Durga Puja: জঙ্গি নিশানায় দুর্গাপূজা, কড়া সতর্কবার্তা স্বরাষ্ট্র দফতরের

 মহালয়ার পর থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসবের কাউন্টডাউন। আনন্দে মেতে উঠতে প্রস্তুত আপামোর বঙ্গবাসী। এমনকী বিশ্বের যেকোনও প্রান্তের বাঙালিরা। তবে উৎসবের মরসুমেও আতঙ্ক কিন্তু পিছু ছাড়ছে না। আর এটা যে সে আতঙ্ক নয়। সরাসরি জঙ্গি হানার আতঙ্ক। স্বরাষ্ট্র দফতর সূত্রে খবর দশেরা এবং দুর্গাপুজোকে টার্গেট করেছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলো। এই উৎসবের মরসুমে যাতে সর্বাধিক আঘাত হানা যায়, সেজন্য বড়সড় হামলার ছক কষছে তারা। তাই আগেভাগে কলকাতা-সহ রাজ্যপুলিসকে সতর্ক করল স্বরাষ্ট্র দফতর।

এদিকে ওয়াচ টাওয়ার ও সিসিটিভির মাধ্যমে নজরদারির কথা জানিযেছেন স্বরাষ্ট্র দফতর। এদিকে পুজোর দিনগুলিতে রাস্তায় নামবেন প্রায় ২০ হাজার পুলিশ। পুজোয় কলকাতায় যানজট এড়াতে যাতে যেখানে সেখানে গাড়ি পার্কিং না হয়, সেই ব্যাপারে ট্রাফিক পুলিশ ও প্রত্যেকটি থানাকে কড়া নির্দেশ দিলেন পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্র। এদিকে আজ তৃতীয়াতে বেশ কিছু সংখ্যক পুলিশ রাতে নামবে।

এবছর পুজোয় ৩১টি নতুন সিটি পেট্রোল টহল দেবে, যাতে অস্ত্র নিয়ে থাকছেন পুলিশ আধিকারিক ও পুলিশকর্মীরা।লালবাজারের নির্দেশ, পুজো মণ্ডপগুলিতে যেন পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ রাখা হয়। বিকেল সাড়ে তিনটে থেকে ভোর, রাত বারোটা থেকে সকাল আটটা ও সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটে, এই তিন শিফটে মণ্ডপ ও রাস্তায় পুলিশ থাকছে।

India-UN: সন্ত্রাস নিয়ে পাকিস্তানকে তোপ ভারতের

এবার সন্ত্রাসবাদ নিয়ে ফের  বিতর্ক করলেন ভারত। রাষ্ট্রপুঞ্জের বার্ষিক সাধারণ সভায় ভারতের প্রতিনিধি স্নেহা দুবে কড়া ভাষায় ইমরান সরকারের সমালোচনা করেন। কাশ্মীর প্রসঙ্গে পাকিস্তানের নাক গলানো নিয়েও অভিযোগ করেছেন তিনি।রাষ্ট্রপুঞ্জে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তৃতার পরেই স্নেহা তাঁর বিরোধিতায় বলেন, ‘‘যে সব জঙ্গি সংগঠনগুলিকে রাষ্ট্রপুঞ্জ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে তার মধ্যে সব থেকে বেশি সংগঠন পাকিস্তানের মাটি থেকেই নাশকতা চালায়। এই রেকর্ড তাদের দখলেই রয়েছে। ওসামা বিন লাদেনকে তারা আশ্রয় দিয়েছিল। পাক সরকার তাঁকে শহিদের মর্যাদাও দিয়েছে।

তাই শান্তির বার্তা পাক প্রধানমন্ত্রীর মুখে মানায় না।’’ এদিকে ভারত স্পষ্টত জানিয়ে দেন কাশ্মীর,লাদাখ অন্নান্য রাষ্ট্রপন্যের কোনও কথা শুনতে চায়না ভারত।জঙ্গি কার্যকলাপ থেকে সবার দৃষ্টি অন্য দিকে সরানোর জন্যই পাকিস্তান বার বার কাশ্মীর প্রসঙ্গ নিয়ে আসে বলেও দাবি করেছেন স্নেহা।

