CN CENTURY- এক ঝলকে গুরুত্বপূর্ণ খবর

# মার্কিন সফরে মোদী।

# স্কুলে তৈরি মাইক্রো কনটেনমেন্ট জোন। 

# বাজেয়াপ্ত ১৩ লক্ষ টাকার সোনা। 

# নাবালিকাকে ধর্ষণ,গ্রেফতার ১।

# আসাদউদ্দিনের বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ। 

# অস্ট্রেলিয়ায় ভূমিকম্প।

# কেরলে বাড়ছে সুস্থতার হার। 

# অন্ধ্রপ্রদেশে কমল সংক্রমণ। 

# আতঙ্ক আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার। 


Covid Update: দেশে ফের স্বস্তি সংক্রমণে,কমল অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা

তৃতীয় ঢেউয়ের মধ্যেই বেশখানিকটা স্বস্তির খবর মিলল। কমছে অনেকটাই সংক্রমণ।গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ হাজার ২৫৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৯৫ জনের। রবিবার সংক্রমণ, মৃত্যুর হার ছিল এর চেয়ে বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন দেশের ৪৩ হাজার ৯৩৮ জন। এই হার ক্রমশই ঊর্ধ্বমুখী।

অনেকটা কমেছে অ্যাকটিভ কেসও। এই মুহূর্তে দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ১৮ হাজার ১৮১.স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্য়ান অনুযায়ী, দেশের মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৩৪ লক্ষ ৭৮ হাজার ৪১৯। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ কোটি ২৭ লক্ষ ১৫ হাজার ১০৫ জন। করোনার বলি মোট ৪ লক্ষ ৪৫ হাজার ১৩৩।

তবে অনেকটা কমেছে অ্য়াকটিভ রোগীর সংখ্যা। রবিবার যা ছিল ৩ লক্ষ ৩২ হাজারের বেশি, সোমবার তা নেমে এল ৩ লক্ষ ১৮ হাজারের। তবে কেরল নিয়ে যথেষ্ট উদ্বেগ রয়েছে এখনও। ইতিমধ্যে দেশজুড়ে চলছে টিকাকরণ। এছাড়া কেন্দ্রের তরফে  এর আগেই জানানো হয়েছে আরও বেশি টিকাকরণের ওপর নজর দেওয়া হবে ।


Sports: শাস্ত্রীর পর কোচ কে?

টি ২০ বিশ্বকাপ শেষ মানেই রবি শাস্ত্রীর কাজ শেষ । সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ইচ্ছায় রবির ফিরে আসার কোনও সম্ভবনা নেই বলেই খবর । একই সাথে নতুন টি ২০ অধিনায়ক কে হবে তা নিয়ে রয়েছে প্রশ্ন কারণ কোহলি নেতৃত্ব ছাড়ছেন । সৌরভের দুই প্রিয় খেলোয়াড়ের নাম শোনা যাচ্ছে । এই দুই খেলোয়াড়কে ভারতীয় দলে সুযোগ দিয়েছিলেন বারবার । এঁরা বীরেন্দ্র শেহবাগ এবং ভিভিএস লক্ষণ । শেহবাগ এবং লক্ষণ চিরকালই সৌরভ ভক্ত । সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বিরু জানিয়েছিলেন যে, ধোনির থেকে সৌরভ অনেক বড় অধিনায়ক ছিলেন, সৌরভ শূন্য থেকে একটি নতুন দল তৈরী করেছিলেন যার সুবিধা পেয়েছিলেন ধোনি । অন্যদিকে লক্ষণ তাঁর প্রিয় অধিনায়ক সৌরভ খেলা ছাড়ার দিন তাঁকে কাঁধে নিয়ে সারা মাঠ ঘুরেছিলেন ।

সৌরভ কিন্তু তাঁর পুরাতন সতীর্থদের ভোলেন নি । রাহুল দ্রাবিড়কে জুনিয়র দলের কোচ করার পিছনেও মস্ত হাত ছিল 'দাদার' । এবারে সৌরভ চাইছেন হয় শেহবাগ অথবা লক্ষণ ভারতীয় দলের কোচ হন । অন্যদিকে কোহলি অধিনায়ক পদ ছাড়ার সাথে জানিয়েছেন কোনও ভাবেই যেন রোহিতকে অধিনায়ক করা না হয় কারণ তাঁর বয়স নাকি ৩৪ । অদ্ভুত আবদার তার, প্রতিবাদ উঠেছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে । গাভাসকার অবশ্য রোহিত শর্মাকেই অধিনায়ক চাইছেন ।


Terrorist: ভারতে তুলো বোঝাই ট্রেনে হামলার ছক পাকিস্তান জঙ্গিদের!

