ব্রেকিং নিউজ
  পুজোর আগেই ফের দুইবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস     নন্দীগ্রামে একটি বাড়ি থেকে উদ্ধার লক্ষাধিক টাকা, চাঞ্চল্য     শিলিগুড়ি মহাকুমার ফুলবাড়ী ঘোষপুকুর বাইপাস রাস্তায় টেলার ও ট্রাকের সংঘর্ষে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৩     ক্যানিং-এ বাইক দুর্ঘটনায় মৃত্যু এক বৃদ্ধের, আটক বাইক চালক  
AIFF-wrapping-for-general-election-while-baichung-bhutiya-and-kalyan-chaubey-are-contender
AIFF: ভারতীয় ফুটবলে স্থায়িত্ব, বাইচুংয়ের বাইসাইকেল কিকে না কল্যাণের পাঞ্জায়?

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-08-20 13:40:59


ভারতীয় ফুটবলে বা অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনেকে কবে শুনেছেন যে নির্বাচন করে সভাপতি ঠিক করেছে। ফেডারেশন কিন্তু একসময় দাবি করতো, সবকিছু নিয়মমাফিক হয়ে থাকে। যদি তাই হবে তবে বিষয়টি শীর্ষ আদালত অবধি গেলো কেন? আদালত কার্যকরী কমিটি বাতিল করে সাময়িক তদারকি কমিটি গড়ে দিলো কেন? এরকম সাময়িক কমিটি দেখে বিশ্ব ফুটবল বা ফিফা কেনইবা ভারতীয় ফুটবলকে ব্যান করলো? এরকম প্রশ্ন অনেকের?

কিন্তু এখন বিপাকে পরে দ্রুত নির্বাচন এনে একটা স্থায়িত্ব আনার চেষ্টা চলেছে এআইএফএফ-র অন্দরে। সভাপতি পদে ইতিমধ্যে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন পাহাড়ি বিছে বাইচুং ভুটিয়া। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে দেখা যেতে পারে কলকাতার দুই বড় ক্লাবে গোলরক্ষক থাকা কল্যাণ চৌবেকে। কল্যাণ আবার বর্তমানে বিজেপির অন্যতম পরিচিত মুখ। 

যদিও প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সি বা প্রফুল প্যাটেল দীর্ঘদিন এআইএফএফের দায়িত্বে ছিলেন।  বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রে রাজনীতির পটপরিবর্তন হলেও ভারতীয় ফুটবলের উন্নতির স্বার্থে কোনও রাজনৈতিক দল এর আগে মাথা ঘামায়নি। যদিও প্রিয় বা প্রফুল কেউই প্রাক্তন ফুটবলার ছিলেন না বরং রাজনীতির নেতাই ছিলেন। 

এবারে কিন্তু নতুন কমিটি করতে নির্বাচন আসছে এবং এই নির্বাচন অনেকটাই দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক পটভূমিকায়। যত দ্রুত একটি স্থায়ী কমিটি হবে তত দ্রুতই ফিফা ভারতীয় ফুটবল থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে বলেই খবর। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা কোনওভাবেই আদালত অনুমোদিত অস্থায়ী কমিটি মানবে না। কাজেই দ্রুত নির্বাচন আসছে নতুন সভাপতি গড়তে। সাধারণত এআইএফএফ বা বিসিসিআইয়ের মতো সংস্থায় সভাপতির ক্ষমতা অসীম। তিনি বাকি পদগুলির ব্যবস্থা নিতে পারেন। বিষয়টি কিন্তু এবার আর সাধারণ নির্বাচনে দাঁড়িয়ে নেই। 

একদিকে পদপ্রার্থী ভারতের সর্বকালের সেরা ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া, অন্যদিকে প্রাক্তন গোলরক্ষক কল্যাণ চৌবে। শোনা যাচ্ছিল, মমতা বন্দ্যেপাধ্যায়ের বড় ভাই অজিত বন্দ্যেপাধ্যায়ও প্রার্থী হতে পারেন। বাইচুংয়ের পিছনে রয়েছে সারা ভারতের আবেগ, যদিও ভোট তো আর সাধারণ জনতা দেবে না, দেবে নানা রাজ্যের ফুটবল কমিটির সদস্যরা।  কল্যাণ সেরকম বড় মাপের খেলোয়াড় না থাকলেও ইস্ট-মোহনে খেলেছেন। তিনি মোহনবাগানের প্রয়াত সম্পাদক অঞ্জন মিত্রর জামাইও বটে। কিন্তু এটাই তাঁর বড় পরিচয় নয়। তিনি বিজেপির সদস্য তথা গত লোকসভা ও বিধানসভায় প্রার্থীও হয়েছেন পদ্ম প্রতীকে। জানা যাচ্ছে তিনি প্রার্থী হচ্ছেন মোদী-শাহর গুজরাত থেকে। স্বাভাবিক ভাবে বলে দেওয়া যায় তাঁকে জিতিয়ে আনার প্রয়াস জারি থাকবে। এবার তবে ভারতীয় ফুটবলে স্থায়িত্ব আনতে বাইচুংয়ের বাই-সাইকেল কিক না কল্যাণের পাঞ্জা? কীসে ভরসা, তা সময়ের অপেক্ষা।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন