Breaking News
Modi: কৃষ্ণনগরে ভাষণ শুরু করেই ক্ষমা প্রার্থানা প্রধানমন্ত্রীর, তৃণমূলকে তীব্র তুলধনা...      Modi: 'রামমোহনের আত্মা সন্দেশখালির মহিলাদের দুর্দশায় কাঁদছে', আরামবাগ থেকে মমতাকে তোপ মোদীর      Suspend: গ্রেফতারির পরেই তৃণমূল থেকে ছয় বছরের জন্য সাসপেন্ড সন্দেশখালির 'বেতাজ বাদশা' শাহজাহান      Sandeshkhali: নিরাপদ সর্দারকে নিঃশর্তে জামিন দিয়ে রাজ্য পুলিসকে তিরস্কার বিচারপতির      Sheikh Shahjahan: ঘর ভাঙচুর, টাকা লুঠ! শেখ শাহজাহানের বিরুদ্ধে নতুন এফআইআর সন্দেশখালি থানায়      Sandeshkhali: অজিত মাইতিকে তাড়া গ্রামবাসীদের, সাড়ে ৪ ঘণ্টা পর অবশেষে আটক পুলিসের      Ajit Maity: উত্তপ্ত সন্দেশখালি! অজিত মাইতির গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভ মহিলাদের, বাঁচতে সিভিকের বাড়িতে আশ্রয়      Sandeshkhali: সন্দেশখালি ঢুকতে বাধা, ভোজেরহাটেই দিল্লির ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে আটকাল পুলিস      Sandeshkhali: একই যাত্রায় পৃথক ফল! ১৪৪ যুক্ত এলাকায় নির্বিঘ্নে ঘুরছেন পার্থ-সুজিত, বাধাপ্রাপ্ত মীনাক্ষী      Sandeshkhali: ভোটের আগে উত্তপ্ত সন্দেশখালি, বিশেষ নজর নির্বাচন কমিশনের     

Bomb

Blast: মিনাখাঁর পর কুলপি, প্লাস্টিক মোড়া বোমাকে বল ভেবে খেলতে গিয়ে জখম দুই নাবালক

মিনাখাঁয় নয় বছরের শিশুকন্যার মৃত্যুর পর এবার কুলপি। বোমা বিস্ফোরণে আহত এবার (injured) দুই নাবালক। ঘটনাটি কুলপি (Kulpi) থানার ছামনামনি এলাকার। পঞ্চায়েত ভোটের আগেই একের পর এক বোমা (bomb) বিস্ফোরণের ঘটনায় রাজ্যজুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে, ক্ষোভ জমছে স্থানীয়দের মনেও।

ছামনামনি এলাকার একটা পোল দিয়ে রায়দিঘি, কোম্পানিরঠেক, ঘোড়াদল এলাকার মানুষ যাতায়াত করেন। সেখানেই বসেছিল চার নাবালক। এরপর হঠাত্ই বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে এলাকা। স্থানীয়রা বিকট শব্দের উৎস খুঁজে ছুটে এসে দেখেন দু'জন নাবালক জখম হয়েছে। প্রথমে তাদের নিয়ে যাওয়া হয় কুলপি গ্রামীণ হাসপাতালে (hospital)। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়েও দেওয়া হয় তাদের। ঘটনাস্থলে ইতিমধ্যেই কুলপি থানার পুলিস (police) মোতায়েন রয়েছে। তবে এই ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবসী। নিরাপত্তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। ঘটনার পর থেকেই থমথমে এলাকা।

জানা যায়, ওই পোলের তলায় প্লাস্টিকে মোড়া অবস্থায় গোলাকার কিছু পড়ে থাকতে দেখে ৩ নাবালক। পরে প্লাস্টিকের মোড়া সেই বোমাকে তুলে এনে বল ভেবে ছুড়ে ফেলতেই বিস্ফোরণ। ঘটনায় আহত ওই দু'জন। অন্যদিকে, বোমা উদ্ধারের ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে কুলপি থানার পুলিস। পাশাপাশি এলাকা থেকে ৫টি তাজা বোমা ও একটি লোডেড আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিস।

one year ago
Bomb: মামাবাড়ির মাচায় ওটা কী? নারকেল ভেবে পাড়তে গিয়ে মিনাখাঁর গ্রামে বোমা ফেটে মৃত শিশু

ফের বোমার আঘাতে রক্তাক্ত শৈশব। এবার মিনাখাঁয় মামাবাড়িতে মজুত বোমাকে (bomb) নারকেল ভেবে মাচা থেকে পারতে গিয়েই অঘটন! বোমা ফেটে মৃত্যু (death) এক আট বছরের শিশুর। গুরুতর আহত (injured) আরও দুই শিশু। মর্মান্তিক এই ঘটনা বসিরহাটের (Basirhat) মিনাখাঁ থানার বকচোরা গ্রামের। বুধবারের এই ঘটনার পর বৃহস্পতিবারও থমথমে গ্রাম। চলছে পুলিসি টহরদারি। কী ধরনের বিস্ফোরক মজুত ছিল ওই বাড়িতে তা খতিয়ে দেখছে পুলিস (police)। পাশাপাশি পুলিস সূত্রের খবর, ঘটনায় ফরেন্সিক টিমের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হচ্ছে। ফরেন্সিক পরীক্ষার পরই বিস্ফোরণের আসল কারণ জানা যাবে বলে মনে করছেন পুলিস কর্তারা। বুধবারই বিস্ফোরণ-কাণ্ডে গ্রেফতার করা হয় আবুল হোসেন গাইনকে। বৃহস্পতিবার তাঁকে বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়।

