Liquor Shops : পয়লা অক্টোবর থেকে ৪৫ দিন বন্ধ থাকবে অধিকাংশ মদের দোকান

দিল্লি:সুরাপ্রেমীদের জন্য খারাপ খবর। দিল্লি সরকারের নতুন আবগারি নীতি অনুসারে আগামী পয়লা অক্টোবর থেকে ৪৫ দিন বন্ধ থাকবে মদের দোকান। দিল্লি পৌরসভার ২৭২টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১০৬টি তে কোনও মদের দোকান বন্ধ থাকবে। 

এদিকে দিল্লি সরকার আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে প্রায় ২৬০টি মদের দোকান বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দিল্লি পৌরসভার ২৬টি ওয়ার্ডে যে সব ব্যক্তিগত মালিকানাধীন মদের দোকান রয়েছে,তা আগামী পয়লা অক্টোবর থেকেই বন্ধ হয়ে যাবে। তবে দিল্লি সরকার পরিচালিত মদের দোকানগুলি মদের খুচরা বিক্রয় করবে।

সরকারের নতুন আবগারি নীতি অনুযায়ী ৩২টি জোনে সর্বোচ্চ দরদাতাদের জন্য খুচরো মদ বিক্রির লাইসেন্স ইতিমধ্যে বরাদ্দ করা হয়েছে। যার প্রত্যেকটিতে প্রায় ১০টি ওয়ার্ড এবং ২৭টি মদের দোকান থাকছে। 

নাশকতার ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো

প্রাথমিক খবর -- উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান এবং দিল্লির প্রান্তর থেকে ৬ জঙ্গি ধরা পড়লো মঙ্গলবার । সন্ধ্যার পর খবরটি জনমানসে আসে । উত্তরপ্রদেশের বিশেষ পুলিশের তৎপরতাতে এদের হদিশ পাওয়া গেলো । এদের অনেকেই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত । জানা গিয়েছে এদের নেতা ওসামা নামক ব্যক্তি পাকিস্তানের আইএসআই এর প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত । এদের কাছে বহু তথ্য পাওয়া গিয়েছে ।এরা  দূর্গা পূজা সহ পুজো উৎসবের মাসে বহু স্থানে নাশকতার চক্রান্ত করেছিল । এদের আপাতত পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে অন্যান্য খবরের জন্য । তালিবানদের উত্থানের পর পুলিশের কাছে খবর ছিলই কোনও একটা নাশকতা হতে পারে তাদেরই একটি দল আপাতত পুলিশি হেফাজতে ।


ইডি দপ্তরে গেলেন অভিষেক

নয়াদিল্লিঃ তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কয়লাকাণ্ডে আজ সকালেই তদন্তের কারণে ইডির দপ্তরে উপস্থিত হলেন । কালো রঙের শার্ট এবং জিন্স পরিহিত অভিষেককে ছিলেন অত্যন্ত শান্ত ও ক্যাজুয়াল । ওই অফিয়াসে প্রবেশের আগে উপস্থিত জনতার দিকে হাত নাড়ালেন । ঢোকার আগেই প্রচার মাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি । প্রশ্ন করা হয়, এই কয়লা কেলেঙ্কারিতে তিনি কেন দিল্লিতে ? অভিষেক শান্ত ভাবে জানান, হয়তো প্রয়োজন আছে তদন্তের বিষয়ে । দেশের নাগরিক হিসাবে তিনি সর্বদাই যে কোনও ঘটনার তদন্তের সাহায্যের জন্য তিনি প্রস্তুত ।

ভোটের ফল ঘোষণার পরই কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলি যথেষ্ট তৎপর দেখা যাচ্ছে । একদিকে জিজ্ঞসাবাদ চলেছে ভোটের পরের গন্ডগোল নিয়ে অন্যদিকে 'লালা'র কাছ পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিষেককে প্রশ্ন করা হতে পারে বলেই সূত্র মারফত খবর । অবশ্য একেবারে প্রাথমিক স্তরের জিজ্ঞসাবাদ বলেই সূত্রের খবর ।

School Open: বুধবার থেকে খুলছে স্কুল, ধাপে ধাপে চালু হবে ক্লাস!