স্বাধীনতার পর থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে ছায়াযুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। এবার ভারতে ‘অর্থনৈতিক সন্ত্রাস’ চালানোর ছক কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI)। এমনটাই সূত্রের খবর। 

সম্প্রতি দিল্লি পুলিশের তৎপরতায় পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি শাখার পর্দা ফাঁস হয়েছে। জঙ্গি মডিউল এর ৬ জঙ্গিকে  দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের মধ্যে পাকিস্তানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিল। 

ধৃত পাকিস্তানি মডিউলের ওই জঙ্গিদের জেরা করে প্রচুর বিস্ফোরক তথ্য পেয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ভারতের অর্থনীতিতে আঘাত হানতে পারে পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই। তারা তুলো বোঝাই ট্রেন, বড় কারখানা, পণ্য রাখার গুদামগুলিকে টার্গেট করেছে বলে খবর। 

দিল্লি পুলিশের হাতে ধৃত জঙ্গিরা হল জিসান কামার,ওমর,জান মোহাম্মদ,লালা,আবু বক্কর ও মোঃ আলী জাভেদ। এদের মধ্যে জিসান কামার ও ওমর এর অস্ত্র বিস্ফোরক প্রশিক্ষণ হয়েছে পাকিস্তানে। ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে মিলেছে বিস্ফোরক এবং অস্ত্র।

গোয়েন্দা সূত্র অনুসারে, জিসান ও ওমরকে ছোট বোটে (যে ভাবে মুম্বাই এ জঙ্গি কাসভরা প্রবেশ করেছিলো) নিয়ে যাওয়া হয় পাকিস্তান এর গদর বন্দরে। সেখান থেকে সিন্ধ প্রদেশে ISI এর নির্দেশে পাক সেনা বাহিনীর গোপন ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। শুরু হয় প্রশিক্ষণ। মূলত পাক আর্মির লেফটেন্যান্ট গাজী,জব্বর ও হামজার নির্দেশে চলে এই প্রশিক্ষণ পর্ব। পরে প্রশিক্ষণ শেষে ISI এর নির্দেশে ও দাউদ ইব্রাহিমের ভাই আনিস এর তত্ত্বাবধানে ভারতে প্রবেশ করে জঙ্গি দলটি ।


Covid Updtae: তৃতীয় ঢেউ দোঁড়গোড়ায়, উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মহারাষ্ট্র

ফের আজও দেশে  ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাম্প্রতিকতম পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা ভাইরাসে  আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩৪ হাজার ৪০৩ জন। বৃহস্পতিবারের তুলনায় যা প্রায় সাড়ে ১২ শতাংশ বেশি। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৭ হাজার ৯৫০ জন। এ নিয়ে সুস্থতার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ কোটি ২৫ লক্ষ ৯৮ হাজার ৪২৪। তবে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মহারাষ্ট্র, কেরলের পরিসংখ্যান। এই দুই রাজ্যে এখনও করোনা পরিস্থিতি খুব একটা নিয়ন্ত্রণে আসছে না। বিশেষ করে মহারাষ্ট্র। তৃতীয় ঢেউ ইতিমধ্যে ঢুকেছে। শিশুরা কিন্তু অজানা জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার দেশে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩০ হাজারের বেশি। আর শুক্রবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান ভালভাবে খতিয়ে দেখলে বোঝা যাবে, অঙ্কের হিসেবে ১২.৫ শতাংশ বেড়েছে সংক্রমণ, যা করোনা গ্রাফের বেশ অনেকটাই উত্থান। তৃতীয় ঢেউ কি তবে আসন্ন?

শুক্রবারের পরিসংখ্যান দেখে অনেকের মনেই এই আশঙ্কা দানা বাঁধছে।এদিকে তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলা করতে ইতিমধ্যেই টিএককরণ শুরু হয়ে গেছে। এর আগেই বলা হয়েছে পুজোর আগেই তৃতীয় ঢেউয়ের সম্ভাবনা।সেইমত কিন্তু এগোচ্ছে। চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

Covid Update: তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যেই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

কয়েকদিন ধরেই সংক্রমণের সংখ্যাটা বেড়েই চলেছে। এদিকে তৃতীয় ঢেউ কিন্তু আসতে চলেছে। এক অজানা জ্বর হতে দেখা যাচ্ছে।যেখানে শিশুরা কিন্তু আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। মাস ছয়েকের মধ্যেই করোনা নিয়ন্ত্রণে আসা শুরু করবে। এই মহামারী আমাদের প্রত্যাশা ছাপিয়ে ভয়ঙ্কর হয়েছে উঠেছে। কিন্তু আগামী কয়েক মাসে তা ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রণে আসবে। এমনটাই মনে করছেন ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোলের ডিরেক্টর সুজিত সিং। শীর্ষ স্থানীয় এই গবেষকের মন্তব্যে আশার আলো দেখছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। তবে, একই দিনে দেশের দৈনিক করোনা আক্রান্তের পরিসংখ্যান চিন্তা বাড়াচ্ছে।

তবে সংক্রমণ ৩০ হাজারের বেশি ছিল.বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের  বুলেটিন  অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩০ হাজার ৫৭০ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের তুলনায় সামান্য বেশি।ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ কোটি ৩৩ লক্ষ ৪৭ হাজার ৩২৫ জন। একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৪৩১ জন।

এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে অনেকটা বেশি। সামনেই উৎসবের মরসুম। তারমধ্যেই তৃতীয় ঢেউ হানা দিচ্ছে। একটা আতঙ্ক থাকছেই।  উৎসব শুরু হতে বেশি দেরি নেই। মানুষের ঢল নামবে।তাতে কি রোখা সম্ভব হবে, প্রশ্ন একটাই । 

Terrorists: ধৃত ৬ জঙ্গির পরিচয় ও শিক্ষাগত

সত্যজিৎ মুখোপাধ্যায়ঃ উৎসবের মরশুমে নাশকতার ছক করেছিল জঙ্গিরা। সেই ছক ফাঁস দিল্লি পুলিশ।  জঙ্গি মডিউল এর ৬ জঙ্গিকে  দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

ধৃত জঙ্গিরা হল জিসান কামার,ওমর,জান মোহাম্মদ,লালা,আবু বক্কর ও মোঃ আলী জাভেদ। এদের মধ্যে জিসান কামার ও ওমর এর অস্ত্র বিস্ফোরক প্রশিক্ষণ হয়েছে পাকিস্তানে। ধৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে মিলেছে বিস্ফোরক এবং অস্ত্র।

গোয়েন্দা সূত্র অনুসারে, জিসান ও ওমরকে ছোট বোটে (যে ভাবে মুম্বাই এ জঙ্গি কাসভরা প্রবেশ করেছিলো) নিয়ে যাওয়া হয় পাকিস্তান এর গদর বন্দরে। সেখান থেকে সিন্ধ প্রদেশে ISI এর নির্দেশে পাক সেনা বাহিনীর গোপন ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। শুরু হয় প্রশিক্ষণ। মূলত পাক আর্মির লেফটেন্যান্ট গাজী,জব্বর ও হামজার নির্দেশে চলে এই প্রশিক্ষণ পর্ব। পরে প্রশিক্ষণ শেষে ISI এর নির্দেশে ও দাউদ ইব্রাহিমের ভাই আনিস এর তত্ত্বাবধানে ভারতে প্রবেশ করে জঙ্গি দলটি ।

দেশ জুড়ে নাশকতার আগেই জঙ্গি মডিউল এর ৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। টানা জেরায় জঙ্গিদের শিক্ষাগত যোগ্যতা,পেশাসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে আসছে।  

এক নজরে দেখে নিন ধৃত জঙ্গিদের পরিচয়-

1) জিসান কামার - বাড়ি প্রয়াগরাজ। শিক্ষা MBA চাকরি করতেন দুবাই এর নামকরা সংস্থায় । 

2) ওসামা - স্নাতক,বাড়ি দিল্লির জামিয়ানগর।একাধিকবার মধ্য প্রাচ্য গিয়েছেন।

3) মুলচাঁদ ওরফে লালা (৪৭)- বাড়ি রায়বেরিলি। স্লিপার সেল এর সদস্য হিসেবে কাজ করতো। 

4) জান মুহম্মদ শেখ (৪৭)- বাড়ি মুম্বাই। ডি কোম্পানি ও স্লিপার সেলের সদস্য হিসেবে কাজ করতো। 

