ফের ডেল্টার দাপট, সংক্রমণ বাড়ছে শিশুদের

করোনার নয়া প্রজাতি ডেল্টার দাপট বাড়ছে ক্রমশই। তবে গত কয়েক সপ্তাহে বদলেছে ছবিটা। এদিকে স্কুল খোলার মুখে শিশুদের মধ্যে বাড়ছে সংক্রমণ। এর জন্য ডেল্টা স্ট্রেনের দাপট এবং ১২ বছরের কমবয়সিদের টিকা না-পাওয়াকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। যদিও ১২ বছরের কমবয়সিদের উপরে পরীক্ষা চালাচ্ছে মডার্না ও ফাইজ়ার। ফাইজ়ার জানিয়েছে, ৫ থেকে ১১ বছর বয়সিদের পরীক্ষার তথ্য মিলবে সেপ্টেম্বর নাগাদ। তার পরে হাতে আসবে ২ থেকে ৫ বছরের শিশুদের ফলাফল।

যারা আরও ছোট, অর্থাৎ ৬ মাস থেকে ২ বছর বয়সি শিশুদের উপরে পরীক্ষা-পর্বের তথ্য মিলবে অক্টোবর বা নভেম্বর নাগাদ। দ্য আমেরিকান অ্যকাডেমি অব পেডিয়াট্রিকস (আপ) জানিয়েছে, শুধুমাত্র ৮-১৫ জুলাইয়ের মধ্যে ২৩,৫৫০টি শিশুর দেহে নতুন করে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যা জুনের শেষার্ধের পরিসংখ্যানের প্রায় দ্বিগুণ। যদিও আপের মতে, শিশুদের মধ্যে গুরুতর অসুস্থ হওয়ার হার খুবই কম। আমেরিকায় ১২ বছরের কমবয়সিদের টিকাকরণ এখনও শুরু হয়নি। সুতরাং এ বছরের মধ্যে শিশুদের টিকাকরণের সম্ভাবনা যে খুবই কম তা স্পষ্টত ।


শিশুদের করোনা টিকার ট্রায়াল শুরু হচ্ছে

কলকাতা: কলকাতায় শুরু হবে এবার শিশুদের করোনা টিকার ট্রায়াল। ' জাইডাস ক্যাডিলার' নামক এই টিকার ট্রায়াল শুরু করা হবে।  মূলত ১২-১৮ বছর বয়সি শিশুদের জন্য। যদিও এই টিকার ট্রায়াল হবে পার্ক সার্কাসে ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেলথ হাসপাতালে। এদিকে কলকাতায় ট্রায়াল শুরু করা হবে ১০০ জনের ওপর।  ভালো সেচ্ছাসেবক পাওয়া গেলেই এই ট্রায়াল শুরু করা হবে।  দেশে মোট ১ হাজার ৫০০ জন শিশু এই ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবে।

জাইডাস ক্যাডিলা শীঘ্রই ড্রাগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ডিসিজিআই-এর কাছ থেকে এই টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন পেতে আবেদন করতে পারে। ১২ বছর বা তার বেশি বয়সের শিশুদের জন্য এটি ভারতের প্রথম টিকা হতে পারে। যদিও করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ আসতেই দেশে হু হু করে বাড়ছে যেমন সংক্রমণ। তারপর তৃতীয় ওয়েভ আসার সম্ভাবনা প্রবল। যেখানে বলা হচ্ছে,শিশুদের ওপর সংক্রমণ বেশি হবে।  তাই সংক্রমণ রুখতে আগেভাগেই করোনা টিকার ট্রায়াল শুরু হচ্ছে এবার শিশুদের জন্য।

তৃতীয় ওয়েভ না আসতেই করোনায় মৃত্যু সদ্যোজাত শিশুর

মুম্বই: এবার মহারাষ্ট্রে সদ্যোজাত শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল । গত ৩১ মে শিশুটি জন্মেছিল। অনেক চেষ্টা করেও বাঁচাতে পারলনা তাঁর পরিবার। এদিকে জানা যায়, সোমবার মহারাষ্ট্রের পালঘরে এক বেসরকারি হাসপাতালে শিশুটি জন্ম নেয়। যদিও ওই হাসপাতালে শিশুটির মা  মা ও তার করোনা টেস্ট করতেই তার মায়ের নেগেটিভ আসে।কিন্তু সংক্রমণ হল শিশুটি।

এরপর চিকিৎসা করা জন্য তৎক্ষণাৎ তাকে একাধিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা ঠিকমত না হওয়ায় শেষমেষ তাকে বাঁচানো গেলোনা।পরিবারের তরফে তাই জানানো হয়েছে। এদিকে গত এপ্রিল মাস থেকে যেভাবে হু হু করে বাড়ছে করোনা। যেখানে মহারাষ্ট্রে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে।তারমধ্যে দেশে তৃতীয় ওয়েভ আসার সম্ভাবনা। যেখানে বাচ্চারা বেশি সংক্রমিত হবে। তার আগেই মহারাষ্ট্রে এমন এক ঘটনা হতে দেখা গেল।

করোনা কেয়ার সেন্টারে শৌচাগার পরিষ্কার করছে শিশু, প্রকাশ্যে ভাইরাল ভিডিও

মহারাষ্ট্র: করোনা কেয়ার সেন্টারে এবার ৮ বকরের শিশুকে শৌচাগার পরিষ্কার করতে দেখা গেল।   ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের বুলধানায়. ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়।   সেখানে দেখা যাচ্ছে গ্রাম পঞ্চায়েতের এক সদস্য ওই শিশুকে দিয়ে পরিষ্কার করাচ্ছে। রীতিমত  মারাঠি ভাষায় তাকে নির্দেশ দিচ্ছে শৌচাগার পরিষ্কারের জন্য। এরপর ওই পঞ্চায়েতের সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়।   

করোনা অতিমারিতে মহারাষ্ট্রের মরোর গ্রামের জেলা পরিষদ স্কুলে আইসোলেশন সেন্টার তৈরী করা হয়। এদিকে স্কুলের পরিদর্শনে আসার কথা জেলা পরিষদের। কিন্তু তার আগেই এই ঘটনা। যেখানে এই করোনা কেয়ার সেন্টারের শৌচাগার কেউ পরিষ্কার করতে চাইছেনা।   এরপর ওই ৮ বছরের শিশুকে দিয়ে  রীতিমত জোর করে শৌচাগার পরিষ্কার করিয়ে নেওয়া হয়. তবে শিশুটি জানায়, তাকে কাঠ  দিয়ে মারার ভয় দেখায়। এরপর ভয় পেয়েই একপ্রকার সে কাজটি করে।   ইতিমধ্যে ভিডিও ভাইরাল হওয়ার জেরে গ্রাম পঞ্চায়েতের ওই সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়। এদিকে ঘটনাটির তদন্ত চলছে।