এবার দুয়ারে ব্যাঙ্ক, চালু করল SBI

এবার দুয়ারে ব্যাঙ্ক। করোনাকালে ডোরস্টেপ ব্যাঙ্কিং চালু করল স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। ফলে নগদ টাকার জন্য ব্যাঙ্ক  বা এটিএমে আর যেতে হবে না। ব্যাঙ্ক  আপনার বাড়িতে এসে এই পরিষেবা দেবে।

চেক, ড্রাফট, পে অর্ডার, থেকে নতুন চেক বুক, রিকুইজিসন স্লিপ, আইটি চালান, স্ট্যান্ডিং ইনস্ট্রাকশন রিকোয়েস্টের মতো পিক আপ সার্ভিস এবার পৌঁছে যাবে গ্রাহকদের বাড়ির দরজায়।

ক্যাস উইলড্রল থেকে পেনশনারদের জন্য ডিজিট্যাল লাইফ সার্টিফিকেট-র মত পরিষেবাও বাড়ি বসে পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে SBI।  

ডোরস্টেপ ব্যাঙ্কিং সার্ভিস পেতে রেজিস্টার করতে দেওয়া হয়েছে দুটি টোল ফ্রি নম্বর। প্রথমটি 18001213721 ও অপরটি হল 18001037188। এই পরিষেবা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য  bank.sbi/dsb ওয়েবসাইটেও গিয়েও জানতে পারেন। 

দর কষতে দিল্লিতে নীতীশ

দর কষতে দিল্লিতে নীতীশ
Nitish in Delhi to raise prices

বাংলায় পরাজিত হওয়ার পর বেশ চাপে কেন্দ্রীয় বিজেপি | তারা জানতো এবারে বিরোধীরা অনেক আক্রমনাত্বক হবে | আজই বিরোধীরা শারদ পাওয়ারের বাড়িতে বৈঠকে বসছে ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনকে লক্ষ করে | ঠিক সেই সময়ে নীতীশ কুমারও দিল্লিতে | বিহারে ফ্রন্টের মুখ্যমন্ত্রী হলেও নীতীশ কার্যত বিজেপির হাতের পুতুল ছাড়া আর কিছুই নয় বলে দাবি করেছিলেন তেজস্বী যাদবের দল আরজেডি | কিন্তু সম্প্রতি লোক জনশক্তির ৫ বিধায়ক নীতীশবাবুর জেডিইউ তে যোগ দেওয়াতে এবং পশ্চিমবঙ্গে বন্ধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিপুল জয়ে মানসিক শক্তি পেয়েছেন |

এবারে দর কষাকষি করতে চান নীতীশবাবু | এমনিতেই ২০১৯ এ জয়ের পর মোদি পরিষ্কার জানিয়েছিলেন জোট সাথীদের প্রতিটি দল থেকে ১ জনের বেশি মন্ত্রী করা হবে না | ইতিমধ্যেই জোট ছেড়েছে শিবসেনা ও অকালি দল | অন্যদিকে মোদিও উত্তরপ্রদেশের ভোটের আগে মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ চাইছেন | ঠিক এই সময়ে নীতীশ দিল্লি পৌছিয়ে জোড়া মন্ত্রিত্ব দাবি করবেন বলে সংবাদ | 

মঙ্গলবার বিরোধীরা বসছেন পাওয়ারের বাড়িতে

আজ মঙ্গলবার মোদি সরকার বিরোধী দলগুলি একাট্টা হয়ে বসতে চলেছেন শারদ পাওয়ারের দিল্লির বাড়িতে | অনেকদিন ধরেই সুতো বোনা চলছিল | মূলত শারদ পাওয়ার এবং ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর সাকার বিরোধী ফ্রন্ট করতে উদ্যোগী হন | মুম্বাইতে পাওয়ারের সঙ্গে পিকের বেশ কয়েকটি বৈঠক হয়েছিল, সেখান থেকেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয় | এই বৈঠকের আর এক উদ্যোগী সদ্য তৃণমূলে আসা প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী যশবন্ত সিনহা |

প্রশ্ন উঠেছে কারা আসতে পারেন,? সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, নিজে অথবা প্রতিনিধি পাঠাচ্ছেন বিভিন্ন দলের নেতারা | অখিলেশ যাদব, স্ট্যালিন, উদ্ধব ঠাকরে, অরবিন্দ কেজরিওয়াল, হিমন্ত সোরেন, ত্বেজস্বী যাদব ইত্যাদি | এ ছাড়াও সমর্থন করছে কৃষি আন্দোলনকারীরা | কংগ্রেসের উপস্থিত থাকার এখনও কোনও বার্তা না থাকলেও, পাওয়ার চেষ্টার ত্রুটি রাখবেন না |     