আগামী ১ সেপ্টেম্বর বুধবার থেকে ধাপে ধাপে স্কুল খুলবে দিল্লিতে। প্রথম দফার চালু হবে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ক্লাস। দ্বিতীয় দফায় ৮ মে ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য খুলবে স্কুল। শুক্রবার দিল্লি বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষের (ডিডিএমএ) তরফে এ কথা জানানো হয়েছে।

এদিকে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল বৃহস্পতিবার জানিয়েছিলেন, তাঁর সরকার করোনা বিধি মেনে ধাপে ধাপে ক্লাস চালু করতে চায়। দিল্লি সরকার নিযুক্ত বিশেষজ্ঞ কমিটিও এই সুপারিশ করেছে বলে জানান তিনি। এর পরেই দিল্লির শিক্ষা দফতর, ডিডিএমএ-সহ সংশ্লিষ্ট দফতরগুলির আধিকারিকেরা ধাপে ধাপে স্কুল খোলার নির্দেশ স্থির করতে সক্রিয় হন।

ডিডিএমএ সূত্রের খবর, দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া স্কুল খোলার বিষয়ে সরকারি ভাবে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবেন। যদিও পঞ্চম শ্রেণি বা তার নীচের ক্লাসগুলির চালুর বিষয়ে পরবর্তী পর্যায়ে বিশেষজ্ঞ কমিটির সঙ্গে আলোচনা করা হবে। 


দেশের সব সৈনিক স্কুলে ছাত্রীদের শিক্ষার ব্যবস্থার ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে দেশবাসীকে টুইট বার্তা দিলেন মোদী। লালকেল্লায় পতাকা উত্তোলন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর আগে টুইটে তিনি লিখলেন, 'স্বাধীনতার অমৃত মহোৎসব দেশবাসীকে নতুন শক্তি দিক। মানুষের মধ্যে নতুন চেতনার তৈরি হোক।' স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে শনিবার দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশ ভাগের স্মৃতি উস্কে  ১৪ অগাস্ট দিনটি হিসেবে পালনের ঘোষণা করেছেন তিনি। দেশভাগের সময় যাঁদের প্রাণ গিয়েছে, তাঁদের স্মরণও করেছেন নমো। রবিবার লাল কেল্লায় কোভিড বিধি মেনেই পালন করা হবে স্বাধীনতা দিবস। দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী।

স্কুলে খেলাকে মেন স্ট্রিমে আনা হয়েছে। দেশে ফিটনেস, স্পোর্টস নিয়ে নবজাগরণ ঘটেছে। অলিম্পিক থেকে অন্য যে কোনও ক্ষেত্র- ভারতের মেয়েরা অভূতপূর্ব প্রদর্শন করছেন।দেশের প্রতিটি সেনা স্কুলে এবার মেয়েরাও পড়ার সুযোগ পাবেন। বড় ঘোষণা মোদির।

লাদাখ থেকে উত্তর-পূর্ব ভারত, প্রত্যেক প্রান্তই উন্নতির পথে এগিয়ে চলেছে বলে জানাচ্ছেন মোদি। চাষবাস, শিক্ষা, পর্যটক-সব ক্ষেত্রেই উন্নয়ন হচ্ছে।

আগামী ২৫ বছরে ভারতে আসবে ‘অমৃতকাল’। অর্থাৎ স্বাধীনতার শতবর্ষ পূর্তিতে সাফল্যের নয়া শিখর ছুঁয়ে ফেলবে দেশ। যেখানে দেশে কোনও পরিকাঠামোর অভাব থাকবে না। বললেন নরেন্দ্র মোদি। তার জন্য এখন থেকে কাজ করতে শুরু করতে হবে। দেশকে বদলাতে হবে এবং নাগরিক হিসেবে নিজেদেরও বদলে ফেলতে হবে।

৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। জওহরলাল নেহরু থেকে বাবা  সাহেব আম্বেদকর পর্যন্ত- প্রত্যেকের
অবদানের কথা জানালেন তিনি।

