Breaking News
BJP: ইস্তেহার প্রকাশ বিজেপির, 'এক দেশ এবং এক ভোট' লাগু করার প্রতিশ্রুতি      Fire: দমদমে ঝুপড়িতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড, ঘটনাস্থলে দমকলের একাধিক ইঞ্জিন      Bengaluru Blast: বেঙ্গালুরু ক্যাফে বিস্ফোরণকাণ্ডে কাঁথি থেকে দুই সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করল এনআইএ      Sheikh Shahjahan: 'সিবিআই হলে ভালই হবে', হঠাৎ ভোলবদল শেখ শাহজাহানের      CBI: সন্দেশখালিকাণ্ডে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের...      NIA: ভূপতিনগর বিস্ফোরণকাণ্ডে এবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ NIA      ED: অবশেষে ইডির স্ক্যানারে চন্দ্রনাথের 'মোবাইল-হিস্ট্রি', খুলতে পারে নিয়োগ দুর্নীতি রহস্যের জট      PM Modi: তৃণমূল মানেই দুর্নীতি-লুট! ভোট প্রচারে সন্দেশখালির পর ভূপতিনগর নিয়ে সরব মোদী      NIA: ভূপতিনগর বিস্ফোরণকাণ্ডে গ্রেফতার আরও ২ , কেন্দ্রীয় এজেন্সির উপর হামলার ঘটনায় উদ্বিগ্ন কমিশন      Sheikh Shahjahan: বিজেপির 'দালাল'রা তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যে বলছে, দাবি শেখ শাহজাহানের     

DelhiHighCourt

Mahua Moitra: ফের অস্বস্তিতে মহুয়া মৈত্র! দিল্লি হাইকোর্ট থেকে মামলা প্রত্যাহার সদ্য বহিষ্কৃত সাংসদের

গতকাল অর্থাৎ বুধবার সুপ্রিম কোর্টে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছিলেন সদ্য বহিষ্কৃত সাংসদ মহুয়া মৈত্র। সাংসদ পদ খারিজ মামলায় কেন তাঁর সাংসদ পদ বাতিল হল সেই ব্যাখ্যা চেয়ে সুপ্রিম কোর্ট নোটিশ পাঠিয়েছে সংসদের সচিবালয়কে। কিন্তু আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবারই দিল্লি হাইকোর্টে স্বস্তি পেলেন না তৃণমূল নেত্রী মহুয়া মৈত্র। এরপরই দিল্লি হাইকোর্ট থেকে মামলাটি প্রত্যাহার করে নেন তিনি।

'টাকা নিয়ে ঘুষ' কাণ্ডে সাংসদ পদ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর সরকারি বাংলো খালি করে দিতে বলা হয়েছিল মহুয়া মৈত্রকে। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বৃহস্পতিবার সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিল না আদালত। খারিজ হয়ে গেল মহুয়ার আবেদন। মহুয়াকে কেন্দ্রীয় সরকারের ডিরেক্টরেট অফ এস্টেটসের কাছে আবেদন করার পরামর্শ দিয়েছে আদালত। এরপরই মামলাটি প্রত্যাহার করে নেন মহুয়া।

উল্লেখ্য, ৭ জানুয়ারির মধ্যে বাড়ি খালি করার নোটিশ বাতিলের নির্দেশ চেয়ে মহুয়া মৈত্র হাইকোর্টে একটি পিটিশন দায়ের করেছিলেন। আদালত তাঁর আবেদনের প্রেক্ষিতে জানায়,  ৭ জানুয়ারির পরেও তার সরকারী অবস্থান বজায় রাখার অনুমতি চেয়ে তার সংশ্লিষ্ট সংস্থার কাছে যাওয়া উচিত। আদালত মহুয়াকে তাঁর আবেদন প্রত্যাহারের অনুমতিও দিয়েছে। এর পর তাঁর আইনজীবী মামলাটি প্রত্যাহার করে নেন।

3 months ago
Anubrata: ফের পিছিয়ে গেল কেষ্টর জামিনের শুনানি, আরও একটি পুজো কাটবে জেলেই?

