেন্দ্রগুলিকে পরীক্ষাকেন্দ্রে রূপান্তরিত করতে হবে। এরকম পরিস্থিতিতে দু'দিক কীভাবে সামলাবে রাজ্য প্রশাসন, তা নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকারাও প্রশ্ন তুলেছেন।

এবিষয় রাজ্য জয়েন্ট বোর্ডের কর্তারা জানিয়েছেন, সোমবার বিকাশ ভবন এবং নবান্নের প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

3 months ago
Behala: অনলাইন গেমে আসক্তি! উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার দেওয়ার পর ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হয়েছে ২৯ ফেব্রুয়ারি। পরীক্ষা হয়ে যাওয়ার পর বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়েছিল গত সোমবার। বাড়ি না ফেরায় শুরু হয় খোঁজাখুঁজি। অবশেষে রেল কলোনির বন্ধ কোয়াটার থেকে উদ্ধার হয় ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ। ঘটনাটি ঘটেছে বেহালায়।  ইতিমধ্যে দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখছে বেহালা থানার পুলিস।

পুলিস সূত্রে খবর, মৃত ছাত্রের নাম অংশুমান সিং(১৭)। এমপি বিলাস স্কুলের এবছরের উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র। বাড়ি বেহালা পাঠকপাড়ায়। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরে গত সোমবার বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়েছিল অংশুমান। মঙ্গলবারও অংশুমান বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন অংশুমানের ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে। কিন্তু কোনওরকম ভাবে ফোনে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এমনকি যে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে গিয়েছিল সেই বন্ধুরাও কেউ ফোনে পাচ্ছিল না অংশুমানকে।

এরপরই পরিবারের লোকজন এলাকার বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। বেহালা গোলশাপুর রেল কলোনির বদ্ধ বিল্ডিং গুলিতে খোঁজ করতে গিয়ে ৩৫ নম্বর বিল্ডিং-এর চার তলায় অংশুমানকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান এলাকার মানুষজন। তড়িঘড়ি অংশুমানকে নামিয়ে নিয়ে যাওয়া বিদ্যাসাগর হাসপাতালে। সেখানে ডাক্তাররা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

কীভাবে কী কারণে এই মৃত্যু পরিবারের লোকজন তা বুঝে উঠতে পারছেন না।  তবে পরিবারের লোকজনের বক্তব্য, অংশুমান অনলাইন গেম খেলায় আসক্ত ছিল। বেশ কয়েক মাস ধরে তার কয়েক লক্ষ টাকা দেনা হয়ে গিয়েছিল বন্ধু দের কাছে। পরিবারকে কিছুই জানায়নি। সোমবার অংশুমান-এর বন্ধু মারফত তাঁরা তা জানতে পারেন।

3 months ago
HS Exam: অশান্তি কমাতে পুলিসি ধরপাকড় সন্দেশখালিতে, পরীক্ষার্থীদের আটক! আতঙ্কে পরীক্ষা খারাপ, দায় কার?

দীর্ঘ অত্যাচার আর বঞ্চনার প্রতিবাদের আগুন ছড়িয়েছে সন্দেশখালি ছাড়িয়ে ঝুপখালি, বেড়মজুর এলাকাতেও। কিন্তু এলাকায় আয়ত্তে আনতে পুলিসি আচরণও প্রশ্নের মুখে ফেলছে। বাড়ি থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ। জীবনের বড় একটা পরীক্ষা, উচ্চ মাধ্যমিক। শুক্রবার বেড়মজুরের কাঠপোল এলাকায়  প্রবল অশান্তি ছড়ায়, এলাকা শান্ত করতে ১৪৪ ধারা জারি করে পুলিস। কিন্তু দীর্ঘ বছরের অন্যায় আর জমে থাকা ক্ষোভ শান্ত হতে চায়নি সহজে। অগত্যা শুরু হয় পুলিসি ধরপাকড়। গ্রামের বেশ কয়েকজনকে তুলে নিয়ে যায় পুলিস। তার মধ্যে ছিল উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরাও। অভিযোগ, বহু অনুরোধেও ছাড়েনি পুলিস। 

