মোতেরাতে প্রস্তুত ভারতীয় ক্রিকেট দল

মঙ্গলবার দুপুরের পর দিনরাতের ক্রিকেট টেস্ট আহমেদাবাদে | ইংল্যান্ডের সাথে তৃতীয় টেস্ট জেতা ভারতের একান্তই দরকার, অন্তত হারা চলবে না | সামনেই বিশ্ব টেস্ট ক্রিকেট ফাইনাল, ভারত আর একটাও টেস্ট হারলে ফাইনাল থেকে ছিটকে যাবে | ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি জানালেন যে তারা প্রস্তুত | সোমবার রাতে নেটে প্রাকটিস করতে দেখা গেলো টীম কোহলিদের, যেহেতু দিনরাতের গোলাপি বলে খেলা | অবশ্য আরও একটি সমস্যা আছে, শিশির | এই সময়ে গুজরাতের সর্বত্র শিশির পরে এবং সন্ধ্যার পর স্পিনারদের বল গ্রিপ করতে অসুবিধা হয় |  কোহলি কিন্তু মোতেরাতেও স্পিনিং ট্র্যাক চেয়েছেন, সে ক্ষেত্রে টস জেতা প্রয়োজন |আগে যারা ব্যাট করবে ফায়দা তারাই পাবে বলে ধারণা ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের |

ফের ঝুরঝুরে পিচে খেলা

আম জনতা যাকে বলে পিচ তারই আসল নাম উইকেট অর্থাৎ টেকনিকাল ভাষায় প্রশ্ন থাকে উইকেটের অবস্থা কেমন, তার অর্থ পিচ কেমন। চেন্নাইয়ের পিচ বা উইকেট বরাবরই স্পিনারদের সাহায্য করে এবং এই মাঠেই খেলতে ভালোবাসে ভারত কারণ ভারতে কোনও দিন স্পিনারের অভাব হয়নি। প্রথম টেস্টে হারার পর দ্বিতীয় টেস্ট ওই চেন্নাইতে কিন্তু উইকেট বা পিচ আলাদা। অধিনায়ক বিরাট কোহলির হাতে বিশ্বমানের ফাস্ট বোলার থাকা সত্বেও তিনি ঝুরঝুরে উইকেট চেয়েছেন। সহ অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে জানিয়েছেন যে, প্রথম দিন থেকেই বল ঘুরবে, তার অর্থ শনিবার ফের তিন স্পিনারেই খেলবে ভারত। এই টেস্ট ভারতকে জিততেই হবে নতুবা বিশ্ব টেস্ট ফাইনালে যাওয়া মুশকিল হয়ে যাবে। বেশ কিছুদিন ধরে টেস্ট ম্যাচের ফলাফলের উপর পয়েন্ট দেওয়া হচ্ছে। আপাতত চারটি দল ফাইনালে যাওয়ার জন্য খেলে যাচ্ছে। ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড। আপাতত পয়েন্টের অবস্থান যা যায় ভারতকে বাকি তিনটি টেস্টে হারা চলবে না। সে কারণেই স্পিনিং ট্রাক করে শেষ চেষ্টা করবেন কোহলি।