দিল্লি হাইকোর্টে ফের পিছিয়ে গেল অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) জামিনের শুনানি। গরুপাচার মামলায় (Cattle Smuggling Case) বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে গতবছর অগাস্ট মাসে গ্রেফতার করা হয়। তার পর এক বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও, এখনও জেলবন্দি অনুব্রত। এখন তাঁর ঠিকানা তিহাড় জেল। কিন্তু বুধবারও তাঁর জামিনের শুনানি পিছিয়ে গেলে অনুমান করা হচ্ছে, এই পুজোও তাঁকে কাটাতে হবে জেলেই। পরবর্তী শুনানি ১৯ অক্টোবর।

আদালত সূত্রে খবর, অ্যাডিশনাল সলিসিটার জেনারেল অন্য মামলায় ব্য়স্ত রয়েছেন। মামলায় আরও খানিকটা সময় চেয়েছেন ইডির আইনজীবী। তাঁদের আর্জি মঞ্জুর করে আদালত। এর পরই হাইকোর্টে জামিনের আবেদন পিছিয়ে দেওয়া হয়।

6 months ago
INDIA: বিরোধী জোটের নাম 'ইন্ডিয়া' কেন! জোটের ২৬টি দলকে নোটিশ দিল্লি হাইকোর্টের

বিরোধী জোটের নাম ‘ইন্ডিয়া’ (INDIA) কেন? এই প্রশ্ন তুলে দিল্লি হাইকোর্টে দায়ের হয়েছে এক জনস্বার্থ মামলা। সেই মামলা গ্রহণ করে দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court) আজ শুক্রবার জোটবদ্ধ ২৬ বিরোধী দলকে নোটিশ (Notice) পাঠিয়েছে।

দেশের ২৬টি বিরোধী দল সম্প্রতি জোটবদ্ধ হয়েছে। তারা নতুন জোটের নাম রেখেছে ‘ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টাল ইনক্লুসিভ অ্যালায়েন্স।’ এই পাঁচ শব্দের আদ্যাক্ষর ‘ইন্ডিয়া’।

দিল্লি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি সতীশ চন্দ্র শর্মা এ বিচারপতি সঞ্জীব নারুলার ডিভিশন বেঞ্চ এই বিষয়ে অভিমত জানতে চেয়ে নোটিশ পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশনকেও।

মামলাকারী গিরীশ ভরদ্বাজের অভিযোগ, বিরোধী দল তাদের জোটের নাম রেখেছে দেশের নামে। ‘ইন্ডিয়া’ নামকরণের মধ্য দিয়ে তারা ক্ষুদ্র দলীয় স্বার্থ চরিতার্থ করতে চাইছে। এর ফলে ২০২৪ সালের নির্বাচনে শান্তি বিঘ্নিত হবে। স্বচ্ছতা নষ্ট হবে। মানুষ বিভ্রান্ত হবে। দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটবে।

আবেদনে আবেদনকারী বলেছেন, ১৯৫০ সালের ‘দ্য এমব্লেমস অ্যান্ড নেমস’ (অবৈধ ব্যবহার রোধ) আইন মোতাবেক ‘ইন্ডিয়া’ নাম ব্যবহার করা যায় না।

আবেদনকারী গিরীশ ভরদ্বাজ এই মামলায় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উল্লেখ করে বলেছেন, জোটের এই নামকরণের মধ্য দিয়ে তাঁরা বোঝাতে চাইছেন বিজেপি, এনডিএ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজের দেশের বিরুদ্ধেই যুদ্ধ করছেন।

গিরীশ ভরদ্বাজ এই দাবিও করেছেন, রাহুল গান্ধীর মন্তব্য আরও বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে। কেননা রাহুল বলেছেন, আগামী দিনের নির্বাচন হবে এনডিএর সঙ্গে ইন্ডিয়ার।

আবেদনকারী আদালতকে জানিয়েছেন, এই আপত্তির বিষয়টি তিনি দেশের নির্বাচন কমিশনকেও জানিয়েছিলেন। কিন্তু কমিশন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বাধ্য হয়ে তিনি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’ বলে চিহ্নিত হওয়ায় বিজেপি চিন্তিত। প্রধানমন্ত্রী নিজেও। বারবার তাঁরা এই বিষয়ের অবতারণা করছেন। প্রধানমন্ত্রী একাধিকবার বলেছেন, নামে ‘ইন্ডিয়া’ থাকলেই তা দেশের প্রতিনিধিত্ব করছে বোঝায় না। নামে কিছু আসে যায় না। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির নামেও ‘ইন্ডিয়া’ ছিল। সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ইন্ডিয়ান মুজাহিদ্দিন বা পিপলস ফ্রন্ট অব ইন্ডিয়াতেও ‘ইন্ডিয়া’ আছে।

এর পর নরেন্দ্র মোদি একদিন বলেন, গান্ধীজি ‘কুইট ইন্ডিয়া’ বা ভারত ছাড় আন্দোলন করেছিলেন। ইন্ডিয়া জোটকেও ভারতছাড়া করতে হবে। বিভিন্ন রাজ্যের এনডিএ নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদি মিলিত হচ্ছেন। গত বৃহস্পতিবার বিহারের জোটসঙ্গীদের নিয়ে আয়োজিত এমনই এক বৈঠকে তিনি বলেন, বিরোধী জোটকে ‘ইন্ডিয়া’ বলে ডাকার দরকার নেই। বরং তাদের ‘ঘামন্ডিয়া’ (উদ্ধত) বলে ডাকুন।