শনিবার ছিল সংস্কৃত পরীক্ষা। আগের রাতে পড়াশোনা করার ছিল। কিন্তু তার বদলে হয়েছে পুলিসি জেরা, পড়াশোনা হয়নি কিছুই। আশানুরূপ হয়নি পরীক্ষা। পরীক্ষার্থীদেরও আটক? শুক্রবার দিনভর এই খবর দেখিয়েছে সিএন। সিএন খবরের জেরেই পরীক্ষার্থীকে ছাড়ে পুলিস, বলছেন স্থানীয়রাই।   

পুলিসের হাত থেকে বাঁচতে সারারাত পালিয়ে রাত কাটাতে হয় আর এক পরীক্ষার্থীকে।  একদিন ঝড় থেমে যাবে, শান্ত হবে সন্দেশখালি। কিন্তু জীবনের এই ধাপে যে অভিজ্ঞতা ও ক্ষতির সম্মুখীন হলেন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা তা কী পূরণ হবে? 

4 months ago


Nadia: আত্মহত্যা নাকি আক্রমণ? উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন শৌচালয় থেকে উদ্ধার রক্তাক্ত ছাত্রী

সকল ছাত্রছাত্রীর মুখে একটাই কথা, ভীষণ কঠিন হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের পদার্থবিদ্যার প্রশ্ন। বৃহস্পতিবার ক্লাসরুমে পরীক্ষা চলছে। অন্যদিকে গলায় ওড়নার ফাঁস, হাত কাটা অবস্থায় বাথরুম থেকে উদ্ধার ছাত্রী। আত্মহত্যার চেষ্টা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর? স্বভাবিকভাবেই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে নদিয়ার সেনপাড়া স্কুলে।

জানা গিয়েছে, নদিয়া সেনপাড়া স্কুলে উচ্চমাধ্যমিকের সিট পড়েছিল নদিয়ার জগন্নাথ স্কুলের ওই ছাত্রীর। বিগত কয়েকদিনে পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে মিটলেও বাধ সাধে বৃহস্পতিবার। জানা যায়, ওইদিন, পদার্থবিদ্যার পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পেয়ে প্রায় এক ঘণ্টা বাদে শৌচালয়ে যেতে চায় ওই ছাত্রী। শৌচালয়ে গেলেও, প্রায় ১৫ মিনিট পরও খোঁজখবর না আসায় খুঁজতে বেরোয় পরীক্ষকেরা। শৌচালয়ের দরজা খুলে উদ্ধার হয় গলায় ওড়নার ফাঁস, হাত কাটা অবস্থায় ওই ছাত্রীকে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় করিমপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। খবর দেওয়া হয় অভিভাবকদের কাছে। আপাতত স্থিতিশীল ছাত্রী।

যদিও, আত্মহত্যার কথা অস্বীকার পরিবারের। পরীক্ষার হলে আক্রোশ থেকেই ওই ছাত্রীকে মারধরের অভিযোগ পরিবারের। তবে ঠিক কী কারণে হল এই ঘটনা। আত্মহত্যা নাকি আক্রমণ? সেই সব নিয়েই তদন্তে নেমেছে করিমপুর থানার পুলিস।

4 months ago
Higher Secondary: শিশু জন্মের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই হাসপাতালে শুয়ে উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষা দিলেন মা

হাসপাতালের বেডে শুয়ে উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষা দিলেন এক পরীক্ষার্থী। প্রসবের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ইংরেজি পরীক্ষা দিল নাজমা মণ্ডল। তিনি বনগাঁর ঘাটবাওর রামচন্দ্রপুর হাইস্কুলের ছাত্রী। তাঁর পরীক্ষা কেন্দ্র পড়েছিল বনগাঁ শক্তিগড় হাই স্কুলে। গত শুক্রবার উচ্চমাধ্য়মিকের প্রথম পরীক্ষা স্কুলে গিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তাঁর প্রসব যন্ত্রণা শুরু হওয়ায় তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাঁকে। এরপর হাসপাতালে শুয়েই তাঁকে ইংরেজি পরীক্ষা দিতে হয়েছে। 