প্রসঙ্গত, ঘটনায় প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মৃতার মামা অর্থাৎ আবুল হোসেন গাইনের নাম উঠে আসে। যার ফলে নতুন করে আতঙ্ক ছড়ায় গ্রামে মধ্যে। পাশাপাশি বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই এক ভয়ানক চাপা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে গোটা বকচোরা গ্রাম। বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে কার্যত মানবশূন্য হয়েছে বকচোরা। গৃহবন্দী অবস্থায় রয়েছেন গ্রামবাসীরা। আবার অনেকে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন। সামনেই পঞ্চায়েত ভোট আর তার আগেই এই উত্তেজনা। যার ফলে যথেষ্টই আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন এখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামে যেন আবার শান্তি ফিরে আসে। দোষীরা যেন অবিলম্বে শাস্তি পায়। বুধবার সন্ধ্যা থেকেই বোমা বিস্ফোরণ যে বাড়িতে ঘটে, সেই বাড়িটিকে তদন্তের স্বার্থে সিল করে রেখেছে মিনাখাঁ থানার পুলিস।

সূত্রের খবর, রান্নাঘরের মাচায় মজুত করে রাখা ছিল বোমা। সেই বোমাগুলোকে নারকেল ভেবে পাড়তে গিয়েছিল ছোট্ট মেয়েটি। তখনই মাচা থেকে বোমা নিচে পড়েই ঘটে এই বিপত্তি। গুরুতর আহত অবস্থায় সোহানাকে মিনাখাঁ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করে। ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিস ওই আবু হোসেন গায়েনের বাড়ি থেকে বেশ কয়েকটি তাজা বোমা উদ্ধার করেছে। পাশাপাশি বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিস।

one year ago
Keshpur: সাঁইথিয়ার পুনরাবৃত্তি! তৃণমূলের 'গোষ্ঠী কোন্দলে' বোমাবাজি, হাত উড়লো দলীয় কর্মীর

সাঁইথিয়ার (Saithia Incident) পর এবার কেশপুর। তৃণমূলের (TMC) 'গোষ্ঠী কোন্দলে' রক্তপাত কেশপুরের (Keshpur) চড়কা গ্রামে। শাসক দলের 'গোষ্ঠী কোন্দলে' বোমাবাজি (Bomb Hurled), হাত উড়লো এক তৃণমূল কর্মীর। গুরুতর জখম ওই তৃণমূল কর্মীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ, বুধবার দুপুরে কেশপুরে পঞ্চায়েত নির্বাচনের (Panchayat Vote) প্রস্তুতিকে সামনে রেখে এলাকায় একটি মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছিল। চড়কা গ্রামে তারই প্রস্তুতি সারছিলেন স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। সেই সময় হঠাৎই তৃণমূল কর্মীদের লক্ষ্য করেই বোমাবাজি করে অপর গোষ্ঠীর লোকেরা। এমন অভিযোগ সংবাদ মাধ্যমকে করেছেন এক স্থানীয় তৃণমূল কর্মী। বোমার আঘাতে জখম হন এক তৃণমূল কর্মী। ঘটনা ঘিরে এলাকায় আতঙ্ক, উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকায় বিশাল পুলিস বাহিনী।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে তৃণমূলের এক কর্মী জানান, সামনে থেকে প্রাণের বাজি নিয়ে আমরা দলকে ভোট লড়তে সাহায্য করি। জিতিয়েও আনি দলীয় প্রার্থীদের। কিন্তু পেশায় প্রমোটার একজন সভাপতি হতে চেয়ে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। যার সঙ্গে দল কিংবা সংগঠনের কোনও যোগ নেই। কিন্তু সে নিজেকে তৃণমূল বলে দাবি করে। সে হঠাৎ করে হুমকি দেওয়া শুরু করে তৃণমূলের থিওরি আমি জানি। এই দলে পয়সা দিলে সভাপতি পদ পাওয়া যায়, সেই পয়সা আমি দিয়ে দিয়েছি। এটা আদতেই গোষ্ঠী কোন্দল। এই কোন্দলের পিছনে স্থানীয় বিধায়ক এবং ব্লক সভাপতির ইন্ধন রয়েছে। আমাদের গ্রামের ঐতিহ্য আছে, কোনও গোষ্ঠীবাজি বরদাস্ত নয়, যা হবে একসঙ্গে লড়াই।

