বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নামকরণ হল নরেন্দ্র মোদির নামে

১ লাখ ১০ হাজার দর্শকাসন বিশিষ্ট বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম পাল্টে গেল। আমেদাবাদের মোতেরায় নবনির্মিত এই ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম হল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম। বুধবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ উদ্বোধন করেন মোতেরার নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামের। যদিও গোটা স্পের্টস কমপ্লেক্সের নাম হবে সর্দার বল্লবভাই প্যাটেলের নামে। এখানেই শুরু হচ্ছে দিন-রাতের টেস্ট। ভারতের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড। সিরিজের তৃতীয় টেস্ট ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। এই ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানে অসুস্থতার জন্য উপস্থিত থাকতে না পেরে হতাশ বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। যদিও তিনি এই দৈত্যাকায় ক্রিকেট স্টেডিয়াম নিয়ে উচ্ছ্বসিত। এদিন টুইট করেই তিনি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।


সৌরভ টুইটে লেখেন, ‘আজ স্টেডিয়ামে থাকতে পারলাম না। খুব মিস করব। এই স্টেডিয়াম তৈরির জন্য কী পরিশ্রম করতে হয়েছে, সেটা বুঝতে পারছি। গোলাপি বলের টেস্ট আমাদের স্বপ্ন ছিল। ভারতে দিন-রাতের দ্বিতীয় টেস্ট হতে চলেছে। গতবারের মতো ভরা গ্যালারি দেখার আশায় রইলাম।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহর নেতৃত্বে তৈরি হয়েছে এই স্টেডিয়াম’। এদিনই মোতেরায় স্পোর্টস কমপ্লেক্সের ভূমিপুজা হয়ে গেল। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরণ রিজিজু। ছিলেন বিসিসিআই সচিব জয় শাহ। প্রত্যেকের প্রধানমন্ত্রীর নামে এই নবনির্মিত স্টেডিয়ামের নামকরণ হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন।

ভাজ্জির লাস্ট ল্যাপ

ভারতের অন্যতম সেরা স্পিনার হরভজন সিং। একসময় ভারতীয় ক্রিকেট দলকে বহু সাফল্য এনে দিয়েছেন। তাঁকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের আবিষ্কার বলা যেতেই পারে। সৌরভের ক্যাপ্টেন্সিতে উঠে এসেছিল এক ঝাঁক নতুন মুখ, শেহবাগ, যুবরাজ সিং, মহম্মদ কাইফ, জাহির খান, গৌতম গম্ভীর বা হরভজন সিংয়ের মতো তারকারা। এরা সবাই দাদার ঘনিষ্ঠ এবং গ্রেগ চ্যাপেলের চোখের বালি হয়েছিলেন একসময়। ভারতের হয়ে চুটিয়ে খেলে বহু রেকর্ড করেছেন ভাজ্জি। বিশ্বকাপজয়ী দলের অন্যতম সদস্যও ছিলেন। বোলার হলেও ব্যাটের হাতটি কিন্তু মন্দ ছিল না হরভজনের। দু-দুটি সেঞ্চুরি আছে টেস্ট ক্রিকেটে। খেলা ছাড়ার পর আইপিএলে খেলে গেছেন হরভজন।


করোনা কালে দুবাইয়ের আইপিএল থেকে যদিও নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন শেষ মুহূর্তে। ফলে এবারে খেলোয়াড় অকশনের আগেই চেন্নাই সুপার কিংস থেকে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়। আর আইপিএল মিনি অকশনে শেষ মুহূর্তে ভাজ্জিকে কিনে নেয় শাহরুখের কলকাতা নাইট রাইডার্স। ফলে আসন্ন আইপিএলে ৪০ বছরের ভাজ্জিকে হয়তো শেষ বারের মতই পাবে শাহরুখের দল। কলকাতা তাঁর প্রিয় মাঠ, এখানেই তিনি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেছিলেন। ফলে শেষ বারের আইপিএল চির স্মরণীয় করে রাখতে চেষ্টার কসুর করবেন না ভাজ্জি। অপেক্ষায় কেকেআর সমর্থকরা।   

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেই মোদির ‘মন কি বাতে’ মজলেন সৌরভ

রবিবার সকালেই বাইপাসের ধারের এক বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফিরেছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। এরপর বাড়ি ফিরেই শুনলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘মন কি বাত’ ভাষণ। এবং যে বেশ মন দিয়ে শুনেছেন তাঁর প্রমান মিলল কিছু সময় পড়েই। নিজেই টুইট করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেন এই অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলকে অভিনন্দন ও উদ্ধুত করার জন্য। টুইটে মহারাজ লিখলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় ভারতীয় দলের পারফরম্যান্সকে আলাদা করে তাঁর বক্তব্য তুলে ধরার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদের পাশাপাশি কৃতজ্ঞতা জানাই’।  উল্লেখ্য, সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জিতেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ওই প্রসঙ্গ তুলে এদিন মন কি বাত অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেট দল অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে সিরিজ জিতে ফিরে এসেছে তা অনুপ্রেরণা জোগাবে তরুণদের’। এরই পাল্টা ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক তথা বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, বুকে ব্যাথা নিয়ে দুবার হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল সৌরভকে। দুবার তাঁর হৃদযন্ত্রে তিনটি স্টেন্ট বসানো হয়েছে, অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টিও হয়। পাঁচ দিনের মাথায় এদিনই তাঁর ছুটি হয়েছে। এরমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর মন কি বাত শুনেছেন বাড়িতে বসেই।

আজই বাড়ি ফিরছেন ‘সুস্থ’ মহারাজ

রবিবার সকালেই হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়ে বাড়ি ফিরছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। হৃদরোগজনিত সমস্যা নিয়ে দ্বিতীয় দফার অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির পাঁচদিনের মাথায় হাসপাতাল থেকে ছুটি পেতে চলেছেন তিনি। তবে বাড়ি ফিরলেও আপাতত তাঁকে চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনেই থাকতে হবে। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ দেবী শেঠি, ডাঃ অশ্বিন মেহেতা ও ডাঃ অফতাব খানের পরামর্শেই তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগের থেকে সুস্থ থাকায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে বাড়ি ফেরার অনুমতি দেওয়া হল।