5) মোঃ আবু বকর (২৩)- বাড়ি উত্তরপ্রদেশ। দারুল উল দেওবন্দ এর ছাত্র । মধ্য প্রাচ্য যাতায়াত করতো। 

6)  মোঃ আমির- পেশায় ধর্ম প্রচারক। বেশ কয়েক বছর মধ্য প্রাচ্যের জেদ্দায় ছিলো। 


Coronavirus: দেশের ফের বাড়ল দৈনিক করোনা সংক্রমণ

নয়াদিল্লিঃ শীতের আগেই দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে। এমনটাই আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তার আগেই ফের একবার বাড়ল দেশের দৈনিক সংক্রমণ।  

বুধবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৭ হাজার ১৭৬ জন। যা গতকালের তুলনায় বেশি। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ কোটি ৩৩ লক্ষ ১৬ হাজার ৭৫৫ জন। 

একদিনে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২৮৪ জনের। তবে এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে সামান্য কম। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৪৩ হাজার ৪৯৭ জন।

এই মূহুর্তে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫১ হাজার ৮৭ জন। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৩ কোটি ২৫ লক্ষ ২২ হাজার ১৭১ জন করোনাকে জয় করেছেন।  যার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ।

দেশজুড়ে ৭৫ কোটি ৮৯ লক্ষেরও বেশি মানুষ ভ্যাকসিন পেয়েছেন।  যার মধ্যে গতকালই টিকা পেয়েছেন প্রায় সাড়ে ৬১ লক্ষের বেশি নাগরিক। 


নাশকতার ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো

প্রাথমিক খবর -- উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান এবং দিল্লির প্রান্তর থেকে ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো মঙ্গলবার । সন্ধ্যার পর খবরটি জনমানসে আসে । উত্তরপ্রদেশের বিশেষ পুলিশের তৎপরতাতে এদের হদিশ পাওয়া গেলো । এদের অনেকেই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত । জানা গিয়েছে এদের নেতা ওসামা নামক ব্যক্তি পাকিস্তানের আইএসআই এর প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত । এদের কাছে বহু তথ্য পাওয়া গিয়েছে ।এরা  দূর্গা পূজা সহ পুজো উৎসবের মাসে বহু স্থানে নাশকতার চক্রান্ত করেছিল । এদের আপাতত পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে অন্যান্য খবরের জন্য । তালিবানদের উত্থানের পর পুলিশের কাছে খবর ছিলই কোনও একটা নাশকতা হতে পারে তাদেরই একটি দল আপাতত পুলিশি হেফাজতে ।


Covid Update: তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যে দেশে ফের স্বস্তি সংক্রমণে

দেশের দৈনিক করোনা  পরিসংখ্যানে একধাক্কায় অনেকটা কমল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। পরপর তিনদিন দৈনিক সংক্রমণ নিম্নমুখী। সেই সঙ্গে লাগাতার কমছে অ্যাকটিভ কেসও। মঙ্গলবারও অ্যাকটিভ কেস কমেছে প্রায় হাজার দশেক। তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যে পরপর সংক্রমণ এবং অ্যাকটিভ কেসের এই পরিসংখ্যান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রককে ভালরকম স্বস্তি দিচ্ছে।

মঙ্গলাবার স্বাস্থমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৫ হাজার ৪০৪ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের তুলনায় অনেকটা কম। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৮৯ হাজার ৫৭৯ জন। একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৩৯ জন। এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে অনেকটাই বেশি। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার বলি ৪ লক্ষ ৪৩ হাজার ২১৩ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় স্বস্তি মিলেছে করোনার অ্যাকটিভ কেসেও। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, বর্তমানে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৬২ হাজার ২০৭ জন। যা আগের দিনের থেকে প্রায় হাজার দশেক কম। তবে তৃতীয় ঢেউ আসার প্রবল সম্ভাবনা। সামনেই দুর্গাপূজা। খানিকটা চিন্তিত আমজনতা। দেশে টিকাকরণ চলছে।কিন্তু রাজ্যে অনেকসময় মিলছেনা টিকা। এদিকে কেন্দ্রের সরকার জানিয়েছে টিকাকরণের ক্ষেত্রে আরও বেশি তৎপর। সবমিলিয়ে এখন দেখার তৃতীয় ঢেউ কবে আসতে  চলেছে। 