তাঁর মন্তব্য, 'যখন কেউ নেই আশপাশে সবাই বিজেপি, তখন আমরা জীবনের বাজি রেখে তৃণমূল প্রার্থীকে জিতিয়ে এনেছি। ভোট পেরোতেই আমাদের ভুলে গিয়েছে।' যদিও গোষ্ঠী কোন্দলের তত্ত্ব মানতে নারাজ তৃণমূল নেতা তথা বিধায়ক অজিত মাইতি। তিনি বলেন,'বোমার আঘাতে একজনের আঙুল উড়েছে। পুলিস এই ঘটনার তদন্ত করেছে। পুলিস ঘটনাস্থলেও আছে। তবে আমি নিশ্চিত এই ঘটনার পিছনে সিপিএম-র চক্রান্ত এবং বিজেপির উসকানি আছে। ওরা চাইছে তলে তলে কেশপুরকে অশান্ত করতে। এখানে যা আছে ন্যূনতম মনোমালিন্য। সেটা আমরা বসে ঠিক করে নেব। এই ধরনের ঘটনা নেতৃত্ব আগামি দিনে ঘটতে দেবে না, এটা নিশ্চিত করে বলতে পারি।'

স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, 'তোলাবাজি নিয়ে তৃণমূলের এই গণ্ডগোল। যারা এখানে প্রথম থেকেই তৃণমূল করেছে তাঁরা এখানে পাত্তা পায় না। এখন যারা বেশি তোলা দিতে পারছে তাঁরাই প্রাধান্য পাচ্ছে। কিন্তু নিজেদের হাতের বাইরে নিয়ন্ত্রণ চলে যাওয়ায় এখন বিজেপিকে দোষারোপ করেছে। মানুষই তৃণমূলের কেশপুরকে শেষপুর বানানোর চক্রান্ত রুখে দেবে।'

one year ago


Basanti: রাতভর বোমাবাজির পর সোমবার ফাঁকা মাঠে উদ্ধার তাজা বোমা, আতঙ্ক বাসন্তীতে

ফের বাসন্তীতে উদ্ধার বোমা (bomb)। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী (Basanti) থানার তিতকুমার গ্রামের একটি মাঠ থেকে উদ্ধার হয়েছে অন্তত দশটি তাজা বোমা। ফাঁকা মাঠ থেকে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক (panic)। ঘটনাস্থলে মোতায়েন রয়েছে বাসন্তী থানার পুলিস (police)।

তিতকুমার গ্রামের ওই মাঠে কে বা কারা এই বোমগুলি রেখে গেল, তদন্ত করে দেখছে পুলিস। ইতিমধ্যেই বোমগুলি নিষ্ক্রিয় করতে সিআইডি বোম্ব স্কোয়াডকে (CID Bomb Scuad) খবর দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় মানুষরা জানান, রবিবার রাতভর এলাকা চলেছে বোমাবাজি। তবে সাতসকালে বোমা উদ্ধারকে কেন্দ্র করে এলাকায় সৃষ্টি হয় চাঞ্চল্য। ঘটনাস্থলে এসডিপিও ক্যানিংয়ের নেতৃত্বে বিশাল পুলিসবাহিনী রয়েছে। পুরো এলাকায় চলছে তল্লাসি।

সম্প্রতি রাজ্যের একাধিক জায়গা থেকে উদ্ধার হচ্ছে আগ্নেয়াস্ত্র। পঞ্চায়েত ভোটের আগে এহেন অস্ত্র ভাণ্ডার উদ্ধারকে কটাক্ষ করেছে বিরোধীরা। সন্ত্রাসের আবহে পঞ্চায়েত ভোট করাতে চাইছে শাসক দল। এহেন টিপ্পনি বাম-বিজেপি ও কংগ্রেসের। শাসনে খোদ তৃণমূল নেতার বাড়িতে, মধ্য কলকাতা, বারুইপুর পুলিস জেলা অন্তর্গত কাশীপুরে গত একমাসে উদ্ধার হয়েছে একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র।  

one year ago
Shootout: নৈহাটিতে ভরসন্ধ্যায় প্রকাশ্যে চলল গুলি, ফাটল বোমাও, মৃত ১, আহত ২

ফের শুটআউটের (shootout) ঘটনা। নরেন্দ্রপুরের পর এবার নৈহাটির (Naihati) শিবদাসপুর। শনিবার শিবদাসপুরে ভরসন্ধ্যায় চলে গুলি, ফাটে বোমা (bomb)। আহত (injured) হয় অন্তত তিনজন। আহতদের তড়িঘড়ি কল্যাণীর হাসপাতালে (hospital) পাঠানো হয়। ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়। তবে উত্তেজনা রবিবার আরও একধাপ বাড়ে। আহত জাকির হোসেনের মৃত্যু হয় চিকিৎসাধীন থাকাকালীনই। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া পরিবারে।

জানা যায়, ঘটনায় তিনটি গুলি লাগে জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তির। তবে রবিবার সকালে তাঁর এবং অন্য আরও একজন ইউসুফ আলি মণ্ডলের অবস্থা স্থিতিশীল বলেই হাসপাতাল সূত্রে খবর ছিল। তবে ব্লক সভাপতির দাবি, আহতরা তৃণমূল কর্মী। সকাল হলেও এলাকা এখনও থমথমে। পুলিসি টহল চলছে। পুলিস সূত্রে খবর, অভিযুক্তরা কেউ এখনও ধরা পড়েনি। আতঙ্কিত এলাকাবাসী। এদিকে, জমিজমা নিয়ে ঝামেলার জেড়েই হামলা বলে জানাচ্ছেন আক্রান্তের দাদা বাবলু মণ্ডল।