৯১ দিন পর সংক্রমণ নামল ৫০ হাজারের নীচে

নয়াদিল্লিঃ দেশে করোনার গ্রাফ নিম্নমূখী। ৯১ দিন পর সংক্রমণ নামল ৫০ হাজারের নীচে।

মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪২ হাজার ৬৪০ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৬৭ জনের। এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে দেশে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯৯ লক্ষ ৭৭ হাজার ৮৬১ জন। প্রায় ৩ কোটি। আর মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৮৯ হাজার ৩০২ জনের। মৃতের হার ১.৩০ শতাংশ।

অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮১ হাজার ৮৩৯ জন রোগী। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ২ কোটি ৮৯ লক্ষ ২৬ হাজার ৩৮ জন রোগী। সুস্থতার হার ৯৬.৪৯ শতাংশ। এছাড়া অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ৬২ হাজার ৫২১ জন। একদিনে কমেছে ৪০ হাজার ৩৬৬ জন।

দেশে এ পর্যন্ত মোট ২৮ কোটি ৮৭ লক্ষ ৬৬ হাজার ২০১ জনকে  টিকাকরণ করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় টিকা পেয়েছেন ৮৬ লক্ষ ১৬ হাজার ৩৭৩ জন।

সাময়িক বন্ধ থাকবে নেট ব্যাঙ্কিং, জেনে নিন সময়সূচী

করোনায় পাল্টে গিয়েছে জীবন যাত্রা। ব্যাঙ্কগুলোও জোর দিয়েছে ডিজিটাল ব্যাঙ্কিং-এ। এই পরিস্থিতিতে আজ রবিবার প্রায় ৪০ মিনিটে জন্য বন্ধ থাকবে Internet Banking পরিষেবা।  

টুইটারে এসবিআই (SBI) জানিয়েছে, রবিবার রাত ১টা থেকে ১টা বেজে ৪০ মিনিট পর্যন্ত বন্ধ থাকবে ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা। বিশেষ করে YONO, YONO Lite ও UPI পরিষেবাগুলো বন্ধ থাকবে। ডিজিটাল পরিষেবাকে আরও উন্নত করার স্বার্থেই এই উদ্যোগ নিতে হয়েছে বলে জানাল এসবিআই।  

গত মাসেও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য সাময়িকভাবে ডিজিটাল ব্যাঙ্কিং পরিষেবা বন্ধ রেখেছিল এসবিআই।

৮১ দিন পর সংক্রমণ নামল ৬০ হাজারের নীচে

দেশে করোনার গ্রাফ নিম্নমূখী। ৮১ দিন পর সংক্রমণ নামল ৬০ হাজারের নীচে।

রবিবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮ হাজার ৪১৯ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৫৭৬ জনের। এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে দেশে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯৮ লক্ষ ৮১ হাজার ৯৬৫ জন। আর মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭১৩ জনের। মৃতের হার ১.২৯ শতাংশ।

অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৭ হাজার ৬১৯ জন রোগী। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ২ কোটি ৮৭ লক্ষ ৬৬ হাজার ৯ জন রোগী। সুস্থতার হার ৯৬.২৭ শতাংশ। এছাড়া অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লক্ষ ২৯ হাজার ২৪৩ জন। একদিনে কমেছে ৩০ হাজার ৭৭৬ জন।

দেশে এ পর্যন্ত মোট ২৭ কোটি ৬৬ লক্ষ ৯৩ হাজার ৫৭২ জনকে  টিকাকরণ করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় টিকা পেয়েছেন ৩৮ লরক্ষ ১০ হাজার ৫৫৪ জন।

দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি

নয়াদিল্লিঃ  দেশে কিছুটা কমল দৈনিক সংক্রমণ। তবুও দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রায় ৩ কোটি। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও।

শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬২ হাজার ৪৮০ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ কোটি ৯৭ হাজার ৬২ হাজার ৭৯৩ জন। প্রায় ৩ কোটি।
    
গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৫৮৭ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ লক্ষ ৮৩ হাজার ৪৯০ জন। মৃতের হার বেড়ে ১.২৯ শতাংশ।

অন্যদিকে একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন  ৮৮ হাজার ৯৭৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৫ লক্ষ ৮০ হাজার ৬৪৭ জন। সুস্থতার হার বেড়ে ৯৬.০৩ শতাংশ।

