করোনা ছড়াচ্ছে প্রবল বেগে

বিশেষজ্ঞ মহল জানাচ্ছেন, দু দিনের মধ্যে ১লক্ষ ছুঁইছুঁই | এতো প্রবল বেগে ছড়ানোর কারণ কি ? জানা গিয়েছে লন্ডন এবং আফ্রিকার দুই নব্য স্ট্রেন ভারতে এসে প্রতিদিন ১ থেকে ১০ হতে সময় নিচ্ছে না | ভয়ঙ্কর ভয়ের বিষয় জানাচ্ছেন চিকিৎস্যক মহল, যদিও টিকা করণ শুরু হয়েছে তবুও কোথাও কোথাও শোনা গিয়েছে টিকা নেওয়ার পর নাকি সংক্রামিত হচ্ছে মানুষ ( CN অবশ্য যাচাই করেনি ) | সব থেকে সমস্যা হচ্ছে ভোট কে কেন্দ্র করে |

নেতানেত্রীদের মুখে মাস্ক নেই যত্রতত্র রোড শো করছেন | মালা পড়ছেন, জনতার মধ্যে ফুল ছড়িয়ে দিচ্ছেন ইত্যাদি | জনতা সেলফি তোলার নামে নেতাদের ঘনিষ্ঠ হচ্ছে | চিকিসকদের বক্তব্য, ৭২ ঘন্টা অবধি ভাইরাস বেঁচে থাকে, ফুলেও ভাইরাস থাকতে পারে | ফুল কি স্যানিটিস করা হচ্ছে | অনেকেই সেই ফুল বা মালা পরে থাকছেন অনেক্ষন | ফলে ভোটের কারণে করোনা ছড়াতে পারে | এরপর তো ভোটের লাইন আছেই | জানা যাচ্ছে এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে সর্বকালের সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্ত হবে নাকি ভারত |    

দেশে হু হু করে বাড়ছে করোনা, মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ফের বৈঠকে বসছেন মোদি

দেশে ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। মহারাষ্ট্রের অবস্থা তো এমনিতেই খারাপের দিকে, একাধিক শহরে লকডাউন ও নাইট কারফিউ জারি করতে হয়েছে নতুন করে। এবার দক্ষিণের রাজ্যগুলিতেও হু হু করে বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। ফলে চিন্তায় পড়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সূত্রের খবর, গোটা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চাইছেন ফের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে। সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী আগামী বুধবার হতে পারে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। সেখানে বর্তমান করোনা পরিস্থিতি নিয়ে যেমন আলোচনা হবে, তেমনিই টিকাকরণ  নিয়েও কথা হবে বলে জানা যাচ্ছে।
সোমবার দেশে নতুন করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ছিল ২৪,৪৩৪ জন। অপরদিকে গত রবিবার এই সংখ্যা ২৬ হাজার পেরিয়েছিল, যা গত ডিসেম্বরের পর সর্বোচ্চ। বিগত কয়েকদিন ধরে নতুন করে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ২০ হাজার টপকে যাচ্ছে। ফলে কপালে চিন্তার ভাঁজ বাড়ছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য কর্তাদের। অপরদিকে দেশে করোনা টিকাকরণ শুরু হওয়ার পর থেকে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার দুপুরে ভার্চুয়ালি এই বৈঠক হওয়ার কথা। এই বৈঠকে করোনা সংক্রমণ কমানোর জন্য নতুন কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কিনা সেটাই এখন দেখার।  

    

দেশের মধ্যে প্রথম করোনামুক্ত হল অরুণাচল প্রদেশ

দেশের পশ্চিমাঞ্চলে যখন নতুন করে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, তখনই পূর্বাঞ্চলের রাজ্য অরুণাচল প্রদেশে সকলেই করোনামুক্ত হলেন। অর্থাৎ দেশের মধ্যে এই রাজ্যই আর একজনও সক্রিয় করোনা রোগী নেই। রবিবার অরুণাচলের এক শীর্ষ আধিকারিক জানালেন, এই রাজ্যে আর কোনও করোনা আক্রান্ত নেই। সুস্থতার হার ৯৯.৬৬ শতাংশ। বর্তমানে এই রাজ্যে সংক্রমণের হার শূন্য। আর গত ২৪ ঘন্টায় কেউ করোনায় আক্রান্তও হননি বলে জানিয়েছেন লোবসাং জাম্পা নামে ওই আধিকারিক।