পরিবার সূত্রে খবর, জাকির হোসেন মণ্ডল আপাতত চিকিৎসাধীন কল্যাণী জওহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালের সিসিইউতে। শনিবার এ পজেটিভ চার বোতল রক্ত লেগেছিল তাঁর। এরপর ফের চার বোতল রক্তের প্রয়োজন বলে জানিয়েছিল চিকিৎসকরা। সেই রক্ত বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে অবশেষে পরিবারের লোকজনদের ছুটে যেতে হয় কলকাতায়। রবিবার সকালে সেই চার বোতল রক্ত বরফ দিয়ে আনা হয় কল্যাণী জহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালে, এমনটাই জানালেন তার পুত্র বাকিবুল্লা মণ্ডল।

অন্যদিকে হাসপাতাল সূত্রে খবর, দীর্ঘ চার ঘণ্টা হাসপাতালে ওটি চলার পর শরীর থেকে তিনটি গুলি বের করা হয়। রাত একটা কুড়ি নাগাদ হাসপাতালের সিসিইউতে দেওয়া হয় তৃণমূল কর্মী জাকির হোসেনকে।

one year ago


Narendrapur: নরেন্দ্রপুর বোমা-কাণ্ডে গ্রেফতার ৭, দুষ্কৃতীদের দেখে ফেলাতেই কি এই সন্ত্রাস?

নরেন্দ্রপুর বোমাবাজি (Narendrpur Incident)-কাণ্ডে গ্রেফতার ৭। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির (IPC)  একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। ইতিমধ্যে রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন এই ঘটনায় জেলা পুলিসের রিপোর্ট তলব করেছে। ঘটনার একদিন পরেও নরেন্দ্রপুরের দাসপাড়া শান্তিপার্ক এলাকায় আতঙ্ক। অবিলম্বে অভিশপ্ত মাঠে দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্য এবং অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধ হোক। শিশুদের (Minor Injured) উপর যারা অত্যাচার করেছে তাদের উপযুক্ত শাস্তি হোক।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে শান্তিপার্ক এলাকার শুনশান মাঠে যখন ওই ৫ বাচ্চা খেলছিল, তখন ৪-৫ জন বাইকে আসে। তারা মাঠের একটা টিনের শেড দেওয়া ঘরের তালা ভাঙার চেষ্টা করে। নাবালকদের উৎসুক মুখ তালা ভাঙার কারণ জিজ্ঞাসা করলেই হুমকির মুখে পড়তে হয়। ওই ৫ নাবালক দেখে ফেলে ঘরের ভিতর বোমা মজুত করা। তখনই একটা বোমা তাদের দিকে ছোড়া হয়। সেটা লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে, আরও একটা বোমা ছোড়া হয়। দ্বিতীয় বোমার স্প্লিন্টারের ঘায়ে রক্তাক্ত ওই পাঁচ নাবালক। শুক্রবার তাদের বাঘাযতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ওই পাঁচ নাবালককে।

এই ঘটনার পিছনে এবং বেপরোয়া দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যের পিছনে কোনও প্রভাবশালী যোগ রয়েছে কিনা, খতিয়ে দেখতে পুলিসকে আর্জি জানান স্থানীয়রা।

one year ago
Narendrapur: এবার নরেন্দ্রপুর! মাঠে খেলতে যাওয়া নাবালকদের লক্ষ্য করে বোমাবাজি, জখম ৫

কাকিনাড়ার পর এবার নরেন্দ্রপুর (Naredrapur Inicdent)। দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যে বোমাবাজিতে (Bomb Hurled) আহত পাঁচ নাবালক। জানা গিয়েছে, নরেন্দ্রপুর থানা এলাকার দাসপাড়ায় দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমার আঘাতে আহত ৫ নাবালক (Minor Injured)। তাঁদের বয়স ১০-১২ বছর। ওই পাঁচ নাবালক এলাকারই একটি মাঠে খেলতে গিয়েছিল। সেই সময় ওই মাঠে উপস্থিত দুষ্কৃতীরা তাদের মাঠ ছাড়তে বলে। কথা না শুনলে ওদের লক্ষ্য করে দুটি বোমা ছোড়া হয়। একটি বোমা না ফাটলেও, আরও একটি বোমার আঘাতে পায়ে চোট পান ওই পাঁচ জন।

রক্তাক্ত অবস্থায় তারা পালিয়ে বাড়ি চলে আসে এবং পরিবারকে সব জানায়। বাড়িতেই তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয় পরে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এদিকে, এই খবর চাউর হতেই ঘটনাস্থলে পৌছয় নরেন্দ্রপুর থানা পুলিস। যদিও তার আগেই চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থল থেকে পুলিস একটি ড্রাম এবং বাইক উদ্ধার করেছে। যেহেতু এই বোমাবাজির ঘটনায় আক্রান্ত নাবালক, তাই স্পষ্টতই এলাকায় উত্তেজনা। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিসবাহিনী। 