এর আগে মোদি বলেছিলেন, তিনি বিরোধী জোটকে ‘ইন্ডিয়া’ বলে ডাকতে চান না। ওটা কংগ্রেসের তৈরি পুরনো জোট ‘ইউপিএ’রই নামান্তর। ওই নামেই ডাকবেন। বেশ বোঝা যাচ্ছে, বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’ প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপিকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছে।

8 months ago


Sushant: 'ন্যায়: দ্য জাস্টিস' ছবির প্রদর্শন বন্ধের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট

সুশান্ত সিং রাজপুতের বায়োপিক 'ন্যায়: দ্য জাস্টিস' (Nyay: The Justice) প্রদর্শন বন্ধের আবেদন খারিজ করে দিল দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court)। ২০২০ সালে প্রয়াত হন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput)। এরপর তাঁর জীবনের উপর ভিত্তি করেই ২০২১ সালে এই সিনেমা তৈরি করা হয়। সেটি মুক্তি পায় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম 'লাপালাপ'-এ। কিন্তু এই ছবি প্রদর্শন বন্ধ করার জন্য কোর্টের দ্বারস্থ হন সুশান্তের বাবা কৃষ্ণ কুমার সিং। তবে তাঁর সেই আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। দিল্লি হাইকোর্ট এই ছবির প্রদর্শন বন্ধের আবেদনে 'না' জানিয়ে বলেছে, সুশান্ত প্রয়াত, তাই এই ছবি তাঁর গোপনীয়তার অধিকারকে লঙ্ঘন করে না।

২০২১ সালে লাপালাপ-এ মুক্তি পায় 'ন্যায়: দ্য জাস্টিস'। কিন্তু সুশান্তের বাবা অভিযোগ করেছিলেন, এই ছবিতে মানহানিকর বিবৃতি ও সংবাদ দেখানে হয়েছে। গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়নি। ফলে এই ছবির প্রদর্শন বন্ধের আবেদন নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চে যান। তবে সেখানে তাঁর আবেদন খারিজ করা হয়। এরপর ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন নিয়ে গেলেও সেখানেও খারিজ করা হয়।

দিল্লি হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতি শ্রী হরিশঙ্কর বুধবার কেকে সিং-এর আবেদন খারিজ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, সুশান্ত নেই, তাই তাঁর গোপনীয়তার প্রয়োজন নেই। তিনি বলেন, 'জনপ্রিয় তারকাদের আইনের জালে বেঁধে রাখা পরস্পরবিরোধী। আইন তাঁদের প্রচারের মাধ্যম নয়।'

9 months ago
Manish: ফের ধাক্কা! মণীশ সিসোদিয়ার জামিনের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট

ফের দিল্লি হাইকোর্টে জোর ধাক্কা মণীশ সিসোদিয়ার (Manish Sisodia)। আজ, সোমবার ফের দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রীর জামিনের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court)। দিল্লি আবগারি দুর্নীতি মামলায় (Delhi Excise Policy Case) চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তিহাড় জেলে বন্দি তিনি। গত শনিবার কিছুক্ষণের জন্য স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য অন্তর্বর্তী জামিন পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষপর্যন্ত হয়নি। এরপর তাঁর স্ত্রীর অসুস্থতার জন্যই ছয় সপ্তাহের জন্য জামিনের আবেদন করেছিলেন তিনি। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লি হাইকোর্ট।

স্ত্রীর অসুস্থতার জন্য এবার ছয় সপ্তাহের অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সোমবার হাইকোর্ট প্রাক্তন আপ মন্ত্রীর সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। সোমবার মামলার শুনানিতে জামিনের বিরোধিতা করে কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি। প্রভাবশালী তকমা দিয়ে সিসোদিয়ার বিরুদ্ধে মামলা প্রভাবিত করার আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়। এরপরেই আপ নেতার জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি। তবে জামিনের আর্জি খারিজ করে দিলেও অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে ফের একটা দিন কাটানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে সিসোদিয়াকে।

10 months ago


Manish: কিছুক্ষণের জন্য জেলের বাইরে মণীশ সিসোদিয়া, তবে সাক্ষাৎ হল না স্ত্রীর সঙ্গে

অবশেষে আড়াই মাস পর জেল থেকে বেরোতে পারলেন দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া (Manish Sisodia)। ৭ ঘণ্টার জন্য জেলের বাইরে বেরোতে পেরেছিলেন তিনি। অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার জন্যই শুক্রবার দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court) অন্তর্বর্তী জামিনের নির্দেশ দিয়েছিল তাঁকে। তবে কিছু শর্ত রাখা হয়েছিল। ফলে আজ, শনিবার সকালে কয়েক ঘণ্টার জন্য বাড়িতে ফিরলেন মণীশ সিসোদিয়া। তবে দেখা হল না স্ত্রীর সঙ্গে। সিসোদিয়া বাড়িতে ঢোকার আগেই স্ত্রীকে দিল্লির লোকনায়ক হাসপাতালে (Loknayak Hospital) ভর্তি করতে হয়। তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতির জন্য তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

আজ, শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত মণীশ সিসোদিয়াকে অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। তবে এই সময়ের মধ্যে মণীশ সিসোদিয়া মোবাইল, ট্যাব সহ কোনও গ্যাজেট, ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন না, এমনকি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হতে পারবেন না বলেও আদালতের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। ফলে আদালতের নির্দেশ মেনেই এদিন সকাল ১০টার পর পুলিসের পাহাড়ায় মথুরা রোডে নিজের বাড়িতে পৌঁছন মণীশ সিসোদিয়া। কিন্তু এদিন সকালে সিসোদিয়া বাড়িতে পৌঁছনোর আগেই তাঁর স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। ফলে নিজের বাড়িতে কিছুক্ষণ থাকার পরই তাঁকে ফের তিহাড় জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। উল্লেখ্য, আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, মণীশ সিসোদিয়ার স্ত্রী ব্রেন এবং নার্ভের জটিল রোগে ভুগছেন।

11 months ago
Manish: কিছুটা স্বস্তি মণীশ সিসোদিয়ার, অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিল দিল্লি হাইকোর্ট

কিছুটা স্বস্তি পেলেন দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া (Manish Sisodia)। অবশেষে কিছুক্ষণের জন্য হলেও জেল থেকে মুক্তি পাবেন মণীশ সিসোদিয়া। অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্যই দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রীকে অন্তর্বর্তী জামিন দিল দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High court)। দিল্লি আবগারি দুর্নীতি মামলায় (Liquor Scam) গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে জেলবন্দি তিনি। কিছুদিন আগেই প্রভাবশালী তকমা দিয়ে তাঁর জামিনের আবেদন খারিজ করা হয়েছিল। তবে এবারে তাঁর স্ত্রী-এর জন্য অন্তর্বর্তী জামিন পেলেন তিনি।

তবে আজ, ২ জুন দিল্লি হাইকোর্ট থেকে কিছু শর্তের কথা বলা হয়েছে। অর্থাৎ মণীশ সিসোদিয়ার স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার কিছু শর্ত রয়েছে। দিল্লি আদালত থেকে জানানো হয়েছে, আগামীকাল, ৩ জুন জেল হেফাজতে থাকাকালীন সময়ের মধ্যেই সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত, ৭ ঘণ্টা তাঁকে অন্তর্বর্তী জামিন দিয়েছে আদালত। এই সময়ে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারবেন তিনি। তবে এই সময়ের মধ্যে মণীশ সিসোদিয়া মোবাইল, ট্যাব-সহ কোনও গ্যাজেট ব্যবহার করতে পারবেন না, ইন্টারনেটে সংযোগ করতে পারবেন না, এমনকি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হতে পারবেন না বলেও আদালতের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

11 months ago
Manish: আবগারি মামলায় বিপাকে দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী, জামিনের আবেদন খারিজ

আবগারি নীতি মামলায় অস্বস্তি বাড়ল দিল্লির প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়ার (Manish Sisodia)। মঙ্গলবার, ৩০ মে তাঁর জামিনের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট। চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রীকে আবগারি নীতি মামলায় (Liquor Scam) গ্রেফতার করে সিবিআই। রাজধানী দিল্লিতে মদ নিয়ে নতুন নিয়ম তৈরির ক্ষেত্রে বিশেষ কয়েকজন ডিলারকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে এই আম আদমি পার্টির নেতার বিরুদ্ধে। আর এবারে তাঁর জামিনের আবেদনও খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্ট (Delhi High Court)।

দিল্লি হাইকোর্টে প্রভাবশালী তকমা দিয়ে মণীশ সিসোদিয়ার জামিনের আবেদন খারিজ করল দিল্লি হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। বিচারপতি দীনেশ কুমার শর্মা এদিন মণীশ সিসোদিয়ার জামিন খারিজ করেছেন। বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, 'তাঁর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। তাঁকে জামিন দেওয়া হলে সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন তিনি।' ফলে তাঁকে প্রভাবশালী তকমা দিয়ে তাঁর জামিনের আবেদন খারিজ করেছেন বিচারপতি।