জানা গিয়েছে, বছর খানেক আগে নাজমার বিয়ে হয়েছিল ঘাটবাওর এলাকায়। তারপর সন্তানসম্ভবা হন তিনি। উচ্চ মাধ্য়মিকের প্রথম পরীক্ষা দেওয়ার পর হঠাৎ পেটে ব্যথা নিয়ে শনিবার বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে প্রস্তুতি বিভাগে ভর্তি হন নাজমা।

এরপর রবিবার সিজারের মাধ্যমে তাঁর একটি ছেলে সন্তান হয়। সোমবার নাজমা পরীক্ষা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করতেই হাসপাতালে তাঁকে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করে স্কুল ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

4 months ago


HS Exam: উচ্চমাধ্যমিকের দ্বিতীয় পরীক্ষার আগে শব্দবাজির তাণ্ডব! প্রতিবাদ করায় বেধড়ক মারধরের অভিযোগ

রাজ্যে শুরু হয়েছে ২০২৪-এর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। আর উচ্চমাধ্যমিকের দ্বিতীয় পরীক্ষার ঠিক আগের রাতে শব্দদূষণে কেঁপে উঠলো নিউটাউন সিটি সেন্টার টু এলাকা। প্রতিবাদ করায় চলল ব্যাপক মারধর।

জানা গিয়েছে, নিউটাউনের বিশ্ববাংলা সরণির পাশেই একটি বিয়ে বাড়ি উপলক্ষে গভীর রাত পর্যন্ত চলছিল শব্দবাজির তাণ্ডব। এছাড়াও এই বাজির আগুনের ফুলকি ছড়িয়ে পড়ছিল পাশের একটি অভিজাত আবাসনে। আবাসনের আবাসিকরা এই ঘটনার প্রতিবাদ করলে, বিয়ে বাড়ির লোকজন আবাসনের গেট দিয়ে ভিতরে ঢুকে নিরাপত্তারক্ষী ও আবাসিকদের মারধর করেন বলে অভিযোগ।

এই ঘটনায় গভীর রাতেই ইকোপার্ক থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্ত  আবাসিকরা। অভিযোগের ভিত্তিতে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে তদন্তে নেমেছে ইকো পার্ক থানার পুলিস।

4 months ago
Exam: টাকা দিলেই মিলবে প্রশ্নপত্র! সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রলোভন পেয়ে থানার দ্বারস্থ পরীক্ষার্থীরা

পরীক্ষার আগেই এবার উচ্চ মাধ্যমিকের প্রশ্ন পড়ুয়াদের দেওয়া হবে। এমনই প্রলোভন দেখিয়ে টাকা চাওয়ার অভিযোগ তুলেছে রায়গঞ্জের একাধিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। শনিবার রাতে এই বিষয়ে পুলিসের দ্বারস্থ হয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। 

উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষার্থীরা জানিয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ার একটি অ্যাপ টেলিগ্রামে 'মাস্টারমাইন্ড' নামে একটি গ্রুপ খোলা হয়েছে। আর সেই গ্রুপ থেকে সকল পরীক্ষার্থীর সাথে যোগাযোগ করে পরীক্ষার আগেই সংশ্লিষ্ট বিষয়ের প্রশ্নপত্র সরবরাহ করার প্রলোভন দিচ্ছে। আর তার বিনিময়ে বিনিময়ে দাবী করা হয়েছে ৮-১০ হাজার টাকা। 