এই বোমাবাজির ঘটনায় আহত এক নাবালকের বাবা জানান, আমি ছেলের উপর হওয়া অত্যাচারের ন্যায়বিচার ছাই। বাচ্চাদের সঙ্গে ওদের কী শত্রুতা জানি না। তিনি জানান, বাচ্চাদের হুমকি দেওয়া হয়েছে, মাঠে আবার দেখা গেলে লাশ ফেলে দেবে। তবে ঠিক কারা এই ঘটনার পিছনে, সে বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি তিনি।

one year ago
Blast: ভাটপাড়ায় বোমা ফেটে মৃত্যু কিশোরের, চাঞ্চল্য এলাকায়

ফের ভাটপাড়ায় বোমা বিস্ফোরণ (bomb explosion)। বোমা ফেটে মৃত্যু (death) এক কিশোরের। ঘটনাস্থল ভাটপাড়া (Bhatpara) ২৮ নম্বর রেলগেট এলাকা। অভিযোগ, রেললাইনের ধারেই রাখা ছিল বোমাগুলি (bomb)। সেই বোমাগুলিকে চারজন বল ভেবে খেলতে শুরু করে। আর এরপরই ঘটে বিপত্তি। আচমকাই বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। ঘটনাস্থলেই এক কিশোরের মৃত্যু হয়। জখম আরও দুজন। উত্সবের মরসুমে এমন মর্মান্তিক ঘটনায় আতঙ্কের পরিবেশ এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সকাল ৭ টা নাগাদ ভাটপাড়া পুরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রেমচাঁদ নগর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিসবাহিনী। তল্লাশি চলে গোটা এলাকায়। উদ্ধার হয় বেশ কয়েকটি তাজা বোমা। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় নৈহাটির জিআরপি–আরপিএফ এবং ভাটপাড়া থানার পুলিস।

পুলিস সূত্রে খবর, কাঁকিনাড়া স্টেশনের কাছে বোমাটি কেউ ফেলে রেখেছিল। সেটাকেই বল ভেবে খেলতে যায় ৭ বছরের একটি শিশু। আর বোমাটি হাতে নিতেই বিকট শব্দে ফেটে যায়। এরপরই এই দুর্ঘটনা। তবে গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিস।

one year ago


stray dog: 'প্রকাশ্য স্থানে পথকুকুরদের খাওয়ানো যাবে না', নির্দেশ বম্বে হাইকোর্টের

পথকুকরদের (stray dog) আক্রমণে (Attacked) আতঙ্কিত নাগপুরবাসী। ক্রমাগত বেড়ে যাচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বম্বে হাইকোর্ট (Bombay High Court) বৃহস্পতিবার নির্দেশ দিয়েছে যে, "কোনও নাগরিকের প্রকাশ্য স্থানে অথবা বাগান ইত্যাদি জায়গায় পথ কুকুরদের খাওয়ানো বা খাওয়ানোর চেষ্টা করা উচিত নয়।"

বিচারপতি এস বি শুক্রে এবং এএল পানসারের বেঞ্চ নাগপুর মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের (এনএমসি) মিউনিসিপ্যাল ​​কমিশনারকে আরও নির্দেশ দিয়েছে যে, এই ধরনের পথকুকুরদের নিজের বাড়ি ছাড়া অন্য কোনও জায়গায় খাবার দেওয়া যাবে না।

২০ অক্টোবর বেঞ্চ আরও বলেছে, যদি কোনও ব্যক্তি পথকুকুরদের খাওয়াতে আগ্রহী হন, সেক্ষেত্রে ওই পথকুকুরদের দত্তক নিতে হবে। তার আগে পুর  কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আইনি  পথে কাগজপত্র সই করতে হবে। এরপর নিজের বাড়ি নিয়ে গিয়ে হোক বা কোনও কুকুরের আশ্রয়কেন্দ্রে তাকে রেখে যত্ন নিতে পারেন বা খাওয়াতে পারেন।

আদালত নাগপুর মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের কমিশনারকেও নির্দেশ দিয়েছে যে, কুকুর খাওয়ানোর নিজস্ব জায়গা বা কুকুরের আশ্রয়কেন্দ্র বা অন্য কোনও অনুমোদিত জায়গা ছাড়া কোনও জায়গায় রাস্তার কুকুরদের খাওয়ানো যাবে না। সে বিষয়ে যেন নজর রাখে কর্পোরেশন। এমনকি কমিশনার এই নির্দেশাবলী লঙ্ঘনের জন্য উপযুক্ত জরিমানাও ধার্য করা হবে।  আর সেই জরিমানা ২০০টাকারও বেশি হতে পারে।

