করোনাকালে মন্দায় আম

গোটা দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। দিশেহারা মানুষজন। এদিকে গ্রীষ্মের ফল মানেই আম। যা বাঙালির কাছে খুব প্রিয়। তবে গতবছরের মত এবছরেও নেই সেভাবে আমের বিক্রিবাট্টা। যেখানে মুশির্দাবাদে প্রতিবছর আম চাষীরা আমের ব্যবসার দিকে চেয়ে থাকে। তবে এবছরও আমের ফলন থাকলেও নেই আমের বিক্রি। একদিকে মালদহ, মুশির্দাবাদের মত জায়গায় যেখানে আম বিখ্যাত।সেখানকার চাষীরা হতাশ হয়ে পড়ছে। তাদের মতে ,আম চাষ ভালো হলেও ,নেই আমের রপ্তানি। যদিও ব্যবসায়ীরা একাধিকবার জানাচ্ছেন, আমের বিক্রি নেই সেভাবে।ক্ষতির মুখে তাঁরা। যার একটাই কারণ লকডাউন।

ব্যাপক ক্ষতি আম ব্যবসায়
More Videos
03:27
Next Video
1. ব্যাপক ক্ষতি আম ব্যবসায়
Loading Ad
00:00
/
03:27
LIVE

এদিকে মালদহ ও মুশির্দাবাদে আমের চাষ হলেও তবে আম বিক্রির আসায় হতাশ চাষীরা। যদিও এবছর ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের জেরে কিছুটা আম চাষে ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু আমের ফলন এবছর যে খুব একটা খারাপ তা নয়। আরেকটা দিক বলা যায়, লকডাউন থাকায় যানবাহন চলাচল বন্ধ। সেক্ষেত্রে দূষণ অনেকটা কম হচ্ছে। এরফলে আমের ফলন অনেখানি। তবে ব্যবসায়ীদের একাধিক মত , এই লকডাউনে মানুষের অর্থের অভাব ,যেটুকু খেতে হয় তাই । বিক্রি কম হওয়ায় যথেষ্ট ক্ষতি হচ্ছে আম বিক্রেতাদের। সামনেই জামাইষষ্ঠী কিন্তু কতটা আম বিক্রি হবে তা নিয়ে চিন্তিত আম ব্যবসায়ীরা। তবে লকডাউন দরুন আমের ব্যবসায়ে যথেষ্ট ক্ষতি হচ্ছে বলা যায়।

করোনাকালে মন্দায় আম

গোটা দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। দিশেহারা মানুষজন। এদিকে গ্রীষ্মের ফল মানেই আম। যা বাঙালির কাছে খুব প্রিয়। তবে গতবছরের মত এবছরেও নেই সেভাবে আমের বিক্রিবাট্টা। যেখানে মুশির্দাবাদে প্রতিবছর আম চাষীরা আমের ব্যবসার দিকে চেয়ে থাকে। তবে এবছরও আমের ফলন থাকলেও নেই আমের বিক্রি। একদিকে মুশির্দাবাদের মত  জায়গায় যেখানে আম বিখ্যাত।সেখানকার চাষীরা হতাশ হয়ে পড়ছে। তাদের মতে ,আমি চাষ ভালো হলেও ,নেই আমের রপ্তানি। যদিও ব্যবসায়ীরা একাধিকবার জানাচ্ছে, আমের বিক্রি নেই সেভাবে। ক্ষতির মুখে তাঁরা।যার একটাই কারণ লকডাউন। এদিকে মুশির্দাবাদে আমের চাষ হলেও তবে আমি বিক্রির আসায় হতাশ চাষীরা। যদিও এবছর ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের জেরে কিছুটা আম চাষে ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু আমের ফলন এবছর যে খুব একটা খারাপ তা নয়।  তবে ব্যবসায়ীদের একাধিক মত , এই লকডাউনে মানুষের অর্থের অভাব ,যেটুকু খেতে হয় তাই ।বিক্রি কম হওয়ায়  যথেষ্ট ক্ষতি হচ্ছে আম বিক্রেতাদের। সামনেই জামাইষষ্ঠী কিন্তু কতটা আম বিক্রি হবে তা নিয়ে চিন্তিত আম ব্যবসায়ীরা। তবে লকডাউন দরুন আমের ব্যবসায়ে যতেষ্ট ক্ষতি হচ্ছে বলা যায়।  


করোনায় আমের সুফল

গ্রীষ্মের ফল হিসেবে আম সবার কাছেই প্রিয়। ফলের রাজা আম  কে না খেতে চায়. সুস্বাদু আর স্বাস্থ্যগুণে ভরা এই ফলের। তবে মনে রাখবেন আম সকলের খাওয়া উচিত। শুধু স্বাদ হিসেবে নয়,পুষ্টি বাড়াতে। এবার জেনে নেওয়া যার এর ঠিক কি কি গুন আছে।  প্রথমেই বলা যায়, আম খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে। ত্বকের সমস্যা থেকে আপনি মুক্তি পাবেন। এছাড়া থাকবেনা কোনও ব্রণর সমস্যা। এর আরও একটা গুরুত্বপূর্ণ দিক আছে,আন্টিঅক্সিডেন্ট অনেকটা।ক্যানসার থেকে মুক্তি পেতে আম খাওয়াও শরীরের পক্ষ অত্যন্ত ভালো।

এছাড়া আরও একটা দিক উঠে আসে, আম খেলে শরীরের ওজন কমবে আপনার। এছাড়া আজকাল কাজের চাপে  কিংবা অন্যান্য দুশ্চিন্তা থাকলে কিংবা এখন কম বেশি প্রত্যেকেই আমরা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটিভ থাকি।যার জেরে ঘুম কিছুটা কম হয়। সেক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই  খেতে পারেন আম। প্রতিনিয়ত রাতে যদি আপনি খাবারের সাথে আম খান তাহলে ভালো ঘুম নিশ্চিত। এছাড়া ভিটামিন এ আমের উপাদান। ফলে দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে আপনি খেতে পারেন আম।  হজমশক্তি ভালো রাখতে আম খাওয়া আরও একটা ভালো দিক।  এছাড়া মহিলাদের ক্ষেত্রে ডায়েটের জন্য আমি খাওয়া উপকারী। যদিও করোনা অতিমারির সময় এখন আপনি চাইলে প্রতিদিন আম খেতেই পারেন । সুস্বাদুর  পাশাপাশি ভিটামিন দরকার। তাই ফলের রাজা হিসেবে আম খেতেই পারেন।