তেন্ডুলকার-কুক ট্রফির নামে খেলুক ভারত-ইংল্যান্ডঃ পানেসর

অস্ট্রেলিয়া বনাম ভারতের টেস্ট টুর্নামেন্ট, গাভাসকার বর্ডারের নামে খেলা হয়ে থাকে, তেমন ইংল্যান্ড ভারতের টেস্ট সিরিজের নাম হোক তেন্ডুলকার-কুক ট্রফি, টুইট করে জানালেন প্রাক্তন ইংলিশ স্পিনার মন্টি পানেসর। এই শিখ খেলোয়াড় ইংল্যান্ডে জন্মেছেন এবং খেলেছেন। তিনি যুক্তি দিয়ে বলেন, তেন্ডুলকার ভারতের হয়ে সর্বাধিক রান করেছেন তেমনি এলিস্টার কুক করেছেন ইংল্যান্ডের হয়ে। তার এই টুইট দেখে মিশ্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে নেট দুনিয়ায়। কেউ লিখেছে তেন্ডুলকার এবং কুক একই প্রতিভার খেলোয়াড় নন কাজেই দুটি নাম একসাথে আসবে কেন ? কেউ বলছে, বরং টুর্নামেন্টের নাম হোক পানেসার-কুম্বলে ট্রফি। কিন্তু বেশির ভাগ মানুষের ইচ্ছা টুর্নামেন্টের নাম হোক কপিল-বোথাম ট্রফি, কারণ এরা দুজনই সর্বকালের শ্রেষ্ঠ অলরাউন্ডার। তর্ক চলছে কিন্তু দুই দেশের কর্তারা আমল দিচ্ছেন না তাতে।

আইপিএলে কি পাঞ্জাবের নতুন নাম, লোগো?

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ব্যাপক রদবদল করতে চলেছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। ২০২১ সালে আইপিএলে প্রীতি জিন্টার দল নতুনভাবে আত্মপ্রকাশ করতে পারে বলে জানা গিয়েছে। শুধু দলের নাম নয়, দলের লোগো পরিবর্তনের পথেও হাঁটতে পারেন তাঁরা। 
গত মরশুমের রাহুলের নেতৃত্বে টানা পাঁচ ম্যাচ জিতলেও প্লে অফে যেতে পারেনি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। ফলে আইপিএলের নিলামের আগেই বেশ কিছু ক্রিকেটারকে ছেড়ে দিয়েছে দল। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, শেলডন কটরেল, কে গৌতম, মুজিব উর রহমান, জিমি নিশাম, হার্ডাস ভিলজয়েন এবং করুণ নায়ার। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হেড কোচ অনিল কুম্বলে জানিয়েছিলেন, ‘গতবারের ২৫ জনের স্কোয়াডের মধ্যে ১৬ জনকে আমরা রেখে দিয়েছি। আমাদের পরিকল্পনা আপাতত আসন্ন নিলামে শূন্যস্থান পূরণ করা’। জানা গিয়েছে, এই মরশুমের নিলামের আগেই কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব নিজেদের নতুন নাম এবং লোগো সরকারিভাবে জানাতে পারে।

হারের দোর গোড়ায়, ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে ভারত

৯ উইকেট হাতে নিয়ে চেন্নাই টেস্টের পঞ্চম দিনে ব্যাট করতে নেমেছিল ভারত। জয়ের জন্য দরকার ছিল ৩৮১ রান। কিন্তু চেন্নাইয়ে চিপকের ঘূর্ণি পিচে ভারত কতটা প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারবে সেটা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু মঙ্গলবার পঞ্চমদিনের খেলা শুরু হতেই দেখা গেল ইংরেজ পেসারদের দাপট। জেমস অ্যান্ডারসন একাই তুলে নিলেন তিন উইকেট। জ্যাক লিচ পেলেন দুই উইকেট।


কিছুটা লড়াই দিচ্ছিলেন তরুণ ওপেনার শুভমান গিল, করলেন হাফ সেঞ্চুরিও। কিন্তু ৫০ রান করার পরই অ্যান্ডারসন গিলের স্ট্যাম্প ছিটকে দিয়ে ভারতকে বড় ঝটকা দিলেন। তিনবল পরেই ফের অ্যান্ডারসন ধাক্কা দিলেন ভারতকে, এবারও রাহানের স্ট্যাম্প ছিটকে দিয়ে। ফলে চাপে পড়ে যায় ভারত। ৩৫ ওভারের পর ৬ উইকেট হারিয়ে ভারতের স্কোর ১১৮ রান। ক্রিজে রয়েছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি (২৬) এবং রবিচন্দ্র অশ্বিন (০১)। ফলে নিশ্চিত হারের মুখে দাঁড়িয়ে ভারত।

