অল্পের জন্য এবার কোপা আমেরিকায় খেলা হল না ভারতের!

বিশ্বের অন্যতম সেরা মহাদেশীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকা। আর এই ঐতিহ্যবাহী টুর্নামেন্টেই এবার ভারতের খেলার সম্ভবনা উজ্জ্বল ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তা বাতিল হয়। কারণ আমন্ত্রিত দেশ হিসেবে ভারতকেই বাছা হতে পারে বলেই সূত্রের খবর ছিল। উল্লেখ্য, গত বছরই হওয়ার কথা ছিল কোপা আমেরিকার। কিন্তু করোনা অতিমারীর জেরে যা স্থগিত হয়ে যায়। জানা যাচ্ছে ওই জনপ্রিয় ফুটবল টুর্নামেন্টই এবার অনুষ্ঠিত হতে পারে চলতি বছরের ১১ জুন থেকে। স্থগিত হওয়া টুর্নামেন্টে আমন্ত্রিত দেশ হিসেবে ডাকা হয়েছিল কাতার ও অস্ট্রেলিয়াকে। এবার টুর্নামেন্ট শুরু আগে বেঁকে বসে অস্ট্রেলিয়া। করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই তাঁরা দল পাঠাতে নারাজ। তবে নিজেদের পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়া ভারতের নাম প্রস্তাব করেছে বলেই সূত্রের খবর। এক সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিককে ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস জানিয়েছেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ভারত এবং কনমেবল (লাতিন আমেরিকান ফুটবল সংস্থা)-এর সঙ্গে কথা বলেছিল। কনমেবল আমাদের পেতে দারুণ আগ্রহী ছিল’। কিন্তু এই বছর আর কোপায় খেলা হচ্ছে না ভারতের। কারণ এরপরই তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, ‘আমাদের সঙ্গে কোপা আমেরিকার আয়োজকদের কথা হয়েছে। ভবিষ্যতে কোপা আমেরিকায় ভারতকে দেখতে পাওয়ার উজ্জ্বল সম্ভবনা রয়েছে’। তিনি বলেন, এএফসি মার্চ-এপ্রিল-মে মাসে বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং রাউন্ডের খেলা স্থগিত করে দেওয়ায় ভারত নিজেদের বিষয়টি নিশ্চিত করতে না পারার জন্যই এবছর কোপায় খেলা হচ্ছে না ভারতের। তবে ভারতীয় ফুটবল দলের হেডকোচ ইগর স্টিমাচ জানিয়েছেন, আগামী বছর আমাদের কোপা আমেরিকায় সুযোগ পাওয়ার উজ্জ্বল সম্ভবনা রয়েছে।

আজ জিতলেই AFC চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটিকে-মোহনবাগান

এটিকে-মোহনবাগানের জয় রথ অব্যাহত। শেষ ম্যাচে আবার চির প্রতিদ্বন্দ্বী এসসি ইস্টবেঙ্গলকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রয় কৃষ্ণরা। সোমবার আইএসএলে পরবর্তী ম্যাচে হায়দরাবাদ এফসির বিরুদ্ধে মাঠে নামছে হাবাসের দল। আর এই ম্যাচটি জিতলেই এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র পেয়ে যাবে এটিকে-মোহনবাগান। এমনিতে আইএসএলের প্লে অফে পৌঁছেই গিয়েছে দল, তাই এখন এটাই একমাত্র লক্ষ্য অ্যান্তোনিয় লোপেজ হাবাসের। এই মুহূর্তে মুম্বই সিটির পয়েন্ট ১৮ ম্যাচে ৩৪। অন্যদিকে, এটিকে-মোহনবাগানের সমসংখ্যক ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট। অর্থাৎ পাঁচ পয়েন্টে এগিয়ে হাবাস বাহিনী। অঙ্কের বিচারে সোমবার হায়দরাবাদকে হারাতে পারলেই কলকাতার ক্লাবটির পয়েন্ট হবে ৪২, আর শেষ দুই ম্যাচে মুম্বই এফসি জিতলেও পয়েন্ট দাঁড়াবে ৪০। ফলে এদিন জিতলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র এসে যাবে এটিকে-মোহনবাগানের হাতে।

