ছাত্রীর সঙ্গে পরকীয়া! সন্দেহে শিক্ষকের বাড়িতে তাণ্ডব জনতার

এক ছাত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে এই সন্দেহেই এক শিক্ষকের বাড়িতে ঢুকে ব্যাপক তাণ্ডব চালালো একদল গ্রামবাসী। উত্তেজিত জনতা ওই শিক্ষকের বাড়ি ঘেরাও করে ব্যপক ভাঙচুর চালায়। এমনকি জনতার মার থেকে বাঁচতে ওই শিক্ষক ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে জখম হয়েছেন বলেও জানা যাচ্ছে। ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়া থানা এলাকার মণ্ডলহাটে। পুলিশ ওই আহত শিক্ষককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। স্থানীয় সূত্রে খবর, কাটোয়ার মণ্ডহাটের শিক্ষক রমেন তালুকদার শিক্ষকতা করেন রাজমহিষী উচ্চ বিদ্যালয়ে। তিনি একাদশ-দ্বাদশ এবং স্নাতকস্তরে গৃহশিক্ষকতাও করতেন। জানা গিয়েছে, সোমবার রাত ১০টার পর আচমকাই একদল লোক এসে রমেনবাবুর বাড়িতে চড়াও হন। তাঁরাই ব্যাপক ভাঙচুর চালায় ওই শিক্ষকের বাড়িতে। প্রাণ বাঁচাতে তিনি বাড়ির পিছন দিকে ছাদ থেকে ঝাঁপ দেন।


খবর পেয়েই পুলিশ আসে, ওই শিক্ষককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সূত্রের খবর, ঘটনার সূত্রপাত সোমবার সন্ধ্যায়। ওই শিক্ষক, বছর উনিশের এক তরুণীকে মোটরবাইকে চাপিয়ে যাওয়ার সময় দাঁইহাট মোড়ের কাছে পথ আটকেছিল এলাকার কিছু যুবক। তাঁদের দাবি, প্রায়ই তিনি ওই তরুণীকে নিয়ে ঘুরতে বের হন। এমনকি ওই তরুণীর সঙ্গে তাঁর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে বলেও দাবি করে ওই যুবকরা। খবর গিয়ে পৌঁছায় ওই তরুণীর বাড়ি ও গ্রামে। এরপরই গ্রামবাসীরা রাতের দিকে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ। জানা যাচ্ছে, ওই তরুণী কাটোয়া কলেজের প্রথমবর্ষের ছাত্রী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কাটোয়া থানার পুলিশ। যদিও এখনও কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে গোটা ঘটনায় আতঙ্কিত ওই শিক্ষকের পরিবার।