২৪ এপ্রিল, ২০২৪

Kerala: 'মুসলিম মহিলারাও ডিভোর্স চাইতে পারেন', স্পষ্ট জানিয়ে দিল কেরল হাইকোর্ট
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2022-11-02 13:13:01   Share:   

এবার থেকে মুসলিম মহিলারাও চাইতে পারবেন বিবাহ বিচ্ছেদ (divorce)। আর সেই অধিকার ইসলামি আইনে রয়েছে বলে জানিয়েছে কেরল হাইকোর্ট (Kerala High Court)। এক মামলার শুনানি চলাকালীন বিচারপতি এ মহম্মদ মুস্তাক ও বিচারপতি সি এস ডায়াসের বেঞ্চ বলে, 'যেকোনও মুসলিম মহিলা এই অধিকার পেতে পারেন। এর সঙ্গে স্বামীর আপত্তি থাকার কোনও সম্পর্ক নেই। স্বামী বিবাহবিচ্ছেদ না চাইলেও স্ত্রী চাইতে পারেন।'

সম্প্রতি কেরল হাইকোর্টে আপিল করেছিলেন এক স্বামী। তাঁর স্ত্রী  ১৯৩৯ সালের মুসলিম বিবাহ আইনে বিচ্ছেদের ডিক্রি পেয়েছিলেন। সেই নির্দেশের বিরুদ্ধেই মামলা করেন তিনি। ওই মহিলার স্বামী আবেদনে জানান, মুসলিম মহিলার বিবাহবিচ্ছেদ চাওয়ার অধিকার আছে। কিন্তু একতরফা ভাবে ইসলামি আইনে বর্ণিত ‘খুলা’-র মাধ্যমে বিচ্ছেদ চাওয়ার অধিকার নেই। পৃথিবীর কোনও দেশেই এই অধিকার স্বীকৃত নয়। বিচ্ছেদ চাইলে প্রথমে স্বামীর কাছে তালাক চাইতে হবে। এরপর স্বামী রাজি না হলে কোর্ট বা কাজির কাছে যেতে হবে।

হাইকোর্ট রায়ে জানিয়েছে, ‘‘এই আবেদনের মাধ্যমে এটাই মনে হচ্ছে, মুসলিম মহিলারা তাঁর স্বামীর অধীনে আবদ্ধ। এই ধারণার পিছনে মুসলিম ধর্মগুরু ও ওই সম্প্রদায়ের পুরুষতান্ত্রিক মনোভাব রয়েছে বলে মনে হয়। সেই মনোভাব মহিলাদের খুলার মাধ্যমে একতরফা বিচ্ছেদ চাওয়ার অধিকারকে মানতে রাজি নয়।’’ বিচারপতিরা আরও বলেন, ‘‘এক্ষেত্রে স্ত্রীর দিক থেকে বিচ্ছেদ চাওয়ার অন্য কোনও ব্যবস্থা নেই। তাই স্বামীর সম্মতি ছাড়াই খুলার মাধ্যমে বিচ্ছেদে সম্মতি দিতে পারে আদালত।’’


Follow us on :