হাসপাতালে নয়া অক্সিজেন প্লান্ট। স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিশেষ নজর। উত্তর-পূর্বে শিগগির রেল যোগাযোগ তৈরি হবে। আগামী ২৫ বছর অমৃতকাল। ছোট কৃষকদের পাশে নানা সংযোজন। তাদের পাশে থাকবে সরকার। বিজ্ঞানভিত্তিক কৃষিতে জোর দেওয়া হবে। কম সুদে ঋণের ব্যবস্থা করা হয়েছে ইতিমধ্যেই'', এদিন বললেন প্রধানমন্ত্রী।

টোকিও অলিম্পিকে যেসব ক্রীড়াবিদ আমাদের গর্বিত করেছেন তাঁরা আজ আমাদের মাঝে আছেন। আমি জাতির প্রতি আহ্বান জানাই আজ তাদের কৃতিত্বকে সাধুবাদ জানাতে। তারা শুধু আমাদের হৃদয়ই জেতেনি, ভবিষ্যত প্রজন্মকেও অনুপ্রাণিত করেছে: প্রধানমন্ত্রী মোদী।


করোনা  চলাকালীন ডাক্তার, নার্স, প্যারামেডিক্যাল স্টাফ, স্যানিটেশন কর্মী, বিজ্ঞানী যাঁরা ভ্যাকসিন তৈরি করছিলেন সেই সমস্ত করোনা যোদ্ধাদের আমার শ্রদ্ধা। লালকেল্লা থেকে বললেন প্রধানমন্ত্রী।

Breaking News: ভারতের দিল্লিতে তৈরি হচ্ছে আফগান শরণার্থীদের জন্য ক্যাম্প

সত্যজিৎ মুখোপাধ্যায়ঃ আফগানিস্তানের পাশে ভারত। রাজধানী দিল্লির উপকণ্ঠে তৈরি করা হচ্ছে ক্যাম্প। সেখানেই থাকবেন ভারতের বন্ধু দেশ আফগান শরণার্থীরা। 

এবার কি তাহলে চূড়ান্ত পতনের মুখে আশরাফ ঘানি নিয়ন্ত্রিত আফগান সরকার। ক্রমশ তালিবান ঘিরে ফেলেছে রাজধানী কাবুলকে। সমর বিশেষজ্ঞরা বলছেন কাবুল পতন শুধু এখন সময়ের অপেক্ষা। একই সঙ্গে বিভিন্ন এলাকায় আফগান বাহিনীর ওপর চলছে পাথর বৃষ্টি। এমনটাই টুইট করেছে তালিবান। 

অন্যদিকে তালিবান মুখপত্র টুইট করে জানাচ্ছেন, প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি আত্মসমর্পণ করতে চলেছেন। একই সঙ্গে টুইট এ উল্লেখ আশরাফ ঘানি আর কোনও দিন আফগানিস্তানের হয়ে মাঠে নামতে পারবেন না। 

আফগানিস্তান জুড়ে চলছে তালিবানি হামলা । প্রত্যেক দিন উদ্বাস্তু ক্যাম্প এ আশ্রয় নিচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ । পরিস্থিতি এতটাই উদ্বেগজনক যে রাষ্ট্র সংঘ আন্তর্জাতিক মহল এর কাছে সাহায্য চেয়েছে । পাশাপাশি এগিয়ে এসেছে ভারতও। 

বিদেশ মন্ত্রক এর সূত্র অনুসারে আফগানিস্তান এর একটা বড় অংশের শরণার্থীদের জন্য আপাতত অস্থায়ী ভিসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে রাজধানী দিল্লির উপকণ্ঠে তৈরি করা হচ্ছে ক্যাম্প। সেখানেই থাকবেন ভারতের বন্ধু দেশ আফগান শরণার্থীরা ।