তিনি বলেন, ‘‘দুর্ভাগ্যজনক ভাবে বার বার বিশ্বের সামনে ভারত নিয়ে পাকিস্তান মিথ্যে অপবাদ দেওয়ার চেষ্টা করছে। যাতে বিশ্বের নজর অন্য দিকে ঘোরানো যায় এবং তার সুযোগ নিয়ে পাকিস্তানে থাকা জঙ্গিরা বিভিন্ন দেশে নাশকতা চালাতে পারে সেই চেষ্টা করছে তারা।


Kashmir: কাশ্মীরে সেনা-জঙ্গির তুমুল লড়াই

 আবার ও সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর হাতে ধরা পড়লো চীনা নাগরিক । রবিবার  সন্ধ্যেবেলা ইন্দো নেপাল সীমান্তে র খড়ি বড়ি এলাকা থেকে ওই সন্ধিগ্ধ চীনা নাগরিক লোক সেং লুমা (৩৫) কে গ্রেপ্তার করে এস এস বি র জওয়ানরা । এদিন সীমান্ত রক্ষী বাহিনী চ্যালেঞ্জ করলে , নেপাল এ ফের পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ওই সন্দেহভাজন । পরে ধৃতের কাছ থেকে জাল ভারতীয় আধার ও ভোটার কার্ড ও ম্যাপ সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি বাজেয়াপ্ত করা হয় । আজ তাকে স্থানীয় আদালত এ পেশ করা হয় । কিছু আগে হ্যাঁন জুনেই  নামে এক সন্দেহ ভাজন চীনা নাগরিক কে গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো মালদা সীমান্ত থেকে । হ্যান ভারতে চর বৃত্তির উদ্যেশে এসেছিল বলেই তথ্য ছিলো গোয়েন্দা দের কাছে । কাশ্মীর এর উড়ি সেক্টরে সেনা জঙ্গির তুমুল গুলির লড়াই চলছে.  জম্মু-কাশ্মীরের (Jammu-Kashmir) উরিতে (Uri) বড়সড় নাশকতার ছক পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের।

রবিবার এবং সোমবার রাতে সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশ করেছে একাধিক জঙ্গি। লক্ষ্য উপত্যকায় সন্ত্রাসবাদী হামলা। আর সেই হামলা রুখতে তৎপর ভারতীয় সেনা।ইতিমধ্যে বারামুলা জেলার উরিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ফোন এবং ইন্টারনেট পরিষেবা। জঙ্গিদের খোঁজে চলছে চিরুনি তল্লাশি। শুধু তাই নয়, অতিরিক্ত বাহিনী এনে গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়েছে।

যাতে কোনওভাবেই জঙ্গিরা ওই এলাকা থেকে পালাতে না পারে। এ ব্যাপারে সরকারি বিবৃতি না দেওয়া হলেও একাধিক সূত্রের খবর, মঙ্গলবার সকালেও উরির বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে নিরাপত্তাবাহিনী। কোনওভাবেই জঙ্গিরা যাতে পালাতে না পারে সেজন্য আরও সেনা মোতায়েন করে গোটা এলাকা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে। এদিকে, বদগাঁও এলাকায় আইইডি বিস্ফোরক উদ্ধার করে তা নষ্ট করল ভারতীয় সেনা।

নাশকতার ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো

প্রাথমিক খবর -- উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান এবং দিল্লির প্রান্তর থেকে ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো মঙ্গলবার । সন্ধ্যার পর খবরটি জনমানসে আসে । উত্তরপ্রদেশের বিশেষ পুলিশের তৎপরতাতে এদের হদিশ পাওয়া গেলো । এদের অনেকেই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত । জানা গিয়েছে এদের নেতা ওসামা নামক ব্যক্তি পাকিস্তানের আইএসআই এর প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত । এদের কাছে বহু তথ্য পাওয়া গিয়েছে ।এরা  দূর্গা পূজা সহ পুজো উৎসবের মাসে বহু স্থানে নাশকতার চক্রান্ত করেছিল । এদের আপাতত পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে অন্যান্য খবরের জন্য । তালিবানদের উত্থানের পর পুলিশের কাছে খবর ছিলই কোনও একটা নাশকতা হতে পারে তাদেরই একটি দল আপাতত পুলিশি হেফাজতে ।