বিরল কৃতিত্ব অশ্বিনের

ভারত-ইংল্যান্ড প্রথম টেস্টে ১১৪ বছরের পুরোনো রেকর্ড স্পর্শ করলেন রবিচন্দ্র অশ্বিন। দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম বলে ইংল্যান্ডের ওপেনার ররি বার্নসকে আউট করেন তিনি। সেই উইকেট পেয়েই ছুঁয়ে ফেললেন দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিনার বার্ট ভাগলারকে। ১৯০৭ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ইনিংস শুরুর প্রথম বলেই উইকেট পেয়েছিলেন ভগলার। এরপর থেকে কেউ ওই রেকর্ড ভাঙতে পারেনি। ভারতীয় স্পিনার রবিচন্দ্র অশ্বিন চেন্নাই টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংস শুরুর প্রথম বলেই উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন। ইংল্যান্ডের ববি পিল ১৮৮৮ সালে প্রথম ইনিংসের প্রথম বলে উইকেট পেয়েছিলেন।

আজহার ক্রিকেটের এক স্তম্ভ

মহম্মদ আজহারউদ্দিন ভারতীয় ক্রিকেটেও এসেছিলেন জয় করেছিলেন এবং বদনামও কুড়িয়েছিলেন। ক্রিকেটার হিসাবে নির্দ্বিধায় বলা যায় যে তিনি সর্বকালের সেরাদের একজন ছিলেন। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার গুণ এবং সব খেলোয়াড়দের সাথে মিশে আজ্জু হওয়ার ক্ষমতা তিনিই প্রথম দেখিয়েছিলেন। অসাধারণ স্টাইলিস্ট ব্যাটসম্যান ছিলেন, কব্জির মোচড়ে বলকে সীমানার বাইরে পাঠানোর ওস্তাদ ছিলেন তিনি। জায়সীমা, বিশ্বনাথের পর তিনিই ছিলেন কলকাতার প্রিয় খেলোয়াড় এবং তাঁর ফিল্ডিং ছিল বিশ্বমানের। দেশে এবং বিদেশে কীভাবে ম্যাচ বের করতে হয় তার তিনিই ছিলেন পথিকৃৎ। ৯৯ টেস্ট খেলে ২২টি সেঞ্চুরি সহ ৬২১৫ রান সংগ্রহ এবং ওয়ান ডে তে ৩৩৪ ম্যাচে ৯৩৭৮ রান সাথে ৭টি সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন তিনি। তাঁর নেতৃত্ব হারের চেয়ে জয়ই বেশি। কিন্তু তা সত্বেও ম্যাচের গড়াপেটা বা ম্যাচ ফিক্সিংয়ে নাম জড়িয়ে যায় ২০০০ সালে এবং দল থেকে বাদ পড়েন। কিন্তু তাঁর অপরাধ আজ অবধি প্রমাণিত না হলেও বদনামের আরও ঘটনায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। খেলা ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দেন এবং সংসদের সদস্যও হন | বর্তমানে তেলেঙ্গানা প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি তিনি। আজ আজ্জু ৫৬ বছরে পদার্পণ করলেন।

ঋষভ পন্থের কাণ্ড দেখে সকলের চক্ষু চড়কগাছ

ফুটবলে প্রায়শই দেখা যায় গোলপোস্ট না দেখে শট নেওয়ার ঘটনা। আবারও পেনাল্টির সময়  প্রতিপক্ষ ফুটবলার শট নেওয়ার সময় অনুমানের উপর নির্ভর করে গোলকিপারদের সম্পূর্ণ বিপরীত দিকে ঝাঁপাতে দেখা যায়। কিন্তু ভারত-ইংল্যান্ড প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ঘটল তাজ্জব ঘটনা। ব্যাটসম্যান বল ভাসালেন একদিকে, অথচ ফিল্ডার দৌড় লাগালেন উল্টো দিকে। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বল উপরে উঠিয়ে দেন ইংল্যান্ডের ওলি পোপ। রোহিত শর্মা বলের দিকে গেলেও পন্থ ক্যাচ নেওয়ার জন্য দৌড় লাগান ঠিক তাঁর বিপরীত দিকে। ইতিমধ্যে সোশাল মিডিয়ায় ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে। তবে অক্লান্তভাবে দুইদিন উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। তেমনি তাঁর তালুবন্দিও হয়েছেন ইংল্যান্ডের ওপেনার ররি বার্নস।