উল্লেখ্য, অরুণাচল প্রদেশে মোট ১৬ হাজার ৮৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যে ১৬ হাজার ৭৮০ জন সুস্থ হয়ে গিয়েছিলেন ইতিমধ্যেই। যে তিনজন সক্রিয় করোনা রোগী ছিলেন তাঁরাও রবিবার তাঁরা সুস্থ হয়ে গেলেন। শনিবার মোট ৩১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যাদের কারও রিপোর্ট পজিটিভ আসেনি বলেই দাবি অরুণাচল সরকারের। আরও জানা গিয়েছে, অরুণাচলে এখনও পর্যন্ত ৩২ হাজার ৩২৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী এবং সামনের সারির করোনা যোদ্ধাদের টিকা দেওয়া হয়েছে।

কলকাতায় সরানো হতে পারে ভারত-ইংল্যান্ড ওয়ান ডে সিরিজ

কলকাতার ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য সুখবর আসতে পারে শীঘ্রই। চলতি ভারত-ইংল্যান্ড ওয়ান ডে সিরিজের তিনটি ম্যাচ কলকাতায় হতে পারে। মহারাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ আচমকা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্যই ওয়ান ডে সিরিজ সরিয়ে দিতে পারে বিসিসিআই। সেক্ষেত্রে প্রথম পছন্দ কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স। বিসিসিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে, আপাতত ভাবনা চিন্তার স্তরে রয়েছে এই পরিকল্পনা। উল্লেখ্য, আগামী ২৩, ২৬ ও ২৮শে মার্চ মহারাষ্ট্রের পুনেতে ম্যাচগুলি হওয়ার কথা ছিল।


তবে বোর্ডের অন্দরে পশ্চিমবঙ্গে ভোট নিয়েও আলোচনা চলছে। কারণ পশ্চিমবঙ্গে প্রথম দফার ভোট আগামী ২৭ মার্চ। এই পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক ম্যাচের আয়োজন করা আদৌ সম্ভব কিনা সেটা নিয়েই চিন্তায় বোর্ড কর্তারা। তবে ওই সময় কলকাতায় ভোট পড়ছে না। তাই আপাতত কলকাতাকে প্রাথমিক তালিকায় রাখা হয়েছে। যদি পুলিশ ও প্রশাসনের নিরাপত্তা সংক্রান্ত ছাড়পত্র পাওয়া যায় তবে পুনে থেকে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ কলকাতায় হবে।

করোনা মোকাবিলায় মোদির প্রশংশায় পঞ্চমুখ WHO-প্রধান

করোনা মোকাবিলায় ভারত অগ্রণী ভূমিকা গ্রহন করেছে। সুচারুভাবে করোনা সংক্রমণ ঠেকিয়ে প্রাণহানি অনেকটাই কমাতে পেরেছে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার। এছাড়া বিশ্বের একাধিক দেশে করোনার টিকা পাঠিয়েছে ভারত। সবমিলিয়ে করোনা মোকাবিলায় ভারত এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রশংশায় পঞ্চমুখ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) প্রধান টেড্রস অ্যাডানম গেব্রিয়েসাস (Tedros Adhanom Ghebreyesus)। পাশাপাশি তিনি অগ্রণী ভূমিকা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন। টুইটারে টেড্রস অ্যাডানম গেব্রিয়েসাস লিখেছেন, কোভ্যাক্সের প্রতি আপনি দায়বদ্ধতা ও টিকা সাম্যকে সমর্থন দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী (নরেন্দ্র মোদি)। আপনার পাঠানো ভ্যাকসিন সহযোগিতা করছে ৬০টি দেশকে। সে দেশগুলি তাদের স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্যান্যদের টিকাকরণ শুরুও করেছে। আশা করি অন্য দেশগুলিও আপনার কাজকে অনুসরণ করবে।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ, ভুটান, মায়ানমার, নেপাল, মালদ্বীপ সহ আফ্রিকার একাধিক দেশে করোনার টিকা (Corona Vaccine) পাঠিয়েছে ভারত। আরও কয়েকটি দেশে দিন কয়েকের মধ্যেই টিকা পাঠাবে ভারত। দেশের অভ্যন্তরেও টিকাকরণ দ্বিতীয় পর্যায়ে পড়বে আগামী ১ মার্চ থেকে। এই পর্যায়ে দেশের বয়স্ক এবং কো-মর্বিডিটি যুক্ত ব্যাক্তিরা করোনার টিকা পাবেন। বর্তমানে দেশে করোনা সংক্রমণ অনেকটাই স্বস্তিদায়ক বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীর করোনা ধরা পড়ল