দেশে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমে ৭ লক্ষ ৯৮ হাজার ৬৫৬ জন। একদিনে কমেছে ২৮ হাজার ৮৪ জন। অ্যাক্টিভ আক্রান্তের হার কমে ২.৬৮ শতাংশ।

দেশে মোট করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে ২৬ কোটি ৮৯ লক্ষ ৬০ হাজার ৩৯৯ জনকে। একদিনে ভ্যাকসিন পেয়েছে ৩২ লক্ষ ৫৯ হাজার ৩ জন।

পুলিশ ও মাওবাদীদের মধ্যে তীব্র লড়াই, নিহত ৬

বিশাখাপত্তনম: মাওবাদী ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে গুলির লড়াই। তাতে ৬ মাওবাদী নিহত হয়েছে বলে খবর। নিহতদের মধ্যে একজন মহিলা মাওবাদীও রয়েছে।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অন্ধ্রপ্রদেশের মাম্পা পুলিশ থানার থিগালামেত্তা জঙ্গলে এদিন অভিযান চালায় বাহিনী। অন্তত ৬ মাওবাদী নিহত হলেও, ওই এলাকায় আরও মাওবাদী লুকিয়ে রয়েছে কিনা, তার জন্য চলছে তল্লাশি।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশের বিশেষ মাওবাদী দমন বাহিনী গ্রেহাউন্ড ও মাওবাদীদের মধ্যে তীব্র লড়াই বেঁধেছে।
শেষ খবর মেলা পর্যন্ত, অন্তত ৬ মাওবাদী নিহত হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে প্রচুর অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র।  

গত মাসে বড়সড় সাফল্য পেয়েছিল মহারাষ্ট্র পুলিশ। টানা গুলির লড়াইয়ে মহারাষ্ট্রের গড়চিরৌলিতে নিহত হয়েছিল ১৩ মাওবাদী। 

মোদি বিরোধী জোট ভাঙছে

ফের কোনও নতুন খেলা খেলছে কি মোদি সরকার, নাকি ফের ধমক চমক কিংবা এজেন্সির ভয় দেখানো চলেছে? প্রশ্ন রাজনৈতিক মোদি বিরোধী বিশেষজ্ঞদের মধ্যে | কারণ অরবিন্দ কেজরিওয়াল  এবং অখিলেশ যাদবকে কিছুটা বেসুরো লাগছে অবশ্য এখনই চরম বার্তার জায়গায় যান নি তাঁরা | কেজরি জানিয়েছেন যে আগামী পাঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরা একক ভাবে লড়বেন এবং আগামী গুজরাট নির্বাচনেও তারা ছোট দলগুলির সাথে জোট বেঁধে লড়বেন |


পাশাপাশি অখিলেশ যাদব জানাচ্ছেন যে, আসন্ন উত্তর প্রদেশ নির্বাচনে তাঁরা কংগ্রেস বা মায়াবতীর সাথে জোট বাঁধবেন না , কারণ বিগত নির্বাচনগুলিতে তাঁর দলের ক্ষতিই হয়েছে | এবারে স্থানীয় ছোট দলগুলি এবং কৃষি আন্দোলনকারীদের সাথে জোট বাঁধবেন | লোকসভার আগে বিরোধীদের, রাহুল গান্ধি এবং কংগ্রেসের সাথে জোট বাঁধতে আপত্তি | যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখনও ময়দানে নামেন নি। 

দেশে কিছুটা কমল দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু

নয়াদিল্লিঃ  দেশে কিছুটা কমল দৈনিক মৃত্যু ও সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৭২৬ জনের। সংক্রমণ ৬০ হাজারের একটু বেশি। তার তুলনায় সুস্থতার সংখ্যা অনেক বেশি।

মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬০ হাজার ৪৭১ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ কোটি ৯৫ হাজার ৭০ হাজার ৮৮১ জন।  

গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৭২৬ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ লক্ষ ৭৭ হাজার ৩১ জন। মৃতের হার বেড়ে ১.২৮ শতাংশ।

অন্যদিকে একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন   ১ লক্ষ ১৭ হাজার ৫২৫ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮২ লক্ষ ৮০ হাজার ৪৭২ জন। সুস্থতার হার বেড়ে ৯৫.৬৪ শতাংশ।

দেশে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমে ৯ লক্ষ ১৩ হাজার ৩৭৮ জন। একদিনে কমেছে ৫৯ হাজার ৭৮০ জন। অ্যাক্টিভ আক্রান্তের হার কমে ৩.০৯ শতাংশ।

দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু মহারাষ্ট্রে। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ৮ হাজার ১৯৫ জন। তারফলে এই মুহূর্তে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের মোট সংখ্যা কমে  ১ লক্ষ ৫০ হাজার ৪২২ জন। এছাড়া একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ হাজার ৭৩২ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৫৬ লক্ষ ৫৪ হাজার ৩ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ১ লক্ষ ১২ হাজার ৬৯৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৫৯২ জনের।

দেশে মোট করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে ২৫ কোটি ৯০ লক্ষ ৪৪ হাজার ৭২ জনকে। একদিনে ভ্যাকসিন পেয়েছে ৩৯ লক্ষ ২৭ হাজার ১৫৪ জন।

দেশে ফের কমছে দৈনিক সংক্রমণ

দেশে ফের কমল দৈনিক সংক্রমণ। বেশকিছুদিন ধরে সংক্রমণ বাড়ছিল। তবে ধীরে ধীরে কমছে এই সংক্রমণ। গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ হাজার ৪২১ জন. দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৯৫ লাখ ছাড়িয়ে গেল। দেশে সংক্রমণের হার গত এক সপ্তাহ ধরেই ৫ শতাংশের নীচে রয়েছে। পাশাপাশি কমছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। কমতে কমতে তা নেমেছে ১০ লাখের  নীচে।

দেশে এখন সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৯ লাখ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৯২১ জনের। এর জেরে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা হল ৩ লাখ  ৭৪ হাজার ৩০৫ জনের। সংক্রমণে  ৭৩ হাজার ১৫৮ জন।এদিকে দেশে টিকাকরণ শুরু হয়ে গেছে। অধিকাংশ মানুষ টিকার আওতায়। লকডাউন থাকার জেরে কিছুটা কমেছে এই সংক্রমণ।


দেশে দৈনিক মৃত্যু তিন হাজারের উপরেই রয়ে গেলো

নয়াদিল্লিঃ  দেশে দৈনিক মৃতের সংখ্যা তিন হাজারের উপরেই রয়ে গেলো।  তবে দৈনিক সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

রবিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৮৩৪ জন। গতকাল ছিল ৮৪ হাজার ৩৩২ জন। সব মিলিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ কোটি ৯৪ হাজার ৩৯ হাজার ৯৮৯ জন।  

গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩০৩ জন। গতকাল ছিল ৪ হাজার ২ জন। তারফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ লক্ষ ৭০ হাজার ৩৮৪ জন। মৃতের হার বেড়ে ১.২৬ শতাংশ।

অন্যদিকে একদিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন   ১ লক্ষ ৩২ হাজার ৬২ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮০ লক্ষ ৪৩ হাজার ৪৪৬ জন। সুস্থতার হার বেড়ে ৯৫.২৬ শতাংশ।

দেশে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমে ১০ লক্ষ ২৬ হাজার ১৫৯ জন। একদিনে কমেছে ৫৪ হাজার ৫৩১ জন। অ্যাক্টিভ আক্রান্তের হার কমে ৩.৪৯ শতাংশ।

দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু মহারাষ্ট্রে। গত ২৪ ঘন্টায় অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ৬ হাজার ১৭৯ জন। তারফলে এই মুহূর্তে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের মোট সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৮ হাজার ৪৫০ জন। এছাড়া একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ হাজার ৯১০ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৫৬ লক্ষ ৩১ হাজার ৭৬৭ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ১ লক্ষ ৮ হাজার ৩৩৩ জন। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৯৬৬ জনের।

দেশে মোট করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে ২৫ কোটি ৩১ লক্ষ ৯৫ হাজার ৪৮ জনকে। একদিনে ভ্যাকসিন পেয়েছে ৩৪ লক্ষ ৮৪ হাজার ২৩৯ জন।

করোনাকে দেবীরূপে পুজো, মুক্তি মিলবে দেশবাসীর!

