২১ এপ্রিল, ২০২৪

Sandeshkhali: রণক্ষেত্র সন্দেশখালির বেড়মুজুর! দফায় দফায় উত্তেজনা, রোষের মুখে তৃণমূল নেতা
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-02-23 17:34:46   Share:   

বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবার ফের অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে সন্দেশখালি। রাজ্য রাজনীতিতে জোর চর্চা, বাঘের ঘরে এই মুহূর্তে ক্ষোভের বাসা। ঝুপখালিতে যে ক্ষোভের আগুন জ্বলেছিল ২৪ ঘন্টা পেরোতে না পেরোতেই তার আঁচ এসে পড়ল বেড়মজুরে। সন্দেশখালির একাধিক প্রত্যন্ত এলাকা এখন ফুটছে। সকাল থেকে ছিল চাপা উত্তেজনা, বেলা গড়াতেই বিক্ষোভ আকার নিল জনরোষের।

রাজনৈতিক মহল বলছে, শাসক দলের অন্দরে সন্দেশখালির 'বাঘ' হিসেবে পরিচিত শাহজাহান। আর বেড়মজুরের কাছাড়িবাড়িতে তাঁর ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি, তৈয়ব মোল্লার মাছের ভেড়ির আলাঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা। হাতে লাঠি, গাছের ডাল নিয়েও রাস্তায় নেমে পড়েন মহিলারাও। শাহজাহান, শিবু-উত্তমের পর বৃহস্পতিবার শাহজাহানের মেজোভাই সিরাজের বিরুদ্ধে ঝুপখালিতে সরব হয়েছিল গ্রামবাসীরা। এবার সামনে নয়া অভিযুক্ত বেড়মজুর অঞ্চলের তৃণমূলের সম্পাদক অজিত মাইতি।

জনবিস্ফোরণের মুখে পড়ে লেজে গোবরে অবস্থা হয় অজিত মাইতির। কিল, চড়, ঘুষি শুধু নয় ক্ষোভে বিস্ফোরণে চলে জুতো পেটা! ভাঙচুর চালানো হয় বাড়িতেও। গ্রামবাসীদের রোষে ভাঙল বাড়ির সীমানা, চুরমার হল বাইক। এতদিন ধরে অত্যাচারের যে অভিযোগ উঠেছে, যাঁরা অত্যাচারিত হয়েছিলেন তারাই এখন সামনে সারিতে নেমে আন্দোলনে সরব হয়েছেন। জমি কেড়েছে, আমাদের টাকায় সম্পত্তি বানিয়েছে গ্রামবাসীদের মুখে মুখে এমনটাই অভিযোগ।

ঘটনার পরই মুখ খোলেন তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হামলা চালানো হয়েছে, এমনটাই অভিযোগ অজিত মাইতির। ৩ জনের নামে লিখিত অভিযোগ করছেন ওই তৃণমূল নেতা।

দখল হয়ে যাওয়া জমিজমা ফেরতের পাশাপাশি তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি গ্রেফতারির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা। এই পরিস্থিতিতে বেড়মজুরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিস বাহিনী। তখন পুলিসের সামনেই প্রতিবাদে গর্জে ওঠেন গ্রামবাসীরা। এতদিন অত্যাচার চালিয়েছে, সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ ঘটনা নিয়ে মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতি।

এখন জমি ফেরানোর দাবিতে আন্দোলনের আঁচ ছড়িয়ে পড়ছে সন্দেশখালির আনাচে-কানাচে। শাসকদলের নেতাদের বিরুদ্ধে গর্জে ওঠছে গ্রামবাসীরা। শাহজাহান এখনও ধরা পড়েনি।গারদে শিবু-উত্তম। এবার রোষে শাহজাহান ঘনিষ্ঠ শাসকদলের আরও এক নেতা।


Follow us on :