রবিবার মঞ্চে বক্তৃতা করার সময় অজ্ঞান হয়ে পড়ে গিয়েছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি। সোমবারই তাঁর করোনা ধরা পড়ল। আমেদাবাদের একটি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে। বদোদরার নিজামপুরা এলাকায় দলের পুরভোটে প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করছিলেন তিনি। সেইসম.য়ই তিনি মঞ্চে পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর উড়িয়ে আনা হয় আমেদাবাদে।
দলীয় সূত্রের খবর, গত ২ দিন ধরেই তাঁর স্বাস্থ্য ভালো ছিল না। তবুও তিনি জোর করেই সভায় গিয়েছিলেন। শনিবার জামনগরের সভায় তিনি বক্তৃতাও করেছিলেন। পড়ে যাওয়ার আগে তিনি বলছিলেন, রাজ্যে কড়া লাভ জেহাদ আইন তৈরি করা হচ্ছে। বিধানসভায় এই মর্মে বিল আনা হচ্ছে। যেভাবে মেয়েদের প্রলোভন দেখানো হচ্ছে, তা বরদাস্ত করা যায় না।

মাস্কে ঢাকা ২১-ও

সংক্রমণ কমেছে, কমেছে মৃত্যুর হার কিন্তু করোনা বিদায় নেয়নি, বরং ব্রিটেনে নব্য করোনায় ফের আতঙ্কিত ইউরোপসহ বিশ্ব। অবশ্য নতুন করে ভয়াবহ অবস্থার খবর এখনও ভারতে নেই, পাশাপাশি শুরু হয়েছে টিকাকরণ। আজকের ভারতে অনেকটাই স্বস্তিতে মানুষ। ট্রামে বাসে ট্রেনে অনেককেই সামাজিক দূরত্বকে বুড়ো আঙ্গুল দেখতে দেখা যাচ্ছে। অনেকেই মাস্ক ছাড়া ঘোরাঘুরি করছে, অনেকেই লোক দেখানোর জন্য নাকটি খোলা রেখে মুখটি ঢেকে রেখেছে। এই দৃশ্য আকছার দেখা যাচ্ছে এ বাংলাতেও। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা বা হু পরিষ্কার বার্তা দিয়েছে, ২০২১ সালেও করোনা আতঙ্ক চলে যাচ্ছে না। তারা কড়া বার্তা দিয়েছে এই বছরে "মাস্ক মাস্ট" অর্থাৎ টিকা নিন বা একবার করোনা আক্রান্ত হলেও সারাবছর মাস্ক পরে থাকতে হবে। হাত পা পরিষ্কার করতে হবে বারবার। খাওয়াদাওয়ার বিষয়ে যা নির্দেশনামা ছিল তাই চলবে বছরভর।

অলিম্পিক্স নিয়ে বড়সড় ঘোষণা করল জাপান সরকার

গত বছর টোকিও অলিম্পিক্স শুরু হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু করোনার জন্য তা প্রায় একবছর পিছিয়ে গিয়েছে। করোনাকে হার মানিয়ে ২৩ জুলাই থেকে টোকিওতে শুরু হচ্ছে বিশ্বের সব থেকে বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। তার আগেই স্বস্তির খবর অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীদের কাছে। অলিম্পিক্স চলাকালীন কোনও প্রতিযোগীকেই কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না এমনই নির্দেশিকা জারি করল জাপান সরকার। শুধু চারদিন অন্তর কোভিড পরীক্ষা করতে বলে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে। সেই পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এলেই মাঠে নামার অনুমতি পাবেন খেলোয়াড়রা।
মঙ্গলবার জাপান সরকারের তরফে ৩৩ পাতার একটি নির্দেশনামা প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে আসন্ন অলিপিক্সে অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীদের কোয়ারেনটিনে থাকার কোনও প্রয়োজন নেই বলে জানানো হয়েছে। নির্দেশনামায় আরও বলা হয়েছে যে, অলিম্পিক্সের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা কোনও ব্যক্তি বাস, ট্রেনে যাতায়াত করতে পারবেন না। কমিটির তরফ থেকে দেওয়া গাড়ি ব্যবহার করতে হবে তাঁদের।