প্রথম টেস্ট শুরুর আগেই ধাক্কা ইংল্যান্ড শিবিরে

ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগেই ধাক্কা খেল ইংল্যান্ড শিবির। চোটের কারণে প্রথম একাদশ থেকে বাদ পড়লেন ওপেনার জ্যাক ক্রাউলে। বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ECB) তরফে এক বিবৃতিতে এই খবর জানানো হল। বিবৃতিতে জাননো হয়েছে, ‘ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম দুই টেস্টে থেকে বাদ পড়েছেন জ্যাক ক্রাউলে। কারণ মঙ্গলবার প্যাক্টিসের জন্য ড্রেসিংরুম থেকে মাঠে যাওয়ার সময় পাথরের মেঝেতে পা পিছলে পড়ে যান তিনি। সেই সময়ে কবজিতে চোট পেয়েছিলেন ইংরেজ ওপেনার। স্ক্যান রিপোর্টে দেখা গিয়েছে তাঁর ডান কবজিতে চিড় হয়েছে’। ফলে বুধবার অনুশীলনে বাকি সকলকে দেখা গেলেও, ক্রাউলেকে দেখা যায়নি। ফলে টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে ভালো খবর ভারতীয় দলের কাছে।

করোনার জেরে বাতিল হল অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ

ক্রিকেট প্রেমীদের কাছে দুসংবাদ, বাতিল হল অজিদের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। ভারতের কাছে ঘরের মাটিতে হেরে টেস্ট চ্যাম্পিয়ান্স ফাইনালের দৌড়ে বেশ কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে ডেভিড ওয়ার্নাররা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে জিততে মরিয়া ছিল অজিরা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়ল তাঁরা।
সোমবার অস্ট্রেলিয়া দলের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেনের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকায় দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ শুরু হয়েছে। চিকিৎসকদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করার পর এটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়া থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় যাওয়া হলে তা ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফদের স্বাস্থ্য-নিরাপত্তা হানি করতে পারে। এটা সকলের পক্ষেও বিপজ্জনক’। প্রায় নিশ্চিত অস্ট্রেলিয়া দল আর কোন ভাবেই টেস্ট চ্যাম্পিয়ন শিপের শীর্ষে অথবা দুই নম্বরে পৌঁছাতে পারবে না। তৃতীয় স্থানে থাকা তাঁদের পয়েন্ট ৬৯.২। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নিউজিল্যান্ডের পয়েন্ট ৭০ ও ৭১.৭ শতাংশ পেয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে ভারত।  ৫ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ভারত সঙ্গে ইংল্যান্ডেরের শুরু হচ্ছে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

ক্রিকেট মাঠে মোদি

আসন্ন ভারত ইংল্যান্ডের বেশির ভাগ ম্যাচ হবে আহমেদাবাদ, চেন্নাই এবং পুনেতে। বাজেট অধিবেশনের মধ্যেই টেস্ট ম্যাচ শুরু হচ্ছে, তার সাথে ওয়ান ডে এবং টি২০ ম্যাচেও হবে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের জয়কে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছিলেন। তাঁর শুভেচ্ছায় আপ্লুত অজিঙ্ক রাহানে থেকে নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। টুইট করে বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। যদিও প্রধানমন্ত্রীর ক্রিকেট প্রীতি নিয়ে এর আগে প্রতিক্রিয়া না  থাকলেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ কিন্তু ক্রিকেট ভালোবাসেন এবং তিনি গুজরাত ক্রিকেট কর্তা ছিলেন।
এবারে আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকার কথা মোদি এবং অমিত শাহের। এই মাঠে কিন্তু দিন রাতের ম্যাচ রয়েছে। যে কোনও একদিন প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত থেকে দুই দলের খেলোয়াড়দের সাথে পরিচিত হবেন।