11 months ago


Jawan: শাহরুখের 'জওয়ান' সিনেমার ভিডিও ভাইরাল, কড়া নির্দেশ কোর্টের

শাহরুখের জওয়ান সিনেমা মুক্তির জন্য অধীর অপেক্ষায় রয়েছে দর্শক। সেই সিনেমা মুক্তির আগেই হইচই নেট দুনিয়ায়। সামাজিক মাধ্যমে সিনেমার বেশ কিছু ভিডিও লিক হয়ে যায়। এরপর মাত্র কিছু সময়ের অপেক্ষা। ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারের মতো সামাজিক মাধ্যম ছয়লাপ হয়েছে সেই ভিডিওতে। এই মর্মে মামলা দায়ের হয়েছিল আদালতে। মঙ্গলবার দিল্লি হাইকোর্টের তরফে এই প্রসঙ্গে নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছিল, জওয়ানের কপিরাইট থাকা ভিডিওগুলি ডিলিট করতে হবে সব প্ল্যাটফর্ম থেকে।

রেড চিলিস প্রাইভেট লিমিটেডের তরফে শাহরুখ খান এবং গৌরী খান দিল্লি হাইকোর্টে প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজের কপিরাইটের দাবি করে মামলা করেছিলেন। তাঁদের মামলার ভিত্তিতে বিচারক সি হরি শঙ্করের বেঁচে এই নির্দেশিকা প্রকাশিত হয়। ফেসবুক, ইউটিউব,টুইটার, কেবল টিভির মতো প্ল্যাটফর্মগুলিকে কোর্ট দ্রুত সেই ভিডিও নামিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়। দুটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল সামাজিক মাধ্যমে। সেই ভিডিওতে শাহরুখ খান এবং সিনেমার নায়িকা নয়নতারাকে একটি ফাইটিং দৃশ্যে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল।

প্রোডাকশন হাউজের তরফে এই ভিডিও আপলোড করা হয়নি। কোনওভাবে লিক হয়ে যায় এই ফুটেজ। অনুমতি ছাড়া এই ভিডিও আর দেখা যাবে না সামাজিক মাধ্যমে। বড় বাজেটের সিনেমা হতে চলেছে জওয়ান। সিনেমায় নয়নতারার পাশাপাশি দেখা যাবে দক্ষিণী তারকা বিজয় সেতুপতিকে। এছাড়াও দেখা যাবে দীপিকা পাডুকোন ও সানিয়া মালহোত্রার মতন বলিউড অভিনেত্রীদের। জুনের ২ তারিখ সিনেমাহলে মুক্তি পেতে চলেছে জওয়ান।

12 months ago
Aaradhya: আরাধ্যাকে নিয়ে ভুয়ো খবর, কী রায় দিল দিল্লি হাইকোর্ট

আরাধ্যা বচ্চনের (Aaradhya Bachchan) অভিযোগের জের! অভিষেক ও ঐশ্বর্য কন্যা আরাধ্যার জীবন ও স্বাস্থ্য নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগে দিল্লি হাইকোর্টে (Delhi High Court) মামলা দায়ের করেছিল বচ্চন পরিবার। বৃহস্পতিবার সেই মামলার শুনানিতেই রায় দেওয়া হয়েছে। ওই ইউটিউব চ্যানেলগুলোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দিল্লি হাইকোর্ট। যেসমস্ত ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে আরাধ্যার বিষয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানো হয়েছে, সেসব ভিডিও অবিলম্বে মুছে ফেলার নির্দেশ দেওয়া  হয়েছে। এছাড়াও বলা হয়েছে, বর্তমানে সেই চ্যানেলগুলি থেকে কোনও ভিডিও আপলোড করাও যাবে না।

বৃহস্পতিবার দিল্লি হাইকোর্টের বিচারক সি হরিশঙ্কর এই রায় দিয়েছেন। গতকাল মোট নটি ইউটিউব চ্যানেলের উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, আরাধ্যার জীবন ও স্বাস্থ্য নিয়ে কোনওরকমের ভিডিও তৈরি, আপলোড, শেয়ার করা যাবে না। এখানেই শেষ নয়, হাইকোর্ট গুগলকেও সেই সমস্ত ভুয়ো খবর ছড়ানো ভিডিওগুলোকে ইউটিউব থেকে সরানোর নির্দেশ দিয়েছে। আদালতের নির্দেশ অনুসারে, সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে যদি এই ধরণের বিভ্রান্তিমূলক খবর ফের প্রকাশ করা হয় তাহলে গুগল কী করবে সেই বিষয়টিও অবিলম্বে জানাতে হবে।

