রামদেবের প্রবেশ ও রবীন্দ্রনাথের প্রস্থান

বিতর্কের মধ্যে থাকাটা বিজেপির নেতাদের কি স্বাভাবিক চিন্তন ? এমনটিই হচ্ছে নিয়মিত, এবারে ফের শীর্ষ খবর রবীন্দ্রনাথের ছোট গল্প 'ছুটি'কে দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠক্রম থেকে বাদ দেওয়া এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠক্রমে যোগী আদিত্যনাথের লিখিত বই 'হঠযোগ স্বরূপ এবং সাধনা'কে প্রবেশ করানো একই সাথে চরণ সিং বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে রামদেবের 'যোগা চিকিৎস্যা রহস্য' বইটিকে পাঠক্রমে আনা  হয়েছে । এখানেই শেষ নয়, বাতিল করা হয়েছে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ড. সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণানের 'টি উইমেন্স এডুকেশন" বইটি । বাতিল হয়েছে আরও অনেক বিখ্যাত বইও ।

রবীন্দ্রনাথের ছুটি বিখ্যাত ছোট গল্প, যা কিনা সারা বিশ্বে ' দ্যা হোম কামিং ' নাম অনূদিত । শুধু উত্তরপ্রদেশ নয় সারা ভারতের বুদ্ধিজীবীরা এই ঘটনায় স্তম্বিত । পশ্চিমবঙ্গের বিশেষজ্ঞদের প্রশ্ন যেখানে স্বয়ং নরেন্দ্র মোদি ইদানিং কথায় কথায় রবীন্দ্রনাথকে কোট করেন এবং তিনি রবীন্দ্রনাথের মতো বেশভূষা করতে চান সেখানে তাঁদেরই অঙ্গরাজ্যে এই হটকারী ঘটনা ঘটে কি করে ? প্রসঙ্গত মোদি  বর্তমানে  বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ।

রামজন্মভূমি তুরুপের তাস মোদির

আসন্ন উত্তরপ্রদেশ এবং ত্রিপুরা বিধানসভা নিয়ে মহা চিন্তায় কেন্দ্রীয় বিজেপি | দুটি রাজ্যের মানুষ বর্তমান সরকার নিয়ে খুশি নয় | কর্মহীন মানুষ সবচেয়ে বেশি উত্তরপ্রদেশে তার সঙ্গে করোনা সংকট তো আছেই | টিকা করণ হয়েছে নামমাত্র এই প্রদেশে | মোদি প্রমুখেরা শোনা যাচ্ছে যোগীকে বাদ দিয়ে নতুন মুখের সন্ধানে ছিলেন কিন্তু সঙ্ঘ পরিবারের চেইপ তা আর সম্ভব হয় নি বলে সূত্রের খবর | মোদির প্রধান চিন্তা ২০২৪ এর লোকসভা , যেখানে উত্তরপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি আসন |

ভাবনা চিন্তা করে কেন্দ্র বিজেপি তথা মোদি ঠিক করছেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে রামমন্দিরকেই ইস্যু করবেন তারা | তার অযোধ্যাকে আধ্যাত্মিক এবং পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে ফোকাস করবেন | বিশ্বজুড়ে স্মার্ট সিটির যে রমরমা তাতে রামমন্দিরকে বা অযোধ্যাকে স্মার্ট সিটির আখ্যা দিতে চলেছেন তারা | কিন্তু শুধু রামমন্দির দিয়ে ভোট জেতা যায় কি ? মানুষের কর্মহীনতা, স্বাধীনতা এবং পিটার খিদে নিয়েই যে আগামী ভোট তা বলাই বাহুল্য |  

নড়বড়ে যোগীরাজ্যে টীকাতেও লাস্টবয়

প্রশাসনিক দায়িত্বজ্ঞানহীনতায় এমনিতেই যোগী আদিত্যনাথ অন্য রাজ্য থেকে অনেকটাই পিছিয়ে বলে দাবি কংগ্রেসের | বাস্তবেও যোগীকে নিয়ে যা চর্চা তা পূর্বতন কোনও মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হয় নি | এবারে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের দায় যোগীকেই দেওয়া হচ্ছে, উত্তরাখণ্ডের সাথে | এখন তাঁর নব্য সমস্যা টিকাকরণ |


