পুজোর আনন্দ মাটি হওয়ার পথে

উপায় নেই কিন্তু মানতে হবে, আগামীতে সমস্ত পুজো ও অন্য ধর্মের জমায়েত বাতিল করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র । সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে তৃতীয় ঢেউয়ের আশংকা করা হচ্ছিলো বেশ কিছুদিন ধরে এবং বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক হওয়ার বিষয়ে নির্দেশ দিতে সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছে । সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরে সংক্রমণ অনেকটাই কমেছিল কিন্তু গত দুদিন ফের বাড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে । বাংলাতেও সামান্য বেড়েছে । যদিও সুস্থও হচ্ছে আগের তুলনায় অনেকটাই বেশি কিন্তু তৃতীয় ঢেউয়ের বিষয়টি উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না । আশংকা করা হচ্ছে অগাস্টের মধ্যভাগ থেকে বাড়তে পারে সংক্রমণ ।
এই কেন্দ্রীয় সংবাদে মাথায় হাত বাংলার পুজো কমিটিগুলির । এর মধ্যে কলকাতা ও সংলগ্ন তো আছেই । কমিটিগুলির বক্তব্য, সারা বছর মানুষ এই উৎসবের জন্য অপেক্ষা করে পুজো যদি কাটছাট করা হয়ে গতবছরের মতো তবে মানুষ যাবে কোথায়? এই রাজ্যের বিভিন্ন মন্ত্রী নেতাদের পুজোই সিংহভাগ । যথা ববি হাকিমের 'অগ্রণী' অরূপ বিশ্বাসের 'সুরুচি সংঘ' সুজিত বোসের 'শ্রীভূমি' ইত্যাদি । কিন্তু কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য দপ্তর এই বিষয়ে কড়া মনোভাব নিয়েছে । তৃণমূল নেতারা কিন্তু মানতে অরাজি নয় পাশাপাশি পুজো শেষ পর্যন্ত কি ভাবে করা যায় সেই ভাবনাতে তাঁরা ।