Covid Update: সপ্তাহের প্রথমদিনে দেশের সংক্রমণ নিম্নমুখী, কমল অ্যাকটিভ কেস

প্রতিনিয়ত করোনা সংক্রমণ যেমন ওঠা-নাম করছে, তেমনি আশার আলো ও যোগাচ্ছে। সপ্তাহের শুরুতে আজ ফের দেশে সংক্রমণ খানিকটা কমল. এছাড়া কমল অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা – সবই নিম্নমুখী। বাড়ল সুস্থতার হার। আরও জোর দেওয়া হল টিকাকরণে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দাবি, ৬টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল এবং প্রায় সবকটি রাজ্যেই প্রথম ডোজের টিকাকরণ ১০০ শতাংশ সম্পূর্ণ হয়েছে। সবমিলিয়ে, এই মুহূর্তে দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের।

সোমবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৭ হাজার ২৫৪ জন। রবিবার এই সংখ্যা সাড়ে ২৮ হাজারের বেশি ছিল। একদিনে করোনার বলি দেশের ২১৯ জন। রবিবার মৃত্যু হয়েছিল মোট ৩৩৮ জনের। সেই তুলনায় অনেকটাই কমল দৈনিক মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবল থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৭ হাজার ৬৮৭ জন।কমেছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যাও।

এই মুহূর্তে দেশে করোনা অ্যাকটিভ কেস ৩ লক্ষ ৭৪ হাজার ২৬৯ জন। মোট করোনা আক্রান্ত ৩, ৩২,৬৪, ১৭৫। আর সুস্থতার সংখ্যা ৩,২৪,৪৭,০৩২। তবে সামনেই উৎসবের মরসুম আর এতে সাধারণ মানুষ অনেকটা উদ্বিগ্ন। এদিকে দেশজুড়ে চলছে টিকাকরণ। তবে রাজ্যে টিকার যোগান কম মিলছে।


পুজোর আগেই করোনা সংক্রমণে বড়সড় স্বস্তি মিলল

সেপ্টেম্বর-অক্টোবরেই দেশজুড়ে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা করোনার তৃতীয় ঢেউ। এমন আশঙ্কার কথা আগেই শুনিয়ে রেখেছেন বিশেষজ্ঞরা। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি বৈঠকও সেরেছেন প্রধানমন্ত্রী। কেরল, মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি যে উদ্বেগজনক তা স্বীকার করে নিয়েছে কেন্দ্রও। তবে, এত উদ্বেগের মাঝেও দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণে ভালরকম স্বস্তি মিলল রবিবার। এদিন এক ধাক্কায় প্রায় সাত হাজার কমে গেল অ্যাকটিভ কেস। কমল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাও। রবিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী,গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৮ হাজার ৫৯১ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন।

যা গতকালের তুলনায় অনেকটা কম। এর মধ্যে শুধু কেরলেই গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজারের বেশি মানুষ। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৩৬ হাজার ৯২১ জন। একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৩৮ জন। এই সংখ্যাটা আগের দিনের থেকে অনেকটাই বেশি।

দেশে এখনও পর্যন্ত করোনার বলি ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৬৫৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণের ছবিটা উদ্বেগ বাড়ালেও স্বস্তি মিলেছে অ্যাকটিভ কেসে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, বর্তমানে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৮৪ হাজার ৯২১ জন। যা আগের দিনের ৬ হাজার ৫৯৫ জন কম।

তবে, ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের শক্তি জোগাচ্ছেন করোনাজয়ীরা। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৩ কোটি ২৪ লক্ষ ৯ হাজার ৩৪৫ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন।  এদিকে টিকাকরণে জোর দেওয়া হচ্ছে। এর গতি আরও বাড়ানো হবে এর আগেই জানিয়েছে কেন্দ্র। তবেউৎসবের মরসুমেই এই তৃতীয় ঢেউ আসার প্রবল সম্ভাবনা। যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে কেন্দ্র ও রাজ্যের তরফে। 
















Covid Update: তৃতীয় ঢেউ রুখতে টিকাকরণে জোর কেন্দ্রের

সেপ্টেম্বর-অক্টোবরেই দেশজুড়ে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। এমন আশঙ্কার কথা আগেই শুনিয়ে রেখেছেন বিশেষজ্ঞরা। আর তার মোকাবিলায় আগেভাগেই কোমর বেঁধেছে প্রশাসন। শুক্রবার উচ্চপর্যায়ের বৈঠকেও বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যেখানে আরও টিকাকরণে জোর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