চিনের উহানে গিয়েও করোনার উৎপত্তি বের করতে পারল না হু

কোনও ল্যাবরেটরি থেকে নয়, মধ্যবর্তী কোনও প্রাণীর মাধ্যমেই তা মানবদেহে ছড়িয়েছে। তবে চিনের উহানে একমাস ঘুরেও কোন প্রাণী থেকে করোনাভাইরাস ছড়াল তা খুঁজে বের করতে পারল না বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু-র বিশেষজ্ঞদল। তাঁদের বিশ্বাস, পৃথিবীতে ২৩ লাখ লোকের মৃত্যুর কারণ যে ভাইরাস তা বাদুড় থেকেই ছড়িয়েছে। তবে অন্য কোনও স্তন্যপায়ী জীবের সাহায্য ছাড়া এই সংক্রমণ ছড়াতে পারে না। প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট টডোনাল্ড ট্রাম্প সরাসরি অভিযোগ করেছিলেন, চিনের ল্যাবরেটরি থেকেই করোনা ছড়িয়েছে।
হু-র পিটার বিশেষজ্ঞ বেন এমবারেক জানিয়েছেন, উহানের তদন্তে নতুন কিছু বিষয় উঠে এসেছে। তবে করোনা সংক্রমণের ব্যাপারে নাটকীয় কোনও তথ্য আসেনি। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে উহানের বাজারের বাইরে যে ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে তার প্রমাণ মিলেছে। তবে তার আগে এই ভাইরাস ছড়ানোর পিছনে করোনাভাইরাস থাকার কোনও প্রমাণও মেলেনি। এর আগে এক চিনা বিশেষজ্ঞ লিয়াং ওয়ান্নিয়নান বলেছেন, করোনাভাইরাস উহানে ছড়ানোর আগে অন্য অঞ্চলেও ছড়াচ্ছিল। ২০১৯ সালের শেষে তা ধরা পড়ে উহানে। তার আগে উহানে এই ভাইরাস ছিল না। গত ১৪ জানুয়ারি এই বিশেষজ্ঞদল উহানে পৌঁছেছিল। তারা মাছবাজার, উহান ইন্সটিটিউট অফ ভাইরোলজি সহ বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখেন। তাঁরা বলছেন, করোনার উৎপত্তি বুঝতে বহু বছর লাগবে।

ভারতে টিকার অনুমতির আবেদন তুলে নিল ফাইজার

ভারতে জরুরি প্রয়োগের জন্য তাদের আবেদন প্রত্যাহার করল মার্কিন ওষুধ কোম্পানি ফাইজার। এদেশে করোনার টিকাকরণের জন্য প্রথম আবেদনই করেছিল ফাইজার। ব্রিটেন এবং বাহরিনে অনুমোদন পাওয়ার পরই ভারতে টিকাকরণ ছিল তাদের লক্ষ্য। ৩ ফেব্রুয়ারি ভারতের ড্রাগ রেগুলেটরি অথরিটির বিশেষজ্ঞ কমিটির বৈঠকে ফাইজার অংশ নিয়েছিল। 
ফাইজার বিবৃতিতে জানিয়েছে, সেই বৈঠকের আলোচিত বিষয় এবং অথরিটির চাহিদামতো অতিরিক্ত তথ্যের জন্য তাদের বিবেচনার ভিত্তিতে তারা তাদের আবেদন তারা তুলে নিচ্ছে। পরে ফাইজার আরও আলোচনার ভিত্তিতে আরও তথ্য দিয়ে নতুন করে আবেদন জমা দিতে পারে। ভারতের প্রয়োজনে তারা ভবিষ্যতে টিকা দিতে তৈরি। গত জিসেম্বরে ফাইজার ভারতে টিকা সরবরাহ ও বিক্রির জন্য আবেদন দিয়েছিল।