বেঞ্চ আরও বলেছে যে, "এখন ব্যবস্থা নেওয়ার সময় এসেছে।" যদিও, আদালত বলেছে যে, এই পদক্ষেপ একেবারে কুকুরের আক্রমণ থেকে বাঁচানো যাবে তা নয়, তবে বিপদ থেকে কিছুটা রেহাই মিলতে পারে। আক্রমণকারী কুকুরকে নির্দেশিত পদ্ধতি অনুসারে ট্রেনিং দিতে হবে। তাদের একটি মনিটরিং কমিটির কাছে হস্তান্তর করতে হবে। এভাবে, পুলিস কমিশনার এবং পুলিস সুপার, নাগপুর (গ্রামীণ) কেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে,  "বিপথগামী কুকুর থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য তাদের নিজ নিজ এলাকায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে।"

পথ কুকুরের জন্মনিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্দেশ্যে ১৭ কোটি টাকার তহবিল বরাদ্দ করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। আদালত বরাদ্দ মঞ্জুর করে অবিলম্বে এ অর্থ ছাড়ের নির্দেশ দিয়েছে। জন্মনিয়ন্ত্রনের ক্ষেত্রে কুকুরদের অন্ডকোষ বা ডিম্বাশয় অপসারণের কথা বলেছে। ও বলা হয়েছে, অস্ত্রোপচারের পর ওই কুকুরদের যাবতীয় যত্ন নিতে হবে।

one year ago
Airport: ফের বোমাতঙ্ক! বোমা মেরে আস্ত বিমান উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি, হুলুস্থূল মুম্বই বিমানবন্দরে

ফের বোমাতঙ্ক। এবার হুমকি চিঠি (Threatening Letter) গেল মুম্বই বিমানবন্দরে (Mumbai Airport)। যা নিয়ে ইতিমধ্যে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, হুমকি দিয়ে ইমেল (E-Mail) করা হয়েছে শনিবার সন্ধ্যায়। এরপরই নিরাপত্তা বাড়ানো হয় বিমানবন্দরে। চালানো হয় তল্লাশি। সিআইএসএফ এবং বম্ব স্কোয়াডের কর্মীরা প্রতিটি উড়ানে তন্নতন্ন করে তল্লাশি শুরু করেন। তবে সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়নি।

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে মুম্বই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে একটি হুমকি ই-মেল আসে। বিমানবন্দরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “শনিবার রাতে মুম্বই বিমানবন্দর একটি ই-মেল পেয়েছিল, যাতে লেখা ছিল যে ইন্ডিগোর ফ্লাইট নম্বর ৬ই৬০৪৫-এ বোমা রাখা হয়েছে।” এই  ই-মেল পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব নিরাপত্তা সংস্থাগুলিকে সতর্ক করে দেয় বিমানবন্দর কর্তপক্ষ। যে বিমানটিতে বোমা রাখা হয়েছে বলে হুমকি এসেছিল, সেটি মুম্বই থেকে আহমেদাবাদ যাওয়ার কথা ছিল। এরপরই চিরুণি তল্লাশি চালানো হয়।

কোনও সন্দেহজনক কিছু না মেলায় শেষমেশ আহমেদাবাদের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় বিমানটি। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে দিল্লি বিমানবন্দরে এরকমই বোমাতঙ্কের কারণে হুলস্থূল পড়ে গিয়েছিল। ওই ঘটনায় মোট চার জনকে আটক করেছিল স্থানীয় নিরাপত্তারক্ষীরা।

one year ago


Titagarh: ক্লাস চলাকালীন টিটাগড়ের স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আটক ৪ অভিযুক্ত, চলছে জিজ্ঞাসাবাদ

শনিবার ক্লাস চলাকালীন টিটাগড়ের (Titagarh Bombing) এক স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছিল এলাকায়। বিকট শব্দে কেঁপে উঠেছিল স্কুল চত্বর।  জানা গিয়েছে, টিটাগড় স্টেশন রোড এলাকার ফ্রি ইন্ডিয়া হাইস্কুলের (High School) ছাদে প্রচণ্ড শব্দে এই বিস্ফোরণ ঘটে। ঘটনায় ইতিমধ্যে চারজনকে আটক করেছে টিটাগড় থানার পুলিস (Titagarh Police Station)। অভিযুক্তদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। ধৃতদের নাম মহঃ আয়রন, শেখ বাবলু, মহঃ সাদিক এবং রোহান। পুলিস সূত্রে খবর, এঁদের প্রত্যাকের বয়স ১৮-১৯ এর মধ্যে।

জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে অনেক দূর পর্যন্ত শব্দ পাওয়া গিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরণের সূত্র খুঁজতে স্কুল কর্তৃপক্ষ ছাদে উঠলেই দেখা যায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বোমার সুতলি।

আতঙ্কে পড়ুয়া এবং শিক্ষকদের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। স্থানীয় এবং পুলিসের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। স্কুলেই বোমা মজুত ছিল না বাইরে থেকে ছুঁড়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিস। তবে এদিনের ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর নেই।

স্কুলের এক শিক্ষক বলেন,'বিকট শব্দে বাইরে বেরিয়ে উপরে ধোঁয়া দেখে ছাদে আসতেই দেখি এই অবস্থা। এই বোমা ছাদে না পড়ে স্কুলমাঠে বা অন্য কোথাও পড়লে শিশুদের আহত হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।'

