০৫ মার্চ, ২০২৪

ED: শিবপুর আর্থিক কেলেঙ্কারিতে নয়া মোড়, ইডির হাতে গ্রেফতার অভিযুক্ত
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-02 19:10:07   Share:   

হাওড়ার শিবপুরে আর্থিক দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে ধৃত ভিরাজ পাতিলের জামিনের আবেদন করেও মিলল না রেহাই। আদালতের নির্দেশে ইডি হেফাজতেই রইলেন অভিযুক্ত।মামলার পরবর্তী শুনানি ৮ জানুয়ারি।

হাওড়ার শিবপুরের মন্দিরতলায় অনলাইনে রহস্যজনকভাবে টাকা লেনদেনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে আর্থিক দুর্নীতি মামালায় ধৃত ব্যবসায়ী শৈলেশ পান্ডের মামলার তদন্ত করতে গিয়েই নাম উঠে এসেছিল ভিরাজ পাতিলের। ২৪ ডিসেম্বর মুম্বই বিমানন্দর থেকে গ্রেফতার করা হয় ভিরাজকে। মঙ্গলবার ধৃত ভিরাজের জামিনের আবেদন জানিয়েও মিলল না রেহাই। ৮ জানুয়ারি মামলার পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত ইডি হেফাজতেই ঠাঁই হল ভিরাজের।

অপরদিকে, ভিরাজ পাতিলের আইনজীবীর তরফে ধৃতের জামিনের আবেদন করা হয়েছিল এদিন। আদালতে তিনি জানান, ধৃতের প্রোডাকশন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হয়নি। তাই এই গ্রেফতার বেআইনি। কিন্তু অভিযুক্তের আইনজীবী সব্যসাচী বন্দোপাধ্যায়ের সেই যুক্তিকে মান্যতা দিতে নারাজ ইডির আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী। এই প্রোডাকশন আইনসঙ্গত। ধৃত ভিরাজ সুভাষ পাতিল তদন্তে স্বীকার করেছেন, ৭-৮ কোটি টাকা তিনি নিয়েছিলেন। তাই কেন এই অর্থ ধৃত নিয়েছিলেন সেই বিষয়টি তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে সাফ জবাব আইনজীবীর। এদিন মামলার শুনানি শেষে স্থগিত থাকে রায়দান।

প্রসঙ্গত, শিবপুরের মন্দিরতলায় টাকার পাহাড়ের সন্ধান মিলেছিল কলকাতা পুলিসের তল্লাশিতে। উদ্ধার হয়েছিল কোটি কোটি টাকা। গ্রেফতার হয়েছিলেন ব্যবসায়ী শৈলেশ পাণ্ডে। সূত্রের খবর অনলাইনে প্রায় ৭৭ কোটির রহস্যময় লেনদেন করেন শৈলেশ পাণ্ডে ও তাঁর ভাই অরবিন্দ পাণ্ডে।

ইডির তরফে অভিযোগ ছিল, হাওড়ার আর্থিক দুর্নীতিতে ধৃত ব্যবসায়ী শৈলেশ পাণ্ডের মামলার তদন্ত করতে গিয়ে ভিরাজ সুভাষ পাতিলের নাম উঠে আসে। মূলত অনলাইন প্রতারণা, আর্থিক বেনিয়ম অভিযোগ রয়েছে ধৃতের বিরুদ্ধে। বহু মানুষকে শৈলেশ পাণ্ডের কোম্পানিতে অর্থ বিনিয়োগ করার জন্য পরামর্শ দিতেন ভিরাজ। দাবি করে ইডি। মূলত নিজস্ব অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতানোর কারবার চালাত ভিরাজ। ইডির ধরপাকড়ে এবার মূল অভিযুক্তের অন্যতম সাগরেদ ভিরাজের গ্রেফতারিতে হাওড়া আর্থিক তছরুপের রহস্য কোন দিকে মোড় নেয় সেটাই দেখার।


Follow us on :