কদিন ধরে এই বিষয়টি প্রত্যক্ষ করে শনিবার একদল ছাত্রছাত্রী সেই অ্যাপে অভিযুক্তের ফাঁদে পা দেওয়ার নাটক করে তাঁর কাছ থেকে কিছু তথ্য গ্রহণ করে৷ সেই সব তথ্য অনুযায়ী বাংলা, ইংরেজি সহ প্রতিটি বিষয়েই প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে অভিযোগ তাঁদের। এর ফলে ছাত্র ছাত্রীদের উপর পড়ছে খারাপ প্রভাব। তাই অবিলম্বে এক্ষেত্রে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। সাইবার ক্রাইমেও অভিযোগ জানাতে চলেছেন অভিযোগকারীরা। 


4 months ago
HS Exam: শুভেচ্ছাবার্তা দিতে গিয়ে আক্রান্ত! দোষীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ, ঘটনাস্থলে পুলিস ও র‍্যাফ

রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে শুধুই অরাজকতার ছবি। একদিকে যখন অশান্তির আগুনে জ্বলছে সন্দেশখালি, তখন নোদাখালিতে দুষ্কতীদের আক্রমণে গুরুতর জখম স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা। সূত্রের খবর, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের শুভেচ্ছাবার্তা দিতে যাওয়ার পথেই এলাকার সাউথ বাওয়ালীর শক্তি সংঘ ক্লাবের সদস্যদের উপর চড়াও হয় কয়েকজন যুবক।শুরু হয় বেধড়ক মারধর। গুরুতর জখম হন ৪ জন। ঘটনার জেরে ক্ষোভে ফুঁসছে নোদাখালি। সন্দেশখালির অশান্তির ছবি কি এবার দেখবে নোদাখালিও? আজ ক্লাব সদস্যের উপর চড়াও হয়েছে। কাল কি তাহলে এলাকার মেয়েদের উপরও হামলা হবে? প্রশাসনের কাছে জবাব চায় গ্রামের মহিলারা। দোষীদের শাস্তির দাবিতে মূলত বিক্ষোভ দেখায় এলাকাবাসী।ইতিমধ্যে অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে নোদাখালি থানায় দায়ে হয় অভিযোগ।

আহত এক সদস্যের দাবি পুরনো আক্রোশের জেরেই এই দুষ্কৃতী আক্রমণ।তবে অভিযুক্তের খোঁজে পুলিসের তৎপরতা ছিল রীতিমতো চোখে পড়ার মতো।জানালেন আহত সদস্যের বাবা।

দুষ্কৃতী হামলার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে হাজির  নোদাখালি থানার একাধিক পুলিস আধিকারিকসহ বিশাল বাহিনী ও র‍্যাফ। কিন্তু বার বার কেন সাধারণ মানুষের উপরই ধেয়ে আসছে দুষ্কৃতীদের আক্রমণ।কেন পুলিসের এই সক্রিয়তা হামলার আগে চোখে পড়েনা। সন্দেশখালির ঘটনার পরও কি তবে হুঁশ ফেরেনি সরকারের? প্রশ্ন একাধিক কিন্তু উত্তর অধরা।

4 months ago


Nadia: আর্থিক অভাব! বাধা অমান্য করে মেয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়ায় আত্মঘাতী বাবা

আর্থিক দারিদ্রতার কারণে মেয়ের মাধ্যমিক পরীক্ষায় বাধা হয়ে দাঁড়ালেন বাবা। মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে দেবে না বলে মেয়ের মাধ্যমিক পরীক্ষার অ্য়াডমিড ও রেজিস্ট্রেশন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেন বাবা। বাবার কথা অমান্য় করে অ্যাডমিট ও রেজিস্ট্রেশনের জেরক্স কপি নিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে গেলে আত্মঘাতী হন বাবা। ঘটনাটি রানাঘাট থানার হবিবপুর গ্রামের।

জানা গিয়েছে, ওই মাধ্য়মিক পরীক্ষার্থীর নাম মনিকা মণ্ডল (১৬)। বাবা রামপ্রসাদ মণ্ডল, পেশায় লরি চালক। হবিবপুর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী মনিকার চিরকাল উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন ছিল। কিন্তু জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা দিতে গিয়ে তার জীবনে নেমে এল অন্ধকার। ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর ইচ্ছা ছিল পড়াশোনা করার। কিন্তু পড়াশোনার অদ্য়ম ইচ্ছাটা হেরে গেল আর্থিক দারিদ্রতার কাছে। 

