৩০ মে, ২০২৪

Jalpaiguri: ভোট শুরু হতেই খারাপ ইভিএম মেশিন! বুথের সামনে ভোটারদের লম্বা লাইন জলপাইগুড়িতে
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-04-19 12:43:27   Share:   

শুরু হয়ে গেল প্রথম দফার লোকসভা নির্বাচন। তৃণমূল ও বিজপির সংঘর্ষ নিয়ে উত্তেজনা ছবি দেখা গিয়েছে জলপাইগুড়ির একাধিক জায়গাতে। এদিন, শুক্রবার সকাল থেকেই ভোট দেওয়ার জন্য় লাইন পড়ে গিয়েছে জলপাইগুড়ির বুথে বুথে। লোকসভা নির্বাচনী উপলক্ষ্য়ে জালপাইগুড়ির কোথায়, কেমন পরিস্থিতি জানুন...

ভোট শুরু হতে না হতেই বিকল ইভিএম মেশিন। ইতিমধ্য়ে জলপাইগুড়ির তিন নম্বর ওয়ার্ডের জলপাইগুড়ি জেলা স্কুলের ১৭/৯৩ নম্বর বুথে শুরু হয়েছে ভোট দান প্রক্রিয়া। তার মধ্য়েই হঠাৎ বিকল হয়ে পড়ে ইভিএম মেশিন। ইভিএম বিকল হয়ে যাওয়ায় বুথের সামনে পড়ে যায় ভোটারদের লম্বা লাইন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ভিএসটি অফিসাররা এসে ইভিএমটি ঠিক করেন। তারপর আবার ভোট দান প্রক্রিয়া শুরু হয়।

জলপাইগুড়ির রাষ্ট্রীয় বালিকা বিদ্যালয়ের বুথে তৃণমূল নেতার অবস্থান ঘিরে উত্তেজনা। এই স্কুলে চারটি ভোট গ্রহণ কেন্দ্র রয়েছে ১৭/ ১০৬, ১৭/১০৭, ১৭/১০৮, ১৭/১০৯। এদিন ভোট চলাকালীন সেখানে আসেন বিজেপি প্রার্থী জয়ন্ত রায়। আগে থেকেই সেখানে ছিলেন তৃণমূল নেতা তথা জলপাইগুড়ি পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান সৈকত চট্টোপাধ্যায়। জয়ন্ত বাবুর অভিযোগ, সৈকত চট্টোপাধ্যায় নির্বাচনী বিধি ভেঙ্গে ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের ৫০ মিটারের মধ্যে দাঁড়িয়ে রয়েছেন এবং ভোটারদের প্রভাবিত করছেন। বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানান প্রার্থী জয়ন্ত রায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিস এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানেরা চলে আসেন এবং স্কুল চত্বর থেকে সৈকত চট্টোপাধ্যায়কে সরিয়ে দেন। যদিও সৈকতের দাবি, তিনি কোনও নিয়মভঙ্গ করেননি, ভোট দিতে এসেছিলেন তিনি।

অন্য়দিকে ভোট দিতে পারলেন না ষাটোর্ধ্ব। জানা গিয়েছে, সরকারি কাগজে তিনি মৃত। সমস্তরকম সরকারি সুযোগ সুবিধা থেকেও বঞ্চিত ধূপগুড়ির সাত নম্বর ওয়ার্ডের বৃদ্ধা বাসন্তী দাস। এদিন সকালে বৈরাতীগুড়ি হাইস্কুলে ভোট দিতে গেলে তাঁকে ভোট না দিতে দিয়ে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে তিনি কারন জানতে গেলে তাঁকে জানানো হয় কাগজ-কলমে তিনি মৃত। জেলাশাসক দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাঁকে মৃত বলে জানানো হয় বলে অভিযোগ। 


Follow us on :