করোনার জেরে বাতিল হল অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ

ক্রিকেট প্রেমীদের কাছে দুসংবাদ, বাতিল হল অজিদের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। ভারতের কাছে ঘরের মাটিতে হেরে টেস্ট চ্যাম্পিয়ান্স ফাইনালের দৌড়ে বেশ কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে ডেভিড ওয়ার্নাররা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে জিততে মরিয়া ছিল অজিরা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়ল তাঁরা।
সোমবার অস্ট্রেলিয়া দলের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেনের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকায় দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ শুরু হয়েছে। চিকিৎসকদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করার পর এটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়া থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় যাওয়া হলে তা ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফদের স্বাস্থ্য-নিরাপত্তা হানি করতে পারে। এটা সকলের পক্ষেও বিপজ্জনক’। প্রায় নিশ্চিত অস্ট্রেলিয়া দল আর কোন ভাবেই টেস্ট চ্যাম্পিয়ন শিপের শীর্ষে অথবা দুই নম্বরে পৌঁছাতে পারবে না। তৃতীয় স্থানে থাকা তাঁদের পয়েন্ট ৬৯.২। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নিউজিল্যান্ডের পয়েন্ট ৭০ ও ৭১.৭ শতাংশ পেয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে ভারত।  ৫ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ভারত সঙ্গে ইংল্যান্ডেরের শুরু হচ্ছে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

সোমবার থেকেই খুলছে একাধিক রাজ্যের স্কুল-কলেজ

দেশে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের পরিসংখ্যান স্বস্তি দিয়েছে চিকিৎসকদের। ইতিমধ্যে দেশব্যাপী চলছে ভ্যাকসিন পর্ব। জুন মাস নাগাদ দেশে তৃতীয় টিকাও অাসতে চলেছে। এই পরিস্থিতিতে ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেই স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কয়েকটি রাজ্য। গুজরাট, মেঘালয়, তেলেঙ্গানা ও জন্মু এবং কাশ্মীর সহ বেশ কয়েকটি রাজ্য স্কুল কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রায় ১০ মাস করোনার জেরে দেশ জুড়ে বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়। অনলাইনে ক্লাস হলেও অনেকক্ষেত্রেই সে সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন বহু সংখ্যক পড়ুয়া। এদিকে সামনেই রয়েছে বিভিন্ন বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা। পড়ুয়াদের সুবিধাতেই এই সিদ্ধান্ত। কিছু কিছু স্কুল অবশ্য অাগেই ঐচ্ছিক ভাবে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু করেছিল। জানা গেছে, স্কুল ও উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জন্যই অাপাতত অফলাইন ক্লাস শুরু করা হবে। কিন্তু এক্ষেত্রেও পড়ুয়ারা স্কুলে অাসবেন কিনা সেবিষয়টি ঐচ্ছিক থাকবে। সেক্ষেত্রে যে সমস্ত পড়ুয়ারা অাসবেন তাদের জন্য লিখিত সম্মতি প্রয়োজন।
স্কুল খোলা হলেও করোনা সংক্রমণ এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে শিক্ষক থেকে পড়ুয়াদের। বাধ্যতামূলক করা হবে মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার। এছাড়া ক্লাসরুমে ও স্টাফ রুমে শিক্ষক ও পড়ুয়াদের মধ্যে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।
এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক স্কুল খোলার দিনক্ষণ :
গুজরাট - ১ ফেব্রুয়ারি
জন্মু এবং কাশ্মীর- দশম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ১ ফেব্রুয়ারি এবং শীতপ্রধান অঞ্চলে ১৫ ফেব্রুয়ারি
কর্ণাটক-  ৯ ফেব্রুয়ারি 
মেঘালয়- ১ ফেব্রুয়ারি
তেলেঙ্গানা- ১ ফেব্রুয়ারি
হরিয়ানা- ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির স্কুল খুলবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে
পঞ্জাব- ১ ফেব্রুয়ারি থেকে সরকারি প্রি-প্রাইমারি, বেসরকারি স্কুলগুলিতেও অফলাইন ক্লাস শুরু হবে।
অন্ধ্রপ্রদেশ- ১ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে
দিল্লি- নবম ও একাদশের ক্লাস হবে ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে
হিমাচল প্রদেশ- পঞ্চম, অষ্টম-দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে। পাহাড়ি এলাকায় স্কুল খুলবে ১৫ তারিখ থেকে। এছাড়া টেকনিক্যাল কলেজগুলি ফেব্রুয়ারি ১ ও সরকারি কলেজগুলি ৮ তারিখ থেকে খুলবে।

