০২ মার্চ, ২০২৪

Republic Day: ৭৫ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে নারীশক্তির জয়জয়কার! কড়া নিরাপত্তা বলয়ে রাজধানী
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-26 12:01:19   Share:   

২৬ জানুয়ারি, আজ ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস। সারা দেশজুড়ে উদযাপন করা হচ্ছে ৭৫তম সাধারণতন্ত্র দিবস। দেশের প্রতিটি কোণায় বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে চলছে সেলিব্রেশন। প্রতি বছরের মতো এবছরও মহাসমারোহে পালিত হচ্ছে প্রজাতন্ত্র দিবস। ৭৫ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে বিশেষ প্রাধান্য পাচ্ছে নারীশক্তি। এদিন সকালে দিল্লির কর্তব্যপথে পতাকা উত্তোলন করলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। এবারের অনুষ্ঠানে মুখ্য অতিথি রয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বেনজির নিরাপত্তা বলয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে গোটা রাজধানী দিল্লিকে। জানা গিয়েছে, এদিন সকাল ১০ টা ২০ মিনিট থেকে দুপুর ১২ টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে কোনও ফ্লাইট টেক অফ করবে না। অর্থাৎ বিমানবন্দরে পৌঁছানোর অনুমতি দেওয়া হবে না।

প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে একই ঘোড়ার গাড়িতে সওয়ার দুই দেশের দুই রাষ্ট্রপ্রধান। ৭৫তম প্রজাতন্ত্র দিবসের সকালে এমনই দৃশ্য দেখা গেল দিল্লির পথে। একই ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে রাইসিনা হিলস থেকে কর্তব্য়পথে পৌঁছলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দৌপদ্রী মুর্মু ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমান্য়ুয়েল ম্যাক্রোঁ। দুই রাষ্ট্রপ্রধান অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছনোর পর, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁদের স্বাগত জানান। এর পরই পতাকা উত্তোলনের পর শুরু হয় প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ। এবারের প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে দেখা যায় মহিলা ক্ষমতায়ন। কর্তব্যপথে দেখা যায় মহিলা সেনার বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ। গ্র্যান্ড সেলিব্রেশনে এবারের থিম 'ওম্যান এমপাওয়ারমেন্ট'।

শুক্রবারের মধ্য দিল্লিতে যানবাহন চলাচলের উপর একাধিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে । প্যারেড বিজয় চক থেকে শুরু হবে এবং কর্তব্য পথ, সি- ষড়ভুজ, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু মূর্তি গোলচত্বর, তিলক মার্গ, বাহাদুর শাহ জাফর মার্গ এবং নেতাজি সুভাষ মার্গ হয়ে লাল কেল্লায় শেষ হবে। নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার জন্য পঞ্চম স্তরীয় নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে, কর্তব্য পথ থেকে শুরু করে লালকেল্লা পর্যন্ত। মোতায়েন করা হয়েছে ১৪ হাজার দিল্লি পুলিস কর্মীকে। দিল্লি পুলিসের কমিশনার জানিয়েছেন যে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় দিল্লি পুলিশের কর্মীদের সাথে থাকবেন কমান্ডো, দ্রুত প্রতিক্রিয়া দল, পিসিআর ভ্যান, মোর্চা, নাশকতাবিরোধী চেক। এরা কর্তব্য পথ এবং শহরের চারপাশে নির্দিষ্ট যায়গায় নজরদারি করবে। দিল্লি পুলিসের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে কোনও জরুরি অবস্থা এড়াতে পেশাদার পদ্ধতিতে প্রস্তুত রয়েছে তারা।  লাগানো হয়েছে অসংখ্য নতুন সিসিটিভি। ফেস রেকগনাইজ সিস্টেম সহ সেরা প্রযুক্তি ব্যবহার করে ক্যামেরা এবং পদাতিক সৈন্যরা অনুষ্ঠানস্থলের প্রতিটি কোণে নজর রাখবেন। পাশাপাশি কমিশনার জানান যে দিল্লি পুলিস বায়বীয় হুমকি মোকাবেলার জন্যও প্রস্তুত রয়েছে।


Follow us on :