Pizza: পিৎজা কোনের রেসিপি,দেখুন সেই ভিডিও

পিৎজা  এখন সবার প্রিয়। এবার ছোট্ট কোনে সাজানো ঠান্ডা ঠান্ডা আইসক্রিম। এমন দৃশ্য দেখতেই অভ্যস্ত আমাদের চোখ। অভ্যাসের কী আছে? তা তো যেকোনও সময় পালটানো যেতে পারে। ঠান্ডা আইসক্রিমের বদলে কোনে সাজানো গরম গরম পিৎজার স্বাদও দিব্যি উপভোগ করা যেতে পারে। আজ্ঞে হ্যাঁ! আপনারা ঠিকই পড়ছেন এবং এই প্রতিবেদনে ঠিকই লেখা হচ্ছে।

স্বাদের দুনিয়ার খাদ্যরসিকরা দিব্যি মজেছে পিৎজা কোন (Pizza Cones) বা কনেটো পিৎজায় । আসলে কী এই পিৎজা ? দেখে নেওয়া যাক: তা নিশ্চয়ই এতক্ষণে আঁচ করতে পেরেছেন। তৈরির পদ্ধতিও এক্কেবারে সহজ। সোনালি রঙের কোনটি তৈরি করা হয় আপনি চাইলে বাজার থেকে কিনে নিতে পারেন। তার ভিতরে ঢেলে দেওয়া হয় সস। সসের উপরে পড়ে নোনতা চিজের প্রলেপ।

মনের মতো টপিংসও দিতে পারেন। এভাবেই কোন ভরতি করে একাধিক স্তর সাজিয়ে নেওয়া হয়। তারপর? তারপর আর কী? আগে থেকে গরম করে রাখা ওভেনের ভিতরে দিলেই তৈরি জিভে জল আনা পিৎজা কোন।তবে নতুন নতুন খাবার নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা কার না ভালো লাগে। তাহলে এই পিৎজা কোন আপনারা একবার হলেও চেখে নিতে পারেন। 

পিৎজা খান মেদ ঝরান!

শিরোনাম পড়ে এবার নিশ্চয়ই চমকে উঠেছেন। ভাবছেন, জাঙ্ক ফুড খেলেও মোটা হবেন না! আবার পিৎজা খেয়ে মেদ ঝরানো। অবাক হলেও, ব্যাপারটা কিন্তু একেবারে সত্যি। এমন এক পিৎজা রয়েছে যা খেলে কিনা মেদ কমবে হু হু করে। পিৎজা এখন সকলেরই প্রিয়। ব্যাপারটা একটু খোলসা করে বলা যাক। পিৎজা খেতে ভালবাসেন না এমন লোক খুঁজে পাওয়া বেশ মুশকিল। কিন্তু পিৎজার টুকরো মুখে তুলতে গেলেই মগজে আসে মেদ বাড়ার চিন্তা। তবে এবার আর চিন্তা করার কারণ নেই। বিশেষজ্ঞরা বলছে, কয়েকটি নিয়ম মানলেই পিৎজা খেয়েও মোটা হওয়া আটকানো যায়। দেখে নেওয়া যাক পিৎজা খেলে ঠিক কিভাবে মেদ ঝরে.

# কেউই পিৎজা রোজ খান না। তবে যারা সপ্তাহে অন্তত একবার পিৎজা খেয়ে ফেলেন, তাঁরা বরং দু’সপ্তাহে একবার খান।

# পিৎজা খাবার সময় টপিং হিসেবে বেশি শাক-সবজি ব্যবহার করুন। চিজ থেকে দূরেই থাকুন। চেষ্টা করুন ছোটমাপের পিৎজা খেতে।

#এমন পিৎজা খান, যেখানে ক্যাপসিকাম, টমেটোর পরিমাণ বেশি থাকে। পিৎজার সঙ্গে কোল্ড ড্রিঙ্ক একেবারেই পান করবেন না। এতে মেদ বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে।

 #লাঞ্চে ও ডিনারে কখনই পিৎজা খাবেন না। বরং সন্ধের জলখাবারের পিৎজা খেতে পারেন। তবে এক্সারসাইজ কিন্তু বাদ দেওয়া যাবে না।

# মেয়োনিজ বা ক্রিম দেওয়া খাবার থেকে দূরে থাকুন। পিৎজার টপিংসে বেশিমাত্রায় চিকেন ব্যবহার করবেন না।

শুধু পিৎজা নয়, যেকেনো জাঙ্ক ফুড যদি মেপে খাওয়া যায়তবে আপনার মেদ ঝরবে ঠিক. এর পাশাপাশি প্রচুর পরিমানে জল খান.