অবশেষে বৃষ্টি দিল্লিতে

তৃণমূলে একটি কথাই আছে , মমতার যেকোনও সভা সার্থক হয় যদি বৃষ্টি হয় । প্রতি বছর ২১ জুলাই, ধর্মতলা সভাতে বৃষ্টি হবেই । এছাড়া ২৮ অগাস্ট ছাত্র পরিষদ দিবসেও বৃষ্টি হয়েই থাকে । কিন্তু এই দুটি দিনই ভরা বর্ষায় হয়ে থাকে । সভাতে দেখা যায় বৃষ্টি হলেই উল্লাসে ফেটে পরে উপস্থিত জনতা , এতেই আনন্দ তাদের ।
দিল্লি সহ উত্তর ভারতে বৃষ্টি অপেক্ষাকৃত কম । এই বছর অবশ্য রাজস্থানেও বৃষ্টি হয়েছে । মঙ্গলবার সকাল থেকে দিল্লিতে প্রবল বৃষ্টি । দিল্লির গরম বরাবরই কুখ্যাত । কয়েকদিন ধরে রাজধানীতে গুমোট গরমে প্রাণ অতিষ্ট হয়ে গিয়েছিলো মানুষের । আজকের বৃষ্টিতে স্বস্তির আনন্দে অনেকেই পরম আনন্দে বৃষ্টিতে ভিজেছে । তৃণমূলের বক্তব্য, এ সবই দিদির কল্যানে ।

দিল্লিতে দিদির অপেক্ষায় শতাব্দী

লোকসভায় পেগাসাস নিয়ে প্রতিবাদ এবং স্লোগানে গলা ভেঙে গিয়েছে গ্লামার দুনিয়ার অভিনেত্রী এবং তিনবারের জিতে আসা তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায় । লোকসভায় নিয়মিত থাকার ফলে রাজনীতিটি আয়ত্বে নিয়ে এসেছেন । সি এন পোর্টালকে একান্ত সাক্ষৎকারে জানালেন, এখন আর রবিবার বা বিশ্রামের অবকাশ নেই । দিল্লিতেই থাকছি , দিদি আসছেন কাল সুতরাং তাঁর অপেক্ষাতেই বসে আছি । শতাব্দী জানালেন " পেগাসাস নিয়ে যে নোংরামি হচ্ছে তা স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে অভূতপূর্ব "। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লিতে আসছেন ফলে লোকসভায় বা রাজ্যসভায় যোগাযোগের কাজগুলি করছেন শতাব্দী সহ বাকি সাংসদরা ।

আরও পড়ুনঃ ছুটির বাজারেও পেগাসাস

শতাব্দী জানালেন, যে ভাবে নিয়মিত হারে পেট্রোলিয়াম সামগ্রীর দাম বাড়ছে একই সাথে করোনার টিকা নিয়ে রাজনীতি চলছে তা বর্তমান সরকারের অপদার্থতা আজ জনগণের সামনে । তিনি বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ২০২৪ এ পরিবর্তন আসবেই এবং তাই নিয়ে সম্মিলিত আন্দোলনের পথে তৃণমূল । ফিল্ম নিয়ে প্রশ্ন করলে হেসে বললেন, দেশের অর্থনীতি ভেঙে পড়েছে আগে তার পরিবর্তন হোক তারপর বাকি সব ।


তৃণমূলের একুশে জুলাইয়ের পাল্টা শহিদ শ্রদ্ধাঞ্জলি দিবস পালন বিজেপির

প্রতিবারের মত এবারও একুশে জুলাই শহিদ দিবস পালন করল তৃণমূল। যদিও করোনা পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল পালন করা হয় শহিদ দিবস। অন্যদিকে শহিদ দিবসের পাল্টা শহিদ শ্রদ্ধাঞ্জলি দিবস পালন করল বিজেপি। 

এদিন দিল্লিতে রাজঘাটে ধর্নায় বসে বিজেপি। যার নেতৃত্বে ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল আমাদের যে ১৭৫ জন কর্মীকে খুন করেছে, তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি। এছাড়া কর্মসূচি পালিত হয় রাজ্যের ব্লক-বুথ ও জেলাস্তরেও। 

