পদকে লন্ডন অলিম্পিককে ছাড়িয়ে যেতে পারে ভারত?

দীর্ঘ ৪১ বছর । ১৯৮০ র অলিম্পিক হয়েছিল মস্কোতে । সেবারে আমেরিকা সহ ন্যাটো বাহিনীর বহু দেশ বয়কট করেছিল মস্কো অলিম্পিক । সেবারেই শেষবারের মতো হকিতে সোনা জেতে ভারত । স্পেন ছাড়া অন্য কোনও দেশ ছিল না এমনকি পাকিস্তান । ফলে ভারতের সোনা জয় সম্ভব হয়েছিল । তারপর থেকেই হকি দল আর কিছুই করতে পারে নি । তাই ৪১ বছর বাদে টোকিওতে দেশের মুখ উজ্জ্বল করলো তারা । এবারে কিন্তু বিগত বছরগুলির তুলনায় বেশি উন্নতি করে ৪ টি মেডেল ঘরে তুলেছে ভারত ।
এবারে প্রথম থেকেই ভারত বিভিন্ন বিভাগে যে উন্নতি করেছে । হয়তো শেষ মুহূর্তে মেডেল আসে নি কিন্তু পারফর্মেন্স বেশ ভালোই ছিল । ইতিমধ্যে ভারোত্তোলনে চানু প্রথম রৌপ্য পদক পায় । দ্বিতীয় পদক আসে ব্যাডমিন্টনে পি ভি সিন্ধুর হাত ধরে ব্রোঞ্জ । তৃতীয় পদক বক্সিংয়ে পেয়েছেন বুধবার লভ্লিনা , ব্রোঞ্জ । চতুর্থ পদক আসে আজ সকালে হকি দলের জার্মানিকে হারানোর মাধ্যমে ব্রোন্জ । একটি পদক ফাইনালে উঠে নিশ্চিন্ত করেছে রবিকুমার । রবি হয় সোনা কিংবা রুপা । এই নিয়ে ৫ টি পদক আসছেই । এছাড়া জ্যাভলিন থ্রোতে নিরাজ চোপড়া ফাইনালে উঠেছে যথেষ্ট ভালো খেলে, সুযোগ থাকছে পদকের । এ ছাড়া মহিলা হকিতে ব্রোঞ্জের জন্য লড়বে ভারত । দেখার বিষয় শেষ পর্যন্ত লন্ডন অলিম্পিককে টপকে যেতে পারে নাকি তারা । ২০১২ র লন্ডন অলিম্পিকে ভারত ২ টি রুপা এবং ৪ টি ব্রোঞ্জ পেয়েছিলো ।


বিশ্বের বৃহত্তম কার্গো বিমানে ভারতে করোনা সাহায্য পাঠাচ্ছে ব্রিটেন

লাগামছাড়া করোনা সংক্রমণে হাসফাঁস অবস্থা ভারতের। বিশেষ করে অক্সিজেন সংকটে পড়েছে দিল্লি সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের হাসপাতালগুলি। অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু পর্যন্ত হচ্ছে করোনা আক্রান্ত সহ অন্যান্য রোগীদের। এই পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ব্রিটেনও ভারতকে অক্সিজেন কনসেনট্রেটর পাঠিয়েছিল। এবার ভারতকে আরও বড় সাহায্য পাঠাচ্ছে ব্রিটেন। বিশ্বের বৃহত্তম কার্গো বিমানে চাপিয়ে ১৮ টনের ৩টি দৈত্যাকার অক্সিজেন জেনারেটর এবং এক হাজার ভেন্টিলেটর ভারতে পাঠাচ্ছে বরিস জনসনের দেশ। জানা যাচ্ছে রবিবার সকালেই ওই বিমান দিল্লিতে পৌঁছে যাবে।


আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্ট বিমানবন্দর থেকে দৈতাকায় অ্যান্টোনভ-১২৪ কার্গো বিমানে ৩টি অক্সিজেন জেনারেটর লোড করে কর্মীরা। সেই সঙ্গে ১০০০ ভেন্টিলেটরও পেটের ভিতর পুরে নেয় বিশ্বের বৃহত্তম অ্যান্টোনভ-১২৪ কার্গো বিমানটি। সূত্রের খবর ব্রিটেনের পাঠানো অক্সিজেন জেনারেটরটি প্রতি মিনিটে ৫০০ লিটার অক্সিজেন তৈরি করতে সক্ষম। যা অন্তত ৫০ জন রোগীর জন্য যথেষ্ট। ব্রিটেনের স্বাস্থ্য সচিব ম্যাট হ্যানকক বলেছেন, ‘ভারতের পরিস্থিতি মর্মান্তিক। এই চ্যালেঞ্জে আমারা বন্ধু পাশে আছি’।