অস্ট্রেলিয়ার ছোট্ট ইন্ডি রে কোহলির বিশাল ভক্ত

ফুটবল দুনিয়ায় সকলের পরিচিত নাম লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তাঁরা এক অপরে আবার চিরপ্রতিদন্দ্বী বলাই যায়। কিন্তু দেখা গিয়েছে পর্তুগিজ তারকা রোনান্ডোর ছেলে লিওনেল মেসিকে সমর্থন করার ছবি। আবার তার ঠিক উল্টো ছবি মেসির ছেলেকে রোনাল্ডোকে সমর্থন করতে। ক্রিকেট দুনিয়া এইরকমই এক ছবি উঠে এল। যেখানে অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের মেয়ে ইন্ডি রে-কে দেখা গেল বিরাট কোহলির জার্সি গায়ে। এই সুন্দর ছবি মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়।

বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি জিতে দেশে ফিরেছে টিম ইন্ডিয়া। যদিও ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি অজিদের বিরুদ্ধে শুধুমাত্র প্রথম টেস্টেই খেলেছিলেন। তারপর পিতৃত্বকালীন ছুটি নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন। তবে সেই ম্যাচে চোটের কারণে ছিলেন না অজি তারকা ক্রিকেটার ডেভিড ওয়ার্নার। শনিবার ডেভিড ওয়ার্নার তাঁর মেয়ের বিরাট কোহলির জার্সি পড়া ছবি ইনস্ট্রাগামে পোস্ট করেছেন। ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আমি জানি আমরা সিরিজ হেরেছি, কিন্তু এই মেয়েটি এখানে বেজায় খুশি। বিরাট কোহলি, ধন্যবাদ জানালাম নিজের জার্সিটা দেওয়ার জন্য। বাবাকে ছাডা় এই মেয়েটি অ্যারন ফিঞ্চ এবং বিরাট কোহলির বিশাল ভক্ত’। এই মুহূর্ত দেখে বোঝা যায় প্রতিদন্দ্বিতা শুধু মাঠেই সীমাবদ্ধ।


চেন্নাইয়ে উইকেটের পিছনে কে?

ঋষভ পন্থ অস্ট্রেলিয়াতে শেষ টেস্ট জয়ের অন্যতম কারিগর, এখন তিনি জাতীয় হিরো তাঁকে বাদ দিয়ে ভারতীয় দল ভাবাই যায় না। কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে ভারতের পিচ নিয়ে এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলির ইচ্ছা নিয়ে। অস্ট্রেলিয়ার পিচ দ্রুতগামী ফলে যে কোনও উইকেটকিপার উইকেটের ২০ গজ পিছনে দাঁড়ালে ফাস্ট বোলারের বল ধরতে পারেন, যদিও স্পিনের ক্ষেত্রে কিছুটা অসুবিধা হয়ে থাকে বল বাউন্স করার জন্য। এবারে পন্থের কিন্তু উইকেটের পিছনে অনেক ক্ষেত্রেই ত্রুটি ধরা পড়েছিল। অন্যদিকে ঋদ্ধিমান এখন বিশ্বের সেরা কিপার।
কোহলি বরাবরই ঋদ্ধির উপর ভরসা রাখেন। সমস্যা চেন্নাইয়ের পিচ নিয়ে। আজ অবধি চিরকালই চেন্নাইয়ের পিচে দ্বিতীয় দিন থেকেই স্পিন ধরে। শেষ দুই দিন ব্যাটসম্যানদের এই স্পিনের মুখে খেলতে খুবই অসুবিধা হয়। অবশ্যই দলে ফিরছেন অশ্বিন এবং জাদেজা। এই ক্ষেত্রে তুখোড় কিপার না থাকলে ক্যাচ কিংবা স্ট্যাম্প করতে অসুবিধা হওয়ার কথা। এবার প্রশ্ন পন্থ কি শুধু ব্যাটসম্যান হিসাবে দলে আসবেন নাকি দুটি কাজই করতে হবে তাঁকে?