জানা গিয়েছে, উত্তর প্রদেশের মতো বৃহত্তম রাজ্য টিকা করণে সবথেকে পিছিয়ে রয়েছে | আগামী বছর সেখানে ভোট, এটিকে অন্যতম ইস্যু করছে বিরোধী দলগুলি | প্রমাদ গুনে যোগীকে শুক্রবার দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়েছে | পাশাপাশি যোগীর প্রশংসা করতে পথে নেমেছে গেরুয়া আইটি সেল | মোদি ও যোগীর প্রচারের জন্য হাজার হাজার ব্যানারে ভর্তি রাজ্যটি |


অন্যদিকে অবিলম্বে উত্তর প্রদেশের উপমুখ্যমন্ত্রী ঠিক করতে চান মোদি | তাঁর পছন্দ প্রাক্তন আমলা অরবিন্দ কুমার শর্মা | অরবিন্দ ব্রাহ্মণ ফলে উচ্চ বর্ণের ভোট টার্গেট মোদির | কিন্তু অরবিন্দকে একদমই পছন্দ নয় যোগীর | আপাতত তাঁর পছন্দ অপছন্দ বাদ দিয়ে নতুন স্ট্রাটেজি তৈরী হচ্ছে | টিকার বিষয়ে জোর দিতেই হবে যোগীকে | মাত্র ২.৫১ শতাংশ দুটি ডোজ নিতে পেরেছে সে রাজ্যে |  

যোগীর জন্মদিনে নেই প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাবার্তা

নয়া দিল্লি: এবছর উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের জন্মদিনে টুইট নেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। শুধু মোদী নয়,এবারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ ও টুইট করেন নি।  এদিকে যোগীর মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী মোদী তার আস্থাভাজন,প্রধানমন্ত্রীর প্রাক্তন আমলা অরবিন্দকুমার শর্মাকে জায়গা করে দিতে চাইছেন

। তা নিয়েই মোদী ও যোগীর সংঘাত বাঁধে। যদিও গতবছর নরেন্দ্র মোদী যোগীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু এবারে সেই শুভেচ্ছা না আসায় জোর  জল্পনা চলছে।

যোগীর আইটি সেলের সদস্য বহিস্কৃত

বিজেপির আইটি সেল যথেষ্ট শক্তিশালী এবং বিভিন্ন সময়ে তাদের প্রচার নিয়ে প্রচুর বিতর্ক হয়েছে । উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নাকি এরকমই একটি সংস্থা আছে যারা সারা বছর যোগীকে নিয়ে প্রচার করে ।সম্প্রতি একটি  অডিও  লোকসমাজের সামনে এসেছে , যেখানে দুই ব্যক্তিকে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে । উঠে আসছে একটি আবেদন যে, যোগী আদিত্যনাথকে  নিয়ে টুইট করলেই দু টাকা পাওয়া যাবে ।

এই অডিও  প্রাক্তন আইএএস সূর্য্যপ্রতাপ সিং শেয়ার করেন ।  সাথে সাথেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কে শুরু হয় বিতর্ক । সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়  কংগ্রেস থেকে সমাজবাদী পার্টি সহ নানান রাজনৈতিক দলের মধ্যে । প্রমাদ গুনে দ্রুত ওই আইটি সেলের প্রধান মনমোহন সিংকে বরখাস্ত করা হয় । কিন্তু তাতেও বিতর্ক শেষ হয় না । এবারে বিজেপি আইটি সেল থেকে জানানো হয় যে এটি একটি বেসরকারি সংস্থার কাজ ।  কিন্তু যোগীর সোশ্যাল নেট যারা দেখেন তারাও তো বেসরকারিই । এবারে কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় তাই দেখার ।          


ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত উত্তরপ্রদেশ

একদিকে যখন ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের অভিযোগে এ রাজ্যে ধরণা দিচ্ছে বিজেপি, তখন হিংসা এবং খুনোখুনিতে উত্তপ্ত যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশ। সম্প্রতি ওই রাজ্যের একটি বড় অংশের পঞ্চায়েত ভোট হয়ে গেল। তাতে বিজেপি পর্যদুস্তু হয়ে পরাজয়ের মুখে পড়েছে। অভিযোগ, এরপরই প্রতিহিংসা এবং বিরোধীদের উপর অত্যাচার শুরু হয়েছে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ইতিমধ্যেই ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং আহত বহু। মূলত যোগীর কেন্দ্র গোরক্ষপুর সহ আজমগর, জৈনপুর সহ বহু জায়গায় লাগাতার হিংসার ঘটনা সামনে আসছে। ওই রাজ্যে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ ২০০০ জনের বেশি সরকারি পক্ষের ক্যাডারদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। তা সত্বেও হিংসা থামছে না। গোটা ঘটনায় সরব হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতৃত্ব। মুখে কুলুপ এটেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।