১৯৯৩ সালে ২১ জুলাই। ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে প্রতিবাদ কর্মসূচি নিয়েছিল তৎকালীন প্রদেশ কংগ্রেস। প্রতিবাদ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন তত্কালীন যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই কর্মসূচীতে পুলিসের গুলিতে শহিদ হয়েছিলেন ১৩ জন কংগ্রেস কর্মী। এরপর থেকেই প্রতি বছর ১৩ জন শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহিদ দিবস পালন করে তৃণমূল কংগ্রেস। 


পি কের ফর্মুলা শুরু কংগ্রেসে

ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে দুই দফার বৈঠকের পর অনেকটাই নড়েচড়ে বসেছে সর্বভারতীয় কংগ্রেস । যদিও কংগ্রেসকে ফের পুরোনো জায়গায় ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে পিকে নিয়েছেন কি না এখনও সিএ খবর জনতার সামনে আসে নি । তবে অন্দরের খবর যা আসন্ন উত্তরপ্রদেশ ত্রিপুরা বা পাঞ্জাবের নির্বাচন নিয়ে পিকের সাথে নিশ্চিত রাহুল সোনিয়ার কথাবার্তা হয়েছে ।

রাহুল ইতিমধ্যে একটি টুইট ছেড়েছেন তাতে স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন, যারা আরএসএস কিংবা বিজেপিকে ভয় পান তারা কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে যেতে পারেন । ফের নতুন করে দল গঠন করা হবে বলে বার্তা রাহুলের । আসলে বাংলার ভোট যুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশাল জয়ের পর রাহুল বুঝেছেন পিকে কে দিয়ে সংগঠন দাঁড় করিয়ে দেওয়া যাবে ।

মমতার দিল্লি সফর

২১ জুলাই আসন্ন । এটি তৃণমূলের একটি স্মৃবিজড়িত দিন, তারা 'শাহিদ দিবস' পালন করেন । ২১ জুলাই এর পর মাসের শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফরের কথা । ওই সময়ে বর্ষাকালীন লোকসভা চলবে । সাধারণত বছরে একবার লোকসভা বা রাজ্যসভা চলাকালীন তিনি দিল্লি যান । কিন্তু এবারের যাত্রা তাৎপর্যপূর্ণ ।

প্রথমত বিগত বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জয় পাওয়াতে বিরোধী দলগুলি তাঁকে শুভেচ্ছায় ভরিয়ে দিয়েছে । এ ছাড়াও দ্বিতীয়ত বিভিন্ন দলের নেতারা মমতার সাথে কথা বলতে চাইছেন । তৃতীয়ত এই মুহূর্তে মমতাই মোদির বিরুদ্ধে বিরোধীদের প্রধান মুখ বলেই আলোচিত রাজধানীতে । এ ছাড়া নির্বাচনে জয়ের পর প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎকার করতে পারেন তিনি ।

এখন বিগত নির্বাচনের প্রধান পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোর দিল্লিতে । তিনি এখন কংগ্রেসের সাথে যোগাযোগ রেখে চলছেন । শোনা গেলো মমতা, সোনিয়া গান্ধীর সাথে দেখা করতে পারেন । তিনি দিল্লি গেলে চিরকালই গান্ধী পরিবারে যান । রাজীব গান্ধীর পরিবারকে মমতা এখনও সম্মানের চোখে দেখেন । কিন্তু  সৌজন্য করতেই সোনিয়ার সাথে দেখা নিশ্চই করবেন না মমতা হয়তো আগামী দিনের স্ট্রাটেজি নিয়েও আলোচনা করবেন । পার্লামেন্টের সেন্ট্রাল হলে বিভিন্ন নেতাদের সাথে কথাও বলতে পারেন তিনি । ।

দিলিপের ছুটি

কলকাতা ছাড়লেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ফের দিল্লি উড়ে গেলেন তিনি।

আজ বুধার কলকাতা বিমানবন্দর থেকে সকাল ৬টার ফ্লাইটে দিল্লির উদ্দেশে উড়ে যান রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যাওয়ার আগে সংবাদমাধ্যমকে জানালেন, 'লম্বা ছুটি কাটাতে যাচ্ছি।' এই মন্তব্য কিসের  ইঙ্গিত দিচ্ছে,তা সময়ই বলবে।