কৃষ্ণের গোলেই কিস্তিমাত, লিগ শীর্ষে এটিকে-মোহনবাগান

ফের ত্রাতার ভূমিকায় রয় কৃষ্ণ। প্রথম পর্যায়ে এই জামশেদপুর এফসির কাছেই আটকে গিয়ে পিছিয়ে পড়েছিল এটিকে-মোহনবাগান। দ্বিতীয় পর্যায়ে তাঁদের হারিয়েই আইএসএল লিগ শীর্ষে উঠে এল হাবাসের দল। রবিবার সন্ধ্যায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর শেষ পর্যন্ত কাঙ্ক্ষিত জয় আসে এটিকে-মোহনবাগানের। ম্যাচের ৮৫ মিনিটে ফিজির ভারতীয় বংশোদ্ভূত তারকা স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণ গোল করে লিগ শীর্ষে তুলতে সাহায্য করলেন। যদিও ম্যাচে ৬ মিনিটের মধ্যেই পেনাল্টি পেতে পারত হাবাসের দল। কিন্তু নিশ্চিত পেনাল্টি থেকে বঞ্চিত হয় তাঁরা। এরপর বেশ কয়েকবার বিপক্ষের গোলে আক্রমণ করেও গোল পায়নি এটিকে মোহনবাগান। অবশেষে ম্যাচের ৮৫ মিনিটে রয় কৃষ্ণ বাঁ পায়ের নিখুঁত প্লেসিং গোলের রাস্তা খুঁজে নেয়। স্বস্তি ফেরে এটিকে-মোহনবাগান শিবিরে। ১৭ ম্যাচে রয় কৃষ্ণদের সংগ্রহ ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শীর্ষে উঠে এল তাঁরা। পিছনে পড়ে গেল মুম্বই সিটি এফসি। অপরদিকে ডার্বির আগে এই জয় বাড়তি অক্সিজেন দিল এটিকে-মোহনবাগানকে। কারণ আইএসএল প্লে অফে আগেই জায়গা করে নিয়েছে অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের ছেলেরা।
ছবিঃ টুইটার

হায়দরাবাদকে হারাতে মরিয়া ‘খোঁচা খাওয়া বাঘ’ এসসি ইস্টবেঙ্গল

শুক্রবার আইএসএলে হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে মাঠে নামছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। প্রথম পর্বে জ্যাঁ মাঘোমা জোড়া গোল করলেও হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জিততে পারেনি লাল-হলুদ শিবির। কিন্তু এই ম্যাচ জিততেই হবে ইস্টবেঙ্গলকে। তবেই ফাওলারের দলের প্লে অফে ওঠার আশা থাকবে। অপরদিকে হায়দরাবাদ এদিনের ম্যাচ জিতলেই শেষ চারে নিশ্চিত হয়ে যাবে। গত ম্যাচে জামশেদপুরের বিরুদ্ধে জয় কিছুটা হলেও অক্সিজেন দিয়েছে ফাওলারের ছেলেদের।
বিশেষজ্ঞদের মতে জামশেদপুরের থেকে বেশ শক্তিশালী দল হায়দরাবাদ এফসি। ফলে এই ম্যাচে জয় নিয়ে আশাবাদী নন তাঁরা। ১৬ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে রয়েছে মানোলা মার্কোজের দল। অন্যদিকে শেষ পাঁচ ম্যাচে তিন গোল করলেও, পাঁচ গোল হজম করতে হয়েছে ড্যানি ফক্সদের। ফলে হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে দাঁড়িয়ে লাল হলুদ ডিফেন্স। লাল-হলুদের সহাকরী কোচ টনি গ্র্যান্ট রক্ষনের ওপর জোড় দিয়ে দল সাজাচ্ছেন বলেই জানা যাচ্ছে। কারণ নির্বাসিত ফাওলার এদিনের ম্যাচেও ডাগ আউটে থাকবেন না। অপরদিকে হায়দরবাদের বিদেশি ফুটবলারদের সঙ্গে দেশীয় ফুটবলাররাও ভালো খেলছেন। ফলে প্রতিপক্ষ দলকে নিয়ে বেশ চিন্তিত টনি গ্র্যান্ট। যদিও ডার্বির আগের ম্যাচ জিততে মরিয়া লাল-হলুদ শিবির।

এফএ কাপের ম্যাচ জিতল চেলসি ও সাউদাম্পটন

বৃহস্পতিবার এফএ কাপে বার্নসলের মুখোমুখি হয়েছিল চেলসি। কোচ পরিবর্তনের পর টানা তিন ম্যাচে জয় পেল চেলসি। বার্নসলকে ১-০ গোলে হারাল টমাস তুহেলের দল। উল্লেখ্য, খারাপ পারফর্মেন্সের জেরে চেলসির কিংবদন্তী ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে সরিয়ে দিয়েছিল ক্লাব কর্তারা। এদিনের ম্যাচে চেলসির হয়ে গোল করেছেন ট্যামি আব্রাহাম। ম্যাচ জিতে এফএ কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল রাউন্ডে পৌঁছে গেল চেলসি। অপরদিকে উলভসকে ২-০ গোলে হারাল সাউদাম্পটন। সাউদাম্পটনের হয়ে গোল করেছেন স্টুয়ার্ট ও ড্যানি ইনস।