সূত্রের খবর, আর্থিক দারিদ্রতার কারণেই বাবা তার মেয়েকে বাধা দিয়েছিল মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে। বাবার সেই বাধা অমান্য করে সে পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল। মেয়ের জোরপূর্বক পরীক্ষায় বসাটা মেনে নিতে পারল না তার বাবা। মাধ্যমিকের ইংরাজি পরীক্ষার দিন বাড়িতে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন বাবা। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, মনিকার মা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। অভাবে সংসারে দু'মুঠো ভাত জোগানোটাই মুশকিল। সেখানে পড়াশোনার ব্য়াপারটা একেবারে ধরা ছোঁয়ার বাইরে বলতে গেলে। বর্তমানে তাঁদের সম্বল বলতে রয়েছে ছোট্ট একটি বাড়ি। পরিবারে রোজগেরে বলে আর কেউ নেই। মনিকার মা অসুস্থ শরীর নিয়ে কী কাজই করবে, আর কীভাবেই ছোট ছোট সন্তানদের মুখে খাবার তুলে দেবে সেই ভেবেই দুচোখ জলে ভরে যাচ্ছে।

মনিকার মায়েরও ইচ্ছা সন্তানরা শিক্ষার আলোয় শিক্ষিত হোক। কিন্তু এখনও দারিদ্রতার গভীর অন্ধকারে দাঁড়িয়ে রয়েছে গোটা পরিবার। তাই সন্তানদের লেখাপড়া করার জন্য দুমুঠো অন্নের জন্য সরকারি সহযোগিতার দাবি করছে পরিবার। সরকারি সহযোগিতা পেলেই সন্তানদের শিক্ষিত করতে পারবে, সন্তানদের দু'মুঠো অন্ন জোগাতে পারবে। এখন দেখার সরকারিভাবে প্রশাসন কতটা সহযোগিতা করে।

4 months ago
HS: মাধ্যমিকের কায়দায় উচ্চ মাধ্যমিকেও প্রশ্ন পাচারের গ্রুপ তৈরি, কড়া পদক্ষেপ সংসদের

মাধ্যমিকের কায়দায় প্রশ্ন লিক হতে পারে উচ্চমাধ্যমিকেও। প্রশ্নপত্র লিক করতে হোয়াটসঅ্য়াপ গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংসদ। আর সেই লিক রুখতে বিশেষ ব্যবস্থা নিচ্ছে উচ্চমাধ্য়মিক শিক্ষা সংসদ। প্রশ্ন পাচার রুখতে হলে ব্যবহার করা হবে 'হ্যান্ড হেল্ড মেটাল ডিটেক্টর' ও 'আরএফ' যন্ত্র। এছাড়াও প্রশ্নপত্রে থাকছে বিশেষ কোড। প্রশ্ন ফাঁস হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন সংসদ সভাপতি।

চলতি বছরের মাধ্য়মিক পরীক্ষার জন্য় প্রশ্নপত্রের প্রতিটি পৃষ্ঠায় ছিল 'ইউনিক কোড' বা 'বিশেষ কোড'। কিন্তু এতকিছুর পরেও মাধ্য়মিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ভাইরাল হওয়া আটকানো গেল না। মাধ্য়মিক পরীক্ষার প্রথমদিনেই মাত্র ১ ঘণ্টার মধ্য়ে সমাজমাধ্য়মে ছড়িয়ে পড়ে বাংলা প্রশ্ন। এরপর ইংরেজি পরীক্ষার দিনেও একই ঘটনা ঘটে। এমনকি মাধ্য়মিকের তৃতীয় দিনেও একইভাবে ভাইরাল হয় প্রশ্নপত্র। তাই এবার উচ্চমাধ্য়মিকের ক্ষেত্রে একইরকম পরিস্থিতির স্বীকার যাতে না হতে হয় সেজন্য়ে আরও সর্তকতা বাড়িয়েছে উচ্চমাধ্য়মিক শিক্ষা সংসদ।