স্থানীয় এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, তাঁরা সেই সময় পাড়ায় ছিলেন। বিকট শব্দ শুনে খোঁজ নিতেই জানা যায় এই অবস্থা। এই ঘটনায় যথেষ্ট আতঙ্ক তৈরি হয়েছে এলাকায়।

one year ago
Titagarh: ক্লাস চলাকালীন টিটাগড়ের স্কুলে বোমা বিস্ফোরণ, বিকট শব্দে এলাকায় আতঙ্ক

ক্লাস চলাকালীন টিটাগড়ের (Titagarh Bombing) এক স্কুলে বোমা বিস্ফোরণ। শনিবারের বারবেলার বিকট এই শব্দে এলাকায় উত্তেজনা। জানা গিয়েছে, টিটাগড় স্টেশন রোড এলাকার ফ্রি ইন্ডিয়া হাইস্কুলের (High School) ছাদে প্রচণ্ড শব্দে এই বিস্ফোরণ। জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে অনেক দূর পর্যন্ত শব্দ পাওয়া গিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরণের সূত্র খুঁজতে স্কুল কর্তৃপক্ষ ছাদে উঠলেই দেখা যায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বোমার সুতলি।

আতঙ্কে পড়ুয়া এবং শিক্ষকদের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। স্থানীয় এবং পুলিসের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। স্কুলেই বোমা মজুত ছিল না বাইরে থেকে কেউ ছুড়েছে খতিয়ে দেকছে পুলিস। এই বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে এক পুলিস কর্তা জানান, ফরনেসিক দিয়ে খতিয়ে দেখা ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখনই এই বিস্ফোরণের কারণ জানানো অসম্ভব। তবে হতাহতের কোনও খবর নেই।


স্কুলের এক শিক্ষক বলেন,'বিকট শব্দে বাইরে বেড়িয়ে উপরে ধোঁয়া দেখে ছাদে আসতেই দেখি এই অবস্থা। এই বোমা ছাদে না পড়ে স্কুলমাঠে বা অন্য কোথাও পড়লে শিশুদের আহত হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।' 

স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, তাঁরা সেই সময় পাড়ায় ছিলেন। বিকট শব্দ শুনে খোঁজ নিতেই জানা যায় এই অবস্থা। এই ঘটনায় যথেষ্ট আতঙ্ক তৈরি হয়েছে এলাকায়।

one year ago
High Court: বাড়িতে ভাড়াটে কোনও অপকর্ম-অসামাজিক কাজে লিপ্ত হলে দায় বাড়িওয়ালারও:বম্বে হাইকোর্ট

বাড়িতে ভাড়াটে দিয়েছেন? তাহলে এখনই সতর্ক হয়ে যান। ভালো করে যাচাই বাছাই করে তারপরই ভাড়া দিন। নাহলে ভাড়াটের অপরাধমূলক কার্যকলাপের দায়ভার আপনার উপরই বর্তাবে। বুধবার বম্বে হাইকোর্ট(Bombay High Court) একটি মামলার রায়ে এই নির্দেশ দিয়েছে। এমনকি ওই মামলায় বাড়ির মালিকের (landlord) আবেদনও খারিজ করে দেয় আদালত। রায়ে জানায়, ভাড়াবাড়ির মধ্যে যা হবে তার দায়িত্ব বাড়ির মালিকেরও।

মহারাষ্ট্রের (Maharastra) পিম্পরি-ছিন্দওয়াড় শহরে বাড়ি ভাড়া নিয়ে বেআইনি ভাবে স্পা-এর (Spa) আড়ালে দেহব্যবসা চালানোর অভিযোগ জানিয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন ওই বাড়ির মালিক। সে অভিযোগের প্রেক্ষিতেই এ কথা জানায় আদালত। হাইকোর্ট তার পর্যবেক্ষণে বলেছে, ভাড়াটে বাড়ির ভিতরে কোনও অপরাধমূলক কার্যকলাপ চালাচ্ছেন কিনা, সে বিষয়ে মালিকের কোনও ধারণাই নেই, এমন যুক্তি বিশ্বাসযোগ্য নয়।

পুলিস এই কুকর্ম ধরার পর বাড়ির মালিকের নামেও অভিযোগ করেছিল। সেই অভিযোগ মিথ্যা বলে আদালতের দারস্থ হয়েছিলেন বাড়ি মালিক। তাঁর যুক্তি ছিল, বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত বিধি মেনেই চুক্তি করে তিনি ভাড়া দিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে ভাড়াটে কী করছেন তা তিনি দেখতে পারেন না। তাই পুলিসের দায়ের করা এফআইআর থেকে তাঁর নাম বাদ দেওয়ার জন্যও আবেদন জানিয়েছিলেন ওই বাড়ি মালিক। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

one year ago


Gates: কোভিশিল্ডের সাইড এফেক্টে মেয়ের মৃত্যু, বিল গেটসের থেকে হাজার কোটির ক্ষতিপূরণ দাবি বাবার

