০৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

Uttarkashi: উত্তরকাশিতে সুড়ঙ্গে ধস নামার ছ'দিন পার, এখনও আটকে ৪০ জন শ্রমিক
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2023-11-18 13:57:04   Share:   

দীপাবলির সকালে উত্তর কাশীর কাছে একটি নির্মীয়মান টানেলে ভয়াবহ ধস নামে। কমপক্ষে ৪০ জন শ্রমিক আটকে পড়েন টানেলে।শুরু হয় উদ্ধারকাজ। ছয় দিন পেরিয়ে গেলেও ওই টানলের মধ্যেই রয়েছেন শ্রমিকরা। উদ্ধারকারীরা সামনের দিক থেকে উদ্ধারের  চেষ্টা চালিয়েও বারবার ব্যর্থ হচ্ছেন। এবার উপরের দিক থেকে খননকার্য চালিয়ে সুড়ঙ্গে প্রবেশের  পরিকল্পনা করছেন উদ্ধারকারী। দিল্লি থেকে বিশেষ অত্যাধুনিক মেশিন আনা হয়। কিন্তু তাতে সমস্যা দেখা দিলে বিদেশি একটি যন্ত্রের মাধ্যমে খননের কাজ চলছিল। ইন্দোর থেকেও একটি যন্ত্র আনার কাজ চলছে। সেটি এসে পৌঁছলে শুরু হবে মাটি খোঁড়ার কাজ।

জানা গিয়েছে, সুড়ঙ্গের ৬০ মিটার দীর্ঘ ধ্বংসস্তূপের পিছনে আটকে রয়েছেন শ্রমিকরা। পাইপের মাধ্যমে খাবার, অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। শুক্রবার দুপুর ২.৪৫ নাগাদ সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পঞ্চম পাইপটি ঢোকানোর সময় বিপদ ঘটে। সুড়ঙ্গ ভাঙার তীব্র শব্দ কানে আসে উদ্ধারকারীদের। তৎক্ষণাৎ উদ্ধারকাজ থামিয়ে দেওয়া হয়।

সূত্রের খবর, রবিবার ভোর চারটে নাগাদ আচমকা উত্তর কাশীর কাছে একটি নির্মীয়মান সুড়ঙ্গে হঠাৎ ধস নামে। ফলে সেই ধ্বংসস্তূপের মধ্যে আটকে পড়েন ৪০ জন শ্রমিক। রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী থেকে শুরু করে এনডিএ এবং পুলিসও উদ্ধারকাজ শুরু করে। উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুস্কর সিং ধামি জানিয়েছেন, উদ্ধারকাজ কেমন চলছে তা নিয়ে প্রতিনিয়ত ঘটনাস্থলে থাকা আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। কোনও রকম সাবধানতা না নিয়েই সেখানে কাজ চলছিল কিনা সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, উত্তর কাশীর এসপি অর্পণ যদুবংশী জানান, যমুনোত্রী ন্যাশনাল হাইওয়েতে, সিল্কিয়ারা থেকে ডান্ডালগাঁও পর্যন্ত সুড়ঙ্গটি তৈরি করা হচ্ছিল। দর্শনার্থীরা যাতে সারা বছরই চারধামে যেতে পারেন, তাই সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ চলছিল। এই রাস্তা তৈরি হলে উত্তরকাশী থেকে যমুনোত্রী ধাম যাওয়ার পথ অন্তত ২৬ কিলোমিটার কমে যাবে। ওই টানেলের শুরুর প্রায় ২০০ মিটার দূরে টানেলটি ভেঙে গিয়েছে।


Follow us on :