বর্তমানে দেশে দৈনিক সংক্রমণ তুলনামূলক নিয়ন্ত্রণে থাকলেও ভাইরাস নিয়ে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছে না কেন্দ্র।শনিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৩ হাজার ৩৭৬ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের তুলনায় খানিকটা কম। তবে সবচেয়ে বেশি চিন্তায় রাখছে কেরলের পরিস্থিতি।

দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ কোটি ৩২ লক্ষ ৮ হাজার ৩৩০। একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৩০৮ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা বলি ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৩১৭ জন। এদিকে দুই দেশে তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। কেরল , মহারাষ্ট্রে সংক্রমণে মাত্রা বাড়ছে। তবে এই তৃতীয় ঢেউ রুখতে টিকাকরণে করতে তৎপর কেন্দ্র। যদিও কেন্দ্রের এই নিয়ে গতকাল এক বৈঠক হয়. তৃতীয় ঢেউ রুখতে যাবতীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে কেন্দ্রের তরফে। 

Covid Update: দেশে সংক্রমণে ফের স্বস্তি, উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেরল

প্রতিদিনই করোনা সংক্রমণ ওঠা-নামা করছে।  তবে তৃতীয় ঢেউ আসার আতঙ্ক রয়েছে। তবে স্বস্তি ফিরিয়ে দেশের কোভিড গ্রাফে ফের পতন। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্য়ান অনুযায়ী, দেশে দৈনিক করোনা সংক্রমণ ও মৃত্য়ু  দুটোই কমল। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪, ৯৭৩ জন।

বৃহস্পতিবার এই সংখ্যাটা ছিল ৪৩ হাজারের বেশি। তুলনায় প্রায় ৯ হাজার কমল দৈনিক সংক্রমণ। আর গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনার বলি ২৬০জন।  স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবল থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৭ হাজার ৬৮১ জন। এনিয়ে মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করে সুস্থ হয়েছেন দেশের মোট ৩ কোটি ২৩ লক্ষ ৪২ হাজার ২৯৯ জন। মৃত্যু হয়েছে মোট ৪ লক্ষ ৪২ হাজার ৯ জনের।

কেরলের  করোনা পরিস্থিতির দিকেও নজর রয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের। পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুুমাত্র কেরলেই ২৬ হাজার ২০০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণের খবর মিলেছে। মৃত্যু হয়েছে ১১৪ জনের।  কেরলের পরিস্থিতি থেকে শিক্ষা নিয়ে পাশের রাজ্য তামিলনাড়ু ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়েছে। বৃহস্পতিবারই তা ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যদিকে দেশজুড়ে টিকাকরণ চলছে। 


Covid Update: দেশে সংক্রমণ বাড়ছে , তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা কেরল,মহারাষ্ট্রে

দেশের দৈনিক করোনা  সংক্রমণ ছিল ৪০ হাজারের নিচে। তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কার মধ্যে তা কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রককে। কিন্তু বৃহস্পতিবারের পরিসংখ্যান ফের চিন্তা বাড়াবে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের কর্তাদের। কারণ, এদিন ফের দৈনিক সংক্রমণ একধাক্কায় অনেকটা বেড়ে ৪৩ হাজারের ঘরে পৌঁছে গিয়েছে।বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৪৩ হাজার ২৬৩ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের তুলনায় অনেকটাই বেশি। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ কোটি ৩১ লক্ষ ৩৯ হাজার ৯৮১।

একদিনে মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৩৮ জন। এই সংখ্যাটা অবশ্য আগের দিনের থেকে খানিকটা কম। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা বলি ৪ লক্ষ ৪১ হাজার ৭৪৯ জন। এদিকে দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আতঙ্ক রয়েছে। তারমাঝেই কেরল, মহারাষ্ট্রে  নাগপুর প্রশাসন বলছে করোনার থার্ড ওয়েভ চলে এসেছে। একই কথা শোনা গিয়েছে মুম্বইয়ের মেয়রের মুখেও।

পরে অবশ্য তিনি দাবি করেছেন, করোনার তৃতীয় ঢেয় আসেনি। তবে বিধি না মানলে তা আসতে খুব একটা দেরিও নেই।গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণের পাশাপাশি ঊর্ধ্বমুখী অ্যাকটিভ কেসও। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, বর্তমানে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৯৩ হাজার ৬১৪ জন। বাড়ছে সংক্রমণ।