১৪ জুন, ২০২৪

Death: ছেলে-বৌমার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানানোর দেড় মাসের মাথায় অস্বাভাবিক মৃত্যু বৃদ্ধের
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2022-08-26 13:16:08   Share:   

থানার (police station) দ্বারস্থ হয়েও শেষরক্ষা হল না বৃদ্ধের। ছেলে, বৌমার অত্যাচারের বিরুদ্ধে থানার দ্বারস্থ হওয়ার এক মাসের মাথায় নিজের বাড়িতেই অস্বাভাবিক মৃত্যু (death) বৃদ্ধের। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মিলেছে আঘাতের চিহ্ন। স্বাভাবিক মৃত্যু নাকি খুন (murder) উঠছে একাধিক প্রশ্ন। ঘটনার তদন্তে পুলিস। 

প্রসঙ্গত, হাবড়া (Habra) থানার আনোয়ার বেরিয়া বিদ্যাসাগর পল্লীর বাসিন্দা ৭০-ঊর্ধ্ব যতীন্দ্রনাথ মৃধা। জুলাই মাসের ১৭ তারিখ তিনি থানার দ্বারস্থ হয়েছিলেন। অভিযোগের আঙুল ছিল ছেলে বৌমার দিকে। অভিযোগ, ছেলে রিপন মৃধা এবং তাঁর স্ত্রী, বাবা-মাকে মারধর, অকথ্য ভাষায় গালাগাল এবং খেতেও দিতেন না। থানায় এই অভিযোগ দায়ের করেছিলেন যতীন্দ্রনাথ বাবু। সেই অভিযোগের এক মাস নয় দিনের মাথাতেই এই কাণ্ড। বৃহস্পতিবার যতীন্দ্রনাথ মৃধার অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। 

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৩০ নাগাদ স্থানীয় এক বাসিন্দা অশোকনগরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে বিষয়টি জানায়। এরপরে  সংগঠনের পক্ষ থেকে মৃত ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে দেখতে পায় যতীন্দ্রনাথ মৃধার শরীরের একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে রক্ত ঝড়ছে। এরপরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে খবর দেওয়া হয় হাবরা থানায়, পুলিস গিয়ে দেহ উদ্ধার করে হাবরা হাসপাতালে নিয়ে আসে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে রাতেই হাবরা থানায় একটি লিখিত আবেদন জানানো হয়, যাতে দেহ ময়নাতদন্ত করে এই ঘটনার সত্য উদঘাটন করেন প্রশাসন। 

পাশাপাশি এদিন আমাদের ক্যামেরার সামনে সংগঠনের কর্ণধার কিরণ চ্যাটার্জি জানিয়েছেন, "এই মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। সঠিক তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।"

তবে এই ঘটনা নিয়ে বৃদ্ধের ছেলে রিপন মৃধা জানিয়েছেন, "আমি এবং আমার স্ত্রী ছেলে মেয়ে কেউই বাড়িতে ছিলাম না একমাত্র মা বাড়িতে ছিলেন, কী হয়েছে বলতে পারবো না।" এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই হাবরা থানার পক্ষ থেকে একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন। পাশাপশি দেহ ময়না তদন্তের জন্য বারাসাত হাসপাতালে পাঠাবেন বলে জানা যায়।


Follow us on :