২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

ISRO: ইসরোর নয়া সাফল্য! কৃষ্ণগহ্বরের খোঁজে মহাকাশে পাড়ি দিল নতুন উপগ্রহ 'এক্সপোস্যাট'
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-01 12:53:51   Share:   

ইসরোর মুকুটে নতুন পালক। কৃষ্ণগহ্বর গবেষণার লক্ষ্যে মহাকাশে পাড়ি দিল ইসরোর নতুন উপগ্রহ 'এক্সপোস্যাট'। ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর এই উল্লেখযোগ্য কাজের জন্য বছরের প্রথম দিনটিকে বেছে নিয়েছে। সোমবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে অন্ধপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে পিএসএলভি -সি৫৮ রকেটে চড়ে মহাকাশের উদ্দেশ্য পাড়ি দিল এক্সপোস্যাট। নাসার পর ইসরোই দুনিয়ার একমাত্র মহাকাশ গবেষণা সংস্থা যারা এমন উপগ্রহ মহাকাশে পাঠাল।

চন্দ্রযান-৩ ও আদিত্য এল-১-এর সাফল্যের পরে নতুন বছরের প্রথম দিনে আরও এক সাফল্য ইন্ডিয়ান স্পেল রিসার্চ অর্গানাইজেশনের। এদিন সফল ভাবে উৎক্ষেপণ হয়েছে ইসরোর 'এক্সপোস্যাট'-এর। মহাকাশে এই বড় পদক্ষেপের সঙ্গে ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হয়ে উঠল। এর আগে এই ধরনের কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে পাঠানোর কৃতিত্ব রয়েছে কেবল নাসার।

প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী মহাকাশে এই কৃত্রিম উপগ্রহের আয়ু পাঁচ বছর। এক্সপোস্যাট পৃথিবীর ওপরে নিচু কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করবে। ভূমি থেকে তার সর্বোচ্চ উচ্চতা ৫০০ থেকে ৭০০ কিমি। ইসরোর তরফে তাদের এক্স হ্যান্ডেলে এই সাফল্যের কথা জানানো হয়েছে।

অনেকগুলি নিউট্রন কণা একত্রিত হয়ে যা তৈরি হয়, তার নাম নিউট্রন স্টার। এই ধরণের নক্ষত্র অনেক ছোট আকারের হয়। নিউট্রন স্টারের ব্যাসার্ধ ৩০ কিমির বেশি নয়। সেইসব নক্ষত্রকে পর্যবেক্ষণ করবে এক্সপোস্যাট। মহাকাশে এক্স রশ্মির উৎসব খুঁজবে এক্সপোস্যাট। ইসরো এর মাধ্যমে কৃষ্ণগহ্বর সম্পর্কে গবেষণায় নতুন দিশে পেতে চলেছে।

ইসরো সূত্রে খবর টানা ২১ মিনিট উড়ে এই রকেট পৌঁছে যাবে ৬৫০ কিলোমিটার উচ্চতায়। তারপর এটি তার কক্ষপথে স্থির হবে। মোট ৭৪০ কোটি ওজন নিয়ে উড়ে গেল পিএসএলভি -সি৫৮। গত বছর ইসরোর মুকুটে উঠেছিল দুটি পালক। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান নামিয়েছিল ইসরো। পাশাপাশি সূর্য অভিযানে পাঠিয়েছিল আদিত্য এল ওয়ান। এবার নতুন বছরের প্রথম দিনেই ইসরো মহাকাশে পাঠাল তার নতুন উপগ্রহ এক্সপোস্যাটকে বা এক্স রে পোলার মিটার স্যাটেলাইট।


Follow us on :