বিস্তারিক আসছে —

দিল্লিতে দিলীপ

বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ গতকাল রাতেই দিল্লি পৌছিয়ে গিয়েছেন । মূলত সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার সাথে তাঁর বৈঠক । কেন্দ্র মন্ত্রীসভায় বড়সড়ো পরিবর্তনের সময়ে শোনা গিয়েছিলো দিলীপকে হয়তো কেন্দ্রের ক্যাবিনেট মন্ত্রী করা হতে পারে কিন্তু দিলীপবাবু বাংলার সংগঠন নিয়েই থাকতে চান । এরপর শুভেন্দু দিল্লি সফর করেন এবং দলের সর্বস্তরের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন । শোনা গিয়েছে শুভেন্দুর উপর নাকি মোদি শাহরা এখন অনেকটাই নির্ভর করছেন । এই ঘটনাক্রমে দিলীপ ঘনিষ্ঠরা বেশ অখুশি বলেই শোনা গেলো । এবারে রাজ্য সংগঠনকে আরও নিজের হাতে নিতে চাইছেন দিলীপ বলে খবর ।
দলের অভ্যন্তরে অনেক নেতা বর্তমানে বাঁকা সুরে কথাবার্তা বলছেন যথা বাবুল সুপ্রিয়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌমিত্র খান প্রমুখ । নিজের হাতে রাশ নিয়ে কড়া বার্তা দিতে চান বলেই ধারণা রাজনৈতিক মহলে । দিলীপ নিশ্চই চাইবেন দল বিরোধী কাজ বা মন্তব্য বন্ধ হোক । সুতরাং দিলীপের দিল্লি সফরে হয়তো চেইপ পড়বেন বাংলার অনেক নেতা ।

সিবিআই দফতরে বিধ্বংসী আগুন

দিল্লির সিবিআইয়ের সদর দফতরে বিধ্বংসী আগুন। দফতর  থেকে কর্মীদের বের করে আনা হয়েছে। বর্তমানে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আগুন।

বিস্তারিত আসছে --

দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনে পাকিস্তানের ছায়া!

নয়াদিল্লিঃ তিনটি কৃষি আইনের বিরোধিতায় দিল্লি সীমান্তে আন্দোলন কৃষকদের। কয়েক মাস ধরে অবস্থান আন্দোলনে তাঁরা। কৃষকদের সেই আন্দোলনকেই এবার টার্গেট করেছে আইএসআই।

ভারতীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী, আন্দোলনকারীদের ছদ্মবেশে বড়সড় হামলার ষড়যন্ত্র কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা। সেজন্য আগে ভাগে দিল্লি পুলিস ও সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সকে সতর্ক করেছে গোয়েন্দারা।

গোয়েন্দা রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, কৃষক আন্দোলনে ছদ্মবেশে ঢোকার চেষ্টা করছে আইএসআই-এর চররা। সেখানে নিরাপত্তায় মোতায়েন রক্ষীদের বিভিন্ন রকম ভাবে প্ররোচিত করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। সেই প্ররোচনাকে ঘিরেই বড়সড় হামলার ছক কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা।

এদিকে, দিল্লির কৃষক আন্দোলনের সাত মাস পূর্তি এবং জরুরি অবস্থা জারির ৪৬তম বর্ষপূর্তি হিসেবে ২৬ তারিখ দিনটি বেছে নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যের রাজভবনের সামনে বিক্ষোভের কর্মসূচি নিয়েছে আন্দোলনকারীরা। 'কৃষি ও গণতন্ত্রকে রক্ষা করুন', এই আবেদন নিয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে স্মারকলিপি দেবে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা।

প্রসঙ্গত, কৃষক আন্দোলন ঘিরে যথেষ্ট অস্বস্তিতে রয়েছে কেন্দ্র। বারেবারে বৈঠক করেও মেলেনি সমাধান। কেন্দ্রের বক্তব্য কৃষক স্বার্থেই এই নতুন তিন আইন আনা হয়েছে। অন্যদিকে তিন নতুন কৃষি আইনের পুরোপুরি রদ চাইছেন কৃষকেরা।