4 months ago


Maldah: মিলল না অ্য়াডমিড কার্ড, মানসিক অবসাদে আত্মহত্যার হুমকি উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষার্থীর

চলতি মাসের ১৬ তারিখ থেকে শুরু হতে চলেছে এবছরের উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষা। সেই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার অ্য়াডমিড কার্ড না পেয়ে অথৈ জলে এক পরীক্ষার্থী। অভিযোগ, স্কুলে পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপ করা হলেও মেলেনি অ্য়াডমিড কার্ড। যা নিয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে ব্লক দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছে ওই পরীক্ষার্থীর পরিবার। এমনকি মানসিক অবসাদে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে ওই পরীক্ষার্থী। ঘটনাটি মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের কনুয়া ভবানীপুরে। 

জানা গিয়েছে, কনুয়া ভবানীপুর হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী লিপি স্বর্ণকার। চলতি মাসের ১৬ তারিখ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসতে চলেছে লিপিও। উচ্চ মাধ্যমিকের রেজিস্ট্রেশন কার্ডও পেয়ে গিয়েছিল। এমনকি টেস্ট পরীক্ষা দিয়েও ফলাফল ভালো হয়েছিল তার। পরবর্তীতে উচ্চমাধ্য়মিক পরীক্ষার জন্য ফর্ম ফিলাপ করেছিল লিপি। কিন্তু স্কুলে প্রত্য়েককে অ্য়াডমিড কার্ড পেলেও পায়নি লিপি। 

এরপর প্রধান শিক্ষকের কাছে জানতে গেলে প্রধান শিক্ষক বলেন লিপি নাকি ফর্ম ফিলাপ করেনি। তারপর থেকেই চরম হতাশায় মানসিক অবসাদে ভুগছেন ওই পরীক্ষার্থী। তার অভিযোগ মানসিক অবসাদে যদি আত্মহত্যা করি তাহলে তার দায় থাকবে প্রধান শিক্ষকের। জীবনের দ্বিতীয়বার বড় পরীক্ষার আগে মেয়ের এই সমস্যায় ব্যাপক দুশ্চিন্তায় রয়েছে পরিবারের লোকেরাও। সমস্যা সমাধানের জন্য হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন তাঁরা। আবেদন করেছেন জেলা শাসককেও

4 months ago
Madhyamik Board: মাধ্যমিকের ইংরেজি প্রশ্নপত্রও ভাইরাল, সিএন-এর খবরে শিলমোহর মধ্যশিক্ষা পর্ষদের

দ্বিতীয় দিনে মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ভাইরালের ঘটনায় অভিযুক্তকে শনাক্ত করা হয়েছে বলে দাবি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়ের। তিনি সাংবাদিক বৈঠকে জানান, সিএন-এর প্রতিনিধি মণি ভট্টাচার্যের মাধ্যেমে প্রথম জানতে পারেন লাল কালি দিয়ে বারকোড ঢাকা ইংরেজি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাঘুরি করছে। এরপরই তদন্তে করে ১১জন পরীক্ষার্থীর সম্পূর্ণ পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। এছাড়াও কয়েকটি স্কুলে উদেশ্যপ্রণোদিত ভাবেই এই ঘটনাগুলো ঘটছে বলে উল্লেখ করেন। এই খবর সবার প্রথম সম্প্রচারও হয় সিএন-এ।

মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছে শুক্রবার থেকে। মাধ্যমিকের প্রথম দিনের মতোই দ্বিতীয় দিনও সকাল থেকেই হইহই রইরই কাণ্ড। হঠাৎ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হুবহু মাধ্যমিকের ইংরেজি প্রশ্নপত্রের মতই এক প্রশ্নপত্রের বেশ কয়েকটি পাতা। যেখানে বারকোড রয়েছে, কিন্তু লাল কালি দিয়ে বারকোড নষ্ট করার চেষ্টা করা হয়েছে। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে তুমুল হৈচৈ পড়ে যায়। এই ভাইরাল হওয়া ইংরেজি প্রশ্নপত্র এবারের পরীক্ষার তা স্বীকার করেছেন পর্ষদ সভাপতি।