উত্তরপ্রদেশঃ রীতিমত মন্দির বানিয়ে,মূর্তি গড়ে যোগীরাজ্যে এবার পূজিত হচ্ছে করোনা। গ্রামবাসীদের বিশ্বাস, করোনা মাতার পূজা করলেই এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে মুক্তি মিলবে দেশবাসীর।

জানা গিয়েছে,উত্তরপ্রদেশের প্রতাপগড়ের একটি গ্রামে করোনাকে দেবীরূপে পূজার্চনা শুরু হয়েছে। একটি নিম গাছের গোড়ায় প্রতিস্থাপিত হয়েছেন করোনা মাতা। সেখানে পুজো দিলেন গ্রামবাসীরা।

গ্রামবাসীদের পুজোকে আমল দিতে রাজি নয় পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চ।তাদের যুক্তি এই পুজো করে করোনাকে নির্মূল করা সম্ভব নয়। এতে সময় নষ্ট হচ্ছে এবং কাজের কাজ কিছুই হবে না। করোনা ভাইরাসের ভয়ে মানুষ অসহায় হয়ে কুসংস্কারকে ধরে বেঁচে থাকতে চাইছে।

আসলে করোনাভাইরাস মহামারীতে জনজীবন বিপর্যস্ত। চেনা পৃথিবীটা বদলে গিয়েছে। আতঙ্কিত মানুষ করোনার বিপদ নির্মূল হওয়ার প্রার্থনা করছেন। সেই ভাবনার প্রতিফলন ঘটেছে প্রতিমার রূপায়ণে।

কলকাতায় পেট্রোল-র দাম ছাড়াল ৯৬ টাকা

কলকাতাঃ বেড়েই চলেছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। তারফলে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়ার সম্ভাবনা।

আজ, শনিবার কলকাতায় পেট্রোল লিটার প্রতি বাড়ল ২৬ পয়সা। ও ডিজেল বাড়ল লিটারে ২৩ পয়সা। অর্থাত্ পেট্রোলের দাম হল লিটার প্রতি ৯৬.০৬ টাকা এবং ডিজেলের দাম দাঁড়িয়েছে লিটার প্রতি ৮৯.৮৩ টাকা। শুক্রবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম ছিল ৯৫ টাকা ৮০ পয়সা। আর ডিজেলের দাম ছিল  ৮৯ টাকা ৬০ পয়সা।

লাগাতার বেড়েই চলেছে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম। চলতি মাসে ১২ দিনে পেট্রোলের দাম প্রায় ২ টাকা বাড়ল। যদিও বিধানসভা ভোটের আগে সেভাবে পেট্রোল -ডিজেলের দাম বাড়েনি। তবে গত ৪ মে থেকে পেট্রোলের দাম বাড়তে শুরু করেছে।

শনিবার দিল্লিতে পেট্রোলের দাম প্রতি লিটারে ২৭ পয়সা এবং ডিজেল ২৩ পয়সা বৃদ্ধি করা হয়েছে। প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ৯৬.১২ টাকা, ডিজেল ৮৬.৯৮ টাকা। মুম্বই শহরে পেট্রোল ১০২.৩০ টাকা, ডিজেল ৮৯.৮৩ টাকা।চেন্নাইতে পেট্রোল ৯৭.৪৩ টাকা, ডিজেল ৯১.৬৪ টাকা। বেঙ্গালুরু শহরে পেট্রোল ৯৯.৩৩ টাকা, ডিজেল ৯২.২১ টাকা। নয়ডায় পেট্রোল ৯৩.৪৬ টাকা, ডিজেল ৮৭.৪৬ টাকা।

প্রতিদিন সকাল ৬টায় পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বদল করে থাকে সরকারি তেল সংস্থাগুলি।

প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন শাহরুখ

Prashant Kishore
Shah Rukh Khan

প্রশান্ত কিশোর বা পিকে, এই মুহূর্তে রাজনীতির 'কিং মেকার' বলা হচ্ছে তাঁকে | পরপর জয় এনে দিচ্ছেন বিভিন্ন রাজনৌতিক দলকে | শুরু ছিল বিজেপি দিয়ে শেষ কাজ তাঁর পশ্চিমবঙ্গ এবং তামিলনাড়ু | শুক্রবার মুম্বাইতে গিয়ে পিকে দেখা করেন শারদ পাওয়ারের সঙ্গে | দীর্ঘক্ষণ ২০২৪ নির্বাচন নিয়ে আলোচনা করেন তাঁরা | এরপর পিকে কে দেখা যায় শাহরুখ খানের অফিস ঘরে বলে সংবাদ |

জানা গিয়েছে শাহরুখ নাকি পিকেকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ করতে চলেছেন | যদিও শাহরুখের প্রযোজনা সংস্থা রেড চিলি এই নিয়ে এখনও মুখ খোলে নি কিন্তু বলিউডের আনাচে কানাচে খবরটি ছড়িয়ে পড়েছে | এখনও অবশ্য ঠিক হয় নি কবে থেকে শুটিং শুরু হবে |