০২ মার্চ, ২০২৪

Dharna: শূন্যপদে নিয়োগের দাবিতে বিক্ষোভ, আইন অমান্যের হুঁশিয়ারি চাকরিপ্রার্থীদের
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-02-04 13:22:12   Share:   

নিয়োগের দাবিতে রাজপথেই দিন গুজরান চাকরিপ্রার্থীদের। যোগ্যতার প্রাপ্য মূল্য আদায় করতে একাধিকবার মিটিং মিছিল বিক্ষোভকে প্রতিবাদের হাতিয়ার বানিয়েছে তারা। এবার অবিলম্বে নূন্যতম ৫০ হাজার শূন্যপদে নিয়োগ সহ ২০২২ টেটের ইন্টারভিউর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দাবিতে করুণাময়ী সৌরভ গাঙ্গুলী ক্রিকেট কোচিং ক্যাম্পের সামনে ধরনামঞ্চে তাদের ৪ দিনের লাগাতার বিক্ষোভ। ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়েছিল এই ধরনা কর্মসূচি।রবিবার অন্তিমদিনেও মিলল না কোনও রফাসূত্র। মূলত তাদের অভিযোগ,  সরকারের স্বদিচ্ছার অভাবেই আটকে রয়েছে তাঁদের নিয়োগ। আইন মেনে শান্তিপূর্ণ অবস্থানেও সরকারের হুঁশ না ফিরলে অগামী দিনে তাই আইনের শিকল ভাঙার পথই বেছে নেবে তারা। কার্যত ধরনামঞ্চ থেকে আইন অমান্যের হুঁশিয়ারি ২০২২-এর টেট উত্তীর্ণ চাকরিপ্রার্থীদের।

কেন্দ্রীয় বঞ্চনার প্রতিবাদে রেডরোডে মুখ্যমন্ত্রী ধরনায় ব্যস্ত। কিন্তু নিজের রাজ্যে ৭ বছর ধরে চাকরিপ্রার্থীদের যে নিয়োগ যন্ত্রনা সহ্য করতে হচ্ছে সেদিকে কেন হুঁশ নেই মাননীয়ার? তিনি কি চাকরিপ্রার্থীদের মুখ্যমন্ত্রী নন? তাদের নিয়োগ বঞ্চনা কি সত্যিই অর্থহীন? উত্তরের সন্ধানে ধরনামঞ্চ থেকে কালীঘাটে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখার করার সিদ্ধান্ত চাকরিপ্রার্থীদের।

বিগত কয়েক বছর ধরেই শহরের নানা প্রান্তে যোগ্যতার প্রাপ্য মূল্য আদায়ের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন বিভিন্ন বিভাগের চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু সময় পেরিয়ে গেলেও অন্ধকারে তাঁদের নিয়োগের ভবিষ্যৎ। জীবনের অর্ধেকটা সময় তাদের কেটে গিয়েছে রাজপথেই। দোরগোড়ায় লোকসভা নির্বাচন। ভোট কিনতে ব্যস্ত সরকার। কিন্তু যাদের ভোটের মসনদ মিলবে তাদের প্রতিই ভ্রুক্ষেপ নেই সরকারের। কবে মিলবে নিয়োগ? ওয়াকিবহালমহলে এই প্রশ্নকে সামনে রেখে একাধিক তর্ক-বিতর্কের উথ্থান ঘটলেও জবাব আজও অধরা।


Follow us on :