12 months ago


Aaradhya: ১১ বছরেই কোর্টের দ্বারস্থ আরাধ্যা, হঠাৎ কী হল বচ্চন পরিবারে

এবারে দিল্লি হাইকোর্টের (Delhi High Court) দ্বারস্থ তারকা সন্তান আরাধ্যা বচ্চন (Aaradhya Bachchan)। মাত্র ১১ বছর বয়সেই  এমন কী মামলা নিয়ে হাইকোর্টের দারস্থ হয়েছে আরাধ্যা, তা নিয়েই জল্পনা তুঙ্গে। অবশেষে জানা গিয়েছে, অভিষেক ও ঐশ্বর্যর কন্যা আরাধ্যার স্বাস্থ্য নিয়ে 'ভুয়ো' খবর ছড়িয়েছে এক ইউটিউব ট্যাবলয়েড (Youtube Tabloid)। আর সেই চ্যানেলের বিরুদ্ধেই মামলা করেছে বচ্চন পরিবার। এই মামলার শুনানি হবে ২০ এপ্রিল।

তারকা হোক বা তারকা সন্তান, বি-টাউনের প্রত্যেকের বিষয়েই জানতে বেশ উৎসুক সাধারণ মানুষ। ফলে শেহনশাহর নাতনি আরাধ্যাকে নিয়েও কৌতুহল কিছু কম নেই। ফলে তাকে নিয়েও একাধিক খবর প্রকাশ্যে আনা হয়। তবে এবারে জানা গিয়েছে, এক ইউটিউব ট্যাবলয়েড ভিউ-এর জন্য মিথ্যা খবর ছড়িয়েছেন, পেয়েছেন লক্ষ লক্ষ লাইক, কমেন্ট। আরাধ্যার জীবন ও স্বাস্থ্য নিয়ে 'ভুয়ো' খবর ছড়িয়েছে বলে দাবি বচ্চন পরিবারের। তাই এবারে তাঁরা আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত করেছেন। ফলে এই ইউটিউব ট্যাবলয়েডের বিরুদ্ধে মামলা করে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে ছোট্ট আরাধ্যা। আর একজন নাবালিকা হয়ে এই সমস্ত তথ্য মুছে ফেলার দাবি জানিয়েছে ঐশ্বর্য-অভিষেক কন্যা। জানা গিয়েছে, আজ, ২০ এপ্রিল এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা।

12 months ago
Delhi: একজন মহিলা সঙ্গে থাকছেন মানে যৌন সম্পর্কে সম্মতি নয়: দিল্লি হাইকোর্ট

চেক প্রজাতন্ত্রের এক মহিলার সঙ্গে জোর করে যৌন সম্পর্কের (Rape Attempt) অভিযোগে সঞ্জয় মালিক ওরফে সন্ত সেবক দাস জামিনের আবেদন করেন দিল্লি হাইকোর্টে (Delhi High Court)। আদালতে সঞ্জয়ের আইনজীবী জামিনের আবেদন বলেছিলেন, 'ওই মহিলা দীর্ঘ দিন আমার মক্কেলের সঙ্গে ছিলেন।' কিন্তু অভিযুক্তর এই যুক্তি খারিজ করে দিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট। বিচারপতি (Justice) অনুপ জয়রাম ভাম্বানি স্পষ্ট ভাষায় জানান, 'কোনও মহিলা সঙ্গে থাকছে মানেই সে যৌন সম্পর্কেও রাজি, এমনটা নয়। একজন মহিলা যদি কোনও পুরুষের সঙ্গে থাকতে সম্মত হন, তা যতদিনের জন্য হোক না কেন তা কখনই যৌন সম্পর্ক স্থাপনের পূর্বশর্ত হতে পারে না।' 

মহিলাদের উপর যৌন নির্যাতনের অনেক মামলার শুনানিতেই অতীতে এই ধরনের প্রশ্ন উঠে এসেছে। নির্যাতিতা আচরণের মধ্যে দিয়েই এই ধরনের অপরাধকে প্রশ্রয় দেন। এই বিষয়ে পিঙ্ক ছবির একটি কোর্টরুম সংলাপ খুব গুরুত্বপূর্ণ। 'নো মিনস, নো।'

পিঙ্ক ছবিতে আইনজীবী দীপক সেহগলের ভুমিকায় অমিতাভ বচ্চন জানিয়েছিলেন, তাঁর মক্কেল মিনাল অরোরা যদি সেদিন নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে অভিযুক্ত যুবককে খুন না করতেন, তাহলে তাঁকে নিশ্চিতভাবেই ধর্ষণের শিকার হতে হত। কোর্টরুম ড্রামার এই প্রশ্নের জবাব এদিন দিয়ে দিল দিল্লি হাইকোর্ট। 

one year ago
Anubrata: দিল্লি হাইকোর্টে ঝুলে মামলার শুনানি, আপাতত অনুব্রতকে দিল্লি আনছে না ইডি