অভিযোগ, কোভিশিল্ড টিকা (Covishield Vaccine) নেওয়ার পর তাঁর মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। তাই এক হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বম্বে হাইকোর্টে (Bombay High Court) মামলা করেন এক ব্যক্তি। সেই মামলায় হাইকোর্ট সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (Serum Institute of India) এবং মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস (Bill Gates), এইমস-র ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া (Randeep Guleria), ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার (DCGI) প্রধান ভিজি সোমানি (VG Somani) এবং অন্যদের নোটিশ পাঠাল।

অভিযোগকারী দিলীপ লুনাওয়াত নামের ওই ব্যক্তি ঔরঙ্গাবাদের বাসিন্দা। তিনি আদালতে অভিযোগ করেন, কোভিশিল্ড টিকা নেওয়ার পরই নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে পেশায় চিকিৎসক তাঁর মেয়ের। সে কারণেই মেয়ে স্নেহাল লুনাওয়াতের মৃত্যু হয়েছে বলেও কোর্টে দাবি করেন তিনি।

দিলীপ বাবু জানান, তাঁর মেয়ে ধামনগাঁওয়ের এসএমবিটি ডেন্টাল কলেজ ও হাসপাতালে শিক্ষকতা করতেন। আর ওই হাসপাতালে যাঁরা পড়াতেন তাঁদের সকলকে টিকা নিতে একপ্রকার বাধ্য করা হয়। যে কারণে টিকা নিয়েছিলেন স্নেহালও।

জানা গিয়েছে, স্নেহাল গত বছর ২৮ জানুয়ারি টিকা নিলেও পয়লা মার্চ টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে মৃত্যু হয় বলে দাবি করেন তাঁর বাবা। দিলীপের আরও দাবি, সরকারের পক্ষ থেকে জনগণকে আশ্বস্ত করা হয়েছিল যে টিকাগুলি নিরাপদ। কিন্তু তার পরেও তাঁর মেয়ে মারা গিয়েছেন।

2 years ago
Kanchrapara: সুকান্ত ফিরতেই বিজেপি নেতার বাড়িতে বোমা কাঁচরাপাড়ায়

ফের আক্রান্ত বিজেপি। উত্তর ২৪ পরগনার কাঁচড়াপাড়ায় বিজেপির যুব জেলা সভাপতি বিমলেশ তেওয়ারির বাড়িতে বোমাবাজি। অভিযোগের তির রাজ্যের শাসকদলের দিকে। ২৬ জুলাই ব্যারাকপুরে বিজেপির আইন অমান্য আন্দোলনে আহত হয়েছিলেন বিমলেশ। তাঁকে দেখতে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এসেছিলেন। সুকান্ত মজুমদার এলাকা ছাড়ার পর গভীর রাতে বিমলেশ তেওয়ারির বাড়িতে বোমাবাজি শুরু হয়। বিরোধীদের অভিযোগ, কাঁচড়াপাড়া এমনিতে অশান্ত থাকে বোমা বারুদের গন্ধে। এক্ষেত্রে এই বোমাবাজির উদ্দেশ্য কী তা এখনও স্পষ্ট হয়নি।

অপরদিকে তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, কোনওরকম ভাবে জড়িত নয় শাসক দল। এর পিছনে রয়েছে বিজেপির দলীয় কোন্দল। কিন্তু এক্ষেত্রে কয়েকটি প্রশ্ন তুলেছে ওয়াকিবহাল মহল।

শুনুন কী বলছে বিজেপি-তৃণমূল?

যদিও বোমাবাজির পিছনে কারা রয়েছে তা তদন্ত সাপেক্ষ। কিন্তু বগটুই কাণ্ডের পর মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ ছিল রাজ্যের আনাচ কানাচ থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার। নির্দেশ মেনে পুলিসি তত্পরতা ছিল চোখে পড়ার মত। বোমা, গুলি, বন্ধুক উদ্ধারও হয়েছিল বেশ কিছু।

কিন্তু তারপরেও মুদিখানার দোকানের হজমিগুলির মত কীভাবে মিলছে এই সব অস্ত্র? তবে কি মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ থেকে গেল শুধুমাত্র ফাইলবন্দী হয়ে? তবে কি ভোট সমীকরণ বদলাতে শাসক দলের নীল নকশা এখন ফ্র্যাঙ্কেস্টাইনের গল্প হয়ে দাঁড়িয়েছে? কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে রাখা যাচ্ছে না মোড়ে মোড়ে জন্ম নেওয়া বাহুবলীদের। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত ক্রমশ অস্ত্রাগারে পরিণত হচ্ছে। কোনও দায় নেই প্রশাসনের? প্রশ্নটা ক্রমেই জমাট বাঁধছে।  এর আগেও উত্তর ২৪ পরগনার শিল্পতালুকে একাধিক বার উদ্ধার হয়েছে বোমা। বিভিন্ন ক্ষেত্রে ক্ষমতা প্রদর্শনের ইঙ্গিতও মিলেছে। এবার বোমাবাজি কাঁচড়াপাড়ায়। কারণ যাই হোক না কেন? এই ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য। কীভাবে ফিরবে শান্তি? সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।

2 years ago