বিরোধী দলনেতা বাছতে দুই পর্যবেক্ষক নিয়োগ করল বিজেপি

রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে না পারলেও বিধানসভায় বিরোধী দলের মর্যাদা পেয়েছে বিজেপি। কিন্তু কে হবেন বিরোধী দলনেতা? এই নিয়ে জল্পনা চলছে কয়েকদিন ধরেই। এবার কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব পশ্চিমবঙ্গ বিধানভায় দলের নেতা বাছতে দু’জন পর্যবেক্ষক নিয়োগ করল। শনিবার বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অরুণ সিং একটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন একথা। তিনি জানিয়েছেন, অন্যতম সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদব এবং কেন্দ্রীয়মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকে পর্যবেক্ষক করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে বিজেপির মাত্র তিনজন বিধায়ক ছিল পশ্চিমবঙ্গে। একুশের নির্বাচনে বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭-এ। ফলে গুরুত্ব বেড়েছে দলের। তাই বিরোধী দলনেতা বাছাই করতে সাবধানী বিজেপি। প্রবল প্রতিপক্ষ তৃণমূলের সঙ্গে পাল্লা দিতে বিরোধী দলনেতার ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই পরিস্থিতিতে কোনও ওজনদার বিধায়কই বিরোধী দলনেতার দৌঁড়ে থাকবেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। গতবার বিজেপির পরিষদীয় দলনেতা ছিলেন মনোজ টিগ্গা। কিন্তু এবার মুকুল রায় বা শুভেন্দু অধিকারীর মতো অভিজ্ঞ রাজনৈতিক বিধায়ক হয়েছেন। ফলে এই দু’জন বিরোধী দলনেতার দৌঁড়ে এগিয়ে। পাশাপাশি সংঙ্ঘ ঘনিষ্ঠ কোনও নেতাকেও এই দায়িত্ব দিতে পারে বিজেপি। সবটাই ঠিক হবে রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং ভূপেন্দ্র যাদবের রিপোর্টের ভিত্তিতে।