ফাওলারের শাস্তিঃ অসন্তুষ্ট ইস্টবেঙ্গল চিঠি প্রফুল প্যাটেলকে

এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে চতুর্থ রেফারিকে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের অভিযোগে শাস্তি হয় রবি ফাওলারের। এসসি ইস্টবেঙ্গলের কোচকে চার ম্যাচের নির্বাসন এবং ৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছিল ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি। এবার এই শাস্তির এক্তিয়ার নিয়ে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি প্রফুল প্যাটেলকে চিঠি দিল ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে চিঠিতে রবি ফাওলারের শাস্তি কমানো নিয়ে কোন আবেদন করা হয়নি ক্লাবের তরফে।  
সূত্রের খবর, ক্লাবের অন্যতম শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার মৌখিকভাবে এই বিষয়ে অলোচনা করেছিলেন শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান উষানাথ বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে। তবে খুব বেশি লাভ হয়নি তাতে। ফাওলারের শাস্তি কমানোর বিষয় কোনও আবেদন করা না হলেও তাঁর প্রতি শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির মনোভাব ও আচরণ নিয়ে খুশি নন ক্লাব কর্তৃপক্ষ। সে বিষয়ে ফেডারেশনের সভাপতি প্রফুল প্যাটেলকে চিঠি দিয়েছে বলে ক্লাব সূত্রে জানা গিয়েছে। মূলত যে দুটি বিষয় চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলি হল, ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি চেয়ারম্যান পদে উষানাথ বন্দেপাধ্যায়ের থাকার যোগ্যতা আছে কিনা। এবং দ্বিতীয়ত, এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচ কমিশনার যে রিপোর্ট পেশ করেছিলেন, তাঁর ম্যাচ পরিচালনা করার আদৌ যোগ্যতা আছে কিনা। এখন দেখার আইএসএলে নবাগত দলের অভিযোগ কতটা গুরুত্ব দিয়ে দেখেন ফেডারেশনের সর্বময় কর্তা।

কিশোর ভারতী স্টেডিয়াম পছন্দ, চিঠি দিল দুটি ক্লাব

চলতি সপ্তাহের সোমবার উদ্বোধন হয়েছে দক্ষিণ কলকাতায় নবরূপায়িত কিশোর ভারতী স্টেডিয়ামের। সেদিনই দর্শক নিয়ে আয়োজিত হয়েছিল আইলিগের চার্চিল ব্রাদার্স বনাম রিয়েল কাশ্মীরের ম্যাচ। এবার কলকাতা ফুটবল লিগে এই নতুনভাবে সংস্কার করা স্টেডিয়ামে ম্যাচ খেলতে ইচ্ছুক গঙ্গাপারের শতাব্দী প্রাচীন দুটি ক্লাব। দুই ক্লাবের তরফ থেকে আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায়কে চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই স্টেডিয়াম বেশ প্রশংসিত হয়েছে বাংলার ক্রীড়ামহলে। কিশোর ভারতী স্টেডিয়ামে দর্শকাসন প্রায় ১৬ হাজার। ফলে এই স্টেডিয়ামকে পেতে বেশ আগ্রহী দুটি ক্লাবই, এসসি ইস্টবেঙ্গল ও এটিকে-মোহনবাগান। তাঁদের দাবিতে যদি আইএফএ শিলমোহর দেয়, তাহলে বেশি খুশির খবর হবে দুই শিবিরের সমর্থকদের জন্য।

ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের ‘নয়নের মনি’ ব্রাইটের আজ জন্মদিন, রইল কিছু অজানা তথ্য

১৯৯৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি নাইজেরিয়ার বেনিন শহরে জন্ম নিয়েছিলেন ব্রাইট এবাখেরে। এই নামটি ভারতে কোনও দিন কেউ শোনেননি। কিন্তু চলতি আইএসএলের মাঝপথে তিনি এসসি ইস্টবেঙ্গলের হয়ে খেলতে ভারতে আসার পরই তাঁকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত ভারতীয় ফুটবল মহল। সেদিন থেকেই তিনি ইস্টবেঙ্গলের প্রতিটি সমর্থকদের মন জয় করেছেন। এমনকি আগামী আইএসএলে তাঁকে দলে নিতে অন্যান্য দলগুলিও যোগাযোগ করতে শুরু করেছিল। আজ, মঙ্গলবার  তাঁর জন্মদিন, আপনাদের জন্য রইল ব্রাইট এনবাখেরের জীবনের কয়েকটি অজানা তথ্য।