প্রসূন গুপ্ত: অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) নিয়ে একের পর এক ঘটনা যেন নাট্যমঞ্চে পরিণত হয়েছে।  কয়েক মাস আগে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দফতর গরু পাচার মামলায় বীরভূমের দাপুটে নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা শুরু করে এবং পরবর্তীতে তার ঠাঁই হয় আসানসোল সংশোধনাগারে (Asansol Jail)। এরই মধ্যে কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি (ED) তাঁকে দিল্লিতে নিয়ে জেরা করতে চায়। দিল্লির রউস অ্যাভেনিউ কোর্ট এই আবেদনে সম্মতি জানায়। কথা ছিল ১৯ তারিখের পর অনুব্রতকে দিল্লি নিয়ে আসা হবে। কিন্তু এরই মধ্যে জনৈক শিবঠাকুর মণ্ডল অনুব্রতর বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ তোলে। এই শিবঠাকুর প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান ছিলেন একসময়ে।

তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে দুবরাজপুরের আদালতে বিষয়টি ওঠে ১৯ ডিসেম্বর এবং আদালত দুবরাজপুর থানাকে অনুমতি দেন এই খুনের বিষয়টি তদন্ত করার জন্য। সেই মোতাবেক ২০ ডিসেম্বর ভোরেই দুবরাজপুর থানা অনুব্রতকে নিজেদের হেফাজতে নেয়। গত ৭ দিন ধরে জেরা করার পর দুবরাজপুর থানা আদালতকে জানায় যে কয়েকদিন অনুব্রত চুপ করে থাকার পর কিছু বার্তা দিয়েছে। অনুব্রতর আইনজীবীরা তার ভিত্তিতে অনুব্রতর জামিন প্রার্থনা করলে বিচারক আপাতত তাঁকে জামিন দিয়েছেন। পরবর্তী শুনানি আগামী বছর ২৪ ফেব্রুয়ারি। এরপর ফের অনুব্রতকে আসানসোল সংশোধনাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। আপাতত বুধবারের খবর অনুব্রত তাঁর পুরাতন সেলেই অবস্থান করছে।

অন্যদিকে রউস এভিনিউ আদালতের অনুমতিতে এখন ইডির আর অনুব্রতকে নিজেদের জিম্মায় নেওয়ার বিষয়ে কোনও বাধা রইলো না। কিন্তু ইডি সূত্রে জানা যাচ্ছে, এখনই তারা অনুব্রতকে দিল্লি নিয়ে আসছে না। এর কারণ ইতিমধ্যেই রউস কোর্টের অর্ডারের বিরুদ্ধে অনুব্রতর আইনজীবীরা দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছে। শুনানি আছে আগামী ৯ জানুয়ারী। ওই শুনানির আগে অনুব্রতকে দিল্লি আনতে চাইছে না ইডি। এমনটাই ইতিমধ্যে জানিয়েছেন ইডির আইনজীবী অনুপম শর্মা। ফলে আপাতত ফের কিছুদিনের স্বস্তি অনুব্রত মন্ডলের।

one year ago


Amitabh: অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না অমিতাভ বচ্চনের কণ্ঠস্বর, নাম, ছবি: দিল্লি হাইকোর্ট

গলার স্বরই যেন তাঁর অন্যতম পরিচয়। সেই স্বর নকল করে অনেক অনৈতিক কাজের সঙ্গেও জড়িয়ে পড়েছেন। এছাড়া যত্রতত্র তাঁর ছবি। এরফলে কড়া পদক্ষেপ উঠিয়েছিলেন "বিগ-বি"। আবেদন করেছিল দিল্লি হাইকোর্টে (Delhi Highcourt)। আজ, শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর অভিনেতার আবেদনের ভিত্তিতে শুনানি ছিল দিল্লি হাইকোর্টে। আদালতের রায়ে বলা হয়, অমিতাভ বচ্চনের (Amitabh Bachchan) নাম, ছবি বা ভয়েস তাঁর অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এমনকি, বিনা অনুমতিতে তাঁর নামটুকু অবধি নেওয়া যাবে না— এমনই নির্দেশ এল দিল্লি হাইকোর্ট থেকে।

