বুড্ডা মিল গয়া

হৃষিকেশ মুখোপাধ্যায় বলিউডের ভিন্নধর্মী ছবি করিয়েদের মধ্যে অন্যতম। বিমল রায় হিন্দি ছবির জগতের এক আইকন পরিচালক ছিলেন। বিমলবাবুকে সমীহ করে চলতেন মুম্বইয়ের তাবড় শিল্পীমহল। বিমলবাবুর সহযোগী হিসাবে পরবর্তী অধ্যায় যাঁরা পরিচালক হন তাদের মধ্যে অন্যতম হৃষিকেশ এবং গুলজার। হৃষিকেশ একের পর এক বাস্তবধর্মী ছবি বানাতে থাকেন। বিমল রায়ের দলটি ছিল বামপন্থী এবং এরা গণনাট্য সংঘের সক্রিয় সদস্য ছিলেন। একটা সময়ে হৃষিকেশবাবুকে তাঁর সহযোগীরা বলেন যে, দাদা একটা অন্য ধরনের ছবি করুন না যেখানে চালু হিন্দি ছবির মতো ফর্মুলা থাকবে। ঋষিকেশ পরিষ্কার জানান, ঠিক আছে একটা ছবি করব যেখানে সাসপেন্স থাকবে অল্প ভায়োলেন্স থাকবে কিন্তু তথাকথিত হিন্দি ছবি বানাতে পারবো না। ঠিক হল তাই হবে, তাই ঠিক ৫০ বছর আগে তৈরি হলো 'বুড্ডা মিল গয়া।"
ছবিতে এক বৃদ্ধ ব্যবসায়ীকে তাঁর পার্টনাররা বিপাকে ফেলে জেলে পাঠাবে। বৃদ্ধ জেল থেকে বেরিয়ে তার প্রতিশোধ নেবে ঠিক করে পার্টনারদের একেক জনের বাড়ি গিয়ে দেখেন সে খুন হয়ে গিয়েছে। শেষপর্যন্ত নানা মজায় খুনি ধরা পড়ে। এই ছবিতে সুর করিয়েছিলেন রাহুল দেববর্মনকে দিয়ে। গানগুলি খুবই হিট করেছিল কিন্তু আজ এই ছবির যে গান মঞ্চে মঞ্চে শিল্পীরা গেয়ে থাকেন তা হলো "রাতকলি এক খোয়াব মে আয়ি।"

হিন্দি সিনেমা দিয়ে কামব্যাক, ধর্ষিতাদের যন্ত্রণা তুলে ধরবেন অপর্ণা

প্রায় তিনবছর পর পরিচালনায় ফিরছেন অপর্ণা সেন। তবে বাংলা নয়, হিন্দি সিনেমা দিয়েই কামব্যাক করছেন তিনি। স্পষ্ট বক্তা হিসাবে বরাবরই পরিচিত অপর্ণা সেন। নিজের প্রতিটি সিনেমাতেও তা ফুটে উঠেছে।  সেই তালিকায় নতুন সংযোজন ‘দ্য রেপিস্ট’। সিনেমার মূল বিষয়, সমাজে নারীদের প্রতি অত্যাচার। শ্লীলতাহানি, ধর্ষণের মতো সমাজের এই ব্যাধিগুলো যেন আরও বেশি করে জেঁকে বসছে। মতের বিরুদ্ধে গেলেই আসছে রেপ থ্রেট। আর নির্যাতনের শিকার হলে জোটে আরও অপমান। প্রশাসনের কাছে বিচার চাইতে গেলেও সহ্য করতে হয় অসহনীয় যন্ত্রণা, লজ্জা। কেন নির্যাতিতাকেই সহ্য করতে হবে অপমান, এই প্রশ্নই তুলে ধরবেন পরিচালক।
‘দ্য রেপিস্ট’ এর মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করবেন অর্জুন রামপাল ও কঙ্কনা সেনশর্মা। সূত্রের খবর, আগামী মাস থেকেই শুরু হতে পারে সিনেমার শুটিং।

বলিউডে কলকাতার অচেনা রূপ চেনাবে ‘মনোহর পাণ্ডে’

এবার বলিউডে পাড়ি জমাচ্ছেন পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। চলতি সপ্তাহের বুধবার থেকে শুরু হয়েছে শুটিং। সিনেমার নাম ‘মনোহর পাণ্ডে’। জানা যাচ্ছে, জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত এই বাঙালি পরিচালকের বলিউড ডেবিউ সিনেমায় অভিনয় করছেন অভিনেতা সৌরভ শুক্ল। এছাড়া অন্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন রঘুবীর যাদব এবং সুপ্রিয়া পাঠক কাপুর প্রমুখ। এছাড়া এই সিনেমা দিয়েই বলিউডে পা রাখবেন টলি অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তীও। ইতিমধ্যে কলকাতাতে চলে এসেছেন কলাকুশলীরা। শুধু কৌশিকেরই নয়, মনোহর পাণ্ডে কিন্তু প্রযোজনা সংস্থা সুরিন্দর ফিল্মসেরও প্রথম হিন্দি প্রজেক্ট। সিনেমার পোস্টারও শেয়ার করা হয়েছে সুরিন্দর ফিল্মসের তরফে। পোস্টারটিও বেশ অভিনব। ট্রাম, হাতে টানা রিক্সা, হাওড়া ব্রিজ, বিদ্যাসাগর সেতু, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল- গোটা কলকাতার মিনিয়েচার রূপ যেন ফুটে উঠেছে তাতে।
প্রথমদিন উত্তর কলকাতার বাগবাজারের কুমোরটুলিতে শুটিং করেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। জানা গেছে একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে এই সিনেমাটির জন্য বাছা হয়েছে কলকাতার বিভিন্ন অংশ। তবে সিনেমার মূল গল্প এখনও জানানি পরিচালক। সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।