উল্লেখ্য, শুক্রবার বাংলা পরীক্ষা শুরুর ১ ঘণ্টার মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় বাংলার প্রশ্নপত্র। স্বাভাবিকভাবেই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। এ ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই অভিযুক্ত দুই পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এদিনও ইংরেজি প্রশ্নপত্র প্রকাশ্যে আসার ঘটনায় শাস্তির মুখে অভিযুক্ত পরিক্ষার্থীরা।

4 months ago
Madhyamik: নেই বাসের দেখা, সমস্য়ার মুখে শিলিগুড়ির মাধ্য়মিক পরীক্ষার্থীরা

শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে মাধ্য়মিক পরীক্ষা। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে চার চাকা, পিকআপ ভ্য়ান ও ক্যান্টারে করে মাধ্যমিক পরীক্ষার সেন্টারে পৌঁছল ছাত্রছাত্রীরা। সিএন-এর ক্য়ামেরায় ধরা পড়ল সেই ছবি। শনিবার সকালে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের মাদাতি হাইস্কুলে দূরদূরান্ত থেকে পরীক্ষা দিতে আসা ছাত্র-ছাত্রীদের দেখা গেল এমন অবস্থায়।

যেখানে দেখা গিয়েছে, গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে পাহাড়ের স্কুলগুলিতে ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা দিতে যাতে অসুবিধা না হয় সেই কথা মাথায় রেখে রুম হিটারের ব্যবস্থা করা হয়। এমনকি হাতির উপদ্রবে এলাকাগুলি থেকে বনদফতরের পক্ষ থেকে বাসের ব্যবস্থা করে ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বিভিন্ন পরীক্ষা সেন্টারে।

ঠিক সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে চা বাগানের শ্রমিকের ছেলেমেয়েরা প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে এই ঠান্ডার মধ্যে পিকআপ ভ্যান ও ক্যান্টারে করে পরীক্ষার সেন্টারে যেতে হচ্ছে। ছাত্র-ছাত্রীদের দাবি, যে কয়দিন মাধ্যমিক পরীক্ষা চলছে অন্তত সেই কয়েকদিন সরকারের পক্ষ থেকে যাতায়াতের জন্য বাসের ব্যবস্থা করে দেওয়া হলে খুব উপকৃত হত।

4 months ago


Madhyamik: মাধ্যমিকের বাংলা প্রশ্নপত্র ভাইরাল! সিএন এর খবরে শিলমোহর মধ্যশিক্ষা পর্ষদের

মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছে শুক্রবার থেকে। মাধ্যমিকের প্রথম দিন সকাল থেকেই হইহই রইরই কাণ্ড। হঠাৎ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হুবহু মাধ্যমিকের মতই এক প্রশ্নপত্রের বেশ কয়েকটি পাতা। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে তুমুল হৈচৈ পড়ে যায়। এই খবর সবার প্রথম সম্প্রচার করে সিএন। অতঃপর সিএনের খবরের জেরে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে পরীক্ষা শেষের সার্বিক ঘটনাক্রমের সাংবাদিক বৈঠকে, ভাইরাল হওয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা নিয়েও বিবৃতি দেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ওই দুই পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন এবং অ্যাডমিট কার্ড। প্রসঙ্গত, এর আগেই পর্ষদ নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছিল, প্রশ্নপত্রের প্রতিটি পাতায় ওই প্রশ্নপত্রের ক্রমিক নম্বরের কোড লুকানো থাকবে। কেউ কোনও পাতার ছবি তুলতে চাইলে, পাতায় লুকিয়ে থাকা ক্রমিক নম্বরের মাধ্যমে তা সহজেই জানতে পারা যাবে। এমন কাজে ধরা পড়লে সে বছরের মত তার পরীক্ষা সম্পূর্ণ বাতিল হয়ে যাবে। শুধু তাই না, পরীক্ষাকেন্দ্রের পরীক্ষকও পরীক্ষা শুরুর আগে তা অবগত করেছিলেন পরীক্ষার্থীদের। তবুও এমন ঘটনা থেকে বিরত রইল না ২০২৪ এর মাধ্যমিকের প্রথম দিনের পরীক্ষাও। পর্ষদের নির্দেশিকাকে কার্যত বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়েই এমন ঘটনা ঘটল।