পিছোল পরীক্ষাসূচি, ফেব্রুয়ারি-মার্চে হচ্ছে না আইসিএসসি-আইএসসি ফাইনাল

পিছোল পরীক্ষাসূচি। ফেব্রুয়ারি-মার্চে হবে না ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের আইসিএসসি ও আইএসসি বোর্ডের ফাইনাল পরীক্ষা। করোনার জেরে ইতিমধ্যেই পিছিয়েছে সিবিএসই, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। এবার বদলাল আইসিএসই, আইএসসির পরীক্ষার সূচি। The Council for the Indian School Certificate Examinations (CISCE)-এর তরফ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী ফেব্রুয়ারি-মার্চে আপাতত পরীক্ষা নেওয়া হবে না। পরবর্তী ক্ষেত্রে পরিস্থিতি ও উপযুক্ত সময় বুঝে পরীক্ষার সূচি ঘোষণা করা হবে। 

বোর্ড সূত্রে খবর, করোনার জেরে দীর্ঘদিন বন্ধ রয়েছে স্কুল। অনলাইন ক্লাস হলেও অনেকক্ষেত্রেই বাকি রয়ে গেছে সিলেবাস। পড়ুয়াদের সুবিধার কথা মাথায় রেখেই পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে পরীক্ষার সময়। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে নির্বাচনও রয়েছে আগামী কয়েকমাসের মধ্যে। তবে পরীক্ষা পিছিয়ে গেলেও ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষ শুরু হবে নির্দিষ্ট সময়েই। স্কুলগুলিকে এই সংক্রান্ত নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মার্চ ও জুন মাস থেকেই CISCE বোর্ডের নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়ে যাবে বলে খবর। তবে কবে থেকে স্কুল খুলবে ও ক্লাস শুরু হবে সে বিষয়টি এখনও জানানো হয়নি। 


বান্ধবীর জন্মদিন পালন করে বিপাকে রোনাল্ডো

ফের বিপাকে রোনাল্ডো, বান্ধবীকে নিয়ে চুটিয়ে ছুটি কাটালেন ইতালিতে। সেখানেই বান্ধবীর জন্মদিন পালন করলেন উদ্দাম পার্টি করে। এরপরই বিপাকে পড়লেন পর্তুগীজ তারকা। অভিযোগ, সেখানে তিনি কঠোর করোনাবিধি উপেক্ষা করেছেন। উল্লেখ্য, ইতালি সরকার আগেই ঘোষণা করেছিল করোনার নয়া স্ট্রেনের জন্য ফ্রান্স থেকে যেন কেউ প্রবেশ না করেন। এই নির্দেশিকা কার্যকর থাকবে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। তবে একমাত্র স্বাস্থ্য পরিষেবা এবং আপতকালীন কাজের জন্যই ফ্রান্স থেকে ইতালিতে প্রবেশ করা যেতে পারে। কিন্তু ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এই নির্দেশিকা অমান্য করেই বান্ধবীকে সঙ্গে নিয়ে ইতালি প্রবেশ করেন। যে রিসর্টে তাঁরা ওঠেন সেটি তুরিন শহর থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে। এখানে যেতে আসতে হলে ফ্রান্সের সীমানা অতিক্রম করতে হয়। ফলে রোনাল্ডো তাঁর দুদিনের সফরে দু’বার ফ্রান্সের সীমান্ত অতিক্রম করেন সড়কপথে।

ইতালির সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী রোনাল্ডো এবং তাঁর বান্ধবী রদ্রিগেজ দুজনেই ইতালির বেল বেনি এলাকায় ছুটি কাটিয়েছেন। মঙ্গলবার ছিল রদ্রিগেজের ২৭তম জন্মদিন। ফলে ভালো সময় কাটানোর জন্যই দুজনেই সেখানে যান, এবং তুরিনে ফিরে আসেন। খবরটি সংবাদপত্রের শিরোনামে আসতেই নড়েচড়ে বসে ইতালি প্রশাসন। তদন্ত শুরু হয়েছে। যদি অভিযোগ প্রমানিত হয় তবে বড়সড় জরিমানার মুখে পড়তে হতে পারে রোনাল্ডোকে। শোনা যাচ্ছে তাঁর ৪০ হাজার ইউরো জরিমানা হতে পারে।