এছাড়া আদালত ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক এবং টেলিকম পরিষেবা সরবরাহকারীদের উদ্দেশেও একই নির্দেশ দিয়েছে। বিচারপতি নবীন চাওলা বলেন, “যে কোনও সংস্থা তাদের পণ্য ও পরিষেবার প্রচারের স্বার্থে তারকাদের ‘সেলিব্রিটি স্টেটাস’ ব্যবহার করে। এক্ষেত্রে সেই নির্দিষ্ট তারকার অনুমতি নেওয়া প্রয়োজন।”

অমিতাভ বচ্চন, বয়স এখন ৮০ বছর। তিনি নিজেই এই মর্মে আদালতে একটি পিটিশন দাখিল করেছিলেন। তাঁর আবেদন ছিল, এক ব্যক্তির ‘নাম, ছবি, কণ্ঠস্বর এবং ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্যগুলি’ রক্ষা করার জন্য সকলের স্বার্থে তিনি এই আবেদন করেন। কোনও নির্দিষ্ট কারণের উপর ভিত্তি করে এই আবেদন করেননি।

বরিষ্ট আইনজীবী হরিশ সালভে, আইনজীবী প্রবীণ আনন্দ, অমিত নায়েক এবং মধু গাদোরিয়া অমিতাভ বচ্চনের হয়ে সওয়াল করেছিলেন। সালভে এদিন আদালতে দাঁড়িয়ে বলেন, "কেউ অমিতাভ বচ্চনের মুখ ব্যবহার করে টিশার্ট বানাচ্ছেন। কেউ তাঁর পোস্টার বিক্রি করছেন। কেউ তো সব মাত্রা ছড়িয়ে amitabhbachchan.com নামের ডোমেইন রেজিস্টার করে নিয়েছেন। এই কারণেই আমরা আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হয়েছি।"

অমিতাভের আইনজীবীরা আরও অভিযোগ করেন যে, বেশ কিছু মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপার, কৌন বনেগা ক্রোড়পতি এবং সঞ্চালক অমিতাভের নাম নিয়ে বেআইনিভাবে লটারির ব্যবসা করছিলেন।, উল্লেখ্য, মেগাস্টার বই প্রকাশক, টি-শার্ট বিক্রেতা এবং অন্যান্য বিভিন্ন ব্যবসার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার আদেশও চেয়েছেন।

one year ago
Anubrata: দিল্লি যাত্রা আটকাতে দিল্লি হাইকোর্টে অনুব্রত! পিছলো ইডির আবেদনের শুনানি

ইডি (ED) যাতে তাঁকে দিল্লি নিয়ে যেতে না পারে, কোমর বেঁধে নামলো অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)। দিল্লি হাইকোর্টে (Delhi High Court) এবার দরবার অনুব্রত মণ্ডলের। রউস অ্যাভেনিউ কোর্টে ইডির করা প্রোডাকশন ওয়ারান্ট সংক্রান্ত মামলার বিরোধিতায় আবেদন তৃণমূল নেতার। বীরভূম তৃণমূল জেলা সভাপতির প্রশ্ন, 'বাংলার মামলায় দিল্লিতে এনে কেন জেরা করতে হবে?' এই মামলায় আবার সায়গল হোসেনকে 

(Saigal Hossain) দিল্লি এনে জেরা করা হচ্ছে। বর্তমানে তিহার জেলে বন্দি অনুব্রত মণ্ডলের দেহরক্ষী।

অনুব্রত মণ্ডলকে দিল্লি নিয়ে যেতে রউস অ্যাভিনিউ কোর্টে আবেদন জানায় ইডি। মঙ্গলবার ছিল সেই মামলার শুনানি। কেন্দ্রীয় সংস্থার প্রোডাকশন ওয়ারান্ট সংক্রান্ত সেই আবেদন খারিজের দাবিতে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি। যদিও ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদনের শুনানি পিছিয়ে দিয়েছে হাইকোর্ট।

এদিন অনুব্রতর হয়ে আদালতে সওয়াল করেন আইনজীবী কপিল সিবাল। অনুব্রতর আইনজীবীর প্রশ্ন, 'বাংলার মামলায় দিল্লিতে এনে কেন জেরা করতে হবে?' পাশাপাশি শারীরিক অসুস্থতাকে হাতিয়ার করে, দিল্লি হাইকোর্টে অনুব্রত। শারীরিক অসুস্থতার কারণে আসানসোল থেকে দিল্লি না নিয়ে আসার আবেদন জানানো হয়েছে এই আবেদনে। ইডি তদন্তের প্রয়োজনে আসানসোল জেলে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন। এই মামলা দায়েরের পর রউস অ্যাভেনিউ কোর্টে অনুব্রতর প্রোডাকশন ওয়ারেন্টের মামলার শুনানি  পিছিয়ে গেল।

one year ago