তবে প্রশ্ন উঠছে, যেখানে রাজ্য জুড়ে মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে এত নিরাপত্তার বহর শোনা যাচ্ছে, সেখানে পরীক্ষার্থীরা মোবাইল ফোন, স্মার্ট ওয়াচ নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকতে পারছে কীভাবে? এছাড়াও পর্ষদ সূত্রে জানা যাচ্ছে, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামের তিনটি পরীক্ষাকেন্দ্র থেকেও মোবাইল ও স্মার্ট ওয়াচ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ৩ পরীক্ষার্থীর। তারই মাঝে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও প্রশ্নপত্র ভাইরালের মত ঘটনা ঘটল পরীক্ষার প্রথম দিনেই। তবে, নিরাপত্তার গাফিলতি কোথাও স্পষ্ট মাধ্যমিকের ক্ষেত্রে। এই গাফিলতির দায় নেবে কে? উঠছে প্রশ্ন।

4 months ago
Madhyamik: আজ থেকে শুরু মাধ্যমিক পরীক্ষা, প্রশ্ন ফাঁস রুখতে থাকছে 'ইউনিক কোড'

শুক্রবার থেকে শুরু হল ২০২৪ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষা। আগামী  ১২ ফেব্রুয়ারি সোমবার পরীক্ষা শেষ হবে। এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছেন প্রায় ১০ লক্ষ পরীক্ষার্থী। চলতি বছরে মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছে সকাল ১০ থেকে।  ৯ টা ৪৫ মিনিটের মধ্য়ে পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে যায়। আর পরীক্ষা শেষ হবে বেলা ১ টায়। 

এর আগেই পর্ষদ জানিয়ে দিয়েছে, এই মাধ্য়মিক পরীক্ষার সময় অনুযায়ী স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকাদের সকাল ৮ টার মধ্যে স্কুলে প্রবেশ করতে হবে। এছাড়া প্রশ্নপত্রের উপরে লেখা সিরিয়াল কোড অনুযায়ী পরীক্ষার্থীকে অ্যাটেনডেন্স সই করার সময় নির্দিষ্ট জায়গায় লিখতে হবে এবং উত্তরপত্রের উপরেও লিখতে হবে।

মাধ্য়মিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রুখতে পর্ষদের তরফ থেকে এবার আরও কড়াকড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পড়ুয়াদের প্রশ্নপত্রে থাকবে বিশেষ কোড প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে পরীক্ষা শেষের আগেই তা ফাঁস করলে সেই কোড নম্বর দেখে বোঝা যাবে কোন পরীক্ষার্থী প্রশ্নপত্র ফাঁস করেছে। এছাড়াও সিসিটিভির উপর থাকছে কড়া নজরদারি।

পরীক্ষার জন্য় দুটি হেল্প লাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। পর্ষদের কন্ট্রোল রুমের নম্বর: ০৩৩-২৩৫৯-২২৭৭, ২৩২১-৩৮৪৪ দু'ঘণ্টা এগিয়ে আনা হয়েছে মাধ্যমিক পরীক্ষার শুরুর সময়। ১৮ই জানুয়ারি হটাৎ মাধ্যমিক পরীক্ষার শুরুর সময় ২ ঘন্টা এগিয়ে আনার নোটিফিকেশন জারি করা হয় তা নিয়ে বিতর্ক দানা বেঁধেছিলো।

4 months ago