ফের উত্তপ্ত জম্মু -কাশ্মীর

সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল জম্মু-কাশ্মীর । মঙ্গলবার সকালে কাশ্মীরের বান্দিপোরা  জেলার চান্দাজি এলাকায় সেনার গুলিতে খতম হল এক জঙ্গি।  আরও কোনও জঙ্গি সেখানে লুকিয়ে রয়েছে কিনা, জানতে গোটা এলাকায় চিরুণী তল্লাশি চালাচ্ছে সেনাবাহিনী। পাশাপাশি বাড়ানো হয়েছে ওই এলাকার নিরাপত্তাও।সামনেই ১৫ আগস্ট। স্বাধীনতা দিবস। নাশকতার ছক কষছে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনগুলি।

সীমান্তে বেড়ে গিয়েছে শত্রু ড্রোনের উপস্থিতিও। তাই এ ব্যাপারে নিরাপত্তাবাহিনীকে আগেই সতর্ক করেছে গোয়েন্দা সংস্থাগুলি। এই পরিস্থিতিতে নিরাপত্তা আরও জোরাল করে দিয়েছে ভারতীয় সেনাও। তবে এদিন নিকেশ হওয়া জঙ্গির খোঁজ গত সপ্তাহ থেকেই করছিল ভারতীয় সেনা। এদিকে মঙ্গলবার খবর পাওয়া যায়, বাবর আলি চান্দাজি গ্রামে লুকিয়ে রয়েছে। খবর পেয়েই ছুটে যায় ভারতীয় সেনা। ঘিরে ফেলা হয় গোটা গ্রাম। সেনার উপস্থিতি টের পেয়েই গুলি চালাতে শুরু করে ওই পাক জঙ্গি। আর সেই সংঘর্ষেই শেষপর্যন্ত বাবরকে নিকেশ করেন জওয়ানরা।

বারামুলায় নিরাপত্তারক্ষী- সেনা সংঘর্ষ

 রাতভর নিরাপত্তারক্ষী-জঙ্গি সংঘর্ষে নিহত হল এবার লস্কর-ই তইবার এক শীর্ষস্থানীয় জঙ্গি-সহ ৩ জন। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, নিহত জঙ্গি মুদাস্‌সির পণ্ডিতকে দীর্ঘ দিন খোঁজা করা হচ্ছিল। সোমবার কাশ্মীর পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল বিজয় কুমার জানালেন , ‘‘উত্তর কাশ্মীরের বারামুলা জেলার সোপোর এলাকাতে রাতভর সংঘর্ষ হয়। গোয়েন্দা সূত্রে খবর পেয়ে তল্লাশি অভিযানে নামে নিরাপত্তারক্ষীরা। এতেই লস্করের এক জঙ্গি-সহ ৩ জন খতম হয়েছে। এলাকায় আতঙ্ক তৈরী হয়েছে।                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                             

জম্মু -কাশ্মীরে জঙ্গি হামলা

শনিবার জম্মু-কাশ্মীরের সোপোরে জঙ্গি হামলার ঘটনা । হামলায় নিহত হয় ২ পুলিশকর্মী সহ ৪ জন। এদিকে নিহতদের মধ্যে ২ জন সাধারণ নাগরিক বলে পুলিশ সূত্রের খবর।  এই ঘটনার জেরে আহত হয়েছে ২ পুলিশকর্মী। শনিবার সোপোরের আরাম্পরা এলাকায় টহল দিচ্ছেন পুলিশের যৌথবাহিনী। যথেষ্ট সেই সময় লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা।

এরপর  দুই পক্ষের লড়াইয়ে ২ পুলিশকর্মী সহ ৪ জন নিহত হয়।  এই ঘটনায় জঙ্গিদের খোঁজ করতে চলছে পুরো এলাকার তল্লাশি। ঘটনার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে বলা যায়।