২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

Narendrapur: নরেন্দ্রপুরে ইঞ্জিনিয়ার ছাত্র খুনে দায়ী বাবা ও মা! রহস্য় আরও দানা বাঁধছে
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-02-05 17:39:11   Share:   

নরেন্দ্রপুরের ইঞ্জিনিয়ার ছাত্র মৃত্য়ুর ঘটনায় উঠে এসেছে চাঞ্চল্য়কর তথ্য়। অপ্রতিমের মৃত্যু রহস্য এখনও পর্যন্ত অধরা। ছেলের খুনের অভিযোগে দোষী সাবস্ত করছেন বাবা ও মা একে অপরকে। তাই পুলিসের প্রাথমিক অনুমান, পারিবারিক অশান্তির জেরে এমন ঘটনা ঘটেছে। 

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, অপ্রতিম ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। বাড়ি মহামায়াতলায়। বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ির পাশেই একটি বিয়ে বাড়িতে গিয়েছিলেন সে। তারপর থেকে হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যান ওই ছাত্র। বৃহস্পতিবার রাতেই নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে অপ্রতিমের পরিবার। তারপর রবিবার দুপুরে নরেন্দ্রপুর ঢালিপাড়া থেকে উদ্ধার হয় ওই ছাত্রের দেহ। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, গত বৃহস্পতিবার বাড়ির পাশেই বিয়ে বাড়িতে গিয়েছিলেন অপ্রতিম। কিন্তু পাশের ফ্ল্যাট এর একজন পরিচারিকা তিনি দেখতে পান, গত দুদিন আগে রাত দেড়টা নাগাদ সেই বিয়ে বাড়ির পাশের গলি অর্থাৎ পুকুরে যাওয়ার রাস্তায় পাঁচ-ছয় জন ছেলে দাঁড়িয়ে রয়েছে। তাঁরা কোনও একজন ছেলেকে পুকুরের দিকে নিয়ে যাচ্ছিল। সেখান থেকেই সন্দেহ দানা বাঁধতে শুরু করে।

অভিযোগ, অপ্রতিমের দাদু অর্থাৎ মায়ের বাবা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত। কারণ অপ্রতিমের সঙ্গে অপ্রতিমের বাবা এবং দাদুর সুসম্পর্ক ছিল না। অপ্রতিমের এক বান্ধবী ছিল। অপ্রতিমের বাবার তিনটে বিয়ে হয়। সেই কথা শুনে বান্ধবীও তাঁকে ছেড়ে চলে যায়। তারপর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগলেও তার মায়ের চেষ্টায় সে ডিপ্রেশন থেকে বেরিয়ে আসে। পড়াশোনায় অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র হিসেবে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে যোগ দেন। স্বভাবতই এই ঘটনার পর পরিবারের লোকেরা অভিযোগ করছেন অপ্রতিমের রহস্য় মৃত্যুর জন্য় দায়ী থাকতে পারে অপ্রতিমের বাবা এবং দাদু। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। 


Follow us on :