ব্রেকিং নিউজ
   বাজা কদমতলা ঘাটে উদ্ধার অজ্ঞাত পরিচয়ের দেহ     মাল নদীতে হড়পা বানে ভেসে গেল বহু মানুষ, এখনও পর্যন্ত মৃত ৮  
The-lover-and-her-husband-were-caught-by-the-police-after-the-auto-driver-killed-the-lover
Murder: অটোচালক প্রেমিককে খুন করে পুলিসের জালে প্রেমিকা ও তাঁর স্বামী

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-09-21 08:57:35


নৃশংস ঘটনা! অটোচালক প্রেমিককে খুন (murder) করার অভিযোগ। তদন্তে নেমে বারুইপুর (Baruipur) থানার পুলিস অভিযুক্ত প্রেমিকা ও তাঁর স্বামীকে গ্রেফতার (arrest) করে। পুলিস (police) সূত্রে খবর, অভিযুক্তদের নাম রাজু মীর ও তৃষা রায়।

এবিষয়ে মৃত আলফিকারের বাবা আয়ুব আলি গাজী জানান, গত ২২ শে জুন বাড়ি থেকে অটো নিয়ে রাতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন তাঁর ছেলে। বাড়িতে জানিয়েছিলেন নরেন্দ্রপুরে যাচ্ছেন। এরপর ২৩ শে জুন সকাল ১০ টায় খবর পান বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে ছেলে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

জানা যায়, ছেলে বারুইপুরের সুবুদ্ধিপুরে অরুপ ভদ্র সরনীর কাছে রাস্তায় পড়ে ছিল। এরপর ছেলেকে মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ২৪ শে জুন মারা যান তিনি। বাবা আয়ুব আলি গাজীর অভিযোগ, ছেলের সঙ্গে বারুইপুরের সুবুদ্ধিপুরের এক মেয়ের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সেই মেয়ে ও তাঁর পরিবার মিলে তাঁর ছেলেকে খুন করে রাস্তায় ফেলে দিয়েছে। তাঁরা অভিযুক্তদের কড়া শাস্তি চান।

অন্যদিকে পুলিস জানিয়েছে, আলফিকার দীর্ঘদিন ধরে চাইছিলেন প্রেমিকার স্বামী রাজু মীরকে সরিয়ে দিতে। ২২ শে জুন, রাজু মীরকে আলফিকার ফোন করে তৃষাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য এবং ডিভোর্স দেওয়ার জন্য গালাগালি দিতে থাকে। তারপরে সেই রাতে সোনারপুরের বাড়ি থেকে রাজু মীর বারুইপুরের সুবুদ্ধিপুরে যান। সেই রাতেই দুজনের সঙ্গে ব্যাপক বচসা বাঁধে তৃষাকে নিয়ে। শুরু হয়ে যায় দুজনের মধ্যে হাতাহাতি। সেই সময় আলফিকার রাস্তায় পরে গিয়ে মাথায় আঘাত পান। এর জেরেই রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয় আলফিকারের। তদন্তে গোটা ঘটনার তদন্তে পুলিস। 






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন