২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

Sonarpur: 'আমরা খুব কষ্টে ভুগছি, সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছি...', ফেসবুক লাইভে বললেন মৃত সুমনরাজ
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-03 18:09:55   Share:   

রাজপুর সোনারপুর পুরসভার পার্ক ৮৪-এর একটি ফ্ল্য়াট থেকে উদ্ধার হয় তিনজনের মৃতদেহ। একসঙ্গে পুরো পরিবারের মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। জানা গিয়েছে, মৃতরা হলেন ছেলে সুমনরাজ মৈত্র (৩৯) মা অপর্ণা মৈত্র (৬৮) ও বাবা স্বপন মৈত্র (৭৫)। তবে তাঁরা আত্মহত্য়া করেছেন কিনা তা এখনো স্পষ্ট জানা যায় নি। তবে তদন্তের স্বার্থে পুলিসের হাতে উঠে এসেছে এক চাঞ্চল্য়কর তথ্য়। যা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা কল্পনা। 

বুধাবার সকাল থেকে ওই বন্ধ ফ্ল্য়াট থেকে প্রতিবেশীরা পচা দুর্গন্ধ টের পায়। তারপর তাঁরা খবর দেয় পুলিসকে। ঘটনাস্থলে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিস এসে ফ্ল্য়াটের দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে দেখতে পান বাবা,ছেলে ও মায়ের মৃতদেহ ঝুলছে। ওই মৃতদেহগুলি আলাদা আলাদা ঘর থেকে পাওয়া গিয়েছে এমনটাই পুলিস সূত্রে খবর। 

প্রাথমিকভাবে পুলিস ঘটনাটিকে আত্মহত্য়ার ঘটনা বলে মনে করলেও সঠিক কোনও তথ্য় মেলেনি। কিন্তু আত্মহত্যা নাকি অন্য কোনো কারণ তা খতিয়ে দেখতে পুলিসের নজরে পড়ে মৃত সুমনরাজ মৈত্রের এক ফেসবুক লাইভ। ২৮ ডিসেম্বর মৃত সুমন রাজ মৈত্র ফেসবুকে দুটি ২১ মিনিটের লাইভ করে জানিয়েছেন, যে তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। অনেকেই হুমকি দিচ্ছে এই কথাও জানিয়েছেন তিনি। তাই আমার ছোট মামা বলেছেন তিনি আমাকে আমাকে এখান থেকে শিফট করে দেবে। এই শিফট করার ব্যাপারটা সমস্যার সমাধান নয়। এমনকি বেশ কিছুদিন হলো এখানকার অনেক বাচ্চারা আমাকে আর আমার বাবা-মাকে পাগল পাগল বলছে। আমরা খুব কষ্টে ভুগছি। এইভাবে থাকা যায় না তাই আমাদের একটা ডিসিশনে আসতে হবে। সেই ডিসিশনটা আমরা নিয়ে ফেলেছি।


Follow us on :